আজঃ বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১
শিরোনাম

স্বাস্থ্যবিধি মেনে হবে এসএসসি পরীক্ষা: শিক্ষাবোর্ড

প্রকাশিত:সোমবার ০৭ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ০৭ জুন ২০২১ | ১০৮জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষার জন্য নতুন কেন্দ্র স্থাপন এবং কেন্দ্র পরিবর্তনের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ আগামী ৩০ জুনের মধ্যে বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক বরাবর আবেদন করতে হবে

চলমান করোনা পরিস্থিতিতে সব কেন্দ্রে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে ঢাকা শিক্ষা বোর্ড।

আজ সোমবার (৭ জুন) বোর্ড থেকে এসএসসি পরীক্ষার নতুন কেন্দ্র স্থাপন ও কেন্দ্র পরিবর্তনের আবেদন আহ্বান করে জারি করা বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষার জন্য নতুন কেন্দ্র স্থাপন এবং কেন্দ্র পরিবর্তনের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ আগামী ৩০ জুনের মধ্যে বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক বরাবর আবেদন করতে হবে। এ আবেদন প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব প্যাডে করতে হবে। নতুন কেন্দ্রের জন্য আবেদন বাবদ ৩ হাজার টাকা (অফেরতযোগ্য) এবং কেন্দ্র পরিবর্তনের ক্ষেত্রে ১ হাজার টাকা (অফেরতযোগ্য) ফি সোনালী ব্যাংকের মাধ্যমে জমা দিতে হবে। ফি জমা দেওয়ার স্লিপ আদেনপত্রের সঙ্গে জমা দিতে হবে।

এদিকে কয়েকমাস আগে এসএসসি পরীক্ষার সংক্ষিপ্ত সিলেবাস প্রকাশ করা হয়েছে। সিলেবাস প্রকাশের পর শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছিলেন, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার পর ৮৪দিন ক্লাস করিয়ে পরীক্ষা নেয়া হবে।


আরও খবর



চাঁপাইনবাবগঞ্জে লকডাউন অমান্য করায় ৩৮ জনকে জরিমানা

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৪ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৪ জুন ২০২১ | ১৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে আব্দুল্লাহ আল মামুন

বিশেষ লকডাউনে চাঁপাইনবাবগঞ্জে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। লকডাউন অমান্য ও মাস্ক না পড়ার দায়ে ৩৮ জনকে ২৭ হাজার ৫শ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার জেলা প্রশাসক মো. মঞ্জুরুল হাফিজ -এর নির্দেশে সকাল থেকে রাত পর্যন্ত এ অভিযান চালায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ জাকিউল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) দেবেন্দ্রনাথ উরাঁও, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ লিয়াকত আলী সেখ, সহকারী কমিশনার চন্দন কর সহ জেলা উপজেলার এক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেটগণ ।

জেলা প্রশাসক মো. মঞ্জুরুল হাফিজ জানান, গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে ৮টা পর্যন্ত ১২ জন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেটের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালতের দল চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা শহরসহ বিভিন্ন উপজেলায় অভিযান চালিয়ে লকডাউন অমান্য করে দোকান-পাট খোলা, বিনাপ্রয়োজনে রাস্তায় মোটরসাইকেল নিয়ে বের হওয়া এবং মাস্ক না পরার দায়ে ৩৮ জনকে ২৭ হাজার ৫শ টাকা জরিমানা করা হয়। এর মধ্যে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদরে ১১টি মামলায় ৪ হাজার ৬শ টাকা, শিবগঞ্জে ১১টি মামলায় ১১ হাজার টাকা, নাচোলে ৮টি মামলায় ৫ হাজার ৭শ টাকা, ভোলাহাটে ৪টি মামলায় ৪ হাজার টাকা এবং গোমস্তাপুরে ৪টি মামলায় ২ হাজার ২শত টাকা। এসময় ভ্রাম্যমান আদালতকে সহায়তা প্রদান করেন পুলিশ ও আনসার বাহিনীর সদস্যরা।

এদিকে, চাঁপাইনবাবগঞ্জে গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে এবং আরটিপিসিআর ল্যাবে ১৫১ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৮০ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদরে ২১, শিবগঞ্জে ১৮, গোমস্তাপুরে ২৪ ও ভোলাহাটে ১৭ জন। নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার প্রায় ৫৩ শতাংশ। আর র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্টে ১০৬ জনের নমুনা পরীক্ষায় ২৫ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদরে ৫, গোমস্তাপুরে ১০, নাচোলে ৭ ও ভোলাহাটে ৩ জন। নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার প্রায় ২৪ শতাংশ। এছাড়া, জিন এক্সপার্ট টেস্টে ৫ জনের নমুনার পরীক্ষায় ৪ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদরে ৪ জন। সিভিল সার্জন ডা. জাহিদ নজরুল চৌধুরী জানান, করোনায় আক্রান্ত হয়ে জেলার ৫ জন ২৫০ শয্যার জেলা হাসপাতালে ভর্তির পর তাদের অবস্থার অবনতি হলে তাদেরকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয় এবং গত বৃহস্পতিবার পর্যায়ক্রমে তারা মারা যান। আক্রান্ত ব্যক্তিদের উপসর্গ না থাকায় আজ শুক্রবার সকাল থেকে তার বাড়িতে কোয়ারেন্টাইনের মাধ্যমে চিকিৎসা দেয়া শুরু করা হয়েছে। আর চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে ৩০ জন রোগী চিকিৎসা নিচ্ছে।

উল্লেখ্য, জেলায় এ পর্যন্ত মোট ২২৪০ জনের দেহে ভাইরাসটি শনাক্ত হয়েছে। আর ১১২৯ জন সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরে গেছে। মারা গেছে ৪৫ জন।


আরও খবর



আজ আওয়ামী লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী

প্রকাশিত:বুধবার ২৩ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৩ জুন ২০২১ | ৫৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মহান মুক্তযুদ্ধের মাধ্যমে দেশের স্বাধীনতা অর্জনে নেতৃত্বদানকারী দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ বুধবার। ১৯৪৯ সালের ২৩ জুন পুরনো ঢাকার ঐতিহ্যবাহী রোজ গার্ডেনে পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী মুসলিম লীগ প্রতিষ্ঠার মধ্য দিয়ে এই রাজনৈতিক দলটি প্রতিষ্ঠিত হয়। প্রতিষ্ঠার সময় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কারাগারে আটক ছিলেন। তাঁকে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক করা হয়।

অন্যদিকে কেন্দ্রীয়ভাবে নিখিল পাকিস্তান আওয়ামী মুসলিম লীগ করা হলেও পরবর্তি সময়ে অসাম্প্রদায়িক রাজনৈতিক আদর্শের অধিকতর প্রতিফলন ঘটানোর জন্য এর নাম আওয়ামী লীগ করা হয়। ১৯৫৪ সালের নির্বাচনে বিজয়ের পর ১৯৫৫ সালে অনুষ্ঠিত আওয়ামী মুসলিম লীগের কাউন্সিলে দলের নাম থেকে মুসলিম শব্দটি বাদ দেয়া হয়। আর পূর্ব পাকিস্তান শব্দ দুইটি বাদ পড়ে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় থেকে।

বাংলাদেশে স্বাধীনতা ঘোষণা করার পর থেকে প্রবাসী সরকারের সব কাগজপত্রে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ নাম ব্যবহার শুরু হয়। ১৯৭০ সাল থেকে এ দলের নির্বাচনী প্রতীক নৌকা। পরবর্তি সময়ে দেশের অন্যতম প্রাচীন এ সংগঠনটি বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধসহ প্রতিটি গণতান্ত্রিক, রাজনৈতিক ও সামাজিক আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়ে এদেশের গণমানুষের সংগঠনে পরিণত হয়।

দিবসটি উপলক্ষে প্রতিবছর দলটির পক্ষ থেকে বিস্তারিত কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। এবারও করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির কারণে স্বাস্থবিধি মেনে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। এসব কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে- এদিন সূর্যোদয়ক্ষণে কেন্দ্রীয় কার্যালয়সহ দেশের সব কার্যালয়ে দলীয় ও জাতীয় পতাকা উত্তোলন। একই দিন সকাল ৯টায় ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন এবং বিকাল ৩টায় বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আলোচনা সভা। সভায় গণভবন প্রান্ত থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হবেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা।

এছাড়াও এদিন সকাল সাড়ে ১০টায় টুঙ্গিপাড়ায় চিরনিদ্রায় শায়িত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের একটি প্রতিনিধি দল শ্রদ্ধার্ঘ্য নিবেদন করবেন।

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞ এবং বিশিষ্টজনরা মনে করেন, আওয়ামী লীগের অর্জন পাকিস্তান আমলের গণতান্ত্রিক মানুষের অর্জন, এই দলের অর্জন বাংলাদেশের অর্জন। জাতির জন্য যখন যা প্রয়োজন মনে করেছে, সেটি বাস্তবায়ন করেছে এ দলটি। ভাষা আন্দোলন থেকে মুক্তিযুদ্ধ, সব আন্দোলন সংগ্রামে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে বাংলাদেশ গঠনে সর্বোচ্চ ভূমিকা পালন করেছে আওয়ামী লীগ। স্বাধীনতার পর থেকে দেশবিরোধীদের ষড়যন্ত্র সত্ত্বেও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ধ্বংসস্তূপ থেকে উঠে এসে স্বৈরশাসনের অবসান ঘটিয়ে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করে।

আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম এ দল সর্ম্পকে মন্তব্যে বলেছিলেন, আওয়ামী লীগ শুধু দেশের পুরনো ও সর্ববৃহৎ রাজনৈতিক দলই নয়, এটি হচ্ছে গণতন্ত্র ও অসাম্প্রদায়িক ভাবাদর্শের মূলধারাও। প্রতিষ্ঠা থেকে শুরু করে এ পর্যন্ত  নানা আন্দোলন-সংগ্রামের মধ্য দিয়ে আওয়ামী লীগ আমাদের সমাজ-রাজনীতির এ ধারাকে নিরবচ্ছিন্নভাবে এগিয়ে নিচ্ছে। তিনি এ দলটিকে দেশের অন্যতম প্রাচীন সংগঠন হিসেবে আখ্যায়িত করে বলেন, ভাষা, স্বাধিকার, গণতন্ত্র ও স্বাধীনতা অর্জনে মহোত্তম গৌরবে অভিষিক্ত আওয়ামী লীগের কয়েক দশকের অভিযাত্রায় শান্তি, সমৃদ্ধি ও দিন বদলের লক্ষ্যে অবিচল বাঙালি জাতির মুক্তির দিশারী।

আওয়ামী লীগ দেশের অন্যতম পুরনো, অসাম্প্রদায়িক, সর্ববৃহৎ ও বাঙালির জাতীয় মুক্তির সংগ্রামে নেতৃত্বদানকারী রাজনৈতিক দল। আর অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ার কাজ প্রথম শুরু করেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। এর আগে বঙ্গবন্ধু শুরুতেই পাকিস্তানে একটি অসাম্প্রদায়িক রাজনৈতিক দল গঠনের কথা ভাবছিলেন। তিনি মনে করেছিলেন, পাকিস্তান হয়ে গেছে, সাম্প্রদায়িক রাজনৈতিক প্রতিষ্ঠানের আর দরকার নাই। একটা অসাম্প্রদায়িক রাজনৈতিক প্রতিষ্ঠান হবে, যার একটা সুষ্ঠু ম্যানিফেস্টো থাকবে। এ ব্যাপারে বঙ্গবন্ধু তাঁর অসমাপ্ত আত্মজীবনীতে লিখেন, আমি মনে করেছিলাম, পাকিস্তান হয়ে গেছে সাম্প্রদায়িক রাজনৈতিক প্রতিষ্ঠানের দরকার নাই। একটা অসাম্প্রদায়িক রাজনৈতিক প্রতিষ্ঠান হবে, যার একটা সুষ্ঠু ম্যানিফেস্টো থাকবে। ভাবলাম, সময় এখনও আসে নাই। তাই যারা বাইরে আছেন তারা চিন্তাভাবনা করেই করেছেন।

ইতিহাসবিদ, লেখক ও লোক সাহিত্যিক শামসুজ্জামান খান এই দলকে মূল্যায়ন করে লিখেছেন, আওয়ামী লীগ পাকিস্তান নামের অবৈজ্ঞানিক এবং ভৌগোলিক ও নৃতাত্ত্বিকভাবে এক উদ্ভট রাষ্ট্রের পূর্ব বাংলার বাঙালি জনগোষ্ঠী ও অন্যান্য ক্ষুদ্র জাতিসত্তাকে অবজ্ঞায়, অবহেলায় ও ঔপনিবেশিক কায়দায় শোষণ-পীড়ন-দমন ও দাবিয়ে রাখার বিরুদ্ধে লাগাতার প্রতিবাদ, প্রতিরোধ এবং গণসংগ্রামের মধ্যদিয়ে গড়ে ওঠা বিপুল জনপ্রিয় একটি রাজনৈতিক দল।

৫২-এর ভাষা আন্দোলন, ৫৪-এর যুক্তফ্রন্ট নির্বাচন, আইয়ুবের সামরিক শাসন-বিরোধী আন্দোলন, ৬৪-এর দাঙ্গার পর সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি প্রতিষ্ঠা, ৬৬-এর ছয় দফা আন্দোলন ও ৬৯-এর গণঅভ্যুত্থানের পথ বেয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের ২৪ বছরের আপোষহীন সংগ্রাম-লড়াই এবং ১৯৭১ সালের নয় মাসের মুক্তিযুদ্ধ তথা সশস্ত্র জনযুদ্ধের মাধ্যমে বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা লাভ করে। ওই বছরের ১৬ ডিসেম্বর চূড়ান্ত বিজয় অর্জনের মধ্যদিয়ে প্রতিষ্ঠিত হয় বাঙালির হাজার বছরের লালিত স্বপ্নের ফসল স্বাধীন-সার্বভৌম বাংলাদেশ।

অধ্যাপক ড. হারুন-অর-রশিদ তাঁর একটি নিবন্ধে লিখেছেন, প্রতিষ্ঠার পর থেকে আওয়ামী লীগ গত ৭১ বছর ধরে রাজনীতির অগ্রভাগে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে আসছে। আওয়ামী লীগের ইতিহাস সংগ্রাম, সৃষ্টি, অর্জন ও উন্নয়নের ইতিহাস। আওয়ামী লীগ ছিল পাকিস্তানে প্রথম কার্যকর কোনো বিরোধী দল। শুধু তাই নয়, আওয়ামী লীগের যাত্রাই শুরু হয় বাঙালিদের স্বাথের সত্যিকার ও আপসহীন প্রতিনিধি হিসেবে। তখন পাকিস্তান রাষ্ট্রে কোনো বিরোধী দল গঠন কিছুতেই সহজসাধ্য ছিল না। শাসকগোষ্ঠীর রক্ত চক্ষু আর সকল বাধা-প্রতিকূলতা উপেক্ষা করে বিরোধী দল হিসেবে আওয়ামী লীগের শুধু প্রতিষ্ঠা লাভই সেদিন ঘটেনি, অতি দ্রুত এর জনপ্রিয়তাও বৃদ্ধি পেতে থাকে।

পঁচাত্তরে বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যার মধ্য দিয়ে আওয়ামী লীগকে ইতিহাস থেকে মুছে ফেলার ব্যর্থ চেষ্টা হলেও দীর্ঘ একুশ বছর লড়াই সংগ্রামের মাধ্যমে ১৯৯৬ সালের নির্বাচনে বর্তমান প্রধান শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জয়ী হয়ে ২৩ জুন দলটি ক্ষমতায় ফিরে আসে। ২০০১ এবং ২০০৭ সালের ১১ জানুয়ারির পর আর এক দফা বিপর্যয় কাটিয়ে ২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বর নির্বাচনে তিন-চতুর্থাংশ আসনে বিজয়ী হয়ে আবারো রাষ্ট্র পরিচালনার দায়িত্ব পায় আওয়ামা লীগ।

পরবর্তী সময়ে ২০১৪ সালের ৫ জানুযারি এবং ২০১৮-এর ৩০ ডিসেম্বর সাধারণ নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে বাংলাদেশের ইতিহাসে টানা তিন মেয়াদে সরকার পরিচালনা করছে এ দলটি।



আরও খবর



মাগুরায় অনিয়ম ও দুর্নীতির দায়ে প্রধান শিক্ষক বরখাস্ত

প্রকাশিত:শনিবার ২৯ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৯ মে ২০২১ | ২৬৯জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মাগুরা প্রতিনিধিঃ

মাগুরার শালিখা উপজেলার খাটর রামানন্দকাঠি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে দুর্নীতি, অনিয়ম, স্বেচ্ছাচারিতা, শৃঙ্খলা ভঙ্গ ও চাকুরি বিধি লঙ্গন এর অভিযোগে সাময়িক বরখাস্ত করেছে পরিচালনা পরিষদ। ২৩ মে বিদ্যালয়ের সভাপতি মোঃ আব্দুল হালিমের স্বাক্ষরিত প্রধান শিক্ষক মোঃ জাহিদুল হাসান কে দেয়া এ বরখাস্ত পত্রের অনুলিপি থেকে জানা যায়, বিদ্যালয়ের ২০/০৫/২১ ইং তারিখের পরিচালনা পরিষদের সিদ্ধান্ত মোতাবেক ৩০/০৫/২১ ইং তারিখ থেকে প্রধান শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। বরখাস্তে কারণ হিসেবে তার বিরুদ্ধে দুর্নীতি, অনিয়ম, স্বেচ্ছাচারিতা, শৃঙ্খলা ভঙ্গ ও চাকুরি বিধি লঙ্গন অভিযোগ উল্লখ করা হয়েছে। এ সময় ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পলন করবেন সহকারী প্রধান শিক্ষক মোঃ সাজ্জাদ হোসেন।

এ ব্যপারে ঐ প্রতিষ্ঠান থেকে বাধ্যতামূলক অবসরে পাঠান ৪র্থ শ্রেণীর কর্মচারী প্রতিবন্ধী নিজাম উদ্দিন মল্লিক বলেন প্রধান শিক্ষক তার ২০ মাসের বেতন না দিয়ে চাকুরির সময় সীমা শেষ হওয়ার আগেই অনিয়মের মাধ্যমে অবসরে পাঠিয়েছেন। এ বিষয়ে তিনি কোর্টে একটি মামলা দিয়েছেন।

এ ব্যপারে সভাপতি মোঃ আব্দুল হালিম মোল্লা বলেন, প্রধান শিক্ষকের নানা অনিয়মের কারণে ম্যানেজিং কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক মোঃ জাহিদুল হাসান কে মোবাইলে যোগাযোগ করে পাওয়া যায়নি।


আরও খবর



টেকনাফ-উখিয়াতে ৬ দিনের লকডাউন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০১ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০১ জুন ২০২১ | ১১৯জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
গণপরিবহন চলাচলের ওপর বিধি-নিষেধের পাশাপাশি মানুষের সমাগমও নিষিদ্ধ করা হয়েছে। তবে জরুরি সেবায় নিয়োজিত সকল ধরনের দোকানপাট ও পরিবহন চলবে

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলায় সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী ৬ দিনের লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। মঙ্গলবার (১ জুন) সকাল থেকে শুরু হয়ে আগামী ৬ জুন পর্যন্ত চলমান থাকবে।

টেকনাফ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) পারভেজ চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এ আদেশে গণপরিবহন চলাচলের ওপর বিধি-নিষেধের পাশাপাশি মানুষের সমাগমও নিষিদ্ধ করা হয়েছে। তবে জরুরি সেবায় নিয়োজিত সকল ধরনের দোকানপাট ও পরিবহন চলবে।

এদিকে উখিয়া উপজেলাতেও ৬ দিনের লকডাউনের আওতায় আনা হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নিজাম উদ্দিন আহমেদ বলেন, রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলোতে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধির কারণে সরকারের নির্দেশে ৬ দিনের লকডাউন কার্যকর করা হচ্ছে। জরুরি সেবা ছাড়া কোন পরিবহন চলাচল করতে দেয়া হচ্ছে না। পাশাপাশি জনসমাগম না করতে সকলকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।


আরও খবর



ভারতে ২৪ ঘণ্টায় করোনা কেড়ে নিল ১৪২২ প্রাণ

প্রকাশিত:সোমবার ২১ জুন 20২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২১ জুন 20২১ | ৩৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আরও উন্নতি হয়েছে ভারতের করোনা পরিস্থিতির। দীর্ঘ ৮৮ দিনের মাথায় দেশটিতে সর্বনিম্ন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। সেই সঙ্গে কমেছে মৃত্যু। এ অবস্থায় করোনার টিকাদান নীতিতেও পরিবর্তন এনেছে নরেন্দ্র মোদির সরকার। আজ থেকে ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে সকল নাগরিকে বিনামূল্যে টিকা দেয়া হবে সেখানে।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৫৩ হাজার ২৫৬ জন। যা গত তিনমাসের মধ্যে সবচেয়ে কম। এ নিয়ে সেখানে ২ কোটি ৯৯ লাখ ৩৪ হাজার ৩৬১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। একই সময়ে মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৪২২ জনের। যা রোববারের তুলনায় বেশকিছুটা কম। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ৮৮ হাজার ১৬৪ জনে।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে সুস্থ হয়েছেন অনেক বেশি রোগী। একদিনে করোনা জয় করেছেন ৭৮ হাজার ১৯০ জন। ফলে ভারতে সুস্থতার সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২ কোটি ৮৮ লাখ ৪৪ হাজার ১৯৯ জনে।

ভারতের গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, ভারতজুড়ে কড়া বিধিনিষেধের কারণে কমছে সক্রিয় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। সোমবার ভারতে চিকিৎসাধীন করোনা রোগীর সংখ্যা কমে দাঁড়িয়েছে ৭ লাখ ২ হাজার ৮৮৭ জনে।

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ সামাল দিতে ভারতের বিভিন্ন প্রান্তে কড়া বিধিনিষেধ জারি করা হয়েছিল। কোথাও লকডাউন তো কোথাও আবার রাত্রীকালীন কারফিউ জারি হয়েছিল। সংক্রমণের গ্রাফ নিম্নমুখী হতেই সেই কড়াকড়ি কিছুটা হলেও কমানো হচ্ছে। এর মধ্যে বেঙ্গালুরুতে আজ থেকেই শুরু হয়েছে মেট্রো পরিষেবা। উত্তরপ্রদেশে খুলেছে বার-রেস্তরাঁ।

তবে এর মধ্যেই তৃতীয় ঢেউ নিয়ে দেশবাসীকে সতর্ক করেছে কেন্দ্র সরকার। করোনাবিধি মেনে চলার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। সঙ্গে সঙ্গে দেশজুড়ে বাড়ানো হচ্ছে টিকাকরণের হার। সরকারি রিপোর্ট বলছে, ইতোমধ্যে দেশটিতে ২৮ কোটি ৩৬ হাজার ৮৯৮ জনের টিকাকরণ সম্পূর্ণ হয়েছে। এর মধ্যে কেবল রোববারই অন্ধ্রপ্রদেশে একদিনে ১৩ লাখের বেশি মানুষকে টিকা দেয়া হয়েছে, যা এখন পর্যন্ত ভারতে রেকর্ড।


আরও খবর
করোনার ডেল্টা প্লাসে প্রথম মৃত্যু

বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১