আজঃ সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

৬ দিনে ৫০০ কোটির ক্লাব ছোঁয়ার পথে ‘অ্যানিমেল’

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৮ ডিসেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৮ ডিসেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

মাত্র ৬ দিনে ৫০০ কোটির ক্লাব ছোঁয়ার পথে রণবীর কাপুরের অ্যানিমেল সিনেমা। মুক্তির আগেই ভারতীয় মুদ্রা ৩৪ কোটি রুপি সংগ্রহ করেছে সিনেমাটি। আয়ের দিক থেকে জওয়ান-এর পর এ বছরের সবচেয়ে বেশি মুনাফা করা সিনেমা হিসেবে অ্যানিমেল-কেই প্রাধান্য দেওয়া হচ্ছে।

পাঠান, গদর-২জাওয়ান সিনেমার পরেই বলিউড সংশ্লিষ্ট গণমাধ্যমগুলোতে উঠে আসছে সিনেমাটির নাম। এমনকি সিনেমাটি চলতি বছর ১২ নভেম্বর মুক্তিপ্রাপ্ত টাইগার-৩-এর মোট আয়কেও ছাড়িয়ে গেছে।

আরও পড়ুন>> বৃহস্পতিবার বাংলাদেশে মুক্তি পাচ্ছে অ্যানিমেল

বলি মুভি রিভিউজ ডটকম জানায়, মুক্তির প্রথম দিন শুধু ভারতের বক্স অফিসেই ৬৩ কোটি ৮০ লাখ, দ্বিতীয় দিন ৬৭ কোটি ২৭ লাখ, তৃতীয় দিন ৭১ কোটি ৪৬ লাখ, চতুর্থ দিন ৪৩ কোটি ৯৬ লাখ, পঞ্চম দিন ৩৭ কোটি ৫৭ লাখ এবং ষষ্ঠ দিন ৩১৩ কোটি রুপি মুনাফা করেছে। বৃহস্পতিবার (৭ ডিসেম্বর) পর্যন্ত রণবীর কাপুর অভিনীত সিনেমাটি বলিউডের সবচেয়ে মুনাফা লাভ করেছে। সব মিলিয়ে ভারতে মোট ২৭৭ কোটি ৩৪ লাখ রুপি মুনাফা এবং বিশ্বব্যাপী ৪৮১ কোটি রুপি মুনাফা করেছে অ্যানিমেল

সন্দীপ রেড্ডি ভাঙ্গা পরিচালিত এই সিনেমায় রণবীর কাপুর ছাড়া আরও অভিনয় করেছেন ববি দেওল, রাশমিকা মান্দানা প্রমুখ।

নিউজ ট্যাগ: অ্যানিমেল

আরও খবর
ফের বিয়ে করছেন অনুপম রায়, পাত্রী কে?

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




চট্টগ্রামে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা শুরু বৃহস্পতিবার

প্রকাশিত:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
রাহুল সরকার, চট্টগ্রাম ব্যুরো

Image

বন্দরনগরী চট্টগ্রামের রেলওয়ে পলোগ্রাউন্ড মাঠে আগামী বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) শুরু হচ্ছে ৩১তম আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা (সিআইটিএফ)।

সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে নগরের আগ্রাবাদের ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারের বঙ্গবন্ধু কনফারেন্স হলে এক সংবাদ সম্মেলনে চট্টগ্রাম বাণিজ্য মেলার বিস্তারিত তুলে ধরেন চেম্বার সভাপতি ওমর হাজ্জাজ। বাণিজ্য মেলার পাশাপাশি আগামী ১৮ ও ১৯ ফেব্রুয়ারি ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে অনুষ্ঠিত হবে পঞ্চম চট্টগ্রাম আইটি ফেয়ার।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ১৫ ফেব্রুয়ারি বিকেলে চট্টগ্রাম ৩১তম আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার উদ্বোধন হবে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন শিক্ষামন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। মেলা উদ্বোধন করবেন বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটু। বিশেষ অতিথি থাকবেন নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য এমএ লতিফ।

পলোগ্রাউন্ডে প্রায় চার লাখ বর্গফুট জায়গা নিয়ে মেলার আয়োজন করা হয়েছে। এবার মেলায় ১৬টি প্রিমিয়ার প্যাভিলিয়ন, ৫৬টি প্রিমিয়ার স্টল, ৯৪টি গোল্ড, ৪৮টি মেগা স্টল, ১১টি ফুড স্টল, ৩টি জোনে ৪০০ স্টলে ৩ শতাধিক প্রতিষ্ঠান অংশ নেবে। এর মধ্যে ভারত, থাইল্যান্ড, ইরানের উদ্যোক্তা ও ব্যবসায়ীরা পণ্য প্রদর্শন করবেন। সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত চলবে মেলা। প্রবেশের জন্য টিকিটের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ২০ টাকা।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




তিন উৎসবকে ঘিরে জমজমাট ফুলের বাজার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

ঋতুরাজ বসন্ত ও ভালোবাসা দিবসকে রাঙাতে কতই না আয়োজন। যার মূল অনুষঙ্গ রঙ-বেরঙের ফুল। সব আবেদন, অনুরাগ, শ্রদ্ধা আর ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশের বড় মাধ্যম ফুল। শহুরে প্রকৃতিতে এসবের কিছু কমতি থাকলেও সংরক্ষিত বাগানগুলোতে দেখা মিলেছে বাহারি সব ফুলের। তাছাড়া শীতের জীর্ণতা আর শুষ্কতাকে পেছনে ফেলে বসন্তের সজীবতাকে বরণ করে নিতে অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন মানুষও।

ফুল ফুটুক না ফুটুক আজ বসন্ত- এ দিনের অপেক্ষায় রয়েছেন তারা। সেই সঙ্গে দরজায় কড়া নাড়ছে বিশ্ব ভালোবাসা দিবস। ভালোবাসা দিবসে সবাই প্রিয়জনকে দিতে চায় তাজা গোলাপ, বসন্ত উৎসবে যোগ দিতে খোপায় বাঁধে গাঁদা ফুল। সবমিলিয়ে কদর বেড়েছে ফুলের রানি গোলাপসহ অন্যদের। এবছর বসন্ত উৎসব, ভালোবাসা দিবস ও সরস্বতী পূজা একইদিনে হওয়ায় রাজধানীর ব্যবসায়ীরা আশানুরূপ ফুল বিক্রি করতে পারবেন বলে জানিয়েছেন।

মঙ্গলবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর শাহবাগ ও আগারগাঁও এলাকার ফুলের দোকানগুলোতে দেখা গেছে ব্যস্ত সময় পার করছেন দোকানিরা। বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) কীভাবে নিজের দোকানের ফুলগুলো সবার সামনে ফুটিয়ে তোলা যায় সেই পরিকল্পনা করছেন তারা।

ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, তিন উৎসব একদিনে হওয়ায় ব্যবসায়ীরা ২০ কোটি টাকারও বেশি ফুল বিক্রির প্রত্যাশা করছেন। এ মাসের ১৪ তারিখ এবং ২১ তারিখ সবচেয়ে বেশি ফুল বিক্রি হয়। ১৪ তারিখে গোলাপ আর ২১ তারিখে গাঁদা ফুল বেশি বিক্রি হয়। এসব দিনে ফুলের দোকানগুলোতে অনেকে বাড়তি কর্মচারী ও কারিগর চুক্তিতে রাখেন।

শাহবাগে একটি খুচরা বাজার ও একটি পাইকারি ফুলের দোকান আছে। যশোর, বেনাপোল, ফরিদপুর, সাভার, মানিকগঞ্জ, দোহার, নবাবগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন জায়গা থেকে এখানে ফুল আসে। পরে এখান থেকেই ঢাকার অন্য খুচরা বাজারের ব্যবসায়ীরা ফুল সংগ্রহ করেন। এসব ফুলের মধ্যে রয়েছে গাঁদা, রজনীগন্ধা, গ্লাডিওলাস, জারবেরা, রথস্টিক, জিপসি, গ্যালেনডোলা ও চন্দ্রমল্লিকা। শাহবাগে ৫০টির মতো খুচরা ফুলের দোকান রয়েছে। ক্রেতারা এই বাজার থেকে ফুল সংগ্রহ করেন।

ঢাকা ফুল ব্যবসায়ী কল্যাণ বহুমুখী সমবায় সমিতির সভাপতি বাবুল প্রসাদ বলেন, সারা বছর শাহবাগে ফুল বিক্রি হয়। দৈনিক প্রায় ৪০ লাখ টাকার ফুল কেনাবেচা হয়। আর আগামী ১৪ ও ২১শে ফেব্রুয়ারিতে প্রায় ১০ কোটি টাকার বেশি পাইকারিতে ফুল বিক্রি হবে। আর খুচরা বাজার তো আছেই। এখানে ২৪টি জেলা থেকে ফুল আসে।

শাহবাগের ফুলের দোকান পুষ্পালয়ের মালিক রকি আহম্মেদ বলেন, ফুল বিক্রি ভালোই হচ্ছে। বিকেল থেকে সন্ধ্যার দিকে এ বিক্রির সংখ্যা আরও বাড়বে। এবছর বসন্ত উৎসব, ভালোবাসা দিবস ও সরস্বতী পূজা একদিনে হওয়ায় ফুল বিক্রির পরিমাণ অন্যান্য বছরের চেয়ে আরও বেশি হবে। ফুলের ব্যবসা করার মাস হচ্ছে ফেব্রুয়ারি। এসময়ে চাহিদাও থাকে বেশি। পাইকারিতেও কিছুটা বেশি দাম দিতে হয়। সেই প্রভাব পড়ে খুচরা বাজারে। মঙ্গলবারের জন্য অগ্রিম ফুলের অর্ডার দিয়ে রেখেছি।

আরও পড়ুন>> ‘খুব অস্বাস্থ্যকর’ বাতাস নিয়ে দূষণে দ্বিতীয় ঢাকা

বাজারে দেখা গেছে, বর্তমানে ভালো মানের গোলাপ ফুল এখন ৪০-৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। গোলাপি রঙের বিদেশি গোলাপ এখন প্রতি পিস ১০০ টাকা বিক্রি হচ্ছে। এ ছাড়া রজনীগন্ধার স্টিক মানভেদে ২০-৮০ টাকা, প্রতিটি গাঁদার মালা ৬০-১২০ টাকা, জারবেরা ফুল ৫০-১২০ টাকা, অর্কিড স্টিক ৮০-১০০ টাকা, গ্লাডিওলাস রং ভেদে বিভিন্ন দামে বিক্রি হচ্ছে। ব্যবসায়িরা বলছে, ১৪ ফেব্রুয়ারি সাধারণ গোলাপ ৮০-৯০ টাকায় এবং বিদেশি গোলাপ ১৫০ টাকার বেশিতে বিক্রি হবে।

রোহান আহমেদ নামের লালবাগ সরকারি মডেল স্কুল এন্ড কলেজর এক শিক্ষার্থী বলেন, ১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবস ও পহেলা ফাল্গুন উপলক্ষ্যে এরই মধ্যে ফুলের চাহিদা বেড়েছে। অন্য সময়ের চেয়ে ফুলের দাম তিন গুণ বেশি। ভালোবাসা দিবসে ফুলের চাহিদা বেশি হয়ে ওঠে, কারণ এটি ভালোবাসা প্রকাশের উপযুক্ত উপহার। ফুলের মাধ্যমে মানুষের মধ্যে ভালোবাসার আনন্দ ও মনোমুগ্ধতা বেড়ে যায়। ব্যবসায়ীরা ঠিক এ সুযোগটি নিচ্ছেন। এটি ঠিক না।


আরও খবর
ছুটির দিনেও ঢাকার বায়ু ‌‘অস্বাস্থ্যকর’

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




স্ত্রীর খোলা পিঠের ছবি দিয়ে আয়ুষ্মানের বিশেষ বার্তা

প্রকাশিত:সোমবার ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

ন্যাড়া মাথা। চোখে চশমা। পরনে প্যান্ট। বস্ত্রহীন উর্ধাঙ্গ। ক্যামেরার দিকে খোলা পিঠ। ডান পাশে অস্ত্রোপচারের সেলাই স্পষ্ট। এমনভাবে দাঁড়িয়ে আছেন এক নারী।

রোববার (৪ ফেব্রুয়ারি) বলিউড অভিনেতা আয়ুষ্মান খুরানা তার ইনস্টাগ্রামে কয়েকটি ছবি পোস্ট করেছেন। সেই সঙ্গে জানিয়েছেন ছবির মেয়েটি তার স্ত্রী তাহিরা কাশ্যপ। সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশের পর ছবিটি দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে নেট দুনিয়ায়।

একটি ছবিতে স্ত্রী তাহিরা কাশ্যপের সঙ্গে ফ্রেমবন্দি হয়েছেন। অন্য ছবিতে পিঠখোলা অবস্থায় ফ্রেমবন্দি হয়েছেন তাহিরা কাশ্যপ।


আরও খবর
ফের বিয়ে করছেন অনুপম রায়, পাত্রী কে?

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বিশ্ববাজারে সোনার দরপতন

প্রকাশিত:রবিবার ২৮ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ জানুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

Image

বিশ্ববাজারে ধারাবাহিকভাবে কমছে সোনার দাম। গত ডিসেম্বরে রেকর্ড সৃষ্টি করার পর থেকেই বিশ্ববাজারে সোনার দাম কমতে দেখা যাচ্ছে। গত সপ্তাহেও পতনের মধ্যে ছিল সোনা। এতে এক মাসের ব্যবধানে বিশ্ববাজারে সোনার দাম প্রায় তিন শতাংশ কমে গেছে।

বিশ্ববাজারে সোনার দাম কমার মধ্যেই সম্প্রতি দেশের বাজারে সোনার দামে নতুন ইতিহাস সৃষ্টি হয়েছে। যদিও রেকর্ড দাম নির্ধারণের পরদিনই সোনার দাম কমানো হয়। দাম বাড়ানোর পরদিনই দাম কমানোর ঘটনা এর আগে দেশে কখনো ঘটেনি।

গত ১৮ জানুয়ারি সব থেকে ভালো মানের বা ২২ ক্যারেটের এক ভরি সোনার দাম ১ হাজার ৪০০ টাকা বাড়িয়ে নির্ধারণ করা হয় ১ লাখ ১২ হাজার ৪৪১ টাকা। ২১ ক্যারেটের এক ভরি সোনার দাম ১ হাজার ২৮৩ টাকা বাড়িয়ে ১ লাখ ৭ হাজার ৩০৯ টাকা নির্ধারণ করা হয়।

এছাড়া ১৮ ক্যারেটের এক ভরি সোনার দাম ১ হাজার ১৬৬ টাকা বাড়িয়ে ৯২ হাজার ২৯ টাকা নির্ধারণ করা হয়। আর সনাতন পদ্ধতির এক ভরি সোনার দাম ৯৩৩ টাকা বাড়িয়ে ৭৬ হাজার ৬৩২ টাকা নির্ধারণ করা হয়। দেশের বাজারে এটাই সোনার সর্বোচ্চ দাম। এ রেকর্ড দামে সোনা বিক্রি হয় শুধু ১৮ জানুয়ারি।

পরদিন অর্থাৎ ১৯ জানুয়ারি সব থেকে ভালো মানের বা ২২ ক্যারেটের এক ভরি সোনার দাম ১ হাজার ৭৫০ টাকা কমিয়ে নির্ধারণ করা হয় ১ লাখ ১০ হাজার ৬৯১ টাকা। ২১ ক্যারেটের এক ভরি সোনার দাম ১ হাজার ৬৩৩ টাকা কমিয়ে ১ লাখ ৫ হাজার ৬৭৬ টাকা নির্ধারণ করা হয়। এছাড়া ১৮ ক্যারেটের এক ভরি সোনার দাম ১ হাজার ৪৫৮ টাকা কমিয়ে ৯০ হাজার ৫৭১ টাকা নির্ধারণ করা হয়। আর সনাতন পদ্ধতির এক ভরি সোনার দাম ১ হাজার ১৬৬ টাকা কমিয়ে ৭৫ হাজার ৪৬৬ টাকা নির্ধারণ করা হয়। বর্তমানে দেশের বাজারে এ দামেই সোনা বিক্রি হচ্ছে।

দেশের বাজারে সোনার এ দাম নির্ধারণের পর থেকেই বিশ্ববাজারে সোনার দাম কমতে দেখা যাচ্ছে। গত এক সপ্তাহে প্রতি আউন্স সোনার দাম কমেছে ১০ দশমিক ৭৫ ডলার বা দশমিক ৫৩ শতাংশ। এর মাধ্যমে প্রতি আউন্স সোনার দাম কমে হয়েছে ২ হাজার ১৮ দশমিক ৩৮ ডলার। এ দরপতনের ফলে মাসের ব্যবধানে প্রতি আউন্স সোনার দাম কমেছে ৫৮ দশমিক ৭৮ ডলার বা ২ দশমিক ৮৩ ডলার।

এর আগে ডিসেম্বরের শুরুতে বিশ্ববাজারে সোনার দাম হু হু করে বাড়তে দেখা যায়। ৪ ডিসেম্বর লেনদেনের এক পর্যায়ে প্রতি আউন্স সোনার দাম রেকর্ড ২ হাজার ১২৪ দশমিক ৭৩ ডলারে উঠে যায়। সোনার এত দাম আগে বিশ্ববাসী আর দেখেনি।

অবশ্য এ রেকর্ড দাম হওয়ার পরপরই পতনের মধ্যে পড়ে সোনা। ওই দিনই প্রতি আউন্স সোনার দাম কমে ২ হাজার ২১ ডলারে চলে আসে। অর্থাৎ একদিনেই সোনার দাম ১০০ ডলারের ওপরে কমে যাওয়ার ঘণ্টা ঘটে। একদিনের মধ্যে সোনার দামে এমন উত্থান-পতনও আগে কখনো দেখা যায়। এরপর কয়েক দফা সোনার দাম ওঠা-নামা করলেও গত এক মাস ধরে পতনের মধ্যেই রয়েছে।


আরও খবর
২৪ দিনে প্রবাসী আয় ১৮ হাজার কোটি টাকা

রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




মাদক সংক্রান্ত ৮২ হাজার ৫০৭ মামলার বিচারাধীন: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, বর্তমানে দেশের বিভিন্ন বিচারিক আদালতে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের মাদক সংক্রান্ত বিচারাধীন মামলার সংখ্যা ৮২ হাজার ৫০৭টি।

সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় সংসদ অধিবেশনে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য মুহাম্মদ সাইফুল ইসলামের এক প্রশ্নের লিখিত উত্তরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এ সব তথ্য জানান। এ সময় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মাদকের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত জিরো টলারেন্স বাস্তবায়নে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরসহ সকল আইন-প্রয়োগকারী সংস্থাসমূহ নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। বিগত ৫ বছরে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের দায়ের করা মামলার মধ্যে ১০ হাজার ২৫৯টি মামলা বিচারিক আদালতে নিষ্পন্ন হয়েছে। মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন, ২০১৮ (সংশোধিত ২০২০) অনুসারে মাদকসহ আটক হওয়ার তারিখ থেকে ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে মামলার তদন্ত কার্যক্রম সম্পন্ন করার বিধান রয়েছে। এই বিধানের আলোকে অধিদপ্তরের দায়ের করা মামলাগুলোর তদন্ত নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সম্পন্ন করে বিজ্ঞ আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন এর আলোকে মহানগর দায়রা জজ, দায়রা জজ, চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেটের এখতিয়ারাধীন এলাকার জন্য এক বা একাধিক এখতিয়ার সম্পন্ন আদালত নির্দিষ্ট করার বিধান রাখা হয়। বর্তমানে এ বিধানের আলোকেই আদালতে মাদক মামলার বিচারিক কার্যক্রম চলমান রয়েছে।


আরও খবর