আজঃ মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম

প্রস্তাবিত বাজেট পুরোটাই গরিবের জন্য : অর্থমন্ত্রী

প্রকাশিত:শুক্রবার ০২ জুন 2০২3 | হালনাগাদ:শুক্রবার ০২ জুন 2০২3 | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

২০২৩-২৪ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট পুরোটাই গরিব মানুষের জন্য বলে মন্তব্য করেছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

শুক্রবার (২ জুন) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অর্থ মন্ত্রণালয় আয়োজিত 'বাজেটোত্তর সাংবাদিক সম্মেলনে' তিনি এ মন্তব্য করেন।

আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, আপনারাই আগে বলতেন এ দেশে মিডিল ইনকাম জনসংখ্যার হার বেশি, কিন্তু তারা ট্যাক্স দেয় না। এরা সবাই যদি ট্যাক্স দিতে তাহলে অন্যদের ভাগে কম ট্যাক্স দিতে হত। আমি মনে করি, এখন সময় এসেছে সবাইকে ট্যাক্স পেমেন্ট করতে হবে।

আরও পড়ুন>> যারাই অন্যায় করে, তাদেরই গ্রেপ্তার করা হয়: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

অর্থমন্ত্রী বলেন, আমি দুই কোটি মানুষের চাকরি ব্যবস্থার জন্য বলেছিলাম। আমরা ২ কোটি ৪৫ লাখ মানুষকে চাকরি দিয়েছি। এটা খারাপ না, আমাদের ভালোই অর্জন। আস্তে আস্তে আমাদের কর্মসংস্থান বাড়ছে এবং কর্মসংস্থানের পরিধিও বেড়ে গেছে। কর্মসংস্থান সৃষ্টি করার জন্য আমরা বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছি।

তিনি বলেন, আমি চাকরির ব্যাপারে যেসব কমিটমেন্ট বিভিন্ন সময় বিভিন্ন বাজেটে করেছিলাম সেগুলো দিয়েছি। আমরা মেইড ইন বাংলাদেশ কালচারটা জনপ্রিয় করার চেষ্টা করছি। এ দেশে যা জিনিস তৈরি হবে, তা দিয়ে আমাদের প্রয়োজন মিটবে। এর মধ্য দিয়ে কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে।

সংবাদ সম্মেলনে অর্থমন্ত্রীর স‌ঙ্গে উপস্থিত আছেন কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক, পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান, স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় (এলজিআরডি) মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম, শিক্ষামন্ত্রী ড. দীপু মনি, বা‌জিণ‌্যমন্ত্রী টিপু মুন‌শি, ‌শিল্পমন্ত্রী নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অর্থনীতিবিষয়ক উপদেষ্টা ড. মশিউর রহমান, পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম, বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আব্দুর রউফ তালুকদার, এনবিআরের চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম, অর্থ সচিব ফা‌তেমা ইয়াস‌মিন প্রমুখ।

এর আগে গতকাল বৃহস্পতিবার (১ জুন) জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে ২০২৩-২৪ অর্থবছরের জন্য প্রস্তাবিত জাতীয় বাজেট সংসদে পেশ করেন অর্থমন্ত্রী। প্রস্তাবিত বা‌জে‌টে আকার ৭ লাখ ৬১ হাজার ৭৮৫ কোটি টাকা।


আরও খবর



লালমনিরহাটে তিস্তার পানি বিপৎসীমার ওপরে, আতঙ্কে নদীপাড়ের মানুষ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০24 | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০24 | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

ভারী বর্ষণ আর উজান থেকে নেমে আসা ঢলে লালমনিরহাটে তিস্তার পানি আরও বেড়েছে। যা এখন বিপৎসীমার ১০ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। নদীর পানি প্রবল স্রোতে প্রবাহিত হওয়ায় আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে দুই পাড়ের মানুষ।

এর আগে গতকাল বুধবার সকাল ৬টায় তিস্তা ব্যারাজের পয়েন্টে পানির প্রবাহ ছিল ৫১ দশমিক ৯৫ সেন্টিমিটার। যা ছিল বিপৎসীমার ২০ সেন্টিমিটার নিচে। এদিকে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় তিস্তার অববাহিকার চরাঞ্চলগুলোর ঘরবাড়ি ও ফসলি জমিতে পানি উঠতে শুরু করেছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড জানায়, বৃহস্পতিবার ভোর থেকে তিস্তা নদীর পানি ডালিয়া ব্যারেজ পয়েন্টে বিপৎসীমার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হলেও কাউনিয়া পয়েন্টে যে কোনো সময় বিপৎসীমা অতিক্রম করতে পারে। পানি উন্নয়ন বোর্ড জানিয়েছে, তিস্তার পানি সন্ধ্যা পর্যন্ত আরও কিছুটা বৃদ্ধি পেয়ে এরপর কমার সম্ভাবনা রয়েছে।

পানি বাড়ায় তিস্তা অববাহিকার নদী তীরবর্তী ও চরাঞ্চলে বসবাসরত মানুষজন বন্যা ও নদীভাঙন আতঙ্কে পড়েছেন। বিশেষ করে সদর উপজেলার রাজপুর, খুনিয়াগাছ ইউনিয়ন এবং আদিতমারী উপজেলার মহিষখোচা, হাতীবান্ধা উপজেলার গড্ডিমারী, ডাউয়াবাড়ি ইউনিয়নগুলো বসতবাড়ি ও ফসলি জমি বন্যার পানির নিচে তলিয়ে যাওয়ার শঙ্কা দেখা দিয়েছে।

বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের বরাত দিয়ে লালমনিরহাট পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী শুনীল কুমার বলেন, আগামী ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টায় দেশের উত্তরাঞ্চলের দুধকুমার, তিস্তা ও ধরলা নদীসমূহের পানি সমতল সময় বিশেষে দ্রুত বৃদ্ধি পেতে পারে এবং কতিপয় স্থানে বিপৎসীমা অতিক্রম করে নদী সংলগ্ন নিম্নাঞ্চলে স্বল্পমেয়াদী বন্যা পরিস্থিতির দেখা দিতে পারে।


আরও খবর



কেনিয়ায় পার্লামেন্টে হামলা, পুলিশের গুলিতে নিহত ১৩

প্রকাশিত:বুধবার ২৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৬ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

নতুন একটি আর্থিক প্রস্তাব পাশের বিরুদ্ধে কেনিয়ার রাজধানী নাইরোবিতে ব্যাপক বিক্ষোভ শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার (২৫ জুন) শুরু হওয়া এই সংঘর্ষে পুলিশের গুলিতে এখন পর্যন্ত অন্তত ১৩ জন নিহত হয়েছেন। কেনিয়া মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরাকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি আরও বলেন, নাইরোবির দুটি সরকারি হাসপাতাল হতাহতের ঘটনায় আহতদের ভিড়ে উপচে পড়েছে। এদিকে সংসদ সদস্যরা অ্যাম্বুলেন্সগুলো নিরাপদ জায়গায় যাওয়ার জন্য নিয়ে গেছেন। এর ফলে কয়েকটি অ্যাম্বুলেন্সে হামলা চালিয়েছে বিক্ষোভকারীরা। রাজধানী নাইরোবি ছাড়াও দেশটির আরও কয়েকটি শহরে বিক্ষোভ ও সংঘর্ষ ঘটেছে।

এদিকে সহিংসতা ও নির্বিচারে আটক নিয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস। তার মুখপাত্র স্টিফেন দুজারিক বলেছেন, বিক্ষোভে হতাহতের খবরে জাতিসংঘ মহাসচিবও অত্যন্ত দুঃখিত। নির্বিচারে আটকের ঘটনা নিয়েও আমরা উদ্বিগ্ন।

তিনি বলেন, শান্তিপূর্ণভাবে বিক্ষোভ করার জন্য মানুষের অধিকার সমুন্নত রাখা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কর্তৃপক্ষকে অবশ্যই নিশ্চিত করতে হবে যে নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে মৃত্যুর সব ঘটনার যেন পূর্ণ ও সুষ্ঠু তদন্ত হয়।

গুতেরেস কেনিয়ার পুলিশ ও কর্তৃপক্ষ ও নিরাপত্তা বাহিনীকে সংযম প্রদর্শনের ও বিক্ষোভকারীদের শান্তিপূর্ণভাবে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন।

এদিকে, শুধু রাজধানী নাইরোবি নয়, নতুন প্রস্তাবের বিরুদ্ধে দেশজুড়েই বিক্ষোভ হচ্ছে। কারণ এই প্রস্তাবের মাধ্যমে ট্যাক্স বাড়ানো হয়েছে। গত সপ্তাহে প্রস্তাবটির কিছু বিষয়ে সংশোধন করা হলেও, কেনিয়ার সাধারণ জনগণ এটি বাতিল চায়।

এমন পরিস্থিতিতে কেনিয়ার প্রেসিডেন্ট উইলিয়াম রুটো দেশটির সেনাবাহিনীকে নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা নষ্ট করার যেকোন প্রচেষ্টা ঠেকানোর নির্দেশ দিয়েছেন। সেই সঙ্গে এই বিক্ষোভকে বিশ্বাসঘাতকতা বলেও আখ্যা দিয়েছেন তিনি।


আরও খবর



ফিলিস্তিনি যোদ্ধাদের ‘সন্ত্রাসী সংগঠন’ তালিকায় অন্তর্ভূক্ত করলো আর্জেন্টিনা

প্রকাশিত:শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী গোষ্ঠী হামাসকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে তালিকাভুক্ত করে সব আর্থিক সম্পত্তি জব্দের নির্দেশ দিয়েছে আর্জেন্টিনা। শনিবার (১৩ জুলাই) এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে আল জাজিরা।

ইসরায়েল ও যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সুসম্পর্ক গড়ে তোলার লক্ষ্যে হামাসকে সস্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে ঘোষণা দিয়েছেন আর্জেন্টিনার প্রেসিডেন্ট জাভিয়ার মিলেই।

আর্জেন্টাইন প্রেসিডেন্টের দপ্তর থেকে দেয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, গত বছরের ৭ অক্টোবর ইসরায়েলের অভ্যন্তরে হামলা চালিয়েছে হামাস। এতে ১২০০ জনকে হত্যা এবং ২৫০ জনকে জিম্মি করে নিয়ে যায় সংগঠনটির যোদ্ধারা।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, আর্জেন্টিনাকে অবশ্যই আরেকবার পশ্চিমা সভ্যতার সঙ্গে যুক্ত হতে হবে।

এ বছরের ফেব্রুয়ারিতে প্রথম ইসরায়েল সফর করেন আর্জেন্টাইন প্রেসিডেন্ট জাভিয়ার মিলেই। ওই সময় পবিত্র নগরী জেরুজালেমে গিয়ে তিনি ইহুদিদের সঙ্গে প্রার্থনা করেন। একই সঙ্গে জেরুজালেমে আর্জেন্টিনার দূতাবাস স্থানান্তরিত করার ঘোষণা দেন।

আর্জেন্টাইন প্রেসিডেন্ট মিলেই রোমান ক্যাথলিক ধর্মবিশ্বাস নিয়ে বড় হয়েছেন। কিন্তু তিনি জানিয়েছেন, ইহুদি ধর্মের প্রতি তার টান রয়েছে। এমনকি ইহুদি ধর্মে ধর্মান্তরিত হওয়ার পরিকল্পনার কথাও বলেছেন মিলেই।


আরও খবর



বাবা ডেকেও ধর্ষণের হাত থেকে রেহাই পায়নি শিক্ষার্থী

প্রকাশিত:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | অনলাইন সংস্করণ
সুজন কুমার মন্ডল, জয়পুরহাট

Image

জয়পুরহাট পৌর শহরের কাশিয়াবাড়ির হযরত ফাতেমা (র:) কওমি হাফেজিয়া মহিলা মাদরাসার চতুর্থ শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে ওই মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা আজিজুল হক ফেন্সির (৬০) বিরুদ্ধে।

রোববার (২৩ জুন) বিকেলে জয়পুরহাট শহরের মাছুয়া বাজার এলাকা থেকে অভিযান চালিয়ে আজিজুল হককে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। গ্রেপ্তার আজিজুল সদর উপজেলার পৌর এলাকার কাশিয়াবাড়ি মহল্লার ব্যবসায়ী।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, হযরত ফাতেমা (র:) কওমি হাফেজিয়া মহিলা মাদরাসাতে চতুর্থ শ্রেণিতে পড়াশোনা করত নওগাঁ জেলার ধামুইরহাট উপজেলার এক শিক্ষার্থী। ঈদের ছুটি হলেও মাদরাসাতে বেতন বাকি থাকায় ওই শিক্ষার্থীকে ছুটি দেয়া হয়নি। তাকে আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে ওই মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা আজিজুল হক ফেন্সির বিরুদ্ধে। পরে রোববার মেয়েটি মাদরাসা থেকে পালিয়ে বান্ধবীর বাড়িতে আশ্রয় নেয়। এসময় ধর্ষণের শিকার ওই শিক্ষার্থী তার বান্ধবীর বাবাকে সব ঘটনা জানান। পরে তিনি তাৎক্ষণিক ওই ছাত্রীকে জয়পুরহাট সদর থানায় নিয়ে যায়। অভিযোগ পেয়ে পুলিশ আজিজুলকে গ্রেপ্তার করে।

ধর্ষণের শিকার ছাত্রী বলেন, আমি চতুর্থ শ্রেণিতে মাদরাসায় পড়াশোনা করি। আমার বাবা সময়মত মাদরাসার বেতন পরিশোধ করতে পারেনি। ইতিমধ্যে ঈদুল আজহা উপলক্ষে মাদরাসা ছুটি ঘোষণা করা হয়। মাদরাসায় আমার টাকা বাকি ছিল। বাড়ি গিয়ে যদি আর না আসি সেজন্য মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা আজিজুল হক ফেন্সি আমাকে বাড়িতে যেতে দেয়নি। পরে তিনি আমাকে তার বাড়িতে নিয়ে যায়। সেখানে নিয়ে আমাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। আমি তাকে বাবা ডেকেও রেহাই পাইনি। একপর্যায়ে রোববার সেখান থেকে পালিয়ে গিয়ে আমার এক বান্ধবীর বাড়িতে গিয়ে আশ্রয় নেই। আমার সর্বনাশকারীর বিচার চাই।

গ্রেপ্তারের আগ মুহূর্তে আজিজুল হক ফেন্সি কখন বলেন তার ভুল হয়েছে। আবারও কখনও ষড়যন্ত্র করা হয়েছে তার বিরুদ্ধে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা জয়পুরহাট সদর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) রুবেল জানান, রোববার দুপুরে দুইজন মহিলা ও একজন পুরুষ ছোট এক মেয়েকে থানায় আসে। এরপর তাদের কাছ থেকে জানতে পারি শিশুটিকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করা হয়েছে। যার বিরুদ্ধে অভিযোগ তিনি শহরের কাশিয়াবাড়ি এলাকায় একটি বালিকা কওমি মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা আজিজুল হক ফেন্সি। তিনি ওই ছাত্রীর মাদরাসার বেতন পরিশোধ না করায় তাকে আটকে রেখে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরে সেখান থেকে শিশুটি পালিয়ে এসেছে। এ ঘটনার পর অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত আজিজুল হক ফেন্সিকে মাছুয়া বাজার এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, গ্রেপ্তারের পর আজিজুল হক ফেন্সি ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে এবং তিনি শিশুটিকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছে।


আরও খবর



‘ভারতীয় গল্প পড়ে ব্যারিস্টার সুমনের সঙ্গে প্রতারণার ছক কষা হয়েছিল’

প্রকাশিত:বুধবার ১০ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১০ জুলাই ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
হবিগঞ্জ প্রতিনিধি

Image

সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমনকে হত্যার হুমকির অভিযোগে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। হবিগঞ্জ পুলিশ ও কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) সমন্বয়ে একটি দল গতকাল মঙ্গলাবার (৯ জুলাই) দুপুর সোয়া দুইটায় সিলেটের একটি হোটেল থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তার ব্যক্তির নাম সোহাগ মিয়া (২৭)। পুলিশের দাবি, এমপিকে হত্যা পরিকল্পনার বিষয়ে তথ্য প্রদানকারী করেছিল সোহাগ মিয়া। সে একজন প্রতারক। প্রতারণার মাধ্যমে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার উদ্দেশ্যে এ নাটক সাজিয়েছিল। গ্রেপ্তার সোহাগ মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার মোবারকপুর গ্রামের মন্তাজ মিয়ার ছেলে।

আজ বুধবার হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার আক্তার হোসেন সাংবাদিকদের জানান, ডার্ক ওয়েব সাইটে থাকা ভারতীয় একজন প্রভাবশালীর জীবনের হুমকি আছে বলে তথ্য দিয়ে একজন প্রতারক অর্থ হাতিয়ে নেয়। ওই গল্প পড়ে সোহাগ একই কায়দায় প্রতারণার জন্য ব্যারিস্টার সুমনকে টার্গেট করেন তিনি। এর ধারাবাহিতকায় প্রথমে সে ব্যারিস্টার সুমনের জীবনের হুমকি আছে বলে একাধিক ভিডিও প্রকাশ করে।

সূত্র জানায়, চুনারুঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হিল্লোল রায়ের কাছে গত ২৮ জুন রাতে অজ্ঞাত পরিচয়ে সোহাগ প্রথমে হোয়াটসঅ্যাপে কল করে ব্যারিস্টার সুমনের মোবাইল নম্বর চান। তখন ওসি মোবাইল নম্বর চাওয়ার কারণ জানতে চাইলে উত্তরে তিনি জানান, ব্যারিস্টার সুমনের সঙ্গে জরুরি কথা বলতে চাই। মোবাইল নম্বর না দিলে আত্মহত্যা করবেন। ওসি সংসদ সদস্যের নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে ওই ব্যক্তিকে মোবাইল নম্বরটি দেননি। এর কিছুক্ষণ পরই সোহাগ হোয়াটসঅ্যাপে একটি মেসেজ পাঠান এবং পরে তা ডিলিট করে দেন। এর কিছুক্ষণ পর আবারও একটি মেসেজ পাঠান। এতে বলা হয়, ব্যারিস্টার সুমনের কিছু শত্রু আছে, যারা তার ক্ষতি করতে পারে। এই মেসেজও পরে ডিলিট করে দেওয়া হয়।

পরবর্তীতে ওসির মাধ্যমে সোহাগ ব্যারিস্টার সুমনের সাথে মোবাইলে কথা বলেন। তিনি জানান, ৪/৫ জনের একটি টিম তাকে হত্যার জন্য মাঠে নেমেছে। সোহাগের উদ্দেশ্য ছিল হত্যার মিশনের তথ্য জানানোর নামে টাকা হাতিয়ে নেওয়া। কিন্তু ব্যারিস্টার সুমন লাইভে গিয়ে ঘটনাটি প্রচার করেন। এছাড়া চুনারুঘাট ও ঢাকার শেরেবাংলা থানায় দুটি জিডি করা হয়। জিডি ও লাইভে প্রচারের খবর পেয়ে সোহাগ ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম চলে যায়। যখন তিনি বুঝতে পারেন তাকে ট্র্যাক করা হচ্ছে পরবর্তীতে তিনি সিলেটে আত্মগোপন করেন। পরে হবিগঞ্জ পুলিশ ও সিটিটিসি ইউনিট সমন্বয়ে তথ্য প্রযুক্তির সাহায্যে তাকে একটি হোটেল থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। তার বিরুদ্ধে বিদেশ পাঠানোর নামে টাকা আত্মসাতের মামলা রয়েছে। এ ছাড়া মৌলভীবাজার জেলায় রাজনগর থানায় প্রতারণার মামলা রয়েছে। যা আদালতে রিচারাধীন।

পুলিশ সুপার জানান, সোহাগ কিছুদিন বিদেশে ছিল। সে দুটি বিয়ে করেছে। তার একটি কন্যা রয়েছে। সোহাগ অনলাইন জুয়ায় আসক্ত। তাকে রিমান্ডে নিয়ে আরো জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য আদালতে আবেদন করা হবে। 


আরও খবর