আজঃ বৃহস্পতিবার ১৩ মে ২০২১
শিরোনাম

সাকিবের জায়গায় সুনিলকে নেওয়ার কথা ভাবছে কেকেআর

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৯ এপ্রিল ২০২১ | ৬৮জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আইপিএলের চলতি মৌসুমে এখনও পর্যন্ত সে অর্থ সফল হতে পারেননি কলকাতা নাইট রাইডার্সের (কেকেআর) বাংলাদেশি অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। তিন ম্যাচ খেলে ব্যাট হাতে ৩৮ রান এবং বল হাতে শিকার করেছেন ২ উইকেট। ব্যাটিংয়ে স্ট্রাইকরেট একশর নিচে আর বোলিংয়ে রান দিয়েছেন ওভারপ্রতি আটের ওপরে।

যার ফলে এখন সাকিবের জায়গায় সুনিল নারিনকে খেলানোর কথা ভাবছে কেকেআর টিম ম্যানেজম্যান্ট। মূলত নারিনের জায়গায়ই আসরের প্রথম ম্যাচ থেকে খেলছেন সাকিব। গত আসরে আশানুরুপ পারফরম্যান্স করতে না পারায় নারিনের বিকল্প খুঁজতে মরিয়া ছিল কলকাতা।

এবারের আসরে সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে ১০ রানে হারিয়ে ইতিবাচক শুরু করেছিল কলকাতা। সেই ম্যাচে ৪ ওভারে ৩৪ রান খরচায় ১ উইকেট নেন সাকিব। পরের ম্যাচে মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের কাছে ১০ রানে হারে কলকাতা। সাকিবের পারফরম্যান্স ছিল ৪ ওভারে ২৩ রানে ১ উইকেট ও ৯ বলে ৯ রান।

কিন্তু রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর বিপক্ষে তৃতীয় ম্যাচে হতাশ করেছেন সাকিব। বোলিংয়ে প্রথম দুই ওভারে ২৪ রান খরচ করায় তাকে দিয়ে ৪ ওভার করাননি অধিনায়ক ইয়ন মরগ্যান। পরে ব্যাট হাতে ওভারপ্রতি প্রায় ১২ রানের চাহিদায় সাকিব খেলেন ২৫ বলে ২৬ রানের মন্থর ইনিংস।

অবশ্য শুধু সাকিব একা নন, কলকাতার একাদশে থাকা অন্য তিন বেশি অধিনায়ক মরগ্যান, মারকুটে অলরাউন্ডার রাসেল ও পেসার প্যাট কামিনসও আহামরি কোনো পারফরম্যান্স দেখাতে পারেননি। যে কারণে এখন চতুর্থ ম্যাচের আগে নিজেদের একাদশ নিয়ে ভাবতে বসেছে কলকাতা।

সেক্ষেত্রে স্পিনিং অলরাউন্ডার ও মারকুটে টপঅর্ডার সুনিল নারিনকে একাদশে নেয়ার ইঙ্গিতই দিলেন দলের কোচ ব্রেন্ডন ম্যাককালাম। তবে বাদ দেয়া হবে কাকে, এ বিষয়ে কিছু বলেননি তিনি। কিন্তু দলের মধ্যে স্পিনিং অলরাউন্ডার একমাত্র সাকিবই থাকায়, কোপটা হয়তো তার ওপরেই পড়বে।

ব্যাঙ্গালুরুর বিপক্ষে ম্যাচের পর ম্যাককালাম বলেছেন, আমাদের প্রথম ম্যাচের সময় সীমানার কাছে দাঁড়িয়ে ছিল নারিন। সে তখন শতভাগ ফিট ছিল না। তবে এখন সে আমাদের ভাবনায় আছে। ব্যাঙ্গালুরুর বিপক্ষে হয়তো তাকে খেলানো যেত। তবে আমরা সাকিবকে নিয়েই খেলেছি। কারণ সে আগের দুই ম্যাচ ভাল করেছে এবং তার ব্যাটিংও আমাদের জন্য কার্যকর।


আরও খবর



দ্বিতীয় কার্যদিবসেও সূচকের সঙ্গে বেড়েছে লেনদেন

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৯ এপ্রিল ২০২১ | ৯৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
সোমবার ডিএসইর প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স ১৮ পয়েন্ট বেড়ে পাঁচ হাজার ৩৪৯ পয়েন্টে অবস্থান করছে। অন্য দুই সূচকের মধ্যে ডিএসইর শরীয়াহ সূচক ৪ পয়েন্ট

করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের কারণে সরকার ঘোষিত কঠোর লকডাউনের ষষ্ঠ দিন সোমবারও (১৯ এপ্রিল) সূচকের উত্থানের মধ্য দিয়ে পুঁজিবাজারে লেনদেন শেষ হয়েছে। এদিন দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) লেনদেন বেড়েছে। প্রথম কার্যদিবস গত রবিবারও (১৮ এপ্রিল) পুঁজিবাজারে সূচক বেড়ে লেনদেন শেষ হয়েছিল।

ডিএসই ও সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, সোমবার ডিএসইর প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স ১৮ পয়েন্ট বেড়ে পাঁচ হাজার ৩৪৯ পয়েন্টে অবস্থান করছে। অন্য দুই সূচকের মধ্যে ডিএসইর শরীয়াহ সূচক ৪ পয়েন্ট এবং ডিএসই-৩০ সূচক ৬ পয়েন্ট বেড়ে যথাক্রমে ১২১৬ ও ২০৪৬ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

এদিন ডিএসইতে ৬৯৭ কোটি ২৯ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের লেনদেন হয়েছে। যা আগের কার্যদিবসের চেয়ে ডিএসইতে ৯৫ কোটি টাকার লেনদেন বেড়েছে। আগের দিন ডিএসইতে ৬০২ কোটি ৭৬ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের লেনদেন হয়েছিল।

সোমবার ডিএসইতে ৩৪৬টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিটের লেনদেন হয়েছে। এগুলোর মধ্যে দাম বেড়েছে ১২৬টি কোম্পানির, কমেছে ১৫২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৬৮টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিটের দর।

এদিন লেনদেনের শীর্ষে থাকা ১০ প্রতিষ্ঠান হলো- বেক্সিমকো লিমিটেড, বিডি ফাইন্যান্স, লংকাবাংলা, বিএটিবিসি, লাফার্জহোলসিম, রবি, এশিয়া প্যাসিফিক ইন্স্যুরেন্স, বেক্সিমকো ফার্মা, নিটল ইন্স্যুরেন্স ও সোনার বাংলা ইন্স্যুরেন্স।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই সোমবার ৫৭ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১৫ হাজার ৪৭১ পয়েন্টে। এদিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ২৪০টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ১০৮টির, কমেছে ১০৮টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৪টি কোম্পানির শেয়ার দর।

সোমবার সিএসইতে ৩৪ কোটি ৫২ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। যা আগের দিনের চেয়ে ১৩ কোটি টাকা বেশি। আগের দিন সিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ২১ কোটি ৬৯ লাখ টাকার।


আরও খবর



করোনার ব্রাজিলের ধরন আরও বিপজ্জনক হয়ে উঠছে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৫ এপ্রিল ২০২১ | ১১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
ব্রাজিলের জনস্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট ফিয়োক্রুজ দেশটিতে ছড়াতে থাকা এ ধরনটি নিয়ে গবেষণা করেছেন। তাতে দেখা গেছে, ভাইরাসটির স্পর্শক অঞ্চলে রূপান্তরিত হচ্ছে। দেহকোষগুলোতে প্রবেশ ও সংক্রমিত করার জন্য

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ে যখন বিপর্যস্ত গোটা বিশ্ব তখন সামনে এল নতুন দুঃসংবাদ। আর তা হচ্ছে বিশ্বব্যাপী নতুন চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে করোনা ভাইরাসের ব্রাজিলের ধরন পি১।

জানা গেছে, ব্রাজিলের পি১ করোনার ধরন এমনভাবে রূপান্তরিত হচ্ছে যে এটি ভালোভাবেই মানবদেহের এন্টিবডি এড়িয়ে সংক্রমিত হতে পারে।

দক্ষিণ আমেরিকার দেশগুলোতে করোনার সংক্রমণ বাড়ার পেছনে এই ধরনটিকে দায়ী করা হচ্ছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়, সম্প্রতি ভাইরাসের এ ধরনটি বিশ্বজুড়ে শঙ্কার কারণ হিসেবে দেখা দিয়েছে।

ব্রাজিলের জনস্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট ফিয়োক্রুজ দেশটিতে ছড়াতে থাকা এ ধরনটি নিয়ে গবেষণা করেছেন। তাতে দেখা গেছে, ভাইরাসটির স্পর্শক অঞ্চলে রূপান্তরিত হচ্ছে। দেহকোষগুলোতে প্রবেশ ও সংক্রমিত করার জন্য এই স্পর্শকগুলোই ব্যবহার করে ভাইরাসটি। 

গবেষকরা বলেছেন, মিউটেশনের মাধ্যমে যে পরিবর্তনগুলো হচ্ছে তা ভাইরাসটিকে আরও টিকা প্রতিরোধী করে তুলতে পারে। টিকা ভাইরাসের স্পর্শক প্রোটিনগুলো অকার্যকর করার কাজটিই করে।

ব্রাজিলের আমাজন অঞ্চলের মানাউস শহরে কর্মকরত ফিওক্রুজের বিজ্ঞানী ও সংশ্লিষ্ট অনুসন্ধানের অন্যতম গবেষক ফেলিপে নাভেকা বলেছেন, অ্যান্টিবডির প্রতিক্রিয়া এড়াতে ভাইরাসটি ফাঁকি দেওয়ার আরেকটি কৌশল তৈরি করছে বলে আমাদের বিশ্বাস।

নাভেকা জানান, ভাইরাসটির পরিবর্তনগুলো আরও আগ্রাসী দক্ষিণ আফ্রিকার ধরনটির মিউটেশনে যেমনটি দেখা গিয়েছিল সেরকম হতে পারে বলে মনে হচ্ছে, যেটি কিছু টিকার কার্যকারিতা যথেষ্ট পরিমাণে হ্রাস করতে পারে বলে গবেষণায় দেখা গেছে।

তিনি বলেন, এটি সত্যিই খুব উদ্বেগজনক কারণ ভাইরাসটি এর বিবর্তনের গতি বাড়িয়ে চলছে


আরও খবর



হেফাজতের ১৬ মামলা তদন্তের দায়িত্ব পেলো পিবিআই

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২২ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ এপ্রিল ২০২১ | ১১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আগমনকে কেন্দ্র করে দেশের বিভিন্ন জায়গায় হেফাজতের তাণ্ডবের ঘটনায় এবং নারায়ণগঞ্জের রিসোর্টে মামুনুল কাণ্ডসহ দেশের ৬ জেলায় হেফাজতের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে করা ১৬ টি মামলার তদন্ত করবে পিবিআই।

বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) দুপুরে পিবিআইয়ের ডিআইজি বনজ কুমার মজুমদার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, গত ২৬ মার্চের পর মুন্সিগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, কিশোরগঞ্জ, চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার জেলায় হেফাজতে ইসলামের বিরুদ্ধে বেশ কিছু মামলা দায়ের হয়। ওইসব মামলার মধ্যে ১৬টি মামলার তদন্তের দায়িত্ব পেয়েছে পিবিআই।

বনজ কুমার বলেন, নাশকতা, হত্যার চেষ্টা, ধ্বংসাত্মক কার্যক্রমসহ বিভিন্ন অভিযোগে দায়ের করা ওই সব মামলার তদন্ত নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ ও তত্ত্বাবধান করা হচ্ছে। তদন্ত শেষে দ্রুতই দোষীদের বিরুদ্ধে মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করা হবে।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সফরকে কেন্দ্র করে ঢাকাসহ দেশের কয়েকটি জেলায় তাণ্ডব চালায় হেফাজতে ইসলাম। ব্যাপক সহিসংতা চালানো হয় ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায়। টার্গেট করে হামলা চালনো হয় সরকারি স্থাপনায়। করা হয় অংগ্নিসংযোগ। নারায়ণগঞ্জের সাইনবোর্ড এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত করে হেফাজতিরা। আক্রোশ থেকে বাদ যায়নি গণমাধ্যমও।

সহিংসতার ঘটনায় দেশের বিভিন্ন জেলায় শতাধিক মামলা হয়। এর মধ্যে ব্রাহ্মনবাড়িয়া, নারায়ণগঞ্জ, কিশোরগঞ্জ, মুন্সীগঞ্জ, ও চট্টগ্রাম জেলার ২৩ টি স্পর্শকাতর ও গুরুত্বপূর্ণ মামলার তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয় সিআইডিকে।

নিউজ ট্যাগ: পিবিআই

আরও খবর



বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১৫ কোটি ৮৯ লাখ ছাড়িয়েছে

প্রকাশিত:সোমবার ১০ মে ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১০ মে ২০২১ | ৫৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির সংখ্যা কোনোভাবেই কমছে না। সবশেষ করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৫ কোটি ৮৯ লাখ ৫৬ হাজার ১৮২ জন। আর এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩৩ লাখ ৬ হাজার ২৯৮ জনে। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছে ১৩ কোটি ৬৪ লাখ ৮৪ হাজার ৪৬০ জন। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটার থেকে সোমবার (১০ মে) সকালে এই তথ্য জানা গেছে।

ওয়ার্ল্ডওমিটারের সবশেষ তথ্য অনুযায়ী, করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশ যুক্তরাষ্ট্রে। তালিকায় শীর্ষে থাকা দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ৩ কোটি ৩৪ লাখ ৭৬ হাজার ৭৮১ জন আর ৫ লাখ ৯৫ হাজার ৮১২ জন মারা গেছেন।

করোনায় আক্রান্তের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে প্রতিবেশী দেশ ভারত। তবে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের তালিকায় দেশটির অবস্থান চতুর্থ। দেশটিতে মোট আক্রান্ত ২ কোটি ২৬ লাখ ৬২ হাজার ৪১০ জন এবং মারা গেছেন ২ লাখ ৪৬ হাজার ১৪৬ জন। লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল করোনায় আক্রান্তের দিক থেকে তৃতীয় ও মৃত্যুর সংখ্যায় তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে। দেশটিতে মোট শনাক্ত রোগী ১ কোটি ৫১ লাখ ৮৪ হাজার ৭৯০ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৪ লাখ ২২ হাজার ৪১৮ জনের।

দেশে করোনাভাইরাসের আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। এখন পর্যন্ত মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১১ হাজার ৯৩৪ জনে। এছাড়াও এখন পর্যন্ত দেশে মোট শনাক্তের সংখ্যা ৭ লাখ ৭৩ হাজার ৫১৩ জন। প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীন থেকে সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর বিশ্বব্যাপী ছড়িয়েছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। গত বছরের ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।


নিউজ ট্যাগ: করোনায় আক্রান্ত

আরও খবর



সিঙ্গাপুরের উদ্দেশে ১০৬ যাত্রী নিয়ে ঢাকা ছাড়ল বিশেষ ফ্লাইট

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২০ এপ্রিল ২০21 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২০ এপ্রিল ২০21 | ৯৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিশেষ ফ্লাইটে প্রবাসীরা ফিরছেন কর্মস্থলে। তবে যাত্রীদের শিডিউল ফ্লাইটের দেরি কিংবা বাতিল হওয়ার কোনো তথ্য বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ থেকে দেয়া হচ্ছে না।

জানা গেছে, সিঙ্গাপুরের উদ্দেশে ১০৬ যাত্রী নিয়ে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের প্রথম বিশেষ ফ্লাইটটি ঢাকা ছেড়েছে। মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) সকাল ৮টা ১৩ মিনিটে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ফ্লাইটটি ছেড়ে যায়।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের উপমহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) তাহেরা খন্দকার সাংবাদিকদের বলেন, সপ্তাহে তিন দিন মঙ্গল, বৃহস্পতি ও শনিবার সিঙ্গাপুরের উদ্দেশে বিমানের বিশেষ ফ্লাইট চলবে।

এর আগে সোমবার (১৯ এপ্রিল) বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের জনসংযোগ কর্মকর্তা তানভীর আহমেদ বলেন, বাংলাদেশ বিমানের বিশেষ ফ্লাইটে সিঙ্গাপুর যাবেন প্রবাসীরা।

হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর সূত্রে জানা গেছে, গত শনিবার (১৭ এপ্রিল) থেকে শুরু হয় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বিশেষ আন্তর্জাতিক ফ্লাইট। প্রথম দিন নানা জটিলতায় অর্ধেকের বেশি ফ্লাইট বাতিল হলেও গত দুদিন কোনো ফ্লাইট বাতিলের ঘটনা ঘটেনি। এছাড়া গত তিন দিনে ফ্লাইটের সংখ্যা বেড়েছে তিন গুণ। ফ্লাইট বাড়িয়েছে সৌদি এয়ারলাইনসও (সৌদিয়া)। তিন দিনে কয়েক হাজার কর্মী দেশ ছেড়েছেন।

প্রথম দিন ঢাকা ছেড়ে গেছে মাত্র চারটি বিশেষ ফ্লাইট। দ্বিতীয় দিন গেছে ১২টি এবং সোমবার (১৯ এপ্রিল) তৃতীয় দিনে গেছে ২০টি ফ্লাইট। আর অল্প কিছু যাত্রী নিয়ে সোমবার ১৯টি ফ্লাইট দেশে এসেছে বলে জানায় বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ।

সোমবার প্রায় সাড়ে তিন হাজার কর্মী বিদেশে যাওয়ার সুযোগ পেয়েছেন। এদিন রাত ৮টা পর্যন্ত মোট ১৬টি ফ্লাইট ঢাকা ছেড়েছে। এর মধ্যে সৌদি আরবে গেছে বাংলাদেশ বিমান ও সৌদিয়ার তিনটি করে ছয়টি ফ্লাইট।

গত ১১ এপ্রিল বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক) জানায়, ১৪ এপ্রিল থেকে এক সপ্তাহের জন্য লকডাউন চলাকালে সব ধরনের আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ থাকবে। ১২ এপ্রিল মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের দেওয়া এক প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, সব আন্তর্জাতিক ও অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটও বন্ধ থাকবে।

এরপর গত ১৫ এপ্রিল আন্তঃমন্ত্রলায়ের এক বৈঠকে শনিবার থেকে পরবর্তী এক সপ্তাহ সৌদি আরব, ওমান, কাতার, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও সিঙ্গাপুরে প্রায় ১০০টি বিশেষ ফ্লাইট পরিচালনার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

মহামারি করোনাভাইরাসের ঊর্ধ্বমুখী সংক্রমণ ঠেকাতে ১৪ এপ্রিল থেকে শুরু হওয়া দেশব্যাপী কঠোর লকডাউনের কারণে প্রায় ২০ থেকে ২৫ হাজার অভিবাসী শ্রমিককে তাদের নিজ নিজ কর্মস্থলে ফেরার সুযোগ করে দিতে সরকার এ সিদ্ধান্ত নেয় বলে জানানো হয়।


আরও খবর