আজঃ শনিবার ২২ জুন ২০২৪
শিরোনাম

শিশুরা খেলা করুক রোদেলা মাঠে, খেজুর গাছের নিচে : জয়া

প্রকাশিত:রবিবার ১৯ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত ও দুই বাংলার জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান। দেশের গণ্ডি পেরিয়ে এখন অভিনয়ের দ্যুতি ছড়াচ্ছেন ভারতেও। সেই সঙ্গে খুব অল্প সময়েই জায়গা করে নিয়েছেন দর্শক হৃদয়ে। কাজের পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও বেশ সক্রিয় তিনি। নিয়মিতই ভক্তদের সঙ্গে ছবি কিংবা পোস্ট শেয়ার করেন জয়া।

এবার ফিলিস্তিনিদের নিয়ে আবেগঘন পোস্ট দিলেন এই অভিনেত্রী। রোববার (১৯ নভেম্বর) নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুকে একটি ছবি শেয়ার কর পোস্ট দিয়েছেন জয়া।

পাঠকদের সুবিধার জন্য অভিনেত্রীর পোস্টটি হুবহু তুলে ধরা হলো-

ফিলিস্তিনের ছবি দেখছি অনলাইনে, খবরের কাগজে, টেলিভিশনের পর্দায়। বোমা ফেলা হচ্ছে নিরীহ মানুষজনের ওপর। আক্রমণ চলছে হাসপাতালেও।

একটি ছবিতে দেখেছিলাম পরিবারের সবাই মারা পড়েছেন, আর সবার লাশের সামনে বসে আছেন বেঁচে যাওয়া একজন মাত্র মানুষ। এ পর্যন্ত ১১ হাজার হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছেন। এর মধ্যে শিশু মারা গেছে ৪ হাজারের বেশি।

এসব দেখেশুনে মনটা ভেঙে যায়। আবার মনটাকে সরিয়ে কাজে নেমে পড়ি। নতুন মুক্তি পাওয়া ছবির প্রচারে যাচ্ছি, যোগ দিচ্ছি পুরস্কারের অনুষ্ঠানে, গোয়া চলচ্চিত্র উৎসবে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছি।

এর জন্য মনে অপরাধ-অপরাধও লাগে। আমার বা আমাদের জীবন তো চলছে, কিন্তু ওদের জীবন তো প্রতিটা মুহূর্তে মৃত্যুর মুখোমুখি। তাদের অসহায়তা দেখে গলাটা বুঁজে আসে।

এই হত্যাকাণ্ড থামুক। শিশুরা খেলা করুক রোদেলা মাঠে, খেজুর গাছের নিচে। নিজের দেশে দেশছাড়া এই মানুষগুলো নিজেদের ঘরে ফিরুক। ওদের বাঁচানোর জন্য পৃথিবীর বড় বড় মানুষেরা কি এক হতে পারেন না? এটা কি খুব বড় প্রত্যাশা?

নিউজ ট্যাগ: জয়া আহসান

আরও খবর



২৯ জুন থেকে দেশের সব কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার নির্দেশ

প্রকাশিত:বুধবার ০৫ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ০৫ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

আসন্ন এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা উপলক্ষে আগামী ২৯ জুন থেকে ১১ আগস্ট পর্যন্ত দেশের সব কোচিং সেন্টার বন্ধ থাকবে। বুধবার (৫ জুন) এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা-২০২৪ উপলক্ষে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত জাতীয় মনিটরিং ও আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায় এই সিদ্ধান্ত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী।

সভা শেষে মন্ত্রণালয়ের সংবাদ সম্মেলনে তিনি কোচিং সেন্টার বন্ধের কথা জানান।

২০২৪ সালের উচ্চমাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) ও সমমানের পরীক্ষা আগামী ৩০ জুন শুরু হবে। লিখিত পরীক্ষা শেষ হবে ১১ আগস্ট। আর ব্যবহারিক পরীক্ষা ১২ আগস্ট থেকে ২১ আগস্টের মধ্যে শেষ করতে হবে।

রুটিন অনুযায়ী, অধিকাংশ বিষয়ের পরীক্ষা সকাল ১০টা থেকে শুরু হয়ে চলবে দুপুর ১টা পর্যন্ত। তবে কয়েকটি বিষয়ের পরীক্ষা দুপুর ২টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে। ৩০ জুন প্রথম দিন বাংলা প্রথমপত্রের পরীক্ষা হবে।

২ জুলাই বাংলা দ্বিতীয় পত্র, ৪ জুলাই ইংরেজি প্রথমপত্র, ৭ জুলাই ইংরেজি দ্বিতীয় পত্র, ৯ জুলাই তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আবশ্যিক), ১১ জুলাই পদার্থ বিজ্ঞান (তত্ত্বীয়); হিসাব বিজ্ঞান ও যুক্তিবিদ্যা প্রথমপত্র, ১৪ জুলাই পদার্থ বিজ্ঞান (তত্ত্বীয়); হিসাব বিজ্ঞান ও যুক্তিবিদ্যা দ্বিতীয়পত্র, ১৬ জুলাই সকালে ভূগোল (তত্ত্বীয়) প্রথমপত্র; বিকেলে উচ্চাঙ্গ সঙ্গীত (তত্ত্বীয়); আরবি; পালি প্রথমপত্র, ১৮ জুলাই সকালে ভূগোল (তত্ত্বীয়) দ্বিতীয়পত্র; বিকেলে উচ্চাঙ্গ সঙ্গীত (তত্ত্বীয়); আরবি; পালি দ্বিতীয়পত্র পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

২১ জুলাই রসায়ন (তত্ত্বীয়); ইসলামের ইতিহাস ও সস্কৃতি; ইতিহাস; গৃহ ব্যবস্থাপনা ও পারিবারিক জীবন; উৎপাদন ব্যবস্থাপনা ও বিপণন প্রথমপত্র, ২৩ জুলাই রসায়ন (তত্ত্বীয়); ইসলামের ইতিহাস ও সস্কৃতি; ইতিহাস; গৃহ ব্যবস্থাপনা ও পারিবারিক জীবন; উৎপাদন ব্যবস্থাপনা ও বিপণন দ্বিতীয়পত্র, ২৫ জুলাই অর্থনীতি; প্রকৌশল অঙ্কন ও ওয়ার্কশপ প্রাকটিস প্রথমপত্র, ২৮ জুলাই অর্থনীতি;  প্রকৌশল অঙ্কন ও ওয়ার্কশপ প্রাকটিস (তত্ত্বীয় ঐচ্ছিক-১, ২ ও ৩) দ্বিতীয়পত্র, ২৯ জুলাই সকালে পৌরনীতি ও সুশাসন; জীববিজ্ঞান (তত্ত্বীয়); ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা প্রথমপত্র, বিকেলে খাদ্য ও পুষ্টি প্রথমপত্র; ৩১ জুলাই সকালে পৌরনীতি ও সুশাসন; জীববিজ্ঞান (তত্ত্বীয়); ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা দ্বিতীয়পত্র; বিকেলে খাদ্য ও পুষ্টি দ্বিতীয়পত্র পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

১ আগস্ট সকালে মনোবিজ্ঞান (তত্ত্বীয়); কৃষিশিক্ষা (তত্ত্বীয়); মৃত্তিকা বিজ্ঞান (তত্ত্বীয়); চারু কারুকলা (তত্ত্বীয়); নাট্যকলা প্রথমপত্র, বিকেলে পরিসংখ্যান (তত্ত্বীয়); ব্যবহারিক শিল্পকলা ও বস্ত্র পরিচ্ছদ প্রথমপত্র, ৪ আগস্ট মনোবিজ্ঞান (তত্ত্বীয়); কৃষিশিক্ষা (তত্ত্বীয়); মৃত্তিকা বিজ্ঞান (তত্ত্বীয়); চারু কারুকলা (তত্ত্বীয়); নাট্যকলা দ্বিতীয়পত্র, বিকেলে পরিসংখ্যান (তত্ত্বীয়); ব্যবহারিক শিল্পকলা ও বস্ত্র পরিচ্ছদ দ্বিতীয়পত্র, ৫ আগস্ট সকালে উচ্চতর গণিত; ইসলাম শিক্ষা প্রথমপত্র, বিকেলে গার্হস্থ্য বিজ্ঞান; সংস্কৃত; লঘু সঙ্গীত (তত্ত্বীয়) প্রথমপত্র, ৭ আগস্ট সকালে উচ্চতর গণিত; ইসলাম শিক্ষা দ্বিতীয়পত্র, বিকেলে গার্হস্থ্য বিজ্ঞান; সংস্কৃত; লঘু সঙ্গীত (তত্ত্বীয়) দ্বিতীয়পত্র, ৮ আগস্ট সকালে ফিন্যান্স, ব্যাংকিং ও বিমা; শিশু বিকাশ প্রথমপত্র, বিকেলে সমাজ বিজ্ঞান, সমাজকর্ম, ক্রীড়া (তত্ত্বীয়) প্রথমপত্র এবং ১১ আগস্ট সকালে ফিন্যান্স, ব্যাংকিং ও বিমা; শিশু বিকাশ দ্বিতীয়পত্র, বিকেলে সমাজ বিজ্ঞান, সমাজকর্ম, ক্রীড়া (তত্ত্বীয়) দ্বিতীয়পত্র পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।


আরও খবর



বিদেশগামী শিক্ষার্থীদের বড় সুখবর দিতে যাচ্ছে সরকার

প্রকাশিত:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

বাংলাদেশ থেকে প্রতিবছর বিপুল সংখ্যক শিক্ষার্থী পড়াশোনার উদ্দেশে বিদেশে পাড়ি জমান। প্রতি সেমিস্টারে শত শত ডলার টিউশন ফি পাঠাতে হয় অভিভাবকদের। এটি বাংলাদেশ থেকে রেমিট্যান্স বা টিউশন ফি হিসেবে বিদেশে যায়। এমন টিউশন ফির ওপর এখন থেকে কর নিবে না বাংলাদেশ সরকার। প্রস্তাবিত ২০২৪-২৫ বাজেটে এ ধরনের সুযোগ রাখা হয়েছে।

টিউশন ফিসহ ছয় ধরনের কাজে বিদেশে অর্থ পাঠাতে উৎসে কর কেটে রাখার বিষয়টি পরিষ্কার করা হয়েছে প্রস্তাবিত বাজেটে। অন্য পাঁচটি খাত হলোবিদেশের কোনো কর্তৃপক্ষকে অর্থ পরিশোধ, পেশাজীবী সংগঠনের চাঁদা পরিশোধ, বিদেশে অবস্থিত কোনো প্রতিষ্ঠানের লিয়াজোঁ অফিস, বিদেশে পণ্য উন্নয়ন ও বাজারজাতকরণ ও নিরাপত্তা জামানত।

প্রতিবছর বাংলাদেশের বিপুলসংখ্যক শিক্ষার্থী ভারত, মালয়েশিয়া ও চীনের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও স্কুল-কলেজে পড়াশোনা করে। এ ছাড়া জাপানসহ ইউরোপ ও আমেরিকার বিভিন্ন দেশে বাংলাদেশের শিক্ষার্থী আছেন।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) আয়কর কর্মকর্তারা জানান, ডলারসংকটের কারণে অনেক ব্যাংক বিদেশে টিউশন ফি বাবদ ডলার পরিশোধে অনীহা দেখায়। এখন এই ডলারে টিউশন ফি পরিশোধে উৎসে কর কাটা হবে না। ফলে টিউশন ফির অর্থ পাঠাতে ভোগান্তি কিছুটা কমবে।

সাধারণত বিদেশে ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে অর্থ পরিশোধের সময় ৩০ শতাংশ উৎসে কর কেটে রাখা হয়।


আরও খবর



রেমালের প্রভাবে রাজধানীর একাধিক স্থানে ভেঙে পড়েছে গাছ

প্রকাশিত:সোমবার ২৭ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৭ মে ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে রাজধানীর একাধিক জায়গায় গাছ ভেঙে রাস্তায় পড়ে গেছে। এতে রাস্তায় যানচলাচল কিছু সময়ের জন্য ব্যাহত হচ্ছে। এসব গাছ ভেঙে পড়ার সংবাদ পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের একাধিক ইউনিট রাস্তা থেকে গাছ সরিয়ে নিয়েছে।

সোমবার (২৬ মে) দুপুর ২ টার দিকে ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণ কক্ষে ডিউটি অফিসার খালেদা ইয়াসমিন এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, রাজধানীর মিরপুর, মোহাম্মদপুর, উত্তরা ও কুর্মিটোলা এলাকায় রাস্তায় গাছ ভেঙে পড়েছে। এমন সংবাদ পাওয়ার পর ফায়ার সার্ভিসের একাধিক টিম ঘটনাস্থলে গিয়ে রাস্তা থেকে গাছ সরিয়ে নেওয়ার কাজ করছে। আরও ফোন আসছে গাছ ভেঙে পড়ার। সেখানে আমাদের টিম যাচ্ছে।

এদিকে উত্তরার জসিমউদ্দিন অ্যাভিনিউ সড়কে চলাচলরত একটি গাড়ির উপর গাছ পড়ে ভেঙে। তবে এতে কোনো হতাহতের খবর নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

এদিন ঝড়ে রাজধানীর মিরপুরের একটি সড়কের উপর গাছ পড়ে যানচলাচল ব্যাহত হলে গাছ সরিয়ে যানচলাচল স্বাভাবিক করেছে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের কুইক রেসপন্স টিম।

নিউজ ট্যাগ: ঘূর্ণিঝড় রেমাল

আরও খবর



মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি পেলেন ৫০৪ বীরাঙ্গনা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের (জামুকা) সুপারিশে ৫০৪ জন বীরাঙ্গনাকে নারী মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।

বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) জাতীয় সংসদে বাজেট অধিবেশনে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য শামীম শাহনেওয়াজের লিখিত প্রশ্নের উত্তরে তিনি এ তথ্য জানান। এসময় সংসদে সভাপতিত্ব করেন স্পিকার শিরীন শারমিন।

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক বলেন, যুদ্ধকালীন মুক্তিযুদ্ধের সহায়তাকারী সব নারীকে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার কার্যক্রম চলমান আছে। জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের সুপারিশের আলোকে এরই মধ্যে ৫০৪ জন বীরাঙ্গনাকে নারী মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে। তাদের নাম গেজেটে প্রকাশিত হয়েছে।

সরকার দলীয় সংসদ সদস্য সৈয়দা জাকিয়া নূরের প্রশ্নের জবাবে আ ক ম মোজাম্মেল হক জানান, বীর মুক্তিযোদ্ধা যাদের নাম এমআইএস এবং সমন্বিত তালিকায় রয়েছে, তাদের অনুকূলে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে এক লাখ ৯৩ হাজার ৭৮০টি ডিজিটাল সনদ এবং জীবিত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য এক লাখ ৮০৫টি স্মার্ট আইডি কার্ড বিতরণ করা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, তাদের মধ্যে প্রবাসে অবস্থানকারী বীর মুক্তিযোদ্ধাও রয়েছেন। তবে এমআইএস ও সমন্বিত তালিকায় যেসব বীর মুক্তিযোদ্ধার নাম রয়েছে, কিন্তু অদ্যাবধি ডিজিটাল সনদ ও স্মার্ট আইডি কার্ড পাননি, তাদের অনুকূলে ডিজিটাল সনদ, স্মার্ট আইডি কার্ড প্রস্তুত ও প্রদানের কার্যক্রম চলমান আছে।


আরও খবর
আজ ভয়াল ২৫ মার্চ, গণহত্যা দিবস

সোমবার ২৫ মার্চ ২০২৪




নবাবগঞ্জে ৫ ডাকাত সদস্য গ্রেফতার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০24 | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০24 | অনলাইন সংস্করণ
নাজনীন শিকদার (দোহার-নবাবগঞ্জ)

Image

ঢাকার নবাবগঞ্জ থানা পুলিশ বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে আন্তজেলা ডাকাত চক্রের ৫ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে দোহার সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. আশরাফুল আলম গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

আটককৃত ডাকাত চক্রের ৫ সদস্যরা হলেন, ফরিদপুর জেলার সালথা থানার সুরুপদিয়া এলাকার মো. ইউসুফ মাতবরের ছেলে মো. শফিকুল ইসলাম(২০) খলিল শেখের ছেলে সুমন শেখ (২৩), মো. ওহাব শেখের ছেলে বাবুল শেখ (৩৬), রশিদ মাতবরের ছেলে সৈয়দ আলী মাতবর(২৭), মো. খোরশেদ মাতবরের স্ত্রী কমলা বেগম(৫৫)। গ্রেফকৃত বাবুল শেখের বিরুদ্ধে ফরিদপুর জেলার সালথা থানায় মামলা আছে।

গত ৪ মে রাতে নবাবগঞ্জের নয়নশ্রী ইউনিয়নের বড় গোল্লা এলাকায় চার্লস জনির বসত বাড়িতে ডাকাতি সংঘটিত করে। পরবর্তী সময়ে চার্লস জনির মামলার ভিত্তিতে নবাবগঞ্জ থানা পলিশ বিভিন্ন তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে, ওই ডাকাতির সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে ৫ ডাকাতকে গ্রেফতার করেছে। এসময় ডাকাতি কাজে ব্যবহারকৃত বিভিন্ন দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করে পুলিশ।

দোহার সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. আশরাফুল আলম এ বিষয়ে বলেন, আটককৃত ডাকাতগণ একটি সংঘবদ্ধ ডাকাত চক্রের সদস্য। এরা দিনের বেলা বিভিন্ন পেশায় নিয়োজিত থাকেন। রাতে ডাকাতিসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড করে থাকে।

নিউজ ট্যাগ: ডাকাত

আরও খবর