আজঃ শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪
শিরোনাম

শেখ হাসিনা অর্থনৈতিক মুক্তির উত্তরাধিকার: ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

Image

শেখ হাসিনাকে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক মুক্তির ‌উত্তরাধিকার হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) সকালে গণভবনের জাতীয় ও তৃণমূল নেতাকর্মীদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, শেখ হাসিনা হচ্ছে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক মুক্তির উত্তরাধিকার। বাংলাদেশে বঙ্গবন্ধু জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার পর গত ৪৮ বছরে তার মত জনপ্রিয় নেতা সৃষ্টি হয়নি। সাহসী রাজনীতিকের নাম শেখ হাসিনা।

ওবায়দুল কাদের বলেন, হয়তো পাঁচ বছর পর নির্বাচন, তিনি হয়তো দেশের কোনো প্রত্যন্ত অঞ্চলে গিয়েছেন, নেতাকর্মীদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন, তখনই হয়তো একটা দুইটা নাম লিখে রেখেছেন। যখন জাতীয় নির্বাচন হচ্ছে অথবা সংরক্ষিত আসনে নির্বাচন হচ্ছে তখনই ওই ডায়রি থেকে নাম এনে প্রার্থিতা ঠিক করে নেন। এই হচ্ছেন শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, পনেরো বছরের আগের বাংলাদেশ ও পরের বদলের যাওয়া যে বাংলাদেশ, সে বদলে যাওয়া বাংলাদেশের রূপান্তরের রূপকার শেখ হাসিনা। আমাদের এই জনপদের সৃষ্টি ক্ষেত্রে মহান দুজন মানুষ কাজ করেছেন। একজন (বঙ্গবন্ধু) আমাদের স্বাধীনতা দিয়ে গেছেন এবং স্বাধীনতা দিয়ে তিনি যে ল্যাগেসি, যে উত্তরাধিকার রেখে গেছেন, তিনি নেই কিন্তু সে সবসময়ের জন্য রয়ে গেছে। আরেকজন মুক্তির জন্য কাজ করছেন তিনি শেখ হাসিনা।

তিনি আরও বলেন, সবচেয়ে দক্ষ প্রশাসকের নাম শেখ হাসিনা, সবচেয়ে সাহসী রাজনীতিকের নাম শেখ হাসিনা, সফল কূটনীতিকের নাম শেখ হাসিনা।


আরও খবর



বাগেরহাটে ৭৫ জন নারী উদ্যোক্তার মাঝে ল্যাপটপ বিতরণ

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বাগেরহাট প্রতিনিধি

Image

বাগেরহাটে ৭৫ জন নারী ইকমার্স উদ্যোক্তার মাঝে বিনামূল্যে ল্যাপটপ বিতরণ করা হয়েছে। শনিবার সকালে বাগেরহাট সদর উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে হার পাওয়ার প্রকল্পের উদ্যোগে ইকমার্সে প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত নারীদের মাঝে এই ল্যাপটপ বিতরণ করা হয়।

এসময় অন্যন্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, হার পাওয়ার প্রকল্পের উপ -প্রকল্প পরিচালক নিলুফা ইয়াসমিন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মো:আব্দুল জব্বার, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: রাশেদুজ্জামান, কৃষি বিপণন কর্মকর্তা আব্দুস সালাম তরফদার, জেলা প্রোগ্রামার মো: শরিফুল ইসলাম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান খান রেজাউল ইসলাম, বাগেরহাট প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মীর জায়েসি আশরাফি জেমস, ষাট গম্বুজ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আখতারুজ্জামান বাচ্চু প্রমুখ।

সংশ্লিষ্টরা জানান, প্রযুক্তির সহায়তায় নারীর ক্ষমতায়ন শীর্ষক হার পাওয়ার প্রকল্পের আওতায় জেলার বাগেরহাট সদর, মোংলা ও মোরেলগঞ্জ উপজেলার ৭৫ জন নারী ইকমার্স উদ্যোক্তাকে ৬ মাসের প্রশিক্ষণ দেয়ার পর তাদের মাঝে ল্যাপটপ বিতরণ করা হয়। 

নারীদের প্রযুক্তি জ্ঞানের মাধ্যেমে দক্ষ করে গড়ে তুলে আত্মকর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টির জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই প্রকল্প বাস্তবায়নের সিদ্ধানিয়েছেন বলে তারা উল্লেখ করেন।

নিউজ ট্যাগ: বাগেরহাট

আরও খবর



প্রতি বছর বিশ্বে ক্যানসারে আক্রান্ত চার লাখ শিশু

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

প্রতি বছর বিশ্বে অন্তত চার লাখ শিশু ক্যানসারে আক্রান্ত হয়। উন্নত দেশগুলোতে ক্যানসার থেকে রোগীর সুস্থ হওয়ার হার প্রায় ৮০ শতাংশ। বাংলাদেশে এ হার এখনো ৩০ শতাংশ। তবে যথাসময়ে ক্যানসার শনাক্ত করা গেলে এবং উন্নত চিকিৎসা পেলে ৭০ শতাংশ রোগী সুস্থ হয়।

বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) বিশ্ব শিশু ক্যানসার দিবস। দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য যথাসময়ে সঠিক চিকিৎসায় শিশু ক্যানসার নিরাময় সম্ভব। দিবসটি উপলক্ষে সকালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) মিলনায়তনে শিশু হেমাটোলজি বিভাগের উদ্যোগে শোভাযাত্রা ও বৈজ্ঞানিক সেমিনারের আয়োজন করা হয়।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সচেতনতার অভাব, মাত্রাতিরিক্ত চিকিৎসা ব্যয়, স্বাস্থ্যসেবার সুযোগের অভাবসহ নানান কারণে বেশির ভাগ ক্যানসার আক্রান্ত শিশু মারা যায়। শিশুদের মধ্যে সাধারণত লিউকেমিয়া বা রক্তের ক্যানসার বেশি হয়। ক্যানসার আক্রান্ত শিশুদের মধ্যে এক-তৃতীয়াংশ লিউকেমিয়ায় আক্রান্ত।

বিশিষ্ট শিশু ক্যানসার বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. আমিরুল মোরশেদ জানান, প্রাপ্তবয়স্কদের মতো একই কারণে শিশুদের ক্যানসার হয় না। প্রধানত বংশক্রমিক বা জেনেটিক্যাল কারণে শিশুদের ক্যানসার হয়ে থাকে। শিশুর দেহে শুরুতেই ক্যানসার শনাক্ত ও সঠিক চিকিৎসা দিতে পারলে পরবর্তী সময়ে সুস্থ-স্বাভাবিক জীবনযাপন করতে পারে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় ক্যানসার গবেষণা ইনস্টিটিউটসহ দেশের ১৪টি সরকারি মেডিকেল কলেজে শিশু ক্যানসার রোগীদের সুচিকিৎসার পূর্ণ ব্যবস্থা রয়েছে। এখন দেশেই সর্বাধুনিক প্রযুক্তির সাহায্যে অভিজ্ঞ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা শিশু ক্যানসার রোগীদের আন্তর্জাতিকমানের চিকিৎসা সেবা দিচ্ছেন।


আরও খবর



ইসলামপন্থীদের নিয়ে মন্তব্য করে বরখাস্ত হলেন ব্রিটিশ এমপি

প্রকাশিত:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

ব্রিটিশ এমপি সাদিক খানকে ইসলামপন্থী বলায় বরখাস্ত হয়েছেন ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ পার্টির পার্লামেন্ট সদস্য লি অ্যান্ডারসন। রবিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) এক প্রতিবেদনে এই খবর জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, লন্ডনের প্রথম মুসলিম মেয়র সাদিক খান বিরোধী লেবার পার্টির সদস্য। রাজধানীতে নিয়মিত ফিলিস্তিনিদের পক্ষে বিক্ষোভ-মিছিল ও পুলিশ পরিচালনার জন্য প্রায়ই সমালোচনার মুখে পড়তে হয় তাকে। শুক্রবার এক সাক্ষাতকারে লি আন্ডারসন বলেন, আমি বিশ্বাস করি না ইসলামপন্থীরা আমাদের দেশের নিয়ন্ত্রণ পেয়েছে। তবে আমি যা বিশ্বাস করি তা হল তারা সাদিক খানের নিয়ন্ত্রণ পেয়েছে।

এরপরই শুরু হয় সমালোচনার ঝড়। সাদিক খানকে উদ্দেশ্য করে করা মন্তব্যের জন্য ক্ষমা চাইতে অস্বীকার করার পরে তাকে দল থেকে বরখাস্ত করা হয়।

শনিবার সাদিক খান বলেন, আন্ডারসনের এমন মন্তব্য মুসলিম বিদ্বেষের আগুনে ঘি ঢালার সমান। তার মন্তব্য নিয়ে মন্ত্রিপরিষদ ও প্রধানমন্ত্রীর বধির নীরবতারও কঠোর সমালোচনা করেন। খানদিক খানের এমন সমালোচনার ঘণ্টাখানেক পরেই টোরি পার্টির চিফ হুইপ সাইমন হার্টের এক মুখপাত্র বলেন, গতকালকের করা মন্তব্যের জন্য ক্ষমা চাইতে অস্বীকৃতি জানানোয় দলের হুইপ পদ থেকে লি অ্যান্ডারসনকে বরখাস্ত করা হয়েছে।


আরও খবর



সুবর্ণচরে ধর্ষণের জন্যই সিঁধ কাটা হয় : পুলিশ সুপার

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নোয়াখালী প্রতিনিধি

Image

নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলায় গৃহবধূকে ধর্ষণ করতেই সিঁধ কাটা হয় এবং এরপর চুরির নাটক সাজান ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদ্য বহিষ্কৃত সভাপতি আবুল খায়ের ওরফে মুন্সি মেম্বার (৫০)। 

বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১২টার দিকে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান।

তিনি জানান, আবুল খায়ের মুন্সি তার সহযোগী মেহরাজকে (৪৮) দিয়ে ঘরের সিঁধ কাটিয়ে গরু বেপারী হারুনকে (৪২) নিয়ে ওই নারীর ঘরে প্রবেশ করে তাকে ধর্ষণ করেন। সেসময় মেহরাজ ওই নারীর পঞ্চম শ্রেণি পড়ুয়া মেয়েকে ধর্ষণ করেন। এ ঘটনার পরপরই সিঁধ কাটার কাজে ব্যবহৃত কোদাল, কাঁচি, কালো প্যান্ট ও কানটুপি জব্দ করেন পুলিশ।   

আরো পড়ুন :মা-মেয়েকে দলবদ্ধ ধর্ষণ : প্রধান আসামি আ.লীগ নেতা গ্রেফতার

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী নারী বাদী হয়ে গ্রেপ্তার সাবেক ইউপি সদস্য আবুল খায়ের মুন্সিকে প্রধান আসামি ও হারুনের নাম উল্লেখ এবং অজ্ঞাত এক ব্যক্তিকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন। 

মামলার পর তাৎক্ষণিক পুলিশ আবুল খায়ের ও বুধবার রাত ৩টার দিকে উপজেলার চরক্লার্ক ইউনিয়ন থেকে মেহরাজকে গ্রেপ্তার করে। 

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, হারুনের সহযোগিতায় ওই নারীকে আবুল খায়ের মুন্সি ও হারুন পালাক্রমে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেন। মেহরাজ পাশের রুমে থাকা কিশোরীকে (১২) ধর্ষণ করেন। ধর্ষণ শেষে ফিরে যাওয়ার সময় স্বর্ণের কানের দুল ও ঘরে থাকা নগদ টাকা নিয়ে যান তারা। পরে ওই কিশোরীর হাতের বাঁধন খুলে দেন এবং ঘটনার বিষয়ে কাউকে কিছু বললে তাদের প্রাণে মেরে ফেলবে বলে হুমকি দেন।

মূলত হারুন গৃহবধূর বসতঘরে মালামাল রয়েছে বলে মেহরাজকে চুরি করতে ইন্ধন যোগান। মেহরাজ রাজি হলে সিঁধ কেটে ঘরে প্রবেশ করেন তারা। পরে হারুনের সঙ্গে মুন্সী মেম্বারকে দেখে মেহরাজ অবাক হন এবং বুঝতে পারেন ধর্ষণ করতেই তাকে দিয়ে চুরির নাটক সাজানো হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন- অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বিজয়া সেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইব্রাহীম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বেগমগঞ্জ সার্কেল) নাজমুল হাসান রাজীব, সহকারী পুলিশ সুপার (চাটখিল সার্কেল) নিত্যানন্দ দাস, চরজব্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম প্রমুখ। 

প্রসঙ্গত, উপজেলার চরওয়াপদা ইউনিয়নের চর কাজী মোখলেছ গ্রামের একটি বাড়িতে সোমবার (৫ ফেব্রুয়ারি) রাত ২টা থেকে ৩টার মধ্যে সিঁধ কেটে মা-মেয়েকে দলবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

নিউজ ট্যাগ: সুবর্ণচর

আরও খবর



ফোন ট্র্যাকিং বুঝার উপায়, বন্ধ করতে যা করবেন

প্রকাশিত:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ডেস্ক

Image

এখন ছোট থেকে বড় সকলের হাতে হাতেই স্মার্টফোন। এটিকে বলা যায় প্রযুক্তির আর্শিবাদ। স্মার্ট ফোন ব্যবহারের সুবিধা যেমন, তেমনি আছে ভোগান্তিও। অনেকেই হয়তো ভেবে দেখেননি ভোগান্তি কীভাবে হয়। একটি ভোগান্তি বা সমস্যা হলো ট্র্যাকিং। এর শিকার হলে সব গোপন তথ্য ফাঁস হয়ে যায়। এতে হুমকিতে পড়তে পারে মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীর নিরাপত্তার বিষয়টি। তবে সতর্ক থাকলে এ থেকে রক্ষা পাওয়া সম্ভব।

ট্র্যাকিং বুঝার উপায় : নোটিফিকেশন প্যানেলে ডিভাইস লোকেটেড লেখা কোনো নোটিফিকেশন আসে কি না খেয়াল রাখুন। ফাইন্ড গুগল ছাড়া স্ট্যাটাস বারে লোকেশন ইনফরমেশন আইকন দেখা যায় কি না খেয়াল করুন। ট্র্যাকিং হচ্ছে কি না জানতে বিভিন্ন কোড ডায়াল করে দেখতে পারেন। যেগুলো ফোন ট্র্যাকিং করা হলে সম্ভাব্য কিছু প্রতিক্রিয়া দেখাবে। যেমন- *# ৬১# লিখে ডায়াল করলে ইনকামিং কলগুলো অন্য কোনো নম্বরে ফরওয়ার্ড করা হয় কি না, তা জানাবে। একইভাবে *# ৬২# ডায়াল করে দেখা যাবে, কোনো ডাইভারশন সফটওয়্যার বিভিন্ন কল ও টেক্সটকে আপনার কাছে পৌঁছাতে বাধা দেয় কি না। এরপরও যদি মনে করেন নিরাপত্তা হুমকির মুখে, তাহলে স্থানীয় থানায় যোগাযোগ করুন।

প্রতিরোধে করণীয় : অ্যান্ড্রয়েড ফোনে সব সময় লোকেশন বার বন্ধ করে রাখুন। ট্র্যাকিং থেকে বাঁচতে ফোনের জিপিএস অপশনটি বন্ধ করে রাখতে হবে। যদি আসে, তাহলে ফোনে লগইন করা জি-মেইলের পাসওয়ার্ড বদলে ফেলতে হবে। যদি ফাইন্ড গুগল ছাড়া স্ট্যাটাস বারে লোকেশন ইনফরমেশন আইকন দেখা যায়, তাহলে বুঝবেন আপনার মোবাইল ফোনের সেটে স্পাই অ্যাপ আছে। সমাধান পেতে, ফোনের ডেভেলপার অপশনে চলে যান। সেখান থেকে রানিং সার্ভিস অপশনে গিয়ে সন্দেহজনক কোনো অ্যাপ চোখে পড়লে সোজা আন-ইনস্টল করে দিন।

ট্র্যাকিং হওয়ার বিষয় একবার নিশ্চিত হয়ে গেলে ফোনের সেটিংসে যান এবং লোকেশন সেটিংস অফ করে দিন। এটি ফোনকে আপনার অবস্থান সংগ্রহ করা বন্ধ করতে সাহায্য করবে। চাইলে ডিভাইসে একটি ভিপিএন ব্যবহার করুন। এটি আপনার ইন্টারনেট ট্রাফিকটিকে এনক্রিপ্ট করে এবং আপনার অবস্থান গোপন রাখতে সাহায্য করবে।

এ ছাড়া নিরাপদ থাকতে ফোনকে ট্র্যাকিং থেকে রক্ষা করার জন্য একটি লক স্ক্রিন ব্যবহার এবং শক্তিশালী পাসওয়ার্ড বা ফাংশনাল প্যাটার্ন দিয়ে সুরক্ষিত রাখার চেষ্টা করতে হবে। ফোন রুট করা থেকে বিরত থাকুন। কারণ, অনেক সময় রুটের মাধ্যমে ফোনের এক্সেস পেয়ে যায়, এতে ফোনের তথ্যাদি চুরি হতে পারে। অনাকাঙ্ক্ষিত মেসেজ, যেমন স্প্যাম বক্সের জমা করা মেসেজ খোলা থেকে বিরত থাকুন।

কোনো লিংক থেকে সফটওয়্যার ডাউনলোড করা উচিত নয় এবং কোনো ধরনের সফটওয়্যার ডাউনলোড করার ক্ষেত্রে গুগল প্লে স্টোর ব্যবহার করা ভালো।


আরও খবর