আজঃ মঙ্গলবার ২৫ জানুয়ারী ২০২২
শিরোনাম

‘টাকা ছিনিয়ে নিতে বাধা দেওয়ায় অধ্যাপক সাইদাকে হত্যা’

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৪ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৪ জানুয়ারী ২০২২ | ৬০৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

টাকা ছিনিয়ে নিতে বাধা এবং ডাক-চিৎকার করায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পুষ্টি ও খাদ্যবিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক সাইদা গাফফারকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে।

গ্রেপ্তার আনারুল ইসলাম (২৫) হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করে পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে এ কথা জানিয়েছে।

ওই অধ্যাপকের নির্মাণাধীন বাড়ির কনট্রাকটর ও রাজমিস্ত্রির কাজ করতেন আনারুল।

এর আগে তার দেওয়া তথ্যে শুক্রবার সকালে গাজীপুর মহানগরীর দক্ষিণ পাইনশাইল এলাকায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক আবাসন প্রকল্পের ভেতরে একটি ঝোপ থেকে গলায় ওড়না প্যাঁচানো অবস্থায় অধ্যাপক সাইদার লাশ উদ্ধার করা হয়।

মামলার বাদী নিহতের ছেলে সাউদ ইফখার বিন জহির এজাহারে উল্লেখ করেন, তার মা কাশিমপুর থানাধীন দক্ষিণ পাইনিশাইল এলাকায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক আবাসন প্রকল্পে তার মালিকানাধীন প্লটে বাড়ি নির্মাণকাজ করার জন্য ওই আবাসিক প্রকল্প সংলগ্ন দক্ষিণ পানিশাইল মোশারফ মৃধার বাড়ির দ্বিতীয় তলায় একটি ভাড়া ফ্ল্যাটে থাকতেন। সেখান থেকে আবাসিক প্রকল্পের মধ্যে বাড়ির নির্মাণকাজ দেখাশোনা করতেন।

এতে বলা হয়, গত ১১ জানুয়ারি আনুমানিক রাত ৮টার দিকে অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী আমার ছোট বোন হেমেল মাকে তার মোবাইলের মেসেঞ্জারে ম্যাসেজ পাঠান। মা ওই ম্যাসেজ সিন না করায় পরদিন সকাল ৮টার দিকে মায়ের মোবাইলে ফোন দিলেও মা ফোন রিসিভ করেননি।

এজাহারে বলা হয়, পরে বাড়ির নির্মাণকাজের কনট্রাকটর আনারুল ইসলাম ফোন দিয়ে আমার মামা তৈয়ব ও শেখ শমসের গাফফারকে জানায় আজকে ম্যাডাম (আমার মা) আসেনি এবং ফোন বন্ধ। তখন মামা কনট্রাকটর আনারুলকে বাসায় গিয়ে টাকা আনতে বলে।

পরে নির্মাণকাজের লেবার নজরুল আমার মায়ের বাসায় গিয়ে দেখে যে, গেইট খোলা, আলমারিতে চাবি ঝুলছে এবং অন্য আলমারি খোলা এবং মাকে কোথাও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। তার মোবাইল ফোনও বন্ধ উল্লেখ করা হয় এজাহারে।

এতে বলা হয়, ওই সংবাদের ভিত্তিতে গত ১২ জানুয়ারি রাত সোয়া ৯টার দিকে আমার মায়ের ভাড়া করা বাসায় এসে মাকে না দেখতে পেয়ে এবং সম্ভাব্য বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে আমার বোন সাদিয়া আফরিন কাশিমপুর থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন।

নিহতের ছেলে আরও জানান, কাশিমপুর থানার পুলিশ জিডির তদন্তকালে ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে গাইবান্ধা সাদুল্যাপুর থানার বুজুর্গ এলাকার আনসার আলীর ছেলে মো. আনারুল ইসলাম আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করে। পরে তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে।

বাদীর ধারণা, আসামি আনারুল অজ্ঞাত সহযোগীদের সহায়তায় তার মাকে হত্যা করে লাশ গুম করার উদ্দেশ্যে জঙ্গলের মধ্যে ফেলে রাখে।

ভাড়া বাসা থেকে আনুমানিক এক কিলোমিটার দূরে তার লাশটি পাওয়া যায়।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন কাশিমপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শেখ মিজানুর রহমান জানান, সাধারণ ডায়েরি করার পর নির্মাণাধীন বাড়ির প্লটে গিয়ে খোঁজ-খবর নেওয়া হয়। পরে ওই প্লটে কর্মরত রাজমিস্ত্রি আনারুলকে গাইবান্ধা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

তিনি বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আনারুল হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করেছে। সে জানিয়েছে, প্রফেসর সাইদা গাফফারের হাতে টাকা দেখে সে ছিনিয়ে নিতে চায়। এ সময় প্রফেসর সাইদা গাফ্ফার ডাক-চিৎকার দিলে তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করে পালিয়ে যায় আনারুল।

নিহত সাইদা গাফফারের স্বামী মৃত জহিরুল হক। তার ছেলে সাউদ ইফখার বিন জহির ঢাকার উত্তরার পশ্চিম থানার ১২নং রোডের ১৭নং বাড়িতে বসবাস করেন। নিহতের তিন মেয়ের মধ্যে দুই মেয়ে অস্ট্রেলিয়ায় এবং একজন দেশে থাকেন।


আরও খবর



ধলেশ্বরীতে ভেসে উঠল মা-মেয়েসহ ৪ লাশ

প্রকাশিত:রবিবার ০৯ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৯ জানুয়ারী ২০২২ | ১০৯৪৫জন দেখেছেন

Image

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় ধলেশ্বরীতে লঞ্চের ধাক্কায় ট্রলারডুবির ঘটনায় মা-মেয়েসহ চার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তবে এখনো নিখোঁজ রয়েছেন ছয়জন।

রোববার সকালে ফতুল্লার ধর্মগঞ্জ এলাকায় ধলেশ্বরী নদী থেকে তাদের ভাসমান লাশ উদ্ধার করা হয়। এর আগে ৫ জানুয়ারি সকাল সাড়ে ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের নারায়ণগঞ্জ অফিসের উপসহকারী পরিচালক আবদুল্লাহ আল আরেফিন জানান, অন্য নিখোঁজদের খোঁজে আমাদের ফায়ার সার্ভিস সর্বাত্মক চেষ্টা চালাচ্ছে। পাশাপাশি কোস্টগার্ড, নৌপুলিশও চেষ্টা চালাচ্ছে। যতক্ষণ ট্রলার ও নিখোঁজদের সন্ধান পাওয়া না যাবে ততক্ষণ আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

এদিকে বুধবার রাতে নারায়ণগঞ্জ নদীবন্দর নৌ-নিরাপত্তা বিভাগের ভারপ্রাপ্ত উপ-পরিচালক বাবু লাল বৈদ্য বাদী হয়ে লঞ্চ এমভি ফারহান-৬ এর মাস্টার, চালক ও সুকানিসহ তিনজনের বিরুদ্ধে দায়িত্ব অবহেলার অভিযোগে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা করেছেন।

এ দিকে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে আহ্বায়ক করে সাত সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ। আগামী দশ কার্যদিবসের মধ্যে এ ঘটনার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে তদন্ত কমিটিকে।


আরও খবর



‘সরকারি কর্মচারীদের আচরণে যেন সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন না হয়’

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৩ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জানুয়ারী ২০২২ | ৩৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেছেন, সরকারের কর্মচারীদের মূল দায়িত্ব দেশ ও জনগণের সেবা করা। তাই জনগণের সেবায় তাদেরকে আত্মনিয়োগ করতে হবে।  সরকারি কর্মচারীদের আচরণে যেন সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন না হয়।

বৃহস্পতিবার জাতীয় পরিকল্পনা ও উন্নয়ন একাডেমি আয়োজিত ডেভেলপমেন্ট অ্যাডমিনিস্ট্রেশন ট্রেনিং কোর্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে তিনি এ কথা বলেন।

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী বলেন, সরকারি দপ্তর ও কর্মচারীদের প্রতি জনগণের প্রত্যাশা অনেক। তারা বিভিন্ন সমস্যায় সরকারি দপ্তরে আসে। জনগণের সেই সব সমস্যা সমাধানে সরকারি কর্মচারীদের আন্তরিক হতে হবে। তাদেরকে সাধারন জনগণের সমস্যাগুলো অনুধাবন করে যথাযথ সেবা দিতে হবে।

তিনি বলেন, সরকারের ভাবমূর্তি উন্নয়নে সরকারি কর্মচারীদের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তাই সরকারি কর্মচারীদের আচরণে যেন সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন না হয় সেদিকে লক্ষ্য রেখে কাজ করতে হবে।

জাতীয় পরিকল্পনা ও উন্নয়ন একাডেমির মহাপরিচালক বদরুল আরেফিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে জনপ্রশাসন সচিব কে এম আলী আজম এবং থাইল্যান্ডের এশিয়ান ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির পরিচালক ভোরাভেট কনলাসিন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন।

প্রশাসন ক্যাডারের ৩৭ ব্যাচের ৫০ জন কর্মকর্তা ৪ মাসব্যাপী এই প্রশিক্ষণ কোর্সে অংশ নেবেন। বাংলাদেশের জাতীয় পরিকল্পনা ও উন্নয়ন একাডেমি এবং থাইল্যান্ডের এশিয়ান ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি যৌথভাবে এই প্রশিক্ষণের আয়োজন করেছে।



আরও খবর



লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশি হত্যার আসামি গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২০ জানুয়ারী ২০22 | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২০ জানুয়ারী ২০22 | ৩২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশি শ্রমিককে হত্যার অভিযোগে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে দেশটির অপরাধ তদন্ত বিভাগের সদস্যরা। ওই অপরাধের জন্য তাকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে তদন্তকারীরা। এক বিবৃতিতে অপরাধ তদন্ত বিভাগ জানিয়েছে, ত্রিপোলির দক্ষিণে আজিজিয়া অপরাধ তদন্ত ইউনিটের সহযোগিতায় ওই গুরুতর অপরাধের জন্য বিপজ্জনক পলাতকদের একজনকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়েছে।

বিবৃতি অনুসারে, অপরাধীরা অস্ত্রের জোরে মিজদা শহরে চুরি, খুন ইত্যাদির সঙ্গে জড়িত। একটি সরকারি প্রতিষ্ঠান এবং বেসরকারি ব্যাংক বন্ধ করে দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। আটক ব্যক্তি আরও নয়টি অপরাধে অভিযুক্ত।

বাংলাদেশি শ্রমিকদের হত্যার ঘটনাটি ২০২০ সালের মে মাসে সংঘটিত হয়। দুর্বৃৃত্তরা বিদেশি ৩০ শ্রমিককে লিবিয়ার দক্ষিণ-পশ্চিমে মিজদাতে জিম্মি করে মুক্তিপণ দাবি করেছিল। এর মধ্যে বাংলাদেশি ২৬ জনকে হত্যা করে তারা। পরে নিরাপত্তার বাহিনী অভিযান চালিয়ে আরো কিছু লোককে উদ্ধার করে।

হত্যাকাণ্ডে জড়িত ছিল লিবিয়ার মানব পাচারকারী একটি পরিবারের সদস্যরা। তারা ২৬ বাংলাদেশীসহ ৩০ জন অভিবাসীকে হত্যা করেছিল। আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত লিবিয়ার গভর্নমেন্ট অফ ন্যাশনাল অ্যাকর্ড (জিএনএ) ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছিল। পরে আইনশঙ্খলা বাহিনী কয়েকজন বাংলাদেশিকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়।

ওই সময় রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, তেল-নির্ভর অর্থনীতির কারণে লিবিয়া দীর্ঘদিন ধরে অভিবাসীদের জন্য একটি গন্তব্য। তাছাড়া ভূ-মধ্যসাগর পেরিয়ে ইউরোপে পৌঁছানোর চেষ্টাকারীদের জন্যও লিবিয়া গুরুত্বপূর্ণ স্থান। ঘটনার পরই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করার চেষ্টা করেছিলেন বাংলাদেশ দূতাবাসের কর্মকর্তারা। কিন্তু লকডাউনের কারণে সেখানে পৌঁছাতে পারেননি।


আরও খবর
সৌদি আরবে প্রতি ঘণ্টায় ৭ ডিভোর্স

সোমবার ২৪ জানুয়ারী ২০২২




মিরাজকে অধিনায়কের দায়িত্ব দিয়েছে চট্টগ্রাম

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২০ জানুয়ারী ২০22 | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২০ জানুয়ারী ২০22 | ১৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

এবারের বিপিএলে তারুণ্যনির্ভর দল গড়েছে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। তবে, তরুণদের নিয়ে গড়া দলটিকে আনকোরা বলার সুযোগ নেই। কারণ, জাতীয় দলের হয়ে খেলা অনেকেই আছেন বন্দরনগরীর দলটিতে। বাংলাদেশ দলে খেলা নাসুম আহমেদ, মেহেদী মিরাজ, আফিফ হোসেন, শরিফুল ইসলাম ও শামীম আহমেদের মতো তরুণেরা আছেন দলটিতে। এর মধ্যে মেহেদী হাসান মিরাজকে অধিনায়কের দায়িত্ব দিয়েছে চট্টগ্রাম।

গতকাল বুধবার রাতে টিম মিটিংয়ের পর অধিনায়কের নাম ঘোষণা করেন চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের ম্যানেজিং ডিরেক্টর কে এম রিফাতুজ্জামান। এ সময় অধিনায়ক মিরাজকে অধিনায়কের ক্যাপ পরিয়ে দেন দলের কোচ পল নিক্সন।

দলটির ম্যানেজিং ডিরেক্টর বলেন, আমরা একটি পরিবার। পরিবারের সবাই মিলে আলোচনা করে এবং কোচের সঙ্গে পরামর্শ করে এমন একজনকে বেছে নেয়ার চেষ্টা করা হয়েছে, যিনি গোটা পরিবারের দায়িত্ব নিতে পারবেন। যাঁর কাছে দলটাই হবে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।

দায়িত্ব গ্রহণের পর নিজের প্রতিক্রিয়ায় চ্যালেঞ্জার্স অধিনায়ক মিরাজ বলেন, আলহামদুলিল্লাহ, আমি এ বছর চট্টগ্রামের হয়ে প্রথম খেলছি। চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স আমাকে যে সম্মান দিয়েছে, নিজের সেরাটা দিয়ে তার প্রতিদান দিতে চেষ্টা করব। অভিজ্ঞদের পাশাপাশি ইয়াং ও প্রমিজিং খেলোয়াড়দের নিয়ে দলটা গড়া হয়েছে, যাঁরা আগামীতে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিতে পারবেন।

দায়িত্ব গ্রহণের পর দলের সিনিয়রদের সাপোর্ট চেয়েছেন মিরাজ, কর্তৃপক্ষ তরুণদের ওপর আস্থা রেখেছেন। আমি মনে করি, আমাদের সবার চ্যালেঞ্জ নিতে হবে। এটা আমাদের দায়িত্ব। দলে একাধিক সিনিয়র খেলোয়াড় রয়েছেন, যাঁরা অনেকদিন বাংলাদেশকে সার্ভিস দিয়েছেন। আমি তাঁদের সহযোগিতা চাচ্ছি। সবাই সহযোগিতা করলে অধিনায়ক হিসেবে আমার কাজটা সহজ হবে। দলকে ভালো একটা জায়গায় নিতে নিজেদের সেরাটা দিয়ে চেষ্টা করব। টিম ম্যানেজমেন্টকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। সমর্থকদের উদ্দেশে বলবআপনারা আমাদের পাশে থাকুন। আমরা সেরাটা দিয়ে ভালো কিছু করতে চেষ্টা করব।

আগামীকাল ২১ জানুয়ারি থেকে মাঠে গড়াচ্ছে দেশের ঘরোয়া টি-টোয়েন্টির সবচেয়ে বড় আসরটি। টুর্নামেন্টের ফাইনাল হবে ১৮ ফেব্রুয়ারি। চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ও ফরচুন বরিশালের ম্যাচ দিয়ে শুরু হচ্ছে বিপিএল। ২৭ দিনের এ টুর্নামেন্টে ৩৪টি ম্যাচ থাকছে।


আরও খবর
মাঠে ফিরছেন মাশরাফি, বোলিংয়ে ঢাকা

সোমবার ২৪ জানুয়ারী ২০২২




শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করতে চাই না, সশরীরে ক্লাস করাটা জরুরি: শিক্ষামন্ত্রী

প্রকাশিত:শনিবার ০৮ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০৮ জানুয়ারী ২০২২ | ৪৮০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, সরকার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করতে চায় না। গত দেড় বছরে শিক্ষা খাতে যে ঘাটতি হয়েছে, তা পুষিয়ে নিতে সশরীরে ক্লাস করাটা সবচেয়ে বেশি জরুরি। প্রত্যেক শিক্ষার্থী যেন টিকা নিয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আসে ,তার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

আজ শনিবার দুপুরে রাজধানীর আফতাবনগরে এক অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা জানান তিনি।

ডা. দীপু মনি বলেন, আমাদের আরও অনেক বেশি সজাগ থাকতে হবে। করোনার সংক্রমণ বাড়ছে। গত দেড় বছরে শিক্ষা খাতে যে ঘাটতি হয়েছে, তা পুষিয়ে নিতে সশরীরে ক্লাস করাটা সবচেয়ে বেশি জরুরি। কিন্তু দেখা যাচ্ছে, অনেকই স্বাস্থ্যবিধির তোয়াক্কা না করে যেভাবে চলছে, তাতে শিক্ষা খাতের সমস্যাটাই বেশি হবে। সন্তানদের কথা মাথায় রেখে আমরা প্রত্যেকেই যেন স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলি।

অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, ২০৪১ সালের মধ্যে আমরা উন্নত দেশে রূপান্তর হব। ২১০০ সালে বাংলাদেশকে একটি বদ্বীপ করার পরিকল্পনা রয়েছে বলেও আপনারা জানেন। আমরা আমাদের এই দেশ কারও দানে কিংবা কোনো সালিসে বসে পাইনি। আমরা যুদ্ধ করে, রক্ত জরিয়ে আমাদের স্বাধীনতা পেয়েছি। শিক্ষা নিয়ে আমরা যে এগোব, আমাদের অনেকগুলো লক্ষ্য আছে। আমাদের চতুর্থ শিল্পবিপ্লব আছে, সেখানে আমাদের চ্যালেঞ্জ রয়েছে। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাসহ চারদিকে নানা প্রযুক্তি আছে, সেগুলোর জন্য আমাদের প্রস্তুত হতে হবে। আগের বিপ্লবগুলোকে আমরা ধরতে পারিনি। চতুর্থ শিল্পবিপ্লবকে আমাদের ধরতেই হবে। আমাদের নতুন কাজের জন্য তৈরি হতে হবে, যার জন্য আমাদের প্রযুক্তিবান্ধব হতে হবে।

নিউজ ট্যাগ: ডা. দীপু মনি

আরও খবর