আজঃ শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১
শিরোনাম

রাণীশংকৈলে পানি ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১২ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১২ অক্টোবর ২০২১ | ৪৬৫জন দেখেছেন
Image

রাণীশংকৈল (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধিঃ

ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলায় পুকুরে গোসল করেতে গিয়ে রিফাত ও কাউসার নামে দুই চাচাতো ভাইয়ের মৃত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার(১২ অক্টোবর) সকালে উপজেলার কাশিপুর ইউনিয়নের চিকনমাটি গ্রামে বাসার পাশে পুকুরে গোসল করতে গিয়ে ওই দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রাণীশংকৈল থানার অফিসার ইনচার্জ জাহিদ ইকবাল।

নিহত রিফাত ৩নং ওয়ার্ডের চিকনমাটি গ্রামের সাহাব উদ্দিনের ছেলে ও কাউসার সাহাব উদ্দিনের ভাই সাবলুর ছেলে। নিহতের একজনের বয়স সাড়ে তিন বছর ও অপরজনের বয়স তিন বছর।

অফিসার ইনচার্জ জাহিদ ইকবাল জানায়, কিছুদিন আগে ওই গ্রামের সাহাব উদ্দিন ও তার ভাই সাবলুর ছেলে তাদের দাদার সাথে বাসা থেকে কিছু দূরে একটি পুকুরে গোসল করতে যায়। সেখান থেকে তারা গোসল শেষে বাসায় ফিরে যায়। মঙ্গলবার সকালে শিশু দুটি কাউকে না জানিয়ে বাসা থেকে কিছু দূরে সেই পুকুরে গোসল করতে যায়। দুপুরের দিকে শিশু দুটির চাচতো দাদা পুকুরে গরু গোসল করাতে গেলে সেখানে একজনের মরদেহ দেখতে পায়। পরে অনেক খুজাখুজির পরে আরেকজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিউজ ট্যাগ: ঠাকুরগাঁও

আরও খবর



ফেরি পারের অপেক্ষায় ৬ শতাধিক যানবাহন

প্রকাশিত:সোমবার ১৮ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৮ অক্টোবর ২০২১ | ২৮০জন দেখেছেন
Image

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে ৬ শতাধিক যানবাহন। এসব যানবাহনের মধ্যে নৈশকোচ ও পণ্যবাহী ট্রাকের সংখ্যায় বেশি। ঘাটের অপর্যাপ্ততা, নাব্যসংকট ও ফেরি স্বল্পতার কারণে ঘাটে এই দীর্ঘ যানজট সৃষ্টি হচ্ছে বলে জানিয়েছে বিআইডব্লিউটিসি কর্তৃপক্ষ।

সোমবার (১৮ অক্টোবর) সকালে সরেজমিনে ঘাট এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, ফেরিঘাট থেকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের গোয়ালন্দ ফিড মিল পর্যন্ত ৬ কিলোমিটার এলাকায় ৬ শতাধিক যানবাহন ফেরি পারের অপেক্ষায় খোলা দীর্ঘ সময় ধরে অপেক্ষা করছে।

অপরদিকে, যানজট কমাতে ঘাট থেকে সাড়ে ১৩ কিলোমিটার পেছনে রাজবাড়ী-কুষ্টিয়া সড়কের গোয়ালন্দ মোড় থেকে রাজবাড়ীর দিকে আহলাদীপুর জুট মিল পর্যন্ত ৪ কিলোমিটার এলাকায় ৩ শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাককে আটকে রাখা হয়েছে।

এসব যানবাহনের মধ্যে যাত্রীবাহী বাস ৩ থেকে ৪ ঘণ্টা অপেক্ষা করে ফেরির দেখা পেলেও ট্রাকগুলোকে অপেক্ষা করতে হচ্ছে ২০ থেকে ২৪ ঘণ্টা। দীর্ঘ সময় ধরে খোলা আকাশের নিচে অপেক্ষা করে চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে চালক ও যাত্রীদের।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) দৌলতদিয়া ঘাটের ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) শিহাব উদ্দিন বলেন, এক সপ্তাহের বেশি সময় ধরে ঘাটে যানবাহনের ভয়াবহ চাপ বেড়েছে। বাংলাবাজার-শিমুলিয়া রুটের অতিরিক্ত গাড়ির চাপ ও পদ্মায় নাব্যসংকটের কারণে এই যানজট সৃষ্টি হয়।


আরও খবর
মুই একন পতের ফকির

সোমবার ১৮ অক্টোবর ২০২১




হেঁটে হজ করা সেই ১১৫ বছরের মহিউদ্দীন আর নেই

প্রকাশিত:সোমবার ১১ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১১ অক্টোবর ২০২১ | ৩৪০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

হেঁটে হজ পালনকারী দিনাজপুরের সেই ১১৫ বছরের হাজি মো.মহিউদ্দীন মারা গেছেন। রোববার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে সদর উপজেলার রামসাগর খসরুর মোড়ে মেয়ের বাড়িতে  শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, চার মেয়ে, দুই ছেলে, নাতি-নাতনিসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

সোমবার বাদ জোহর রামসাগর জাতীয় উদ্যানের বায়তুল আকসা জামে মসজিদের সামনে তার জানাজা হয়। এর পর রামসাগর দীঘিপাড়ায় পারিবারিক গোরস্তানে তাকে দাফন করা হবে।

দিনাজপুর সদর উপজেলার ৯ নম্বর আশস্করপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান জিয়াউর রহমান জিয়া হাজি মহিউদ্দীনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

হাজি মহিউদ্দীন দিনাজপুর সদর উপজেলার রামসাগর দীঘিপাড়া গ্রামের মৃত ইজার পণ্ডিত ও মমিরন নেছার ছেলে। তিনি জাতীয় উদ্যানের বায়তুল আকসা জামে মসজিদের সাবেক ইমাম।

১৯০৬ সালের ১০ আগস্ট জন্মগ্রহণ করেন মো. মহিউদ্দীন। ১৯৬৮ সালে হজ করার উদ্দেশ্যে পায়ে হেঁটে দিনাজপুর থেকে রওনা দেন তিনি। পায়ে হেঁটে হজ করতে যেতে-আসতে তার সময় লেগেছিল ১৮ মাস।

এ ১৮ মাসে তিনি পাড়ি দেন কয়েক হাজার কিলোমিটার পথ। এ সময়ে তিনি সফর করেন ৩০ দেশ। যে দেশগুলো তিনি সফর করেছেন মৃত্যুর আগ পর্যন্ত, মুখস্ত বলতে পারতেন সেসব দেশের নাম। ওই সময়ে হজে যেতে পাসপোর্ট ও ভিসা করতে তার খরচ হয় ১২০০ টাকা।

তিনি স্ত্রী, চার মেয়ে, দুই ছেলে, নাতি-নাতনিসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।


আরও খবর
মসজিদ থেকে জঙ্গি সন্দেহে আটক ৪৫

শুক্রবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১




অনিয়ম করে প্রার্থীর নাম পাঠালে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা : কাদের

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৮ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৮ অক্টোবর ২০২১ | ১৫৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

অনিয়ম করে যারা প্রার্থীদের নাম কেন্দ্রে পাঠিয়েছে বা পাঠাবে তাদের বিরুদ্ধে খোজ-খবর নেওয়া হচ্ছে। প্রমাণ পাওয়া মাত্রই তাদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

শুক্রবার সকালে নিয়মিত ব্রিফিংকালে এ কথা জানান মন্ত্রী। বলেন, কোন বিদ্রোহী প্রার্থীকে মনোনয়ন দেওয়া হবে না। এবারও যারা বিদ্রোহী প্রার্থী হবেন তাদের ভবিষ্যতে কোন পদ-পদবী ও মনোনয়ন দেওয়া হবে না বলেও জানান তিনি।

বিএনপি ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য দেশ ও জাতির স্বার্থ বিসর্জন দিয়ে দেশকে নতজানু রাষ্ট্রে পরিণত করার অপচেষ্টা করছে বলে মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের। বলেন, জাতীয় স্বার্থের প্রশ্নে শেখ হাসিনা সবসময় আপোষহীন, যদি তিনি জাতীয় স্বার্থ বিসর্জন দিয়ে গ্যাস বিক্রির প্রস্তাব সমর্থন করতেন তাহলে ২০০১ সালেই ক্ষমতায় আসতে পারতেন।

কথায় কথায় যারা দেশের বিরুদ্ধে বিদেশিদের কাছে নালিশ করে, যারা বিদেশি দূতাবাসের বন্ধ দরজায় ফুল আর মিষ্টি নিয়ে অপেক্ষা করে, দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে বিদেশিদের হস্তক্ষেপ করার অনুরোধ করে, তারাই বাংলাদেশকে নতজানু রাষ্ট্র হিসেবে দেখতে চায় বলে জানান ওবায়দুল কাদের।

বিএনপি তাদের কর্মকাণ্ডের দ্বারা বিদেশিদের কাছে দেশের ইমেজ নষ্ট করছে উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, অপরদিকে আওয়ামী লীগ দেশের ইমেজ বৃদ্ধির জন্য কাজ করে যাচ্ছে।


আরও খবর



মাদকবিরোধী অভিযানে রাজধানীতে গ্রেফতার ৫০

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১২ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১২ অক্টোবর ২০২১ | ৪৩৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযান চালিয়ে ৫০ জনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) বিভিন্ন থানা ও গোয়েন্দা (ডিবি) বিভাগ। গ্রেফতার প্রত্যেকে মাদক বিক্রি ও সেবনের দায়ে অভিযুক্ত।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ডিএমপির মিডিয়া ও পাবলিক রিলেশনস বিভাগ জানায়, সোমবার (১১ অক্টোবর) সকাল ছয়টা থেকে মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) সকাল ছয়টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে।

ডিএমপি জানায়, অভিযানে গ্রেফতারদের কাছ থেকে  ১৫ হাজার ১৯০ পিস ইয়াবা, ১৩০ গ্রাম হেরোইন, ৪ কেজি ৬০০ গ্রাম গাঁজা, ৮৫ বোতল ফেনসিডিল ও ২০টি ইনজেকশন উদ্ধার করা হয়।

তাদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ৩৫টি মামলা করা হয়েছে।


আরও খবর



হিজবুল্লাহর কাছে সর্বোচ্চসংখ্যক রকেট মজুদ রয়েছে: ইসরাইল

প্রকাশিত:সোমবার ১৮ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৮ অক্টোবর ২০২১ | ৩১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ইসরাইলের এক সামরিক কমান্ডার বলেছেন, যদি যুদ্ধ শুরু হয়, তা হলে লেবাননের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হিজবুল্লাহ প্রতিদিন দুই হাজার রকেট হামলা করতে পারে।

ইসরাইলের হোমফ্রন্ট কমান্ডের প্রধান উরি গরডিন এ আশঙ্কার কথা জানিয়েছেন। তিনি বলেন, গত মে মাসে গাজা উপত্যকায় ইসরাইল হামলা শুরু করলে সেখান থেকে প্রতিদিন গড়ে ৪০০-এর বেশি রকেট ছোড়া হয়েছে।

যদি হিজবুল্লাহর সঙ্গে যুদ্ধ লাগে তা হলে আমরা ধারণা করতে পারি প্রতিদিন এর চেয়ে পাঁচগুণ বেশি রকেট হামলা হবে।

এর আগে গত মার্চ মাসে এই কমান্ডার বলেছিলেন হিজবুল্লাহর কাছে সর্বোচ্চসংখ্যক রকেট মজুদ রয়েছে এবং যুদ্ধ শুরু হলে প্রতিদিন হিজবুল্লাহ গড়ে দুই হাজার রকেট ছুড়তে সক্ষম।

২০০০ ও ২০০৬ সালে হিজবুল্লাহর সঙ্গে ইহুদিবাদী ইসরাইলের যুদ্ধ হয় এবং দুটি যুদ্ধেই ইসরাইল লজ্জাজনক পরাজয় বরণ করেছে।

হিজবুল্লাহ বারবার বলছে, নতুন কোনো যুদ্ধে জড়ানোর ইচ্ছা তাদের নেই, তবে ইসরাইল যদি যুদ্ধ শুরু করে তবে লেবাননকে রক্ষার ব্যাপারে তারা অঙ্গীকারাবদ্ধ।


আরও খবর