আজঃ শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪
শিরোনাম

ভারতের সঙ্গে রুপিতে বাণিজ্য চুক্তি : খালিদ মাহমুদ

প্রকাশিত:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
রাজশাহী প্রতিনিধি

Image

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, ভারতের সঙ্গে আমাদের চুক্তি হয়েছে। আমরা ভারতীয় মুদ্রায় ব্যবসা-বাণিজ্য করতে পারব। এতে করে দেশের রিজার্ভের উপর চাপ কমবে।

সুলতানগঞ্জ-মায়া নৌরুটের উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি এই তথ্য জানান।

সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টার দিকে রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার সুলতানগঞ্জে অবস্থিত পদ্মার তীরে এই নৌবন্দরের উদ্বোধন করা হয়।

এই নৌবন্দরে ভারতীয় রুপিতে ব্যবসার ভালো প্রতিফলন পড়বে বলে প্রতিমন্ত্রী আশা প্রকাশ করেন।

বিআইডব্লিউটিএর তথ্যমতে, ভারত থেকে স্থলবন্দর দিয়ে প্রতি টন পাথর আনতে খরচ পড়ে ১৩ মার্কিন ডলার। সমুদ্র পখে এই খরচ ২০ ডলার। সুলতানগঞ্জ নৌবন্দর দিয়ে পাথর আমদানি করতে খরচ পড়বে মাত্র ৯ থেকে ১০ ডলার। এছাড়া বাংলাদেশের কার্গো বা জাহাজে পাথর আনা যাবে। বিল দেওয়া যাবে আন্তঃদেশীয় মুদ্রায়। ফলে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রার সাশ্রয় হবে। সৃষ্টি হবে বহু কর্মসংস্থান।

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মায়া বন্দর থেকে নৌপথে রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার সুলতানগঞ্জ নৌবন্দরের দূরত্ব মাত্র ২০ কিলোমিটার। সুলতানগঞ্জ থেকে রাজশাহীর দূরত্ব ৩৬ কিলোমিটার। রাজশাহীর সঙ্গে পাবনা, সিরাগঞ্জ, বগুড়া, নওগাঁ, জয়পুরহাট, রংপুর, দিনাজপুর, কুষ্টিয়া, খুলনা ও যশোর এমনকি ঢাকার সাথে সড়কপথে সরাসরি যোগাযোগ রয়েছে। ফলে দেশের স্থলবন্দর বা সমুদ্রবন্দরের চেয়ে অনেক সাশ্রয় হবে সুলতানগঞ্জ-মায়া নৌপথ।

বাংলাদেশে মোট পাঁচটি আন্তর্জাতিক নৌপথ চালু আছে জানিয়ে বিআইডব্লিউটিএর বৈদেশিক পরিবহন শাখার উপপরিচালক শর্মিলা খানম গতকাল বলেন, এগুলোর মধ্যে সুলতাগঞ্জ থেকে মায়া বন্দরটি সবচাইলে স্বল্প দূরত্বের। নদীর নব্য বৃদ্ধি করতে পারলে এই রুট আরিচা পর্যন্ত দীর্ঘ হবে, যা অনুমোদন হয়ে আছে।


আরও খবর



অবশেষে আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দরপতন

প্রকাশিত:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

দক্ষিণ গাজায় সিরিজ হামলা সমাপ্ত করেছে ইসরায়েল। এতে মধ্যপ্রাচ্য থেকে তেল সরবরাহ নিয়ে উদ্বেগ কমেছে। ফলে আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি পণ্যটির মূল্য হ্রাস পেয়েছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের বরাত দিয়ে বিজনেস রেকর্ডারের এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানা গেছে।

এতে বলা হয়, সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) স্পট মার্কেটে বৈশ্বিক বেঞ্চমার্ক অপরিশোধিত ব্রেন্টের দর নিম্নমুখী হয়েছে ২৯ সেন্ট বা শূন্য দশমিক ৪ শতাংশ। প্রতি ব্যারেলের দাম স্থির ৮১ ডলার ৯০ সেন্টে।

একই কার্যদিবসে ফিউচার মার্কেটে যুক্তরাষ্ট্রের বেঞ্চমার্ক অপরিশোধিত ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েটের (ডব্লিউটিআই) মূল্য নিম্নগামী হয়েছে ২৮ সেন্ট বা শূন্য দশমিক ৪ শতাংশ। ব্যারেলপ্রতি দর নিষ্পত্তি হয়েছে ৭৬ ডলার ৫৬ সেন্টে।

গত সপ্তাহে ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সশস্ত্র সংগঠন হামাসের যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে ইসরায়েল। এতে দুই পক্ষের সংঘাত বৃহৎ আকার ধারণ করার আশঙ্কা জাগে। এছাড়া বিশ্বজুড়ে ভূ-রাজনৈতিক ঝুঁকি বাড়ে। ফলে মধ্যপ্রাচ্য থেকে তেলের সরবরাহ ব্যাহত হয়। তাতে জ্বালানি পণ্যটির দাম ৩ শতাংশ বৃদ্ধি পায়। অবশেষে চলতি সপ্তাহের শুরুতেই তেলের দরপতন ঘটলো।

এদিন ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী জানিয়েছে, দক্ষিণ গাজায় সিরিজ হামলা চালিয়েছে তারা। এখন সেটার সমাপ্তি টানা হয়েছে। এর আগে গত সপ্তাহে হামাসের যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব নাকচ করে দেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী বেনজামিন নেতানিয়াহু।


আরও খবর



সুবর্ণচরে মা-মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নোয়াখালী প্রতিনিধি

Image

সিঁধ কেটে ঘরে ঢুকে মা-মেয়েকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলার চরওয়াপদা ইউনিয়নে। সোমবার (০৫ ফেব্রুয়ারি) রাত পৌনে ২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। নির্যাতিত গৃহবধূর বয়স (৩০) ও তাঁর মেয়ের বয়স (১২) বছর।

মঙ্গলবার (০৬ ফেব্রুয়ারি) বেলা সাড়ে ১১টায় ভুক্তভোগী গৃহবধূর বরাত দিয়ে চরজব্বর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.রফিকুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ ও স্থানীয়দের বরাত দিয়ে জানা যায়, ভুক্তভোগী গৃহবধূর স্বামী পেশায় একজন দিনমজুর। তিনি কাজের জন্য সপ্তাহের তিন থেকে চারদিন বাড়ির বাইরে থাকেন। এ সুযোগে সোমবার রাত পৌনে ২টার দিকে বসত ঘরে সিঁধ কেটে গৃহবধূও ও তাঁর মেয়েকে ধর্ষণ করে তিনজন। খবর পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

চর জব্বর থানার ওসি রফিকুল ইসলাম বলেন, কিছুদিন আগে নির্যাতিত গৃহবধূ নতুন বাড়িতে উঠেন। ওই বাড়িতে সিঁধ কেটে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। গৃহবধূ ও তার মেয়েকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হচ্ছে। অভিযুক্ত আসামিদের গ্রেপ্তারে চেষ্টা চলছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটের দিন নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলায় এক গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় সোমবার (০৫ ফেব্রুয়ারি) নোয়াখালী নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক (জেলা জজ) ফাতেমা ফেরদৌস ওই ধর্ষণ মামলায় ১৬ আসামির মধ্যে ১০ জনের মৃত্যুদণ্ড ও ছয় আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন। একই সাথে তাদের অর্থদণ্ডও করা হয়।


আরও খবর



সিরাজগঞ্জে চার মণ গাঁজাসহ আটক চার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

Image

সিরাজগঞ্জে ৪ মণ গাঁজাসহ চারজনকে আটক করেছে ডিবি পুলিশ।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ জুলহাজ উদ্দীন জানান, মঙ্গলবার ভোরে লালমনিরহাটের হাতিবান্ধা থেকে একটি ট্রাক পাবনা, সিরাজগঞ্জ আসার পথে হাটিকুমরুল মহাসড়কে অভিযান চালিয়ে  ট্রাক থেকে ৪ মন গাঁজা সহ ৪ জনকে আটক করেছে গোয়েন্দা পুলিশ।

আটককৃতরা লালমনিরহাট জেলার হাতিবান্ধা উপজেলার বাড়াইপাড়া কালিবাড়ী গ্রামের আতিকুল ইসলাম (৪০), নারায়ণগঞ্জ জেলা সদরের সৈয়দপুর টানবাজার রেলবাগান এলাকার অপু মিয়া (৩৩), সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার ঘোড়াচরা পূর্বপাড়া গ্রামের  নাজমুল শেখ (২৬) ও কামারখন্দ উপজেলার কর্ণসূতী গ্রামের আব্দুল লতিফ শেখ (৫১)।

আটক আতিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় ৭টি মাদক মামলাসহ ৮টি ও মো. আব্দুল লতিফ শেখের বিরুদ্ধে ২টি মাদক মামলা আদালতে বিচারাধীন রয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

নিউজ ট্যাগ: সিরাজগঞ্জ

আরও খবর



মিয়ানমারের মর্টারশেলে বিধ্বস্ত বীর মুক্তিযোদ্ধার বসতঘর

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বান্দরবান প্রতিনিধি

Image

আবারও মিয়ানমারের ছোড়া একটি মর্টারশেল নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম সীমান্তের অভ্যন্তরে বিস্ফোরিত হয়েছে। এতে কেউ হতাহত না হলেও এক বীর মুক্তিযোদ্ধার ঘর বিধ্বস্ত হয়েছে।

মঙ্গলবার (০৬ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ঘুমধুম উচ্চবিদ্যালয়ের পাশে মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলামের বাড়িতে এসে মর্টারশেলটি পড়ে। বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলামে ছেলে মনিরুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

মনিরুল ইসলাম জানান, সকাল সাড়ে ৯টার দিকে বসতবাড়িতে একটি মর্টারশেল বিকট শব্দে বিস্ফোরিত হয়। এ সময় বসতঘর ও গাছ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। প্রচণ্ড শব্দে এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। তবে এতে কেউ আহত হননি। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে বিজিবি সদস্যরা এসে মর্টারশেলের অংশ নমুনা হিসেবে নিয়ে যায়।

এর আগে সোমবার দুপুরে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম ইউপির ৪ নম্বর ওয়ার্ডের জলপাইতলি এলাকায় তুমব্রু সীমান্তে মিয়ানমার থেকে ছোড়া মর্টারশেলের আঘাতে বাংলাদেশিসহ দুজন নিহত হয়েছেন। এতে ঘটনাস্থলেই এক রোহিঙ্গা শ্রমিক (৫৫) নিহত হন। আহত অবস্থায় হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যান হোসেন আরা। তিনি স্থানীয় ব্যবসায়ী বাদশা মিয়ার স্ত্রী।


আরও খবর



ফিলিস্তিন রাষ্ট্র ছাড়া ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক নয় : সৌদি আরব

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলি আগ্রাসন বন্ধ না হওয়া পর্যন্ত ইসরায়েলের সঙ্গে কোনো কূটনৈতিক সম্পর্ক রাখবে না সৌদি আবর। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বুধবার (০৭ ফেব্রুয়ারি) এক বিবৃতিতে যুক্তরাষ্ট্রকে এ কথা জানিয়েছে। ইতিমধ্যেই সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইনসহ কয়েকটি দেশ ওয়াশিংটনের মধ্যস্থতায় ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করেছে।

মঙ্গলবার (০৬ ফেব্রুয়ারি) হোয়াইট হাউসের জাতীয় নিরাপত্তা বিষয়ক মুখপাত্র জন কিরবি বলেছেন, সৌদি আরব এবং ইসরায়েল স্বাভাবিকভাবে আলোচনা চালিয়ে যেতে ইচ্ছুক বলে বাইডেন প্রশাসন ইতিবাচক সাড়া পেয়েছেন।

গত সোমবার সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে ব্লিনকেনের বৈঠক হয়। এর পরদিন মঙ্গলবার কাতারের রাজধানী দোহায় এক সংবাদ সম্মেলনে ব্লিনকেন এসব কথা বলেন। এর পরেই মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, কিরবির ওই বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে ফিলিস্তিনের বিষয়ে নিজেদের দৃঢ় অবস্থানের কথা ওয়াশিংটনকে পরিষ্কার করতে এ বিবৃতি দিয়েছে সৌদি। অনেক দিন ধরেই ইসরায়েল ও সৌদি আরবের মধ্য কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের চেষ্টা চালিয়ে আসছে যুক্তরাষ্ট্র।

এর আগে ২০২০ সালে সৌদি আরব উপসাগরীয় প্রতিবেশী দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইনকে তাদের নীরব সম্মতি দেওয়ার পর থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে ইসরায়েল ও সৌদি আরবের সম্পর্কের বিষয়ে আলোচনা চলছে। যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরায়েলের টার্গেট এখন সৌদি আরব। কারণ দেশটি ইসরায়েলের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা করলেই একই পথে হাঁটবে অনেক মুসলিম দেশ। তাই সৌদি আরবও অত্যন্ত সতর্ক পদক্ষেপে হাঁটছে।

রিয়াদের একটি সূত্র রয়টার্সকে ২০২৩ সালের অক্টোবরে জানিয়েছিল, ফিলিস্তিনি সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাস এবং ইসরায়েলি বাহিনীর মধ্যে যুদ্ধ বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সৌদি ও ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের চেষ্টা বরফে চাপা পড়েছে। সৌদি প্রশাসন চুক্তির দ্বারপ্রান্তে পৌঁছেছিল, কিন্তু তার মধ্যেই শুরু হয় গাজা যুদ্ধ। ফলে থমকে গেছে সব ধরনের অগ্রগতি। যদিও এর মধ্যেই চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে মার্কিন প্রশাসন। গাজা যুদ্ধের মধ্যেই একাধিকবার রিয়াদ সফর করেছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিনকেন। তবে বর্তমান পরিস্থিতিতে কঠোর মনোভাব দেখাচ্ছে সৌদি আরব।


আরও খবর