আজঃ শনিবার ০২ মার্চ 2০২4
শিরোনাম

‘শকুনের দোয়াই গরু মরে না, বিএনপির অশুভ কামনায়ও অশুভ হবে না’

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৬ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জানুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
রাহুল সরকার, চট্টগ্রাম ব্যুরো

Image

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বিএনপি-জামায়াত দেশকে বিপদে ফেলার জন্য সব সময় চেষ্টা করেছে, তারা আল্লাহর কাছে কি প্রার্থনা করে আমি জানি না। শকুনের দোয়ায় যেমন কখনও গরু মরে না, তেমনি বিএনপির অশুভ কামনায়ও বাংলাদেশের কোনোকিছু অশুভ হবে না। পূর্ব-পশ্চিম সবার সাথে আমাদের সম্পর্ক চমৎকার। সবার সাথে সম্পর্ককে আরো গভীর করার মাধ্যমে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই।

আজ মঙ্গলবার সকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিযুক্ত হবার পর প্রথম চট্টগ্রাম এলে শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন ড. হাছান মাহমুদ। এরপর চট্টগ্রাম মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের যৌথ উদ্যোগে বিমানবন্দরের বাইরে পররাষ্ট্র মন্ত্রীকে ফুলেল সংবর্ধনা জানানো হয়।

হাছান মাহমুদ বলেন, এবারের নির্বাচন যে আন্তর্জাতিকভাবে মানুষের মনোযোগ আকর্ষণ করেছে, এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় যে গ্রহণ করেছে, সেটির প্রমাণ হচ্ছে বহু নির্বাচনী পর্যবেক্ষক বাংলাদেশে এসেছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এনডিআই, আইআরআই, ইউরোপীয় ইউনিয়নভূক্ত, সার্কভুক্ত, ওআইসিভূক্ত ও কমনওয়েলথভুক্ত দেশগুলোর পর্যবেক্ষক থেকে শুরু করে অন্যান্য বিভিন্ন সংস্থার পর্যবেক্ষকরা বাংলাদেশে এসেছে।

এবং তারা সবাই একযোগে মত প্রকাশ করেছে, বাংলাদেশে একটি সুষ্ঠু ও সুন্দর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এবং এই নির্বাচনে অন্যান্য নির্বাচনের তুলনায় অপেক্ষাকৃত কম সহিংসতা হয়েছে। এটাই সবচেয়ে বড় ব্যাপার।

তিনি বলেন, শকুনের দোয়ায় গরু মরে এ ধরনের একটি কথা প্রচলিত আছে, বিএনপি-জামায়াত চাচ্ছে আমেরিকা এবং ইউরোপীয় ইউনিয়ন বাংলাদেশে নিষেধাজ্ঞা দেবে, গার্মেন্টস শিল্প বন্ধ হয়ে যাবে, মানুষ রাস্তায় নেমে আসবে, দেশে দুর্ভিক্ষ সৃষ্টি হবে, তারপর তারা ক্ষমতায় আসবে।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন অবজারভার তথ্য-উপাত্তের জন্য নির্বাচন কমিশনে গেছেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে এ বিষয়ে বক্তব্য জানতে চাইলে ড. হাছান বলেন, আমাদের বিদেশি বন্ধুদের আমাদের নির্বাচন নিয়ে আগ্রহ আছে, সেজন্য নির্বাচন কমিশনে গিয়েছেন। আমি আজকে কাগজে দেখলাম, নির্বাচন কমিশন যেই তথ্য উপাত্ত দিয়েছেন, এতে তারা সন্তুষ্ট হয়েছে। দেখুন, জনগণের ব্যাপক অংশগ্রহণে উৎসবমুখর পরিবেশে বাংলাদেশে একটি সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বেশিরভাগ নিবন্ধিত দল এই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছে। আপনারা জানেন, যেদিন নির্বাচন হয়, সেদিন প্রচণ্ড শীত ও কুয়াশা ছিল।

সেই কারণে ভোটের পার্সেন্টেজ প্রায় ৪২ শতাংশ, যদি কুয়াশা এবং শীত না থাকতো তাহলে আরো বেশি ভোট কাস্ট হত।

তিনি বলেন, আপনারা জানেন এই নির্বাচনকে বাধাগ্রস্ত ও প্রতিহত করার জন্য বিএনপি যেভাবে আগুন সন্ত্রাস করেছে, পাঁচ তারিখ রাতেও যেভাবে অগ্নি সন্ত্রাস চালিয়েছে, এতে করে মানুষকে ভয় লাগানোর চেষ্টা করা হয়েছে। কিন্তু মানুষ ভয় পায়নি, মানুষ স্বতঃস্ফূর্তভাবে ভোট দিতে গেছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, নির্বাচনের দিন প্রতি দুই ঘণ্টায় যে তথ্য দিয়েছিল নির্বাচন কমিশন। ম্যানুয়ালি ভোটে প্রতি দুই ঘণ্টা পরপর আসলে কত শতাংশ ভোট কাস্ট হয়েছে, সেটি নির্ভুলভাবে দেয়া সম্ভবপর নয়। ইভিএমএ ভোট হলে সেটা সাথে সাথে রেজিস্টার্ড হত। যেহেতু ইভিএমএ ভোট হয়নি, ম্যানুয়াল ভোটে প্রতি দুই ঘণ্টার তথ্য কোনো সময় সঠিকভাবে দেওয়া সম্ভবপর নয়। সেজন্য সঠিক তথ্যটা এসেছে নির্বাচনের শেষে।

বৃহত্তর চট্টগ্রামের কক্সবাজারে ১৪ লাখ রোহিঙ্গা আছে, আপনি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব নিয়েছেন, তাদের ফেরত পাঠানোর জন্য আপনি কি উদ্যোগ নেবেন সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, দেখুন, আমরা সবসময় কূটনৈতিকভাবে চেষ্টা করে যাচ্ছি, আমরা তাদের সাথে আরও এনগেজমেন্ট বাড়াচ্ছি, আমি ন্যাম সামিটে যাচ্ছি, সেখানে মায়ানমারের পররাষ্ট্র মন্ত্রীর সাথে আমার বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে। আমরা কূটনৈতিকভাবেই এই সমস্যার সমাধান করতে পারব বলে দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি।


আরও খবর



ভোলায় প্রায় ২৫ কেজি গাঁজা জব্দ করেছে কোস্ট গার্ড

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আশরাফুল আলম সজিব, ভোলা

Image

ভোলার লালমোহনে অভিযান চালিয়ে ২৪ কেজি ৯০০ গ্রাম গাঁজা জব্দ করেছে কোস্ট গার্ড। সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে কোস্ট গার্ড সদর দফতরের মিডিয়া কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কমান্ডার খন্দকার মুনিফ তকি এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ভোলার লালমোহন উপজেলার তেতুলিয়া নদী সংলগ্ন দেবীর চর এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযান চলাকালে সন্দেহভাজন একটি নৌকায় তল্লাশির জন্য থামতে সঙ্কেত দেয় কোস্ট গার্ড। তবে না থেমে নৌকায় থাকা লোকজন দ্রুত পালাতে চেষ্টা করে। সেসময় কোস্ট গার্ডের আভিযানিক দল নৌকাটিকে ধাওয়া করলে অপরাধীরা দেবীর চর এলাকায় নদীর তীরে নৌকা রেখে পালিয়ে যায়।

পরবর্তীতে তল্লাশি চালিয়ে নৌকার ভেতরে মাছ ধরার জালের নিচ থেকে ২৪ কেজি ৯০০ গ্রাম গাঁজা উদ্ধার করা হয়। আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য উদ্ধার করা গাঁজা লালমোহন থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে বলেও জানিয়েছে কোস্ট গার্ড।


আরও খবর



লিটনের ঝোড়ো ব্যাটিং হার এড়াতে পারেনি কুমিল্লার

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ক্রীড়া প্রতিবেদক

Image

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের শক্তি বাড়াতে যোগ দিয়েছিলেন আন্দ্রে রাসেল ও সুনীল নারাইন। বলে-ব্যাটে মন্দ করেননি তারা। ব্যাট হাতে সেঞ্চুরি ছুঁইছুঁই ইনিংস খেলেছেন লিটন দাসও। তবে কিছুতেই কাজ হলো না। নিজেদের জন্য গুরুত্বহীন ম্যাচে কুমিল্লাকে ১২ রানে হারিয়েছে বেনি হাওয়েলের সিলেট স্ট্রাইকার্স।

প্রথমে ব্যাট করে বেনি হাওয়েলের ঝোড়ো ৬২ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৭৭ রান করে সিলেট। জবাব দিতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৬৫ রানে থামে কুমিল্লা। সুযোগ ছিল, এই ম্যাচে জয় তুলে শীর্ষস্থানে থাকা রংপুর রাইডার্সকে পেছনে ফেলার। তবে সেটি আর হলো না।

১৭৮ রানের লক্ষ্যে খেলতে নামা কুমিল্লার শুরুটা ভালো হয়নি। পাওয়ার প্লের ৬ ওভারে ৩৯ রান তুলে দলটি হারায় ইমরুল কায়েস ও তাওহীদ হৃদয়ের উইকেট। তবে তৃতীয় উইকেটে জনসন চার্লসকে নিয়ে বড় জুটি গড়েন ওপেনার লিটন। ৭৯ রানের জুটিতে লুইসের অবদান ছিল মাত্র ১২ রান। ২১টি বল খেলে এই রান করে দলকে তিনি বেশ পিছিয়েই দিয়েছেন। চূড়ান্ত ব্যর্থ পাঁচে নামা ব্যাটার মঈন আলীও। ৫টি বল খেলে কোনো রান না করেই আউট হয়ে যান তিনি।

তবে ব্যাট হাতে আরেক পাশে রানের চাকা সচল রাখছিলেন লিটন। ষষ্ঠ ব্যাটার হিসেবে আন্দ্রে রাসেল যখন ব্যাটিংয়ে নামেন, তখন ২০ বলে দরকার ছিল ৫১ রান। এই দুজন ছিলেন বলে কুমিল্লা সমর্থকদের মনেও আশা ছিল। শেষ ওভারে দরকার ছিল ২৫ রান। তবে প্রথম বলেই লিটনকে বোল্ড করে কুমিল্লার আশায় জল ঢালেন তানজিম হাসান সাকিব। ৫৮ বলে ৮৫ রান আসে লিটনের ব্যাটে। ৭টি চার ও ৩ ছক্কায় নিজের ইনিংস সাজান তিনি।

শেষ পর্যন্ত ওই ওভার থেকে ১২ রানের বেশি করতে পারেনি কুমিল্লা। হার দেখতে হয় ১২ রানের। রাসেল ১৪ বলে ২৩ রান করে তানজিমের শেষ বলে আউট হন।

সিলেটের হয়ে বল হাতে আগুন ঝড়ান পেসার শফিকুল ইসলাম ও সামিত প্যাটেল। দুজনে ১টি করে উইকেট নিলেও ৪ ওভারে তারা রান দেন যথাক্রমে ১৮ ও ১৫। ৩ উইকেট নেওয়া তানজিম ৩ ওভারে দেন ৩ উইকেট।

এর আগে, চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে উদ্বোধনী জুটিতেই বড় সংগ্রহের ইঙ্গিত দেয় সিলেট। ষষ্ঠ ওভারের প্রথম বলে দলীয় ৪০ রানের মাথায় বিদায় নেন জাকির হাসান (১৮)। তবে আরেক ওপেনার কেন্নার লুইস ভালোই আগাচ্ছিলেন নাজমুল হোসেন শান্তকে নিয়ে। ৬৭ রানের মাথায় শুরু হয় মড়ক। এই রানে লুইসের ফেরার পর ৭৪ রান তুলতেই ফেরেন শান্ত ও ইয়াসির আলী।

এরপরই ঘুরে দাঁড়ায় সিলেট। ৪২ বলে ৭৭ রানের জুটি গড়েন মোহাম্মদ মিথুন ও বেনি হাওয়েল। দলীয় ১৮তম ওভারের শেষ বলে দলীয় ১৫১ রানের মাথায় ২৮ রান করে ফেরেন অধিনায়ক মিথুন। মিথুন রয়েসয়ে খেললেও ব্যাট হাতে ঝড় তোলেন হাওয়েল। ইনিংসের শেষ পর্যন্ত এই ঝড় অব্যাহত রাখেন তিনি। তাতে দল গিয়ে থামে ১৭৭ রানে। ব্যক্তিগত ৬২ রানে অপরাজিত থাকেন হাওয়েল। ৩১ বলের এই ইনিংস তিনি সাজান ৬টি চার ও ৪ ছক্কায়।

কুমিল্লার হয়ে বল হাতে সবচেয়ে সফল নারাইন। ৪ ওভারে একটি মেডেনসহ মাত্র ১৬ রান দিয়ে ২ উইকেট তুলে নেন তিনি। ২ উইকেট নিলেও ৩ ওভারে ৩৭ রান দেন লেগ স্পিনার রিশাদ হোসাইন। একটি উইকেট মুশফিক হাসানের।


আরও খবর



দলীয় সভায় আ.লীগ থেকে পদত্যাগ করেছেন স্বামী-স্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জেলা প্রতিনিধি

Image

লালমনিরহাটের হাতিবান্ধা উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন এক দম্পতি। শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও পাটিকাপাড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মজিবুল আলম সাদাত ও তার স্ত্রী পাটিকাপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি শাহানা ফেরদৌসী সীমা মাসিক সভায় পদত্যাগের ঘোষণা দেন।

সেখানে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সংসদ সদস্য মোতাহার হোসেন উপস্থিত ছিলেন। মজিবুল আলম নিজেই গণমাধ্যমের সামনে পদত্যাগের বিষয়টি জানান। তবে কী কারণে পদত্যাগ করছেন তা জানাননি।

এই দম্পতির দলীয় পদ থেকে পদত্যাগের বিষয়টি জানা নেই বলে দাবি করেছেন হাতিবান্ধা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি লিয়াকত হোসেন।

সূত্র জানাচ্ছে, উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের জন্য গণসংযোগ করছেন দল থেকে পদত্যাগ করা সাংগঠনিক সম্পাদক মুজিবুল হক। অন্যদিকে নির্বাচনে আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি লিয়াকত হোসেন। এই দুজন আবার সম্পর্কে চাচা-ভাতিজা। এই কারণে পদত্যাগের ঘটনা ঘটে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।


আরও খবর



সুবর্ণচরে মা-মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নোয়াখালী প্রতিনিধি

Image

সিঁধ কেটে ঘরে ঢুকে মা-মেয়েকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলার চরওয়াপদা ইউনিয়নে। সোমবার (০৫ ফেব্রুয়ারি) রাত পৌনে ২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। নির্যাতিত গৃহবধূর বয়স (৩০) ও তাঁর মেয়ের বয়স (১২) বছর।

মঙ্গলবার (০৬ ফেব্রুয়ারি) বেলা সাড়ে ১১টায় ভুক্তভোগী গৃহবধূর বরাত দিয়ে চরজব্বর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.রফিকুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ ও স্থানীয়দের বরাত দিয়ে জানা যায়, ভুক্তভোগী গৃহবধূর স্বামী পেশায় একজন দিনমজুর। তিনি কাজের জন্য সপ্তাহের তিন থেকে চারদিন বাড়ির বাইরে থাকেন। এ সুযোগে সোমবার রাত পৌনে ২টার দিকে বসত ঘরে সিঁধ কেটে গৃহবধূও ও তাঁর মেয়েকে ধর্ষণ করে তিনজন। খবর পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

চর জব্বর থানার ওসি রফিকুল ইসলাম বলেন, কিছুদিন আগে নির্যাতিত গৃহবধূ নতুন বাড়িতে উঠেন। ওই বাড়িতে সিঁধ কেটে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। গৃহবধূ ও তার মেয়েকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হচ্ছে। অভিযুক্ত আসামিদের গ্রেপ্তারে চেষ্টা চলছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটের দিন নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলায় এক গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় সোমবার (০৫ ফেব্রুয়ারি) নোয়াখালী নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক (জেলা জজ) ফাতেমা ফেরদৌস ওই ধর্ষণ মামলায় ১৬ আসামির মধ্যে ১০ জনের মৃত্যুদণ্ড ও ছয় আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন। একই সাথে তাদের অর্থদণ্ডও করা হয়।


আরও খবর



বিডিআর বিদ্রোহের পেছনে বিএনপির হাত ছিলো: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, এটা এখন প্রকাশ্য দিবালোকের মত স্পষ্ট যে চৌকষ সেনা কর্মকর্তাদের হত্যা করা বিডিআর বিদ্রোহের পেছনে বিএনপির হাত ছিলো।

রাজধানীর মিন্টো রোডে নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় তিনি এমন দাবি করেন।

সম্প্রতি বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আব্দুল মঈন খান পিলখানা হত্যাকাণ্ডের পেছনে সরকারের হাতের ইঙ্গিত দিয়ে বক্তব্য দেন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বিপুল রায় নিয়ে আওয়ামী লীগ সরকার গঠনের পর বিএনপি হিতাহিত জ্ঞান হারিয়ে ফেলেছে। তাই তারা প্রলাপ বকছে। তিনি বলেন, তারাই ষড়যন্ত্র করে বিডিআর বিদ্রোহ ঘটিয়েছে।

এ বিষয়ে ব্যাখ্যা দিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, পিলখানা হত্যাকাণ্ডের প্রথম দিন বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার গতিবিধি সন্দেহজনক ছিলো। ঘটনার অনেক আগেই তিনি ক্যান্টনমেন্টের বাসা থেকে বেরিয়ে যান। বেগম জিয়া তো এতো সকালে ঘুম থেকেই উঠে না। তার সেসময়কার কল রেকর্ড সরকারের কাছে। বিডিআর বিদ্রোহে যারা মারা গেছেন তারা আওয়ামী পরিবারের সন্তান উল্লেখ করে হাছান মাহমুদ মনে করিয়ে দেন, তৎকালীন পুলিশ মহাপরিদর্শকের মেয়ের জামাইও নিহত হয়েছেন এই বিদ্রোহে।

হাছান মাহমুদ বলেন, সমগ্র পৃথিবী যখন প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানাচ্ছে তখন বিএনপি এসব অযৌক্তিক কথা বলে নিজেদের অস্তিত্ব জানান দেয়ার চেষ্টা করছে।

সফররত যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি দলের সঙ্গে আলোচনা প্রসঙ্গে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, দুই দেশের সম্পর্ক আরো উচ্চতায় নিয়ে যাওয়া নিয়ে গুরুত্বের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে।


আরও খবর
শপথ নিলেন নতুন ৭ প্রতিমন্ত্রী

শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪