আজঃ শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১
শিরোনাম

পুঁজিবাজারে সূচকের মিশ্র প্রবণতা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৫০৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) পুঁজিবাজারে সূচকের মিশ্র প্রবণতার মধ্য দিয়ে লেনদেন শেষ হয়েছে। এদিন দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ও অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) লেনদেন কমেছে।

ডিএসই ও সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, বৃহস্পতিবার  ডিএসই প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স ৮ পয়েন্ট বেড়ে ৭ হাজার ২৫০ পয়েন্টে অবস্থান করছে। অন্য দুই সূচকের মধ্যে শরীয়াহ সূচক ১ পয়েন্ট কমে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ১ পয়েন্ট বেড়ে যথাক্রমে ১৫৮১ ও ২৬৭৩ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

বৃহস্পতিবার ডিএসইতে এক হাজার ৮৫২ কোটি ৪২ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের লেনদেন হয়েছে। আগের কার্যদিবসের চেয়ে ডিএসইতে ২৯৮ কোটি টাকার লেনদেন কমেছে। আগের দিন ডিএসইতে দুই হাজার ১৫০ কোটি ৬৮ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের লেনদেন হয়েছিল। 

বৃহস্পতিবার ডিএসইতে ৩৭৫টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিটের লেনদেন হয়েছে। এগুলোর মধ্যে দাম বেড়েছে ১৪৫টি কোম্পানি কমেছে ১৮৫টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৫টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিটের দর।

বৃহস্পতিবার লেনদেনের শীর্ষে থাকা ১০ প্রতিষ্ঠান হলো- বেক্সিমকো লিমিটেড, অরিয়ন ফার্মা, বেক্সিমকো ফার্মা, ডেল্টা লাইফ, এসএস স্টিল, আলিফ ইন্স্যুরেন্স, প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল, ম্যাকসন স্পিনিং,  একটিভ ফাইন ও সাইফ পাওয়ার।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই এদিন ১১ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ২১ হাজার ১৪৬ পয়েন্টে। এদিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ৩১৫টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে

১১৫টির, কমেছে ১৭৪টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৬টির কোম্পানির শেয়ার দর।

বৃহস্পতিবার সিএসইতে ৫০ কোটি ৮১ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। যা আগের দিনের চেয়ে ১২ কোটি টাকার লেনদেন কমেছে। আগের দিন সিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ৬২ কোটি ৩৩ লাখ টাকার।


আরও খবর
নাটকীয় উত্থানে ঘুরে দাঁড়াল পুঁজিবাজার

বৃহস্পতিবার ২১ অক্টোবর 20২১

নাটকীয় উত্থানে ঘুরে দাঁড়াল পুঁজিবাজার

বৃহস্পতিবার ২১ অক্টোবর 20২১




হিন্দু-মুসলিম ভ্রাতৃত্ব নিয়ে মহাত্মার অসাধারণ প্রার্থনা

প্রকাশিত:শনিবার ০২ অক্টোবর 2০২1 | হালনাগাদ:শনিবার ০২ অক্টোবর 2০২1 | ৪২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

১৯৪৭ সালের ২ অক্টোবর। গান্ধীর ৭৯তম জন্মদিন। তার মাত্র দেড় মাস আগে স্বাধীন হয়েছে ভারত। ৪৭ এর দাঙ্গায় তখন বিধ্বস্ত দেশটি। দেশভাগের ক্ষত তখন গভীরতম। সেই সময়ে ৭৯তম জন্মদিনে একটি প্রার্থনা করেছিলেন মহাত্মা গান্ধী।

ঠিক যখন ভারতে হিন্দুত্ববাদী মতাদর্শ মাথাচাড়া দিয়েছে, মুসলিমবিদ্বেষের ছবি যখন পুরো ভারত জুড়ে, তখন একবার হলেও ফিরে যাওয়া যাক, গান্ধীর সেই প্রার্থনায়।

দ্য কালেক্টেড ওয়ার্কস অফ মহাত্মা গান্ধী-র ৮৯তম খণ্ডে আছে সেই প্রার্থনার নথি।

আজ আমার জন্মদিন। আমার জন্য এই দিনটা শোকের। আমার লজ্জা করে, আশ্চর্য লাগে, এখনও বেঁচে আছি ভাবলে। আমি সেই মানুষটা, যার কথা এই দেশের লক্ষ লক্ষ মানুষ একদিন সম্মান করেছে। কিন্তু আজ আমার কথা কেউ শোনে না। আপনারা চান, ভারতে শুধু হিন্দুরাই থাকুক আর বলেন, আর কেউ এখানে থাকবে না। আপনারা আজ হয়তো মুসলিমদের মেরে ফেলতে পারেন, কিন্তু আগামিকাল আপনারা কী করবেন?

এখনও কিছু মুসলিম রয়েছেন আমাদের মধ্যে, যাঁরা আমাদেরই। আমরা যদি তাঁদের মারতে উদ্যত হই, আমি সে কাজে নেই। সেই প্রথম যখন আমি ভারতে এসেছিলাম, তখন আমার কর্তব্য ছিল সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষার উদ্দেশ্যে কাজ করা। আমার মনে হয়, আমাদের ধর্ম আলাদা হলেও আমরা এক সঙ্গে ভ্রাতৃত্ব, সৌহার্দ্যের সঙ্গে বাঁচতে পারি। কিন্তু আজ মনে হয় আমরা শত্রু হয়ে গেছি। আমরা বলি, সৎ মুসলিম কেউ হতে পারে না। মুসলিমরা কোনও দিনই কোনও কাজের নয়।

এই পরিস্থিতিতে ভারতে আমার জায়গা কোথায়, আমার বেঁচে থাকার মানে কী? আমি এখন ১২৫ বছর অবধি বাঁচার ভাবনা ছেড়ে দিয়েছি। ১০০ বছর, এমনকী ৯০ বছর পর্যন্ত বাঁচার কথাও ভাবি না। আমি ৭৯ বছরে পৌঁছলাম। কিন্তু এমনকী সেটাও আমার কাছে যন্ত্রণার। যাঁরা আমাকে বোঝেন, অনেকেই আছেন তেমন তাঁদের আমি বলব এই পাশবিকতা আমাদের ত্যাগ করা উচিত।

পাকিস্তানে মুসলিমরা কী করছে, তা নিয়ে আমার মাথা ব্যথা নেই। এমন নয় যে হিন্দুদের মেরে মুসলিমরা মহান হয়ে যাবে, তাতে তারা নৃশংসই হবে। কিন্তু তার মানে কি এটা যে আমাকেও পশু হতে হবে, অসংবেদনশীল বর্বর হতে হবে? এসব কিছু হতে আমি পারব না, দৃঢ় ভাবে এসব কাজ প্রত্যাখ্যান করব আমি এবং আপনাদেরও নিষেধ করব এমন কাজ করতে।

আপনারা যদি সত্যিই আমার জন্মদিন পালন করতে চান, তা হলে এটাই আপনাদের কর্তব্য যাতে কেউ উন্মত্ত না হয়ে যায় তা দেখা, যদি হৃদয়ে রাগ জন্মায়, তা মুছে ফেলতে হবে। আপনারা যদি এইটুকু করেন, সেটই আমার কাছে আপনার ভালো কাজ বলে স্বীকৃত হবে। আমি এইটুকুই শুধু আপনাদের বলতে চাই।


নিউজ ট্যাগ: মহাত্মা গান্ধী

আরও খবর



আশুলিয়ায় নিরাপদ সড়কের দাবিতে "নিসচা’র" র‌্যালী ও মানববন্ধন

প্রকাশিত:শুক্রবার ২২ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২২ অক্টোবর ২০২১ | ৫৪০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সাভার থেকে আসাদুজ্জামান খাইরুল

সাভারের আশুলিয়ায় নিরাপদ সড়কের দাবীতে, গতিসীমা মেনে চলি, সড়ক দুর্ঘটনা রোধ করি এই স্লোগানে র‌্যালী ও মানববন্ধন করে নিসচার( নিরাপদ সড়ক চাই) এর আশুলিয়া থানা কমিটি।

শুক্রবার সকালে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের বাইপাইল বাসস্ট্যান্ডে সংগঠনটির আশুলিয়া থানা কমিটির উদ্যোগে এই কর্মসূচী পালিত হয়।

এসময় তাঁরা মহাসড়কে ফিটনেস ও লাইসেন্সবিহীন যানবাহন চলাচল বন্ধের দাবি জানান। এছাড়া মহাসড়কের পাশে অবৈধ পার্কিং বন্ধ, মহাসড়কে তিন চাকার বাহন চলাচল বন্ধ, হাইওয়ে পুলিশের নজরদারি বৃদ্ধি, মহাসড়কের পাশে বাজার/বাসস্ট্যান্ড/শিল্পকারখানার অন্তর্গত অংশে যানবাহনের সর্বোচ্চ গতিনির্দেশক চিহ্ন ও বাস্তবায়ন, সবার সচেতনতা বৃদ্ধিতে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ, সড়ক আইন অমান্য করলে চালকের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ এবং মহাসড়কে সব ট্রাক, ডাম্প ট্রাক চলাচল বন্ধসহ মহাসড়কে বিশৃঙ্খলতার মাধ্যমে নৈরাজ্য সৃষ্টিকারী পরিবহনগুলোর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবিও জানান তাঁরা।

র‌্যালী ও মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন, নিসচার থানা কমিটির সভাপতি শাকিল আহমেদ সিনিয়র সহ-সভাপতি মোঃ আলমগীর হোসেন নিরব, সহ-সভাপতি মোঃ রানা, সাধারণ সম্পাদক মোঃ সীমান্ত, ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক মোঃ হৃদয় হোসেন, দপ্তর সম্পাদক মোঃ মোকলেছুর রহমান, প্রচার সম্পাদক মোঃ রবিউল ইসলাম, আন্তর্জাতিক সম্পাদক মোঃ কবির হোসেন ও সদস্য মোঃ বাকের শেখসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।


আরও খবর
৩৪ দিন আটকে রেখে কিশোরীকে গণধর্ষণ

বৃহস্পতিবার ২১ অক্টোবর 20২১




চিংড়ি পোলাও তৈরির সহজ রেসিপি

প্রকাশিত:রবিবার ০৩ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ০৩ অক্টোবর ২০২১ | ৫১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
প্রথমে চিংড়ি পরিষ্কার করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে রাখতে হবে। এবং চাল ধুয়ে পানি ঝরিয়ে রাখতে হবে। কড়াইয়ে প্রথমে তেল/ঘি দিয়ে গরম করে নিন

ছুটির দিনের বিশেষ আয়োজনে সহজ কিছু চাইলে রান্না করতে পারেন চিংড়ি পোলাও। এটি তৈরি করতে উপকরণ খুব বেশি দরকার হয় না আবার সময়ও লাগে কম। সেইসঙ্গে খেতেও ভীষণ সুস্বাদু। যারা চিংড়ি একটু বেশি পছন্দ করেন তাদের জন্য চমক হিসেবে রাখতে পারেন চিংড়ি পোলাও। চলুন রেসিপি জেনে নেওয়া যাক-

তৈরি করতে যা লাগবে

চিংড়ি মাছ- দেড় কাপ, তেল/ঘি মিলিয়ে- ৬ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ কুচি- ১/২ কাপ, পেঁয়াজ বাটা- ২ টেবিল চামচ, রসুন বাটা- ১ চা চামচ, আদা বাটা- ১/২ চা চামচ, জিরা বাটা- ১ চা চামচ, এলাচ/দারুচিনি- ৪/৫টি, কাঁচামরিচ বাটা- ১ চা চামচ, পোলাও চাল- ২ কাপ, কেওড়া জল- ১ টেবিল চামচ, নারিকেলের দুধ- ২ কাপ, চিনি- ১ টেবিল চামচ, লবণ- পরিমাণমতো, পানি- ২ কাপ।

তৈরি করবেন যেভাবে

প্রথমে চিংড়ি পরিষ্কার করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে রাখতে হবে। এবং চাল ধুয়ে পানি ঝরিয়ে রাখতে হবে। কড়াইয়ে প্রথমে তেল/ঘি দিয়ে গরম করে নিন। তেল/ঘি গরম হয়ে গেলে পেঁয়াজ কুচি দিয়ে কিছুক্ষণ ভেজে নিন। এরপর সব মশলা দিয়ে সামান্য পানি দিয়ে মশলা কষাতে হবে ৫ মিনিট। মশলায় চিংড়ি মাছ দিয়ে আরও ৫ মিনিট ঢাকনা দিয়ে রান্না করতে হবে।

এবার আরেকটি পাত্রে পোলাওয়ের চাল, পানি, কেওড়া জল, নারিকেল দুধ ও চিনি দিয়ে চুলা অল্প আঁচে দিয়ে রাখতে হবে। পোলাওয়ের পানি শুকিয়ে এলে অর্ধেক পোলাও উঠিয়ে রেখে রান্না করা চিংড়ি মাঝে দিয়ে উপরে বাকি পোলাও দিতে হবে। ২০-২৫ মিনিট দমে রেখে পোলাও হয়ে গেলে নামিয়ে ফেলতে হবে। উপরে বেরেস্তা দিয়ে পরিবেশন করুন মজাদার চিংড়ি পোলাও।


আরও খবর
আজকের ভালো মন্দ

শুক্রবার ২২ অক্টোবর ২০২১

আজ আপনার জন্মদিন হলে

বুধবার ২০ অক্টোবর ২০21




স্ত্রী হত্যার দায়ে সাবেক পুলিশ সদস্যের মৃত্যুদণ্ডাদেশ

প্রকাশিত:বুধবার ০৬ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৬ অক্টোবর ২০২১ | ৫২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

খুলনায় স্ত্রী হত্যার দা‌য়ে পু‌লি‌শের সা‌বেক এপিবিএন কনস্টেবল মাহমুদ আলম‌কে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

বুধবার (৬ অক্টোবর) খুলনা বিভাগীয় জননিরাপত্তা বিঘ্নকারী অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. সাইফুজ্জামান হি‌রো এ রায় দেন। এ রায় ঘোষণার সময় আসামি মাহমুদ আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য মো. মাহমুদ আলম সাতক্ষীরা আশাশুনি থানার জামালনগর গ্রামের জবেদ আলী সরকারের ছেলে। তিনি খুলনার শিরোমনিতে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নে (এপিবিএন) কর্মরত ছিলেন। অন্যদিকে নিহত যোহানা আক্তার ঊষা পাইকগাছা উপজেলার কালিদাসপুর গ্রামের জামাল উদ্দিনের মেয়ে।

জানা গেছে, ২০১৯ সালের ৬ এপ্রিল সকাল সাড়ে ৭টা থেকে দুপুর দেড়টা নাগাদ যোগীপোল ইউনিয়নের বাসিন্দা মনিরুল ইসলামের ভাড়া বাড়িতে এ হত্যার ঘটনা ঘটে। পারিবারিক কলহের জের ধরে স্ত্রী যোহানা আক্তার ঊষাকে শ্বাসরোধে হত্যা করেন স্বামী মাহমুদ আলম। এ ঘটনায় নিহতের ভাই জি এম সোহেল ইসলাম বাদী হয়ে খানজাহান আলী থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক (এসআই) নৃপেন বিশ্বাস একই বছরের ১৫ আগস্ট আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। আদালত ৭ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে রায় ঘোষণা করেন। মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি ছিলেন আরিফ মাহমুদ লিটন।

এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন রাষ্ট্রপ‌ক্ষের আইনজীবী আরিফ মাহমুদ লিটন।


আরও খবর



এসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্রের তালিকা প্রকাশ

প্রকাশিত:সোমবার ১১ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১১ অক্টোবর ২০২১ | ৪১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
শিক্ষা বোর্ড বলছে, বিজ্ঞানে শিক্ষার্থীদের ২০ নম্বরকে ৫০ ও নৈর্ব্যক্তিকের ১২ নম্বরকে ২৫ নম্বরে রূপান্তর করে মোট প্রাপ্ত নম্বর নির্ধারণ করা হবে

আগামী ১৪ নভেম্বর শুরু হবে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা। ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে যেসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পরীক্ষা আয়োজন হবে সেসব কেন্দ্রের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে।

সোমবার (১১ অক্টোবর) ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইটে এ তালিকা প্রকাশ করা হয়।

জানা গেছে, এ বছরের এসএসসি ও সমমান এবং এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা ১৪ নভেম্বর থেকে শুরু হবে। এসএসসির তত্ত্বীয় বিষয়ের পরীক্ষা ১৪ নভেম্বর শুরু হয়ে শেষ হবে ২৩ নভেম্বর। এবার তত্ত্বীয় পরীক্ষা জেএসসির ফলাফল মূল্যায়ণ করে নম্বর ম্যাপিং করে নম্বর দেওয়া হবে। নৈর্বাচনিক তিন বিষয়ের তিন পরীক্ষা নেওয়া হবে।

এ পরীক্ষায় সময়, নম্বর ও প্রশ্ন সংক্ষিপ্ত করা হয়েছে। তিন বিষয়ের নম্বর যুক্ত করে এ বছর এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হবে। তবে কারিগরিতে সব বিষয়ের পরীক্ষা নেওয়া হবে। প্রতি বছর ফেব্রুয়ারির শুরুতে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা শুরু হয়। কিন্তু করোনার কারণে সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে পরীক্ষা নেওয়ার প্রস্তুতি চলছে।

অন্যদিকে, এইচএসসি পরীক্ষায় তত্ত্বীয় বিষয়ের পরীক্ষা ২ ডিসেম্বর শুরু হয়ে শেষ হবে ৩০ ডিসেম্বর।

যত নম্বরে পরীক্ষা:

এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার নম্বর বিভাজন প্রকাশ করেছে ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড। এসএসসি ও এইচএসসির বিজ্ঞান বিভাগের পরীক্ষার্থীরা প্রতি বিষয়ে ৩২ নম্বরের পরীক্ষায় অংশ নেবে। এর মধ্যে রচনামূলক ২০ নম্বর ও এমসিকিউতে (নৈর্ব্যক্তিকে) থাকবে ১২ নম্বর। মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের বিষয়গুলোয় শিক্ষার্থীরা ৪৫ নম্বরের পরীক্ষা দেবে। এর মধ্যে ৩০ নম্বর রচনামূলক ও ১৫ নম্বরের নৈর্ব্যক্তিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। রচনামূলক ও নৈর্ব্যক্তিকের নম্বরকে ১০০ নম্বরে রূপান্তর করে প্রাপ্ত নম্বর নির্ধারণ করা হবে।

এসএসসির বিজ্ঞানে নম্বর বিভাজন:

ঢাকা বোর্ড প্রকাশিত এসএসসি পরীক্ষার নম্বর বিভাজনে বলা হয়েছে, পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, উচ্চতর গণিত ও জীববিজ্ঞান বিষয়ে পরীক্ষার রচনামূলক অংশে শিক্ষার্থীদের ৩২ নম্বরের পরীক্ষা দিতে হবে। এর মধ্যে রচনামূলক ২০ আর নৈর্ব্যক্তিক অংশে ১২ নম্বরের পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে পরীক্ষার্থীদের।

বিজ্ঞান বিভাগের রচনামূলক অংশে ৮টি প্রশ্ন থাকলেও যেকোনো দু’টির উত্তর দিতে হবে শিক্ষার্থীদের। ১০ করে ২০ নম্বর। নৈর্ব্যক্তিক অংশে ২৫টি প্রশ্নের মধ্যে ১২টির উত্তর দিতে হবে। এখানে নম্বর ১২। মোট ৩২ নম্বরের পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে এসএসসিতে বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের।

শিক্ষা বোর্ড বলছে, বিজ্ঞানে শিক্ষার্থীদের ২০ নম্বরকে ৫০ ও নৈর্ব্যক্তিকের ১২ নম্বরকে ২৫ নম্বরে রূপান্তর করে মোট প্রাপ্ত নম্বর নির্ধারণ করা হবে।

এসএসসির মানবিক ও ব্যবসায় নম্বর বিভাজন:

এসএসসির মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থীদের ৪৫ নম্বরের পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে। রচনামূলকে ৩০ নম্বর ও নৈর্ব্যক্তিকে ১৫ নম্বরের পরীক্ষা হবে। এর মধ্যে রচনামূলক অংশে ১১টি প্রশ্ন থাকলেও উত্তর দিতে হবে যেকোনো ৩টির। প্রতিটির মান ১০। নৈর্ব্যক্তিকে ৩০টি প্রশ্ন থাকলেও উত্তর দিতে হবে ১৫টির। প্রতিটি প্রশ্নের জন্য ১ নম্বর করে মোট ১৫।

মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থীদের ৩০ নম্বরকে ৭০ ও নৈর্ব্যক্তিকের ১৫ নম্বরকে ৩০ নম্বরে রূপান্তর করে শিক্ষার্থীদের মোট নম্বর নির্ধারণ করবে বোর্ড। প্রতিটি বিষয়ের পরীক্ষা ১ ঘণ্টা ৩০ মিনিটে হবে। রচনামূলক ১ ঘণ্টা ১৫ মিনিট ও নৈর্ব্যক্তিকে সময় ১৫ মিনিট।

নিউজ ট্যাগ: এসএসসি

আরও খবর