আজঃ বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১
শিরোনাম

রাজশাহী মেডিকেলে করোনায় আরও ৭ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:সোমবার ০৭ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ০৭ জুন ২০২১ | ৯২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় মারা গেছেন ৭ জন। রবিবার (৬ জুন) সকাল ৯টা থেকে সোমবার (৭ জুন) সকাল ৯টার মধ্যে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালের করোনা ইউনিটে মারা যান তারা।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালক সাইফুল ফেরদৌস জানান, রামেক হাসপাতালের দুই ল্যাবে ৪৭৭ জনের নমুনা পরীক্ষায় ১৯৭ জন করোনা পজেটিভ হয়েছে। যা পরীক্ষা বিবেচনায় ৪১.২৯ শতাংশ।

তিনি আরও বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় রামেক হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে ৭ জন মারা গেছেন। এই ৭ জনই প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন।

মারা যাওয়া ৭ জনের মধ্যে ৩ জনই করোনার হটস্পট চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দা। অন্যদের মধ্যে রাজশাহীর ১ জন, নওগাঁর ১ জন, পাবনার ১ জন এবং নাটোরের ১ জন রয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে তাদের মরদেহ দাফনের পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

এদিকে রবিবার (৬ জুন) বিকেলে করোনা বিষয়ক জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে। সেখানে করোনা সংক্রমণের বেড়ে যাওয়ার আশংকায় রাজশাহীতে বাড়ানো হয়েছে বিধিনিষেধের সময়। সন্ধ্যা ৭টার পরিবর্তে বিকেল ৫টা থেকে বিধিনিষেধ শুরু হবে। অর্থাৎ ৫টার মধ্যে সকল দোকান পাট বন্ধ ও মানুষের চলাচল বন্ধ করতে হবে এবং তা সকাল ৬টা পর্যন্ত বলবৎ থাকবে।



আরও খবর



লকডাউনে সাত জেলায় বন্ধ থাকবে যাত্রীবাহী নৌযান

প্রকাশিত:সোমবার ২১ জুন 20২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২১ জুন 20২১ | ৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

লকডাউন ঘোষণা করা ৭ জেলায় সকল ধরনের যাত্রীবাহী নৌযান চলাচল বন্ধ থাকবে। আগামীকাল মঙ্গলবার (২২ জুন) ভোর ৬টা থেকে সাত জেলায় যাত্রীবাহী নৌযান চলাচল বন্ধে এ নির্দেশনা দেন বিআইডব্লিউটিএ।

সোমবার বিআইডব্লিউটিএর উপপরিচালক ও জনসংযোগ কর্মকর্তা মো: মিজানুর রহমান এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, আরিচা ও মাওয়া ঘাটে চলাচলকারী সকল প্রকার লঞ্চ ও স্পিডবোটও বন্ধ থাকবে, শুধুমাত্র মালবাহী গাড়ি ফেরি পারাপার হতে পারবে।

ঢাকা বা ঢাকার বাইরে থেকে ছেড়ে আসা কোন নৌযান এই সাত জেলার মধ্যে কোনো ঘাটে দাঁড়াতে পারবে না বলেও তিনি জানান।

মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে মানিকগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ, মাদারীপুর, গাজীপুর, মুন্সিগঞ্জ, রাজবাড়ী ও গোপালগঞ্জ জেলায় বিধিনিষেধ (লকডাউন) ঘোষণা করেছে সরকার।

আগামীকাল মঙ্গলবার (২২ জুন) ভোর ৬টা থেকে সাত জেলায় ৩০ জুন পর্যন্ত এই বিধিনিষেধ (লকডাউন) কার্যকর থাকবে।

সোমবার (২১ জুন) বিকেলে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে লকডাউন সংক্রান্ত একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, এ সাত জেলায় মালবাহী ট্রাক ছাড়া অন্য কোনো যানবাহন চলাচল করতে পারবে না। এর বাইরে আরও কোন জেলা যদি প্রয়োজন মনে করে, তাহলে জেলা প্রশাসন লকডাউন দিতে পারবে।


আরও খবর



ভারতে শনাক্ত দেড় লাখে নামলো, মৃত্যু আরও ৩১২৮

প্রকাশিত:সোমবার ৩১ মে ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ৩১ মে ২০২১ | ১০৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন করে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে ১ লাখ ৫২ হাজার ৭৩৪ জন। এই সংখ্যক আক্রান্ত শেষবার ছিল ১১ এপ্রিল

করোনায় বিপর্যস্ত ভারতে প্রায় দুই মাস পর আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে দেড় লাখের মতো; মৃত্যুও কিছুটা কমেছে। মারা গেছেন আরও ৩ হাজার ১২৮ জন। সোমবার সকালে কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে গত ২৪ ঘণ্টা অর্থ্যাৎ এক দিনের এই হিসেব দিয়েছে ভারতীয় একাধিক সংবাদ মাধ্যম।

কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন করে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে ১ লাখ ৫২ হাজার ৭৩৪ জন। এই সংখ্যক আক্রান্ত শেষবার ছিল ১১ এপ্রিল।

করোনায় দৈনিক মৃতের সংখ্যাও গত কয়েকদিনের তুলনায় কমেছে। তবে এখনও তা ৩ হাজারের উপরেই রয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ১২৮ জনের।


আরও খবর
করোনার ডেল্টা প্লাসে প্রথম মৃত্যু

বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১




বান্দরবানে ডায়রিয়ায় ৭ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:সোমবার ১৪ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৪ জুন ২০২১ | ৫৩জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বান্দরবানের আলীকদম উপজেলার করুকপাতা ইউনিয়নে তিনটি পাড়ায় ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে সাতজনের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল রবিবার ও আজ সোমবার এ দুদিনে এ মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। আজ ঘটনাস্থলে দুটি মেডিকেল টিম পাঠানো হয়েছে বলে জানা গেছে।

মৃতরা হলেন মেনলিও ইয়ংচা পাড়ার বাসিন্দা রামধন ম্রো, খাইচাং ম্রো, থুংলাক ম্রো, সোনাদি পাড়ার জনরুন ত্রিপুরা এবং মাংলুম পাড়ার মাংধন ম্রো, রেংচং ম্রো, চিংরে ম্রো।

স্বাস্থ্য বিভাগ ও স্থানীয়রা জানায়, জেলার আলীকদম উপজেলার করুকপাতা ইউনিয়নের দুর্গম যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন ম্রো জনগোষ্ঠী অধ্যুষিত ইয়ংচা পাড়া, মেনলিও পাড়া, সোনাদি পাড়া, মেনরুং পাড়া, কচ্ছপিয়া পাড়া, আলিশ্যাপা পড়া, রুইথং পাড়া, তংরিং পাড়া এবং মাংলুম পাড়াসহ পার্শ্ববর্তী ১০টি পাহাড়ি গ্রামে ডায়রিয়ার প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। বিশুদ্ধ খাবার পানির সংকট এবং প্রচণ্ড গরমে প্রায় এক সপ্তাহেরও অধিক সময় ধরে ছড়িয়েপড়া ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছে শিশু, কিশোর ও বয়স্ক দুশতাধিকের বেশি।

অসুস্থদের মধ্যে আলীকদম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে সাতজনকে। গতকাল রোববার এবং আজ সোমবার দুদিনে পাড়াগুলোতে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে সাতজনের মৃত্যু হয়েছে।

করুকপাতা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ক্রাতপু ম্রো বলেন, তিনটি পাড়ায় ডায়রিয়ায় এরই মধ্যে সাতজনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া ডায়রিয়া প্রাদুর্ভাব দেখা দেওয়া ইউনিয়নের ১০টি পাড়ায় আক্রান্ত হয়েছে দুশতাধিকেরও বেশি মানুষ।

ক্রাতপু ম্রো বলেন, ডায়রিয়া ছড়িয়ে পড়ার খবরে গতকাল রোববার এবং আজ ঘটনাস্থলে ছুটে গেছেন স্বাস্থ্য বিভাগের দুটি মেডিকেল টিম। এছাড়াও সেনাবাহিনীর দুটি মেডিকেল টিমও ঘটনাস্থলে গেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। সেনাবাহিনীর সদস্যরা হেলিকপ্টারে মেডিকেল টিমের কাছে প্রয়োজনীয় জরুরি ওষুধ, পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট এবং খাবার স্যালাইন পাঠিয়েছি আক্রান্ত এলাকাগুলোতে।

পার্বত্য জেলা পরিষদ বান্দরবানের সদস্য ম্রো গবেষক সিইয়ং ম্রো জানান, ম্রো জনগোষ্ঠী অধ্যুষিত করুকপাতা ইউনিয়নে প্রচণ্ড গরম এবং বৃষ্টিতে ছড়া-খালের দূষিত হওয়া পানি ব্যবহারের ফলে ব্যাপকভাবে ডায়রিয়া ছড়িয়ে পড়েছে। ডায়রিয়ায় এরই মধ্যে সাতজনের মৃত্যুর খবর পেয়েছি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে স্বাস্থ্য বিভাগ এবং সেনাবাহিনীর একাধিক মেডিকেল টিম পৌঁছেছে।


আরও খবর



সংসদে তোপের মুখে স্বাস্থ্যমন্ত্রী, রোজিনা প্রশ্নে জবাব নেই

প্রকাশিত:সোমবার ০৭ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ০৭ জুন ২০২১ | ১২২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

স্বাস্থ্যখাতের নানা অনিয়ম, দুর্নীতি এবং প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে হেনস্তার ঘটনায় সংসদে তোপের মুখে পড়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। তবে এসব নিয়ে তিনি কোনো কথা বলেননি। এসব প্রসঙ্গ এড়িয়ে করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশ সফলতা দেখিয়েছে দাবি করে মন্ত্রী বলেন, দেশের মানুষের জীবনযাত্রা স্বাভাবিক রয়েছে।

আজ সোমবার (০৭ জুন) জাতীয় সংসদে ২০২০-২১ অর্থবছরের সম্পূরক বাজেটের ওপর আলোচনায় ও ছাঁটাই প্রস্তাবের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে এসব কথা বলেন তারা। এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপস্থিত ছিলেন।

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সংসদে বিরোধীদলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ (জিএম) কাদের বলেন, যারা পুকুর চুরি করছেন, তারা বেরিয়ে যাচ্ছেন। যারা এসব প্রকাশ করছেন, তারা নানা সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন। অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা জবাবদিহি নিশ্চিতে কাজ করে। সাংবাদিকদের এটুকু সুযোগ দেয়া সমাজের দায়িত্ব।

বিএনপির সংসদ সদস্য হারুন অর রশীদ বলেন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে ঢেলে সাজাতে হবে। এটা সংস্কার করত হবে। বাংলাদেশের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় দুর্নীতির ডিপো। এই দুর্নীতি কীভাবে সংস্কার করবেন, এ ব্যাপারে আমাদের সুস্পষ্টভাবে জানাবেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

বিএনপির সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা বলেন, করোনাকাল হওয়া সত্ত্বেও এ বছর আমরা স্বাস্থ্য ও শিক্ষার মতো বেসিক জিনিসগুলোর ওপর যদি নজর না দিই, ভৌত অবকাঠামোর দিকে যদি আমরা সারাদিন তাকিয়ে থাকি, তাহলে করোনা বলেন আর যাই বলেন দেশের সাধারণ মানুষের কোনো উপকার হবে না। ১০ হাজার মানুষের মাথাপিছু ডাক্তার আছে মাত্র পাঁচজন। আর নার্স আছে মাত্র তিনজন। এই অপ্রতুল জনগণ নিয়ে কীভাবে হাসপাতালগুলো চলবে? কীভাবে আমরা স্বাস্থ্যখাতকে ঢেলে সাজাবো? কীভাবে আমরা সাধারণ মানুষকে সেবা দেব?

জাতীয় পার্টির কাজী ফিরোজ রশীদ বলেন, আমাদের অক্সিজেন নেই, অক্সিজেন প্লান্ট জেনারেট করতে হবে। সাংবাদিক রোজিনার নাম না নিয়ে তিনি বলেন, তিনি যদি চুরি-ডাকাতি করেন, সাংবাদিককে গ্রেফতার করতে পারেন, তাকে পুলিশে দেবেনএটাই নিয়ম। আইন নিজের হাতে কেন তুলে নেবেন? আপনিতো সচিবালয়ের বড় কর্মকর্তা। আপনি কেন নিজের হাতে আইন তুলে নিলেন? আপনি সাংবাদিককে নাস্তানাবুদ করলেন কেন? ছয় ঘণ্টা তাকে টয়লেটে যেতে দেননি? একজন অসুস্থ মানুষ। তাও নারী। তাকে এভাবে হেনস্তা করলেন! এ নিয়ে জাতিসংঘ কথা বললো। সারাবিশ্ব কথা বললো। আমাদের মুখটা কোথায় রইল?

তবে সংসদ সদস্যদের এসব প্রশ্নের কোনো জবাব দেননি স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। তিনি এ প্রসঙ্গ এড়িয়ে বলেন, স্বাস্থ্যসেবা একটি ব্যাপক কর্মযজ্ঞ। দেড় বছর ধরে করোনা চলছে। তারা সেবা দিয়ে যাচ্ছেন।

করোনা মোকাবিলায় সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগের কথা তুলে ধরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ওষুধের কোনো ঘাটতি হয়নি। অক্সিজেনের অভাব কখনোই হয়নি। আমেরিকায় যে চিকিৎসা এখানেও একই চিকিৎসা হয়েছে। ভ্যাকসিন কার্যক্রম চলমান আছে। এসব কারণে মৃত্যুর হার দেড় শতাংশ। বিশ্বে এই হার আড়াই শতাংশ। করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশ খুবই সফলতা দেখিয়েছে। এ কারণে দেশের মানুষের জীবনযাত্রা প্রায় স্বাভাবিক।


আরও খবর



৯ দেশে ছড়িয়েছে ডেলটা প্লাস ধরন

প্রকাশিত:বুধবার ২৩ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৩ জুন ২০২১ | ৫৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
করোনার ডেলটা ধরনটি প্রথম শনাক্ত হয়েছিল গত বছরের শেষের দিকে। এর কারণে চলতি বছরে এসে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের ধাক্কায় রীতিমতো বিপর্যস্ত হয়েছে ভারত

ভারতে শনাক্ত হওয়া করোনার ডেলটা ধরন আবারও রূপ বদলেছে। ডেলটা প্লাস নামের নতুন এই ধরনটি নিয়ে উদ্বেগ বেড়েছে বিশ্বজুড়ে। ইতিমধ্যে ভারতের সীমানা ছাড়িয়ে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যসহ অন্তত নয়টি দেশে ডেলটা প্লাস ছড়ানোর খবর মিলেছে। অতি সংক্রামক এই ধরনটি করোনা মহামারির রাশ টানার প্রক্রিয়াকে বিলম্বিত করতে পারে বলে আশঙ্কা জনস্বাস্থ্যবিদদের।

করোনার ডেলটা ধরনটি প্রথম শনাক্ত হয়েছিল গত বছরের শেষের দিকে। এর কারণে চলতি বছরে এসে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের ধাক্কায় রীতিমতো বিপর্যস্ত হয়েছে ভারত। দেশটি থেকে বাংলাদেশসহ বিশ্বের ৮০টির বেশি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়েছে ডেলটা ধরন। যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপে নতুন করে উদ্বেগের জন্ম দিয়েছে এটি। কেননা, করোনার এই ধরন দ্রুত ছড়াতে পারে। অল্প সময়ের মধ্যে আক্রান্ত ব্যক্তির শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়। ইতিমধ্যে করোনার ডেলটা ধরনকে উদ্বেগজনক ধরন হিসেবে ঘোষণা দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

ডেলটা ধরন নিয়ে বিদ্যমান উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার মধ্যেই এর রূপ বদলের খবর মিলেছে। ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাতে আজ বুধবার ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, গত এপ্রিলে দেশটিতে করোনার ডেলটা প্লাস ধরন প্রথম শনাক্ত হয়। আর গত মঙ্গলবার পর্যন্ত মহারাষ্ট্র, কেরালা ও মধ্যপ্রদেশভারতের এই তিন রাজ্যের ছয়টি জেলায় ২২ জনের শরীরে করোনার এই ধরন শনাক্ত হয়েছে।

শুধু ভারত নয়, দেশটির সীমানার বাইরেও ছড়িয়ে পড়তে শুরু করেছে করোনার ডেলটা প্লাস ধরন। বিবিসি জানিয়েছে, এখন পর্যন্ত ভারত ছাড়াও এশিয়া, ইউরোপ ও উত্তর আমেরিকার আরও নয়টি দেশে ডেলটা প্লাস ধরন ছড়িয়ে পড়ার খবর মিলেছে। দেশগুলো হলো যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, পর্তুগাল, সুইজারল্যান্ড, জাপান, পোল্যান্ড, নেপাল, রাশিয়া ও চীন।

জনস্বাস্থ্যবিদদের মতে, করোনার ডেলটা প্লাস ধরন নিয়ে খুব বেশি তথ্য নেই। এমনকি অন্যান্য ধরনগুলোর তুলনায় করোনার নতুন এই ধরন কত দ্রুত ছড়ায়, সে ব্যাপারেও স্পষ্ট করে জানে না কেউ। ফলে করোনার এই ধরন নিয়ে উদ্বেগ রয়ে যাচ্ছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনার এই ধরন নিয়ে উদ্বেগের কথা জানিয়েছে।

এ বিষয়ে রয়্যাল সোসাইটি অব লন্ডনের ফেলো চিকিৎসক গগনদ্বীপ কাং বলেন, করোনার ডেলটা প্লাস ধরনকে প্রকৃতপক্ষে উদ্বেগজনক বলতে আমাদের আরও তথ্যউপাত্ত প্রয়োজন।

তবে এর কারণে বিভিন্ন দেশে করোনার নতুন ঢেউ আসতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডনের রোগতত্ত্ববিদ নিল ফার্গুসন মনে করেন, যুক্তরাজ্যে করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের কারণ হতে পারে করোনার এই ধরন।


আরও খবর
করোনার ডেল্টা প্লাসে প্রথম মৃত্যু

বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১