আজঃ বুধবার ০৪ আগস্ট ২০২১
শিরোনাম

শরীয়তপুরের ৫০ গ্রামে চলছে ঈদ উৎসব

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২০ জুলাই ২০21 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২০ জুলাই ২০21 | ১২৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

শরীয়তপুরের ৬ উপজেলার ৫০ গ্রামের মানুষ সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে ঈদুল আজহা উদযাপন করছেন। মঙ্গলবার (২০ জুলাই) জেলার বেশ কয়েকটি স্থানে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হলেও প্রধান ও বড় জামায়াত অনুষ্ঠিত হয় নড়িয়ার সুরেশ্বর দরবার শরীফ মাঠ প্রাঙ্গণে।

জানা গেছে, সৌদিসহ মধ্যপ্রাচ্যের ৬৯ দেশে সোমবার (১৯ জুলাই) চাঁদ দেখা যাওয়ায় মঙ্গলবার (২০ জুলাই) ওইসব দেশে ঈদুল আজহা উদযাপিত হচ্ছে। তাই সৌদিসহ মধ্যপ্রাচ্যের সঙ্গে মিল রেখে শাহ্ সুরেশ্বরীর (রা.) অনুসারীরা ঈদুল আজহা উদযাপন করছেন।

সুরেশ্বর দরবার শরীফের গদিনীনিশিল পীর সৈয়দ তৌহিদুল হোসাইন শাহীন নূরী জানান, আমরা শুধু ঈদ না সব ধর্মীয় উৎসব সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে পালন করি। তাই মঙ্গলবার (২০ জুলাই) আমরা কোরবানির ঈদ পালন করছি।

তিনি আরও বলেন, সুরেশ্বর দরবার শরীফ মাঠ প্রাঙ্গণে মঙ্গলবার (২০ জুলাই) সকাল সাড়ে ৯টায় ঈদুল আজহার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়।


আরও খবর



রামেক করোনা ইউনিটে প্রাণ গেলো আরও ১৮ জনের

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৮ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৮ জুলাই ২০২১ | ১২৪জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে মৃত্যুর মিছিল থামছে না। এ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত চিকিৎসাধীন অবস্থায় তারা মারা যান। এদের মধ্যে ৮ জন করোনা পজিটিভ, ১ জন পজিটিভ থেকে নেগেটিভ হওয়ার পর এবং ৯ জন উপসর্গে মারা যান।

রামেক হাসপাতালের পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এ নিয়ে জুলাই মাসের ৮ দিনে রামেক হাসপাতালে করোনা ও উপসর্গে ১৩৯ জনের মৃত্যু হলো। আর জুন মাসে মৃত্যু হয়েছে ৩৫৪ জনের।

রামেক পরিচালক জানান, নতুন মৃতদের ৯ জন রাজশাহীর (পজিটিভ ৪, উপসর্গে ৫), চাঁপাইনবাবগঞ্জের ২ জন (পজিটিভ ১, উপসর্গে ১), নাটোরের ২ জন (১ জন পজিটিভ থেকে নেগেটিভ হওয়ার পর, উপসর্গে ১), নওগাঁয় ৩ জন (পজিটিভ ১, উপসর্গে ২) পাবনায় ১ (পজিটিভ), কুষ্টিয়ার ১ (পজিটিভ) জন। নতুন মৃতদের ১৪ জন পুরুষ ও ৪ জন নারী।

তিনি বলেন, আজ বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত এ হাসপাতালের ৪৫৪ বেডের বিপরীতে করোনা ও উপসর্গের রোগী ভর্তি রয়েছেন ৪৮৫ জন। গতকাল বুধবার ভর্তি ছিলেন ৪৭০ জন। অতিরিক্ত বেডের ব্যবস্থা করে অতিরিক্ত রোগীদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। ভর্তি রোগীদের মধ্যে রাজশাহীর ২৯৩, চাঁপাইয়ের ৪০, নাটোরের ৫৩, নওগাঁর ৪৪, পাবনার ৪২, কুষ্টিয়ার ৫, চুয়াডাঙ্গার ২, জয়পুরহাটের ১, সিরাজগঞ্জের ২, নীলফামারীর ১ ও বগুড়ার ২ জন। বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় রামেক হাসপাতালে নতুন ভর্তি হয়েছেন ৭০ জন। একই সময়ে সুস্থ হয়ে রামেক হাসপাতাল ছেড়েছেন ৪৮ জন। নতুন ভর্তি রোগীদের মধ্যে রাজশাহীর ৩৩, চাঁপাইয়ের ৮, নাটোরের ১০, নওগাঁর ৭, পাবনার ৭, কুষ্টিয়ার ৩ ও চুয়াডাঙ্গার ২ জন।

রামেক পরিচালক জানান, বুধবার রাজশাহীর দুই ল্যাবে দুই জেলার ৫৬৪ জনের নমুনা পরীক্ষায় করোনা পজিটিভ হয়েছে ১৪১ জনের। এদিন রাতে প্রকাশিত দুটি পিসিআর ল্যাবের নমুনার ফলাফলে দেখা যায়, রাজশাহী শনাক্তের হার ২৬ দশমিক ৫৭ শতাংশ, চাঁপাইনবাবগঞ্জে শনাক্তের হার ২০ দশমিক শূন্য শতাংশ।



আরও খবর



সম্পদের হিসাব দিতে হবে সরকারি চাকরিজীবীদের

প্রকাশিত:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ১৪৯জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সরকারি কর্মচারী (আচরণ) বিধিমালা অনুযায়ী সরকারি চাকরিজীবীদের সম্পদ বিবরণী জমা দেওয়ার জন্য নির্দেশনা দিয়েছে সরকার। 

প্রধানমন্ত্রীর অনুশাসনে বিধিমালাটি কার্যকরের মাধ্যমে সম্পদের হিসাব দেওয়াসহ নিয়ম মানতে সব মন্ত্রণালয় ও বিভাগের সিনিয়র সচিব/সচিবদের কাছে চিঠি পাঠিয়েছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

মন্ত্রণালয়ের শৃঙ্খলা-৪ শাখা থেকে সম্প্রতি এ চিঠি পাঠানো হয়।

সরকারি কর্মচারী (আচরণ) বিধিমালা, ১৯৭৯ অনুযায়ী পাঁচ বছর পরপর সরকারি চাকরিজীবীদের সম্পদ বিবরণী জমা দেওয়ার নিয়ম রয়েছে। কিন্তু সরকারি চাকরিজীবীরা এ নিয়ম না মানার প্রেক্ষাপটে চিঠি পাঠানো হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়, সরকারি কর্মচারী (আচরণ) বিধিমালা, ১৯৭৯ এর বিধি ১১, ১২ ও ১৩-তে সরকারি কর্মচারীদের স্থাবর সম্পত্তি অর্জন, বিক্রয় ও সম্পদ বিবরণী জমা দেওয়ার বিষয়ে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

সুশাসন নিশ্চিতে প্রধানমন্ত্রী উল্লিখিত বিধিগুলো কার্যকরভাবে কর্মকর্তাদের অনুসরণের বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট সব মন্ত্রণালয়কে জোর নির্দেশনা দিয়েছেন।

চিঠিতে সরকারি চাকরি আইন, ২০১৮ এর আওতাভুক্তদের তাদের নিয়ন্ত্রণকারী প্রশাসনিক মন্ত্রণালয়/দফতর/অধীনস্থ সংস্থায় কর্মরত সব সরকারি কর্মকর্তার সম্পদ বিবরণী জমা, ওই সম্পদ বিবরণীর ডাটাবেজ তৈরি এবং সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় থেকে স্থাবর সম্পত্তি অর্জন ও বিক্রয়ের অনুমতি নেওয়ার বিষয়ে সরকারি কর্মচারী (আচরণ) বিধিমালা, ১৯৭৯ এর ১১, ১২ এবং ১৩ বিধি পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে প্রতিপালনের মাধ্যমে জরুরিভিত্তিতে ব্যবস্থা নিয়ে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়কে জানানোর নির্দেশনা দেওয়া হয়।

সরকারি কর্মচারীর জমি/বাড়ি/ফ্ল্যাট/সম্পত্তি ক্রয় বা অর্জন ও বিক্রির অনুমতির জন্য আবেদনপত্রের নমুনা ফরম এবং বিদ্যমান সম্পদ বিবরণী দাখিলের ছক চিঠির সঙ্গে পাঠানো হয়েছে।


আরও খবর



চিত্রনায়িকা একার নামে দুই মামলা, রিমান্ড চাইবে পুলিশ

প্রকাশিত:রবিবার ০১ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ০১ আগস্ট ২০২১ | ৭৯জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

এক সময়ের জনপ্রিয় চলচ্চিত্র অভিনেত্রী একার নামে দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এসব মামলায় তার রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠাবে পুলিশ। শনিবার (৩১ আগস্ট) দিনগত রাতে রাজধানীর হাতিরঝিল থানায় গৃহকর্মী নির্যাতনের অভিযোগ এবং মাদক রাখার দায়ে একার নামে পৃথক দুটি মামলা দায়ের করা হয়।

পুলিশ জানায়, নির্যাতনের অভিযোগে গৃহকর্মী হাজেরা বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন। আর একার বাসা থেকে মাদক উদ্ধার হওয়ার ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে আরেকটি মামলা দায়ের করেছেন।

হাতিরঝিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুর রশিদ জানান, চিত্রনায়িকা একার নামে দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এসব মামলায় গ্রেফতার একাকে আদালতে হাজির করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ড আবেদন করা হবে।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, হাজেরা নামে এক নারী একার বাসায় কাজ করতেন। একা ওই নারীকে বাড়তি কাজ করতে বললে তিনি রাজি হননি। এর ফলে শুক্রবার ওই গৃহকর্মীকে বাসা থেকে বের করে দেন একা। একপর্যায়ে আর ওই বাসায় কাজ করবেন না মনস্থির করেই শনিবার (৩১ জুলাই) বেতন চাইতে যান গৃহকর্মী হাজেরা। এতেই একপর্যায়ে ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে মারধর করেন নায়িকা একা।

মারধরে গৃহকর্মীর চিৎকারে আশ-পাশের বাসিন্দারা ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে একা বাসার ভেতর থেকে দরজা বন্ধ করে দেন। একপর্যায়ে স্থানীয়দের উপস্থিতিতে দরজা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে পুলিশ। এরপর একাকে আটকসহ তার বাসা থেকে মদ, গাঁজা ও ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।



আরও খবর
পরীমনির বাসায় শত শত মদের বোতল

বুধবার ০৪ আগস্ট ২০২১

নায়িকা পরীমণি আটক

বুধবার ০৪ আগস্ট ২০২১




পদ্মা সেতু নির্মাণকাজের অগ্রগতি ৯৪ দশমিক ২৫ শতাংশ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৩ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৩ আগস্ট ২০২১ | ৬৪জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশের সবচেয়ে বড় উন্নয়ন প্রকল্প পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ এখন শেষের পথে। ধাপে ধাপে কাজ এগিয়ে চলেছে। মূল সেতু দৃশ্যমান হওয়ার পর এবার যানবাহন চলাচলের জন্য উপযোগী হয়েছে উঠছে কোটি মানুষের স্বপ্নের পদ্মা সেতু।

প্রতিকূল আবহাওয়া, নানা গুজব ও করোনাভাইরাসের সঙ্কট উপেক্ষা করে পদ্মা সেতুর কাজ জুলাই মাস পর্যন্ত এগিয়েছে ৮৭ দশমিক ২৫ শতাংশ। আর মূল সেতুর কাজের অগ্রগতি ৯৪ দশমিক ২৫ শতাংশ। অর্থাৎ মূল সেতুর কাজের আর বাকি মাত্র ৫ দশমিক ৭৫ শতাংশ। সেতুর সংযোগ সড়ক ও সার্ভিস এরিয়ার কাজ ইতোমধ্যেই শেষ হয়েছে। এতে ব্যয় হয়েছে এক হাজার ৪৯৯ কোটি ৫১ লাখ টাকা। এছাড়া ভূমি অধিগ্রহণ, পুনর্বাসন ও পরিবেশ খাতে বরাদ্দ চার হাজার ৩৪২ কোটি ২৬ লাখ টাকা।

পদ্মা সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী (মূল সেতু) দেওয়ান মো. আবদুল কাদের মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) সকালে এ তথ্য জানান।

সেতুর প্রকৌশল বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, মূল সেতুর কাজের চুক্তিমূল্য প্রায় ১২ হাজার ৪৯৪ কোটি টাকা। যার মধ্যে চলতি বছরের ৩১ জুলাই পর্যন্ত ব্যয় হয়েছে প্রায় ১১ হাজার ২৬৮ কোটি টাকা। আগামী ১১ মাসের মধ্যে বাকি কাজ সম্পন্ন করতে হবে। মূল সেতুর মধ্যে দুই হাজার ৯১৭টি রোডওয়ে স্লাব বসানো হবে। এরইমধ্যে দুই হাজার ৮৩১টি স্লাব বসানো হয়েছে। আর পাঁচ হাজারটি শেয়ার পকেটের মধ্যে এক হাজার ৯৭৯টি এবং ১২ হাজার ৩৯০টি প্যারপেট ওয়ালের মধ্যে তিন হাজার ৬০৬টি স্থাপন সম্পন্ন হয়েছে।

এছাড়া মাওয়া ও জাজিরার ভায়াডাক্টে ৪৩৮টি সুপারটি গার্ডারের মধ্যে ৪৩৮টি ওবং ৮৪টি রেলওয়ে আই গার্ডারের মধ্যে ৮৪টিই স্থাপন করা হয়েছে। মূল সেতুর মোট ৪১টি ট্রাস রয়েছে, যার সবগুলো ইতোমধ্যে স্থাপন করা হয়েছে। যার দৈর্ঘ্য ছয় হাজার ১৫০ মিটার বা ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার।

প্রকৌশল বিভাগ আরও জানায়, পদ্মা সেতু প্রকল্পের সর্বমোট বাজেট ৩০ হাজার ১৯১ কোটি ৩৯ লাখ টাকা। যার মধ্যে গত জুলাই মাস পর্যন্ত ব্যয় হয়েছে ২৫ হাজার ৮৮৮ কোটি ৪০ লাখ টাকা। আর মূল সেতু কাজের চুক্তিমূল্য ১২ হাজার ৪৯৩ কোটি ৮৮ লাখ টাকা। যার মধ্যে এ পর্যন্ত ব্যয় হয়েছে ১১ হাজার ২৬৭ কোটি ৩৯ লাখ টাকা। সেতু প্রকল্পের আওতায় নদী শাসনের অগ্রগতি হয়েছে ৮৪ দশমিক ২৫ শতাংশ। নদী শাসন কাজের চুক্তিমূল্য আট হাজার ৯৭২ কোটি ৩৮ লাখ টাকার মধ্যে ব্যয় হয়েছে ছয় হাজার ৭১৭ কোটি ৭৩ লাখ টাকা।



আরও খবর



খুলনা বিভাগে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৬০ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ জুলাই ২০২১ | ১৪৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালকের দফতর সূত্র জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগের মধ্যে সর্বোচ্চ ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে খুলনায়। কুষ্টিয়ায় ১১ জন, ঝিনাইদহে সাতজন, যশোরে ছয়জন

করোনাভাইরাসের কারণে মৃত্যুকূপে পরিণত হয়েছে খুলনা বিভাগ। একের পর এক মৃত্যু ও শনাক্তের রেকর্ড ভাঙছে। গত ২৪ ঘণ্টায় সব রেকর্ড ভেঙে বিভাগে সর্বোচ্চ ৬০ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে সর্বোচ্চ ১ হাজার ৯০০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

বুধবার (০৭ জুলাই) বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক ডা. রাশেদা সুলতানা এসব তথ্য নিশ্চিত করেন। এর আগে গত সোমবার খুলনা বিভাগে সর্বোচ্চ ৫১ জনের মৃত্যু হয়েছিল। এছাড়া গতকাল মঙ্গলবার সর্বোচ্চ ১ হাজার ৮৬৫ জনের শনাক্তের রেকর্ড হয়েছিল।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালকের দফতর সূত্র জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগের মধ্যে সর্বোচ্চ ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে খুলনায়। কুষ্টিয়ায় ১১ জন, ঝিনাইদহে সাতজন, যশোরে ছয়জন, চুয়াডাঙ্গায় পাঁচজন, নড়াইলে চারজন, বাগেরহাটে তিনজন, মেহেরপুরে দুজন ও মাগুরায় একজন মারা গেছেন।

খুলনা বিভাগের মধ্যে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় চুয়াডাঙ্গায় গত বছরের ১৯ মার্চ। করোনা সংক্রমণের শুরু থেকে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত বিভাগের ১০ জেলায় মোট শনাক্ত হয়েছে ৬৩ হাজার ৯৩৪ জন। আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১ হাজার ৩২৫ জন। এ সময় সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৪২ হাজার ৮৪৪ জন।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের জেলাভিত্তিক করোনা সংক্রান্ত তথ্য বিশ্লেষণে দেখা যায়, গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগে সর্বোচ্চ করোনা শনাক্ত হয়েছে খুলনায়। জেলায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ৫৮৫ জনের। এ পর্যন্ত জেলায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৭ হাজার ৫৬০ জনের। এ সময় মারা গেছেন ৩৪৮ জন ও সুস্থ হয়েছেন ১১ হাজার ৯৪৩ জন।

বাগেরহাটে নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে ১১৮ জনের। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ৪ হাজার ১৩৯ জনের। আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৯৫ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৯৪৮ জন। সাতক্ষীরায় ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ১১১ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ৩ হাজার ৯৬৪ জন এবং মারা গেছেন ৭৬ জন। এ সময় সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২ হাজার ৮৩৯ জন। যশোরে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ৩৭৩ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৪ হাজার ১৭৩ জন। মোট মারা গেছেন ১৮৭ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৮ হাজার ৯৫৮ জন।

ঝিনাইদহে ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ১৫৬ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ৫ হাজার ১৭৬ জন। মোট মারা গেছেন ১১৫ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৩ হাজার ১২৮ জন। মাগুরায় ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৭৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ১ হাজার ৮৫৪ জনের। মোট মারা গেছেন ৩১ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৩৪৭ জন। নড়াইলে ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ৫১ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ৩ হাজার ১৫৭ জনের। মোট মারা গেছেন ৫৪ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ২৬৫ জন।

কুষ্টিয়ায় ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ২৩৪ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ৯ হাজার ৪৩১ জনের। মোট মারা গেছেন ২৮৬ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৬ হাজার ১৪৫ জন। চুয়াডাঙ্গায় ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ১৩০ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ৪ হাজার ৭৫ জন। মোট মারা গেছেন ১০৬ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৩৫৯ জন। মেহেরপুরে নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ৫৯ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট শনাক্ত হয়েছে ২ হাজার ২৭০ জন। আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৬৭ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৪৪৬ জন।


আরও খবর