আজঃ বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১
শিরোনাম

রোনালদো জানালেন জীবনের সেরা গোল আর ট্রফি কোনটি

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৩ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৩ জুন ২০২১ | ১০৪জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পর্তুগীজ তারকা ফুটবলার ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো শুধু পর্তুগালেরই নন, জায়গা করে নিয়েছেন বিশ্ববাসীর হৃদয়ে। অসাধারণ ফুটবল শৈলী আর ব্যক্তিত্ব তাকে নিয়ে গেছে অন্য মাত্রায়।

তার দুই পায়ের জাদু আনন্দ দিয়ে যাচ্ছে দুনিয়াজুড়ে কোটি ফুটবল ভক্তকে। আপনাকে যদি জিজ্ঞেস করা হয়, রোনালদোর কোন গোলটি বা কোন ট্রফি জয়টি আপনার চোখে সেরা? তবে এই প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন রোনালদো নিজেই।

এক সাক্ষাৎকারে রোনালদো জানিয়েছেন, ২০১৮ সালে জুভেন্তাসের বিরুদ্ধে রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে বাইসাইকেল কিকে করা গোলটাই তার চোখে সেরা গোল।

আপনাদের জানা আছে, এখন পর্যন্ত ৭৭৭টি গোল করেছি। এর মধ্যে আমার যে গোলটি সবচেয়ে প্রিয় সেটি করেছিলাম আমার বর্তমান ক্লাব জুভেন্তাসের বিপক্ষে রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে। দুর্ভাগ্যবশত গোলটা আমার বন্ধু বুফনের বিরুদ্ধে করেছিলাম গোলটা। আর সেটাই আমার জীবনে সেরা গোল।

সেরা ট্রফি নিয়ে বলেছেন, ২০১৬ সালের ইউরো কাপের ট্রফিটাই আমার জীবনে এখন পর্যন্ত সেরা। ফাইনালে ফ্রান্সের বিপক্ষে চোট পেয়ে মাঠ ছাড়লেও আমার মন পড়েছিল মাঠেই। জয়ের পর আমি কেঁদেছিলাম। সেদিনের অনুভূতি ছিল অবিশ্বাস্য।

কদিন পরেই ইউরো সেরার লড়াইয়ে নামবে পর্তুগাল। ২০১৬ সালে সবশেষ ইউরো কাপের চ্যাম্পিয়ন পর্তুগাল। তাই স্বাভাবিক ভাবেই ট্রফি ধরে রাখতে মরিয়া থাকবেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। কে জানে হয়তো এটাই রোনালদোর জীবনের শেষ ইউরো কাপ হতে যাচ্ছে!



আরও খবর
কলম্বিয়াকে ২-১ গোলে হারাল ব্রাজিল

বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১




বান্দরবানে ডায়রিয়ায় ৭ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:সোমবার ১৪ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৪ জুন ২০২১ | ৫৩জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বান্দরবানের আলীকদম উপজেলার করুকপাতা ইউনিয়নে তিনটি পাড়ায় ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে সাতজনের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল রবিবার ও আজ সোমবার এ দুদিনে এ মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। আজ ঘটনাস্থলে দুটি মেডিকেল টিম পাঠানো হয়েছে বলে জানা গেছে।

মৃতরা হলেন মেনলিও ইয়ংচা পাড়ার বাসিন্দা রামধন ম্রো, খাইচাং ম্রো, থুংলাক ম্রো, সোনাদি পাড়ার জনরুন ত্রিপুরা এবং মাংলুম পাড়ার মাংধন ম্রো, রেংচং ম্রো, চিংরে ম্রো।

স্বাস্থ্য বিভাগ ও স্থানীয়রা জানায়, জেলার আলীকদম উপজেলার করুকপাতা ইউনিয়নের দুর্গম যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন ম্রো জনগোষ্ঠী অধ্যুষিত ইয়ংচা পাড়া, মেনলিও পাড়া, সোনাদি পাড়া, মেনরুং পাড়া, কচ্ছপিয়া পাড়া, আলিশ্যাপা পড়া, রুইথং পাড়া, তংরিং পাড়া এবং মাংলুম পাড়াসহ পার্শ্ববর্তী ১০টি পাহাড়ি গ্রামে ডায়রিয়ার প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। বিশুদ্ধ খাবার পানির সংকট এবং প্রচণ্ড গরমে প্রায় এক সপ্তাহেরও অধিক সময় ধরে ছড়িয়েপড়া ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছে শিশু, কিশোর ও বয়স্ক দুশতাধিকের বেশি।

অসুস্থদের মধ্যে আলীকদম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে সাতজনকে। গতকাল রোববার এবং আজ সোমবার দুদিনে পাড়াগুলোতে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে সাতজনের মৃত্যু হয়েছে।

করুকপাতা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ক্রাতপু ম্রো বলেন, তিনটি পাড়ায় ডায়রিয়ায় এরই মধ্যে সাতজনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া ডায়রিয়া প্রাদুর্ভাব দেখা দেওয়া ইউনিয়নের ১০টি পাড়ায় আক্রান্ত হয়েছে দুশতাধিকেরও বেশি মানুষ।

ক্রাতপু ম্রো বলেন, ডায়রিয়া ছড়িয়ে পড়ার খবরে গতকাল রোববার এবং আজ ঘটনাস্থলে ছুটে গেছেন স্বাস্থ্য বিভাগের দুটি মেডিকেল টিম। এছাড়াও সেনাবাহিনীর দুটি মেডিকেল টিমও ঘটনাস্থলে গেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। সেনাবাহিনীর সদস্যরা হেলিকপ্টারে মেডিকেল টিমের কাছে প্রয়োজনীয় জরুরি ওষুধ, পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট এবং খাবার স্যালাইন পাঠিয়েছি আক্রান্ত এলাকাগুলোতে।

পার্বত্য জেলা পরিষদ বান্দরবানের সদস্য ম্রো গবেষক সিইয়ং ম্রো জানান, ম্রো জনগোষ্ঠী অধ্যুষিত করুকপাতা ইউনিয়নে প্রচণ্ড গরম এবং বৃষ্টিতে ছড়া-খালের দূষিত হওয়া পানি ব্যবহারের ফলে ব্যাপকভাবে ডায়রিয়া ছড়িয়ে পড়েছে। ডায়রিয়ায় এরই মধ্যে সাতজনের মৃত্যুর খবর পেয়েছি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে স্বাস্থ্য বিভাগ এবং সেনাবাহিনীর একাধিক মেডিকেল টিম পৌঁছেছে।


আরও খবর



গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে বেড়েছে মৃত্যু

প্রকাশিত:সোমবার ১৪ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৪ জুন ২০২১ | ৯৮জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ভারতে দৈনিক করোনা আক্রান্তের সংখ্যা আরও কমলেও আবার বেড়েছে মৃত্যু। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে দৈনিক সংক্রমণ ছিল ৭০ হাজারের কম। তবে মারা গেছেন প্রায় ৪ হাজার মানুষ।

ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৭০ হাজার ৪২১ জন। এ বছর ১ এপ্রিলের পর এটিই সবচেয়ে কম দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা। নতুন সংক্রমণ যোগ হওয়ায় দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২ কোটি ৯৫ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। ভারতে সংক্রমণের হার গত এক সপ্তাহ ধরেই ৫ শতাংশের নিচে রয়েছে। পাশাপাশি কমছে সক্রিয় রোগীর সংখ্যাও।

তবে সংক্রমণ কমলেও কমছে না দৈনিক মৃতের সংখ্যা। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পরিসংখ্যান অনুসারে, গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ৯২১ জনের। এর ফলে দেশটিতে মোট মৃতের সংখ্যা এখন ৩ লাখ ৭৪ হাজার ৩০৫ জন।


আরও খবর
করোনার ডেল্টা প্লাসে প্রথম মৃত্যু

বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১




দেশে অনুমোদন পেলো ফাইজারের টিকা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৭ মে ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৭ মে ২০২১ | ১১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
মূল্যায়ণপূর্বক কোভিড-১৯ চিকিৎসার জন্য পাবলিক হেলথ ইমারজেন্সির ক্ষেত্রে ওষুধ, ইনভেস্টিগেশনাল ড্রাগ, ভ্যাক্সিন এবং মেডিকেল ডিভাইস মূল্যায়নের নিমিত্তে গঠিত কমিটির মতামতের জন্য ২৫ মে উপস্থাপন করে

দেশে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে ফাইজারের টিকা জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর। করোনা প্রতিরোধে এখন পর্যন্ত দেশে জরুরি ব্যবহারে চারটি টিকা অনুমোদন পেলো।

বৃহস্পতিবার (২৭ মে) ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. মাহবুবুর রহমানের স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ফাইজারের এই টিকা অনুমোদন প্রদানের জন্য ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর গত ২৪ মে আবেদন করে জনস্বাস্থ্য-২ অধিশাখা। ঔষধ প্রশাসন অধিদফতর ভ্যাকসিনটির ডোসিয়ার (ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল পার্ট, সিএমসি পার্ট এবং রেগুলেটরি স্ট্যাটাস) মূল্যায়ণপূর্বক কোভিড-১৯ চিকিৎসার জন্য পাবলিক হেলথ ইমারজেন্সির ক্ষেত্রে ওষুধ, ইনভেস্টিগেশনাল ড্রাগ, ভ্যাক্সিন এবং মেডিকেল ডিভাইস মূল্যায়নের নিমিত্তে গঠিত কমিটির মতামতের জন্য ২৫ মে উপস্থাপন করে। উক্ত কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর বৃহস্পতিবার (২৭ মে) এই টিকা জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন প্রদান করেছে।

এতে বলা হয়, বাংলাদেশে টিকাটির লোকাল লিগ্যাল অর্গানাইজেশন হচ্ছে স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়। ভ্যাকসিনটি ইউএসএফডিএ (USFDA) কর্তৃক গত বছরের ১১ ডিসেম্বর, ইউকেএমএইচআরএ (UKMHRA) কর্তৃক গত বছরের ২ ডিসেম্বর এবং ইএমএ (EMA) কর্তৃক গত বছরের ২১ ডিসেম্বর জরুরি ব্যবহারের জন্য অনুমোদনপ্রাপ্ত হয়। এছাড়াও টিকাটি গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার জরুরি ব্যবহার তালিকায় স্থান পেয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, ফাইজারের টিকাটি ১২ বছর এবং তার বেশি বয়সী ব্যক্তির ব্যবহারের জন্য । দেশে এটি সরকারের ডিপ্লয়মেন্ট প্ল্যান অনুযায়ী নির্ধারিত বয়সের ব্যক্তিদের মধ্যে প্রদান করা হবে। টিকাটি দুই ডোজের। প্রথম ডোজের ৩ থেকে ৪ সপ্তাহ পর দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হবে। এর সংরক্ষণ তাপমাত্রা মাইনাস ৯০ ডিগ্রি থেকে মাইনাস ৬০ ডিগ্রি। তবে টিকাটি ৫ দিন ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস থেকে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় এবং ৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় ২ ঘণ্টা স্ট্যাবল থাকবে।


আরও খবর
করোনায় আরও ৭৬ জনের মৃত্যু

মঙ্গলবার ২২ জুন ২০২১




১১টি দেশের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার নতুন তালিকা প্রকাশ

প্রকাশিত:বুধবার ০২ জুন 2০২1 | হালনাগাদ:বুধবার ০২ জুন 2০২1 | ১১৩জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মালয়েশিয়া, বাহরাইন, নেপালসহ বেশ কয়েকটি দেশে নতুন করে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ-বেবিচক। এর সঙ্গে আগে থেকেই নিষেধাজ্ঞা রয়েছে এমন কয়েকটি বাদ দিয়ে নতুন কয়েকটি দেশ যুক্ত করে মোট ১১টি দেশের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার নতুন তালিকা প্রকাশ করেছে বেবিচক। বেসামরিক বিমান চলাচল কর্র্তৃপক্ষ (বেবিচক) গতকাল মঙ্গলবার এ বিষয়ে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করে।

নিষেধাজ্ঞার অন্তর্ভুক্ত দেশগুলোর সঙ্গে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ থাকবে, যা কার্যকর হবে ৪ জুন থেকে। এমনকি কোনো ট্রানজিট যাত্রীও আসা-যাওয়া করতে পারবে না। তবে এসব দেশে কোনো বাংলাদেশি প্রবাসী নাগরিক বা ভ্রমণকারী ১৫ দিনের মধ্যে গিয়ে থাকলে, বিশেষ অনুমতি সাপেক্ষে দেশে ফিরতে পারবেন।

এ ছাড়া ইরান, ওমানসহ আগের তালিকায় নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হয়েছে কয়েকটি দেশের ওপর থেকে।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণরোধে যে ১১ দেশ থেকে বাংলাদেশে যাত্রী প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে সেসব দেশ হচ্ছেআর্জেন্টিনা, বাহরাইন, বলিভিয়া, ব্রাজিল, ভারত, মালয়েশিয়া, মালদ্বীপ, নেপাল, প্যারাগুয়ে, ত্রিনিদাদ অ্যান্ড টোবাগো ও উরুগুয়ে।

বাংলাদেশে আসতে ইচ্ছুক সবাইকে যাত্রা শুরুর ৭২ ঘণ্টা আগে করোনা পরীক্ষা করিয়ে নেগেটিভ রিপোর্ট নিয়ে দেশে ফিরতে হবে। তবে, ১০ বছরের নিচের শিশুদের কোভিড সনদ দেখাতে হবে না।

এর আগে নভেল করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে দেশে চলমান বিধিনিষেধের সঙ্গে সমন্বয় করে আন্তর্জাতিক রুটের নিয়মিত ফ্লাইট ৫ মে পর্যন্ত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল বেবিচক। এরই মধ্যে গত ১ মে থেকে ৩৮ দেশের সঙ্গে ফ্লাইট চলাচল সীমিত রেখে অন্যান্য দেশের সঙ্গে ফ্লাইট চলাচল স্বাভাবিক রাখা হয়।

 


আরও খবর



নিজেদের জালেই বল জড়িয়ে জার্মানির সর্বনাশ

প্রকাশিত:বুধবার ১৬ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৬ জুন ২০২১ | ৭৮জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

প্রতিপক্ষের নেওয়া ক্রসটি ক্লিয়ার করতে গিয়ে নিজেদের জালেই বল জড়িয়ে দিলেন। আর ওই আত্মঘাতী গোলেই হেরে গেল জার্মানি। মঙ্গলবার রাতে মিউনিখের আলিয়াঞ্জ অ্যারেনায় হওয়া ইউরোর এফ গ্রুপের হাইভোল্টেজ ম্যাচে জার্মানিকে ১-০ গোলে হারিয়েছে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।

ম্যাচের শুরুতেই এগিয়ে যেতে পারত ফ্রান্স। ১৫ মিনিটে পল পগবার হেড ক্রসবারের উপর দিয়ে চলে যায়। এর দুই মিনিট পর ফরাসি তরুণ মিডফিল্ডার কিলিয়ান এমবাপ্পের শট ঝাঁপিয়ে রুখে দেন মানুয়েল নয়ার।

২০ মিনিটে ভাগ্য সুপ্রসন্ন হয় ফ্রান্সের। লুকাস হার্নান্দেজের বাঁ প্রান্তের ক্রসটি ডিফেন্ডার হামেলস ক্লিয়ার করতে গিয়ে নিজেদের জালে জড়িয়ে দেন। আত্মঘাতী গোলে পিছিয়ে পড়ে জার্মানি।

 ক্রুস-মুলাররা অনেক চেষ্টা করেও সেই গোল শোধ দিতে পারেনি। ১-০ গোলের ব্যবধানেই শেষ হয় প্রথমার্ধ। দ্বিতীয়ার্ধে নেমেই ব্যবধান দ্বিগুণ করতে পারত ফ্রান্স। আদ্রিয়েন রাবিয়োতের শট সাইড পোস্টে লেগে ফিরে আসলে তা আর হয়ে ওঠেনি।

৫৪ মিনিটে সমতায় ফেরার দারুণ সুযোগ পায় জার্মানি। কিন্তু সের্জিও জিনাব্রির শট ক্রস বারের ওপর দিয়ে চলে যায়। ৬৬ মিনিটে জার্মানির জালে বল জড়িয়ে দেন এমবাপ্পে। উল্লাসের আগেই তাতে ভাটা পড়ে যখন রেফারি  অফসাইডের সংকেত দেন। গোলটি বাতিল হয়। শেষ দিকে বহু বছর পর ফরাসি দলে ফেরা রিয়াল মাদ্রিক স্ট্রাইকার করিম বেনজেমার একটি গোলও বাতিল হয়েছে।

শেষ পর্যন্ত আর কোনো গোল না হয়ে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে দিদিয়ের দেশমের দল। এ নিয়ে ইউরোতে ৬ বারের দেখায় ফ্রান্স জিতেছে তিনবার , আর জার্মানি দুইবার। আর ড্র একটি। 

নিউজ ট্যাগ: জার্মানি

আরও খবর
কলম্বিয়াকে ২-১ গোলে হারাল ব্রাজিল

বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১