আজঃ মঙ্গলবার ২০ এপ্রিল ২০21
শিরোনাম

রফিকুলের ফোনে মিলল পর্ন ভিডিও, নাম-বিয়ে নিয়ে রয়েছে বিতর্ক

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৮ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৮ এপ্রিল ২০২১ | ৬০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

শিশুবক্তা হিসেবে পরিচিত রফিকুল ইসলাম মাদানীকে গ্রেপ্তারের পর বেরিয়ে আসছে তার নানা ঘটনা। বক্তা হিসেবে আলোচিত এই ব্যক্তির ব্যক্তিজীবনও বেশ আলোচিত। তার মোবাইল ফোনে মিলেছে বেশ কিছু পর্নো ভিডিও; রয়েছে বিয়ে নিয়েও অস্পষ্টতা।

বুধবার দুপুরে গ্রেপ্তার করা হয় ২৬ বছর বয়সী রফিকুল মাদানীকে, এরপর বিকেলে তার বিরুদ্ধে গাজীপুরের গাছা থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়। হেফাজত নিয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে র‌্যাব, তার মোবাইল ফোনও তল্লাশি করা হয়।

র‌্যাবের একটি সূত্র জানিয়েছে, রফিকুলকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। প্রাথমিকভাবে তার ফোনে তল্লাশি চালিয়ে বেশ কিছু পর্নো ভিডিও পাওয়া গেছে। আসমা বেগম নামের এক নারীকে তিনি বিয়ে করেছেন বলে যে দাবি করেছেন তা নিয়েও নানা তথ্য পাওয়া গেছে। ওই নারীর সঙ্গে রফিকুলের সামাজিকভাবে বিয়ে হয়নি। বিয়ে নিয়ে অস্পষ্টতা রয়েছে।

র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে রফিকুল জানান, প্রতিবার ওয়াজের জন্য তিনি ১৫ হাজার থেকে ৩০ হাজার টাকা নিয়ে থাকেন। ওয়াজ করেই মাসে ৫-৬ লাখ টাকা আয় করেন তিনি। মাঝে মাঝে বিমান ও হেলিকপ্টারে গিয়ে ওয়াজ করেন। যারা তাকে নিমন্ত্রণ জানান, তারা এর খরচ বহন করেন।

'শিশু বক্তা' হিসেবে হঠাৎ পরিচিত হয়ে ওঠা রফিকুল ইসলাম কিছুটা অস্বাভাবিক খর্বকায়, বালকসুলভ চেহারা ও কোমল কণ্ঠস্বরের অধিকারী। তার নিজের ভাষ্যমতে, '১৯৯৫ সালে আমার জন্ম। কে বলছে আমি শিশু? আমার বয়স ২৬ বছর।

রফিকুল ইসলামের বাড়ি নেত্রকোনায়। স্থানীয় স্কুলে শিক্ষাজীবন শুরু হলেও পরে তিনি মাদ্রাসায় ভর্তি হন ও নূরানি, হেফজ পড়েন। এরপর আট বছর কিতাবখানায় পড়েন।

মাদ্রাসার ছাত্র থাকার সময় বিভিন্ন ওয়াজ মাহফিলে ওয়াজ করতেন রফিকুল। তিনি দাওরায়ে হাদিস পড়েছেন রাজধানীর জামিয়া মাদানিয়া বারিধারা মাদ্রাসায়। একই সঙ্গে তিনি বিএনপি-জামায়াত জোটের শরিক দল জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের অঙ্গসংগঠন যুব জমিয়তের নেত্রকোনা জেলার সহসভাপতি। নেত্রকোনার পশ্চিম বিলাশপুর সাওতুল হেরা মাদ্রাসার পরিচালক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করে আসছেন 'শিশু বক্তা'।

রফিকুলের নামের শেষে 'মাদানী' শব্দ যুক্ত করা নিয়েও বিতর্ক রয়েছে। সাধারণত সৌদি আরবের মদিনা বিশ্ববিদ্যালয়ে যারা পড়াশোনা করেন, তাদের নামের সঙ্গে 'মাদানী' যুক্ত করা হয়। অভিযোগ, ওই বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা না করেই নিজের নামের সঙ্গে 'মাদানী' শব্দ যুক্ত করেছেন তিনি।

এরই মধ্যে 'মাদানী' শব্দ প্রত্যাহার করতে রফিকুলকে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন মদিনা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থী মাওলানা রফিকুল ইসলাম মাদানী। তার পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী শরীফুল হাসান খান গত ১৫ ফেব্রুয়ারি এই নোটিশ পাঠান।

বিতর্কিত বক্তা হওয়ায় রফিকুল ইসলামকে ওয়াজকারী বক্তাদের সংগঠন রাবেতাতুল ওয়ায়েজিন বাংলাদেশের সদস্য করা হয়নি। বরং সংগঠনটির পক্ষ থেকে তাকে বিভিন্ন সময় অপ্রাসঙ্গিক বক্তব্য না দেওয়ার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।


আরও খবর



আজও রাজধানীতে কম থাকবে গ্যাসের সরবরাহ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৫ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৫ মার্চ ২০২১ | ৮২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

এলএনজির কারণে গ্যাস সরবরাহ কমে যাওয়ায় আজ বৃহস্পতিবার (২৫ মার্চ) দুপুর ১২টা পর্যন্ত রাজধানীর প্রায় সব এলাকায় গ্যাসের স্বল্প চাপ থাকবে।

বৃহস্পতিবার রাতে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানিয়েছে তিতাস গ্যাস কোম্পানি। এজন্য গ্রাহকদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করেছে তারা।

তিতাস জানায়, তিতাস অধিভুক্ত এলাকায় সামগ্রিক নেটওয়ার্কে গ্যাসের সরবরাহ কম থাকবে। এজন্য ঢাকা শহরসহ সব এলাকায় প্রয়োজনীয় পরিমাণে ও চাপে গ্যাস সরবরাহ করতে পারছে না তারা।

এ অবস্থায় আগামীকাল (আজ) ২৫ মার্চ দুপুর ১২টা পর্যন্ত ঢাকা শহরসহ সব এলাকায় গ্যাসের স্বল্প চাপ থাকবে।

হঠাৎ করেই এলএনজি সরবরাহ কমে যাওয়ায় বুধবার (২৪ মার্চ) সকাল থেকে ঢাকা মহানগরীর প্রায় সব এলাকায় কম-বেশি গ্যাস সংকট দেখা দিয়েছিল। কোথাও কোথাও একেবারেই গ্যাস ছিল না। আবার কোথাও চুলা জ্বললেও চাপ এতো কম ছিল যে, রান্নার উপায় ছিল না।

এর আগে গত সোমবার (২২ মার্চ) রাতে আমিন বাজারে রাস্তা মেরামত করতে গিয়ে তিতাসের সিটি গেটে গ্যাসের পাইপলাইন ছিদ্র করে ফেলে সড়ক ও জনপথ বিভাগ।

এতে ধানমন্ডি, মোহাম্মদপুর এবং মিরপুর এলাকায় গ্যাস সরবরাহ বন্ধ হয়ে যায়। রাতে মেরামতের কাজ শুরু করলে মঙ্গলবার (২৩ মার্চ) দিনগত রাত থেকে অল্প অল্প করে গ্যাস আসতে শুরু করে। কিন্তু মেরামতের কাজ শেষ না করা এবং একইসঙ্গে এলএনজি সরবরাহ কমে যাওয়ার কারণে বুধবার সকাল থেকে আবারও ঢাকা মহানগরীরর প্রায় সব এলাকায় গ্যাস সংকট দেখা দেয়।


আরও খবর



বি-টাউনে অভিষেক হতে যাচ্ছে স্টার কিড শানায়া কাপুরের

প্রকাশিত:সোমবার ২২ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২২ মার্চ ২০২১ | ৮১জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

অনেক দিন ধরেই বি-টাউনে স্টার কিড শানায়া কাপুরের অভিষেক নিয়ে কানাঘুষো চলছিল। অবশেষে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা এলো। নির্মাতা-প্রযোজক করণ জোহরের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের হাত ধরে বলিউডে যাত্রা শুরু করতে চলেছেন শানায়া।

বলিউড হাঙ্গামার খবর, বুলবুল-এর তৃপ্তি দিমরি, গিল্টির গুরফাতে পিরজাদা, উরি দ্য সার্জিক্যাল স্ট্রাইক-এর ধৈর্য কারওয়া ও দস্তানা টুর লক্ষ্যের পর ধর্ম কর্নারস্টোন এজেন্সি তাদের নতুন প্রতিভার নাম ঘোষণা করল। আর সেই প্রতিভা হলেন বলিউড অভিনেতা সঞ্জয় কাপুর ও মাহিপ কাপুরের মেয়ে শানায়া কাপুর।

কিছুদিন আগে ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট পাবলিক করেছেন শানায়া কাপুর আর এরই মধ্যে এ মাধ্যমে তাঁর অনুসরণকারী হয়েছে প্রায় সাড়ে চার লাখ। সেখানে এ সুখবর প্রকাশ করেছেন শানায়াও। লিখেছেন প্রথম সিনেমার কাজ শুরু করার জন্য উদগ্রীব তিনি। সিনেমাটির শুট শুরু হবে জুলাইয়ে।

জাহ্নবী কাপুরের গুঞ্জন সাক্সেনাদ্য কার্গিল গার্ল সিনেমায় সহকারী পরিচালক হিসেবে কাজ করেছেন শানায়া কাপুর। এর আগে মাহিপ কাপুরের নেটফ্লিক্স সিরিজ ফেবুলাস লাইভস অব বলিউড ওয়াইভস-এ দেখা গিয়েছিল শানায়াকে। বলিউডে অভিষেকের আগেই এ স্টার কিডের বেশ ফ্যান-ফলোয়ার রয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: শানায়া কাপুর

আরও খবর



বিএনপি-জামায়াতের মদদপুষ্ট স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার পদ প্রত্যাহার চেয়ে আ.লীগ নেতার আবেদন

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৩ এপ্রিল ২০২১ | ১১৭২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
দলের বিদ্রোহী হিসাবে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করার অভিযোগে ওই দিপ্তীশ কুমার হালদারকে তখন দল থেকে বহিস্কার করা হয়। পরে স্বেচ্ছা সেবকলীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে

প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিদ্রোহী প্রার্থীকে দলীয় পদ থেকে প্রত্যাহার চেয়ে আবেদন করেছেন পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলা চেয়ারম্যান মাস্টার অমূল্য রঞ্জন হালদার। এ সংক্রান্ত একটি আবেদন পৌঁছে এ প্রতিনিধির কাছে। ওই আবেদন থেকে জানা গেছে, জেলার নাজিরপুর উপজেলা চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হিসাবে প্রতিদ্বদ্বীতা করা দিপ্তীশ কুমার হালদার স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় নতুন কমিটিতে সম্মানীত কার্য নির্বাহী সদস্য হিসাবে পদ পেয়েছে। ওই পদ থেকে তার (দিপ্তীষ কুমার হালদার) নাম প্রত্যাহার চেয়ে আবেদন করেছেন ওই উপজেলার আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন ও নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচিত চেয়ারম্যান।

দলের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে দেয়া ওই আবেদনের মাধ্যমে জানা গেছে, গত ২০১৯ সালের ৩১ মার্চ জেলার নাজিরপুর উপজেলা পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ওই নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন ও নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচিত হন ওই উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক আহবায়ক ও উপজেলা চেয়ারম্যান মাস্টার অমূল্য রঞ্জন হালদার। আর ওই নির্বাচনে আ.লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হিসাবে দোয়াত কলম প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেন স্বেচ্ছাসেবকলীগ কেন্দ্রী নেতা দিপ্তীশ কুমার হালদার। সেসময় দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্ধে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করায় ওই দিপ্তীশ কুমার হালদারকে দল থেকে বহিস্কার করা হয়।

ওই আবেদনে আরো উল্লেখ করা হয় বিদ্রোহী প্রার্থী ও ওই কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা সে সময় বিএনপি-জামায়াতের মদদে দলের মধ্যে বিশৃংখলা সৃষ্টির জন্যে তাকে প্রার্থী করা হয়। সম্প্রতি দেয়া এ অভিযোগের একটি কপি দলের নেতৃবৃন্দের কাছে পাঠিয়েছেন।

এ ব্যাপারে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা দিপ্তীষ কুমার হালদার জানান, আমি নির্বাচন করেছি তাতো মিথ্যা নয়। তিনিতো অভিযোগ দিতেই পারেন। তবে এ বিষয়টি নিয়ে নিউজ করার কি আছে?

এ ব্যাপারে আ.লীগ সমর্থিত নাজিরপুর উপজেলা চেয়ারম্যান মাস্টার অমূল্য রঞ্জন হালদার জানান, দলের বিদ্রোহী হিসাবে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করার অভিযোগে ওই দিপ্তীশ কুমার হালদারকে তখন দল থেকে বহিস্কার করা হয়। পরে স্বেচ্ছা সেবকলীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে স্থান পাওয়ায় সংগঠনের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হয়েছে। তাই দলের সভাপতির কাছে তাকে সংগঠনের পদ থেকে প্রত্যাহার চেয়ে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে এ আবেদন করেছি।


তিনি আরো জানান, নির্বাচনে দিপ্তীশ কুমার হালদারের নেতৃত্বে তখন আমার নির্বাচনী ক্যাম্পে হামলা, অগ্নিসংযোগ ও কর্মীদের মারধর করে আহত করে। সময় দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্ধে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করায় ওই দিপ্তীশ কুমার হালদারকে দল থেকে বহিস্কার করা হয়। ওই আবেদনে আরো উল্লেখ করা হয় বিদ্রোহী প্রার্থী ও ওই কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা সে সময় বিএনপি-জামায়াতের মদদে দলের মধ্যে বিশৃংখলা সৃষ্টির জন্যে তাকে প্রার্থী করা হয়। সম্প্রতি দেয়া এ অভিযোগের একটি কপি দলের নেতৃবৃন্দের কাছে পাঠিয়েছেন।

এ ব্যাপারে স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা দিপ্তীশ কুমার হালদার জানান, আমি নির্বাচন করেছি তাতো মিথ্যা নয়। তিনিতো অভিযোগ দিতেই পারেন। তবে এ বিষয়টি নিয়ে নিউজ করার কি আছে?

এ ব্যাপারে আ.লীগ সমর্থিত নাজিরপুর উপজেলা চেয়ারম্যান মাস্টার অমূল্য রঞ্জন হালদার জানান, দলের বিদ্রোহী হিসাবে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করার অভিযোগে ওই দিপ্তীশ কুমার হালদারকে তখন দল থেকে বহিস্কার করা হয়। পরে স্বেচ্ছা সেবকলীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে স্থান পাওয়ায় সংগঠনের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হয়েছে। তাই দলের সভাপতির কাছে তাকে সংগঠনের পদ থেকে প্রত্যাহার চেয়ে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে এ আবেদন করেছি।

তিনি আরো জানান, নির্বাচনে দিপ্তীশ কুমার হালদারের নেতৃত্বে তখন আমার নির্বাচনী ক্যাম্পে হামলা, অগ্নি সংযোগ ও কর্মীদের মারধর করে আহত করে।


আরও খবর



পবিত্র শবে বরাতে যেসব নিষেধাজ্ঞা ডিএমপির

প্রকাশিত:সোমবার ২৯ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২৯ মার্চ ২০২১ | ১০৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
বিস্ফোরক দ্রব্য, আতশবাজি, পটকাবাজিসহ অন্যান্য ক্ষতিকারক ও দূষণীয় দ্রব্য বহন এবং ফোটানো নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে ঢাকা মহানগগর পুলিশ

সোমবার (২৯ মার্চ) রাতে পবিত্র শবে বরাত (লাইলাতুল বরাত) উপলক্ষে বেশকিছু নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। পবিত্র শবে বরাতের পবিত্রতা রক্ষার্থে এবং সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে উদযাপন করতে বিস্ফোরক দ্রব্য, আতশবাজি, পটকাবাজিসহ অন্যান্য ক্ষতিকারক ও দূষণীয় দ্রব্য বহন এবং ফোটানো নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে ঢাকা মহানগগর পুলিশ (ডিএমপি)।

রবিবার সন্ধ্যায় ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনার মো. শফিকুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়।

এতে আরও বলা হয়, রাজধানীতে শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষা করার জন্য ডিএমপি অর্ডিন্যান্স (অর্ডিন্যান্স নম্বর-ওওও/৭৬) এর ২৮ ধারায় অর্পিত ক্ষমতাবলে ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনার মো. শফিকুল ইসলাম আগামী ২৯ মার্চ সন্ধ্যা ৬টা থেকে পরের দিন ভোর ৬টা পর্যন্ত এ নির্দেশ দেন।


আরও খবর



এক পায়ে বাংলা জয় করব, দুই পায়ে দিল্লি

প্রকাশিত:সোমবার ০৫ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ০৫ এপ্রিল ২০২১ | ৮৮জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পশ্চিমবঙ্গ জয় করে দিল্লির ক্ষমতায়ও বসবে তৃণমূল কংগ্রেস। নির্বাচনী জনসভা থেকে এমন চ্যালেঞ্জই ছুড়ে দিয়েছেন মমতা ব্যানার্জি। তিনি বলেন, এক পায়ে বাংলা জয় করব, দুই পায়ে দিল্লি।

সোমবার (৫ এপ্রিল) পশ্চিমবঙ্গের হুগলি জেলার চুঁচুড়া এবং চণ্ডীতলার সভা থেকে এমন কথা বলেন মমতা।

পশ্চিমবঙ্গে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু হয়েছে মার্চে। বিধানসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে বেশ জোরালো প্রচার চালাচ্ছেন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতারা। একইভাবে বাংলার ক্ষমতা দখলে রাখতে পুরোদমে প্রচার চালাচ্ছে তৃণমূল। প্রতিদিনই একাধিক সভা করছেন তৃণমূল প্রধান। জয়ের বিষয়ে শতভাগ আশাবাদী তিনি।

মমতার ভাষ্য, আমি যেখানে দাঁড়াব, সেখানেই জিতব।

এদিন বিজেপিকে দিল্লি থেকে সরানোর ডাক দিয়ে মমতা বলেন, এক পায়ে বাংলা জয় করব, দুপায়ে দিল্লি। বিজেপিকে বাংলা ও দিল্লি থেকে সরাতে তৃণমূলই একমাত্র ভরসা।

এদিনের জনসভা থেকে বিজেপিকে আক্রমণের পাশাপাশি আইএসএফ প্রধান আব্বাস সিদ্দিকিকেও গাদ্দার বলে কটাক্ষ করেন তিনি। আত্মবিশ্বাসী ভঙ্গিতে বলেন, বাংলার সংখ্যালঘু ভোট কোনোদিনও ভাগ হবে না। কারণ, সব সংখ্যালঘু ভোট পড়বে তৃণমূলে।


আরও খবর