আজঃ বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১
শিরোনাম

সিলেটে আবার ভূমিকম্প

প্রকাশিত:সোমবার ০৭ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ০৭ জুন ২০২১ | ৯৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

এক মিনিটের ব্যবধানে দুই দফায় ভূমিকম্পে আবার কেঁপে উঠেছে সিলেট। সোমবার (৭ জুন) সন্ধ্যা ৬টা ২৮ ও ২৯ মিনিটে দুই দফায় ভূমিকম্প অনুভূত হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিলেট আবহাওয়া অধিদফতরের প্রধান আবহাওয়াবিদ সাঈদ আহমদ চৌধুরী। তিনি জানান, সর্বশেষ ভূমিকম্পটি অনুভূত হয় সোমবার সন্ধ্যা ৬টা ২৯ মিনিটে। সিলেট অঞ্চলেই এর উৎপত্তিস্থল। তবে রিখটার স্কেলে তা কত মাত্রা ছিল এখনও জানা যায়নি।

এর আগে সিলেটে গত ৩০ মে সকাল ১০টা ৩৬ মিনিট ৫০ সেকেন্ডে রিখটার স্কেলে ৩ মাত্রার, ১০টা ৫০ মিনিট ৫৩ সেকেন্ডে ৪ দশমিক ১ মাত্রার, ১১টা ৩০ মিনিটে ২ দশমিক ৮ মাত্রার এবং ১টা ৫৮ মিনিট ৪০ সেকেন্ডে ৪ মাত্রার ভূমিকম্প রেকর্ড করা হয়েছিল। ওই দিন একটি ভবন হেলেও পড়েছিল। কয়েক দফায় ঝাঁকুনিতে সিলেট শহরের মানুষের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দেয়। অনেকে উঁচু ভবন থেকে রাস্তায় নেমে আসেন। সেদিন কোনও ক্ষয়ক্ষতির কোনও খবর পাওয়া যায়নি।


আরও খবর



গত ২৪ ঘন্টায় খুলনায় আরও সাতজনের মৃত্যু

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২২ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২২ জুন ২০২১ | ২৩জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

খুলনা মেডিকেল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ২৪ ঘণ্টায় সাতজনের মৃত্যু হয়েছে। সবাই করোনা পজিটিভ ছিলেন। মৃত সাতজনের মধ্যে চারজন খুলনার, একজন সাতক্ষীরার, একজন নড়াইলের ও একজন বাগেরহাটের বাসিন্দা। খুমেক হাসপাতালের মুখপাত্র ডা. সুহাস রঞ্জন হালদার আজ মঙ্গলবার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মোট ৩৭৬ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে ১৭৭ জনের করোনা শনাক্ত করা হয়েছে। শনাক্তের হার ৪৭ দশমিক ০৭ শতাংশ, যা খুলনা মেডিকেলে এ যাবতকালের রেকর্ড।

এর মধ্যে খুলনার ৩২৬ জনের নমুনায় শনাক্ত হয়েছে ১৫১ জন। এখানে শনাক্তের হার ৪৬ দশমিক ৩১ শতাংশ। এটিও খুলনায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড।


আরও খবর



চীনের নতুন স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৩ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৩ জুন ২০২১ | ৬৪জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

স্থানীয় সময় বৃস্পতিবার (৩ জুন) ১২টা ১৭ মিনিটে চীনের সিচুয়ান প্রদেশ থেকে উৎক্ষেপণ করা হয় ফেংইয়ুন- ফোর বি বা এফ ওয়াই ফোর বি স্যাটেলাইট। চীনের নিজস্ব লংমার্চ থ্রি বি রকেটে করে শিচাং স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ কেন্দ্র থেকে এটি পাঠানো হয়। লংমার্চ রকেটে করে চীনের ৩৭২তম অভিযান এটি।

চীনের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম গ্লোবাল টাইমসের খবরে বলা হয়, বৃহস্পতিবার পৃথিবীর কক্ষপথে উৎক্ষেপণ করা নতুন প্রজন্মের স্যাটেলাইটটি আবহাওয়ার বিভিন্ন তথ্য উপাত্ত বিশ্লেষণ ও পূর্বাভাসের কাজে ব্যবহৃত হবে বলে জানানো হয়। একই সঙ্গে পরিবেশ ও বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগ পর্যবেক্ষণ করবে ফেংইয়ুন-ফোর বি। কৃষি, বিমান, সমুদ্র ও পানির বিভিন্ন জরিপেও ব্যবহার হবে।

বিশেষ এই স্যাটেলাইট ও রকেটটি যৌথভাবে নির্মাণ করেছে চীনের মহাকাশ ও প্রযুক্তি করপোরেশনের অধীনে থাকা শাংহাই একাডেমি অব স্পেসফ্লাইট টেকনোলজি এবং চায়না একাডেমি অব লঞ্চ ভিহাইকল টেকনোলজি। চীনের আবহাওয়া দপ্তরের প্রচেষ্টায় এই স্যাটেলাইট নির্মিত হয়েছে এবং তারাই এটি তদারকি করবে।

এর আগে পৃথিবীর ভূমিসম্পদ নজরদারি, রিমোর্ট কন্ট্রোল স্যাটেলাইটসহ বিভিন্ন কাজে ব্যবহৃত শতাধিক স্যাটেলাইটের সফলভাবে উৎক্ষেপণ করে চীন।



আরও খবর
করোনার ডেল্টা প্লাসে প্রথম মৃত্যু

বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১




ফেসবুকে উল্টাপাল্টা লিখলেই ব্যবস্থা চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়

প্রকাশিত:বুধবার ০৯ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৯ জুন ২০২১ | ৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
এটি কোনো নিষেধাজ্ঞা নয়। অনেক সময় বিভাগের শিক্ষার্থীরা আবেগপ্রবণ হয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অনেক কিছু লিখে থাকে। এতে বিভাগের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন

করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকার ঘোষিত লকডাউন শিথিল করে গণপরিবহন, দূরপাল্লার বাস ও দোকানপাট-শপিংমল খুললেও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হয়েছে। তবে শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কে বিরুপ কোনো মন্তব্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লিখলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজনীতি বিজ্ঞান বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক আনোয়ার বেগমের স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপিতে বলা হয়েছে বিভাগের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হতে পারেএমন কিছু সামাজিক মাধ্যমে না লেখার জন্য একটি বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে।

বুধবার (০৯ জুন) এ বিষয়ে অধ্যাপক আনোয়ারা বেগম গণমাধ্যমকে বলেন, এটি কোনো নিষেধাজ্ঞা নয়। অনেক সময় বিভাগের শিক্ষার্থীরা আবেগপ্রবণ হয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অনেক কিছু লিখে থাকে। এতে বিভাগের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হয়। তাই একটি সতর্কতামূলক বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়েছে।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজনীতি বিজ্ঞান বিভাগের কয়েকজন শিক্ষার্থী বলেন, শিক্ষার্থীরা তাদের ভোগান্তি নিয়ে লিখতে পারবে না এটি বাকস্বাধীনতার ওপর হস্তক্ষেপ। কারণ গত চার মাসেও স্নাতকের রেজাল্ট প্রকাশ করা হয়নি। বিশ্ববিদ্যালয় কোন অনুগত দাস তৈরির কারখানা নয়।

এ প্রসঙ্গে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) বর্তমান উপাচার্য অধ্যাপক ড. শিরীণ আখতার গণমাধ্যমকে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হবে এমন কোনো মন্তব্য শিক্ষার্থীরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লেখবে তা হতে পারে না। আমি বিজ্ঞপ্তিটি সমর্থন করি। বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কে কোনো শিক্ষার্থী যদি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে উল্টাপাল্টা কিছু লেখেন তবে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আরও খবর



রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্বের দিয়ে ক্ষমতায় যেতে চায় সু চি

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৪ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৪ জুন ২০২১ | ১৬১জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

জান্তা সরকারকে উৎখাত করতে সংখ্যালঘু রোহিঙ্গাদের সহায়তা চেয়েছে মিয়ানমারের ছায়া সরকার। তাদের সহায়তায় সামরিক সরকারকে উৎখাত করতে পারলে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের ফিরিয়ে আনা এবং নাগরিকত্ব দেয়ারও ঘোষণা দিয়েছে তারা। খবর এএফপির।

বৃহস্পতিবার রাতে জান্তাবিরোধী জাতীয় ঐক্য সরকার (এনইউজি) তাদের সম্ভাব্য সংখ্যালঘুনীতি নিয়ে তিন পৃষ্ঠার এক বিবৃতি প্রকাশ করে। সেখানেই সামরিক জান্তাকে ক্ষমতাচ্যুত করতে রোহিঙ্গাদের সাহায্য চাওয়া হয়েছে।

একইসঙ্গে দেশটিতে বিদ্যমান ১৯৮২ সালের বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইন সংশোধন করারও প্রতিশ্রুতি দিয়েছে তারা। সেক্ষেত্রে মিয়ানমারে জন্ম নেয়া সবাইকে বা বিশ্বের যেকোনো স্থানে জন্ম নেয়া বার্মিজ নাগরিকের সন্তানদের পূর্ণ নাগরিকত্ব দানের অঙ্গীকার করেছে এই ছায়া সরকার।

অভ্যুত্থান ঘটিয়ে গত ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারের শাসন ক্ষমতা দখল করে নেয় দেশটির সামরিক বাহিনী। ক্ষমতাচ্যুত করা হয় মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সু চির নেতৃত্বাধীন ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসির (এনএলডি) সরকারকে। এরপরই জান্তাবিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে ওঠে মিয়ানমার।

এমতাবস্থায় জান্তা সরকারও বিক্ষোভকারীদের ওপর চড়াও হয়। সামরিক সরকার বিরোধী এই বিক্ষোভে আট শতাধিক মানুষের মৃত্যু হয়েছে। এসময় গ্রেপ্তার করা হয় শত শত মানুষকে। তখনই মিয়ানমারের রাজনীতিকরা জান্তা সরকারকে অবৈধ ঘোষণা দিয়ে ছায়া সরকার গড়ে তোলে।

জাতীয় ঐক্য সরকার (এনইউজি) নামের এই ছায়া সরকারের বেশিরভাগ সদস্যই এনএলডির। সরকার গঠনের পর তারাই মিয়ানমারের বৈধ সরকার বলে দাবি করে এনইউজি। যদিও এনইউজিকে সন্ত্রাসী বলে ঘোষণা দিয়েছে জান্তা সরকার।


আরও খবর
করোনার ডেল্টা প্লাসে প্রথম মৃত্যু

বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১




যুদ্ধে সৈনিক হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে শিশুদের

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২২ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২২ জুন ২০২১ | ৪৯জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

প্রায় আট হাজার ৫০০-এর বেশি শিশুকে ২০২০ সালে বিশ্বের বিভিন্ন জায়গায় চলমান যুদ্ধে সৈনিক হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে এবং নিহত হয়েছে দুই হাজার ৬৭৪ জন।

সোমবার জাতিসংঘ থেকে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়। অ্যান্তনিও গুতেরেস নিরাপত্তা পরিষদে শিশুবিষয়ক বার্ষিক প্রতিবেদনে এ তথ্য তুলে ধরেন।

প্রতিবেদনে জানানো হয়, ২১টি যুদ্ধে ১৯ হাজার ৩৭৯ শিশুর অধিকার লঙ্ঘন করার ঘটনা ঘটেছে। আর এমন ঘটনা সবচেয়ে বেশি ঘটেছে সোমালিয়া, ডেমোক্র্যাটিক রিপাবলিক অব কঙ্গো, আফগানিস্তান, সিরিয়া ও ইয়েমেনে।

প্রতিবেদনে নিশ্চিত করা হয় আট হাজার ৫২১ শিশুকে ২০২০ সালে শিশু সৈনিক হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে। এ সময়ের মধ্যে নিহত হয়েছে দুই হাজার ৬৭৪ শিশু। এ ছাড়া বিভিন্ন যুদ্ধে আহত হয়েছে পাঁচ হাজার ৭৪৮ শিশু।

প্রতিবেদনে একটি কালো তালিকা রাখা হয়েছে। যেখানে রয়েছে শিশু অধিকার ক্ষুণ্ন করছে যুদ্ধরত এমন গোষ্ঠী বা সংস্থার নাম। সে তালিকায় কখনও ইসরাইলের নাম না থাকায় বিতর্ক দেখা দেওয়াটাই স্বভাবিক। হয়েছেও তাই। অপরদিকে সৌদি আরবের নেতৃত্বাধীন জোটকে ইয়েমেন যুদ্ধে শিশুদের অধিকার লঙ্ঘন করায় তালিকায় রাখা হয়েছিল। কিন্তু ২০২০ সালের কালো তালিকা থেকে জোটকে বাদ দেওয়া হয়।

এ ছাড়া তালিকায় মিয়ানমারের সেনাবাহিনী এবং সিরিয়ার সরকারি বাহিনীকে শিশুদের সুরক্ষা নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে কোনো পদক্ষেপ না নেওয়ায় কালো তালিকায় স্থান দেওয়া হয়েছে।


আরও খবর
করোনার ডেল্টা প্লাসে প্রথম মৃত্যু

বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১