আজঃ বৃহস্পতিবার ১৩ মে ২০২১
শিরোনাম

রিজার্ভ ছাড়াল ৪৫ বিলিয়ন ডলার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৪ মে ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৪ মে ২০২১ | ৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিদেশি মুদ্রার রিজার্ভ প্রথমবারের মতো ৪ হাজার ৫০০ কোটি (৪৫ বিলিয়ন) ডলার ছাড়িয়েছে। সোমবার দিন শেষে বাংলাদেশের রিজার্ভ দাঁড়ায় ৪ হাজার ৫১০ কোটি ডলার।

এ পরিমাণ রিজার্ভ দিয়ে প্রায় ১২ মাসের আমদানি দায় পরিশোধ সম্ভব বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মো. সিরাজুল ইসলাম।

এর আগে প্রথম রিজার্ভ ৪ হাজার ৪০০ কোটি (৪৪ বিলিয়ন) ডলার ছাড়ায় গত ২৪ ফেব্রুয়ারি। এরপর এশিয়ান ক্লিয়ারিং ইউনিয়নের (আকু) আমদানি দায় পরিশোধের ফলে রিজার্ভ কিছুটা কমে গেলেও এপ্রিলের মাঝামাঝি থেকে তা আবার বাড়তে শুরু করে।

সিরাজুল ইসলাম বলেন, করোনার মধ্যেও প্রবাসী আয় প্রবাহ ভালো রয়েছে। বাজারে ডলারের সরবরাহ বেশি। এ কারণে বাজার থেকে বেশ কিছু ডলারও কিনেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এর ফলে রিজার্ভ বেড়েছে।

তবে মঙ্গলবার আকুর মার্চ-এপ্রিল সময়ের দেনা পরিশোধের কথা রয়েছে। এই দিন ১৭৪ কোটি ডলার আকুর দেনা পরিশোধ করবে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। ফলে রিজার্ভ আবার ৪৫ বিলিয়ন ডলারের নিচে নেমে যাবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র সিরাজুল ইসলাম।

বাংলাদেশ, ভুটান, ভারত, ইরান, মিয়ানমার, নেপাল, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা ও মালদ্বীপ বর্তমানে আকুর সদস্য। এ দেশগুলো থেকে বাংলাদেশ যেসব পণ্য আমদানি করে তার বিল দুই মাস পর পর আকুর মাধ্যমে পরিশোধ করতে হয়।

বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তারা জানান, ঈদকে কেন্দ্র করে বেশি করে রেমিট্যান্স পাঠাচ্ছেন প্রবাসীরা। গত ১ ও ২ মে ১৫ কোটি ডলার রেমিট্যান্স এসেছে দেশে। এছাড়া গত এপ্রিলের পুরো মাস জুড়ে ২০৬ কোটি ৭০ লাখ ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা। এ অঙ্ক গত বছর এপ্রিলে আসা রেমিট্যান্সের চেয়ে ৮৯ দশমিক ১১ শতাংশ বেশি।

প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, চলতি ২০২০-২১ অর্থবছরের প্রথম ১০ মাসে (জুলাই-এপ্রিল) দেশে ২ হাজার ৬৭ কোটি ২০ লাখ (২০.৬৭ বিলিয়ন) ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা। এ অঙ্ক অর্থবছরের জুলাই-এপ্রিল সময়ে আসা রেমিট্যান্সের চেয়ে ৩৯ শতাংশ বেশি।

এ বিষয়ে পলিসি রিসার্চ ইনস্টিটিউটের (পিআরআই) নির্বাহী পরিচালক ড. আহসান এইচ মনসুর দেশ রূপান্তরকে বলেন, রিজার্ভ এখন বাড়বেই। কেননা, রেমিট্যান্স বাড়ছে। সেই তুলনায় আমদানি বাড়ছে না। ফলে দেশের মধ্যে প্রচুর ডলার থেকে যাচ্ছে, যা কেন্দ্রীয় ব্যাংক কিনে নিচ্ছে ডলারের দর স্থিতিশীল রাখতে। এতে কোনো অসুবিধা দেখি না। এই করোনার মধ্যে ভারতেও রিজার্ভ বেড়েছে।

এর আগে গত বছরের ৩০ ডিসেম্বর রিজার্ভ ৪৩ বিলিয়ন ডলার অতিক্রম করে। ১৫ ডিসেম্বর ৪২ বিলিয়ন এবং ২৮ অক্টোবর ৪১ বিলিয়ন অতিক্রম করে।


আরও খবর



মোংলা বন্দরে পৌঁছেছে মেট্রোরেলের দ্বিতীয় চালান

প্রকাশিত:রবিবার ০৯ মে ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ০৯ মে ২০২১ | ৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মোংলা বন্দরে পৌঁছেছে মেট্রোরেলের দ্বিতীয় চালানের আরও ৬ বগি। আজ রোববার (৯ মে) দুপুরে জাপানের কোবে বন্দর থেকে ছেড়ে আসা বেলিজ পতাকাবাহী জাহাজ এমভি ওশান গ্রেস মোংলা বন্দরের জেটিতে ভিড়ে। বিকেলে এসব কোচ বন্দর জেটি থেকে খালাস শুরু হবে বলে জানিয়েছে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ।

এর আগে ২১ এপ্রিল (বুধবার) সকালে জাপানের কোবে সমুদ্রবন্দর থেকে দ্বিতীয় চালানের ৬টি বগি নিয়ে বাংলাদেশে রওনা দিয়েছিল এমভি ওশান গ্রেস। এই নিয়ে মোংলা বন্দরে মেট্রোরেলের দুটি চালান পৌঁছালো।

বিদেশি জাহাজটির স্থানীয় শিপিং এজেন্ট এনসিয়েন্ট ষ্টিমশিপ কোম্পানি লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক মো. ওহিদুজ্জামান বলেন, ৬টি বগি নিয়ে এমভি ওশান গ্রেস নামে বেলিজ পতাকাবাহী জাহাজটি মোংলা বন্দরে এসে পৌঁছায়। আমরা যত দ্রুত সম্ভব খালাস শুরু করব।

মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার এ্যাডমিরাল মোহাম্মদ মুসা বলেন, পর্যায়ক্রমে ২০২২ সালের মধ্যে ২৪টি জাহাজে করে মেট্রোরেলের আরও ১৪৪টি বগি এ সমুদ্র বন্দর দিয়ে খালাস হবে বলে জানান তিনি।

নিউজ ট্যাগ: মেট্রোরেল

আরও খবর



এনটিআরসিএ’র ৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি স্থগিত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৬ মে ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ মে ২০২১ | ৭৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ কর্তৃক ১ থেকে ১২ তম নিবন্ধনধারীদের মধ্যে রিটকারী প্রায় দেড় হাজার জনকে এক সপ্তাহের মধ্যে নিয়োগের সুপারিশ করতে নির্দেশ দিয়েছেন

বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ) কর্তৃক ১ থেকে ১২তম নিবন্ধনধারীদের এমপিওভুক্ত বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সাত দিনের মধ্যে নিয়োগের সুপারিশ করতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে ৫৪ হাজার নিবন্ধনধারীকে নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি দিয়ে গণবিজ্ঞপ্তি এক সপ্তাহের জন্য স্থগিত করেছেন আদালত।

আজ বৃহস্পতিবার (৬ মে) হাইকোর্টের বিচারপতি মামনুন রহমান ও বিচারপতি খোন্দকার দিলীরুজ্জামানের সমন্বয়ে গঠিত ভার্চুয়াল বেঞ্চ এ আদেশ দেন। অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্লাহ মিয়া বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আবেদনকারীদের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট খুরশিদ আলম খান, অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্লাহ মিয়া ও ব্যারিস্টার মহিউদ্দিন হানিফ। এনটিআরসিএর পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট ফারুক হোসেন।

অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্লাহ মিয়া ও ব্যারিস্টার মহিউদ্দিন হানিফ বলেন, বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ কর্তৃক ১ থেকে ১২ তম নিবন্ধনধারীদের মধ্যে রিটকারী প্রায় দেড় হাজার জনকে এক সপ্তাহের মধ্যে নিয়োগের সুপারিশ করতে নির্দেশ দিয়েছেন। একইসঙ্গে গেল ৩০ মার্চ ইত্তেফাকে প্রকাশিত গণবিজ্ঞপ্তি এই সময়ের জন্য স্থগিত করেছেন আদালত।

এর আগে ৭ মার্চ বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষকে ১ থেকে ১২তম নিবন্ধনধারীদের এমপিওভুক্ত বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নিয়োগের সুপারিশ করতে নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। ১৫ দিনের মধ্যে এনটিআরসিএ চেয়ারম্যানকে এ নির্দেশ বাস্তবায়ন করতে বলা হয়। একই সঙ্গে নিবন্ধনধারীদের নিয়োগ সংক্রান্ত হাইকোর্টের রায় বাস্তবায়ন করতে বলেন আদালত। আদালতের ওই আদেশ বাস্তবায়ন না করায় পুনরায় এনটিআরসিএ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার আবেদন করা হয়।


আরও খবর



মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রীর নামে অপপ্রচারের বিরুদ্ধে থানায় জিডি

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৩ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ এপ্রিল ২০২১ | ৬৫০জন দেখেছেন
হযরত আলী হিরু, স্বরূপকাঠি

Image

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের মাধ্যমে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিমের নামে মিথ্যা অপপ্রচরের বিরুদ্ধে পিরোজপুরের স্বরূপকাঠির নেছারাবাদ থানায় একটি সাধারণ ডায়রী (জিডি) করা হয়েছে। উপজেলা যুবলীগ নেতা শাহ মো. নাসির উদ্দিন বাদী হয়ে শুক্রবার বিকেলে ওই জিডি করেছেন।

জিডিতে তিনি উল্লেখ করেন রেডিওগুলিস্তান নামের একটি ফেজবুক পেইজে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম এর বিরুদ্ধে কটুক্তিমূলক এবং তাহার চরিত্র নিয়ে অশালীন মন্তব্য করে একটি ভিডিও আপলোড করা হয়েছে। উক্ত পোষ্টকে কেন্দ্র করে তাহার চরিত্র ও পারিবারিক বিষয় নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সম্মিলিতভাবে বিভিন্ন খারাপ মন্তব্যের সম্মুখিন হচ্ছে। অসত্য কুরুচিপূর্ণ লেখনী পোষ্ট করে মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়কে সামাজিকভাবে হেয়প্রতিপন্ন করার প্রয়াস করছে।

এ ব্যাপারে মন্ত্রীর ছোট ভাই এস এম নুরে আলম সিদ্দিকী জানান, রাজনৈতির প্রতিহিংসার বশবর্তী হয়ে পিরোজপুরের একটি রাজনৈতিক অপশক্তি আমাদের পরিবারের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মিথ্যা ও বানোয়াট অপপ্রচারে লিপ্ত হয়েছে। হঠাৎ করে মাদক সিন্ডিকেট, ঘুষ, দুর্নীতি বন্ধ, চাঁদাবাজ, সন্ত্রাসীদের আধিপত্য খর্ব হওয়ায় উত্তেজিত হয়ে ওই সিন্ডিকেট আমাদের পরিবারের ইমেজ নষ্ট করার চক্রান্ত করছে। এ বিষয়ে নাজিরপুর থানায় সাধারণ ডায়েরি এবং ঢাকার সিআইডি পুলিশ বিভাগের সাইবার ক্রাইম ইউনিটে লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে।

পিরোজপুর-২ আসনের সাবেক এমপি অধ্যক্ষ শাহ আলম বলেন, মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিমের জনপ্রিয়তা সহ্য না করতে পেরে একটি কুচক্রী মহল এসব কুরুচিপূর্ণ, ভিত্তিহীন, অবিশ্বাস্য ও আপত্তিকর তথ্য প্রচারের ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে। তিনি এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেন, এর সঙ্গে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া উচিত।

উল্লেখ্য রেডিওগুলিস্তান ডট কম নামের একটি ফেসবুক পেইজে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিমের বিরুদ্ধে কটুক্তিমূলক ও তার চরিত্র নিয়ে অশালীন মন্তব্য করে একটি পোষ্ট আপলোড দেয়া হয়। এরপর থেকেই ওই পোষ্টকে মিথ্যা এবং বানোয়াট উল্লেখ করে হাজার হাজার ফেসবুক ব্যবহারকারীরা নিন্দা জানিয়ে আসছেন। তারা মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রীকে সৎ এবং নিষ্ঠাবান একজন উন্নয়নের রুপকার উল্লেখ করে ওই পোষ্টের মাধ্যমে যারা ষড়যন্ত্র করছে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারের কাছে জোর দাবি জানিয়েছেন।


আরও খবর



মুসল্লিদের জোরপূর্বক মসজিদে থেকে বের করে দিল পুলিশ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৪ মে ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৪ মে ২০২১ | ৮৩জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
তিনটি মসজিদ খালি করতে বল প্রয়োগ করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। করোনাভাইরাসে চলমান নিষেধাজ্ঞায় এসব মসজিদে অবস্থান করছিলেন ওই মুসল্লিরা। তারা সবাই একজন ধর্মীয় নেতা

শেষ রোজা পর্যন্ত মসজিদে থাকার পরিকল্পনা করেছিলেন একদল মুসল্লি। থাকতেও শুরু করেছিলেন তিনটি মসজিদে। কিন্তু তাদেরকে মসজিদ থেকে জোরপূর্বক বের করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে তুর্কি পুলিশের বিরুদ্ধে।

জানা গেছে, তুরস্কের দক্ষিণাঞ্চলের অন্তত তিনটি মসজিদ খালি করতে বল প্রয়োগ করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। করোনাভাইরাসে চলমান নিষেধাজ্ঞায় এসব মসজিদে অবস্থান করছিলেন ওই মুসল্লিরা। তারা সবাই একজন ধর্মীয় নেতার অনুসারী।

গত রবিবার (২ মে) তুরস্কের গাজিয়ানটেপ প্রদেশের মসজিদে দেখা যায়, বল প্রয়োগ করে মুসল্লিদের বের করে দিচ্ছে পুলিশ। সে সময় কেউ কেউ চিৎকার করে বলেন, আমরা কোরআন পড়ছিলাম। মুসল্লিদের মসজিদ থেকে বের করে দিতে একজন পুলিশ কর্মকর্তা পিপার স্প্রেও প্রয়োগ করেন। তুরস্কে সম্প্রতি করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব বেড়েছে। এর বিস্তার রোধে ২৯ এপ্রিল থেকে ১৭ মে পর্যন্ত লকডাউন ঘোষণা করেছে সরকার। তবে এ লকডাউনের আওতায় মসজিদে প্রার্থনাতে কোনো নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়নি।

গাজিয়ানটপ প্রদেশের পুলিশের দাবি মুসল্লিদের একটি দল মসজিদে একটানা অবস্থান করছে। তারা কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়াই রোজার শেষ দিন পর্যন্ত মসজিদে থাকার পরিকল্পনা নিয়েছিল।

গাজিয়ানটপ প্রদেশের গভর্নর অফিস থেকে বলা হয়েছে, তিনটি মসজিদে ৭৬ জন অবস্থান করছিল। এর আগেও তাদের বিরুদ্ধে সহিংস কর্মকাণ্ডের অভিযোগ আছে। এরা প্রত্যেকেই আলপারস্লান কুইতুল নামের এক ধর্মীয় নেতার অনুসারী।

প্রসঙ্গত, সোমবার তুরস্কের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বুলেটিনে জানানো হয়, দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় ২৪ হাজার ৭৩৩ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। একই সময়ে মৃত্যু হয়েছে ৩৪৭ জনের। এ নিয়ে তুরস্কে করোনায় প্রায় ৪২ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে। সূত্র : রয়টার্স

নিউজ ট্যাগ: রোজা তুরস্ক

আরও খবর



শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি রুটে ঘরমুখো মানুষের চাপ

প্রকাশিত:বুধবার ০৫ মে ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৫ মে ২০২১ | ৮১জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মাদারীপুর থেকে দেলোয়ার হোসাইন


শিমুলিয়া-বাংলাবাজর কাঁঠালবাড়ি রুটে ঘরমুখো যাত্রীরা স্বাস্থ্যবিধির তোয়াক্কা না করেই গাদাগাদি করে পদ্মা পাড়ি দিচ্ছেন। স্বাস্থ্যবিধির কোনো বালাই নেই।

ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে বুধবার (৫ মে) ২২তম রোজায়ই দক্ষিণাঞ্চলের ২১ জেলার মানুষ এই রুটে বাড়ি ফিরছে। তাই মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাটে ভিড় বেড়ে যায়। লঞ্চ, স্পিডবোট ও ট্রলার বন্ধ থাকায় যানবাহনের পাশাপাশি লোকজন ফেরিতেই পারাপার হচ্ছে।

মাওয়া প্রান্তের পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে অর্ধসহস্রাধিক যানবাহন। ঈদ উপলক্ষ ছাড়াও সর্বাত্মক লকডাউনে কর্মহীন অনেক রাজধানী ছাড়ছেন। তবে গণপরিবহন না থাকায় লোকজন প্রচুর গরমে নানা বিড়ম্বনায় পড়ছেন। অটোরিকশা, ব্যাটারিচালিত যান ও মাইক্রোতে করে কয়েক গুণ বেশি ভাড়ায় গন্তেব্য যাচ্ছে মানুষ।

বিআইডব্লিউটিসি শিমুলিয়া ঘাটের এজিএম মো. শফিকুল ইসলাম জানান, ঢাকা থেকে দক্ষিণাঞ্চলমুখী যাত্রীর চাপ বেশি। বহরে থাকা ১৬টি ফেরির মধ্যে ১৩টি ফেরি সচল রয়েছে। লকডাউনে ১৮ দফা নির্দেশনা মেনে যাত্রী ছাড়াও ফেরি দিয়ে লকডাউনের আওতামুক্ত জরুরি পণ্যবাহী যান ও ব্যক্তিগত যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে। তবে গাদাগাদি ভিড়ে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করা যাচ্ছে না। তাই করোনা সংক্রমণ ঝুঁকি বেড়ে যাচ্ছে।


আরও খবর