আজঃ বুধবার ০৪ আগস্ট ২০২১
শিরোনাম

শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে উভয়মুখী যাত্রীদের চাপ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২২ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ জুলাই ২০২১ | ৮৩জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আগামীকাল শুক্রবার থেকে আবারও কঠোর বিধিনিষেধ শুরু হতে যাচ্ছে। এই বিধিনিষেধকে কেন্দ্র করে ঈদুল আজহার পরদিন আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীসহ কর্মস্থলে ফিরতে শুরু করেছে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলার মানুষ। আবার ঈদের আগে বাড়ি যেতে না পারা মানুষেরাও ফিরছেন নিজ নিজ এলাকায়। এতে আজ বৃহস্পতিবার সকাল থেকে শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটের ফেরি ও লঞ্চে উভয়মুখী যাত্রীদের চাপ দেখা গেছে। তবে বাড়ি ফেরা মানুষের চেয়ে কর্মস্থলে ফেরা মানুষের সংখ্যা কয়েক গুণ বেশি।

এদিকে, শিমুলিয়া ঘাটে পরাপারের অপেক্ষায় এখনও ব্যক্তিগত ও পণ্যবাহী গাড়ির দীর্ঘ সারি রয়েছে। বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহণ করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) সূত্রে জানা গেছে, ঘাটে ব্যক্তিগত ও পণ্যবাহী মিলিয়ে পাঁচ শতাধিক গাড়ি পদ্মা পারের অপেক্ষায় রয়েছে। অন্যদিকে, লঞ্চে ভোগান্তি ও চাপ কিছুটা কম। শিমুলিয়া-বাংলাবাজার ও শিমুলিয়া মাজিরকান্দি নৌরুটে ৮৪টি লঞ্চে উভয়মুখী যাত্রীরা নির্বিঘ্নে পারাপার করছে।

বেসরকারি ব্যাংকে কর্মরত আফজাল হোসেন নামের এক ব্যক্তি জানান, ফ্যামিলি নিয়ে ঢাকার মিরপুরে যাব। ঈদ করতে খুলনা গিয়েছিলাম। লকডাউনের কারণে আমাকে ঢাকায় ঢুকতে হবে। ব্যাংক খোলা। এজন্য আজই ঢাকায় যাব।

আকরাম হোসেন নামের এক ব্যবসায়ী জানান, মাদারিপুরে গ্রামের বাড়ি গিয়েছিলাম কোরবানি দিতে। এখন ঢাকার উত্তরায় যাচ্ছি।

একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কাজ করেন সেলিনা আফরোজ। তিনি বলেন, সপরিবারে ঈদ করতে বাগেরহাটে গিয়েছিলাম। সচরাচর গ্রামের বাড়িতে যাওয়া হয় না। কোরবানি উপলক্ষে প্রতি বছর যাই। লকডাউন হবে বলে তড়িঘড়ি করে আমরা ঢাকার ঝিগাতলায় ফিরছি।

বিআইডব্লিউটিসি শিমুলিয়া ঘাটের ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) মো. ফয়সাল আহমেদ জানান, নৌরুটে বর্তমানে ছোট-বড় মিলিয়ে ১৫টি ফেরি সচল রয়েছে। ঘাট এলাকায় পারাপারের জন্য ব্যক্তিগত গাড়ি মিলিয়ে চার শতাধিক যানবাহন রয়েছে। সকাল থেকে যাত্রী ও মোটরসাইকেলের চাপ রয়েছে ফেরিগুলোতে।

ফয়সাল আহমেদ আরও জানান, পদ্মায় তীব্র স্রোতে নৌরুটে ফেরি চলাচলে বেশি সময় আর ঘাটে থাকা যানবাহন পারাপারে বেগ পেতে হচ্ছে।


আরও খবর



ঈদে লঞ্চ চলবে কিনা জানালো বিআইডব্লিউটিএ

প্রকাশিত:সোমবার ১২ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১২ জুলাই ২০২১ | ১৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কোরবানি ঈদ উপলক্ষে দেশব্যাপী চলমান বিধিনিষেধ কিছুটা শিথিল করে মানুষের চলাচল করার সুযোগ দেওয়া হয়েছে। আগামী বৃহস্পতিবার ( ১৫ জুলাই) থেকে ২৩ জুলাই পর্যন্ত বিধিনিষেধ শিথিল করা হচ্ছে। তবে, ঈদুল আজহায় লঞ্চ চলাচল করবে কিনা এ ব্যাপারে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সিদ্ধান্ত দেবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহণ করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিএ) চেয়ারম্যান কমডোর গোলাম সাদেক।

সোমবার (১২ জুলাই) দুপুরে রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ফেরিঘাট ও লঞ্চঘাট পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।

বিআইডব্লিউটিএ চেয়ারম্যান বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে স্বাস্থ্যবিধি বিষয়ক একটি কমিটি রয়েছে। তারা লঞ্চ চলাচলের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত দিতে পারেন। যেহেতু এখন দেশে করোনার মহামারি চলছে, সেহেতু ঈদে লঞ্চ চলবে কি না- তা মন্ত্রিপরিষদই সিদ্ধান্ত নেবে।


আরও খবর



পিরোজপুর জেলার নতুন এসপি মোহাম্মদ সাঈদুর রহমান

প্রকাশিত:রবিবার ১১ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ জুলাই ২০২১ | ৩১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পিরোজপুর জেলার নতুন পুলিশ সুপার (এসপি) হিসাবে যোগ দিচ্ছেন মোহাম্মদ সাইদুর রহমান, পিপিএম। তিনি বর্তমানে চট্টগ্রাম রেঞ্জ অফিস,ডিআইজি কার্যালয়ে এসপি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব ধনঞ্জয় কুমার দাস স্বাক্ষরিত এক আদেশে তাকে বদলি করা হয়।

মাদারিপুরের সন্তান মোহাম্মদ সাইদুর রহমান বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস (বিসিএস) ২৫তম ব্যাচে পুলিশ ক্যাডারে যোগ দেন। সর্বশেষ বৈশ্বিক মহামারি করোনা সংকটকালে তিনি  চট্টগ্রাম রেঞ্জ কার্যালয় পুলিশ সুপার (টিএম, আই এবং রোহিঙ্গা শরণার্থী) পদে কর্মরত থাকিয়া মানুষের বিপদে পাশে থেকে সুপার হিরো খ্যাতি অর্জন করেন।

তিনি মাদারিপুর জেলার সদর উপজেলার পেয়ারপুর গ্রামের মোহাম্মদ এবাদত খান ও রিজিয়া বেগম দম্পতির সন্তান। 


আরও খবর



রোহিঙ্গাদের নিয়ে বিশ্ব ব্যাংকের প্রস্তাবে বাংলাদেশ না

প্রকাশিত:সোমবার ০২ আগস্ট 2০২1 | হালনাগাদ:সোমবার ০২ আগস্ট 2০২1 | ৫১জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
শুধু বাংলাদেশের জন্য নয়, ১৬টা দেশের জন্য বিশ্ব ব্যাংক একটা রিপোর্ট তৈরি করেছে। যে সমস্ত দেশে রিফিউজি আছে সেখানে তাদের হোস্ট কান্ট্রিতে ইন্টিগ্রেট করার বিষয়ে

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, বাংলাদেশে আশ্রিত রোহিঙ্গাদের সমাজে অন্তর্ভুক্ত বা রেখে দেওয়ার জন্য বিশ্বব্যাংকের প্রস্তাবে ঢাকা রাজি নয়। আমাদের অগ্রাধিকার ইস্যু হলো রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন।

রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় সোমবার (২ আগস্ট) সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মোমেন বলেন, শুধু বাংলাদেশের জন্য নয়, ১৬টা দেশের জন্য বিশ্ব ব্যাংক একটা রিপোর্ট তৈরি করেছে। যে সমস্ত দেশে রিফিউজি আছে সেখানে তাদের হোস্ট কান্ট্রিতে ইন্টিগ্রেট করার বিষয়ে। যেহেতু রোহিঙ্গারা রিফিউজি না, আমরা এটা পুরোপুরি প্রত্যাখ্যান করেছি।

তিনি আরও বলেন, এই রিপোর্টের সঙ্গে আমাদের চিন্তাভাবনার মিল নেই। আমরা তাদের ক্ষণিকের জন্য আশ্রয় দিয়েছি। আমরা মনে করি, রোহিঙ্গাদের সুন্দর ভবিষ্যতের জন্য একমাত্র পথ হচ্ছে নিজের দেশে ফিরে যাওয়া।


আরও খবর



কঠোর বিধিনিষেধ কাল থেকে, শিথিলের গুজবে কান না দেওয়ার আহ্বান

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২২ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ জুলাই ২০২১ | ২৩৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ঈদের পরদিনের মধ্যে ঢাকায় ফিরতে না পারলে বাড়িতে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী মো. ফরহাদ হোসেন। আগামী ২৩ জুলাই থেকে শুরু হচ্ছে কঠোর লকডাউন। যা চলবে আগামী ৫ আগস্ট পর্যন্ত। এই ইস্যুতে কোনো গুজবে না দেওয়ার আহ্বান জানান জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী।

বুধবার রাতে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। লকাডাউনের শিথিলতা নিয়ে ছড়ানো গুজবে কান না দিতে গণমাধ্যমকে ফের বিধি-নিষেধের বিষয়ে তথ্য দেন প্রতিমন্ত্রী। 

সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়ে ফরহাদ হোসেন বলেন, সরকার ঈদের আগে বিধি-নিষেধ শিথিল করায় সব শ্রেণির মানুষ সুন্দরভাবে ঈদ উদযাপন করতে পেরেছেন। পশুর হাটগুলোতে ভালোভাবে কোরবানির পশু কিনতে পেরেছেন। যারা ঈদের আগে ঢাকা এসেছিলেন তারাও সুন্দর পরিবেশে ঈদের পরদিনের মধ্যে বাড়ি ফিরতে পারবেন। এরপর দিন ২৩ জুলাই থেকে বিধি-নিষেধ শুরু হবে। শেষ হবে ৫ আগস্ট। এটা পূর্ব নির্ধারিত প্রজ্ঞাপন। এই ইস্যুতে গুজবে কান দেবেন না।

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, আগামী ২৩ জুলাই সকাল ৬টা থেকে ৫ আগস্ট দিবাগত রাত ১২টা পর্যন্ত কঠোর বিধি-নিষেধ দিয়েছে সরকার। বিধি-নিষেধের সময় সব অফিস বন্ধ থাকবে। সরকারি ও বেসরকারি অফিস, শিল্প কারখানাসহ সারা দেশে সব ধরনের গণপরিবহন চলাচল বন্ধ থাকবে। বিধি-নিষেধ শেষে যেন ঢাকায় চাকরিরত কর্মকর্তা-কর্মচারীরা ফিরে আসেন।  আমি এবার ঢাকায় ঈদ করেছি। গ্রামে যাইনি।

কঠোর লকডাউন পালনে দেশবাসীর সহযোগিতা চেয়ে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী বলেন, এই ১৪ দিন যদি আমরা বিধি-নিষেধ মানি তাহলে সংক্রমণের চেইনটা ভাঙতে পারব। সবাই যার যার অবস্থানে থেকে সহযোগিতা করবেন।


আরও খবর



ফিলিস্তিনি ১ কোটি ৪০ লাখ মানুষ আশ্রয় নিয়েছেন বিভিন্ন দেশে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৫ জুলাই ২০২১ | ১১৪জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ইসরাইলি বর্বরতা ও দখলদারিত্বের কারণে নিজেদের ভিটেমাটি হারিয়ে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে শরণার্থী হিসেবে আশ্রয় নিয়েছেন এক কোটি ৩৮ লাখ ফিলিস্তিনি।

ফিলিস্তিন সরকার সম্প্রতি এক পরিসংখ্যানে এ তথ্য জানিয়েছে। দখলদার ইসরাইলের অত্যাচার আর নির্যাতনে গাজা ও পশ্চিমতীরে ফিলিস্তিনি লোকসংখ্যা কমে এখন মাত্র ৫২ লাখ ৩০ হাজারে দাঁড়িয়েছে।

বিশ্ব জনসংখ্যা দিবসে ফিলিস্তিন কর্তৃপক্ষ ও ইউএনএফপিএ (ইউনাইটেড ন্যাশনস পপুলেশন ফান্ড) যৌথভাবে ওই পরিসংখ্যানের রিপোর্ট প্রকাশ করে।

অবরুদ্ধ গাজা ও পশ্চিমতীরের মোট জনসংখ্যার ৩৩ শতাংশই শিশু। এদের মধ্যে গাজায় ৪১ শতাংশ বাসিন্দার বয়স ১৫ বছরের নিচে।

পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, গাজায় ৩৬৫ বর্গ কিলোমিটারে ২১ লাখ ১০ হাজার ফিলিস্তিনির বসবাস, যা বিশ্বের সবচেয়ে ঘনবসতিপূর্ণ এলাকার মধ্যে অন্যতম।

আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থাগুলো ইসরাইলের অব্যাহত এ দখলদারিত্বের কঠোর সমালোচনা করলেও এতে কর্ণপাত করছে না তেলআবিব।

জর্ডান, সিরিয়া ও লেবানন ছাড়াও বহু ফিলিস্তিনি আশ্রয় নিয়েছেন লাতিন আমেরিকার দেশ চিলিতে। সেখানে এ বছর প্রেসিডেন্ট নির্বাচন করছেন এক ফিলিস্তিন বংশোদ্ভূত নাগরিক।


আরও খবর
ভারতে আবারও বেড়েছে মৃত্যু

বুধবার ০৪ আগস্ট ২০২১