আজঃ মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

রাজনৈতিক দলের সঙ্গে ইসির সংলাপ শুরু

প্রকাশিত:শনিবার ০৪ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শনিবার ০৪ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে আজ (৪ নভেম্বর) ফের দলগুলোর সঙ্গে সংলাপে বসেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এজন্য সব নিবন্ধিত দলকে চিঠি দিয়েছে সংস্থাটি।

৪৪টি নিবন্ধিত দলের মধ্যে আজ (শনিবার) সকাল সাড়ে ১০টায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগসহ ২২টি দলকে নিয়ে সংলাপে বসেছে ইসি। একজন প্রতিনিধি নিয়ে আওয়ামী লীগের পক্ষে সংলাপে অংশ নিচ্ছেন দলটির সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য সাবেক বাণিজ্যমন্ত্রী কর্নেল (অব.) ফারুক খান।

বিএনপিসহ ২২টি দলকে নিয়ে বিকেলে আলোচনায় বসতে চায় ইসি। তবে বিএনপির মহাসচিব ও দলটির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে কারো হাতে চিঠি পৌঁছে দেওয়া যায়নি। ফলে সংলাপে বিএনপির অংশ নেওয়া অনিশ্চিত। 

আরও পড়ুন>> আজ মতিঝিল পর্যন্ত মেট্রোরেল উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

এদিকে গত ২৮ অক্টোবর সংঘর্ষে বিএনপির মহাসমাবেশ পণ্ড হয়ে যাওয়ার পর দলের নেতাদের বিরুদ্ধে অন্তত ৪২টি মামলার খবর পাওয়া গেছে। এসব মামলায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, আমীর খসরু, যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলালসহ বেশ কিছু নেতা গ্রেফতার হয়ে কারাগারে।

দলটির সিনিয়র নেতাদের বাসায় বাসায় তল্লাশি চলছে। দলটির পল্টন কার্যালয় ঘেরাও করে রেখেছে পুলিশ।


আরও খবর
সংরক্ষিত আসনের এমপিদের শপথ বুধবার

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




নাভালনির মৃত্যুর জন্য পুতিন দায়ী: বাইডেন

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

রাশিয়ার বিরোধী দলের নেতা অ্যালেক্সি নাভালনির মৃত্যুতে তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। তিনি বলেন, কারাবন্দি অবস্থায় বিরোধী এ রাজনীতিকের মৃত্যুর দায় প্রেসিডেন্ট পুতিনকে নিতে হবে।

তিনি বলেন, পুতিন সরকার নাভালনির মৃত্যুর জন্য দায়ী এতে কোনো সন্দেহ নেই। পুতিন নাভালনির মৃত্যুর জন্য দায়ী এত কোনো ভুল নেই। খবর-গার্ডিয়ান

হোয়াইট হাউসে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এখনও কী ঘটেছে তার বিস্তারিত  জানে না। নাভালনির সঙ্গে যা ঘটেছে তা পুতিনের বর্বরতার আরও একটি প্রমাণ। কাউকে বোকা বানানো উচিত নয়।

এদিকে প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সমালোচক অ্যালেক্সি নাভালনির মৃত্যুর তদন্ত দাবি করেছে যুক্তরাষ্ট্র। কারাবন্দি অবস্থায় তার মৃত্যুর পরপর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র অবিলম্বে ঘটনাটির তদন্ত দাবি করেছেন। 

আরও পড়ুন>> লোহিত সাগরে ব্রিটিশ জাহাজে হুতির ক্ষেপণাস্ত্র হামলা

৪৭ বছর বয়সী নাভালনি রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের কট্টর সমালোচক হিসেবে পরিচিত ছিলেন। পুতিনের প্রতিদ্বন্দ্বীও মনে করা হতো তাকে। ২০২১ সাল থেকে নাভালনি কারাবন্দী। ২০২৩ সালের শেষ দিকে সাইবেরিয়ার একটি কারাগারে (ইয়ামালিয়ার ৩ নম্বর পেনাল কলোনি) নেওয়া হয় তাকে। শুক্রবার সেখানেই তার মৃত্যু হয়।

রাশিয়ার ফেডারেল পেনিটেনশিয়ারি সার্ভিস এক বিবৃতিতে বলেছে, নাভালনি চেতনা হারিয়েছিলেন এবং কারাগারে হাঁটাহাঁটির পর মারা যান। তাকে বাঁচানোর জন্য সব প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছিল তবে তা কাজে দেয়নি। 


আরও খবর
পেট্রোল রপ্তানি নিষিদ্ধ করল রাশিয়া

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

বাড়িঘর পুড়িয়ে ছাই করে দিচ্ছে জান্তা সরকার

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




নওগাঁয় পর্নোগ্রাফি সংরক্ষণ ও বিক্রয় চক্রের ৩ সদস্য আটক

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ফয়সাল আহম্মেদ, নওগাঁ প্রতিনিধি

Image

নওগাঁর ধামইরহাট থেকে পর্নোগ্রাফি সংরক্ষণ ও বিক্রয় চক্রের তিন সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব। মঙ্গলবার ভোরে উপজেলার মঙ্গলবাড়ী বাজার এলাকায় থেকে তাদের আটক করা হয়। র‌্যাব-৫ জয়পুরহাট থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে র‌্যাব ৫।

আটকরা হলেন- ধামইরহাট উপজেলার মুকুন্দপুর গ্রামের নৃপেন্দ্র নাথ সরকার এর ছেলে নিত্য সরকার (২৪) এবং জয়পুরহাট জেলার সদর উপজেলার বিল্লা গ্রামের আজিজুল ইসলামের ছেলে শহিদ হোসেন (২২) ও দোগাছী গ্রামের আবু হানিফ এর ছেলে সিফাত হোসেন (১৮)।

র‌্যাব জানায়, ধামইরহাট উপজেলার মঙ্গলবাড়ী বাজারে পর্নোগ্রাফি সংরক্ষণ করে টাকার বিনিময়ে বিভিন্ন ইলেকট্রিক ডিভাইসের মাধ্যমে কম্পিউটারের দোকান থেকে স্থানীয় কিশোর ও স্কুল পডুয়া ছাত্রদের কাছে পর্নোগ্রাফি ভিডিও সরবরাহ করে আসছিল। পরবর্তীতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-৫ গোয়েন্দা দল অশ্লীল সিনেমা ও গানের ভিডিও ক্লিপ আপলোড ব্যবসার পাশাপাশি পর্নোগ্রাফি সরবরাহের বিষয়টি তদন্ত শুরু করে এবং তদন্তে এর সত্যতা পায়। মঙ্গলবার ভোরে মঙ্গলবাড়ী বাজারে অভিযান পরিচালনা করে র‌্যাব-৫ জয়পুরহাট এর সদস্যরা। এসময় নিত্য সরকার, শহিদ হোসেন ও সিফাত হোসেনকে তাদের দোকান থেকে আটক করা হয়। তারা তাদের নিজস্ব কম্পিউটার এর হার্ডডিস্কে অশ্লীল সিনেমা ও গানের ভিডিও ক্লিপ আপলোড এর ব্যবসা করতো।

আটককৃতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে ধামইরহাট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।


আরও খবর



জরুরি অবস্থার মেয়াদ বাড়ালো মিয়ানমারের জান্তা

প্রকাশিত:বুধবার ৩১ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ৩১ জানুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বিদ্রোহীদের সঙ্গে সামরিক বাহিনীর তীব্র সংঘাত চলার মাঝেই জরুরি অবস্থার মেয়াদ আরও এক দফায় ছয় মাসের জন্য বৃদ্ধি করেছে মিয়ানমারের জান্তা। ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে বিনা রক্তপাতে এক সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতা দখল করে দেশটির সেনাবাহিনী। ওই সময় গণতান্ত্রিক উপায়ে নির্বাচিত দেশটির নেত্রী অং সান সুচিকে ক্ষমতাচ্যুত ও অবরুদ্ধ করা হয়।

ক্ষমতা দখলের পর দ্রুত দেশটিতে নির্বাচন আয়োজনের প্রতিশ্রুতি দেয় জান্তা। তবে বুধবার নতুন করে জরুরি অবস্থার মেয়াদ বৃদ্ধি মাধ্যমে দেশটিতে জাতীয় নির্বাচন আরও পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে বুধবার (৩১ জানুয়ারি) এক ‍বিবৃতিতে জান্তা বাহিনী বলেছে, পরিস্থিতি স্বাভাবিক না থাকায় এবং বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে লড়াই অব্যাহত রাখতে ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট ইউ মিন্ত সুয়ে জরুরি অবস্থার মেয়াদ আরও ছয় মাস বৃদ্ধির ঘোষণা দিয়েছেন।

প্রায় তিন বছর আগে অভ্যুত্থানের মাধ্যমে অং সান সুচিকে ক্ষমতাচ্যুত করে দেশটিতে জরুরি অবস্থা জারি করে সামরিক জান্তা। কিন্তু সেবার অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে রাস্তায় নামেন হাজার হাজার মানুষ। তারা নির্বাচিত সরকারের হাতে ক্ষমতা ফিরিয়ে দেওয়ার দাবি জানান। এ কারণে সাধারণ মানুষের ওপর ব্যাপক দমনপীড়ন ও হত্যাযজ্ঞ চালায় জান্তা বাহিনী।

পরে দেশজুড়ে জান্তার বিরুদ্ধে সশস্ত্র প্রতিরোধ গড়ে তোলেন দেশটির সাধারণ জনতা ও বিদ্রোহীরা। এছাড়া অন্যান্য বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠীগুলোও আরও সক্রিয় হয়ে ওঠে। দেশটিতে সশস্ত্র প্রতিরোধ ঠেকাতে জরুরি অবস্থার মেয়াদ কয়েক দফায় বৃদ্ধি করেছে সামরিক জান্তা।

মিয়ানমারের জান্তা বাহিনী ২০০৮ সালের সংবিধান অনুযায়ী নিজেদের কার্যক্রম পরিচালনা করে থাকে। তাদের দাবি, এই সংবিধান এখনো কার্যকর আছে। ২০০৮ সালের সংবিধানে বলা আছে, জরুরি অবস্থা তুলে নেওয়ার ছয় মাসের মধ্যে নতুন নির্বাচন আয়োজন করতে হবে।

মিয়ানমারের স্থানীয় একটি পর্যবেক্ষক সংস্থার তথ্য অনুযায়ী, ২০২১ সালের পর অভ্যুত্থানবিরোধী প্রায় ৪ হাজার ৪০০ মানুষকে হত্যা করেছে জান্তা। তবে এত দমন-নিপীড়ন চালিয়েও সশস্ত্র প্রতিরোধ ঠেকানো যাচ্ছে না।

বিশেষ করে গত তিন মাসে দেশটির বিভিন্ন অঞ্চলের নিয়ন্ত্রণ হারিয়েছে জান্তা বাহিনী। যার মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী রাখাইন রাজ্য। রাখাইনে স্থানীয় সশস্ত্র গোষ্ঠী আরাকান আর্মির তীব্র হামলার মুখে অনেক জায়গা থেকে সরে যেতে বাধ্য হয়েছে সেনাবাহিনী।


আরও খবর
পেট্রোল রপ্তানি নিষিদ্ধ করল রাশিয়া

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

বাড়িঘর পুড়িয়ে ছাই করে দিচ্ছে জান্তা সরকার

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে রেলকে স্মার্ট প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তুলতে চাই: রেলমন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ঈশ্বরদী (পাবনা) প্রতিনিধি

Image

রেলপথ মন্ত্রী মো. জিল্লুল হাকিম বলেছেন, আমরা চেষ্টা করছি লোক নিয়োগ করে ট্রেনিংয়ের মাধ্যমে রেলকে আধুনিকায়ন ও রেলপথ মন্ত্রণালয়কে পূর্ণাঙ্গভাবে চালু করা। চেষ্টা চলছে রেলের সম্প্রসারণ, আধুনিকায়ন ও জনগণের কাছে সবচেয়ে সস্তা পরিবহন হিসেবে গড়ে তোলার।

আজ রোববার বেলা সোয়া ১১টার দিকে পাবনার ঈশ্বরদী শহরের ফতেমোহাম্মদপুরে ৯৫ বছর আগে নির্মিত বাংলাদেশ রেলওয়ে ডিজেল লোকোমোটিভ রানিং শেড পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ মোতাবেক রেল মন্ত্রণালয়কে স্মার্ট বাংলাদেশের সঙ্গে তাল মিলিয়ে আমরা রেলকে সুন্দর ও সেবামুখী স্মার্ট প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তুলতে চাই।

তিনি বলেন, বিএনপির আমলে রেলের অনেক লোককে গোল্ডেন হ্যান্ডশেকের মাধ্যমে চাকরিচ্যুত করে জনবলের সংকট সৃষ্টি করা হয়। যা এখনো অব্যাহত রয়েছে। আমরা চেষ্টা করছি লোক নিয়োগ করে ট্রেনিংয়ের মাধ্যমে রেলকে আধুনিকায়ন এবং রেলপথ মন্ত্রণালয়কে পূর্ণাঙ্গভাবে চালু করতে।

বক্তব্যের একপর্যায়ে উপস্থিত সাংবাদিকদের মন্ত্রী বলেন, আপনারা সাংবাদিক মানুষ। আমি কালকে পার্বতীপুর, সৈয়দপুরে যে কথাগুলো বলেছি তা সঠিকভাবে উপস্থাপন করা হয়নি। আপনারা তো সমাজের বিবেক। কথাগুলো যদি পজিটিভ ওয়েতে উপস্থাপন না করা হয়, সে ক্ষেত্রে কিন্তু আমি মনে করব যে আপনারা সহযোগিতা করছেন না। কিন্তু আমরা চাই আপনাদের সহযোগিতা। কারণ আপনারাও বাংলাদেশের নাগরিক, আমরাও বাংলাদেশের নাগরিক। আমরা সবাই দেশের উন্নয়ন চাই। সে ক্ষেত্রে নেগেটিভ নিউজ করে উন্নয়ন আশা করা যায় না।

মন্ত্রীর পরিদর্শনের সময় উপস্থিত ছিলেন, রেলসচিব ড. মো. হুমায়ুন কবীর, রেলওয়ের মহাপরিচালক কামরুল হাসান, অতিরিক্ত মহাপরিচালক পার্থ সরকার, পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপক অসীম কুমার তালুকদার, রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনী রাজশাহী পশ্চিমাঞ্চলের চিফ কমান্ড্যান্ট আশাবুল ইসলাম, পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ে ব্যবস্থাপক শাহ সুফী নুর মোহাম্মদ, বিভাগীয় যান্ত্রিক প্রকৌশলী মমতাজুল ইসলাম, ঈশ্বরদী ডিজেল লোকোমোটিভ রানিং শেডের ঊর্ধ্বতন উপসহকারী (ইনচার্জ) মো. শাকের জামাল, রেলওয়ে শ্রমিক লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ। এর আগে মন্ত্রী শনিবার রাতে ট্রেনযোগে নাটোরের আব্দুলপুর জংশন স্টেশনে নামেন। সেখান থেকে তিনি ঈশ্বরদীর পাকশীতে এসে রাত্রিযাপন করেন।

উল্লেখ্য, ঈশ্বরদী শহরের ফতেমোহাম্মদপুরে অবস্থিত এ স্থাপনা ব্রডগেজ রেলপথের ক্ষেত্রে দেশের সবচেয়ে বড় ডিজেল লোকোমোটিভ রানিংশেড। ১৯২৯ সালে বাষ্পীয় ইঞ্জিনের লোকশেড হিসেবে এর যাত্রা শুরু হয়। তখন এখানে বাষ্পীয় ইঞ্জিন মেরামত হতো। ষাট ও সত্তরের দশকে যুক্ত হয় ডিজেল ইলেকট্রিক লোকোমোটিভ (ইঞ্জিন)। পর্যায়ক্রমে এটি ডিজেল লোকোমোটিভ রানিং শেডে রূপান্তরিত হয়। বর্তমানে এখান থেকে ১২৭টি ইঞ্জিন বিভিন্ন ব্রডগেজ রেলপথে যাত্রী ও মালবাহী ট্রেন নিয়ে চলাচল করেছে।


আরও খবর



মধ্যপ্রদেশের হারদায় বাজি কারখানায় বিস্ফোরণ, নিহত ৬

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

ভারতের মধ্যপ্রদেশের হারদায় একটি বাজি কারখানায় বিস্ফোরণে অন্তত ছয়জন নিহত হয়েছেন, আহত হয়েছেন আরও ৬০ জন। এরমধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা যায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিস্ফোরণের তীব্রতায় কেঁপে উঠেছে আশপাশের এলাকা। এখনো আগুন নিয়ন্ত্রণে আসেনি। চেষ্টা করতে যোগ দিয়েছে অতিরিক্ত ফায়ার ইঞ্জিন।

প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী মোহন যাদব পরিস্থিতি নিয়ে কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলছেন, তিনি জানিয়েছেন, ভোপাল ও ইন্দোরের হাসপাতালগুলোতে সতর্কতা জারি করা হয়েছে। আগুনে পুড়ে যাওয়া রোগীদের চিকিৎসার জন্য প্রস্তুত থাকতে বলা হয়েছে চিকিৎসকদের।

ঘটনাস্থলের এক ভিডিওতে দেখা গেছে, বিস্ফোরনের পর কারখানা থেকে লেলিহান শিখা বের হচ্ছে। পাশের রাস্তার সবাই আতঙ্কে ছোটাছুটি করছে।

দ্রুত সেখানে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণের কাজ শুরু করেন দমকলকর্মীরা। ন্যাশনাল ডিজ্যাস্টার রিসপন্স ফোর্সও সেখানে যোগ দিচ্ছে বলে জানিয়েছেন জেলা কর্মকর্তা ঋষি গার্গ।

আগুনের লেলিহান থেকে বেঁচে ফেরা একজন কর্মী জানান, ঘটনার সময় অন্তত ১৫০ কর্মী সেখানে আটকা পড়েছেন।


আরও খবর
পেট্রোল রপ্তানি নিষিদ্ধ করল রাশিয়া

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

বাড়িঘর পুড়িয়ে ছাই করে দিচ্ছে জান্তা সরকার

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪