আজঃ বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২
শিরোনাম

রান্নায় হলুদ বেশি হয়েছে? জেনে নিন করণীয়

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১০ মে ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১০ মে ২০২২ | ২৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রান্না করতে গিয়ে অনেক সময় বেশি হলুদ পড়ে যায়। অ্যান্টিবায়োটিক সমৃদ্ধ এই মশলা শরীরের জন্য উপকারী হলেও, রান্নায় অতিরিক্ত পড়ে গেলে নষ্ট হয়ে যেতে পারে স্বাদ। বেশি হলুদ রান্নাকে তিতকুটে করে তোলে। তবে রান্নায় বেশি হলুদ পড়ে গিয়ে থাকলে তা সামাল দিতে হয়।

কোন উপায়ে পাবেন সমাধান?

১) তেজপাতা: রান্নায় যদি বেশি হলুদ পড়ে যায় সে ক্ষেত্রে বাড়িতে থাকা তেজপাতা ম্যাজিকের মতো কাজ করবে। রান্নায় দু’চারটে তেজপাতা ফেলে দিয়ে দু-চার মিনিট ফুটিয়ে নিন। শেষে তেজপাতা ফেলে দিন। রান্নায় অতিরিক্ত হলুদের স্বাদ নিমেষে কমে যাবে।

২) সুপুরি: রান্নায় বেশি হলুদ পড়ে গেলে সুপুরি কার্যকরী হতে পারে। সুপুরিকে দু’টুকরো করে কেটে রান্নায় ফেলে দিলে হলুদের স্বাদ কমবে।

৩) গরমখুন্তি: রান্নায় হলুদের পরিমাণ বেশি হয়ে গেলে তা কমাতে তেজপাতা, সুপুরি তো আছেই। এ ছাড়া আরও একটি চমৎকার কৌশল আছে। লোহার খুন্তিকে গরম করে নিয়ে সেটা ঝোলের মধ্যে পাঁচ মিনিট রেখে দিলেই কেল্লাফতে। রান্না থেকে দ্রুত উধাও হবে হলুদের স্বাদ।


আরও খবর
‘আম’ চিনুন তারপর কিনুন

বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২




আসামি ধর‌তে গি‌য়ে হামলার শিকার দুই পু‌লিশ সদস্য

প্রকাশিত:বুধবার ১১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১১ মে ২০২২ | ৪৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

শেরপুরের শ্রীবরদীতে ওয়ারেন্টভুক্ত এক আসামিকে ধরতে গিয়ে হামলার শিকার হয়ে‌ছেন দুই পু‌লিশ সদস্য। মঙ্গলবার (১০ মে) রাত ১১টার দিকে উপজেলার ভেলুয়া ইউনিয়নের ঢনঢনিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘ‌টে।

আহত পু‌লিশ সদস্যরা হলেন- শ্রীবরদী থানার এসআই সাইফুল মালেক ও পুলিশ সদস্য দেলোয়ার হোসেন। পরে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে তাদের উদ্ধার ক‌রে। এ ঘটনায় পু‌লিশ বাদী হ‌য়ে এক‌টি মামলা দা‌য়ের ক‌রেছে। পরে পু‌লিশ অ‌ভিযান চালি‌য়ে দুই নারীসহ তিনজন‌কে গ্রেপ্তার ক‌রেছে।

পুলিশ সূ‌ত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার (১০ মে) রাতে এসআই সাইফুল মালেকের নেতৃত্বে ঢনঢনিয়া গ্রামে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন মামলার আসামি আব্দুর রহমানের ছেলে রাসেলকে গ্রেফতার করতে তার বাড়িতে যায় পুলিশ। এসময় বাড়িতে থাকা নারী-পুরুষরা মি‌লে পুলিশের ওপর অতর্কিত হামলা ক‌রে। প‌রে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে আহত দুই পুলিশ সদস্যকে উদ্ধার করে শ্রীবরদী উপ‌জেলা স্বাস্থ্য কম‌প্লে‌ক্সে নিয়ে আসে। সেখানে তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়।

এ ঘটনায় আহত এসআই সাইফুল মালেক বাদী হয়ে ১১ জনের নাম উল্লেখ করে এবং ১৫/২০ জনকে অজ্ঞাত আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন। পরে পু‌লিশ অ‌ভিযান চা‌লি‌য়ে আব্দুর রহমান (৪৫), মমতা বেগম (২৮) ও মজিনা বেগমকে ( ২৫) গ্রেফতার করেছে।

শ্রীবরদী থানার অ‌ফিসার ইনচার্জ বিপ্লব কুমার বিশ্বাস ব‌লেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ওপর হামলার ঘটনা দুঃখজনক। গ্রেফতার তিনজন‌কে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি আসামিদের ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।


আরও খবর



এবার কন্যা সন্তানের বাবা হলেন তাসকিন

প্রকাশিত:রবিবার ০১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০১ মে ২০২২ | ৪০৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বাংলাদেশের তারকা পেসার তাসকিন আহমেদ ফের বাবা হয়েছেন।  তাসকিন ও সৈয়দা রাবেয়া নাঈমার ঘর আলো করে এবার এসেছে এক কন্যা সন্তান। শুক্রবার সামাজিক মাধ্যমে কন্যা সন্তানের বাবা হওয়ার খবরটি তাসকিন নিজেই জানিয়েছেন।

এক ফেসবুকে পোস্টে তাসকিন লিখেন, আলহামদুলিল্লাহ, আল্লাহর অশেষ রহমত ও আপনারদের সবার দোয়ায় আমি সুন্দর কন্যা সন্তানের বাবা হলাম। সবাই তার জন্য দোয়া করবেন।

ইনজুরির কারণে আপাতত জাতীয় দলের বাইরে রয়েছেন তাসকিন। চোট নিয়ে তিনি দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে ফিরেছিলেন। ওয়ানডে সিরিজ জয়ে সিরিজের সেরা খেলোয়াড় হন এই পেসার। এর আগে, ২০১৮ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর পুত্র সন্তানের বাবা হন তাসকিন। তাঁর ছেলের নাম তাসফিন আহমেদ।


আরও খবর



রানা প্লাজা ধসের ৯ বছরেও মেলেনি ক্ষতিপূরণ

প্রকাশিত:শনিবার ২৩ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২৩ এপ্রিল ২০২২ | ৪৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সাভারের রানা প্লাজা ধসে এক হাজার ১৩৬ জনের মৃত্যুর ঘটনার নয় বছর পূর্ণ হচ্ছে রবিবার (২৩ এপ্রিল)। এ ঘটনায় করা হত্যা মামলার বিচার এগোয়নি। এতগুলো প্রাণহানির ঘটনায় সোহেল রানারও বিচার হয়নি। আজও আহত ও নিখোঁজ পরিবারের সদস্যদের দেওয়া হয়নি ক্ষতিপূরণ।

এ নিয়ে শনিবার বিকালে ধসে পড়া রানা প্লাজার সামনে মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়। এতে ক্ষোভ প্রকাশ করে বক্তব্য দিয়েছেন শ্রমিকনেতা, রানা প্লাজার আহত ও নিহতদের স্বজনরা।

বাংলাদেশ গার্মেন্টস অ্যান্ড শিল্প শ্রমিক ফেডারেশন ও রানা প্লাজা গার্মেন্টস শ্রমিক ইউনিয়নের উদ্যোগে এ কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। এতে বিভিন্ন গার্মেন্টসের শ্রমিকনেতার পাশাপাশি আহত শ্রমিকরা বক্তব্য দেন।

বাংলাদেশ গার্মেন্টস অ্যান্ড শিল্প শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি রফিকুল ইসলাম সুজন বলেন, নয় বছর পার হওয়ার পথে। অথচ এই ঘটনার মূলহোতা সোহেল রানার সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত হয়নি। এখন পর্যন্ত হতাহত শ্রমিকদের দেওয়া হয়নি ক্ষতিপূরণ। করা হয়নি চিকিৎসার ব্যবস্থা। এজন্য আজও এই প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করেছি আমরা। রানা প্লাজার জায়গা অধিগ্রহণ করে ক্ষতিগ্রস্ত শ্রমিক ও পরিবারের পুনর্বাসন এবং ২৪ এপ্রিলকে শোক দিবস ঘোষণা করার দাবি জানাই।

তিনি আক্ষেপ করে বলেন, শুধুমাত্র রানা প্লাজা নয়, তাজরীন ফ্যাশন অগ্নিকাণ্ড, স্পেকট্রাম গার্মেন্টস ভবন ধসসহ এ পর্যন্ত দেশের যেসব গার্মেন্টেসে হত্যাকাণ্ড ঘটেছে, আজ পর্যন্ত বিচার হয়নি। তাই সোহেল রানাসহ সব অপরাধীদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিতের দাবি জানাই।

সমাবেশে গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়নের সাংগঠনিক সম্পাদক খাইরুল ইসলাম মিন্টু বলেন, রানা প্লাজার ঘটনার জন্য দায়ী ব্যক্তিদের এখন পর্যন্ত বিচারের আওতায় আনা হয়নি। যখনই ২৪ এপ্রিল আসে বিচার নিয়ে কথা ওঠে। কিন্তু বছরের বাকি ১১ মাস এ নিয়ে কোনও কথা হয় না। শ্রম আইন সংশোধনের মাধ্যমে কারখানাগুলো নিরাপদ করতে সরকার উদ্যোগ নিয়েছিল। এরপর অ্যাকোর্ড, অ্যালায়েন্স এসেছে। কিন্তু কারখানায় নিরাপত্তা নিশ্চিত হয়নি। এখনও বিভিন্ন কারখানায় ঘটছে দুর্ঘটনা। শ্রমিকরা জীবন দিচ্ছেন প্রতিনিয়ত। এখনও রানা প্লাজার যেসব শ্রমিক জীবিত আছেন তারা এই দিনে শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য আসতে চাইলে কারখানার মালিকরা ছুটি দেন না। সরকার ও কারখানার মালিকরা এই দিন ভুলিয়ে দিতে চায়। কিন্তু আমরা এ ঘটনার বিচার চাই এবং চাইবো।

রানা প্লাজার আহত শ্রমিক নিলুফা আক্তার বলেন, আমি ক্ষতিপূরণ চাই। আমার চিকিৎসার ব্যবস্থা করুন। পাশাপাশি রানার সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করুন।

২০১৩ সালের ২৪ এপ্রিল সাভারের রানা প্লাজা ধসে এক হাজার ১৩৬ শ্রমিকের করুণ মৃত্যু হয়। আহত হন আরও কয়েক হাজার শ্রমিক।

শ্রমিকরা জানান, ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের সাভার বাসস্ট্যান্ডের পাশে অবস্থিত রানা প্লাজায় তিনটি পোশাক কারখানার শ্রমিকরা প্রতিদিনের মতো ওই দিন সকাল ৮টায় হাজির হন কর্মস্থলে। উৎপাদনও শুরু করেন নির্ধারিত সময়ে। হঠাৎ সাড়ে ৯টার দিকে বিকট শব্দ। আশপাশে উড়তে থাকে ধুলাবালু। ধসে পড়ে রানা প্লাজা। শুরু হয় আহত শ্রমিকদের আহাজারি। উদ্ধারে এগিয়ে আসেন স্থানীয়রা। পরে তাদের সঙ্গে যুক্ত হন সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী, ফায়ার সার্ভিস, আনসার, র‌্যাব ও পুলিশ সদস্যরা। চলে বিরতিহীন উদ্ধার অভিযান।


আরও খবর



ঢাবি অধ্যাপকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৬ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৬ এপ্রিল ২০২২ | ৪৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ম্যানেজমেন্ট এ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেম বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. আকরাম হোসেনের বিরুদ্ধে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ এনেছেন ওই বিভাগের এক শিক্ষার্থী। ফলে ওই বিভাগে নিয়োগের সুপারিশ পাওয়া দুই সদ্য প্রভাষকের নিয়োগ সুপারিশ বাতিল করেছে বিশ্ববিদ্যালয় সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারক কমিটি (সিন্ডিকেট)।

মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারনী কমিটির (সিন্ডিকেট) সভায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানান সভায় উপস্থিত থাকা একাধিক সিন্ডিকেট সদস্য।

অধ্যাপক ড. মো. আকরাম হোসেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের প্রাধ্যক্ষ এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির কোষাধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

সূত্র জানায়, অভিযোগকারী শিক্ষার্থী ২০১৯ সালের ১০ মে ব্যবসা শিক্ষা অনুষদের তৎকালীন ডীন অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলাম বরাবর যৌন নিপীড়নের অভিযোগ দেন। ২০১৮ সালে শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে বাদ যাওয়া হিসেবে অনৈতিক প্রস্তাবে রাজি না হওয়ার বিষয়টি উল্লেখ করেন অভিযোগকারী শিক্ষার্থী। তবে অভিযোগপত্রটি বেশি দূর গড়ায়নি।

সূত্র আরো জানায়, সম্প্রতি প্রভাষক নিয়োগে ওই শিক্ষার্থী আবেদন করলে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ তোলায় নিয়োগে সুপারিশ করেনি চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মো. আকরাম হোসেন- এ মর্মে উল্লেখ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো.আখতারুজ্জামান বরাবর অভিযোগপত্র দেন। ওই শিক্ষার্থীর অভিযোগের ভিত্তিতে নিয়োগ সুপারিশ বাতিল করেছে সিন্ডিকেট।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ বলেন, ওই শিক্ষার্থীর অভিযোগপত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌন নিপীড়ন বিরোধী সেলে পাঠানো হয়েছে। যৌন নিপীড়ন বিরোধী সেলের তদন্ত প্রতিবেদন আলোকে ওই ছাত্রীর নিয়োগের বিষয়ে সিন্ডিকেট সিদ্ধান্ত নেবে।

এবিষয়ে জানতে চাইল অভিযুক্ত অধ্যাপক মো. আকরাম হোসেন বলেন, ওই শিক্ষার্থীর অভিযোগের কপি দুটি পড়লে বুঝা যায় যে ওই শিক্ষার্থী বিচার চায় না, চাকরি চায়। তার চাকরি হলে আর অভিযোগ থাকবে না। এসব অভিযোগের সাথে আমার কোনো সম্পর্ক নেই। শিক্ষকদের অভ্যন্তরীণ ষড়যন্ত্রের শিকার বলে উল্লেখ করেন অধ্যাপক আকরাম।


আরও খবর



৪৪তম বিসিএসের প্রিলি: ১২৪ ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৯ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৯ এপ্রিল ২০২২ | ৪৪০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

৪৪তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় দায়িত্ব পালনের জন্য বিসিএস প্রশাসন ক্যাডারের ১২৪ জন কর্মকর্তাকে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার ক্ষমতা দিয়ে ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ দিয়েছে সরকার।

বৃহস্পতিবার (২৮ এপ্রিল) জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে কোড অব ক্রিমিন্যাল প্রসিডিউর, ১৮৯৮ অনুযায়ী এ কর্মকর্তাদের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের ক্ষমতা দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। আগামী ২৭ মে ৪৪তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা (এমসিকিউ টাইপ) অনুষ্ঠিত হবে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, আগামী ২৭ মে সকাল ১০টা থেকে বেলা ১২টা পর্যন্ত ঢাকার ১১৪টি কেন্দ্রে এ বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা হবে। পরীক্ষাকেন্দ্রের ভেতরে ও বাইরের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি রক্ষায় প্রতিটি কেন্দ্রে একজন করে ম্যাজিস্ট্রেট থাকবেন। সরকারি কর্মকমিশন সচিবালয়ের কন্ট্রোল রুমে দায়িত্ব পালনের জন্য ১০ জন মেজিস্ট্রেট অতিরিক্ত নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

ম্যাজিস্ট্রেটদের আগামী ১০ মে সকাল ১০টায় সরকারি কর্ম কমিশনে (পিএসসি) অনুষ্ঠিত ব্রিফিং সেমিনারে উপস্থিত হওয়ার জন্য এবং ২৭ মে বিকেল সাড়ে ৪টায় পিএসসি কার্যালয়ে রিপোর্ট করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে প্রজ্ঞাপনে।


আরও খবর