আজঃ বুধবার ১৯ জুন ২০২৪
শিরোনাম

ভেঙ্গে গেল মনোহরদীর জনবহুল ব্রীজ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৪ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৪ মে ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
জেলা প্রতিনিধি

Image

ইটভাটার অতিরিক্ত কয়লা ও মালামাল বোঝাই একাধিক ট্রাক আসা যাওয়ার কারণে নরসিংদী মনোহরদী উপজেলার একটি জনবহুল ব্রীজ ভেঙ্গে গেছে। ব্রীজটি ভেঙ্গে পড়ায় জনদূর্ভোগের পাশাপাশি মনোহরদীসহ আশেপাশের কয়েকটি ইউনিয়নের বাসিন্দাদের যোগাযোগ একেবারে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ছে। বন্ধ হয়ে গেছে এ ব্রীজ দিয়ে চলাচলকারী শতাধিক সিএনজি, ব্যাটারীচালিত অটোরিক্সা চালকদের আয়ের পথ।

উপজেলার বড়চাপা ইউনিয়নের চালাকচর হতে শিমুলতলী রাস্তার বীরমাইজদিয়া মৌজায় ব্রীজটির অবস্থান। জরুরী ভিত্তিতে উক্ত ব্রীজটি পূর্ণনির্মান করার জন্য বড়চাপা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান উপাধ্যক্ষ এম সুলতান উদ্দিন উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে গত বুধবার একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

স্থানীয়রা জানান, বড়চাপা ইউনিয়নের চালাকচর টু শিমুলতলী সড়কের উপর নির্মিত ব্রীজটি আগ থেকেই কিছুটা ভাঙ্গা ছিল। অথচ এ ভাঙ্গা ব্রীজ দিয়েই প্রতিদিন বিভিন্ন যান চলাচল করতো।  সবচেয়ে ক্ষতির কারণ হয় স্থানীয় সি.বি.এফ ও বি.বি.এফ নামক দুটি ইটভাটার অতিরিক্ত কয়লা ও ইট বোঝাই ট্রাক চলাচল করায়। এই ইটভাটা দুটির কাঁচামাল ও ইট বোঝাই একাধিক ট্রাক প্রতিদিন আসা যাওয়ার কারণে গত ২ মে হঠাৎ করেই ব্রীজটি ভেঙ্গে পড়ে। ফলে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে ব্রীজটি দিয়ে যাতায়াতকারী কয়েকটি ইউনিয়নের বাসিন্দাদের। তাছাড়াও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও মনোহরদী, বড়চাপাসহ কয়েকটি বাজারের কয়েক হাজার শিক্ষার্থী ও পথচারী নিয়মিত চলাচল করত এ ব্রীজ দিয়ে। ব্রীজটি ভেঙে পড়ায় চলাচলকারী পথচারীদের পড়তে হয়েছে সীমাহীন বিড়ম্বনায়।

ব্যাটারীচালিত অটোরিক্সা চালক মোজাম্মেল হক বলেন,এ রাস্তাটি আমার জীবিকা নির্বাহের পথ। প্রতিদিনই আমি অটোরিক্সা দিয়ে যাত্রী নিয়ে এ সড়ক দিয়ে যাতায়াত করি। এতে যা আয় হয় তা দিয়ে আমার সংসার চলে। কিন্তু ব্রীজটি ভেঙ্গে পড়ায় আমি বিপদে পড়েছি।

মকবুল হোসেন নামে স্থানীয় এক বাসিন্দা জানান, গত (২মে) ভেঙে পড়া ব্রীজটি ৩০ বছরের পুরনো। সি.বি.এফ ও বি.বি.এফ ব্রিকফিল্ডের অতিরিক্ত কয়লা বোঝাই ট্রাক চলাচলের কারণে ব্রীজটির ভেঙ্গে পড়েছে। স্থানীয়দের অভিযোগ এই পুরনো ব্রিজের উপর দিয়েই সি.বি.এফ ও বি.বি.এফ ব্রিকফিল্ডের যাবতীয় কাচামাল সরবরাহ হয়ে থাকে। এলাকার লোকজন বিভিন্ন সময় বাধা দিলেও ইটভাটার মালিকরা কর্ণপাত করেনি।

সি.বি.এফ ও বি.বি এফ ব্রিকফিল্ডের স্বত্তাধিকারী মোঃ কিরণ মিয়া বলেন, এখানে শুধু আমার ইটভাটা আছে এমন না। আরো একটি ইটভাটা আছে। রাতের কোন এক সময়ে ব্রীজটি ভেঙ্গেছে। কেন ভেঙ্গেছে সেটা আমি বলতে পারবোনা।

বড়চাঁপা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এম সুলতান উদ্দীন বলেন, ব্রীজটি ভেঙে পড়ার পর আমি উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা ও উপজেলা প্রকৌশলী বরাবর লিখিত আকারে পুননির্মাণের আবেদন জানিয়েছি। আশা করছি দ্রুততার সাথে এর একটা সমাধান হবে।

মনোহরদী উপজেলা প্রকৌশলী মীর মহিদুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রেজাউল করিম ও আমি পরিদর্শনে গিয়েছিলাম। যেহতেু ব্রীজটি সম্পূর্ণরুপে ভেঙ্গে গেছে, এটা আর সংস্কার করার কোন সুযোগ নাই । ব্রীজটি নির্মাণ করার জন্য উধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে অবগত করেছি।

নিউজ ট্যাগ: নরসিংদী

আরও খবর



সংসদ সদস্যের গাড়ি ব্যবহার করে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থীর প্রচারণা

প্রকাশিত:বুধবার ০৫ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ০৫ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
পটুয়াখালী প্রতিনিধি

Image

পটুয়াখালীর দুমকী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হারুন অর রশীদ হাওলাদার একটি প্রাডো গাড়িতে চড়ে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন যা এলাকায় বেশ চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছে। কালো রংয়ের ঢাকা মেট্রো-ঘ (১৩-৪৩১২) নম্বরের প্রাডো গাড়িটি এর আগে স্থানীয় সংসদ সদস্য রুহুল আমিন হাওলাদারকে ব্যবহার করতে দেখেছেন এলাকাবাসী।

বিআরটিএর তথ্যানুযায়ী, গাড়িটি নীলফামারীর সাবেক প্রয়াত সংসদ সদস্য কর্নেল (অবসরপ্রাপ্ত) এ এ মারুফ সাকলানের নামে রেজিস্ট্রেশন থাকায় সন্দেহ আরও ঘনীভূত হয়েছে। প্রয়াত মারুফ সাকলান ২০০৮ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নীলফামারী ৪ আসনে মহাজোট থেকে নির্বাচিত হয়েছিলেন।

এলাকাবাসী ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাদের সাথে কথা বলে জানা যায়, ২০২৩ সালের সংসদ নির্বাচনে আসন ভাগাভাগিতে এলাকার জনপ্রিয় ব্যক্তিত্ব আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আফজাল হোসেনকে বাদ দিয়ে জাতীয় পার্টির এই নেতাকে এই আসনটি ছেড়ে দেয়া হয়। তখন স্থানীয় অনেক আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ এলাকার সাথে জনবিচ্ছিন্ন রুহুল আমিন হাওলাদারকে মেনে নিতে না চাইলেও এই দু:সময়ে পাশে দাড়াঁন বর্তমানের প্রার্থী হারুন অর রশীদ হাওলাদার।

এর প্রতিদানে একাধিক মতবিনিময় সভায় পটুয়াখালী ১ আসনের সংসদ সদস্য এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার দুমকি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হারুন হাওলাদারের পক্ষে ভোট চেয়েছেন। এমনকি সংসদ সদস্যের উপস্থিতিতে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মোঃ কাজী আলমগীর বলেন হারুন হাওলাদারকে ভোট না দিলে সরকারি বরাদ্দ না দেয়ার হুমকিও দিয়েছিলেন যা একাধিক স্থানীয় ও জাতীয় গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলে এলাকায় আসা কমিয়ে দেন সংসদ সদস্য এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার।

শুধু তাই নয়, স্থানীয় সংসদ সদস্য দুমকী উপজেলা নির্বাচনে মোটরসাইকেল প্রার্থী ও তার দু:সময়ের সাথী হারুন অর রশীদ হাওলাদারের পক্ষে বিভিন্নভাবে ক্ষমতা প্রয়োগ করে চলেছেন। এ ক্ষেত্রে তিনি স্থানীয় প্রশাসনকেও নানাভাবে প্রভাবিত করার চেষ্টা করে চলেছেন বলে অভিযোগ একাধিক চেয়ারম্যান প্রার্থীর।


আরও খবর



আবারও ক্যাটরিনার মা হওয়ার গুঞ্জন

প্রকাশিত:সোমবার ১০ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১০ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

বহু দিন ধরেই গুঞ্জন চলছে মা হতে চলেছেন ক্যাটরিনা কাইফ। এর মধ্যে অভিনেত্রী লন্ডনে গিয়ে নিজের পরিবারের সঙ্গে বেশ কয়েক দিন সময় কাটিয়েছেন। অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার এ গুঞ্জনের মধ্যেই গত শনিবার লন্ডন থেকে দেশে ফিরেছেন এ অভিনেত্রী।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকার খবরে জানা যায়, বিমানবন্দরে ছবিশিকারিদের ক্যামেরায় ধরা পড়েছেন ক্যাটরিনা। তার পরনে ছিল কালো শার্ট, কালো প্যান্ট আর লম্বা কালো কোট। চোখে কালো রোদচশমা। এভাবেই বিমানবন্দর থেকে বেরিয়ে এসে গাড়িতে ওঠেন ক্যাট। কিন্তু কোথায় তার স্ফীতোদর! তা হলে কি অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবর স্রেফ গুঞ্জন?

ছবিশিকারিদের তোলা ভিডিও দেখে নেটাগরিকরা বলছেন, মোটেই অন্তঃসত্ত্বা নন অভিনেত্রী। আর এক দলের অবশ্য দাবি, ক্যাটরিনা এমনভাবে পোশাক পরেছেন যে স্ফীতোদর ঢাকা পড়েছে। সাধারণত কালো পোশাক পরলে শরীরের ভাঁজ বোঝা যায় না। তাই কি ক্যাটরিনা কালো রং বেছে নিয়েছেন? তবে সবটাই এখন জল্পনা। ক্যাটরিনার এই সাজও পছন্দ করেছেন অনেকেই। অভিনেত্রীর এক অনুরাগী ভিডিওতে মন্তব্য করেন, ক্যাটরিনা অন্তঃসত্ত্বা নন বোঝাই যাচ্ছে। কিন্তু সব সময়ের মতোই তাকে সুন্দর লাগছে।

লন্ডন থেকে ছুটি কাটিয়ে ফিরেছেন অভিনেত্রী। বাকি সবটাই জল্পনা। দীপিকা পাড়ুকোন মা হতে চলেছেন, এ খবর ছড়িয়ে পড়ার পরেই ক্যাটরিনার অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবর নিয়ে জল্পনা তৈরি হয়। এমনও অনেকে বলেন, লন্ডনেই হয়তো সন্তানের জন্ম দেবেন তিনি। বিয়ের সময়েও গোপনীয়তা বজায় রেখেছিলেন ক্যাটরিনা। সন্তানধারণের ক্ষেত্রেও অন্যথা হবে বলে মনে করেননি নেটাগরিকরা। কিন্তু সেসব আশায় জল ঢেলে দিলেন ক্যাটরিনা নিজেই।

উল্লেখ্য, শ্রীরাম রাঘবনের মেরি ক্রিসমাস ছবিতে শেষ দেখা গিয়েছিল অভিনেত্রীকে। আগামী দিনে তার হাতে রয়েছে জি লে জরা


আরও খবর



হজে গিয়ে ১৫ বাংলাদেশির মৃত্যু

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১১ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

চলতি বছর হজে গিয়ে সৌদি আরবে এ পর্যন্ত বাংলাদেশী মোট ১৫ জন হজযাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে গতকালই দুইজন মারা গেছেন। এছাড়া হজ ফ্লাইট শুরু হওয়ার পর এ পর্যন্ত ৭৯ হাজার ৫৫৯ জন বাংলাদেশী হজযাত্রী সৌদি আরবে পৌঁছেছেন।

মঙ্গলবার (১১ জুন) হজ পোর্টালে আইটি হেল্প ডেস্কের প্রতিদিনের বুলেটিন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

হজ বুলেটিনের তথ্য অনুযায়ী, সৌদি আরবের মোট ১৫ জন বাংলাদেশী হজযাত্রী মারা গেছেন। এদের মধ্যে পুরুষ ১৪ জন, নারী একজন। মক্কায় ১১ জন এবং মদিনায় চারজন মারা গেছেন। মারা যাওয়া হজ যাত্রীদের মধ্যে রয়েছেন, রাজধানীর কদমতলীর মো. শাজাহান (৪৮), কুমিল্লা কোতোয়ালুর মো. আলী ইমাম ভূইয়া (৬৫), কক্সবাজার মহেশখালীর জামাল উদ্দিন (৬৯), কক্সবাজারের রামুর মো. নুরুল আলম (৬১), কক্সবাজারের চকোরিয়ার মাকসুদ আহমেদ (৬১), ফরিদপুর নগরকান্দার মমতাজ বেগম (৬৩), ঢাকা রামপুরা বনশ্রীর শেখ আরিফুল ইসলাম (৫৭), গাইবান্ধা সাঘাটার মো. সোলাইমান (৭৩), রংপুর পীরগঞ্জের মো. শাহাজুদ আলী (৫৫) ও রংপুর তারাগঞ্জের মো. গোলাম কুদ্দুস (৫৪)।

এছাড়া সর্বমোট ৭৯ হাজার ৫৫৯ জন হজযাত্রী সৌদি আরবে পৌঁছেছেন। এরমধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনার হজযাত্রী ৫ হাজার ২৯৭ জন ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনার হজযাত্রী ৭৪ হাজার ২৬২ জন।

এখন পর্যন্ত সৌদি আরব যাওয়ার ফ্লাইট পরিচালিত হয়েছে ২০১টি। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস পরিচালিত ফ্লাইট সংখ্যা ১০৫টি,

সৌদিয়া এয়ারলাইনস পরিচালিত ফ্লাইট ৬৮টি ও ফ্লাইনাস এয়ারলাইনস পরিচালিত ফ্লাইট ২৮টি। সৌদিতে আগামী ১৫ জুন এবারের হজ অনুষ্ঠিত হবে। হজযাত্রীদের সৌদি আরবে যাওয়ার প্রথম ফ্লাইট গত ৯ মে শুরু হয়। আগামী ১২ জুন পর্যন্ত সৌদি যাওয়ার ফ্লাইট চলবে। হজ শেষে ২০ জুন ফিরতি ফ্লাইট শুরু হবে। দেশে ফেরার ফ্লাইট শেষ হবে আগামী ২২ জুলাই।


আরও খবর



চবি বিএনসিসি’র উদ্যোগে কাউন্সেলিং ও বৃক্ষরোপন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:রবিবার ০৯ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ০৯ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
রাহুল সরকার, চট্টগ্রাম ব্যুরো

Image

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় বিএনসিসির উদ্যোগে বিএনসিসিতে ভর্তিকৃত নবীন ক্যাডেটদের কাউন্সেলিং ও বৃক্ষরোপন-২০২৪ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ আবু তাহের বলেন, বিএনসিসি একটি আধাসামরিক সেচ্ছাসেবী বাহিনী। শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের সমন্বয়ে গঠিত বিএনসিসি'র মূলমন্ত্র হলো- জ্ঞান ও শৃঙ্খলা। এই সংগঠন জনকল্যাণমূলক কাজ করার পাশাপাশি বৃক্ষরোপণ, স্বেচ্ছায় রক্তদানসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষ্ঠানের শৃংখলা আনয়নে যে ভূমিকা রাখে তা অত্যন্ত প্রশংসনীয়।

রবিবার সকালে বিএসসিসির অফিস প্রাঙ্গন প্রধান অতিথির বক্তব্য তিনি এসব কথক বলেন। রাখেন চবি উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ আবু তাহের। এসময় দ্রুত সময়ের মধ্যে বিএনসিসির নিজস্ব ভবন নির্মাণকাজ শুরুর ঘোষনা দেন।

তিনি বলেন, সৎ, সাহসী, পরিশ্রমী, শৃংখলাপূর্ণ, দক্ষ, দেশপ্রেমিক ও যোগ্য নেতৃত্ব তৈরির মহান উদ্দেশ্যে বিএনসিসি যে যাত্রা শুরু করেছে তা সমুন্নত রাখতে সকল ক্যাডেটদের আন্তরিকতার সাথে একযোগে কাজ করতে হবে।

তিনি স্বাধীন এ দেশে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে সকলকে স্ব স্ব ক্ষেত্রে একযোগে কাজ করার আহবান জানান।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন চবি উপ-উপাচার্য (একাডেমিক) প্রফেসর বেনু কুমার দে। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন চবি বিএনসিসির সমন্বয় কর্মকর্তা দ্বিতীয় লেফটেন্যান্ট প্রফেসর ড. বায়েজীদ মাহমুদ খান, সেনা শাখার বি কোম্পানী কমান্ডার ও ১ নং প্লাটুনের দায়িত্বে নিয়োজিত দ্বিতীয় লেফটেন্যান্ট প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ইসমাইল হোসেন, এ কোম্পানীর ২নং প্লাটুন কমান্ডার এর দায়িত্বে নিয়োজিত পিইউও ড. মোঃ শহীদুল হক, নৌ শাখা প্রধান পিইউও ড. মোঃ আহসানুল কবীর (ভারপ্রাপ্ত), বিমান শাখার ক্লাইট-২ ও বিমান শাখা প্রধান পিইউও প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল কাইয়ুম ও বিএনসিসি অফিসের সহকারী রেজিস্ট্রার বিধান রায়। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন এ কোম্পানীর ৩নং ও ফরেস্ট্রির প্লাটুনের দায়িত্বে নিয়োজিত পিইউও ড. সোহাগ মিয়া (ভারপ্রাপ্ত)।

অনুষ্ঠানে বিএনসিসির পক্ষ থেকে চবি উপাচার্য ও উপ-উপাচার্যকে গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়। এর আগের একটি করে ঢাকি জাম ও পলাশ গাছ লাগিয়ে বৃক্ষরোপন কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়।


আরও খবর



অ্যান্টিগুয়া ও বারবুডার পতাকাবাহী বাণিজ্যিক জাহাজে ইয়েমেনি যোদ্ধাদের ক্ষেপণাস্ত্র হামলা

প্রকাশিত:রবিবার ০৯ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ০৯ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

ইয়েমেন উপকূলে শনিবার (৮ জুন) মধ্যরাতে অ্যান্টিগুয়া ও বারবুডার পতাকাবাহী একটি বাণিজ্যিক জাহাজে হামলা চালিয়েছে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীরা। সমুদ্রে চলাচল করা বাণিজ্যিক জাহাজের নিরাপত্তা ফার্ম অ্যামব্রে এ তথ্য জানিয়েছে। খবর আরব নিউজ

জাহাজটি এডেন উপসাগর থেকে দক্ষিণপশ্চিম দিকে ৮.২ কেটিএস গতিতে যাওয়ার পথে এর ওপর ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানো হয়। এতে জাহাজটিতে আগুন ধরে যায়। তবে পরবর্তীতে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয় বলে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে অ্যামব্রে।

জাহাজটিতে দ্বিতীয় ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালালে তা লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে ব্যর্থ হয়। একই সময় সমুদ্রে থাকা ছোট ছোট নৌকা থেকে জাহাজটিতে গুলিও ছোড়া হয়। ফলে এটি গতিপথ পরিবর্তন করতে বাধ্য হয়। তবে এ ঘটনায় কেউ আহত হয়নি বলেও জানিয়েছে নিরাপত্তা ফার্ম অ্যামব্রে।

ব্রিটিশ রয়েল নৌবাহিনী পরিচালিত যুক্তরাজ্যের মেরিটাইম ট্রেড অপারেশন নামের প্রতিষ্ঠান জানিয়েছে, শনিবার মধ্যরাতে তারা একটি বাণিজ্যিক জাহাজে হুতি বিদ্রোহীদের দ্বারা হামলার খবর পেয়েছে। এ ঘটনায় তদন্তের কথা জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। এ ছাড়া জাহাজটিকে সতর্কতার সঙ্গে ট্রানজিট নেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীরা ইসরায়েলের সংশ্লিষ্টতা রয়েছে এমন বাণিজ্যিক জাহাজে আবারও ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন হামলা চালানোর ঘোষণা দেয়ার পরই এমন ঘটনা ঘটলো। গত বছরের নভেম্বর থেকেই ফিলিস্তিনিদের সমর্থনে হুতিরা লোহিত সাগরে চলাচল করা ইসরায়েলি সংশ্লিষ্টতা রয়েছে এমন বাণিজ্যিক জাহাজে হামলা চালিয়ে যাচ্ছে। এর ফলে অনেক বাণিজ্যিক জাহাজকে লোহিত সাগরের পরিবর্তে দক্ষিণ আফ্রিকার পথ ধরে যেতে হচ্ছে। বিশ্বে বাণিজ্যিক জাহাজ পরিবহনের ১২ শতাংশ এই লোহিত সাগর দিয়েই চলাচল করে।


আরও খবর