আজঃ শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪
শিরোনাম

সরকারি হাসপাতালে ওষুধ পান না ৬৯ শতাংশ রোগী

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
স্বাস্থ্য ডেস্ক

Image

সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা ৬৯ দশমিক ৩৪ শতাংশ রোগীকে বাইরে থেকে ওষুধ কিনতে হয়। জন্মের পরপরই মায়ের দুধ থেকে বঞ্চিত হয় দেশের ১৩ দশমিক ৭ শতাংশ শিশু। ৫০টির বেশি নীতিমালা, আইন থাকার পরেও এখনো নিশ্চিত হয়নি দেশের মানুষের জন্য নিরাপদ খাদ্য। এমন সব তথ্য উঠে এসেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিভিন্ন গবেষণায়।

আজ সোমবার রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এসব গবেষণা প্রবন্ধ উপস্থাপন করা হয়। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের প্ল্যানিং মনিটরিং অ্যান্ড রিসার্চ (পিএমআর) আয়োজিত গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ অনুষ্ঠানে তিনটি সেশনে প্রকাশ করা হয় বিষয়ভিত্তিক ১৪টি গবেষণা প্রতিবেদন। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রশ্নপত্রের ভিত্তিতে এই গবেষণাগুলো করা হয়।

অনুষ্ঠানের উদ্বোধনী অধিবেশনে সভাপতির বক্তব্য দেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এ বি এম খুরশীদ আলম। স্বাগত বক্তব্য দেন পিএমআরের লাইন ডিরেক্টর অধ্যাপক ডা. মাজহারুল ইসলাম।

এ সময় আরও বক্তব্য দেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আহমেদুল কবির এবং জাতীয় প্রতিষেধক ও সামাজিক চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানের (নিপসম) পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা।

দেশের হাসপাতালগুলোয় সংক্রমণ রোধ ও নিয়ন্ত্রণের (আইপিসি) অবস্থাবিষয়ক এক গবেষণায় বলা হয়, বেশির ভাগ হাসপাতালে আইপিসি কমিটি আছে। কিন্তু অধিকাংশ কমিটি কার্যকর নয়। অধিকাংশ হাসপাতালেই নেই আইপিসির জন্য নির্দিষ্ট জনবল। সরকারি ৬০ শতাংশ হাসপাতালে আইপিসি ব্যবস্থাপনা নেই। আর বেসরকারি হাসপাতালের ৫০ শতাংশে এই ব্যবস্থাপনা নেই। ফলে হাসপাতাল থেকে যেসব রোগের সংক্রমণ হয়, সেটি বাড়বে। এই সংক্রমণ মারাত্মক ও অ্যান্টিবায়োটিক প্রতিরোধী হয়।

এই গবেষণায় দেখা গেছে, অ্যান্টিবায়োটিক কীভাবে ব্যবহার করা হবে, এর একটি গাইডলাইন থাকলেও হাসপাতালগুলোয় তা মানা হয় না। এক-চতুর্থাংশ হাসপাতালে হ্যান্ড হাইজেনিং স্টেশন অর্থাৎ যেখানে হাত ধোয়ার জন্য কার্যকরী ব্যবস্থা নেই। প্রতি বেডে একজন রোগী থাকার কথা থাকলেও হাসপাতালগুলোয় বেডের চেয়ে বহুগুণ বেশি রোগী থাকছে। উন্নত দেশে আইপিসি হার ৩ থেকে ৫ শতাংশ হলেও এশিয়ার দেশগুলোয় এই হার ৩০ থেকে ৪০ শতাংশ।

নিরাপদ খাদ্য ও জনস্বাস্থ্যবিষয়ক গবেষণায় দেখা গেছে, নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করতে দেশে আইন, নীতিমালা ও বিধিমালা রয়েছে ১৫২টির মতো। আইনের অভাব না থাকলেও সেগুলোর বাস্তবায়ন খুব একটা নেই। যে কারণে নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করা যাচ্ছে না।

তথ্যের ঘাটতি-সম্পর্কিত এক গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০৩০ সালের মধ্যে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে স্বাস্থ্য খাতের যে ৪০টি সূচক রয়েছে, এসব ক্ষেত্রে সরকার কাজ করলেও পরিপূর্ণ তথ্য নেই। এ ৪০টি সূচকের মধ্যে চারটির কোনো সঠিক তথ্যই নেই। অন্যদিকে, ১০ সূচকের আংশিক তথ্য রয়েছে। আর বাকি ২৬টি সূচকের যাচাই করার মতো তথ্য আছে, তবে তা পরিপূর্ণ নয়। যে চারটি সূচকের কোনো তথ্য নেই, তা হলো জন্মহার, অনিরাপদ পানি ও অনিরাপদ স্যানিটেশন ও স্বাস্থ্যবিধির অভাবে মৃত্যুহার, স্বাস্থ্য সুযোগ-সুবিধার অনুপাত (যেখানে সাশ্রয়ী মূল্যের প্রাসঙ্গিক প্রয়োজনীয় ওষুধের সুবিধা রয়েছে) এবং নির্বাচিত অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল প্রতিরোধী ব্যাকটেরিয়ার কারণে রক্তপ্রবাহের সংক্রমণের তথ্য।

জনস্বাস্থ্য পুষ্টি প্রতিষ্ঠানের পরিচালক অধ্যাপক ডা. শাহ গোলাম নবীর নেতৃত্বে পরিচালিত এক গবেষণায় দেখা গেছে, জন্মের পরপরই মায়ের দুধ থেকে বঞ্চিত হয় দেশের ১৩ দশমিক ৭ শতাংশ শিশু। জন্মের প্রথম ছয় মাস (এক্সক্লুসিভ ব্রেস্ট ফিডিং) মায়ের দুধ থেকে বঞ্চিত হয় ৬ শতাংশ শিশু। জন্মের প্রথম দুই বছর মায়ের দুধ পায় না ৭ দশমিক ৭ শতাংশ শিশু। এ ছাড়া ছয় মাস বয়সের পরেও মায়ের দুধের পাশাপাশি ৮ দশমিক ২ শতাংশ শিশু বাড়তি খাবার পায় না।

স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ, মিটফোর্ড হাসপাতালের পরিচালক ব্রি. জে. কাজী মো. রাশিদ উন নবীসহ ১৩ জন চিকিৎসক একটি গবেষণা পরিচালনা করেন। সেখানে দেশের সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাব্যবস্থা সম্পর্কে নেওয়া রোগীদের সুস্পষ্ট মতামত উঠে এসেছে।

গবেষণায় দেখা গেছে, সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা ৬৯ দশমিক ৩৪ শতাংশ রোগীকে ওষুধ কিনে খেতে হয়। যদিও তাদের হাসপাতাল থেকে বিনা মূল্যে ওষুধ পাওয়ার কথা ছিল। এ ছাড়া ১৮ শতাংশ রোগীকে সরকারি হাসপাতালের সেবা পাওয়ার জন্য টাকা দিতে হয়। হাসপাতালে ব্যক্তিগত নিরাপত্তা নিয়ে অসন্তুষ্ট ৭৮ দশমিক ৪৩ শতাংশ রোগী।


আরও খবর



স্মার্ট শিক্ষা কারিকুলাম গড়ে তোলা হয়েছে : শিক্ষামন্ত্রী

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
রাহুল সরকার, চট্টগ্রাম ব্যুরো

Image

স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে স্মার্ট কারিকুলাম গড়ে তোলা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী।

শুক্রবার নগরীর প্যারেড মাঠে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন আয়োজিত আন্তঃস্কুল-কলেজ বার্ষিক ক্রীড়া, সাংস্কৃতিক ও বিতর্ক প্রতিযোগিতা-২০২৪ সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেন, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন বাংলাদেশের একটি অনন্য সিটি কর্পোরেশন যেটি শিক্ষা ও স্বাস্থ্যসেবায় ব্যাপক বিনিয়োগ করে৷ এক্ষেত্রে চসিক একটি মডেল সিটি কর্পোরেশন৷

শিক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে আমরা স্মার্ট কারিকুলাম গড়ে তুলছি। নতুন শিক্ষাক্রমে আমরা সফট স্কিল গড়ায় জোর দিচ্ছি৷ সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড, সময়মতো কাজ করার মানসিকতা, দলগত কাজ করার, নেতৃত্ব দেয়ার দক্ষতা গড়তে পুঁথিগত শিক্ষার পরিবর্তে আধুনিক এ শিক্ষা ব্যবস্থা গড়ে তোলা হচ্ছে।

মেয়রকে মাঠ রক্ষার আহ্বান জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, খেলার মাঠ দখল করে আমাদের মেলার প্রয়োজন নাই, খেলার প্রয়োজন৷ মাঠগুলোতে শিক্ষার্থীরা যাতে খেলতে পারে এজন্য চট্টগ্রামের মাঠগুলো রক্ষায় মেয়র মহোদয়কে এগিয়ে আসতে হবে৷ ছেলেদের পাশাপাশি মেয়েরাও যাতে খেলার সুযোগ পায় সে বিষয়ে সচেষ্ট হতে হবে। আমাদের একটা সুষম উন্নয়নের জন্য তাদেরও মানসিক এবং শারীরিক বিকাশ সবচেয়ে খুবই গুরুত্বপূর্ণ এবং তারাও এগিয়ে যাবে ছেলেদের সাথে মিলে এজন্য আমরা কাজ করছি৷

সভাপতির বক্তব্যে চট্টগ্রাম সিটি মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, চসিকের ৮২ টি স্কুলে ৬৫ হাজার শিক্ষার্থী পড়াশোনা করছে৷ আমি চাই শিক্ষার্থীরা ক্রীড়া, বিতর্ক ও সংস্কৃতি চর্চার মাধ্যমে এগিয়ে যাক৷ এজন্য চসিকের ইতিহাসে শিক্ষার্থীদের জন্য সবচেয়ে বড় এ আয়োজন করেছি।

মেয়র আরও বলেন, আমি চাই চট্টগ্রামের কোন শিশু শিক্ষা বঞ্চিত না থাকুক৷ এজন্য শিক্ষামন্ত্রীর কাছে আমার অনুরোধ যদি সম্ভব হয় চসিকের স্কুলগুলোকে এমপিওভুক্ত করুন৷ তাহলে আমরা আরো স্বল্প বেতনে আরো বেশি শিক্ষার্থীকে পড়াতে পারব৷

অনুষ্ঠানে চসিকের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর শিক্ষার্থীদের মাঝে প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণের পাশাপাশি মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশ নেয় শিক্ষার্থীরা৷

অনুষ্ঠানে চসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মুহম্মদ তৌহিদুল ইসলাম, প্যানেল মেয়র গিয়াস উদ্দিন, আফরোজা কালাম, চসিকের শিক্ষা স্থায়ী কমিটির সভাপতি কাউন্সিলর ড. নিছার উদ্দিন আহমেদ মঞ্জুসহ কাউন্সিলরবৃন্দ, সচিব খালেদ মাহমুদ, মেয়রের একান্ত সচিব ও প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা মুহাম্মদ আবুল হাশেমসহ বিভাগ ও শাখা প্রধানবৃন্দ, চট্টগ্রাম কলেজের অধ্যক্ষ মো. মোজাহিদুল ইসলাম চৌধুরী এবং চসিকের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।


আরও খবর
জাবির ‘ডি’ ইউনিটের ফল প্রকাশ

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




আজকের রাশিফল: বুধবার ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জীবন ধারা ডেস্ক

Image

আজ নতুন কী ঘটতে চলেছে? আজ কি আপনার জন্য ভাল কিছু অপেক্ষা করে আছে? কেমন থাকবে আপনার আর্থিক অবস্থা? নাকি খারাপ কিছুর অপেক্ষা করে আছে আপনার ভাগ্যে। বিখ্যাত জ্যোতিষীর দ্বারা বিশ্লেষণের পর আজকের দিন নিয়ে ভবিষ্যত গণনা জানুন আপনার আজকের রাশিফলে।

মেষ/ Aries রাশিফল ( March 21 April 20 )

কিছু জিনিস আপনার বিবাহিত জীবনে আজ সত্যিই সুন্দর হবে। আপনার স্ত্রীর জন্য একটি চমৎকার সন্ধ্যার পরিকল্পনা করুন। আপনি মানসিকভাবে এবং শারীরিকভাবে সামান্য নীচু থাকবেন। বিশ্রাম আপনার শক্তি বৃদ্ধি করতে সাহায্য করবে।

বৃষ/ Taurus রাশিফল ( April 21 May 21 )

প্রেমের সবসময়ই গভীর ভাবপূর্ণ। আপনি আজ এই অভিজ্ঞতা লাভ করবেন। আপনি আজ কর্মক্ষেত্রে সত্যিই দারুণ কিছু করতে পারেন। আজকে আপনি আপনার খালি সময়ের সঠিক ব্যবহার করার জন্য ভাবুন।

মিথুন/ Gemini রাশিফল ( May 22 June 21 )

আপনার মনের মধ্যে ইতিবাচক চিন্তা আনুন। আপনার খরচা নিয়ন্ত্রণ করতে চেষ্টা করুন।আজ কেবলমাত্র জরুরী জিনিসই কিনুন। আগে থেকে করা ভ্রমণের পরিকল্পনা পরিবারের স্বাস্হ্য সংক্রান্ত সমস্যার জন্য স্থগিত হয়ে যেতে পারে।

কর্কট/ Cancer রাশিফল ( June 22 July 23 )

সুযোগের সঙ্গে এগিয়ে চলুন যা আপনার দিকে আসছে। আপনার অনুভূতি কী তা সবাইকে জানাতে ব্যস্ত হবেন না। আপনার স্ত্রী আজ শক্তি এবং প্রেমে পূর্ণ থাকবেন।

সিংহ/ Leo রাশিফল ( July 24 August 23 )

আজ, পরিবারের মধ্যে কোনও বিতর্ক বা বিরোধের সম্ভাবনা রয়েছে। নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করুন। আজ আপনার ভালোবাসার মানুষটির অনুভূতি বুঝুন। আপনার অনেক কিছু অর্জন করার ক্ষমতা আছে।

কন্যা/ Virgo রাশিফল ( August 24 September 23 )

আজ অর্থ হ্রাস হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। লেনদেন করার সময় বা কোনও দস্তাবেজ সই করার সময় আপনার সজাগ থাকা প্রয়োজন। পরিবারের পরিস্থিতি যেমন আপনি ভাবেন তেমন স্বাভাবিক হবে না।

তুলা/ Libra রাশিফল ( Sept 24 Oct 23)

কিছু প্রতিকূলতার সামনা করা সম্ভবপর। মনোক্ষুণ্ণ হবেন না বরং আকাঙ্খিত ফল পেতে কঠোর পরিশ্রম করুন। প্রতিকূলতাগুলিকে সাফল্যর পদক্ষেপে পরিণত হতে দিন। সঙ্কটের মুহুর্তে আত্মীয়রাও সাহায্য করবে।

বৃশ্চিক/ Scorpio রাশিফল ( Oct 24 Nov 22 )

সত্যিই ভাল মনে হবে। নিজের মন কে নিয়ন্ত্রণে রাখতে শিখুন কেননা অনেক বার আপনি আপনার মনের কথা শুনে মূল্যবান সময় নষ্ট করে ফেলেন। আজকেউ আপনি এরকম কিছু করতে পারেন। ভালবাসা এবং ভাল খাবার বিবাহিত জীবনের বুনিয়াদি হয়।

ধনু/ Sagitarious রাশিফল ( Nov 23 Dec 22 )

স্নেহশীল মেজাজ-আপনার মিশুকে স্বভাব আপনার চারপাশে যারা আছেন তাদেরকে আনন্দ এবং খুশি এনে দেবে। আপনার ভালবাসার জীবন আজ সত্যি সত্যিই আপনার জন্যে অসাধারণ কিছু বয়ে আনবে। আজ, আপনি সত্য জানতে পারবেন যে কেন আপনার বস সবসময় আপনার সাথে অভদ্র ব্যবহার করে।

মকর/ Capricorn রাশিফল ( Dec 23 Jan 20 )

পরিবারের সাথে সময় কাটাতে পারেন। আপনি এবং আপনার স্ত্রী আজ একটি বিস্ময়কর খবর পেতে পারেন। ভয় আপনার খুশিকে বিঘ্নিত করতে পারে। আপনাকে বুঝতে হবে যে এটি আপনার নিজস্ব ভাবনা এবং কল্পনার ফসল।

কুম্ভ/ Aquarious রাশিফল ( Jan 21 Feb 19 )

ধর্মনিষ্ঠ এবং পবিত্র ভালোবাসার অভিজ্ঞতা অর্জন করুন। নতুন উদ্যোগ বা খরচকে পিছিয়ে দিন। আজকে আপনি হটাৎই কাজ থেকে ছুটি নেওয়ার পরিকল্পনা করতে পারেন।

মীন/ Pisces রাশিফল ( Feb 20 Mar 20 )

একটি আমোদপ্রমোদ এবং মজার দিন। আপনি যে কারও সাহায্যে অর্থ উপার্জন করতে সক্ষম হতে পারেন। আপনার যা প্রয়োজন তা হল নিজেকে বিশ্বাস করা। যথাযথ ভাববিনিময় এবং সহযোগিতা স্ত্রীর সাথে সম্পর্ক উন্নত করবে।


আরও খবর
২৯ ফেব্রুয়ারি: ইতিহাসের এই দিনে

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

আজকের রাশিফল: বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বেইলি রোডে আগুন: ভিকারুননিসার শিক্ষিকা ও তার মেয়ে নিহত

প্রকাশিত:শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

রাজধানীর বেইলি রোডের বহুতল ভবনে আগুনের ঘটনায় ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষিকা লুৎফুর নাহার করিম (৪৭) ও তার মেয়ে ব্রাক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী জান্নাতি তাজরিন (২৩) নিহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার রাতে স্ত্রী ও মেয়ের মরদেহ শনাক্ত করেন এম. এ. এইচ গোলাম মহিউদ্দিন।

বিলাপ করতে করতে তিনি জানান, তার স্ত্রী দাঁতের ব্যথায় ভুগছিলেন। দাঁত দেখাতে হাসপাতালে যান মেয়েকে নিয়ে। ফেরার পথে কাচ্চি খেয়ে আসার পরামর্শ দেন মহিউদ্দিনই। এখন স্ত্রী-মেয়ের মৃত্যুর জন্য তিনি নিজেকে অপরাধী মনে করছেন।

কলাবাগান থানার উপপরিদর্শক (এএসআই) গোলাম হোসেন বলেন, নিহতদের স্বজনেরা যাদের শনাক্ত করেছেন আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে তাদের মরদেহ হস্তান্তর করা হচ্ছে।

এর আগে বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে বেইলি রোডে একটি বহুতল ভবনে আগুন লাগে। এতে অন্তত ৪৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। গুরুতর আহত হয়েছেন অন্তত ২২ জন। এ ঘটনায় নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।


আরও খবর
শপথ নিলেন নতুন ৭ প্রতিমন্ত্রী

শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪




ছাত্রীদের যৌন হয়রানি : ভিকারুননিসার শিক্ষক মুরাদ রিমান্ডে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আদালত প্রতিবেদক

Image

রাজধানীর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের আজিমপুর শাখার গণিত শিক্ষক মুরাদ হোসেন সরকারকে দুই দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে শিক্ষক মুরাদকে আদালতে তোলে পুলিশ। পরে তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বিচারকের কাছে ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়। পরিপ্রেক্ষিতে দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন তিনি।

আরো পড়ুন :ছাত্রীদের যৌন হয়রানি : ভিকারুননিসার শিক্ষক মুরাদ সাময়িক বরখাস্ত

এর আগে সোমবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় লালবাগ থানায় শিক্ষক মুরাদের বিরুদ্ধে নারী নির্যাতন মামলা করেন এক তরুণী। থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খন্দকার মোহাম্মদ হেলাল উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

ওই দিন রাতেই কলাবাগানের একটি বাসা থেকে শিক্ষক মুরাদকে গ্রেপ্তার করা হয়। একই রাতে তাকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করে ভিকারুননিসার কর্তৃপক্ষ। এর আগে আজিমপুর ক্যাম্পাসের দিবা শাখা থেকে তাকে প্রত্যাহার করে অধ্যক্ষের কার্যালয়ে সংযুক্ত করা হয়।

আরো পড়ুন :শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানি : ভিকারুননিসার শিক্ষক মুরাদ গ্রেপ্তার

বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের দাবি, অভিযুক্ত মুরাদ দীর্ঘদিন ধরে কোচিংয়ে পড়ানোর নামে ছাত্রীদের যৌন হয়রানি করে আসছিলেন।


আরও খবর
জজ কোর্ট চত্বরে ককটেল বিস্ফোরণ

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




শবে বরাত কবে, জানা যাবে আগামীকাল

প্রকাশিত:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

হিজরি ১৪৪৫ সনের শাবান মাসের পবিত্র শবে বরাতের তারিখ নির্ধারণে আগামীকাল বসবে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটি। আজ শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সহকারী জনসংযোগ কর্মকর্তা শায়লা শারমীন স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, আগামীকাল সন্ধ্যা সোয়া ৬টায় (বাদ মাগরিব) ইসলামিক ফাউন্ডেশন বায়তুল মুকাররমে এই সভা অনুষ্ঠিত হবে। এতে ধর্মমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খানের সভাপতিত্ব করার কথা রয়েছে।

এদিকে বাংলাদেশের আকাশে কোথাও পবিত্র শাবান মাসের চাঁদ দেখা গেলে টেলিফোন ও ফ্যাক্স অথবা সংশ্লিষ্ট জেলার জেলা প্রশাসক বা উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে জানাতে অনুরোধ করেছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন।

টেলিফোন নম্বর: ০২-২২৩৩৮১৭২৫, ০২-৪১০৫০৯১২, ০২-৪১০৫০৯১৬ ও ০২-৪১০৫০৯১৭। ফ্যাক্স নম্বর: ০২-২২৩৩৮৩৩৯৭ ও ০২-৯৫৫৫৯৫১।


আরও খবর
শবে বরাত সম্পর্কে হাদিসে যা বলা হয়েছে

রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪