আজঃ বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১
শিরোনাম
কলম্বিয়াকে ২-১ গোলে হারাল ব্রাজিল স্পেনের কারাগারে ম্যাকাফি অ্যান্টিভাইরাস আবিষ্কারকের ‘আত্মহত্যা’ আগস্টে মুক্তি পাচ্ছে চলচ্চিত্র ‘চিরঞ্জীব মুজিব’ গত ২৪ ঘণ্টায় রাজশাহীতে আরও ১৮ জনের মৃত্যু ‘আ.লীগ হীরার টুকরা, যতবার কেটেছে নতুন করে জ্যোতি ছড়িয়েছে’ উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার নামে মিথ্যাচারের প্রতিবাদে মানববন্ধন স্বাক্ষর জালিয়াতি ও তথ্য গোপন করায় ছাত্র ইউনিয়নের দুই শীর্ষ নেতা বহিষ্কার ইতিহাসে আওয়ামী লীগ, বঙ্গবন্ধু, বাংলাদেশ ও শেখ হাসিনা সমার্থক হয়ে থাকবে: : মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী পরীমনির মামলায় সেই নাসির-অমি ৫ দিনের রিমান্ডে ৯ দেশে ছড়িয়েছে ডেলটা প্লাস ধরন

ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ নিখোঁজ! থানায় জিডি

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৩ মে ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ মে ২০২১ | ১৫০৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। এজন্যে গতকাল বুধবার দিল্লি পুলিশের কাছে একটি নিখোঁজ-ডায়েরি করেছেন কংগ্রেসের ছাত্র সংগঠন ন্যাশনাল স্টুডেন্টস ইউনিয়ন অব ইন্ডিয়া(এনএসইউআই)-র সাধারণ সম্পাদক নগেশ কারিয়াপ্পা।

এনএসইউআইয়ের সাধারণ সম্পাদক বলেন, দেশের সঙ্কটময় পরিস্থিতিতে রাজনীতিকদের উচিত নাগরিকদের সুরক্ষা প্রদান করা, পালিয়ে যাওয়া নয়। কিন্তু আমাদের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে খোঁজই পাওয়া যাচ্ছে না। তাই আমরা নিখোঁজ-ডায়েরি করতে বাধ্য হয়েছি।

সংগঠনটি এক বিবৃতিতে জানায়, এই ভয়ঙ্কর মহামারির সঙ্গে আমরা প্রত্যেকেই লড়াই করছি। এই পরিস্থিতিতে আমরা সরকারকে পাশে চাই। এই সরকার তা পূরণ করতে ব্যর্থ হয়েছে। তাই আমরা নিখোঁজ-ডায়েরি করেছি। আমরা চাই, এই সরকার জনগণের উদ্দেশে বার্তা দিক।

অপরদিকে এনএসইউআই-র সর্বভারতীয় সম্পাদক ও মুখপাত্র লোকেশ চুঘ বলেন, অমিত শাহের নামে নিখোঁজ-ডায়েরি করার পর আমাদের দপ্তরে দিল্লি পুলিশের কয়েকজন কর্মকর্তা কারিয়াপ্পার সঙ্গে দেখা করতে এসেছিলেন। ২০১৩ সাল পর্যন্ত নাগরিকদের দায়িত্ব নিতে দেখা যেত রাজনৈতিক নেতা-নেত্রীদের। বিজেপি সরকারে আসার পর সব বদলে গেছে। এই সরকারের দ্বিতীয় গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে খুঁজেই পাওয়া যাচ্ছে না এই মহামারিকালে।



আরও খবর



‘বিদেশ থেকে মাংস আমদানি নয় রপ্তানীর পরিকল্পনা করছে সরকার’

প্রকাশিত:শনিবার ১২ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১২ জুন ২০২১ | ৮৪৬জন দেখেছেন
হযরত আলী হিরু, স্বরূপকাঠি

Image

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, এবারের বাজেটে দেশের বাহির থেকে আর মাংস না আনার প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়েছে। পরিকল্পনা রয়েছে দেশের চাহিদা মিটিয়ে বিদেশে মাংস রপ্তানী করার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অঙ্গীকার এ দেশের একজন মানুষও গৃহহীন থাকবে না। তিনি বলেন, নদী ভাঙনের শিকার হয়ে যারা গৃহহারা হয়েছেন বর্তমান সরকার অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সে সব পরিবারকে পুনর্বাসন করছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হাজার হাজার ভমিহীন ও দরিদ্র পরিবারকে ঘর উপহার দিচ্ছেন।


শনিবার সকালে উপজেলা প্রাণিসম্পদ প্রদর্শনী উপলক্ষে আয়োজিত সভায় এবং দুপুরে স্বরূপকাঠির ইন্দুরহাট সংলগ্ন সন্ধ্যা নদীর ভাঙন রোধে বালু ভর্তি জিও ব্যাগ ফেলানো কাজের উদ্বোধন উপলক্ষে এক সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন। সভায় মন্ত্রী শিক্ষিত বেকার যুবকদের চাকুরীর পিছনে না ঘুরে উদ্যোক্তা হওয়ার পরামর্শ দেন। এক্ষেত্রে সরকারের পক্ষ থেকে সর্বাত্মক সহায়তার আশ্বাস দেন।


এসময় মন্ত্রী আরও বলেন, বৈশ্বিক মহামারির মধ্যেও অর্থনৈতিক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার লাখ লাখ দরিদ্র মানুষকে ত্রাণ সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে। তিনি বলেন, নদী ভাঙনের কারণে মানুষ জমিজমা হারাচ্ছে। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সজাগ দৃষ্টি রয়েছে বলেই নদী ভাঙন মোকাবেলায় প্রতি বছর শত শত কোটি টাকা ব্যয় করছেন।


সরকারি স্বরূপকাঠি পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মাঠে অনুষ্ঠিত প্রদর্শনী মেলা উপলক্ষে সভায় সভাপতিত্ব করেন ইউএনও মো. মোশারেফ হোসেন বক্তব্য রাখেন বরিশাল বিভাগীয় প্রাণিসম্পদ বিভাগের পরিচালক দীপক রঞ্জন, উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল হক, পৌর মেয়র গোলাম কবির, উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা তাপশ ঘোষ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম ফুয়াদ ও উপজেলা পোল্ট্রি খামার মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন প্রমুখ। দুপুরে কৌরিখাড়ায় সুধি সমাবেশে পানি উন্নয়ন বোর্ডের পিরোজপুরের নির্বাহী প্রকৌশলী মাহবুবে মাওলা মো. মেহেদী হাসানের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যক্ষ মো. শাহ আলম, পানি উন্নয়ন বোর্ডের বরিশালের তত্তাবধায়ক প্রকৌশলী মো. শফি উদ্দিন, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল হক, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মোশারেফ হোসেনে, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. আব্দুল হামিদ প্রমুখ।


পরে মন্ত্রী বিকেলে মন্ত্রী উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে মুজিব বর্ষ ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্টের পুরস্কার বিতরণ ও জেলেদের মাঝে গবাদী পশু বিতরণ করেন।


আরও খবর



ফেসবুকে ভুয়া বিজ্ঞাপন, ঘুম কেড়েছে এক শিল্পীর

প্রকাশিত:সোমবার ২১ জুন 20২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২১ জুন 20২১ | ৬৮জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ফেসবুকের ভুয়া বিজ্ঞাপন কেড়ে নিয়েছে এক শিল্পীর চোখের ঘুম। তার জীবনের সত্যিাকারের এক রূপথার গল্পে বাগড়া দিয়েছে দুস্কৃতিকারীরা।

তার শিল্পকর্মের ছবি চুরি করে অন্যরা ব্যবসা করলেও তিনি কোনো অভিযোগ বা পদক্ষেপ নিতে পারেননি। আর ফেসবুকও ওই চোরদের বিরুদ্ধে কোনো কোনো ব্যবস্থাই নেয়নি। ফলে তিনি ব্যবসায়িকভাবে ব্যাপক ক্ষতির মুখে পড়েছেন। 

তারের সাহায্যে পরী ও ফুলের আকর্ষণীয় ভাস্কর্য তৈরি করেন রবিন উইট। অনলাইনে তার সেসব ভাস্কর্যের ছবি ছড়িয়ে পড়ে। লাখ লাখ মানুষ সেইসব ভাস্কর্য দেখে মুগ্ধ হন। 

কিন্তু তিনি লক্ষ্য করেছেন, তার শিল্পকর্মের তোলা ছবিগুলো ফেসবুকে বিজ্ঞাপন আকারে প্রকাশ পেয়েছে। অথচ রবিন উইট কোনো বিজ্ঞাপন দেননি।

তিনি বুঝতে পারেন, তার ওয়েবসাইট থেকে ছবিগুলো চুরি করা হয়েছে। সারাবিশ্বের গ্রাহকের কাছে বাগানের সৌন্দর্য্য কাড়ানোর জন্য রবিনের তৈরি ভাস্কর্য বিক্রির কথা বলে ওই ছবিগুলো ব্যবহার করছে দুস্কৃতিকারীরা।

ওইসব ছবি ব্যবহার করে অন্য ওয়েবসাইট থেকে ভাস্কর্য কেনার কথা বলা হয়েছে। টাকা পরিশোধ করেও অনেকেই পণ্য পাননি। যারা পেয়েছেন তাদের বেশিরভাগই আসল পণ্য পাননি।

এভাবেই রবিনের ছোট্ট পারিবারিক ব্যবসাকে ক্ষতিগ্রস্ত করা হয়েছে। আর এসব বেআইনি বিজ্ঞাপনদাতাদের বিরুদ্ধে তেমন কোনো পদক্ষেপই গ্রহণ করতে পারেননি তিনি।

রেডিও ফোরের ইউ অ্যান্ড ইয়োরস অনুষ্ঠানে রবিন তার দুঃস্বপ্নের গল্প বলেন। 

তিনি বলেন, ফেসবুকের ভুয়া বিজ্ঞাপনগুলো দেখে আমি সত্যিই তিন সপ্তাহ ঘুমাতে পারিনি। ওই ছবিগুলো কার্যকরভাবে মুদ্রার মতো, যা আমাদের ব্যবসার ট্র্যাফিক প্রবাহকে চালিত করে। কিন্তু ওই ভুয়া বিজ্ঞাপনগুলোর কারণে আমাদের ব্যবসায় ভাটা পড়েছে।

এক দশক আগে শখের বশে ফ্যান্টাসি ওয়্যার নামে ব্যবসা শুরু করেছিলেন রবিন। শুরুতে তিনি মাত্র কয়েকটি পরীর ভাস্কর্য স্থানীয়ভাবে বিক্রি করেছিলেন। পরে তিনি ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হন এবং তার ব্যবসার আকার বাড়তে থাকে। 

প্রতিটি ভাস্কর্য প্রায় ১৫ হাজার পাউন্ডে বিক্রি করেন রবিন। এটা এখন তার পারিবারিক ব্যবসা। কারণ এ কাজে তাকে স্ত্রী ও ছেলে-মেয়ে সহায়তা করে। কিন্তু ফেসবুকের ভুয়া বিজ্ঞাপনে অনেক কম দামে দেখতে একই রকমের ভাস্কর্য বিক্রি হচ্ছে। যেগুলো খুবই নিম্নমানের। কোনোগুলো প্লাস্টিকের। আমাজনেও রবিনের ভাস্কর্যের ভুয়া বিজ্ঞাপন আছে। 



আরও খবর



টগর হত্যা মামলার ১৮ আসামির খালাস

প্রকাশিত:বুধবার ০৯ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৯ জুন ২০২১ | ৮৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

প্রায় ২৭ বছর আগে ১৯৯৪ সালের নওগাঁর বদলগাছিতে চাঞ্চল্যকর টগর হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় মামলার মূল আসামিসহ ১৮ জনকে খালাস দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

বুধবার প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের ভার্চুয়াল বেঞ্চ এই রায় দেন। রায়ের বিষয়টি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেছেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিৎ দেবনাথ।

তাদের কেন খালাস দেয়া হয়েছে তার তথ্য রায় প্রকাশের পর জানা যাবে বলে জানান ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল। এর আগে টগর হত্যা মামলায় ২০০৫ সালের ১০ জুলাই নওগাঁর আদালত মূল আসামি ডা. নুরুল ইসলামকে মৃত্যুদণ্ড দেন। একই সঙ্গে বাকি ১৮ জনকে যাবজ্জীবন দেওয়া হয়।

এরপর ২০২০ সালের ২৮ নভেম্বর হাইকোর্ট নুরুলের মৃত্যুদণ্ড কমিয়ে যাবজ্জীবন দেন।  বাকি ১৮ জনের সাজাও বহাল থাকে।  এর মধ্যে মূল আসামি নুরুল ইসলাম মারা গেছেন।

সেই মামলারই সব আসামিকে ২৭ বছর পর খালাস দিলেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।


নিউজ ট্যাগ: টগর হত্যা

আরও খবর



প্রথম দিনেই সর্বোচ্চ আয়ের রেকর্ড গড়লো ‘কনজ্যুরিং থ্রি’

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৮ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৮ জুন ২০২১ | ৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সাড়া জাগানো ভৌতিক ছবিগুলোর সিনেমাগুলোর মধ্যে অন্যতম কনজ্যুরিং। সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে এই ছবির সিকুয়েল কনজ্যুরিং থ্রি। করোনাকালে মুক্তির প্রথম দিনে সর্বোচ্চ আয়ের রেকর্ড গড়েছে এই ছবি। প্রথম দিনেই এই ছবি আয় করে নিয়েছে প্রায় ১০ মিলিয়ন ডলার।

পরিচালক মাইকেল কেভস-এর দাবি, কনজ্যুরিং' সিরিজের এই ছবিটিই নাকি সবচেয়ে ভয়ের। ১৯৮১ সালে একটি হত্যা মামলায় জড়িয়ে পড়া আর্নে জনসনের জীবনের অলৌকিক ঘটনা নিয়ে তৈরি হয়েছে ছবিটি।

দ্য কনজ্যুরিং ২০১৩ সালের ১৯ জুলাই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডায় মুক্তি পায়। এটি নির্মাণে ব্যয় হয় প্রায় ২ কোটি মার্কিন ডলার। আর এটি প্রায় ৩১ কোটি ৮০ লাখ মার্কিন ডলার আয় করে সর্বকালের সেরা আয়ের ভৌতিক চলচ্চিত্রের খেতাব অর্জন করে।

নিউজ ট্যাগ: কনজ্যুরিং থ্রি

আরও খবর



নতুন প্রজাতির ব্যাঙ আবিষ্কার করলো জবির দুই শিক্ষার্থী

প্রকাশিত:শনিবার ২৯ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৯ মে ২০২১ | ১৩২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

জবি প্রতিনিধি

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) প্রাণিবিদ্যা বিভাগের ২০১০-২০১১ শিক্ষাবর্ষের (৬ষ্ঠ ব্যাচ) শিক্ষার্থী হাসান আল রাজী চয়ন ও একই বিভাগের ২০১৬-২০১৭ শিক্ষাবর্ষের (১২তম ব্যাচের) মারজান মারিয়া নতুন প্রজাতির একটি ব্যাঙ আবিষ্কার করেছেন। নতুন প্রজাতির আবিষ্কার করা এ ব্যাঙটির নাম দেয়া হয়েছে "Leptobrachium sylheticum"।

শনিবার (২৯ মে) সাংবাদিকদের এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন তরুণ দুই গবেষক হাসান আল রাজী চয়ন ও মারজান মারিয়া।

তারা জানান, গত বছর জুনে সিলেটের মৌলভীবাজারের লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে গবেষণার কাজের জন্য গেলে তারা সেখানে এ ব্যাঙটিকে নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করতে থাকেন। তারা বুঝতে পারেন যে, এটা আমাদের পরিচিত ব্যাঙয়ের থেকে কিছুটা আলাদা প্রকৃতির। তারপর তারা এটা নিয়ে বিস্তর গবেষণা করে বুঝতে পারেন যে, এটা পুরো বিশ্বের জন্য একদম নতুন প্রজাতির ব্যাঙ।

নতুন প্রজাতি হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করার জন্য এ ব্যাঙের শারীরিক পরিমাপ, এদের মলিকুলার বিশ্লেষণের পাশাপাশি ডাকের বিশ্লেষণও করেছেন, যা এ গণের অন্য ব্যাঙদের থেকে সম্পূর্ণ ভিন্ন।

এরপর তারা তাদের গবেষণাপত্রটি Journal of Natural History জার্নালে পাঠালে সেখান থেকে এটা প্রকাশ হয় এবং তাদের এ আবিষ্কার এখন বিশ্বের কাছে স্বীকৃতি পেয়েছে।

গবেষণা কাজের সার্বিক তত্ত্বাবধান ও সহযোগিতায় ছিলেন Lomonosov Moscow state Universit-এর রাশিয়ান প্রফেসর Nick Poyarkov।

আবিষ্কারের বিষয়ে হাসান আল রাজী চয়ন বলেন, "ব্যাঙটি মূলত লাউয়াছড়া বন থেকে পাওয়া। নতুন প্রজাতির এই ব্যাঙটি আমাদের দ্বিতীয় আবিষ্কার। এর আগেও আমরা ওই বন থেকে আরো একটি ব্যাঙ আবিষ্কার করেছি। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে বনটি হুমকির সম্মুখীন হচ্ছে, বিভিন্ন কারণে বনের প্রাণ পানির ছড়াগুলো শুকিয়ে যাচ্ছে। বনের ছড়াগুলো ব্যাঙদের আবাসস্থল, তাই আমাদের ছড়াগুলো রক্ষার্থে এগিয়ে আসতে হবে।

Leptobrachium Sylhetian ব্যাঙটির বিভিন্ন শারীরিক বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে তিনি বলেন, ব্যাঙটি মাঝারি আকৃতির। ইংরেজিতে একে Liter Frog বলে কারণ এটি ঝরাপাতার ওপর চুপ করে বসে থাকে। এর শরীরের রঙ গাছের পাতার মতই। এদের বিশেষ বৈশিষ্ট্য হল এদের চোখগুলো লাল। তাই চোখে আলো পড়লে সেগুলো জ্বলে উঠে। এছাড়াও এই ব্যাঙটির ডাক অনেকটা হাসির মত বলেও জানান তিনি।

তাদের এমন আবিষ্কার দেশের জন্য গৌরবের দাবি করে তিনি বলেন, "নতুন কিছু আবিষ্কারের মাধ্যমে বাংলাদেশকে বিশ্বের কাছে উপস্থাপন করাটা আমাদের জন্য অনেক আনন্দদায়ক।

ভবিষ্যৎ কার্যক্রম সম্বন্ধে তিনি বলেন, "ইতোমধ্