আজঃ বৃহস্পতিবার ১৩ মে ২০২১
শিরোনাম

সত্যজিৎ রায়ের জন্মদিন আজ

প্রকাশিত:রবিবার ০২ মে 2০২1 | হালনাগাদ:রবিবার ০২ মে 2০২1 | ৮১জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কিংবদন্তি চলচ্চিত্র নির্মাতা সত্যজিৎ রায়ের একশ একতম জন্মদিন আজ রোববার। ১৯২১ সালের আজকের দিনে কলকাতার বিখ্যাত রায় পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। বাবা সুকুমার রায় এবং পিতামহ উপেন্দ্রকিশোর রায় চৌধুরী দুজনেই বাংলা সাহিত্যের উজ্জ্বল নক্ষত্র।

কলকাতায় জন্ম হলেও তাঁর আদি পৈতৃক ভিটা ছিল বাংলাদেশের কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলার মসুয়া গ্রামে। পৈতৃক বাড়িটি এখনো রয়েছে সেখানে। ওখানেই তাঁর পিতামহ উপেন্দ্রকিশোর রায়চৌধুরী ও বাবা সুকুমার রায়ের জন্ম।

উপমহাদেশের চলচ্চিত্রকে এক অভিন্ন মাত্রা দিয়েছিলেন সত্যজিৎ রায়। ২০০৪ সালে বিবিসির জরিপে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি তালিকায় ১৩তম স্থান লাভ করেছিলেন তিনি।

সত্যজিৎ কলকাতার প্রেসিডেন্সি কলেজ ও শান্তিনিকেতনে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর প্রতিষ্ঠিত বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেন। সত্যজিতের কর্মজীবন একজন বাণিজ্যিক চিত্রকর হিসেবে শুরু হলেও প্রথমে কলকাতায় ফরাসি চলচ্চিত্র নির্মাতা জঁ রনোয়ারের সঙ্গে সাক্ষাৎ ও পরে লন্ডন শহরে সফররত অবস্থায় ইতালীয় নব্য বাস্তবতাবাদী চলচ্চিত্র লাদ্রি দি বিচিক্লেত্তে (ইতালীয়: বাইসাইকেল চোর) দেখার পর তিনি চলচ্চিত্র নির্মাণে উদ্বুদ্ধ হন।

১৯৪৭ সালে সত্যজিৎ রায় ও চিদানন্দ দাসগুপ্ত কলকাতা ফিল্ম সোসাইটি প্রতিষ্ঠা করেন। তিনি ১৯৪৯ সালে বিজয়া দাসকে বিয়ে করেন। সত্যজিৎ দম্পতির ঘরে ছেলে সন্দীপ রায়ের জন্ম হয়, যিনি নিজেও বর্তমানে একজন প্রথিতযশা চলচ্চিত্র পরিচালক।

সত্যজিৎ ৩৭টি পূর্ণদৈর্ঘ্য কাহিনিচিত্র, প্রামাণ্যচিত্র ও স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন। ১৯৫২ সালে বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিখ্যাত উপন্যাস পথের পাঁচালি নিয়ে চলচ্চিত্র নির্মাণ কাজ শুরু করেন তিনি। ১৯৫৫ সালে ছবিটির নির্মাণ সম্পন্ন হয় এবং সে বছরই ছবিটির মুক্তি দেওয়া হয়। মুক্তি পাওয়ার পর ছবিটি ব্যাপক দর্শকনন্দিত হয়। এমনকি ভারতবর্ষের বাইরেও ছবিটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা লাভ করে। পথের পাঁচালী মোট ১১টি আন্তর্জাতিক পুরস্কার লাভ করে। এর মধ্যে অন্যতম ছিল কান চলচ্চিত্র উৎসবে পাওয়া বেস্ট হিউম্যান ডকুমেন্ট পুরস্কার।

সত্যজিৎ রায় পরবর্তীতে বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের গল্প-উপন্যাস অবলম্বনে অপরাজিতঅপুর সংসার নামে আরও দুইটি চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন। এ তিনটি চলচ্চিত্র একত্রে অপু ট্রিলজি হিসেবেই পরিচিত।

সত্যজিৎ রায়ের উল্লেখযোগ্য কাজের মধ্যে রয়েছে- তিন কন্যা (১৯৬১), চারুলতা (১৯৬৪), নায়ক (১৯৬৬), প্রতিদ্বন্দ্বী (১৯৭০), সীমাবদ্ধ (১৯৭১) ও জন অরণ্য (১৯৭৫) গণশত্রু (১৯৮৯), শাখাপ্রশাখা (১৯৯০) ও আগন্তুক (১৯৯১)।

বাংলা চলচ্চিত্রের বাইরে সত্যজিৎ রায় ১৯৭৭ সালে শতরঞ্জ কি খিলাড়ি নামের হিন্দি ও উর্দু সংলাপ নির্ভর একটি চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন। পরবর্তীতে সত্যজিৎ প্রেমচাঁদের গল্পের ওপর ভিত্তি করে সদ্গতি নামের হিন্দি ভাষায় এক ঘণ্টার একটি ছবি বানিয়েছিলেন। সত্যজিৎ রায়ের অমর সৃষ্টি গোয়েন্দা চরিত্র ফেলুদাপ্রফেসর শঙ্কু

বর্ণময় কর্মজীবনে সত্যজিৎ বহু আন্তর্জাতিক পুরস্কার পেয়েছেন, যার মধ্যে বিখ্যাত হলো ১৯৯২ সালে পাওয়া একাডেমি সম্মানসূচক পুরস্কার (অস্কার), যা তিনি সমগ্র কর্মজীবনের স্বীকৃতি হিসেবে অর্জন করেন। তিনি এ ছাড়া ৩২টি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার, একটি গোল্ডেন লায়ন, দুটি রৌপ্য ভল্লুক লাভ করেন।

সত্যজিৎ অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মানসূচক ডিগ্রি লাভ করেন। ১৯৯২ সালে ভারত সরকার তাঁকে দেশের সর্বোচ্চ বেসামরিক পুরস্কার ভারতরত্ন সম্মাননা প্রদান করে। সত্যজিৎ পদ্মভূষণসহ মর্যাদাপূর্ণ সব ভারতীয় পুরস্কার লাভ করেন। ১৯৯২ সালের ২৩ এপ্রিল এই খ্যাতিমান চলচ্চিত্র নির্মাতা মৃত্যুবরণ করেন।

নিউজ ট্যাগ: সত্যজিৎ রায়

আরও খবর



টাইগারদের বিবর্ণ বোলিংয়ে ঝলমলে তাসকিন

প্রকাশিত:শুক্রবার ৩০ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ৩০ এপ্রিল ২০২১ | ৬৩জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ফিল্ডারদের ব্যর্থতায় আগের দিন মেলেনি উইকেট। তবে তাসকিন আহমেদের আত্মবিশ্বাস আর উদ্যমে তা প্রভাব ফেলতে পারেনি। দ্বিতীয় নতুন বলেও করলেন গতিময় বোলিং, আদায় করে নিলেন মুভমেন্ট। সঙ্গে মিলল দুটি গুরুত্বপূর্ণ উইকেট। তার হাত ধরেই ছয়শ রানে চোখ রাখা শ্রীলঙ্কাকে নাড়িয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ।

পাল্লেকেলেতে দ্বিতীয় টেস্টের দ্বিতীয় দিন লাঞ্চ বিরতিতে শ্রীলঙ্কার স্কোর ১১৬ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ৩৩৪ রান। প্রথম সেশনে ২৬ ওভারে মাত্র ৪৩ তুলতে ৩ উইকেট হারিয়েছে তারা।

১ উইকেটে ২৯১ রান নিয়ে শুক্রবারের খেলা শুরু করে লঙ্কানরা প্রথম ঘণ্টায় ১২ ওভারে কোনো উইকেট না হারিয়ে যোগ করে ১৮ রান। দ্বিতীয় ঘণ্টায় ১৪ ওভারে ২৫ রান তুলতেই আগের দিনের সেঞ্চুরিয়ান লাহিরু থিরিমান্নে, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস ও ধনাঞ্জয়া ডি সিলভার উইকেট হারায় স্বাগতিকরা।

এক প্রান্ত আগলে রেখেছেন ওশাদা ফার্নান্দো। ১৭২ বলে ৭ চারে ৬৫ রানে অপরাজিত তিনি। ১৩ বল খেলে এখনও রানের খাতা খুলতে পারেননি পাথুম নিশানকা।

প্রথম দিন প্রথম ঘণ্টা কাটিয়ে দেওয়ার পর সাবলীলভাবে এগিয়ে গিয়েছিল শ্রীলঙ্কা। তবে দ্বিতীয় দিন কঠিন সময় পার করে দেওয়ার পরও মেলেনি স্বস্তি। তাসকিন, তাইজুল ইসলামদের দারুণ বোলিংয়ে দ্রুত তিন উইকেট নিয়ে ঘুরে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ। সকালের সেশনের শেষ ভাগে কিছুটা সহায়তা পেয়েছেন বোলাররা।

দ্বিতীয় নতুন বল তখনও বেশ নতুন। প্রথম ঘণ্টায় তাই ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে তিন পেসারকে দিয়ে বোলিং করান অধিনায়ক মুমিনুল হক। দিনের শুরুতে বল হাতে পান তাসকিন ও শরিফুল ইসলাম। নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে ব্যাটসম্যানদের বেঁধে রাখেন দুজন। দুয়েকটা বাজে ডেলিভারিও অবশ্য করেন। তাতে হজম করেন বাউন্ডারি।

পানি পানের বিরতির আগে আবু জায়েদকে চার মেরে ওশাদা ফিফটি পূর্ণ করেন ১৩২ বলে। তাতে দ্বিতীয় উইকেট জুটির রানও স্পর্শ করে শতরান।

বিরতির পর তৃতীয় ওভারেই মেলে সাফল্য। ধৈর্যশীল ব্যাটিংয়ে এগোচ্ছিলেন থিরিমান্নে। হঠাৎই যেন একটু মনোযোগ হারান। তাসকিনের লেগ স্টাম্পের বাইরের বল তার গ্লাভস ছুঁয়ে জমা হয় কিপার লিটন দাসের গ্লাভসে। ২৮৯ বলে ১৫ চারে গড়া লঙ্কান ওপেনারের ১৪০ রানের ইনিংস।

দুই বল পরই তাসকিন উইকেট পেতে পারতেন আরেকটি। তার লেংথ বল ডিফেন্স করার চেষ্টায় পরাস্ত হন ম্যাথিউস। বল যায় লিটনের গ্লাভসে। পরে আল্টা এজে মেলে ব্যাটে বলের স্পর্শের প্রমাণ। কিন্তু আবেদন করেননি সফরকারীদের কেউই!

সেটির মূল্য অবশ্য খুব বেশি দিতে হয়নি। নিজের এক ওভার পরই তাসকিন ফিরিয়ে দেন ম্যাসথিউসকে। ব্যাটের কানা ছুঁয়ে আসা ক্যাচ ঝাঁপিয়ে গ্লাভসে জমান লিটন।

প্রথম টেস্টে দেড়শ ছাড়ানো ইনিংস খেলা ধনাঞ্জয়া ডি সিলভাকে টিকতে দেননি তাইজুল ইসলাম। বাঁহাতি স্পিনারের অফ স্টাম্পের বল জায়গায় দাঁড়িয়ে ডিফেন্স করতে চেয়েছিলেন ধনাঞ্জয়া। ব্যাটের কানায় স্পর্শ করে লিটনের গ্লাভস ছুঁয়ে বল যায় স্লিপে নাজমুল হোসেন শান্তর কাছে। দুইবারের চেষ্টায় বল মুঠোবন্দি করেন তিনি।

প্রথম দিনের খেলা শেষে লঙ্কান অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নে বলেছিলেন, অন্তত ৬০০ রান করতে চান তারা। প্রথম সেশনে বাংলাদেশের বোলিংয়ে সেই লক্ষ্য মনে হচ্ছে অনেক দূরের পথ।


আরও খবর



বাংলাদেশ ২০ মিলিয়ন টিকা চেয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৬ মে ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ মে ২০২১ | ৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
আপনার যখন অন্যান্য দেশকে করোনার টিকা দেবেন, তখন বাংলাদেশকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে যেন দেওয়া হয়। যুক্তরাষ্ট্রের কাছে ৬০ মিলিয়ন ডোজ অ্যাস্ট্রেজেনেকার টিকা সংরক্ষিত রয়েছে। তবে তারা সেটি ব্যবহার

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন জানিয়েছেন, যুক্তরাষ্ট্রের কাছে ১০ থেকে ২০ মিলিয়ন (দুই কোটি) টিকা চাওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৬ মে) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি এ কথা জানান।

ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল মিলার পররাষ্ট্র মন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেন। বৈঠক শেষে ড. আব্দুল মোমেন বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে ৬০ মিলিয়ন ডোজ টিকা অতিরিক্ত রয়েছে। আমরা যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে বৈঠকে ১০ থেকে ২০ মিলিয়ন টিকা চেয়েছি।

তিনি বলেন, বৈঠকে বলেছি, আপনার যখন অন্যান্য দেশকে করোনার টিকা দেবেন, তখন বাংলাদেশকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে যেন দেওয়া হয়। যুক্তরাষ্ট্রের কাছে ৬০ মিলিয়ন ডোজ অ্যাস্ট্রেজেনেকার টিকা সংরক্ষিত রয়েছে। তবে তারা সেটি ব্যবহার করছে না। আর আমাদের এখানে দ্বিতীয় ডোজ সম্পূর্ণ হচ্ছে না। সে কারণেই জরুরি ভিত্তিতে আমরা টিকা চেয়েছি।

এক প্রশ্নের উত্তরে ড. আব্দুল মোমেন বলেন, আমরা যুক্তরাষ্ট্রের কাছে জরুরিভাবে চার মিলিয়ন টিকা চেয়েছি। যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত বলেছেন, তিনি এটা জোরালোভাবে দেখছেন। টিকা উৎপাদনে রাশিয়া একটি প্রোপোজাল দিয়েছে। সে অনুযায়ী স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় কাজ করছে।

তিনি বলেন, চীনা রাষ্ট্রদূত আমাদের জানিয়েছেন, তাদের টিকা আগামী ১২ মে ঢাকা এসে পৌঁছাবে। তবে এ টিকা আনার খরচ আমরা বহন করছি। আমাদের বিমান দিয়ে এ টিকা নিয়ে আসা হচ্ছে।  আর রাশিয়া ও চীনে এখন দীর্ঘ ছুটি রয়েছে। সে কারণে টিকা পেতে দেরি হচ্ছে। তবে আমরা যথাসাধ্য চেষ্টা করছি।


আরও খবর



করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৩২ লাখ ৪১ হাজার

প্রকাশিত:বুধবার ০৫ মে ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৫ মে ২০২১ | ৬৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশ যুক্তরাষ্ট্রে। তালিকায় শীর্ষে থাকা দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ৩ কোটি ৩২ লাখ ৭৪ হাজার ৬৫৯ জন আর ৫ লাখ ৯২ হাজার ৪০৯ জন মারা গেছেন

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির সংখ্যা কোনোভাবেই কমছে না। সবশেষ করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৫ কোটি ৪৯ লাখ ৭৩ হাজার ৪৮ জন। আর এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩২ লাখ ৪১ হাজার ২৪ জনে। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছে ১৩ কোটি ২৪ লাখ ২৭ হাজার ২৮৬ জন।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটার থেকে বুধবার (৫ মে) সকালে এই তথ্য জানা গেছে।

ওয়ার্ল্ডওমিটারের সবশেষ তথ্য অনুযায়ী, করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশ যুক্তরাষ্ট্রে। তালিকায় শীর্ষে থাকা দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ৩ কোটি ৩২ লাখ ৭৪ হাজার ৬৫৯ জন আর ৫ লাখ ৯২ হাজার ৪০৯ জন মারা গেছেন। করোনায় আক্রান্তের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে প্রতিবেশী দেশ ভারত। তবে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের তালিকায় দেশটির অবস্থান চতুর্থ। দেশটিতে মোট আক্রান্ত ২ কোটি ৬ লাখ ৫৮ হাজার ২৩৪ জন এবং মারা গেছেন ২ লাখ ২৬ হাজার ১৬৯ জন।

লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল করোনায় আক্রান্তের দিক থেকে তৃতীয় ও মৃত্যুর সংখ্যায় তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে। দেশটিতে মোট শনাক্ত রোগী ১ কোটি ৪৮ লাখ ৬০ হাজার ৮১২ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৪ লাখ ১১ হাজার ৮৫৪ জনের। দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ৬১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এনিয়ে এখন পর্যন্ত দেশে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১১ হাজার ৭০৫ জনে। এছাড়া এই সময়ে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন এক হাজার ৯১৪ জন। এ নিয়ে মোট আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল সাত লাখ ৬৫ হাজার ৫৯৬ জন।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীন থেকে সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর বিশ্বব্যাপী ছড়িয়েছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। গত বছরের ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।


আরও খবর



ইসরায়েলে ধর্মীয় অনুষ্ঠানে পদদলিত হয়ে ৪৪ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:শুক্রবার ৩০ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ৩০ এপ্রিল ২০২১ | ১০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ইসরায়েলের একটি ধর্মীয় উৎসবে শুক্রবার (৩০ এপ্রিল) সকালে পদদলিত হয়ে কমপক্ষে ৪৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। ইসরায়েলের ন্যাশনাল এমারজেন্সি সার্ভিস (এমডিএ) বহু সংখ্যক হতাহাতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। তবে তারা নির্দিষ্ট সংখ্যা উল্লেখ করেনি।

ইসরায়েলের সংবাদপত্র হারেটস্ জানিয়েছে, এই ঘটনায় ৪৪ জন নিহত হয়েছে। বহু সংখ্যক আহত হয়েছে। জরুরি সেবা কর্মীরা উদ্ধার কাজ পরিচালনা করছে।

সংবাদ সংস্থা এপি দেশটির হাসপাতালের কর্মকর্তাদের উদ্ধৃতি দিয়ে জানিয়েছে, মৃত্যুর সংখ্যা কমপক্ষে ৪০। এবং আহত ১৫০ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু এই ঘটনাকে বড় বিপর্যয় হিসেবে বর্ণনা করেছেন।

দেশটির উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় মেরন পর্বতের পাদদেশে লক্ষাধিক মানুষের অংশগ্রহণে লাগ বি'ওমের নামের এই ধর্মীয় উৎসব হচ্ছিলো। করোনাভাইরাস মহামারি শুরুর পর থেকে ইসরায়েলে এটি হচ্ছে সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব। ভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি থাকা সত্ত্বেও এই উৎসব হয়েছে।

অ্যা্ম্বুলেন্সে করে আহতদের হাসপাতালে নিয়ে যেতে দেখা গেছে। এমডিএ টুইটারে এক বার্তায় জানিয়েছে, প্রথম দিকে মনে হয়েছিল, উৎসবস্থলে কোনো স্থাপনা ভেঙে পড়েছে। কিন্তু পরে বিষয়টি স্পষ্ট হয়, সেখানে পদদলিত হয়ে মৃত্যু হয়েছে। দুর্ঘটনায় ৩৮ জনের অবস্থা সংকটাপন্ন। আহতদের উদ্ধার করার জন্য তারা সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলে জানায় সংস্থাটি।

পুলিশের সূত্রগুলো হারেটস্ পত্রিকাকে জানিয়েছে, উৎসবে অংশগ্রহণকারী কিছু মানুষ পা পিছলে পড়ে যাওয়ার মাধ্যমে ঘটনার সূত্রপাত। এরপর তাদের ওপর আরো অনেকে এসে পড়ে।

একজন প্রত্যক্ষদর্শী সংবাদ সংস্থা বিবিসিকে বলেন, এই ঘটনা মুহূর্তের মধ্যে ঘটে যায়। মানুষজন একজন আরেকজনের ওপর এসে পড়ে যায়। এটা ছিল একটা বিপর্যয়।

প্রতি বছর অর্থোডক্স ইহুদিরা মেরন পাহাড়ের পাদদেশে এই ধর্মীয় উৎসবে অংশ নেয়। আগুন জ্বালানো, প্রার্থনা করা এবং নাচের মধ্যদিয়ে এই ধর্মীয় উৎসব পালন করে তারা।

করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে গত বছর এই উৎসবের ক্ষেত্রে বিধি-নিষেধ ছিল। কিন্তু ইসরায়েলে সফল টিকাদান কর্মসূচির কারণে সম্প্রতি বহু বিধি-নিষেধ তুলে নেওয়া হয়েছে।


আরও খবর



এবার বাংলাদেশি ফ্লাইট প্রবেশে কুয়েতের নিষেধাজ্ঞা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ মে ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১১ মে ২০২১ | ৬২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে বাংলাদেশসহ চার দেশের যাত্রীবাহী বিমান প্রবেশে অনির্দিষ্টকালের জন্য নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের অন্যতম উপসাগরীয় দেশ কুয়েত। দেশগুলো হলো- বাংলাদেশ, নেপাল, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কা। তবে পণ্যবাহী কার্গো প্লেনগুলোকে এই নিষেধাজ্ঞার বাইরে রাখা হয়েছে। কুয়েতের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা কুনাকে উদ্ধৃত করে দ্য নিউজ অনলাইন এ তথ্য জানায়।

কুয়েতের বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (ওডিজিসিএ) বিবৃতিতে বলা হয়, চার দেশের নাগরিকরা যদি অন্য কোনো দেশের ফ্লাইটের মাধ্যমে কুয়েতে প্রবেশ করতে চান, সেক্ষেত্রে অবশ্যই অন্য দেশে ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকার সনদ সঙ্গে রাখতে হবে।

কুয়েতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পরামর্শেই ফ্লাইট বন্ধের এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় গতকাল আরব আমিরাত আগামীকাল বুধবার থেকে এই চার দেশের ফ্লাইট নিষেধাজ্ঞার ঘোষণা দেয়। করোনাভাইরাসের পরিস্থিতি অবনতি হওয়ায় গতকাল সোমবার (১০ মে) বাংলাদেশসহ নেপাল, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কার নাগরিকদের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাত। এরপর একইদিনে থাইল্যান্ড এ নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল।


নিউজ ট্যাগ: কুয়েত বাংলাদেশ

আরও খবর