আজঃ বৃহস্পতিবার ১৩ মে ২০২১
শিরোনাম

টি-টোয়েন্টি র‍্যাঙ্কিংয়ে একধাপ এগিয়েছে বাংলাদেশ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৪ মে ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৪ মে ২০২১ | ৪৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কিছুদিন আগেই নিউজিল্যান্ড থেকে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হয়ে ফিরেছে বাংলাদেশ। ৫০ ওভারের ক্রিকেটে বাংলাদেশকে হারিয়ে আইসিসি ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে উঠেছে নিউজিল্যান্ড। এই ফরম্যাটের র‍্যাঙ্কিংয়ে উন্নতি হয়নি বাংলাদেশের। তবে টি-টোয়েন্টিতে হারলেও র‍্যাঙ্কিংয়ে একধাপ এগিয়েছে লাল-সবুজের দল।

গতকাল সোমবার র‍্যাঙ্কিংয়ে বার্ষিক হালনাগাদ করেছে ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি। যেখানে ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিংয়ের তালিকায় বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ডকে সরিয়ে এক নম্বর জায়গা দখল করেছে নিউজিল্যান্ড।

নতুন হালনাগাদে ২০১৭-১৮ মৌসুমের পারফরম্যান্স বিবেচনার বাইরে চলে গেছে। গত বছরের মে মাস থেকে দলগুলোর পারফরম্যান্স হিসেবে নেওয়া হয়েছে। বর্তমানে র‍্যাঙ্কিংয়ে ১২১ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে নিউজিল্যান্ড। এক নম্বর থেকে চারে নেমে গেছে ইংল্যান্ড। দুই ধাপ এগিয়ে ১১৮ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে উঠেছে অস্ট্রেলিয়া। একধাপ পিছিয়ে তিনে আছে ভারত। ১০৭ পয়েন্ট নিয়ে পাঁচে আছে দক্ষিণ আফ্রিকা। ছয় নম্বরে পাকিস্তান। ৯০ পয়েন্ট নিয়ে আগের মতো সাতেই আছে বাংলাদেশ। শ্রীলঙ্কাকে টপকে আটে উঠেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। লঙ্কানরা নেমে গেছে নয় নম্বরে। আগের মতো দশে আছে আফগানিস্তান।

আগের মতোই টি-টোয়েন্টিতে শীর্ষে আছে ইংল্যান্ড। ওয়ানডের পাশাপাশি টি-টোয়েন্টিতেও উন্নতি হয়েছে নিউজিল্যান্ডের। দুই ধাপ এগিয়ে তিনে আছে কিউইরা। দুইয়ে আছে ভারত। চারে পাকিস্তান, পাঁচে অস্ট্রেলিয়া। ছয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা, সাতে আফগানিস্তান, আটে শ্রীলঙ্কা। টি-টোয়েন্টি র‍্যাঙ্কিংয়ে ১ রেটিং পয়েন্ট হারালেও এক ধাপ এগিয়ে ৯ নম্বরে উঠেছে বাংলাদেশ। দুই ধাপ পিছিয়ে দশ নম্বরে নেমে গেছে দুবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয়ী ওয়েস্ট ইন্ডিজ।


আরও খবর



আহমেদ আকবর সোবহানের মামলা দ্রুত শেষ করতে চেষ্টা করছে দুদক

প্রকাশিত:বুধবার ২৮ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ এপ্রিল ২০২১ | ৮২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
দুদক অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে এবং খুবই গুরুত্ব দিয়ে ওইসব দুর্নীতির মামলাগুলো চলমান রেখেছে, বিচারিক আদালতে সাক্ষ্য গ্রহণ চলছে। লকডাউনের কারণে একটু সময় লাগছে। দুদক অত্যন্ত দ্রুতগতিতে মামলাটি এগিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছে

বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহান শাহ আলমের বিরুদ্ধে চলমান দুটি মামলা দ্রুত শেষ করতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। সরকারি ১৮টি পরিত্যক্ত বাড়ি বরাদ্দে অনিয়ম ও দুর্নীতিসংক্রান্ত এবং হুমায়ুন কবীর সাব্বির হত্যার ঘটনা ধামাচাপা দিতে ঘুষ দেওয়ার ঘটনায় এ দুটি মামলা করে দুদক। বুধবার (২৮ এপ্রিল) দুদক আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান এসব তথ্য জানিয়েছেন।

মো. খুরশীদ আলম খান বলেন, আহমেদ আকবর সোবহানের বিরুদ্ধে সরকারি ১৮টি বাড়ি বরাদ্দে দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগে দুটি মামলা চলছে। এখন সাক্ষ্য গ্রহণ পর্যায়ে রয়েছে। মামলাগুলো দীর্ঘদিন ধরে চলছে। এগুলো হাইকোর্টে এসেছিল। পরে সর্বোচ্চ আদালত আপিল বিভাগে যায়। মামলা দুটির বিচারিক আদালতে সাক্ষ্য গ্রহণ চলছে। এছাড়াও তিনি (আহমেদ আকবর সোবহান) সাব্বির হত্যায় ঘুষের মামলা বাতিল চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করেছিলেন। কিন্তু হাইকোর্ট সে আবেদন খারিজ করে দেন। সেটিও হাইকোর্টের নির্দেশনার পর বিচারিক আদালতে সাক্ষ্য গ্রহণ পর্যায়ে রয়েছে।

মামলাগুলোর অগ্রগতি প্রসঙ্গে দুদক আইনজীবী বলেন, দুদক অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে এবং খুবই গুরুত্ব দিয়ে ওইসব দুর্নীতির মামলাগুলো চলমান রেখেছে, বিচারিক আদালতে সাক্ষ্য গ্রহণ চলছে। লকডাউনের কারণে একটু সময় লাগছে। দুদক অত্যন্ত দ্রুতগতিতে মামলাটি এগিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছে।

প্রসঙ্গত, বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের আমলে রাজধানীর অভিজাত এলাকায় সরকারি ১৮টি পরিত্যক্ত বাড়ি সাজানো দরপত্র ডেকে অস্বাভাবিক কম দামে বিক্রির অভিযোগে ২০০৭ সালের মার্চে সাবেক মন্ত্রী মির্জা আব্বাসসহ ১২ জনের বিরুদ্ধে মতিঝিল থানায় মামলা করে দুদক। মামলায় ওই বছরের ২০ সেপ্টেম্বর অভিযোগপত্র দেওয়া হয়। এই মামলার অন্যতম আসামি ছিলেন আহমেদ আকবর সোবহান।

এছাড়াও বসুন্ধরা কমিউনিকেশন্সের কর্মকর্তা সাব্বির ২০০৬ সালের ৪ জুলাই গুলশানের একটি অ্যাপার্টমেন্টে খুন হন। ৫ জুলাই তার লাশ উদ্ধারের পর ঘটনাটিকে আত্মহত্যা বলে চালানোর চেষ্টা করা হয়। কিন্তু ঘটনা প্রকাশ হয়ে গেলে তা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টায় সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবরকে ২০ কোটি টাকা ঘুষ দেওয়ার অভিযোগ ওঠে। এরপর ২০০৭ সালে বসুন্ধরা চেয়ারম‌্যান আহমেদ আকবর সোবহান, তার দুই ছেলে আনভীর ও সাদাত, বসুন্ধরার সহযোগী প্রতিষ্ঠান ইস্টওয়েস্ট প্রপার্টি ডেভেলপমেন্টের পরিচালক আবু সুফিয়ানের বিরুদ্ধে মামলা করে দুদক।

পরে ওই মামলায় তারেক রহমান, তার ব্যক্তিগত সহকারী নূরউদ্দীন অপু, তৎকালীন স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর, সাবেক সংসদ সদস্য কাজী সালিমুল হক কামালকেও আসামি করা হয়। মামলার অভিযোগপত্রে বলা হয়, সাব্বির হত্যার ঘটনা ধামাচাপা দিতে তারেক রহমান ও লুৎফুজ্জামান বাবরের সঙ্গে বাবরের বেইলি রোডের বাড়িতে আহমেদ আকবর সোবহান বৈঠক হয়েছিল। এই হত্যার ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার জন্য তারেক ও বাবরের সঙ্গে শাহ আলমের ৫০ কোটি টাকার চুক্তি হয়


আরও খবর



জনগণকে বাঁচাতে যেখান থেকে পারে সরকার ভ্যাকসিন সংগ্রহ করবে

প্রকাশিত:বুধবার ২৮ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ এপ্রিল ২০২১ | ৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনার ভ্যাকসিন নিয়ে কারো সঙ্গে বিশেষ কোনো সম্পর্কের দরকার নেই, জনগণকে বাঁচাতে যেখান থেকে পারে সরকার ভ্যাকসিন সংগ্রহ করবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, দোষারোপের রাজনীতি পরিহার করে দলমত নির্বিশেষে ঐক্যবদ্ধভাবে সবার অভিন্ন শত্রু করোনাকে মোকাবিলা করাই এখন সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ।

বুধবার (২৮ এপ্রিল) সকালে রাজধানীর বনানী কবরস্থানে শহীদ শেখ জামালের ৬৮তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে তার সমাধিতে প্রথমে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে ও পরে দলের পক্ষে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন ওবায়দুল কাদের।

শেখ জামাল বঙ্গবন্ধু পরিবারের সাহস ও মেধার যে রাজনীতি তারই অনন্য দৃষ্টান্ত উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, শেখ জামালের জন্মদিনে শপথ হোকবাংলাদেশে হত্যা ও ষড়যন্ত্রের রাজনীতির ট্রাজেডি থেকে জাতিকে মুক্তি দিতে হবে। যে যেই দল করুক হত্যার রাজনীতি কারো কাম্য নয়।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিএনপির উদ্দেশে বলেন, হত্যা ও ষড়যন্ত্রের রাজনীতি পরিহার করুন। সবকিছুতে ব্যর্থ হয়ে বিএনপি এখন শেখ হাসিনাকে রাজনীতি থেকে কীভাবে সরিয়ে দেওয়া যায় সেই ষড়যন্ত্র করছে।


আরও খবর



ওবায়দুল কাদেরের বাড়িতে ককটেল হামলা

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৭ এপ্রিল ২০২১ | ১৩২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এবং নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার বাড়িতে ককটেল হামলা চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) রাত ১০টা ২০ মিনিটের দিকে এই হামলা করা হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার রাত ১০টা ২০ মিনিটের দিকে মোটরসাইকেলযোগে ১০-১২ জনের একদল দুর্বৃত্ত সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের ও বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার বাড়ির প্রধান ফটকে তিন-চারটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। এসময় চারদিকে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। পরে আশপাশের লোকজন বের হয়ে আসলে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়। ককটেল হামলায় কোনও ধরনের হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। তবে এসময় কাদের মির্জা বসুরহাট পৌরভবনেই অবস্থান করছিলেন।

কাদের মির্জা জানান, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান বাদলের অনুসারী বাসস্ট্যান্ডের সবুজের নেতৃত্বে আট-দশটা মোটরসাইকেল মহড়া নিয়ে আমার ভাই সাহাদাত হোসেনকে হত্যার উদ্দেশ্যে পরপর পাঁচটা ককটেল হামলা করা হয়। এতে দুটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটে।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি মীর জাহিদুল হক রনি জানান, খবর পেয়ে কাদের মির্জা সাহেবের বাড়ির সামনের বসুরহাট-দুধমুখা সড়ক থেকে তিনটি অবিস্ফোরিত ককটেল উদ্ধার করা হয়েছে। মেয়র আবদুল কাদের মির্জার ছোট ভাই সাহাদাত হোসেন দুইজনের নাম বলেছেন, তাদেরকে আইনের আওতায় আনার চেষ্টা চলছে।


আরও খবর



ইফতারে প্রাণ জুড়াতে স্বাস্থ্যকর ফলের শরবত

প্রকাশিত:বুধবার ২৮ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ এপ্রিল ২০২১ | ৫৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
গ্রীষ্মের প্রচণ্ড গরমে সারাদিন রোজা রাখার পর ইফতারে প্রাণ শীতল করা এক গ্লাস ঠাণ্ডা শরবতের জুড়ি নেই। সারাদিনের ক্লান্তি নিমিষেই দূর হয় শরবত পান করে। এছাড়া এ সময় গরমের কারণে ঘামের সাথে শরীর থেকে অতিরিক্ত পানি বের হয়

চলছে সিয়াম সাধনার মাস পবিত্র মাহে রমজান। অন্য সময়ের চেয়ে এ সময় খাবারের আয়োজনে থাকে ভিন্নতা। রোজায় দিনের বেশ বড় একটা সময় কোনো খাবার খাওয়া হয় না বলে সুস্থতার কথা বিবেচনা করে সাহরি ও ইফতারে ভেবেচিন্তে খাবার বাছাই করতে হয়। রোজার সময় ভাজাপোড়া কম খেয়ে পুষ্টি চাহিদা পূরণ করে এমন খাবার বেশি বেশি খাওয়া দরকার। আর করোনাভাইরাস প্রতিরোধে আমাদের সবারই এখন অ্যান্টি-অক্সিডেন্টযুক্ত খাবার গ্রহণ করা উচিত। এক্ষেত্রে নানারকম ফল এবং ফলের শরবতের কোনো বিকল্প নেই।

গ্রীষ্মের প্রচণ্ড গরমে সারাদিন রোজা রাখার পর ইফতারে প্রাণ শীতল করা এক গ্লাস ঠাণ্ডা শরবতের জুড়ি নেই। সারাদিনের ক্লান্তি নিমিষেই দূর হয় শরবত পান করে। এছাড়া এ সময় গরমের কারণে ঘামের সাথে শরীর থেকে অতিরিক্ত পানি বের হয় বলে রোজাদারদের পানিশূন্যতার ঝুঁকি বেড়ে যায়। তাই ইফতারে শরীরের পানির চাহিদা পূরণে পান করা যেতে পারে ফলের শরবত।

যেহেতু গ্রীষ্মকাল চলছে তাই হাতের নাগালে পাওয়া যাচ্ছে বিভিন্ন ধরনের মৌসুমি ফল। এসব ফল দিয়ে ব্লেন্ডারে সহজেই বানিয়ে নেয়া যায় সুস্বাদু ও স্বাস্থ্যকর শরবত। ইফতারের আগে রান্নার তাড়াহুড়োর মধ্যেও খুব কম সময়ে ব্লেন্ডারে তৈরি করা যায় যেকোনো ফলের শরবত। ঘরে থাকা উপকরণ দিয়ে ব্লেন্ডারে সহজে তৈরি করা যায় এমন দুইটি শরবতের রেসিপি নিচে দেয়া হলো।

তরমুজের শরবত

উপকরণ: মাঝারি আকারের তরমুজ (১টি), বিট লবণ (১ চা চামচ), চিনি (২ টেবিল চামচ), ক্রিম (আধা কাপ), লেবুর রস (২ চা চামচ)।

প্রস্তুত প্রণালি: তরমুজের বিচি ফেলে দিয়ে শুধু লাল অংশটা নিন। এবার তরমুজটি ছোট ছোট টুকরো করে ব্লেন্ডারের জগে নিন। এর মধ্যে পরিমাণমতো চিনি, বিট লবণ, লেবুর রস যোগ করে ব্লেন্ড করুন এবং ঠাণ্ড হওয়ার জন্য কিছুক্ষণ ফ্রিজে রেখে দিন। এবার একটি বাটিতে ক্রিম নিয়ে দুই চা চামচ চিনি দিয়ে ভালো করে ফেটিয়ে নিন। পরিবেশনের সময় গ্লাসে ফ্রিজে রাখা তরমুজের রস ঢেলে উপরে ফেটানো ক্রিম ঢেলে দিন। সবশেষে কয়েকটি তরমুজের টুকরো উপরে ছড়িয়ে পরিবেশন করুন মজাদার তরমুজের শরবত।

কাঁচা আমের স্মুদি

উপকরণ: কাঁচা আম (২টি), চিনি (এক কাপ,) টক দই (এক কাপ), বিট লবণ (এক চা চামচ), মধু (এক টেবিল চামচ), কাঁচা মরিচ (২-৩টি), পুদিনা পাতা (আধা কাপ), টালা জিরার গুঁড়া (আধা চা চামচ), লবণ (স্বাদমতো), বরফকুচি।

প্রস্তুত প্রণালি: প্রথমে ছোট টুকরো করে কাঁচা আমগুলো কেটে নিন। এবার সব উপকরণ ব্লেন্ডারে নিয়ে নিন। প্রয়োজনমতো পানি মিশিয়ে ভালোভাবে ব্লেন্ড করুন। এবার গ্লাসে স্মুদি ঢেলে উপরে বরফ কুচি দিয়ে দিন। লেবুর স্লাইস দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন স্বাস্থ্যকর কাঁচা আমের স্মুদি।


আরও খবর



সাঈদীকে মুক্তির বৈঠকের অভিযোগে গ্রেপ্তার নয়নের জামিন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৪ মে ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৪ মে ২০২১ | ৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
বছরের ১২ মে গোপন বৈঠকের অভিযোগে নয়নকে গ্রেপ্তার করে চট্টগ্রামের পাঁচলাইশ থানা পুলিশ। মামলায় গত ১ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্ট তাকে জামিন দেন। কিন্তু রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে চেম্বার

যুদ্ধাপরাধে আমৃত্যু কারাদণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াত নেতা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর মুক্তি নিয়ে চট্টগ্রামে গোপন বৈঠকের অভিযোগে গ্রেপ্তার রুবেল বড়ুয়া নয়নকে জামিন দিয়েছেন আপিল বিভাগ।

আজ মঙ্গলবার (৪ এপ্রিল) প্রধান বিচারপতিসহ ৬ বিচারপতির আপিল বেঞ্চ তাকে জামিন দেয়। এদিন জামিন আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী সেলিনা আক্তার চৌধুরী। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন সমরেন্দ্রনাথ বিশ্বাস।

আইনজীবী সেলিনা আক্তার জানান, গত বছরের ১২ মে গোপন বৈঠকের অভিযোগে নয়নকে গ্রেপ্তার করে চট্টগ্রামের পাঁচলাইশ থানা পুলিশ। মামলায় গত ১ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্ট তাকে জামিন দেন। কিন্তু রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে চেম্বার আদালত ওই জামিন স্থগিত করে পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে পাঠিয়ে দেন। আজ আপিল বিভাগ শুনানি শেষে তার জামিন মঞ্জুর করে।

এই মামলার বিবরণ থেকে জানা যায়, যুদ্ধাপরাধে আমৃত্যু কারাদণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াত নেতা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীকে মুক্ত করতে চট্টগ্রামের লোহাগাড়ায় ১৭ মামলার আসামি বিধান বড়ুয়ার সহযোগী রকি বড়ুয়ার বাড়িতে গোপন বৈঠকের খবর পায় গোয়েন্দা সংস্থা। আর সেই বৈঠকে সাঈদীর ছেলে মাসুদ সাঈদী, মাওলানা তারেক মনোয়ার, রকি বড়ুয়াসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন। বিষয়টি গোয়েন্দারা জানতে পারেন।

পরবর্তীতে গত বছরের ১২ মে পাঁচলাইশ থানাধীন মোহাম্মদপুর এলাকার একটি বাসায় অভিযান চালিয়ে রকি বড়ুয়াসহ ৭ জনকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব।


আরও খবর