আজঃ বৃহস্পতিবার ১৩ মে ২০২১
শিরোনাম

স্বাধীনতাবিরোধী প্রেতাত্বাদের এই বাংলাদেশে উত্থান ঘটতে দেওয়া হবে না: রেজাউল করিম

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩০ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ৩০ মার্চ ২০২১ | ৫৩৮জন দেখেছেন
ফাহাদ মশিউর রহমান

Image
৭১ এর রাজাকাররা কেউ হেফাজত নামে, কেউ নেজামে ইসলাম নামে, কেউ মুসলীম লীগ নামে নতুন করে দেশে অস্থিতিশীলতা সৃষ্টি করছে। ইসলাম ধর্ম সহিংসতায় বিশ্বাস করে না, সন্ত্রাসকে পছন্দ করে না

স্বাধীনতাবিরোধী প্রেতাত্বাদের এই বাংলাদেশে উত্থান ঘটতে দেওয়া হবে না বলে মন্তব্য করেছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।

মঙ্গলবার (৩০ মার্চ) দুপুরে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষ্যে ঢাকার গেন্ডারিয়ায় মিল ব্যারাক নৌ জেটিতে বাংলাদেশ আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটি আয়োজিত নৌ র‌্যালি, ২০২১ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এ মন্তব্য করেন।

এসময় তিনি বলেন, “’৭১ এর রাজাকাররা কেউ হেফাজত নামে, কেউ নেজামে ইসলাম নামে, কেউ মুসলীম লীগ নামে নতুন করে দেশে অস্থিতিশীলতা সৃষ্টি করছে। ইসলাম ধর্ম সহিংসতায় বিশ্বাস করে না, সন্ত্রাসকে পছন্দ করে না, জঙ্গীবাদে বিশ্বাস করে না। মহানবী রাসুলুল্লাহ (সা.) ধর্ম নিয়ে বাড়াবাড়ি করতে নিষেধ করেছেন। কারো উপর জুলুম না করতে বলেছেন, ফেৎনা-ফেসাদ সৃষ্টি না করার জন্য বলেছেন। তিনি বলেছেন এগুলো যুদ্ধের চেয়ে বড় অপরাধ। কিন্তু ইসলামের নামধারী কিছু উচ্ছৃঙ্খল, সাম্প্রদায়িক শক্তি বাংলাদেশকে নতুন করে অস্থিতিশীল অবস্থায় নিয়ে যেতে চাইছে।

এ প্রসঙ্গে মন্ত্রী আরো বলেন, দেশ যখন শান্তিতে আছে, মানুষের যখন অভাব-অনটন নেই, অন্ন, বস্ত্র, বাসস্থান, শিক্ষা, চিকিৎসার সব সুযোগ যখন মিলছে, এটা একটা শ্রেণির লোকদের ভালো লাগছে না। এরা হলো মুক্তিযুদ্ধের পরাজিত শক্তি। ওরা মারা যায়নি। ওদের প্রেতাত্বারা বেঁচে আছে। ওদের সন্তানরা এদেশে এখনও বেঁচে আছে। যারা মুক্তিযুদ্ধের বাংলাদেশ পছন্দ করে না, শান্তির বাংলাদেশ পছন্দ করে না, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ পছন্দ করে না, অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ পছন্দ করে না। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়নের যে অপ্রতিরোধ্য গতি এটা ওদের ভালো লাগছে না। এজন্য বেগম খালেদা জিয়া নিজ বাড়িতে থেকেও অকৃতজ্ঞের মতো মির্জা ফখরুল ও কয়েকজনকে দিয়ে দেশের পরিবেশ অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করছেন।

শ ম রেজাউল করিম আরো বলেন, এ সময়ে একজন মানুষও না খেয়ে নেই, বিবস্ত্র অবস্থায় নেই, টাকার অভাবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যেতে পারে না এমন অবস্থায় নেই। বাংলাদেশে অন্ন, বস্ত্র, বাসস্থান, চিকিৎসা ও শিক্ষায় অভাবনীয় উন্নতি হয়েছে। বর্তমানে ইলিশ অহরণে বাংলাদেশ পৃথিবীর সেরা অবস্থানে রয়েছে। মিঠা পানির মাছ উৎপাদনে তৃতীয় অবস্থান, স্বাদু পানির মাছ উৎপাদন বৃদ্ধিতে দ্বিতীয় অবস্থান এবং চাষের মাছ উৎপাদনে পঞ্চম অবস্থানে থেকে সারাবিশ্বে মাছ উৎপাদনে আমরা আমূল পরিবর্তন আনতে পেরেছি। এক্ষেত্রে মৎস্যজীবীদের বড় ভূমিকা রয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মৎস্য খাতকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়েছেন। তিনি চান ভাতে-মাছে বাঙালি সংস্কৃতির মাছ যেন বিলুপ্ত হয়ে না যায়। মাছের সংকট যেন না হয়। মাছের মাধ্যমে মানুষের পুষ্টি ও আমিষের চাহিদা যেন মেটানো যায়। মাছ রপ্তানি করে যেন আমরা বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করতে পারি, মৎস্য চাষের মাধ্যমে যেন বেকারদের বেকারত্ব দূর করা যায়, তারা যেন উদ্যোক্তা হতে পারে। সে জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বড় বড় প্রকল্প গ্রহণ করেছেন। মৎস্য চাষ এখন গর্বের বিষয়। এটি এখন অর্থ-বিত্তের সুযোগ করে দিচ্ছে।

বঙ্গবন্ধুর আদর্শ, শেখ হাসিনার নেতৃত্ব ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার সমালোচনা যেখানেই হবে সেখানে প্রতিরোধ গড়ে তোলার জন্য মৎস্যজীবী লীগের প্রতিটি নেতা-কর্মীদের এসময় আহ্বান জানান মন্ত্রী। 

বাংলাদেশ আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগের সভাপতি মোঃ সায়ীদুর রহমানের সভাপতিত্বে সংগঠনটির কার্যকরী সভাপতি সাইফুল ইসলাম মানিক, সাধারণ সম্পাদক লায়ন শেখ আজগর নস্করসহ ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণ ও বিভিন্ন জেলা-উপজেলা ও মহানগর কমিটির নেতৃবৃন্দ এসময় উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



রফিকুল ইসলাম মাদানীকে এবার রিমান্ডে নিলো ডিবি

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৬ মে ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ মে ২০২১ | ৪৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজধানীর মতিঝিল থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়ের করা মামলায় ৭ দিনের রিমান্ড শেষ হয়েছে শিশুবক্তা রফিকুল ইসলাম মাদানী। এবার নাশকতা মামলায় তাকে ৪ দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা শুরু করেছে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

বৃহস্পতিবার (৬ মে) ৭ দিনের রিমান্ড শেষে তাকে আদালতে হাজির করে পুলিশ। একইসঙ্গে তদন্ত সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা আদালতকে অবহিত করেন পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনায় মতিঝিল থানায় দায়ের করা নাশকতা মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে রিমান্ডে নিয়েছে ডিবি।

গত ২১ এপ্রিল ডিবি হাতে তদন্তাধীন থাকা সংশ্লিষ্ট মামলায় তার ৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছিলেন ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আবু সুফিয়ান মোহাম্মদ নোমান।

উল্লেখ্য, গত ২৫ মার্চ রাজধানীর মতিঝিল শাপলা চত্বরে ছাত্র ও যুব অধিকার পরিষদের মোদিবিরোধী মিছিল থেকে শিশুবক্তা রফিকুল ইসলামকে হেফাজতে নিয়েছিল পুলিশ। পরে আবার ছেড়ে দেওয়া হয়।


আরও খবর



অক্সিজেন স্বল্পতায় দিল্লির হাসপাতালে ২০ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ এপ্রিল ২০২১ | ১০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

অক্সিজেন স্বল্পতার কারণে ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লির একটি বেসরকারি হাসপাতালে আরও ২০ জন করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার রাতে দিল্লির জয়পুর গোল্ডেন হাসপাতালে তাদের মৃত্যু হয়।

শনিবার সকালে জয়পুর গোল্ডেন হাসপাতালের মেডিকেল ডিরেক্টর ডা. ডি কে বালুজা বলেছেন, রাতে ২০ জন অতি সংকটজনক রোগীর অক্সিজেনের অভাবে মৃত্যু হয়েছে। একেবারে অক্সিজেন শূন্য হয়ে গিয়েছিল তা নয়, তবে অক্সিজেনের ঘাটতি থাকায় অক্সিজেনের চাপ কম ছিল।

তিনি আরও বলেন, শুক্রবার বিকেল ৫টায় আমাদের ৩ হাজার ৬০০ লিটার অক্সিজেন পাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু আমরা রাত ১২টায় ১ হাজার ৫০০ লিটার পেয়েছি। এই সময়ের মধ্যে ২০ জন করোনা রোগীর মৃত্যু হয়। হাসপাতালে এখন ২১০ জন করোনা রোগী রয়েছেন।

ভারতে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হওয়ার পর থেকে মহামারি পরিস্থিতির চরম অবনতি ঘটেছে। সংক্রমণ বাড়ার পাশাপাশি ভারতে মৃত্যুও বাড়ছে। ভারতের বিভিন্ন হাসপাতালে অক্সিজেন-সংকট ক্রমেই প্রকট আকার ধারণ করছে।

এর আগে, নয়াদিল্লির গঙ্গা রাম হাসপাতালে অক্সিজেন স্বল্পতার কারণে ২৫ জন রোগীর মৃত্যু হয়েছে।



আরও খবর



মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম ভয়াবহ ষড়যন্ত্রের শিকার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২২ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ এপ্রিল ২০২১ | ৩৬৬২জন দেখেছেন
ফাহাদ মশিউর রহমান

Image

স্বাধীনতার পর থেকেই অবহেলিত জনপথ হিসেবে পিরোজপুর জেলা পরিচিত। বিশেষ করে পিরোজপুর-১ আসনের জন্য বিগত সময় উন্নয়নের জন্য বরাদ্ধ এলেও তা দিয়ে কতিপয় নেতার পকেট উন্নয়নের কাজ হয়েছে। উন্নয়নের সুফল প্রান্তিক জনগোষ্ঠির কাছে পৌছায় নি। এমনকি সাবেক সংসদ সদস্য একেএমএ আউয়াল এর বিরুদ্ধে দুদকে একাধিক মামলাও চলমান আছে। একেএমএ আউয়াল তার বিতর্কিত কর্মকাণ্ডের জন্য একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়ন বঞ্চিতও হয়েছেন।  

বর্তমান সরকারের ধারাবাহিকতায় একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নির্বাচনে পিরোজপুর-১ (পিরোজপুর-নাজিরপুর-স্বরূপকাঠি) মনোনয়ন পান বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের তৎকালীন আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট শ ম রেজাউল করিম। বিপুল ভোটে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন, বিরোধীপ্রার্থী যুদ্ধাপরাধী দেলোয়ার হোসাইন সাঈদীর পুত্র হারিয়েছে জামানত।

অ্যাডভোকেট শ ম রেজাউল করিম সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ গ্রহনের পরপরই পিরোজপুরবাসীদের জন্য আসে আরো একটি সুখবর। তিনি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহনের আমন্ত্রণপত্র পান। তাঁর হাত ধরেই শুরু হয় উন্নয়নের অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রার পিরোজপুরের। একের পর এক উন্নয়ন কর্মকাণ্ড শুরু হয় পিরোজপুর-১ আসনকে কেন্দ্র করে।

অগ্রগতি আর উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের সুফল যখন পিরোজপুর-১ আসনের জনগণ পেতে শুরু করেছে তখনই শুরু হয়েছে উন্নয়ন বিরোধী ষড়যন্ত্র। এই ষড়যন্ত্রকারীরা মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী অ্যাডভোকেট শ ম রেজাউল করিম ও তাঁর পরিবার নিয়ে প্রতিনিয়ত অনলাইন-অফলাইনে মিথ্য গুজব ছড়িয়ে যাচ্ছে। শুধু গুজব ছড়িয়েই খান্ত হয়নি ওই সব চিহ্নিত ষড়যন্ত্রকারীরা, তারা আজগুবী সব তথ্য দিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে প্রতিনিয়ত।

অনুসন্ধানে জানা যায়, পিরোজপুর-১ আসনের সাবেক সাংসদ একেএমএ আউয়াল ও তার ছোট ভাই পিরোজপুরের পৌর মেয়র হাবিবুর রহমান মালেকের বিরুদ্ধে দুদকের তদন্ত ও মামলা দায়ের হওয়ার পরে তাদের কিছু অনুসারি পিরোজপুর-১ আসনের সংসদ বর্তমান সংসদ সদস্য ও মাননীয় মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ মন্ত্রী অ্যাডভোকেট শ ম রেজাউল করিমকে দোষারোপ করে তাঁকে ভবিষ্যতে দেখে নেওয়ার হুমকি দিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ কিছু স্ট্যাটাস দেয়। এরই ধারাবাহিকতায় অতি সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কিছু ভূয়া আইডি থেকে মন্ত্রী মহোদয় ও তাঁর পরিবারের বিরুদ্ধে মিথ্যা ও মানহানীকর তথ্য প্রচার শুরু হয়। অনুসদ্ধান করে দেখা গেছে ওই সব ভূয়া আইডি থেকে যাদের বক্তব্য প্রচার করা হচ্ছে তাদের অধিকাংশ নারী-পুরুষ পিরোজপুরের বাসিন্দা নয়, যারা বহু বছর আগে বাংলাদেশে ছেড়ে ভারতের স্থায়ী বাসিন্দা হয়েছেন। এছাড়া, চিহ্নিত জামায়াত-শিবির ও নেতা কর্মীরা এসব অপপ্রচারের সাথে যুক্ত রয়েছে।

একটি বিশ্বস্ত সূত্র জানায়,  মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ মন্ত্রী অ্যাডভোকেট শ ম রেজাউল করিম এর হাত ধরে পিরোজপুরে ব্যপক উন্নয় ও সাধারণ জনগণের মধ্যে বর্তমান সরকার, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সম্পর্কে ইতিবাচক ধারণা তৈরী হওয়ায় ভবিষ্যতে শ ম রেজাউল করিমই পিরোজপুর-১ আসনের দলের মনোনয়ন পাবেন এমন রাজনৈতিক ভিতি থেকে পিরোজপুরের একটি রাজনৈতিক অপশক্তি, শ ম রেজাউল করিমকে রাজনৈতি ও সামাজিক ভাবে হেয় প্রতিপন্ন করতে বহু বিতর্কিত প্রিয়া বালা সাহা, যুদ্ধাপরাধী ও স্বাধীনতা বিরোধী চক্র এবং হেফাজতে ইসলামের সাইবার ইউনিটকে  ব্যবহার করে বিভিন্ন ধরণের অপ-প্রচারে লিপ্ত  আছে।

এ বিষয়ে মন্ত্রী মহোদয়ের ছোট ভাই এস.এম. নুরে আলম সিদ্দিকী জানান, রাজনৈতির প্রতিহিংসা পরায়ন হয়ে পিরোজপুরের একটি রাজনৈতিক অপশক্তি মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় এবং আমাদের পরিবারের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মিথ্যা ও বানোয়াট অপ-প্রচারে লিপ্ত আছে। এ বিষয়ে নাজিরপুর থানায় সাধারণ ডায়েরী এবং ঢাকার সিআইডি পুলিশ বিভাগের সাইবার ক্রাইম ইউনিটে লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে।

এবিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পিরোজপুরের এক ব্যবসায়ী জানান, বিগত সময় পিরোজপুরে ব্যবসা করতে বিভিন্ন প্রকার চাঁদ দিতে দিতে ব্যবসা প্রায় বন্ধ হতে বসেছিল। মন্ত্রী মহোদয় সেই চাঁদাবাজদের হাত থেকে আমাদের বাঁচিয়েছে। এ কারণে অনেকের সমস্য হচ্ছে আর সেখান থেকেই তাঁর বিরুদ্ধে এই অপপ্রচার শুরু হয়েছে।

একই ভাবে মনের কষ্টের কথা জানান এক বাস ব্যবসায়ী। তিনি বলেন, একটি পরিবার পুরো পিরোজপুরের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নিয়েছিল। মনে করতো তারা ছাড়া আর কেউ নেই। মন্ত্রী মহোদয় ক্ষমতায় আসার সাথে সাথে সেই সিন্ডিকেট ভেঙে দিয়েছে। এই অক্রোশে এই মিথ্যা গুজব ছড়াচ্ছে। কিন্তু জনগণ এখন জানে এবং বোঝে কোনটা সত্য আর কোনটা মিথ্যা। ষড়যন্ত্রকারীরা বিগত সময়ের মত মুখ থুবরে পরবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক এক সংবাদকর্মী জানান, বিগত সময়ে সত্য কথা লিখলে বা বললে মিলতো হুমকি অথবা মামলা। কিন্তু বর্তমান সময়ে সেই অবস্থা নেই। আমরা নির্ভয়ে সব সংবাদ প্রচার করতে পারি। বিগত সময়ে যারা দুর্নীতি করে সম্পদের পাহাড় গড়েছে তাদের বিরুদ্ধে নির্ভয়ে সংবাদ প্রকাশ করতে পারি। সেইসব দুর্নীতিবাজদের মুখোশ উন্মোচিত হয়ে যাওয়া মন্ত্রী মহোদয়ের প্রতি একের পর এক মিথ্য প্রচার করে চলছে।

পিরোজপুর শহরতলীর বাসিন্ধা ইলিয়াস হোসেন বলেন, আমরা বিরোধী দলের রাজনীতি করি। কিন্তু তাই বলে মন্ত্রী মহোদয়ের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের কথা অস্বীকার করতে পারিনা। তাঁর এই দুই বছরে যে উন্নয়ন কর্মকাণ্ড পিরোজপুরে শুরু হয়েছে তা অনেকেই হয়তো পছন্দ করতে পারেনি। সে কারণেই অনেকে তাঁর বিরুদ্ধে অনেক বাজে কথা বলে। কিন্তু আমি মনে করি মন্ত্রী মহোদয় তাঁর এই উন্নয়নের ধারা অব্যহত রাখলে এসেই অপপ্রচারকারীরাই আস্তাকুড়ে নিক্ষিপ্ত হবে।        

নারী নেত্রী দোলাগুহ বলেন, শুধুমাত্র উন্নয়ন কর্মকাণ্ড দেখে ভীত হয়ে এই অপপ্রচারে যারা লিপ্ত হয়েছে তারা পিরোজপুরের উন্নয়ন চায় না। সময়ের ব্যবধানে সব সত্যি একদিন প্রকাশিত হবে। যারা পিরোজপুরের উন্নয়ন বিরোধী এ এলাকার জনগণ তাদের প্রত্যাখান করবে।


আরও খবর



আজ বেকায়দায় পুলিশ, কাউকে ধরলেই বলছেন ‘শপিংমলে যাচ্ছি’

প্রকাশিত:রবিবার ২৫ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ এপ্রিল ২০২১ | ১০১জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশে সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক আজ রবিবার থেকে মার্কেট ও শপিংমল খুলে দেয়ায় চলমান লকডাউনের কার্যকারিতা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। সচেতন মহল মনে করছেন, এর ফলে অকার্যকর হয়ে পড়েছে লকডাউনের কার্যকরিতা। পরিস্থিতি মোকাবেলায় বেকায়দায় পড়েছেন সড়কে দায়িত্বপালনকারী পুলিশ সদস্যরা।

এই লকডাউনে পুলিশের মুভমেন্ট পাস ছাড়া রাস্তায় বের হওয়া নিষেধ থাকলেও মার্কেট ও শপিংমল খুলে দেয়ায় রাজধানী ঢাকার অসংখ্য মার্কেট ও শপিংমলের হাজারো দোকানের মালিক ও কর্মচারীরা রাস্তায় চলাচল করছেন। পাশাপাশি মহানগরীর অসচেতন নাগরিকদের একটি বৃহৎ অকারণে সড়কে দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন। লকডাউনের বৈধ-অবৈধতার দোলচলে এক রকম বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি বিরাজ করছে শহরের সড়কগুলোতে। মুভমেন্ট পাশবিহীন কেউ সড়কে নামলে পুলিশ ধরলে তারা উত্তর দিচ্ছেন- শপিংমলে যাচ্ছি। এমন পরিস্থিতিতে সড়কে গণপরিবহন না থাকলেও অন্য সকল ধরনের যানবাহনের চাপ বেড়েছে।

আজ রবিবার (২৫ এপ্রিল) সকালে গুলিস্তান, বাইতুল মোকাররম এলাকা, ধানমন্ডি, মোহাম্মদপুর, রমনা, শাহবাগ, নিউমার্কেট, কলাবাগান ও উত্তরা এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, শনিবারের তুলনায় আজ (রবিবার) রাস্তায় মানুষ ও যানবাহনের সংখ্যা অনেক বেশি। কোথাও কোথাও হালকা যানজটেরও সৃষ্টি হতে দেখা গেছে। লকডাউনের কারণে ভাড়ায়চালিত মোটরসাইকেলচালকরা যাত্রী না পেলেও আজ তাদের সকাল থেকেই যাত্রী নিয়ে বিভিন্ন গন্তব্যে ছুটতে দেখা গেছে। বিভিন্ন সড়কে পুলিশের চেকপোস্ট থাকলেও তাদের অনেকটাই নিস্কিয় থাকতে দেখা যায়।

সড়কে দায়িত্ব পালনকারী নাম প্রকাশ অনিচ্ছুক একজন পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, মার্কেট খুলে দেয়ায় আজ নামমাত্র লকডাউন চলছে। শপিংমল ও খোলা রেখে লকডাউন বহাল রাখা কার্যকর কোনো ফল বয়ে আনবে না। অনেকেই এখন মার্কেট ও শপিংমলে যাওয়ার কথা বলে বের হচ্ছেন। লকডাউনের মেয়াদ ২৮ এপ্রিল পর্যন্ত তাদের কী বলে আমরা সামাল দিবো? এমন পরিস্থিতিতে তুলনামূলক নিস্ক্রিয় ভূমিকা পালন করা ছাড়া আমাদের আর কি করার রয়েছে।

তবে চলমান লকডাউনে যাত্রীবাহী বাস বন্ধ থাকায় শপিংমলের ক্রেতা ও বিক্রেতা উভয়েই বিপাকে পড়েছেন। যাতায়াতে তাদের অধিক ভাড়া গুণতে হচ্ছে। লকডাউনে এ মুহূর্তে রিকশা, সিএনজি ও ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেলই ভরসা।

রাজধানীর ধানমন্ডির এক শপিং মলের কর্মচারির নাম সাগর মিয়া। আজ সকালে রোজা রেখে রোদে পুড়েই পায়ে হেঁটে কর্মস্থলে যাচ্ছিলেন তিনি। সড়কেই আরটিভি নিউজের সঙ্গে কথা হয় তার। তিনি বলেন, আমাদের গরীবের পরিবহন হলো বাস। লকডাউনের কারনে সড়কে বাস নেই। অসংখ্য মানুষ একসঙ্গে আজ বের হওয়ায় কেবল বাস ছাড়া অন্যান্য পরিবহনের চাহিদা বেড়ে যাওয়া ভাড়াও বেশি আদায় করতে তারা। এই অতিরিক্ত ভাড়ার কারণে শপিং মলে আমার মতো কম বেতনে চাকরি করা কর্মচারীরা বেকায়দায় পড়েছে। তারাও রোজা রেখেই পায়ে হেঁটে গন্তব্যে যাচ্ছে।


আরও খবর



করোনায় গত ১০ দিনে সবচেয়ে কম মৃত্যু

প্রকাশিত:শনিবার ০১ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০১ মে ২০২১ | ১০৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাসে দেশে গত ১০ দিনের মধ্যে দ্বিতীয় সর্বনিম্ন মৃত্যু হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ৬০ জন। আর আক্রান্ত হয়েছেন এক হাজার ৪৬২ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনাভাইরাস বিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞিপ্তিতে শনিবার (১ মে) এ তথ্য জানানো হয়।

উল্লেখ্য, গত বছরের ৮ মার্চ দেশে করোনাভাইরাসের প্রথম রোগী শনাক্ত হয়। এর ঠিক ১০ দিন পর ১৮ মার্চ করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যুর খবর আসে। এরপর ধীরে ধীরে আক্রান্ত ও মুতের হার বাড়তে থাকে।

 



আরও খবর