আজঃ শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১
শিরোনাম

আদর্শ শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে তরুণদের স্বনির্ভর হতে হবে : মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ১১ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১১ অক্টোবর ২০২১ | ১১৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম এমপি বলেছেন, আদর্শ শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে তরুণদের স্বনির্ভর হতে হবে। মেধায়, চিন্তা-চেতনায়, সততা ও নৈতিকতায় কর্মক্ষম মানুষ হতে হবে। শুধু ভালো জিপিএ দিয়ে আদর্শ মানুষ হওয়া যায় না। নিজের প্রতিভা ও যোগ্যতার বিকাশ ঘটাতে হবে। তাদের যেন চাকরির নেশায় পেয়ে না বসে। ঐকান্তিক ইচ্ছা, নিরলস প্রচেষ্টা, গভীর অধ্যাবসায় এবং সততা ধারণ করতে পারলে তরুণরা কখনো ব্যর্থ হবে না। তরুণদের স্বাবলম্বী করার জন্য সরকার সকল সহেযোগিতা করবে

সোমবার (১১ অক্টোবর) পিরোজপুর সদর উপজেলা পরিষদের শহিদ ওমর ফারুক মিলনায়তনে উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত বাংলাদেশ: তারুণ্যের ভাবনায় মিট দ্যা মিনিস্টার শীর্ষক সংলাপে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, তরুণ প্রজন্মের আগ্রই হচ্ছে বাংলাদেশে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা। তাদের মধ্যে আকাঙ্খা জাগ্রত করতে না পারলে মাতৃভূমি বাংলাদেশ সম্পর্কে তাদের ধারণা অস্পষ্ট থেকে যাবে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ছিল-আমরা সবাই ভালো মানুষ হবো। আমাদের মধ্যে কোন বিরোধ থাকবে না, কোনভাবে সাম্প্রদায়িকতায় জড়িত হবো না। হিন্দু, মুসলিম, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান সবাই মিলে-মিশে থাকবো। দেশে দুর্নীতি থাকবে না, ধনী-দরিদ্রের বৈষম্য থাকবে না। গ্রামের একজন মানুষ না খেয়ে মারা যাবে, আরেকজন শত কোটি টাকার মালিক হবে, সেটা হবে না। এ দেশটা আমাদের সকলের। প্রত্যেকটি মানুষের নাগরিক ও সাংবিধানিক অধিকার সমান

সুশাসন সম্পর্কিত তরুণদের এক প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী এ সময় বলেন, সবার জন্য একই ধরনের শাসনই হলো সুশাসন। সরকারি কর্মকর্তাদের অর্পিত দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন, কেউ দুর্নীতি করলে, অন্যায় করলে ছাড় না পাওয়া-সেটাই সুশাসন। সমাজের জন্য, রাষ্ট্রের জন্য যেটা ন্যায্য, যেটা ভালো সেটা প্রশাসনিকভাবে সবার জায়গা থেকে করাই হচ্ছে সুশাসন

তরুণদের অপর এক প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী জানান, আইন অনুযায়ী নিম্ন আদালত পরিপূর্ণভাবে স্বাধীন। আদালতের অনিয়ম দূর করার জন্য সরকার সচেষ্ট রয়েছে। অদূর ভবিষ্যতে বিচারের জন্য মানুষের হাহাকার থাকবে না

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কোভিড ব্যবস্থাপনা সম্পর্কিত এক প্রশ্নের উত্তরে শ ম রেজাউল করিম বলেন, কোভিড ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশ যা করতে পেরেছে তা পৃথিবীর অনেক দেশ পারে নি। এটা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পররাষ্ট্র নীতির অভাবনীয় সাফল্য। আমাদের প্রধানমন্ত্রী যেভাবে দূরদৃষ্টির পরিচয় দিয়েছেন, এটা সারা বিশ্বের প্রশংসা কুড়িয়েছে। পররাষ্ট্র নীতিতে ও ভ্যাকসিন ব্যবস্থাপনায় অনন্য নজির দেখিয়েছেন শেখ হাসিনা

এর আগে মন্ত্রী পিরোজপুর সদর উপজেলা পরিষদের পুকুরে মাছের পোনা অবমুক্ত করেন, ঘূর্ণিঝড় ও অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত স্থানীয় ব্যক্তিদের মাঝে ঢেউটিন ও আর্থিক অনুদানের চেক বিতরণ করেন এবং প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের প্রাণিসম্পদ ও ডেইরি উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় সুফলভোগীদের মাঝে মিল্ক ক্রিম সেপারেট মেশিন বিতরণ করেন। পরে পিরোজপুর জেলা ব্যান্ড বুকের মোড়ক উন্মোচন করেন তিনি। একইদিন বিকেলে শারদীয় দুর্গা পূজা উপলক্ষ্যে পিরোজপুর সদর উপজেলার বিভিন্ন দুর্গা মন্দিরে প্রধানমন্ত্রীর অনুদান, ব্যক্তিগত অনুদান এবং জেলা পরিষদের অনুদান প্রদান অনুষ্ঠানে যোগ দেন মন্ত্রী।


মিল্ক ক্রিম সেপারেট মেশিন বিতরণ অনুষ্ঠানে মন্ত্রী বরেন, দেশের যেসব অঞ্চলে অধিক দুধ উৎপাদিত হয় সেসব অঞ্চলে উৎপাদনকারীরা যাতে ক্ষতিগ্রস্ত না হয় এবং দুধ বাজারে বিক্রির সময় প্রতিকূল অবস্থায় পড়লে বিকল্প ব্যবস্থাপনার জন্য সরকার মিল্ক ক্রিম সেপারেটর মেশিন দিচ্ছে। পোল্ট্রি, ডেইরি বা মৎস্য খাতের মাথে সম্পৃক্তদের প্রণোদনা প্রদানের এ ধারাকে অব্যাহত রাখা হবে। প্রান্তিক পর্যায়ে মাছ, মাংস, দুধ, ডিম উৎপাদনকারীদের শেখ হাসিনা সরকার স্বাবলম্বী করতে চায়। শেখ হাসিনা সরকার সব সময় মানুষের পাশে আছে, পাশে থাকবে


পিরোজপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. বশির অহমেদের সঞ্চলনায় এ আয়োজনে প্যানেল আলোচক ছিলেন পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক আবু আলী মোঃ সাজ্জাদ হোসেন, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাঈদুর রহমান, পিরোজপুর জেলা মুক্তিযুদ্ধ সংসদের সাবেক কমান্ডার গৌতম নারায়ণ রায় চৌধুরী ও দৈনিক ইত্তেফাকের পিরোজপুর প্রতিনিধি মুনিরুজ্জামান নাসিম আলী।


আরও খবর



ইলিশ ধরার দায়ে ১২ জেলের জরিমানা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৭ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৭ অক্টোবর ২০২১ | ৬৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজবাড়ীর পদ্মা নদীতে সরকারি নি‌ষেধাজ্ঞা অমান্য ক‌রে ইলিশ ধরার দা‌য়ে অভিযানের তৃতীয় দি‌নে ১২ জেলেকে আটকের পর ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জেল-জরিমানা করা হ‌য়ে‌ছে।

গতকাল বুধবার (৬ অক্টোবর) সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত চলা অভিযানে তা‌দের আটক করা হয়। এ সময় পাংশায় আটক ৪ জন জে‌লে‌কে উপ‌জেলার সহকারী ক‌মিশনার (ভূমি) নুজহাত তাস‌নীম ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা ক‌রে সবাইকে ২ হাজার ক‌রে মোট ৮ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

অন্যদিকে রাজবাড়ীর সদর উপজেলার আটক ৮ জন জেলেকে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুল হুদার ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ২০ দিন করে জেল দেয়া হয়।

রাজবাড়ী জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. ম‌শিউর রহমান জানান, অভিযানের তৃতীয় দি‌ন বুধবার (৬ অক্টোবর) সকাল থে‌কে বিকেল পর্যন্ত ইলিশ ধরার দা‌য়ে সদ‌রে ৮ ও পাংশায় ৪ জন জে‌লে‌কে আটক করা হয়। প‌রে তা‌দের ভ্রাম্যমাণ আদাল‌তের মাধ্য‌মে জেল-জ‌রিমানা করা হ‌য়ে‌ছে।


আরও খবর



২ শর্তে খোলা যাবে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৫৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে সশরীরে শ্রেণি কার্যক্রম চালু করার অনুমতি দিয়েছে সরকার। তবে সেক্ষেত্রে দুটি শর্ত মানতে হবে এসব উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে।

দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর তদারক সংস্থা বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি) শর্ত দুটি দিয়ে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়সসমূহে শিক্ষা কার্যক্রম পুনরায় চালু করার অনুমতি দিয়েছে।

শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) ইউজিসি এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, শর্তসাপেক্ষে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়সমূহ একাডেমিক কাউন্সিল ও সিন্ডিকেটের সিদ্ধান্তক্রমে নিজ ব্যবস্থাপনায় যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে সশরীরে ক্লাস, পরীক্ষা ইত্যাদিসহ শিক্ষা কার্যক্রম চালু রাখতে পারবে।

শর্তের মধ্যে রয়েছে-

১. শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও শিক্ষার্থীগণ ইতোমধ্যে কমপক্ষে এক ডোজ ভ্যাকসিন গ্রহণ করেছে অথবা ভ্যাকসিন গ্রহণের জাতীয় পরিচয়পত্র জাতীয় সুরক্ষা সেবা পোর্টালে (surokkha.gov.bd) অথবা সুরক্ষা অ্যাপের মাধ্যমে নিবন্ধন করে থাকলে;

২. ১৮ বছর বা তদুর্ধ্ব শিক্ষার্থী যাদের জাতীয় পরিচয়পত্র নেই, তারা জন্মনিবন্ধন সনদের ওয়েবলিংক (https://univacuge.gov.bd) এ ভ্যাকসিন গ্রহণের জন্য প্রাথমিক নিবন্ধন করে থাকলে এবং পরবর্তীতে জাতীয় সুরক্ষা সেবা ওয়েবপোর্টালে (surokkha.gov.bd) অথবা সুরক্ষা অ্যাপের মাধ্যমে টিকা গ্রহণের নিবন্ধন করে থাকলে।

এর আগে গত ১৪ সেপ্টেম্বর ইউজিসি ও উপাচার্যদের সঙ্গে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির এক বৈঠকে আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ও আবাসিক হল খুলে দেওয়া যাবে বলে সিদ্ধান্ত হয়। বিশ্ববিদ্যালয় খোলার প্রক্রিয়া হিসেবে শিক্ষা মন্ত্রণালয় ২৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে শিক্ষার্থীদের টিকার জন্য নিবন্ধন করতেও বলেছে।

এজন্য সরকার শিক্ষার্থীদের বয়স এবং জাতীয় পরিচয়পত্র বা জন্ম নিবন্ধন সনদের শর্তও শিথিল করে বিশেষ ব্যবস্থা করেছে।


আরও খবর



মাদক পাচার রোধে মিয়ানমার সীমান্তে গুলি চালানো হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৫ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৫ অক্টোবর ২০২১ | ৫৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পার্শ্ববর্তী দেশ মিয়ানমার থেকে অবৈধ অস্ত্র, মাদক ও মানবপাচার রোধে প্রয়োজনে সীমান্তে গুলি চালানো হবে বলে মন্তব্য করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আব্দুল মোমেন।

তিনি বলেন, মিয়ানমার ও বাংলাদেশ সীমান্তে গুলি না চালানোর সিদ্ধান্ত হয়েছিল। কিন্তু অবৈধ কর্মকাণ্ড বন্ধে এখন থেকে গুলি চালানো হবে। তাহলেই মানব, মাদক ও অস্ত্র চোরাচালান বন্ধ হবে।

মঙ্গলবার এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভারত সরকারের উপহারের অ্যাম্বুলেন্স হস্তান্তর অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন। এ বিষয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সিদ্ধান্ত নেবে জানিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মিয়ানমার সীমান্ত দিয়ে সকল ধরনের চোরাচালান বন্ধে আরও কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে কথা হয়েছে।

অ্যাম্বুলেন্স হস্তান্তর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হয়ে বক্তব্য রাখেন আব্দুল মোমেন। এর আগে সকালে বিমানে সিলেট আসেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। অন্যান্যের মধ্যে বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাই কমিশনার বিক্রম দ্বোরাইস্বামীসহ স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা বক্তব্য রাখেন।

এদিকে ওসমানী বিমানবন্দর-বাদাঘাট সড়ক দীর্ঘ ১২ বছর ধরে ঝুলিয়ে রাখায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন সিলেট-১ (সদর-নগর) আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল মোমেন। এই ব্যর্থতার জন্য সড়ক ও জনপথ বিভাগের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের পদত্যাগ করা উচিৎ বলে মন্তব্য করেন তিনি। এই সফরে বেশ কয়েকটি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

এদিকে দুপুরে জেলা পরিষদ মিলনায়তনে সম্মিলিত নাট্য পরিষদ, সিলেট আয়োজিত সিলেটের সংস্কৃতি চর্চা ও উন্নয়ন বিষয়ক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।


আরও খবর



রসায়নে নোবেল পেলেন দুই বিজ্ঞানী

প্রকাশিত:বুধবার ০৬ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৬ অক্টোবর ২০২১ | ৫৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
১৯০১ সাল থেকে নোবেল পুরস্কার প্রদান শুরু হয়। তারপর থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত রসায়নে মোট ১১৪টি নোবেল পুরস্কার দেওয়া হয়েছে

গত বছরের ধারাবাহিকতা বজায় রেখে এবারও রসায়নে নোবেল পেয়েছেন দু্’জন রসায়ন বিজ্ঞানী। এরা হলেন জার্মানির  বেঞ্জামিন লিস্ট এবং যুক্তরাষ্ট্রে ডেভিড ম্যাকমিলান। বুধবার বিকেলে সুইডেনের নোবেল পুরস্কার প্রদান কমিটি রসায়ন খাতে চলতি বছর এই দুই বিজ্ঞানীর নোবেল প্রাপ্তির সংবাদ নিশ্চিত করেছে।

করোনা মহামারির কারণে গত বছরের মতো চলতি বছরও সুইডেনের রাজধানী স্টকহোমে মঙ্গলবার রয়্যাল সুইডিস অ্যাকাডেমি ছোট আকারের অনুষ্ঠান আয়োজনের মাধ্যমে বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করেছে; গতবারের মতো সেই অনুষ্ঠানে আয়োজক কমিটির বাইরে অন্য কোনও অতিথি উপস্থিত ছিলেন না।

গত বছর রসায়নে নোবেল পেয়েছিলেন ২ জন। তারা হলেন— ফ্রান্সের এমানুয়েল শার্পেন্তিয়ের এবং যুক্তরাষ্ট্রের জেনিফার ডাউডনা।

এই দুই নারী বিজ্ঞানী ২০২০ সালে নোবেল পুরস্কার পেয়েছিলেন রসায়নের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ শাখা জৈব রসায়নে অবদান রাখার জন্য। জেনেটিক সিজার্স’ নামে একটি প্রযুক্তি আবিষ্কার করেছিলেন তারা, যার মাধ্যমে পশু ও উদ্ভিদকোষের ডিএনএতে বদল ঘটানো সম্ভব।

১৯০১ সাল থেকে নোবেল পুরস্কার প্রদান শুরু হয়। তারপর থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত রসায়নে মোট ১১৪টি নোবেল পুরস্কার দেওয়া হয়েছে। ১৯০১ সালে রসায়নে প্রথম নোবেল পেয়েছিলেন নেদাল্যান্ডসের রসায়নবিদ হেনরিকাস ভ্যান্ট হফ।

টেলিভিশন ও ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে নোবেল পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠান সম্প্রচার করেছে নোবেল ফাউন্ডেশন। বিজয়ীদের প্রাপ্ত পদক ও সনদ পৌঁছে যাবে তারা যেসব দেশের নাগরিক, সেসব দেশের কূটনীতিকদের কাছে। বিজয়ীরা দেশে তাদের কাছ থেকে পদক ও সনদ সংগ্রহ করবেন।

প্রতি বছর শান্তি, সাহিত্য, পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, চিকিৎসা ও অর্থনীতি— এই ৬ বিষয়ে যারা বিশেষ অবদান রেখেছেন; তাদের পুরস্কার প্রদান করে সুইডেনভিত্তিক নোবেল ফাউন্ডেশন। আগামী ১১ অক্টোবর পর্যন্ত ২০২১ সালের নোবেল পুরস্কার বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হবে।

উনবিংশ শতাব্দিতে সুইডিশ বিজ্ঞানী আলফ্রেড নোবেল আবিষ্কার করেছিলেন ডিনামাইট নামের ব্যাপক বিধ্বংসী বিস্ফোরক; যা তাকে বিপুল পরিমাণ অর্থ-সম্পত্তির মালিক করে তোলে। মৃত্যুর আগে তিনি উইল করে যান— প্রতি বছর ৬টি বিষয়ে যারা বিশেষ আবদান রাখবেন; তাদের যেন এই অর্থ থেকে পুরস্কার প্রদান করা হয়। ১৯০১ সাল থেকে শুরু হয় নোবেল পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠান। চলতি বছরে সোমবার থেকে শুরু হওয়া এই পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠান শেষ হবে আগামী ১১ অক্টোবর।

সোমবার (৪ অক্টোবর) চিকিৎসায় নোবেল বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। চলতি বছর চিকিৎসায় নোবেল পেয়েছেন লেবানিজ বংশোদ্ভূত মার্কিন বিজ্ঞানী আর্ডেম পাতাপুতিয়ান ও মার্কিন বিজ্ঞানী ডেভিড জুলিয়াস। নোবেল পুরস্কারের ১ কোটি সুইডিশ ক্রোনার ভাগাভাগি করে নেবেন এ দুই বিজ্ঞানী।

আগামীকাল বৃহস্পতিবার সাহিত্যে চলতি বছরের নোবেল বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হবে। এরপর শুক্রবার শান্তি এবং আগামী সোমবার (১১ অক্টোবর) অর্থনীতি বিজ্ঞানে এবারের নোবেল পুরস্কার জয়ীদের নাম ঘোষণা করা হবে।


আরও খবর



অবশেষে বিশ্বকাপ খেলার স্বপ্নপূরণ পাপুয়া নিউগিনির

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৮ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৮ অক্টোবর ২০২১ | ৬৩৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

অস্ট্রেলিয়ার উত্তরপূর্বের এক দ্বীপরাষ্ট্রের নাম পাপুয়া নিউগিনি। প্রাকৃতিকভাবে সমৃদ্ধ দেশটির যেমন রয়েছে মন মাতানো সৌন্দর্য, তেমনি মাটির নিচে রয়েছে অজস্র খনিজ সম্পদ। বিশ্ব ক্রিকেটে হাঁটি হাঁটি করে এগিয়ে চলেছে নবীন এই ক্রিকেট খেলুড়ে দেশটি। এবার ইতিহাস গড়ে জায়গা করে নিয়েছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও।

কোন মেজর আইসিসি টুর্নামেন্টে এর আগে কখনোই অংশ নেয়নি পাপুয়া নিউগিনি পুরুষ ক্রিকেট দল। ওয়ানডে, টি টোয়েন্টি বা টেস্ট কোন ফরম্যাটের বৈশ্বিক প্রতিযোগিতাতেই এতদিন অংশ নেওয়ার যোগ্যতা অর্জন করতে পারেনি দলটি। ২০২১ টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মধ্য দিয়ে এই প্রথম কোন বড় মঞ্চে আবির্ভাব ঘটবে পাপুয়া নিউগিনির।

পাপুয়া নিউগিনি নারী ক্রিকেট দলও খুব একটা পিছিয়ে নেই তাদের পুরুষ দলের চেয়ে। আগামী বছরের নারী টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মূল পর্বে জায়গা পেতে মাত্র একটি ম্যাচ দূরে ছিল তারা। যদিও বাংলাদেশের কাছে হেরে শেষ হয়ে যায় তাদের স্বপ্ন। তবে যুব পর্যায়ে তুলনামূলকভাবে বেশি সাফল্য পেয়েছে দেশটি। ১৯৯৮ সাল থেকে এখন পর্যন্ত আটবার তারা অংশ নিয়েছে অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপে।

অপ্রত্যাশিত ঘটনার দেশ বলে খ্যাত পাপুয়া নিউগিনির ক্রিকেট ইতিহাসের সবচেয়ে বড় অর্জন ২০১৪ সালে ওডিআই স্ট্যাটাস প্রাপ্তি। নিজেদের প্রথম একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচে হংকংকে হারিয়ে প্রথম ওয়ানডেতে জয় পাওয়া ছয়টি দলের তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে তারা। তবে সাম্পতিক ওডিআই ফর্মের বিবেচনায় এই বিশ্বকাপে তাদের জায়গা করে নেওয়াটা অবাক করতে পারে অনেককেই। সর্বশেষ আটটি ম্যাচের সবকয়টিতেই হেরেছে তারা।

২০১৩ ও ২০১৫ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের কোয়ালিফায়ার থেকে হতাশ হয়ে ফিরতে হয়েছিল পাপুয়া নিউগিনিকে। ২০১৯ এ অবশ্য তেমন কিছুর মুখোমুখি হতে হয়নি তাদের। পূর্ব-এশিয়ার গ্রুপ বি থেকে উঠে এসেছে তারা। ছয় ম্যাচের পাঁচটিতে যেতে বিশ্বকাপে জায়গা করে নেয় তারা। এর মধ্যে পাঁচ উইকেটে হারিয়েছে নেদারল্যান্ডসকে। তাদের একমাত্র হারটি স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে।

টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য ঘোষিত পাপুয়া নিউগিনি স্কোয়াড :

আসাদ ভালা (অধিনায়ক), চার্লস আমিনি, লেগা সাইকা, নরম্যান ভানুয়া, নোসাইনা পোকানা, কিপলিন ডোরিগা (উইকেটরক্ষক), টনি উড়া, হিরি হিরি, গৌদি টোকা, সেসে বাউ, দামিয়েন রাভু, কাবুয়া ভাগি-মোরিয়া, সাইমন আতাই, জেসন কিলা, চ্যাড সোপার, জ্যাক গার্ডনার

এবারের বিশ্বকাপের প্রথম পর্বে পাপুয়া নিউগিনির ম্যাচসমূহ 

পাপুয়া নিউগিনির বনাম ওমান         ১৭ অক্টোবর        রাত ৮টা

পাপুয়া নিউগিনির বনাম স্কটল্যান্ড    ১৯ অক্টোবর         রাত ৮টা

পাপুয়া নিউগিনির বনাম বাংলাদেশ   ২১ অক্টোবর        রাত ৮টা

নিউজ ট্যাগ: পাপুয়া নিউগিনি

আরও খবর