আজঃ সোমবার ০৮ মার্চ ২০২১
শিরোনাম

শেরপুরে সিএনজি-ট্রাক সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৬

প্রকাশিত:সোমবার ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ১৭০জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

শেরপুরে ট্রাক ও সিএনজি চালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে সিএনজিতে থাকা যাত্রী নিহতের সংখ্যা বেড়ে ছয় জনে দাঁড়িয়েছে। রবিবার (৩১ জানুয়ারি) সকালে সদর উপজেলার বাজিতখিলা ইউনিয়নের মির্জাপুর এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। আহত অবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজে হাসপাতালে মামুন (২৪) কে ভর্তি করা হয়। সে রাত অনুমান ৮ টার দিকে ময়মনসিংহ মেডিক্যালে মৃত্যুবরণ করেন। এটি নিয়ে মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাড়ালো ৬ জনে।

নিহতরা হলেন- জেলার নালিতাবাড়ী উপজেলার নলজোড়া গ্রামের রফিকুল ইসলামের স্ত্রী রোকসানা বেগম (৩০), একই উপজেলার চাঁদগাঁও গ্রামের তায়েব আলীর ছেলে মো. সেলিম (২৫), তিনআনী ঘুটুপাড়া গ্রামের মৃত আব্দুল হাইয়ের ছেলে আ.মান্নান (৫৮), নালিতাবাড়ী উপজেলার চাদগাঁও এলাকার কেতু মিয়ার ছেলে লাল মিয়া (৩৫) ও অটোরিকশা চালক নন্নী বন্দধারা গ্রামের ইউসুফ আলীর ছেলে জোবেদ আলী (২৫),মামুন (২৪), পিতা মিস্টার আলী, গ্রাম- নন্নী বাইগরপাড়া, নালিতাবাড়ী জেলা- শেরপুর। এর আগে, সকালে ঘটনাস্থলে তিনজন, হাসপাতালে নেয়ার পর একজন ও বিকেলে আরো একজনসহ মোট ছয়জন নিহত হলেন।

নিহত রোকসানার শিশুকন্যা আহত রুমি বেগম ( ৬) জেলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। হতাহতরা সবাই নালিতাবাড়ীর নন্নী এলাকা থেকে অটোরিকশায় উঠেছিলেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সকাল ৯টার দিকে একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশা জেলার নালিতাবাড়ী উপজেলার নন্নী বাজার থেকে যাত্রী নিয়ে শেরপুর শহরে আসছিল। পথিমধ্যে শেরপুর-নালিতাবাড়ী সড়কের মির্জাপুর এলাকায় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি দ্রুতগতির ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে সিএনজি অটোরিকশাটি দুমড়ে-মুচরে সড়কের পাশে ছিটকে পড়ে।

এ ব্যাপারে শেরপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল্লাহ-আল মামুন জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে পৌঁছে হতাহতদের উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছে। ঘাতক ট্রাকটি আটক করা হলেও চালক পালিয়ে গেছে। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

Share

আরও খবর



রাঙ্গামাটিতে ৩ হাজার গাঁজা গাছের চারাসহ আটক-১

প্রকাশিত:বুধবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ১০৯জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাঙ্গামাটি থেকে শহিদুল ইসলাম হৃদয়

রাঙ্গামাটির দূর্গম পাহাড়ি অঞ্চলে নেশাজাতীয় দ্রব্যাদি উৎপাদনের দিকে ধাবিত হচ্ছে স্থানীয় পাহাড়িদের একটি অংশ। আঞ্চলিকদলগুলোর সশস্ত্র তৎপরতার রসদ জোগানোর লক্ষ্যে স্থানীয় পাহাড়ি বাসিন্দাদের দিয়ে পতিত পাহাড়ি জমিতে গাঁজা থেকে শুরু করে বিভিন্ন ধরনের মাদক দ্রব্যাদির চাষাবাদ করানো হচ্ছে।

পার্বত্য চট্টগ্রামের বান্দরবান ও খাগড়াছড়ির কিছু অংশে এতোদিন এসব কর্মকাণ্ড চলে আসলেও সম্প্রতি পার্বত্য রাঙ্গামাটির বিভিন্ন দূর্গমাঞ্চলেও এই ধরনের কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে আসছে আঞ্চলিকদলগুলোর মদদপুষ্ট একটি চক্র।

পাহাড়ে তৈরিকৃত এসব মাদক ঢাকা-চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন এলাকার মাদক ব্যবসায়ীদের কাছে বিক্রয় করা হয়। সম্প্রতি স্থানীয় সচেতন বাসিন্দাদের কাছ থেকে বিষয়টি নজরে আসে বিশেষায়িত এলিট ফোর্স র‌্যাব-৭ এর উদ্বর্তন কর্তৃপক্ষের।

সংস্থাটির মিডিয়া উইং কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, গোপন সংবাদের মাধ্যমে র‌্যাব-৭ চট্টগ্রাম কর্তৃপক্ষ জানতে পারে যে, পার্বত্য রাঙ্গামাটি জেলার কাউখালী থানাধীন বর্মাছড়ি মুখপাড়া এলাকায় কতিপয় ব্যক্তি আবাদী জমিতে নেশাজাতীয় মাদকদ্রব্য গাঁজা গাছ চাষাবাদ করছে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলবার (০৯ ফেব্রুয়ারি) র‌্যাব-৭ এর একটি চৌকষ আভিযানিক দল পার্বত্য রাঙামাটি জেলার কাউখালী থানাধীন ফটিকছড়ি ইউপির বর্মাছড়ি মুখপাড়া এলাকার ফটিকছড়ি খালের পাশে পৌঁছা মাত্রই  র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে র‌্যাব সদস্যরা ধাওয়া করে আসামি ডালিম চাকমা (৪০), পিতা- মনমোহন চাকমা, সাং-বর্মাছড়ি মুখপাড়া, থানা- কাউখালী, জেলা- রাঙামাটিকে আটক করে।

পরবর্তীতে উপস্থিত সাক্ষীদের সম্মুখে আটককৃত আসামিকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে তার দেখানো ও শনাক্তমতে তারই চাষকৃত ০৩ টি আবাদি জমিতে (আনুমানিক ০১ বিঘা) নেশাজাতীয় মাদকদ্রব্য গাঁজা গাছ চাষাবাদ অবস্থায় পাওয়া যায়। পরবর্তীতে উক্ত আবাদী জমিতে অভিযান পরিচালনা করে আনুমানিক ০৩ হাজার এর অধিক গাঁজার গাছ জব্দ করা হয়। জব্দকৃত গাঁজা গাছ হতে কিছু আলামত রেখে অবশিষ্ট গাঁজার গাছ ধ্বংস করা হয়। আটককৃত আসামীকে কাউখালী থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে এবং তার বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানাগেছে।

র‌্যাব-৭ এর সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ মাশকুর রহমান জানিয়েছেন, সমতল ভূমির পাশাপাশি পার্বত্য অঞ্চলেও সন্ত্রাসী, মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতারের লক্ষে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম। এই সংস্থাটি প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সমাজের বিভিন্ন অপরাধ এর উৎস উদ্ঘাটন, অপরাধীদের গ্রেফতারসহ আইন শৃঙ্খলার সামগ্রিক উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। অস্ত্রধারী সস্ত্রাসী, ডাকাত, ধর্ষক, চাঁদাবাজ, সন্ত্রাসী, খুনি, বিপুল পরিমাণ অবৈধ অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার, মাদক উদ্ধার, ছিনতাইকারী, অপহরণকারী ও প্রতারকদের গ্রেফতারের ক্ষেত্রে জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করায় সাধারণ জনগনের মনে আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ান র‌্যাব।

Share

আরও খবর



বগুড়ার পৌর মেয়র বিএনপির বাদশা

প্রকাশিত:সোমবার ০১ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ০১ মার্চ ২০২১ | ৯০জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বগুড়া পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে বিপুল ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন বিএনপি মনোনীত প্রার্থী রেজাউল করিম বাদশা। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী ব্যবসায়ী আব্দুল মান্নান আকন্দ।

রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারি) রাতে এ ফল ঘোষণা করা হয়। পৌরসভার ২ লাখ ৭৫ হাজার ৮৭০ জন ভোটারের মধ্যে ১ লাখ ৬৫ হাজার ১১২ জন ভোট দিয়েছেন। যা মোট ভোটের ৫৯.৮৫ শতাংশ।

নির্বাচনে মেয়র পদে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী রেজাউল করিম বাদশা ধানের শীষ প্রতীকে পেয়েছেন ৮২ হাজার ২১৭ ভোট, স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল মান্নান আকন্দ জগ প্রতীকে পেয়েছেন ৫৬ হাজার ৯০, আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আবু ওবায়দুল হাসান ববি নৌকা প্রতীকে পেয়েছেন ২০ হাজার ৮৯ ভোট।

উল্লেখ্য, গতকাল সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত পঞ্চম ধাপে বগুড়া পৌর নির্বাচন ইভিএম পদ্ধতিতে ভোটগ্রহণ হয়। নির্বাচনের পরিবেশ শান্তিপূর্ণ রাখতে ১৬ প্লাটুন বিজিবি, ৫টি স্ট্রাইকিং ফোর্স প্রয়োজনীয় সংখ্যক র‌্যাব, পুলিশ, আনসার সদস্য কাজ করেন।

নিউজ ট্যাগ: বগুড়া
Share

আরও খবর



আবারও ঘরের মাঠে হারতে হলো লিভারপুলকে

প্রকাশিত:সোমবার ০৮ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ০৮ মার্চ ২০২১ | ৪১জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে আবারও ঘরের মাঠে হারতে হলো লিভারপুলকে। ফুলহ্যামের কাছে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা ১-০ গোলে হেরেছে। এই নিয়ে অ্যানফিল্ডে মাঠে টানা ষষ্ঠ ম্যাচে হার দেখল অল রেডরা।

রোববার রাতে পয়েন্ট টেবিলের নিচের দিকে থাকা ফুলহ্যামের বিপক্ষেও জয় তুলতে ব্যর্থ হলো ইয়ুর্গেন ক্লপের শিষ্যরা।

নিজেদের শেষ ১০ ম্যাচের মধ্যে সাতটিতেই হেরেছে অল রেডরা। যার মধ্যে ঘরের মাঠে ছয়টি আর লেস্টার সিটির মাঠে হেরেছে বাকি একটি। ১০ ম্যাচের বাকি থাকা তিন ম্যাচের মধ্যে টটেনহাম, ওয়েস্ট হাম ও শেফিল্ড ইউনাইটেডের মাঠে জয় পেয়েছে লিভারপুল।

এদিন ৪৫তম মিনিটে ডান প্রান্ত থেকে আসা ফ্রি কিক ক্রস বিপদমুক্ত করতে পারেনি লিভারপুল। ডি বক্সের ঠিক বাইরে মোহাম্মদ সালাহর কাছ থেকে বল কেড়ে ভেতরে ঢুকেই দূরের পোস্টে নিচু শটে লক্ষ্যভেদ করেন মারিও লেমিনা।

ডানে ঝাঁপিয়েও বলের নাগাল পাননি গোলরক্ষক আলিসন বেকার। দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকে চাপ বাড়ায় স্বাগতিকরা কিন্তু প্রতিপক্ষের অটুট রক্ষণ ভাঙতে পারেনি। বিপরীতে পাল্টা আক্রমণ নির্ভর খেলতে থাকে সফরকারীরা। এই অর্ধেও তারা বেশ কয়েকবার ভীতি ছড়ালেও আক্রমণের শেষটা ছিল হতাশার।

৪৮তম মিনিটে সালাহর শট রক্ষণ দেওয়ালে বাধা পাওয়ার পর জোতার শট রুখে দেন গোলরক্ষক। ফুলহ্যামের গোলরক্ষক আলফোনসে অ্যারিওলাকে পরাস্ত করতে পারলেও বল কিছুটা উঁচু দিয়ে বেরিয়ে গেলে গোল পায়নি লিভারপুল। শেষ পর্যন্ত আর ম্যাচে ফিরতে সক্ষম হয়নি ফিরমিনো-মানেরা।

এই হারে ইংলিশ লিগে ২৮ ম্যাচে ১২ জয়, ৭ ড্র আর ৯ হারে ৪৩ পয়েন্ট নিয়ে সাত নম্বরে অবস্থান করছে লিভারপুল। এক ম্যাচ কম খেলে ৬৫ পয়েন্ট নিয়ে প্রিমিয়ার লিগের শীর্ষে অবস্থান ম্যানচেস্টার সিটির। ২৭ ম্যাচে ৫১ পয়েন্ট নিয়ে তিন নম্বরে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। আর ২৮ ম্যাচে ৫৩ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে অবস্থান করছে লেস্টার সিটি।

নিউজ ট্যাগ: লিভারপুল
Share

আরও খবর



এইচ টি ইমামের মৃত্যুতে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রীর শোক

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৪ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৪ মার্চ ২০২১ | ৪৬৫জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
মুক্তিযুদ্ধকালীন প্রবাসী সরকারের মন্ত্রিপরিষদ সচিবের দায়িত্ব পালন করা এইচ টি ইমাম মুক্তিযুদ্ধে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপদেষ্টা হিসেবে তিনি সাফল্যের

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক উপদেষ্টা ও স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম মন্ত্রিপরিষদ সচিব হোসেন তৌফিক ইমাম (এইচ টি ইমাম) এর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম এমপি।

মন্ত্রী আজ এক শোকবার্তায় মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং তাঁর শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

শোক বার্তায় মন্ত্রী আরো জানান, মুক্তিযুদ্ধকালীন প্রবাসী সরকারের মন্ত্রিপরিষদ সচিবের দায়িত্ব পালন করা এইচ টি ইমাম মুক্তিযুদ্ধে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপদেষ্টা হিসেবে তিনি সাফল্যের সাথে দায়িত্ব পালন করছেন। জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি দক্ষতার সাথে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা করেছেন। তাঁর মতো বিচক্ষণ ও নিষ্ঠাবান ব্যক্তির মৃত্যু দেশের জন্য অপূরণীয় ক্ষতি।

Share

আরও খবর
ঢাবিতে ভর্তির আবেদন শুরু

সোমবার ০৮ মার্চ ২০২১




গাজীপুরে আগুনে পুড়ে অঙ্গার শিশু, ১৮ ঘর ভস্মীভূত

প্রকাশিত:বুধবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ১১১জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলায় কলোনিতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। আগুনে ওই কলোনির ১৮টি কক্ষ পুড়ে ছাই হয়েছে।

বুধবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলায় তেলিরচালা এলাকায় কলোনিতে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। নিহত শিশু  ইসমাইল (১) গাইবান্ধার সাঘাটা থানার চাকুলি কামারপাড়ার বাদল মিয়ার ছেলে।

কালিয়াকৈর ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার কবিরুল আলম জানান, তেলিরচালা এলাকার রেজাউল করিমের টিনশেড বাসায় সপরিবারে ভাড়া থাকেন বাদল মিয়া।

সকাল সাড়ে ৭টার দিকে ওই কলোনির একটি ঘর থেকে গ্যাস সিলিন্ডার লিকেজ হয়ে আগুন লাগে। এ সময় আগুন মুহূর্তের মধ্যে আশপাশের কক্ষে ছড়িয়ে পড়ে।

খবর পেয়ে কালিয়াকৈর ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিটের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে প্রায় ১ ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। 

তবে তার আগেই ওই কলোনির ১৮টি কক্ষ পুড়ে যায়। এ সময় আগুনে পুড়ে মারা যায় শিশু ইসমাইল।

ওই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তাৎক্ষণিকভাবে আগুনে ক্ষতির পরিমাণ জানা যায়নি বলে জানান ফায়ার সার্ভিসের ওই কর্মকর্তা।

Share

আরও খবর