আজঃ বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১
শিরোনাম
কলম্বিয়াকে ২-১ গোলে হারাল ব্রাজিল স্পেনের কারাগারে ম্যাকাফি অ্যান্টিভাইরাস আবিষ্কারকের ‘আত্মহত্যা’ আগস্টে মুক্তি পাচ্ছে চলচ্চিত্র ‘চিরঞ্জীব মুজিব’ গত ২৪ ঘণ্টায় রাজশাহীতে আরও ১৮ জনের মৃত্যু ‘আ.লীগ হীরার টুকরা, যতবার কেটেছে নতুন করে জ্যোতি ছড়িয়েছে’ উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার নামে মিথ্যাচারের প্রতিবাদে মানববন্ধন স্বাক্ষর জালিয়াতি ও তথ্য গোপন করায় ছাত্র ইউনিয়নের দুই শীর্ষ নেতা বহিষ্কার ইতিহাসে আওয়ামী লীগ, বঙ্গবন্ধু, বাংলাদেশ ও শেখ হাসিনা সমার্থক হয়ে থাকবে: : মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী পরীমনির মামলায় সেই নাসির-অমি ৫ দিনের রিমান্ডে ৯ দেশে ছড়িয়েছে ডেলটা প্লাস ধরন

রাজশাহী মেডিকেলে করোনায় মৃত্যু ৮, শনাক্তের হার ৪০.৭৭%

প্রকাশিত:বুধবার ০৯ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৯ জুন ২০২১ | ৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গত ২৪ ঘন্টায় করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন ৮ জন। তাদের মধ্যে রাজশাহীর ৫ জন ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ ৩ জন।

বুধবার (৯ জুন) সকালে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালক ঘন্টায় ফেরদৌস।

তিনি জানান, মারা যাওয়া ৮ জনের মধ্যে ৪ জন করোনা পজিটিভ ও ৪ জনের করোনা উপসর্গ ছিল। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের দুই ল্যাবে গত ২৪ ঘন্টায় করোনা পরীক্ষা হয়েছে ৪৮৮ জনের আর করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৯৯ জনের। পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ৪০.৭৭%।


আরও খবর



সড়ক দুর্ঘটনায় ৯ শিশুসহ যুক্তরাষ্ট্রে ১০ জন নিহত

প্রকাশিত:সোমবার ২১ জুন 20২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২১ জুন 20২১ | ৫৯জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

যুক্তরাষ্ট্রের আলাবামা অঙ্গরাজ্যের বাটলার কান্ট্রিতে সড়ক দুর্ঘটনায় ৯ শিশুসহ ১০ জন নিহত হয়েছে। স্থানীয় সময় শনিবার দুপুর আড়াইটার দিকে ঝড়ের কবলে পড়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

গ্রিনভিল শহরের পাশের একটি ব্যস্ত মহাসড়কে (৬৫ নম্বর ইন্টারসেকশন) অন্তত ১৮টি গাড়ির মধ্যে সংঘর্ষ হয়। তীব্র বাতাস আর ভেজা রাস্তার কারণে গাড়িগুলো সড়কে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে। দুর্ঘটনায় নিহতদের মধ্যে একটি গাড়িতে থাকা ৪ মাস থেকে ১৭ বছর বয়সী ৮ শিশু রয়েছে। এছড়াও নিজের গাড়িতে ২৯ বছর বয়সী এক বাবা ও তার ৯ মাস বয়সী কন্যাশিশু নিহত হয়েছে।

আলাবামা রাজ্যের গভর্নর কে আইভেই বলেছেন, এই বিধ্বংসী দুর্ঘটনা আলাবামার জন্য একটি করুণ দিন হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে।

নিহত আট শিশু তাল্লাপুসা কাউন্টি গার্লস র্যা ঞ্চেস এর একটি গাড়িতে ছিল। প্রতিষ্ঠানটি অনাথ, অবহেলিত ও নির্যাতিত কন্যাশিশুদের লালন-পালন করে থাকে।

অলাভজনক প্রতিষ্ঠানগুলোর দেখভাল করা আলাবামা শেরিফ শেরিফ ইয়ুথ রযী ঞ্চেস সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন, আজ আমরা গভীরভাবে শোকাহত। 

নিউজ ট্যাগ: সড়ক দুর্ঘটনা

আরও খবর



সাধুর বিরুদ্ধে জীনের ভয় দেখিয়ে ২ ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৭ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৭ জুন ২০২১ | ৫৯জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলায় জীনের ভয় দেখিয়ে ও পরিবারের লোকজনকে বড়লোক বানানোর আশ্বাস দিয়ে দুই ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে  সবুর প্রামাণিক (৫৫) নামে এক ভণ্ড সাধুর বিরুদ্ধে।

গত মঙ্গলবার ভুক্তভোগী ৯ম শ্রেণির ছাত্রীর বাবা ও অপর ভুক্তভোগী ১০ম শ্রেণির ছাত্রীর বোন রাজবাড়ীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে (সংশোধনী-২০০৩ এর) ৯ (১) ধারায় পৃথকভাবে দুটি মামলা করেছেন। আদালত রাজবাড়ীর পাংশা মডেল থানার ওসিকে নিয়মিত মামলা হিসেবে গ্রহণ করার জন্য নির্দেশ প্রদান করেছেন।

অভিযুক্ত সবুর পাংশা উপজেলার কলিমোহর ইউনিয়নের প্রাণপুর গ্রামের মৃত ভোলা প্রামাণিকের ছেলে।

ভুক্তভোগী দুই ছাত্রীর পরিবার সূত্র জানায়, দ্রত সময়ের মধ্যে পরিবারের লোকজনকে বড়লোক বানানোর আশ্বাস দেন সবুর প্রামাণিক এবং এ জন্য তাদের দুই মেয়েকে ৪১ দিন তার কাছে পাঠাতে বলেন। পরে ওই দুই ছাত্রী সবুর প্রামাণিকের কাছে যায়। এর পর দুই ছাত্রীকে জীনের ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করতে থাকেন ওই ভণ্ড সাধু।

গত মঙ্গলবার ওই দুই স্কুলছাত্রী তাদের পরিবারকে এ বিষয়টি জানায়। তার পরই রাজবাড়ীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলা করা হয়। তবে ঘটনা জানাজানির পর থেকে ওই ভণ্ড সাধু এলাকা থেকে পলাতক রয়েছে।

কলিমোহর ইউনিয়নের প্রাণপুর গ্রামের বাসিন্দা ও গ্রামপুলিশ দেলবার খাঁ জানান, ভুক্তভোগী দুই ছাত্রীর সঙ্গে ওই ভণ্ড সাধু সবুর খারাপ আচরণ করায় এলাকাজুড়ে চাঞ্চল্যকর সৃষ্টি হয়। অবস্থা বেগতিক দেখে কবিরাজ পালিয়ে গেছে। তার এ অপকর্মের শাস্তির দাবি করেন তিনি।

নিউজ ট্যাগ: ধর্ষণের অভিযোগ

আরও খবর



ডব্লিউএইচওর অনুমোদন পেল চীনের সিনোভ্যাকও

প্রকাশিত:বুধবার ০২ জুন 2০২1 | হালনাগাদ:বুধবার ০২ জুন 2০২1 | ৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

চীনের সিনোভ্যাক বায়োটেক কোম্পানির কোরোনাভ্যাক কোভিড টিকা জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

মঙ্গলবার ডব্লিউএইচও টিকাটি অনুমোদন করার কথা জানিয়েছে। এ নিয়ে চীনের উৎপাদিত করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় টিকা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদন পেল।

স্বাধীন বিশেষজ্ঞদের প্যানেল এক বিবৃতিতে ১৮ বছরের বেশি বয়সীদের জন্য সিনোভ্যাকের এই টিকার দুই ডোজ সুপারিশ করেছে। দুই থেকে চার সপ্তাহ পর দ্বিতীয় ডোজ নেওয়া যাবে।

এর আগে গত ৭ মে চীনের রাষ্ট্রায়ত্ত ওষুধ কোম্পানি সিনোফার্মের তৈরি দুটি টিকার মধ্যে বিবিআইবিপি-করভি (BBIBP-CorV) জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছিল ডব্লিউএইচও।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কাছ থেকে টিকা জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন পাওয়ার মানে হল, বিশ্বের দেশগুলো এ টিকার মান ও কার্যকারিতায় আস্থা রাখতে পারে।

ডব্লিউএইচও চীনের সিনোভ্যাকের এই টিকাকে কোভ্যাক্স প্রোগ্রামের আওতায়ও আনবে। মূলত গরিব দেশগুলোর টিকাপ্রাপ্তি নিশ্চিত করতে কোভ্যাক্স নামের এই প্ল্যাটফার্ম গড়ে তোলা হয়েছে।

ডব্লিউএইচও এর আগে ফাইজার-বায়োএনটেক, অ্যাস্ট্রাজেনেকা, জনসন অ্যান্ড জনসন এবং মডার্নার টিকাও জরুরি ব্যবহারের জন্য অনুমোদন দিয়েছিল।

কিন্তু ভারত টিকা রপ্তানি বন্ধ রাখায় গরিব দেশগুলো টিকার পুরো চালান সময়মত পাচ্ছে না। যার কারণে অন্য উৎস থেকে টিকা সংগ্রহের উদ্যোগ নিতে হচ্ছে বিভিন্ন দেশকে।

চীনের সিনোভ্যাক বায়োটেক কোম্পানি জানিয়েছে, তারা মে মাসের শেষ নাগাদ দেশে-বিদেশে এই টিকার ৬০ কোটিরও বেশি ডোজ সরবরাহ করেছে এবং ৪৩ কোটি ডোজ এরই মধ্যে মানুষকে দেওয়া হয়েছে।

ডব্লিউএইচও মঙ্গলবার চীনের সিনোভ্যাকের তৈরি কোভিড টিকা অনুমোদন করলেও বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশে আগে থেকেই এ টিকার প্রয়োগ শুরু হয়েছে।

বিভিন্ন দেশে এই টিকার তৃতীয় ধাপের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে টিকাটি ৫১ শতাংশ থেকে ৮৪ শতাংশ কার্যকর প্রমাণিত হয়েছে বলে এর আগে এক পর্যালোচনা প্রতিবেদনে জানিয়েছিল বিশেষজ্ঞদের নিয়ে গঠিত ডব্লিউএইচওস্ট্র্যাটেজিক অ্যাডভাইজরি গ্রুপ (এসএজিই)।

চীন ক্যানসিনো বায়োলজিক্সের তৃতীয় আরেকটি কোভিড টিকার ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের তথ্যও জমা দিয়েছে। তবে এই তথ্য এখনও পর্যালোচনা করে দেখেনি ডব্লিউএইচও।


আরও খবর



পুঁজিবাজারে খুবই ভালো ভবিষ্যৎ দেখছি : সালমান এফ রহমান

প্রকাশিত:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | ৯৩জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান বলেছেন, গত ১ বছর ধরে পুঁজিবাজারে নতুন ধরন দেখছি। নতুন কমিশন অনেকগুলো সুন্দর পদক্ষেপ নিয়েছে।

এখানে বিনিয়োগকারীদের আস্থা ফিরেছে। এছাড়া লেনদেন ও বাজার মূলধন বেড়েছে। একইসঙ্গে বেসিক সমস্যা ইক্যুইটিভিত্তিক মার্কেট থেকে বেরিয়ে আসার চেষ্টা করা হচ্ছে। সব মিলিয়ে পুঁজিবাজারের খুবই ভালো ভবিষ্যৎ দেখছি।

শনিবার (১৯ জুন) বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিএমবিএ) ও ক্যাপিটাল মার্কেট জার্নালিস্টস ফোরাম (সিএমজেএফ) আয়োজিত বাজেট পরবর্তী আলোচনা ও শেয়ারবাজারের উন্নয়নের পথ শীর্ষক অনলাইন সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

সালমান এফ রহমান বলেন, আমি মনে করি আমাদের মার্কেটে এখন অনেক সুযোগ আছে। নতুন নতুন অনেক ইন্সট্রুমেন্ট নিয়ে আসা হচ্ছে। বাজার স্থিতিশীল করার জন্য বিএসইসি অনেকগুলো সুন্দর পদক্ষেপ নিয়েছে। যখন যেটা প্রয়োজন ঠিক সে সময় সিদ্ধান্তগুলো নেওয়া হচ্ছে। আমি দেখলাম কোম্পানিগুলোর লোয়ার একটা ক্যাপ (ফ্লোর প্রাইস) ছিল, সেটা তুলে দেওয়া হয়েছে। আমরা যেভাবে এগোচ্ছি তাতে পুঁজিবাজারের খুবই ভালো ভবিষ্যৎ আমি দেখছি।

তিনি বলেন, পুঁজিবাজার ভালো হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে স্টেকহোল্ডারদের দায়িত্ব বাড়বে। এক্ষেত্রে দেশের ঊভয় স্টক এক্সচেঞ্জের ম্যানেজমেন্টের সক্ষমতা বাড়াতে হবে। এছাড়া বিশ্বের উন্নত দেশগুলোর পুঁজিবাজার যেভাবে পরিচালিত হয় এবং সেখানে যে ধরনের সুযোগ-সুবিধা আছে সেগুলো আমাদেরও চালু করতে হবে।

সালমান এফ রহমান বলেন, এ মাসের ৩০ তারিখে বাজেট পাস হবে। তার আগে কিছু কিছু সংশোধন আনা হবে। আপনারা যে দাবিগুলো তুলেছেন দেখা যাক এ সময়ের মধ্যে আমরা সংশোধনগুলো আনতে পারবো কিনা। আমরা চেষ্টা করবো এ প্রস্তাবগুলো চূড়ান্ত বাজেটে অন্তর্ভুক্ত করার।

তিনি বলেন, অপ্রদর্শিত অর্থ পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের সুযোগ দেওয়ার দাবি আমরা আগেই জানিয়েছি। যাতে তারা (যাদের কাছে অপ্রদর্শিত অর্থ আছে) সেটা (অপ্রদর্শিত অর্থ) লিগ্যাল ফর্মে (বৈধ পদ্ধতিতে) নিয়ে আসতে পারেন সে সুযোগটি রাখার জন্য।

সালমান এফ রহমান বলেন, বন্ডগুলো নিয়ে আমরা কিছু প্রোগ্রাম হাতে নিয়েছি। আশা করবো বন্ড ও সুকুক নিয়ে আমাদের যে পরিকল্পনা আছে তা ফিসক্যাল পলিসির মাধ্যমে সামনে এগিয়ে যাওয়ার বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সাহায্য-সহযোগিতা করবে।

সিএমজেএফের সাধারণ সম্পাদক মনির হোসেনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) কমিশনার ড. শেখ সামসুদ্দিন আহমেদ, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) চেয়ারম্যান মো. ইউনুসুর রহমান ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) চেয়ারম্যান আসিফ ইব্রাহিম।

অনুষ্ঠানে আয়োজকদের পক্ষে বক্তব্য রাখেন বিএমবিএর সভাপতি মো. ছায়েদুর রহমান ও সিএমজেএফের সভাপতি হাসান ইমাম রুবেল।


আরও খবর



‘স্বপ্নের ঠিকানা’য় উঠবে শেরপুরের তৃতীয় লিঙ্গের জনগোষ্ঠী

প্রকাশিত:সোমবার ০৭ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ০৭ জুন ২০২১ | ১০৩জন দেখেছেন
Image

শেরপুর থেকে শাহরিয়ার শাকির

শেরপুর জেলায় বসবাসকারী তৃতীয় লিঙ্গের (হিজড়া) জনগোষ্ঠী পেলো সরকারি ঘর। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সহায়তায় জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে গড়ে ওঠেছে স্বপ্নের ঠিাকানা নামের একটি গুচ্ছগ্রাম। আজ (৭ জুন) দুপুরে শেরপুর সদরের কামারিয়া ইউনিয়নে দুই একর জায়গায় ৬৯ লাখ ৪ হাজার টাকা ব্যয়ে নির্মিত আবাসন প্রকল্পে ৪০ জন হিজড়ার হাতে নতুন ঘরের চাবি তুলে দিয়েছেন জেলা প্রশাসক আনার কলি মাহবুব।

অনুষ্ঠানে স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক (উপসচিব) এটিএম জিয়াউল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মুকতাদিরুল আহমেদ, শেরপুর সদর উপজেলা চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম, শেরপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফিরোজ আল মামুন, শেরপুর সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সাবিহা জামান শাপলা, জনউদ্যোগের আহবায়ক আবুল কালাম আজাদ, সদস্য সচিব হাকিম বাবুল, কামারিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল বারী, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা খবির উদ্দিন, সহকারি ভূমি উন্নয়ন কর্মকর্তা হুরমুজ আলীসহ স্থানীয় গণমাধ্যমকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

স্বপ্নের ঠিকানায় থাকছে পুকুর, শাক-সবজি, ফসল আবাদের জন্য রাখা হয়েছে খোলা জায়গা, আত্মকর্ম প্রশিক্ষণের জন্য নির্মিত হচ্ছে একটি মাল্টিপারপাস কক্ষ।

এসময় উপকারভোগীদের জন্য খাবার, রান্নার সামগ্রী, বিছানা, বিছানার চাদর, বালিশ ও কম্বল বিতরণ করা হয়।

নিউজ ট্যাগ: হিজড়া শেরপুর

আরও খবর