আজঃ শুক্রবার ০৫ মার্চ ২০২১
শিরোনাম

তারুণ্য আটকে রাখার ৫ উপায়

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ৫৯জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সুস্থ, সুন্দর, তারুণ্য দীপ্ত দেখাতে কে না চায়? তারুণ্য ধরে রাখার প্রচেষ্টা করে না এমন মানুষ পাওয়া যাবে না। তবে বয়স বাড়ার সাথে সাথে শারীরিক পরিবর্তন আসে। বয়সের ছাপ প্রথম পড়ে আমাদের মুখমণ্ডলের ত্বকে। তারপর পুরো শরীরের ত্বকে। মুখে বলিরেখার অস্তিত্ব, চুলে পাক ধরা অনেকেরই মন খারাপের কারণ হতে পারে।

পাঁচটি কাজ আপনাকে বয়স থামিয়ে রাখতে সাহায্য করবে। চলুন জেনে নেয়া যাক:

প্রতিদিন পর্যাপ্ত পানি পান

পানি পানের ক্ষেত্রে অবহেলা করলে আপনার সুস্থ ও সুন্দর থাকা সম্ভব নয়। সুস্থতার জন্য প্রতিদিন পর্যাপ্ত পানি পান করা ভীষণ জরুরি। শারীরিক যেকোনো সমস্যা দূরে রাখতে অনেকটা সাহায্য করে বিশুদ্ধ পানি। প্রতিদিন পর্যাপ্ত পানি পান করলে তা শরীরে পানির ঘাটতি মেটানোর পাশাপাশি শরীরে জমে থাকা বিষাক্ত উপাদান বা টক্সিন দূর করতে সাহায্য করে। শরীর আর্দ্র থাকলে সুস্থ থাকা সহজ হয়। ত্বক আর্দ্র থাকলে টানটান ভাব বজায় থাকে। এই এই টানটান ভাব কমলেই দেখা দেয় বলিরেখা। তাই বয়স ধরে রাখতে চাইলে নিয়মিত পানি পান করতে হবে। প্রতিদিন ন্যুনতম ২ লিটার পানি পান করুন।

খাদ্যাভ্যাস

ত্বকের প্রয়োজনীয় সকল নিউট্রিয়েন্টস আমরা খাবার থেকেই পাই। প্রতিদিনের ডায়েটে তাই এন্টি অক্সিডেন্টস সমৃদ্ধ সবুজ শাকসবজি, ফলমূল রাখতে হবে।

পরিচ্ছন্নতা

ত্বকের বিভিন্ন স্তরে ময়লা ও পলিউশনের আস্তরণ পড়ে। নিয়মিত এক্সফলিয়েশন ও ক্লিনজিং ত্বকের সুস্বাস্থ্য বজায় রাখে।

নির্বিঘ্ন ঘুম

শরীর সুস্থ রাখার জন্য প্রতিদিন নির্বিঘ্ন ঘুম প্রয়োজন। একজন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের জন্য প্রতিদিন অন্তত সাত-আট ঘণ্টা ঘুম দরকারি। ঘুমের অন্তত ঘণ্টা দুই আগে স্মার্টফোন দূরে রাখুন। কম্পিউটার কিংবা স্মার্টফোনের নীলচে আলো আমাদের ত্বকের জন্য ক্ষতিকর। এটি ত্বকে দ্রুত বয়সের ছাপ ফেলতে পারে। অনেকে বালিশের উপর মুখ উপুড় করে ঘুমান। এতেও দেখা দিতে পারে বলিরেখা। এই ভঙ্গীতে ঘুমানোর অভ্যাস থাকলে তা বাদ দিন।

নিয়মিত শরীরচর্চা

নিয়মিত শরীরচর্চা করলে তা শরীরকে ভেতর থেকে ভালো রাখে। শরীরে কোনোরকম মেদ জমতে দেবেন না। কারণ মেদ আরও অসুখের কারণ হতে পারে। নিয়মিত শরীরচর্চা করলে শরীরে রক্ত চলাচল বাড়ে, শরীরের সব কোষে অক্সিজেন পৌঁছায় ঠিকভাবে। ফলে ত্বক উজ্জ্বল হয়।

Share

আরও খবর
৪ মার্চ: আজকের দিনটি কেমন যাবে?

বৃহস্পতিবার ০৪ মার্চ ২০২১

ওজন কমাতে টমেটো তুলনাহীন

বুধবার ০৩ মার্চ ২০২১




বসুরহাট পৌরসভায় ১৪৪ ধারা জারি

প্রকাশিত:সোমবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ৯৬জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বসুরহাট পৌরসভায় ১৪৪ ধারা জারি করেছে উপজেলা প্রশাসন। পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদলের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচির কারণে উপজেলা প্রশাসন এ সিদ্ধান্ত নেয়।

রোববার (২১ ফেব্রুয়ারি) রাত ১১টার দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. জিয়াউল হক মীর বসুরহাট পৌরসভায় সোমবার ভোর ৬টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ১৪৪ ধারার এ আদেশ জারি করেন। রাতেই বসুরহাট বাজারসহ বিভিন্ন স্থানে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

মুজাক্কির হত্যাকাণ্ডের পর কাদের মির্জা-বাদল গ্রুপের পক্ষ থেকে একই দিন একই স্থানে পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি দেয়ায় জনমনে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে।

কাদের মির্জার অনুসারীরা সাংবাদিক মুজাক্কিরের মৃত্যু সংবাদ পেয়ে তাকে তাদের কর্মী দাবি করে শনিবার রাতে এ হত্যাকাণ্ডের জন্য প্রতিপক্ষকে দায়ী করে তাদের গ্রেপ্তার দাবিতে বসুরহাটে বিক্ষোভ মিছিল করে। পরে সোমবার দুপুরে বসুরহাট রূপালী চত্বরে শোক ও প্রতিবাদ সভার কর্মসূচির ঘোষণা করে।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি মীর জাহেদুল হক রনি জানান, দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি দেয়ার কারণে কোনো স্থানে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি যেন অবনতি না ঘটে সেজন্য অতিরিক্ত পুলিশ ও ডিবি পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. জিয়াউল হক মীর বলেন, দুই পক্ষ বসুরহাটে একই স্থানে পাল্টাপাল্টি সমাবেশ ডাকায় সমগ্র বসুরহাট পৌর এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। এ সময় সব ধরনের সভা সমাবেশ ও মিছিল নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: ১৪৪ ধারা
Share

আরও খবর
ভাসানচরের পথে আরও ১৭৫৯ জন রোহিঙ্গা

বৃহস্পতিবার ০৪ মার্চ ২০২১




করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৫ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:শনিবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ৭১জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে মারা গেছেন আরও ৫ জন। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৮ হাজার ৪০০ জনে। নতুন করে শনাক্ত হয়েছে আরও ৪০৭ জনের শরীরে। এ নিয়ে দেশে মোট করোনা শনাক্ত দাঁড়াল ৫ লাখ ৪৫ হাজার ৮৩১ জন।

আজ শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ও বাড়িতে উপসর্গবিহীন রোগীসহ গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৬০৯ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ৪ লাখ ৯৬ হাজার ১০৭ জন।

অন্যদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে এসেছেন ৪৬ জন ও আইসোলেশন থেকে ছাড় পেয়েছেন ১৮ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে এসেছেন এক লাখ ৪৬৫ জন। আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র নিয়েছেন ৯০ হাজার ৭১১ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন নয় হাজার ৭৫৪ জন।

বিজ্ঞপ্তিতে নাসিমা সুলতানা জানান, ২৪ ঘণ্টায় মৃত ১১ জনের মধ্যে চারজন পুরুষ, একজন নারী। এদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে চার জন ও চট্টগ্রাম বিভাগে এক জন রয়েছেন। এদের মধ্যে হাসপাতালে মারা গেছেন পাঁচ জন।

Share

আরও খবর



অনুসন্ধানে বেরিয়ে এলো আনুশকার মৃত্যুর কারণ

প্রকাশিত:রবিবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ১৩২১জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিকৃত যৌনাচারে ব্যবহার করা হয় ফরেন বডি। এতেই অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে মৃত্যু হয় লেভেলের ছাত্রী আনুশকার। সিআইডির অনুসন্ধানে উঠে এসেছে এ তথ্য।

রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর মালিবাগস্থ সিআইডির সদরদপ্তরে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সিআইডির সাইবার ক্রাইম কমান্ড অ্যান্ড কন্ট্রোল সেন্টারের অতিরিক্ত ডিআইজি মো. কামরুল এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

মো.কামরুল আহসান বলেন, গত ৭ জানুয়ারি রাজধানীর মাস্টারমাইন্ড স্কুলের ও লেভেলের ছাত্রী আনুশকার ধর্ষণের ফলে মৃত্যু হয়। ময়নাতদন্তে জানা যায়, বিকৃত যৌনাচার ফলে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে মারা যায় সে। বিশেষজ্ঞদের মতামত অনুসারে, আনুশকাকে নির্যাতনের সময় এক ধরনের ফরেন বডি ব্যবহার করেছিল। আনুশকার মৃত্যুর বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি হয়।

 সংবাদ সম্মেলনে সিআইডির পক্ষ থেকে আরও জানানো হয়, রাজধানীতে একটি সংঘবদ্ধ চক্র নিষিদ্ধ যৌনাচারের সামগ্রী ও উদ্দীপক দ্রব্য নানা ধরনের বিজ্ঞাপন দিয়ে বিক্রি করছে। এ চক্রের ৭ সদস্যকে আটক করেছে সিআইডি।

Share

আরও খবর
অবশেষে জামিন পেলেন কার্টুনিস্ট কিশোর

বৃহস্পতিবার ০৪ মার্চ ২০২১




খুলনায় বাস চলাচল বন্ধ, দুর্ভোগে যাত্রীরা

প্রকাশিত:শনিবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ৮১জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

খুলনা থেকে সব রুটে হঠাৎ করেই বাস চলাচল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পরিবহন মালিক সমিতি। শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টা পরিবহন চলাচল বন্ধ থাকবে। ফলে পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই হঠাৎ করে সড়ক ও নৌ পথের গণপরিবহন বন্ধের কারণে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন সাধারণ যাত্রীরা।

খুলনা জেলা বাস-মিনিবাস-কোচ মালিক সমিতির যুগ্ম সম্পাদক আনোয়ার হোসেন সোনা জানান, শনিবার বিএনপির সমাবেশকে কেন্দ্র করে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হতে পারে। এজন্য শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে শনিবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টা খুলনা থেকে কোনও পরিবহন ছেড়ে যাবে না। কোনও পরিবহন শহরে প্রবেশও করবে না। তবে, এটা কোনও ধর্মঘট নয়।

উল্লেখ্য শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের দাবি, জিয়াউর রহমানের বীর উত্তম খেতাম বাতিলের প্রতিবাদ ও বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিসহ দেশের ছয় সিটিতে সাবেক মেয়র প্রার্থীদের নেতৃত্বে খুলনায় মহাসমাবেশের পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচি রয়েছে।

Share

আরও খবর



আবারো আশার আলো দেখছেন তেল ব্যবসায়ীরা

প্রকাশিত:সোমবার ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ১১১জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

এক বছরেরও বেশি সময় পরে অবশেষে করোনাপূর্ব অবস্থায় ফিরল আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম। মহামারির মধ্যে গতবছর এটি নেমে গিয়েছিল ইতিহাসের সর্বনিম্ন পর্যায়ে। সেখান থেকে ধীরে ধীরে আবারো স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরছে তেলের দাম

অবশ্য তেলের চাহিদা এখনো স্বাভাবিকের চেয়ে অনেক দূরে। তবে টিকাদান শুরু হয়ে যাওয়ায় সেটি দ্রুতই করোনাপূর্ব অবস্থায় ফিরবে বলে আশা করা হচ্ছে।

সাধারণত অর্থনৈতিক কার্যক্রমের ব্যারোমিটার হিসেবে দেখা হয় তেলের দামকে। করোনার কারণে বছরখানেক ধরে এর অবস্থা ছিল বেশ নাজুক।

তবে একটু একটু করে চাহিদাবৃদ্ধির কারণে গত কয়েক মাসে তেলের দাম ৫০ শতাংশ বেড়েছে। আর চলতি সপ্তাহে এর দাম উঠেছে প্রতি ব্যারেল ৬০ মার্কিন ডলারে, যা সবশেষ করোনা আসার আগে দেখা গিয়েছিল।

ভবিষ্যৎ চুক্তিতে শক্ত অবস্থানে ফিরেছে তেলবাজারের প্রধান বেঞ্চমার্ক ব্রেন্ট ক্রুড। গত নভেম্বর থেকে এপর্যন্ত এর দাম বেড়েছে প্রায় ৫৯ শতাংশ।

সুসময় যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের তেলের বেঞ্চমার্ক ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েটেরও (ডব্লিউটিআই)। এক বছরেরও বেশি সময় পরে গত সপ্তাহে এর দাম উঠেছে ব্যারেলপ্রতি ৫৫ ডলারের ওপর।

তেলবাজার বিষয়ক সিঙ্গাপুরভিত্তিক সংস্থা ভ্যান্ডা ইনসাইটসের প্রতিষ্ঠাতা বন্দনা হরি বলেন, গত সপ্তাহে [তেলের] মূল্যবৃদ্ধির সবচেয়ে বড় চালক হলো- করোনাভাইরাস পিছু হটছে, এমন ইঙ্গিতের ভিত্তিতে অর্থনৈতিক ও তেলের চাহিদা পুনরুদ্ধার প্রত্যাশার শক্তিশালী উত্থান।

এর পেছনে অন্য কারণগুলোর মধ্যে রয়েছে উৎপাদক দেশগুলো, বিশেষ করে সৌদি আরব তেল সরবরাহ কমিয়ে দেওয়া।

গত এপ্রিলে উৎপাদন কমাতে রাজি হওয়ার পর থেকে উৎপাদকরা এপর্যন্ত অন্তত ২১০ কোটি ব্যারেল তেল কম সরবরাহ করেছে, যার ফলে মজুত অনেকটাই কমে গেছে।

গত বছর করোনাভাইরাস মহামারির হানায় তেল শিল্প রীতিমতো বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে এর দাম নেমে এসেছিল শূন্যেরও নিচে। তবে ধীরে ধীরে সেই সংকট কাটতে শুরু করায় আবারো আশার আলো দেখছেন ব্যবসায়ীরা।

Share

আরও খবর