আজঃ বুধবার ০৪ আগস্ট ২০২১
শিরোনাম

রাজশাহীতে করোনা ইউনিটে ১৭ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:রবিবার ১৮ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৮ জুলাই ২০২১ | ৮৯জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গেলো ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার (১৭ জুলাই) সকাল ৮টা থেকে রবিবার (১৮ জুলাই) সকাল ৮টার মধ্যে তাদের মৃত্যু হয়েছে।

রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী জানান, মৃত ব্যক্তিদের মধ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে ৫ জন ও উপসর্গে ১১ জন মারা গেছেন। করোনা নেগেটিভ হওয়ার পর ১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় রামেক হাসপাতালে মারা যাওয়া ১৭ জনের মধ্যে রাজশাহীর ৬, চাঁপাইনবাবগঞ্জের ২, পাবনার ২, নাটোরের ৪, নওগাঁ, বগুড়া, ঝিনাইদহের একজন করে আছেন।

করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে রোগীদের ভর্তি ও সংক্রমণের বিষয়ে রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় রামেকে নতুন ভর্তি হয়েছেন ৬০ জন।

বর্তমানে রামেক হাসপাতালে ৪৫৪টি করোনা ডেডিকেটেড শয্যার বিপরীতে রোগী ভর্তি আছেন ৫০৬ জন। শুক্রবার ভর্তি ছিলেন ৫২৭ জন। এছাড়া গত জুনে ৩৫৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।


আরও খবর



খুলনা বিভাগে মৃত্যু ও শনাক্ত বেড়েছে

প্রকাশিত:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ৮৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

খুলনা বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৪৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে শনাক্ত হয়েছে ১ হাজার ২৭৮ জনের। রবিবার (২৫ জুলাই) বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এ তথ্য জানানো হয়েছে। এর আগে শনিবার (২৪ জুলাই) বিভাগে ৩৩ জনের মৃত্যু হয় এবং ২৪৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছিল।

স্বাস্থ্য পরিচালকের দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগের মধ্যে সর্বোচ্চ ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে কুষ্টিয়া জেলায়। অন্যদের মধ্যে খুলনায় ১১ জন, যশোরে ৬ জন, মাগুরা ও মেহেরপুরে ৩ জন করে। বাগেরহাট ও ঝিনাইদহে ২ জন করে এবং সাতক্ষীরা, নড়াইল ও চুয়াডাঙ্গায় ১ জন করে মারা গেছেন।

করোনা সংক্রমণের শুরু থেকে আজ পর্যন্ত বিভাগের ১০ জেলায় মোট শনাক্ত হয়েছে ৮৭ হাজার ৬২ জন। আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ২ হাজার ১৭১ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৬১ হাজার ৩২৮ জন।


আরও খবর



রাজশাহীতে একদিনে সর্বোচ্চ প্রাণহানি

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৪ জুলাই ২০২১ | ৪৪২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৭ জন ও উপসর্গ নিয়ে ১৮ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে রাজশাহীর ১২ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, নাটোর ও পাবনার ৩ জন করে, নওগাঁর ২ জন এবং কুষ্টিয়া ও যশোর ১ জন মারা গিয়েছেন।

বুধবার (১৪ জুলাই) এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী।

তিনি জানান, হাসপাতালে করোনা ও এর উপসর্গ নিয়ে ৪৪ দিনে মোট ৬৩১ জন মারা গেছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজশাহী মেডিকেলকলেজ ও হাসপাতালের দুই ল্যাবে করোনা পরীক্ষা হয়েছে ৪৩০ জনের আর করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৪৮ জনের। পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ৩৪.৪১%।

এছাড়াও রাজশাহীমেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দফায় দফায় ওয়ার্ড ও শয্যা সংখ্যা বাড়ানোর পরেও উপচে পড়ছে রোগীর সংখ্যা। এখানে করোনা ইউনিটে ২০টি আইসিইউসহ শয্যা সংখ্যা রয়েছে ৪৫৪টি এর মধ্যে রোগী ভর্তি রয়েছে ৫০০ জন আর গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ৭২ জন।


আরও খবর



কুষ্টিয়ায় একদিনে করোনায় ১৬ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ জুলাই ২০২১ | ১০৪জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনা বিশেষায়িত হাসপাতাল ঘোষণা করা কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে গতকাল মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে আজ বুধবার সকাল ৮টা পর্যন্ত আরও ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে ১০ জনের করোনা পজিটিভ এবং ছয় জনের করোনার উপসর্গ ছিল। হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) তাপস কুমার সরকার এসব তথ্য জানিয়েছেন।

হাসপাতালের করোনা ইউনিটের সেবিকা ইনচার্জ (স্টাফ নার্স) দীপ্তি রানী জানান, ২৫০ শয্যার বিপরীতে করোনা পজিটিভ নিয়ে ১৮৭ এবং করোনার উপসর্গ নিয়ে ৮৭ জনসহ মোট ২৭৪ জন হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

এদিকে, পিসিআর ল্যাব ও জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় ৮০১ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২৩৪ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ২৯ দশমিক ২১ শতাংশ।

অন্যদিকে দেশজুড়ে চলমান সর্বাত্মক বিধিনিষেধের আওতায় স্থানীয় প্রশাসনের তৎপরতা সত্ত্বেও যত দিন যাচ্ছে তত বেশি মানুষকে ঘরের বাইরে বের হতে দেখা যাচ্ছে। স্বাস্থ্যবিধি মানতে অনীহা লক্ষ্য করা গেছে।

এদিকে, সরকারি বিধিনিষেধ অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে গতকাল মঙ্গলবার দিনভর অভিযান চালিয়ে ৫৭ জনের কাছ থেকে ৪৩ হাজার ৩০০ টাকা জরিমানা আদায় করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। জেলায় সেনা সদস্যদেরও টহল দিতে দেখা গেছে।


আরও খবর



বিশ্বে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা ৪০ লাখ ৯১ হাজার ছাড়ালো

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৭ জুলাই ২০২১ | ৯৩জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিশ্বে করোনাভাইরাস সংক্রমণ ও মৃত্যু বেড়েই চলেছে। এরই ধারাবাহিকতায় সারাবিশ্বে করোনায় আক্রান্ত ১৯ কোটি ছাড়িয়েছে। এতে মারা গেছেন প্রায় ৪১ লাখ মানুষ। আর এ মহামারি থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছেন প্রায় ১৭ কোটি ৩৫ লাখ।

শনিবার (১৭ জুলাই) সকাল সাড়ে ৮টায় আন্তর্জাতিক পরিসংখ্যানভিত্তিক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, সারাবিশ্বে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন ১৯ কোটি দুই লাখ ৯৫ হাজার ৬৯৪ জন। আর এতে মৃত্যু হয়েছে ৪০ লাখ ৯১ হাজার ৮৯৮ জনের। এখন পর্যন্ত এ ভাইরাস থেকে ১৭ কোটি ৩৪ লাখ ৯০ হাজার ৮৯৪ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

এদিকে করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যুতে এখনো বিশ্বে শীর্ষে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে তিন কোটি ৪৯ লাখ ২৯ হাজার ৮৫৬ জন। এতে মৃত্যু হয়েছে ছয় লাখ ২৪ হাজার ৬০৬ জন।

অন্যদিকে করোনা শনাক্তের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে প্রতিবেশী দেশ ভারত। দেশটিতে এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছে তিন কোটি ১০ লাখ ৬৩ হাজার ৯৮৭ জন। এতে মৃত্যু হয়েছে চার লাখ ১৩ হাজার ১২৩ জনের। আর এ মহামারি থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছেন তিন কোটি দুই লাখ ২০ হাজার ১৮৩ জন।

তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে ল্যাটিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল। যদিও মৃত্যুর দিক থেকে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে তারা। সেখানে এখন পর্যন্ত মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে পাঁচ লাখ ৪০ হাজার ৫০০ জনের। এছাড়া এখন পর্যন্ত দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছে এক কোটি ৯৩ লাখ আট হাজার ১০৯ জন। এছাড়া দেশটিতে এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন এক কোটি ৭৯ লাখ ৫১ হাজার ৬৯৯ জন।

সংক্রমণ ও মৃত্যুর তালিকায় এর পরের স্থানগুলোতে রয়েছে রাশিয়া, ফ্রান্স, তুরস্ক, যুক্তরাজ্য, আর্জেন্টিনা, কলম্বিয়া ও ইতালি।

তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান এখন ২৮ নম্বরে। গত কয়েক সপ্তাহ ধরে উদ্বেগজনক হারে সংক্রমণ ও মৃত্যু বৃদ্ধি পাওয়ায় রোমানিয়াকে পেছনে ফেলে এক ধাপ এগিয়ে এসেছে বাংলাদেশ। এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন হয়েছেন ১০ লাখ ৮৩ হাজার ৯২২ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন ১৭ হাজার ৪৬৫ জন। করোনা থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছেন নয় লাখ ১৪ হাজার ৩৪৩ জন। তালিকায় বাংলাদেশের আগে রয়েছে সুইডেন আর পরে রোমানিয়া।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। দেশটিতে করোনায় প্রথম রোগীর মৃত্যু হয় ২০২০ সালের ৯ জানুয়ারি। ওই বছরের ১৩ জানুয়ারি চীনের বাইরে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় থাইল্যান্ডে।

দেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় গত বছরের ৮ মার্চ। এরপর কয়েক দফায় পরিস্থিতির উন্নতি-অবনতি হয়। তবে গত কয়েক দিনের পরিস্থিতি সবচেয়ে ভয়াবহ অবস্থায় রয়েছে।

 

 



আরও খবর
ভারতে আবারও বেড়েছে মৃত্যু

বুধবার ০৪ আগস্ট ২০২১




ঈদের ছুটির পর করোনা টিকাদান শুরু

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ জুলাই ২০২১ | ৫৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ঈদুল আজহার চারদিন বন্ধ থাকার পর শনিবার (২৪ জুলাই) থেকে ফের করোনার টিকাদান কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এর আগে, ঈদের ছুটির তিনদিন এবং শুক্রবারসহ (সাপ্তাহিক ছুটির দিন) চারদিন টিকাদান কার্যক্রম বন্ধ ছিল।

রাজধানীসহ সারাদেশে সুরক্ষা অ্যাপে নিবন্ধন করে যারা টিকা নেওয়ার ক্ষুদে বার্তা পেয়েছেন তারা আজ টিকা নিতে বিভিন্ন মেডিক্যাল কলেজ, হাসপাতাল ও জেলা সদর হাসপাতালে যাচ্ছেন। 

স্বাস্থ্য অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, গত ১৯ জুলাই পর্যন্ত ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউট উৎপাদিত অক্সফোর্ডের কোভিশিল্ডের প্রথম ডোজের টিকা নিয়েছেন ৫৮ লাখ ২০ হাজার ৩৩ জন এবং দ্বিতীয় ডোজের টিকা নেন ৪২ লাখ ৯৮ হাজার ৮৬ জন। 

টিকার মজুত শেষ হওয়ায় প্রথম ডোজের টিকা নিলেও কোভিশিল্ডের দ্বিতীয় ডোজের টিকা এখনো অনেকেই পাননি। কোভ্যাক্সের আওতায় জাপান সরকারের উপহারের প্রায় আড়াই লাখ ডোজ অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা আসছে শনিবার (২৪ জুলাই) বিকেলে। যারা দ্বিতীয় ডোজের টিকা পাননি তাদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে এ টিকা দেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, বর্তমানে দেশে সিনোফার্ম, ফাইজার ও মডার্নার টিকা দেওয়া হচ্ছে।



আরও খবর
করোনায় আরও ২৩৫ জনের মৃত্যু

মঙ্গলবার ০৩ আগস্ট ২০২১