আজঃ মঙ্গলবার ২০ এপ্রিল ২০21
শিরোনাম

সৌভাগ্যের রজনী পবিত্র শবে বরাত

প্রকাশিত:সোমবার ২৯ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২৯ মার্চ ২০২১ | ১৪৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
এ রাতের নফল নামাজের ধরাবাঁধা কোনো নিয়ম নেই, বরং অন্যান্য নফল নামাজের মতো দুই/চার রাকাতের নিয়ত করে সুরা ফাতেহার পর যে কেনো সুরা মিলিয়ে যত ইচ্ছা পড়া যেতে পারে

পবিত্র শাবান মাসের ফজিলতপূর্ণ রাত—‘লাইলাতুল বারাআত। লাইলাতুল বারাআত আরবি শব্দ, ফারসিতে বলা হয়—‘শবেবরাতশব অর্থ রাত, বরাত অর্থ ভাগ্য, সেই হিসেবে শবেবরাতের আভিধানিক অর্থ ভাগ্যরজনি। পবিত্র কুরআনে এ রাতকে লাইলাতুম মুবারাকাহ্’—বরকতময় রজনি বলে উল্লেখ করা হয়েছে। হাদিস শরিফে রসুল (স) এ মহিমান্বিত রাতকে লাইলাতুন নিছফি মিন শাবান’—শাবান মাসের মধ্যরজনি বলে উল্লেখ করেছেন। হাদিসের ব্যাখ্যাগ্রন্থসমূহ ও তাফসিরের কিতাবে এ রাতের আরো কিছু নাম উল্লেখ হয়েছে।

যেমন—‘লাইলাতুল কিসমাহ্’—ভাগ্যের রাত, লাইলাতুত তাজবিয’—রিজিক বণ্টনের রাত, লাইলাতুল ফায়সালাহ্’—তকদির নির্ধারণের রাত, লাইলাতুল আফউ’—ক্ষমার রাত, লাইলাতুল কারামি’—দয়ার রাত, লাইলাতুত তাওবাহ্’—তাওবার রাত ও লাইলাতুন নাদামাহ্’—মিনতির রাত ইত্যাদি।

আরবি মাসে রাত আগে আসার কারণে ১৪ শাবান দিবাগত রাতেই পালিত হবে শবেবরাত। শাবান মাস আল্লাহর কাছে অধিক মর্যাদাপূর্ণ মাস। এ মাসকে রমজানের প্রস্তুতি মাস বলা হয়েছে। নবি করিম (স) অন্য মাসের তুলনায় এ মাসে বেশি নফল রোজা পালন করতেন। শবেবরাতের ফজিলত সম্পর্কে হযরত আয়েশা সিদ্দিকা (রা) থেকে বর্ণিত আছে, তিনি বলেন, আমি রসুলুল্লাহ (স)-এর সঙ্গে কোনো এক রাতে রাত্রিযাপন করছিলাম। এক সময় আমি তাকে বিছানায় না পেয়ে মনে করলামতিনি হয়তো অন্য কোনো স্ত্রীর ঘরে গিয়েছেন। আমি তাকে খুঁজতে বের হলাম। গিয়ে দেখিতিনি জান্নাতুল বাকিতে কবরবাসীদের পশে দাঁড়িয়ে অঝোর নয়নে কাঁদছেন। নবিজি আমাকে উদ্দেশ করে বললেন—‘হে আয়েশা! তুমি কি মনে করো, আল্লাহর রসুল তোমার ওপর বেইনসাফি করেছেন? আমি বললামইয়া রসুলাল্লাহ! আপনাকে বিছানায় না পেয়ে ধারণা করেছিলামআপনি হয়তো অন্য কোনো স্ত্রীর ঘরে গিয়েছেন। এরপর রসুল (স) বললেন, হে আয়েশা! আজকের রাত সম্পর্কে তুমি জেনে রেখ, মহান আল্লাহ এই রাতে দুনিয়ার প্রথম আকাশে অবতীর্ণ হয়ে দুনিয়াবাসীর ওপর তাঁর খাস রহমত নাজিল করেন। কাল্ব গোত্রের মেষের গায়ে যত পশম রয়েছে তার চেয়েও অধিকসংখ্যক বান্দাকে তিনি ক্ষমা করেন। (সুনানে তিরমিযি১ম খণ্ড, পৃষ্ঠা ১৫৬)

ইবনে মাজাহ্ শরিফের হজরত আলী (রা) সূত্রে বর্ণিত, তিনি বলেন, রসুলাল্লাহ (স) বলেছেন—‘যখন শাবানের মধ্যরজনি আসবে তখন তোমরা সে রাতে কিয়াম তথা নামাজ পড়বে, রাত জেগে ইবাদত করবে এবং পরদিন রোজা রাখবে। কেননা সে দিন সূর্যাস্তের সঙ্গে সঙ্গে আল্লাহ দুনিয়ার আকাশে এসে বান্দাকে এই বলে ডাকতে থাকেনআছ কি কেউ ক্ষমা প্রার্থনাকারী, যাকে আমি ক্ষমা করব। আছ কি কেউ রিজিক প্রার্থনাকারী, যাকে আমি রিজিক দিব। আছ কি কেউ বিপদগ্রস্ত, যাকে আমি বিপদ থেকে উদ্ধার করব। এভাবে সুবহে সাদিক পর্যন্ত আল্লাহ ঘোষণা দিতে থাকেন। (হাদিস নম্বর ১৩৮৪)

আল্লাহ এ পুণ্যময় রজনিতে অসংখ্য বান্দা-বান্দিকে ক্ষমা করেন, তবে দুই শ্রেণির লোকের জন্য তাঁর ক্ষমার দ্বার বন্ধ থাকে। (এক) মুশরিক’—যে তাঁর সঙ্গে অন্যকে উপাস্য বানিয়েছে; (দুই) বিদ্বেষপোষণকারী, যে তার অন্য মুসলমান ভাইয়ের প্রতি বিদ্বেষ পোষণ করে। (আত-তারগিব ওয়াত-তারহিব, ৩য় খণ্ড, পৃষ্ঠা ৩৯২)

আল্লাহ কাছে পাঁচটি রাত খুবই মর্যাদার। এর মধ্যে শবেবরাতের রাতও রয়েছে। হাদিস শরিফে এসেছে—‘নিশ্চয়ই পাঁচ রাত্রির দোয়া আল্লাহ কবুল করেন। (১) রজব মাসের প্রথম রাতের দোয়া, (২) শবেবরাতের দোয়া, (৩) শবেকদরের দোয়া, (৪) ঈদুল ফিতরের রাতের দোয়া ও (৫) ঈদুল আজহার রাতের দোয়া। (গুনইয়াতুত তালেবিন, মুকাশাফাতুল কুলুব)

শবেবরাত মহান আল্লাহর পক্ষ থেকে উম্মতে মুসলিমার জন্য এক বিশেষ উপহার। তাই এ রাত সম্পর্কে আমাদের বিশেষ যত্নবান হতে হবে। এ রাতের বিশেষ কিছু আমল হচ্ছে(১) রাত জেগে ইবাদত করা। যেমননফল নামাজ, কোরআন তেলাওয়াত, জিকির-আযকার, তাওবা-ইস্তিগফার ও দোয়া-দরুদ পাঠ করা ইত্যাদি। (২) ১৫ শাবান রাতে জেগে ইবাদত করা এবং পরদিন রোজা রাখা। (৩) সম্ভব হলে আপনজনদের কবর জিয়ারত করা ও দান-সাদকাহ করা।

রসুল (স) নিজের জীবনে এ রাত বারবার পেয়েছেন, আমল করেছেন। এ রাতে কী করতে হবে, কীভাবে করতে হবেতা তিনি উম্মতকে শিখিয়ে গেছেন। তাঁর রেখে যাওয়া আদর্শই আমাদের হুবহু অনুসরণ অনুকরণ করতে হবে। এ রাতের অধিকাংশ ইবাদত নফল। এ রাতের নফল নামাজের ধরাবাঁধা কোনো নিয়ম নেই, বরং অন্যান্য নফল নামাজের মতো দুই/চার রাকাতের নিয়ত করে সুরা ফাতেহার পর যে কেনো সুরা মিলিয়ে যত ইচ্ছা পড়া যেতে পারে। তবে অবশ্যই শতর্ক থাকতে হবে যে, রাতভর নফল ইবাদত করে ফজরের নামাজ যেন কাজা না হয়। কেননা হাজার রাকাআত নফল নামাজের সাওয়াব কখনো একটি ফরজ নামাজের সমতুল্য হবে না।

শবেবরাতে যেমন পালনীয় বিষয় রয়েছে, তেমনি এ রাতে কিছু বর্জনীয় বিষয়ও রয়েছে। এ রাতে আতশবাজি, হইহুল্লোড়, অহেতুক কাজে লিপ্ত থাকা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। অন্যের ব্যাঘাত সৃষ্টি করে নিজে কোনো ইবাদত করা যাবে না। আল্লাহ আমাদেরকে এ রাতের গুরুত্ব বুঝে আমল করার তাওফিক দান করুন। আমীন!

নিউজ ট্যাগ: পবিত্র শবে বরাত

আরও খবর
শুরু হলো সিয়াম সাধনার মাস

বুধবার ১৪ এপ্রিল ২০২১

রোজা শুরু কবে জানা যাবে সন্ধ্যায়

মঙ্গলবার ১৩ এপ্রিল ২০২১




১৭০ বছরের ইতিহাসে প্রথম নারী সম্পাদক পাচ্ছে রয়টার্স

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৩ এপ্রিল ২০২১ | ৮৩জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
প্রধান সম্পাদকের চেয়ারে বসার পর তাকে অনেকগুলো চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হতে হবে। এর মধ্যে কিছু চ্যালেঞ্জ বর্তমান বাস্তবতায় সব গণমাধ্যমকেই মোকাবেলা করতে হচ্ছে; এর বাইরে বিস্তৃত ও জটিল সাংগঠনিক

নিজেদের ১৭০ বছরের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো নারী সম্পাদক পেতে যাচ্ছে আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থা রয়টার্স। আগামী সোমবার থেকে ইতালিয়ান আলেসান্দ্রা গ্যালোনিকে এ পদে দেখা যাবে বলে মঙ্গলবার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে বার্তা সংস্থাটি। গত এক দশক ধরে রয়টার্সের বার্তাকক্ষকে নেতৃত্ব দেওয়া স্টিফেন জে. অ্যাডলারের স্থলাভিষিক্ত হবেন ৪৭ বছর বয়সী গ্যালোনি।

অ্যাডলার চলতি মাসেই অবসরে যাচ্ছেন। তার নেতৃত্বে এ বার্তা সংস্থা সাংবাদিকতা বিষয়ক কয়েকশ পুরস্কারে ভূষিত হয়েছে, যার মধ্যে আছে সাতটি পুলিৎজার; যা এই শিল্পের সর্বোচ্চ সম্মান। রোমে বেড়ে ওঠা গ্যালোনি চারটি ভাষায় পারদর্শী। রয়টার্স ছাড়াও তিনি দীর্ঘদিন ওয়াল স্ট্রিট জার্নালে কাজ করেছেন। ব্যবসা ও রাজনীতি সংক্রান্ত প্রতিবেদন ও সংবাদ সম্পাদনায় তার অভিজ্ঞতা বিস্তর।

প্রধান সম্পাদকের চেয়ারে বসার পর তাকে অনেকগুলো চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হতে হবে। এর মধ্যে কিছু চ্যালেঞ্জ বর্তমান বাস্তবতায় সব গণমাধ্যমকেই মোকাবেলা করতে হচ্ছে; এর বাইরে বিস্তৃত ও জটিল সাংগঠনিক কাঠামো পরিচালনার ভার তো থাকছেই।

বিশ্বজুড়ে প্রায় আড়াই হাজার সাংবাদিক রয়টার্সে কর্মরত; নানামতের গ্রাহকদের সন্তুষ্টি অর্জনের পাশাপাশি এটি থমসন-রয়টার্সের বিস্তৃত তথ্য-সেবা ব্যবসার একটি শাখাও।

গ্যালোনি রয়টার্সের বৈশ্বিক ব্যবস্থাপনা সম্পাদকের দায়িত্বও সামলেছেন, দেখভাল করেছেন বিশ্বের দুই শতাধিক স্থানে কাজ করা সাংবাদিকদের।

তার ক্যারিয়ার শুরু হয়েছিল রয়টার্সের ইতালিয়ান ভাষার নিউজ সার্ভিসে। হার্ভার্ড ও লন্ডন স্কুল অব ইকোনমিকস থেকে ডিগ্রি নেওয়া এ নারী ওয়াল স্ট্রিট জার্নালেও প্রায় ১৩ বছর কাজ করেছেন। ২০১৩ সালে তিনি রয়টার্সে ফেরেন।

রয়টার্স তাদের পরবর্তী প্রধান সম্পাদকের নাম ঘোষণার পর দেওয়া প্রতিক্রিয়ায় গ্যালোনি বলেন, ১৭০ বছর ধরে রয়টার্স স্বতন্ত্র, বিশ্বস্ত বৈশ্বিক প্রতিবেদনের মান নির্ধারণ করেছে। প্রতিভাবান, নিবেদিত ও অনুপ্রেরণাদায়ী সাংবাদিকদের নিয়ে গঠিত এর বিশ্বমানের বার্তাকক্ষের নেতৃত্ব দেওয়ার সুযোগ পেয়ে আমি সম্মানিত।


আরও খবর



শাল্লার হামলা স্বাধীন মেম্বারের পরিকল্পনা ও নেতৃত্বে : পিবিআই

প্রকাশিত:রবিবার ২১ মার্চ 20২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২১ মার্চ 20২১ | ১৩২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) দাবি করেছে, ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য শহিদুল ইসলাম স্বাধীন মেম্বারের (৫০) পরিকল্পনা ও নেতৃত্বে এক থেকে দেড় হাজার মানুষ সেদিন সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলার নোয়াগাঁও গ্রামে হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়িঘরে হামলা ও লুটপাট চালিয়েছে।

হামলার ঘটনার দুদিন পরে মামলার প্রধান আসামি শহিদুল ইসলাম স্বাধীন মেম্বারকে গ্রেপ্তারের পর আজ শনিবার সকালে পিবিআই সিলেটের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ খালেদ উজ জামান এক সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি করেন।

গতকাল শুক্রবার গভীর রাতে মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলা থেকে স্বাধীনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি দিরাই উপজেলার সরমঙ্গল ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য। স্থানীয় লোকজন স্বাধীন মেম্বারকে যুবলীগের নেতা হিসেবে উল্লেখ করলেও সংগঠনটির জেলা কমিটির পক্ষ থেকে তা অস্বীকার করা হয়েছে।   

সংবাদ সম্মেলনে পিবিআইয়ের পুলিশ সুপার বলেন, হামলার ঘটনার এজাহারনামীয় এক নম্বর আসামি অর্থাৎ মূল আসামির নাম হচ্ছে শহিদুল ইসলাম ওরফে স্বাধীন, উনি ইউনিয়নের মেম্বার। তাঁর নেতৃত্বে, তাঁর পরিকল্পনায় এক হাজার ৪০০ থেকে এক হাজার ৫০০ লোক ওই এলাকায় আক্রমণ করে। এটা আমরা জানি এবং নিশ্চিত হই। এবং পরে আমরা তার অবস্থান সম্পর্কে নিশ্চিত হই।

সিলেট পিবিআইয়ের একটি বিশেষ টিম মৌলভীবাজার জেলা কুলাউড়া থানায় একটি বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে। কুলাউড়ার বামনবাজার ইউনিয়নের ঘোড়াবহী এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করতে সমর্থ হই। তাঁর পিতা হাজি কেরামত আলী, গ্রাম নাচনি, যোগ করেন পুলিশ সুপার।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত সোমবার সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলায় শানে রিসালাত সম্মেলনে লক্ষাধিক মানুষের সামনে বক্তব্য দেন হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় নেতারা। সেই সূত্র ধরে পাশের শাল্লা উপজেলার হবিবপুর ইউনিয়নের নোয়াপাড়া গ্রামের ঝুমন দাস আপন তাঁর ফেসবুকে মাওলানা মামুনুল হককে নিয়ে আপত্তিকর পোস্ট দেন বলে দাবি করা হয়। একপর্যায়ে ঝুমনকে খুঁজে বের করে গত মঙ্গলবার রাতে পুলিশে দেয় লোকজন। এরপরও লোকজন শান্ত না হয়ে গত বুধবার সকাল থেকে লাঠিসোঁটা ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে নোয়াপাড়া গ্রাম ঘিরে রাখে। পরে তারা বাড়িঘর ভাঙচুর ও লুটপাট করে বলে অভিযোগ পাওয়া যায়।

এ ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার রাতে হবিবপুর ইউপির চেয়ারম্যান বিবেকানন্দ মজুমদার বকুল ৫০ জনের নাম উল্লেখ করে প্রথম মামলাটি করেন। এতে প্রধান আসামি করা হয় দিরাইয়ের সরমঙ্গল ইউপির সদস্য শহিদুল ইসলামকে। এ ছাড়া অজ্ঞাত আরও দেড় হাজার জনকে আসামি করে পুলিশের পক্ষ থেকে অপর মামলাটি করা হয়। পুলিশের করা মামলার বাদী হয়েছেন শাল্লা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আব্দুল করিম।

এরই মধ্যে গতকাল শুক্রবার অভিযান চালিয়ে ২২ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল সন্ধ্যায় তাদের আদালতে হাজির করা হলে আদালত জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এ পর্যন্ত শহিদুলসহ গ্রেপ্তার হয়েছেন ৩০ জন।


আরও খবর



হেফাজতের সহিংসতায় সম্পৃক্ততার অভিযোগে বিএনপি নেতা আটক

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ এপ্রিল ২০২১ | ৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে হেফাজতের হরতালে সহিংসতার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় নাসিক ২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. ইকবাল হোসেনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব।

মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) দিবাগত রাত ১টায় সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি এলাকার নিজ বাড়ি থেকে ওই কাউন্সিলরকে গ্রেপ্তার করা হয়।

র‌্যাব-১১ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জসিম উদ্দিন চৌধুরী কাউন্সিলর ইকবালকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, বিএনপি নেতা কাউন্সিলর ইকবাল হোসেন নাশকতা, সরকারি কাজে বাধা, পুলিশের ওপর হামলা ও সন্ত্রাস দমন আইনে দায়ের করা মামলার এজাহারভুক্ত আসামি।

উল্লেখ্য, গত ২৮ মার্চ হেফাজতে ইসলামের হরতালে সহিংসতার ঘটনায় ৩ হাজার ৫৩৬ জনকে আসামি করে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় মোট ৮টি মামলা দায়ের হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: বিএনপি নেতা

আরও খবর
হেফাজতের ২৩ মামলা তদন্তে সিআইডি

মঙ্গলবার ২০ এপ্রিল ২০21




আজকের রাশিফল: জেনে নিন কেমন কাটবে দিন

প্রকাশিত:শনিবার ২৭ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৭ মার্চ ২০২১ | ১০২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পুরনো জ্যোতিষশাস্ত্রের এমন একটি ধরন, যার মাধ্যমে বিভিন্ন সময়কাল নিয়ে ভবিষ্যদ্বাণী করা হয়। যেমন দৈনিক রাশিফল প্রতিদিনের ঘটনার ভবিষ্যকথন করে, তেমন সাপ্তাহিক, মাসিক তথা বার্ষিক রাশিফল যথাক্রমে সপ্তাহ, মাস এবং বছরের ভবিষ্যদ্বাণী করে। বৈদিক জ্যোতিষে ১২টি রাশি- মেষ, বৃষ, মিথুন, কর্কট, সিংহ, কন্যা, তুলা, বৃশ্চিক, ধনু, মকর, কুম্ভ ও মীন-এর ভবিষ্যদ্বাণী করা হয়। একই রকমভাবে ২৩টি নক্ষত্রেরও ভবিষ্যদ্বাণী করা হয়ে থাকে।

মেষ রাশি:

কর্মপ্রার্থীদের যোগাযোগ ফলপ্রসূ হতে পারে। অন্যের কারণে কাজে ব্যাঘাত ঘটতে পারে। ভুল সিদ্ধান্তে বিপর্যয় আসতে পারে। ইচ্ছাশক্তির জোরে বাধাবিঘ্ন কাটিয়ে উঠুন।

বৃষ রাশি:

অপ্রত্যাশিত যোগাযোগে আয় বাড়বে। কাজের স্বীকৃতি পাবেন। প্রেম-প্রণয় শুভ। বন্ধুস্থানীয় ব্যক্তির সাহচর্য আনন্দ দেবে। নিজগুণে প্রশংসিত হবেন। অতীতের সুখস্মৃতিতে শান্তি পাবেন।

মিথনু রাশি:

পরিবারের কল্যাণচিন্তায় উদ্বেগ থাকতে পারে। বকেয়া আদায়ে সচেষ্ট হতে পারেন। দায়িত্ব বাড়বে। প্রিয়জনের স্বাস্থ্য নিয়ে চিন্তা। ব্যবসায়ীরা নতুন উদ্যোগ গ্রহণ করতে পারেন।

কর্কট রাশি:

কোনো সংবাদে আশাবাদী হবেন। আর্থিক যোগাযোগ বৃদ্ধি পাবে। কর্মক্ষেত্রে আসার সঞ্চার হবে। কোনো ভুল তথ্যের কারণে সমস্যা হতে পারে। গতিশীল দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে এগিয়ে যান।

সিংহ রাশি:

অর্থপ্রাপ্তির সম্ভাবনা। পুরনো সমস্যা সমাধানে অন্যের সহযোগিতা পাবেন। সামাজিক কাজে অংশীদার হতে পারবেন। অন্যের কাছে আপনার বিশ্বাসযোগ্যতা প্রমাণ করতে পারবেন। মন ভালো রাখুন।

কন্যা রাশি:

উৎসাহ ও উদ্যমে অগ্রপথিকের ভূমিকা নিতে পারবেন। আপনার কাজে অন্যকে প্রভাবিত করতে পারবেন। আর্থিক বিষয়ে দুশ্চিন্তা কমবে। দূরদৃষ্টির সঙ্গে অর্থের সদ্ব্যবহার করুন। ভালো থাকুন।

তুলা রাশি:

কোনো সংবাদে বিচলিত হতে পারেন। কোনো আত্মীয়ের জন্য উৎকণ্ঠা। অকারণে ব্যয় বাড়বে। ব্যবসায়ীরা নতুন উদ্যোগ গ্রহণ করতে পারেন। একাগ্রতার সঙ্গে কাজ করলে সুফল পাবেন।

বৃশ্চিক রাশি:

কোনো পরিকল্পনার অগ্রগতি হবে। আয়ের ক্ষেত্র পূর্বের তুলনায় আশাপ্রদ। তবে দিনের শেষে অপ্রয়োজনীয় ব্যয় বাড়বে। দায়িত্ব পালনে দৃঢ়তার পরিচয় দিতে হবে। প্রিয়সঙ্গ আনন্দ দেবে।

ধনু রাশি:

কোনো লাভজনক কাজ হাতে আসবে। ভবিষ্যৎ পরিকল্পনায় অন্যের সহযোগিতা পাবেন। সন্তোষজনক ফলাফল পেতে সুন্দরভাবে সব কিছু পরিকল্পনা করতে হবে। প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখুন।

মকর রাশি:

কোনো পরিকল্পনায় পরিবর্তন আনতে পারেন। ব্যবসায় জটিলতা দূর হবে। পাওনা আদায়ে কিছুটা অগ্রগতি। প্রেমে আন্তরিকতা বাড়বে। আধ্যাত্মিক কাজে শান্তি পাবেন। ভ্রমণ শুভ।

কুম্ভ রাশি:

বিদেশসংক্রান্ত কাজে সফলতা আসতে পারে। ঘনিষ্ঠ কারো জন্য দুশ্চিন্তা হবে। দক্ষ ব্যবস্থাপনার অভাবে কাজে বিঘ্ন ঘটতে পারে। কোনো সুযোগ হাতছাড়া হতে পারে। পরিবেশ নিজের নিয়ন্ত্রণে রাখুন।

মীন রাশি:

প্রত্যাশিত কাজকর্মে বাধার আশঙ্কা। আর্থিক অবস্থা গতানুগতিক। শিক্ষার্থীদের একাগ্রতার অভাব। পরিবারিক সমস্যার সমাধান হবে। গুরুত্বপূর্ণ কাজ ফেলে রাখবেন না। স্বাস্থ্যের প্রতি নজর দেবেন।


আরও খবর
যেভাবে বানাবেন শসার স্মুদি

সোমবার ১৯ এপ্রিল ২০২১




করোনা: সুস্থ হয়েছে ১০ কোটি ৮৮ লাখ ৫৯ হাজারের বেশি

প্রকাশিত:শনিবার ১০ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১০ এপ্রিল ২০২১ | ৭৮জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে ৫ লাখ ৭৪ হাজার ৮৪০ জন এখন পর্যন্ত মারা গেছেন। বিশ্বে সর্বোচ্চ আক্রান্তের সংখ্যাও এই দেশটিতে

বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির সংখ্যা কোনোভাবেই কমছে না। সবশেষ করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৩ কোটি ৫২ লাখ ৯৫ হাজার ৬২২ জন। আর এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৯ লাখ ২৮ হাজার ৫৫৯ জনে। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছে ১০ কোটি ৮৮ লাখ ৫৯ হাজার ৯১৭ জন। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটার থেকে এই তথ্য জানা যায়।

ওয়ার্ল্ডওমিটারের সবশেষ তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে ৫ লাখ ৭৪ হাজার ৮৪০ জন এখন পর্যন্ত মারা গেছেন। বিশ্বে সর্বোচ্চ আক্রান্তের সংখ্যাও এই দেশটিতে। এই পর্যন্ত ৩ কোটি ১৮ লাখ ২ হাজার ৭৭২ জন এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের পর মৃত্যু বিবেচনায় করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ হচ্ছে ব্রাজিল। লাতিন আমেরিকার দেশটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ১ কোটি ৩৩ লাখ ৭৫ হাজার ৪১৪ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৩ লাখ ৪৮ হাজার ৯৩৪ জনের। তবে মৃত্যু বিবেচনায় মেক্সিকোর অবস্থান তৃতীয়।

আক্রান্তের দিক থেকে দ্বিতীয় স্থানে উঠে আসা ভারত মৃত্যু বিবেচনায় আছে চতুর্থ অবস্থানে। এ পর্যন্ত দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ১ কোটি ৩২ লাখ ২ হাজার ৭৮৩ জন। আর মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৬৮ হাজার ৪৬৭ জনের।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীন থেকে সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর বিশ্বব্যাপী ছড়িয়েছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। গত বছরের ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

নিউজ ট্যাগ: করোনাভাইরাস

আরও খবর