আজঃ বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১
শিরোনাম

স্কুলের তালা খুললেই খুন করার হুমকি

প্রকাশিত:শনিবার ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ১৬১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

চাঁদপুর প্রতিনিধি: চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার মমরুজকান্দি সপ্তগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিটি রুমে তালা লাগিয়ে অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ করে শিক্ষার্থীদের স্কুল থেকে বের করে দিয়েছেন একই স্কুলের সাবেক সভাপতি শাহজালাল পাঠান।

বৃষ্পতিবার সকালে (১০:৪০ মিনিট) এ্যাসাইনমেন্ট জমা দিতে আসা শিক্ষার্থীদের অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ করা সহ স্কুলের প্রতিটি ক্লাস রুম ও মূল ফটকে তালা লাগিয়ে দিচ্ছেন এমন ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে সোস্যাল মিডিয়ায়।

ভিডিওতে শাহজালালকে বলতে দেখা যায় এই স্কুল আর কখনো খুলবেনা এবং অন্য স্কুল থেকে শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা দিতে বলা হচ্ছে। এসময় তিনি স্কুলের তালা খুললে মেরে ফেলা হবে বলে হুমকি প্রদান করেন।

জানা যায়, স্কুলটির বর্তমান এডহক কমিটির মেয়াদ শেষ হওয়ায় কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে নতুন কমিটি গঠনে অভিযুক্ত শাহজালাল পাঠানকে সভাপতি প্রার্থী হিসেবে মনোনিত না করার সিদ্ধান্ত ‌‌হয় ।

এমন সিদ্ধান্তে ক্ষিপ্ত হয়ে সন্ত্রাসী কায়দায় এস্যাইনমেন্ট জমা দিতে আসা এসএসসি পরিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের স্কুল থেকে বের করে দিয়ে তালা ঝুলিয়ে দিয়েছেন। এসময় সিনিয়র শিক্ষক শাহদাত হোসেন ও মাহমুদা বেগম সহ অন্যান্য শিক্ষকদের বিদ্যালয় ত্যাগ করার জন্য হুমকি দেন।

এর আগে ইউনিয়ন ভূমি উপ সহকারী কর্মকর্তার আলিশান ডুপ্লেক্স বাড়ি একাধিক ফ্ল্যাটের মালিক শিরোনামে তার বিরুদ্ধে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হয়। এরপর তদন্তে সরকারি কোষাগারে অর্থ আত্মসাৎ ও হিসেব গড়মিলের সত্যতা মিলেছে মর্মে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। সর্বশেষ উপজেলার আমিরাবাদ ইউনিয়ন ভূমি অফিসে কর্মরত ছিলেন শাহজালাল পাঠান।

আবারো তিনি স্কুলে তালা ঝুলিয়ে দেয়ার মত দুঃসাহস দেখিয়ে আলোচনায় আসেন বৃহস্পতিবার।

তবে এমন ঘটনার কারণ জানতে শাহজালাল পাঠানের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন কেটে দিয়ে বন্ধ করে দেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, অভিযুক্ত শাহ জালাল পাঠানের প্রয়াত পিতা হাজী ফজলুল হক মাষ্টার স্কুলের সভাপতির দায়িত্ব পালন করা অবস্থায় মৃত্যু বরন করেন। মৃত্যুর পর গত ৬য় মাস তিনি বিদ্যালয়ের সভাপতির দায়ীত্ব পালন করে আসছিলেন।

এদিকে  কমিটির মেয়াদ শেষ হওয়ায় নতুন করে সভাপতি নির্বাচন করতে বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে এলাকাবাসীকে আহ্বান করা হয়।

গত শনিবার  বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে পরবর্তী সভাপতি নির্বাচনে শাহ জালালকে না রাখার মৌখিক সিদ্ধান্ত দেয় এলাকা বাসী।

এরপরই মানসিক উন্মাদনায় ক্ষেপে গিয়ে এমন কান্ড ঘটিয়ে বসেন তিনি।

এ বিষয়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আব্দুল কাইয়ুম আজকের দর্পণকে জানান, ঘটনাটি উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানিয়েছি । অভিযুক্তের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বিষয়টি সম্পর্কে চাঁদপুর জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার গিয়াসউদ্দিন পাটোয়ারী আজকের দর্পণকে বলেন , ঘটনাটি এখনো শুনিনি , তবে উপজেলা কর্মকর্তা লিখিত অভিযোগ দিলে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আরও খবর



পাঞ্জশিরে ৬০০ তালেবান যোদ্ধা নিহত

প্রকাশিত:রবিবার ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ১৫০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আফগানিস্তানের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশ পাঞ্জশিরে ছয় শতাধিক তালেবান যোদ্ধা নিহত হয়েছেন।

শনিবার ন্যাশনাল রেজিসটেন্স ফোর্সের (এনআরএফ) উদ্ধৃতি দিয়ে রাশিয়ান সংবাদ সংস্থা স্পুটনিক এ তথ্য জানিয়েছে।

পাঞ্জশিরে এনআরএফ মুখপাত্র ফাহিম দাস্তি এক টুইটবার্তায় দাবি করেছেন, আমরা ৬০০ তালেবান যোদ্ধাকে খতম করেছি। আরও এক হাজারেরও বেশি যোদ্ধাকে বন্দি করা হয়েছে।

তালেবানের সব যুদ্ধ সরঞ্জাম প্রতিরোধ বাহিনী ধ্বংস করেছে বলেও দাবি করেছেন তিনি। এর আগেও তালেবানের ৩০০ যোদ্ধাকে খতম করার দাবি করেছিল উত্তরের জোট।

এদিকে শনিবার আহমেদ মাসউদের পক্ষে নর্দান অ্যালায়েন্স তাদের টুইটার হ্যান্ডেলে জানিয়েছে, সাতশর বেশি তালেবান যোদ্ধা নিহত হয়েছে। ৬০০ বন্দি ও কারারুদ্ধ। বাকিরা পালানোর চেষ্টা করছে। আমরা ফ্রন্টলাইনে আছি। সবকিছুই পরিকল্পিত ছিল। আমরা পুরো প্রদেশ নিয়ন্ত্রণ করছি।

ওই এলাকায় স্থল মাইন থাকার কারণে পাঞ্জশির প্রতিরোধ বাহিনীর বিরুদ্ধে তালেবানদের আক্রমণ মন্থর হয়েছে।

পাঞ্জশিরে যুদ্ধ অব্যাহত রয়েছে। কিন্তু রাস্তায় ল্যান্ডমাইনের কারণে রাজধানী বাজারাক এবং প্রাদেশিক গভর্নরের প্রাঙ্গণে যাওয়ায় ধীরগতি হচ্ছে।

সংবাদ সংস্থা আসাবাকা-র কাছে তালেবান মুখপাত্র বিলাল কারিমি দাবি করেছেন, আনাবা, খিঞ্জ, উনাবসহ বেশ কয়েকটি জেলাতেও ঢুকে পড়েছেন তাদের যোদ্ধারা।


আরও খবর
বিশ্বজুড়ে বেড়েছে করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যু

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




দেশে করোনায় আরও ১১৭ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৭ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ আগস্ট ২০২১ | ৬০৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে  আরও ১১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃত্যু হয়েছে ২৫ হাজার ৮৪৬ জনের।

নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন তিন হাজার ৫২৫ জন। সব মিলিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৪ লাখ ৮৬ হাজার ১৫৩ জনে। মৃত ১১৭ জনের মধ্যে পুরুষ ৫৬ জন ও নারী ৬১ জন।      

শুক্রবার (২৭ আগস্ট) বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাছিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ঢাকা সিটিসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতাল ও বাড়িতে উপসর্গবিহীন রোগীসহ গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ছয় হাজার ৪৮৫ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ১৪ লাখ চার হাজার ৩৭০ জন।

সারাদেশে সরকারি-বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৭৮৯টি ল্যাবে নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে আরটি-পিসিআর ল্যাব ১৩৬টি, জিন এক্সপার্ট ৫৪টি, র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন ৫৯৯টি। এসব ল্যাবে ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ২৭ হাজার ২৯৪টি। মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ২৭ হাজার ৫৭৮টি। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৮৮ লাখ ১৬ হাজার ৩৪৩টি।

এতে আরও জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষায় শনাক্তের হার ১২ দশমিক ৭৮ শতাংশ। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৬ দশমিক ৮৬ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯৪ শতাংশ ৫০ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৭৪ শতাংশ।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত ১১৭ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ৪০ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ৩৭ জন, রাজশাহী বিভাগে চার জন, খুলনা বিভাগে ১১ জন, বরিশাল বিভাগে ছয়জন, সিলেট বিভাগে ১০ জন, রংপুর বিভাগে পাঁচজন ও ময়মনসিংহ বিভাগে চারজন রয়েছেন। এদের মধ্যে সরকারি হাসপাতালে ৯২ জন, বেসরকারি হাসপাতালে ১৮ জন ও বাড়িতে সাতজন মারা গেছেন।

মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, শূন্য থেকে ১০ বছরের মধ্যে একজন, ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে একজন, ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে তিনজন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে নয়জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ১৬ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ১৯ জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ৩৮ জন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে ১৬ জন, ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে ১১ জন ও ৯১ থেকে ১০০ বছরের মধ্যে তিন জন রয়েছেন।   

এতে আরও জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে এসেছেন এক হাজার ২৫১ জন ও আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন এক হাজার ৮৭৮ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে এসেছেন তিন লাখ ৬১ হাজার ২৪৪ জন। আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন দুই লাখ ৯৮ হাজার ৮৫৪ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ৬২ হাজার ৩৯০ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য মতে, ২০২০ সালের ৮ মার্চ দেশে করোনা ভাইরাসের প্রথম রোগী শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়। এরপর ধীরে ধীরে আক্রান্তের হার বাড়তে থাকে।


আরও খবর
করোনায় শনাক্ত ও মৃত্যু আরও কমল

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে নবাবগঞ্জে ফুটবল টুর্নামেন্ট

প্রকাশিত:সোমবার ৩০ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ৩০ আগস্ট ২০২১ | ৬৭০জন দেখেছেন
Image

নবাবগঞ্জ থেকে নাজনীন সিকদার

ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলায় নয়নশ্রী ইউনিয়নের রাহুৎহাটি চঞ্চল সংঘের উদ্যোগে স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্বোধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার বিকেলে রাহুৎহাটি চঞ্চল সংঘের মাঠে এ খেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়। টুর্নামেন্টে ৮টি দল অংশগ্রহণ করবে। খেলার উদ্বোধক ছিলেন নবাবগঞ্জ উপজেলার তাঁতি লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. হাবিবুর রহমান।

উদ্বোধনী খেলায় খানেপুর কিশোর সংঘ রাধাঁকান্তপুর ইউনাইটেড ক্লাবকে ১-০ গোলে পরাজিত করে জয়ী হোন।

রাহুৎহাটি চঞ্চল সংঘের সভাপতি মো. ফারুক হোসেনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, নবাবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. হরগোবিন্দ সরকার অনুপ।

ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শেখ সোহেলের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ও পূর্বাণী যুব সংঘের সভাপতি মিজানুর রহমান মিজান, উপজেলা কৃষকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রিপন ভূঁইয়াসহ ক্লাবের অন্যান্য সদস্য ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।


আরও খবর



নারায়ণগঞ্জে ডাকাত-পুলিশ গোলাগুলি, আহত ৫

প্রকাশিত:বুধবার ০১ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০১ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৬৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলায় ডাকাত ও পুলিশের মধ্যে গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এ সময় সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই)  গুলিবিদ্ধসহ পাঁচজন আহত হয়েছেন। 

গুলিবিদ্ধ সোহরাব হোসেন (৩৫) গোপালদী তদন্ত কেন্দ্রের এএসআই। অন্য আহতরা হলেন দোকানের কর্মচারী রাজু (২০), কুদ্দুস ( ১৫), সুধাচন্দ্র দাস (২৫) ও বলাই চন্দ্র (৫০)।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রাত ২টায় বাজারের প্রায় সব দোকান বন্ধ ছিল। এর মধ্যে তিনটি স্বর্ণের  দোকানে কর্মচারীরা ভেতরে বসে কাজ করছিলেন। এ সময় স্পিডবোর্ট ও ট্রলার দিয়ে ২০-২৫ জনের মুখোশ পরিহিত একটি ডাকাত দল ওই তিন দোকানে হানা দেয়।

খবর পেয়ে বাজারের ডিউটিরত পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে ডাকাত দল তাদের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলি শুরু করে। পুলিশ ও পাল্টা গুলি  করে। এ সময় ডাকাত ও পুলিশের মধ্যে ৮-১০ মিনিট গুলিবিনিময় চলে।

খবর পেয়ে থানার ওসি আনিসুর রহমান মোল্লার নেতৃত্বে আশপাশের সব পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। এতে ডাকাত দল বাজারের বিপ্লব, বলাই ও আমিরের দোকান থেকে ১৪ ভরি স্বর্ণ ও লাখ ২০ হাজার টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়।

গোপালদী বাজার বণিক সমিতির সভাপতি জাকির হোসেন মোল্লা জানান, সময়মতো পুলিশ না এলে আরও বড় ধরনের ঘটনা ঘটতে পারত।

আড়াইহাজার থানার ওসি আনিসুর রহমান মোল্লা বলেন, খবর পেয়ে আমরা বাজারের চারদিকে ঘিরে ফেলাতে বড় ধরনের কোনো বিপদ হয়নি। এ সময় ডাকাতের সঙ্গে গুলিবিনিময় করার সময় ১৭ রাউন্ড গুলি করতে হয়েছে।


আরও খবর



জিয়ার ‘ভুয়া’ কবর সরিয়ে ফেলা হবে : মুক্তিযুদ্ধমন্ত্রী

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩১ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ৩১ আগস্ট ২০২১ | ১১৪৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

জিয়ার ভুয়া কবর নিয়ে মিথ্যাচার করবেন না। ডিএনএ টেস্ট করে দেখুন। অবশ্যই প্রমাণিত হবে, এটি তার কবর নয়। এটি সংসদ ভবনের মূল নকশায় নেই। জিয়ার ভুয়া কবর এখানে থাকতে পারে না। এটি দ্রুত সরিয়ে ফেলা হবে।

মঙ্গলবার দুপুরে শাহবাগ জাতীয় জাদুঘরের সামনে বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের আয়োজনে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতথির বক্তব্যে বিএনপির উদ্দেশে এসব কথা বলেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করলেও তার আদর্শকে হত্যা করা সম্ভব হয়নি। বঙ্গবন্ধু শুধু বাংলাদেশের নেতা ছিলেন না। তিনি বিশ্ব মানবতার নেতা ছিলেন। বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত মূল কুশীলব জিয়ার দল বিএনপি এখনো ষড়যন্ত্র করছে।

তিনি আরও বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধ্বংসকারী জিয়ার ভুয়া কবর নিয়ে বিএনপি অপরাজনীতি করার চেষ্টা করছে। দেশের জনগণ বিএনপির প্রতারণা বুঝে গেছে। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নে   অতীতের ন্যায় সামনের দিনগুলোতে তরুণ প্রজন্মকে বড় ভূমিকা পালন করতে হবে।

বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সাধারণ সম্পাদক আল মামুনের সঞ্চালনা এবং সভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলবুলের সভাপতিত্বে সভায় আলোচক হিসেবে আরও উপস্থিত ছিলেন, সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ইতিহাসবিদ অধ্যাপক ড. সৈয়দ আনোয়ার হোসেন, ঢাবির দর্শন বিভাগের অধ্যাপক বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. আবু জাফর মোহাম্মদ সালেহ প্রমুখ।


আরও খবর