আজঃ মঙ্গলবার ০৩ আগস্ট ২০২১
শিরোনাম

সংবাদে আজকের বাংলাদেশ | ০৫ ডিসেম্বর ২০২০ | দর্পণ টেলিভিশন

প্রকাশিত:শনিবার ০৫ ডিসেম্বর ২০২০ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ৩৬৯জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

সংবাদে আজকের বাংলাদেশ


আরও খবর



২৪ ঘণ্টায় বরিশালে করোনায় মৃত্যু ১৭

প্রকাশিত:সোমবার ০৫ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ০৫ জুলাই ২০২১ | ১৩৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বরিশাল বিভাগে প্রতিনিয়ত বাড়ছে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা, ভাঙছে একের পর এক পেছনের রেকর্ড। করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরুর পর বরিশাল বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় একদিনে সর্বোচ্চ করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে, যা এ যাবতকালেরও সর্বোচ্চ।

আর এই সময়ে করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় বরিশাল বিভাগে নতুন করে ৪৩৬ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছেন। 

এর আগের দিন ২৪ ঘণ্টায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৩৪৩। আর সর্বশেষ আক্রান্তের সংখ্যা নিয়ে বিভাগে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ১৯হাজার ৭৩ জন।

এছাড়া একই সময়ে বরিশাল শের ই বাংলা মেডিক্যাল কলেজ (শেবাচিম) হাসাপাতালের করোনার আইসোলেশন ওয়ার্ডে উপসর্গ নিয়ে ১১ জনের এবং আক্রান্ত হয়ে ১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে গেল ২৪ ঘণ্টায় বরিশাল, পিরোজপুর ও ঝালকাঠি জেলায় ২ জন করে মোট ৬ জন করোনা রোগীর মৃত্যু শনাক্ত হয়েছে। যা নিয়ে বরিশাল বিভাগে করোনায় মোট মৃত্যুর সংখ্যা ৩২১ জনে দাঁড়িয়েছে বলে জানিয়েছেন বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. বাসুদেব কুমার দাস জানান, মোট আক্রান্ত ১৯ হাজার ৭৩ জনের মধ্যে এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৫ হাজার ২৬৫ জন। 

আক্রান্ত সংখ্যায় বরিশাল জেলায় নতুন সর্বোচ্চ শনাক্ত ১৫৭ জন নিয়ে মোট ৮ হাজার ৩৫২ জন,পটুয়াখালী জেলায় নতুন ৪৩ জন নিয়ে মোট ২৫৮৩ জন, ভোলা জেলায় নতুন ১৬ জনসহ মোট ২১০৩ জন, পিরোজপুর জেলায় নতুন ৮৩ জন নিয়ে মোট ২৪৯৯ জন, বরগুনা জেলায় নতুন ৩৭ জন নিয়ে মোট আক্রান্ত ১৫২৯ জন এবং ঝালকাঠি জেলায় নতুন ১০০ জন শনাক্ত নিয়ে মোট সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২০০৭ জন।


আরও খবর



মিশ্র ডোজ বিপজ্জনক, জানালো বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৩ জুলাই ২০২১ | ১৭৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের প্রকোপ কিছুতেই কমছে না। এর মধ্যে কিছুটা আশার আলো জ্বালিয়েছে ভ্যাকসিন আবিষ্কারের বিষয়টি। এর প্রয়োগ নিয়েও চলছে নানা বিচার বিশ্লেষণ।

করোনা প্রতিরোধে দুই ডোজে দুই কোম্পানির টিকা নেয়ার প্রবণতা দেখা যাচ্ছে অনেক দেশেই। আর এই দুরকমের টিকা ভয়ঙ্কর বিপদ ডেকে আনতে পারে বলে সতর্ক করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। সোমবার (১২ জুলাই) করোনা টিকা নিয়ে ভার্চ্যুয়াল মাধ্যমে নিজের মতামত জানান সংস্থাটির প্রধান বিজ্ঞানী সৌম্যা স্বামীনাথন। সেখানে মিশ্র টিকার কার্যকারিতা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন তিনি।

রয়টার্সের বরাত দিয়ে সংস্থাটির প্রধান বিজ্ঞানী সৌম্যা স্বামীনাথন বলেন, বহু মানুষ মিশ্র টিকা নেয়ার কথা ভাবছেন। প্রথম টিকা এক সংস্থার নিয়েছেন, দ্বিতীয় টিকাটি অন্য সংস্থার নিতে পারেন কিনা। এই মিশ্র টিকার কার্যকারিতা সম্পর্কে নিশ্চিতভাবে কিছু জানা নেই। এই সংক্রান্ত কোনো তথ্যপ্রমাণ মেলেনি এখনও পর্যন্ত।

স্বামীনাথন আরও বলেন, তাই দুরকমের টিকা নেওয়ার এই প্রবণতা ভয়ঙ্কর বিপদ ডেকে আনতে পারে। জার্মানি এবং ইউরোপের একাধিক দেশে ইতিমধ্যেই দুবার দুরকমের টিকা নেওয়ার নিয়ম চালু হয়েছে।

ভারতেও বর্তমানে কোভিশিল্ড, কোভ্যাক্সিন এবং স্পুটনিক-ভি টিকাকরণে ব্যবহৃত হচ্ছে। এর মধ্যেই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কাছ থেকে এমন সতর্কবার্তা এলো।



আরও খবর



দেশে পৌঁছালো অ্যাস্ট্রাজেনেকার আরও ৭ লাখ ৮১ হাজার টিকা

প্রকাশিত:শনিবার ৩১ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ৩১ জুলাই ২০২১ | ৫৮জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

জাপান থেকে দেশে পৌঁছালো অক্সফোর্ডঅ্যাস্ট্রাজেনেকার আরও ৭ লাখ ৮১ হাজার ৩২০ ডোজ টিকা। শনিবার (৩১ জুলাই) বিকাল সাড়ে তিনটার দিকে টিকা বহনকারি বিমানটি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে।

টিকার বৈশ্বিক উদ্যোগ কোভ্যাক্সের আওতায় জাপান থেকে এ টিকা দেশে এসেছে। এর আগে গতকাল জাপানের স্থানীয় সময় রাত ১১টা ৪০ মিনিটে নিপ্পন এয়ার ওয়েজের একটি কার্গো বিমান টিকাগুলো নিয়ে নারিতা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ছাড়ে।

এ নিয়ে দুই দফায় জাপান থেকে বাংলাদেশে ১০ লাখ অক্সফোর্ডঅ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা আসলো। সব মিলিয়ে বাংলাদেশকে জাপানের ৩০ লাখ টিকা দেওয়ার কথা। আগামী ৩ আগস্ট জাপান থেকে আরও ছয় লাখ টিকার একটি চালান ঢাকায় আসবে।

এর আগে ২৪ জুলাই প্রথম দফায় অক্সফোর্ডঅ্যাস্ট্রাজেনেকার দুই লাখ ৪৫ হাজার ২০০ ডোজ টিকা জাপান থেকে ঢাকায় আসে।


আরও খবর



রামেক করোনা ইউনিটে প্রাণ গেলো আরও ১৮ জনের

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৮ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৮ জুলাই ২০২১ | ১২৪জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে মৃত্যুর মিছিল থামছে না। এ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত চিকিৎসাধীন অবস্থায় তারা মারা যান। এদের মধ্যে ৮ জন করোনা পজিটিভ, ১ জন পজিটিভ থেকে নেগেটিভ হওয়ার পর এবং ৯ জন উপসর্গে মারা যান।

রামেক হাসপাতালের পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এ নিয়ে জুলাই মাসের ৮ দিনে রামেক হাসপাতালে করোনা ও উপসর্গে ১৩৯ জনের মৃত্যু হলো। আর জুন মাসে মৃত্যু হয়েছে ৩৫৪ জনের।

রামেক পরিচালক জানান, নতুন মৃতদের ৯ জন রাজশাহীর (পজিটিভ ৪, উপসর্গে ৫), চাঁপাইনবাবগঞ্জের ২ জন (পজিটিভ ১, উপসর্গে ১), নাটোরের ২ জন (১ জন পজিটিভ থেকে নেগেটিভ হওয়ার পর, উপসর্গে ১), নওগাঁয় ৩ জন (পজিটিভ ১, উপসর্গে ২) পাবনায় ১ (পজিটিভ), কুষ্টিয়ার ১ (পজিটিভ) জন। নতুন মৃতদের ১৪ জন পুরুষ ও ৪ জন নারী।

তিনি বলেন, আজ বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত এ হাসপাতালের ৪৫৪ বেডের বিপরীতে করোনা ও উপসর্গের রোগী ভর্তি রয়েছেন ৪৮৫ জন। গতকাল বুধবার ভর্তি ছিলেন ৪৭০ জন। অতিরিক্ত বেডের ব্যবস্থা করে অতিরিক্ত রোগীদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। ভর্তি রোগীদের মধ্যে রাজশাহীর ২৯৩, চাঁপাইয়ের ৪০, নাটোরের ৫৩, নওগাঁর ৪৪, পাবনার ৪২, কুষ্টিয়ার ৫, চুয়াডাঙ্গার ২, জয়পুরহাটের ১, সিরাজগঞ্জের ২, নীলফামারীর ১ ও বগুড়ার ২ জন। বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় রামেক হাসপাতালে নতুন ভর্তি হয়েছেন ৭০ জন। একই সময়ে সুস্থ হয়ে রামেক হাসপাতাল ছেড়েছেন ৪৮ জন। নতুন ভর্তি রোগীদের মধ্যে রাজশাহীর ৩৩, চাঁপাইয়ের ৮, নাটোরের ১০, নওগাঁর ৭, পাবনার ৭, কুষ্টিয়ার ৩ ও চুয়াডাঙ্গার ২ জন।

রামেক পরিচালক জানান, বুধবার রাজশাহীর দুই ল্যাবে দুই জেলার ৫৬৪ জনের নমুনা পরীক্ষায় করোনা পজিটিভ হয়েছে ১৪১ জনের। এদিন রাতে প্রকাশিত দুটি পিসিআর ল্যাবের নমুনার ফলাফলে দেখা যায়, রাজশাহী শনাক্তের হার ২৬ দশমিক ৫৭ শতাংশ, চাঁপাইনবাবগঞ্জে শনাক্তের হার ২০ দশমিক শূন্য শতাংশ।



আরও খবর



গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ করোনা শনাক্ত ইন্দোনেশিয়ায়

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৪ জুলাই ২০২১ | ১০২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাস প্রায়ই তার ধরন ও অবস্থান পরিবর্তন করছে। তাতে প্রতিদিনই তৈরি হচ্ছে নতুন নতুন শঙ্কা।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র ও ভারতে করোনা প্রাদুর্ভাব অনেকটা কমে এলেও কমছে না ব্রাজিলে। এরই মধ্যে শনাক্ত বেড়ে চলেছে এশিয়ার অন্যতম ঘনবসতিপূর্ণ দেশ ইন্দোনেশিয়ায়।

ওয়ার্ল্ডোমিটার্সের তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় ইন্দোনেশিয়ায় সর্বোচ্চ ৪৭ হাজার ৮৯৯ জন শনাক্ত হয়েছে এবং সর্বোচ্চ ১ হাজার ৬১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে ব্রাজিলে। দেশটিতে শনাক্ত হয়েছে ৪৫ হাজার ৯৪ জন। অন্য দিকে ইন্দোনেশিয়ায় একদিনে মারা গেছে ৮৬৪ জন।

এখন পর্যন্ত ব্রাজিলে মোট শনাক্ত ও মৃত্যু হয়েছে যথাক্রমে ১ কোটি ৯১ লাখ ৫২ হাজার ৬৫ জন এবং ৫ লাখ ৩৫ হাজার ৯২৪ জন। বুধবার সকাল পর্যন্ত ইন্দোনেশিয়ায় ২৬ লাখ ১৫ হাজার ৫২৯ জন শনাক্ত এবং মারা গেছে ৬৮ হাজার ২১৯ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় সারাবিশ্বে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৫ লাখ ১০ হাজার ১৪০ জন এবং মারা গেছে ৮ হাজার ১১৭ জন।

সারাবিশ্বে এ পর্যন্ত করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৮ কোটি ৮৫ লাখ ৮০ হাজার ৯৬২ জন। মৃত্যু হয়েছে ৪০ লাখ ৬৫ হাজার ৩৪০ জন। আর সুস্থ হয়ে উঠেছে ১৭ কোটি ২৪ লাখ ৭ হাজার ৪৩৭ জন।


আরও খবর