আজঃ শনিবার ০২ মার্চ 2০২4
শিরোনাম

বাকৃবিতে ছাত্রী শ্লীলতাহানির বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ

প্রকাশিত:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি

Image

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) ছাত্রী শ্লীলতাহানির বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন পশুপালন অনুষদের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থীরা। এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যরা একযোগে পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন।

রোববার (১১ ফেব্রুয়ারি) পশুপালন অনুষদীয় গেইট থেকে ছাত্রী শ্লীলতাহানির বিচারের দাবিতে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনে তালা দেয় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. আজহারুল ইসলাম বলেন, যেখানে শিক্ষকদের সম্মান নেই সেখানে আমাদের কাজ করা অসম্ভব। আন্দোলনের সময় শিক্ষার্থীরা শিক্ষকদের ব্যক্তিগত আক্রমণ করে গালিগালাজ করেছেন। আমরা প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যরা স্বাক্ষর করে একযোগে পদত্যাগপত্র প্রক্টরিয়াল অফিসে জমা দিয়েছি।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, শনিবার (৯ ফেব্রুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয়ের আব্দুল জব্বারের মোড় থেকে শাহজালাল পশুপুষ্টি মাঠ গবেষণাগার সংলগ্ন রাস্তায় শ্লীলতাহানির শিকার হোন পশুপালন অনুষদের তৃতীয় বর্ষের এক নারী শিক্ষার্থী। ইচ্ছাকৃতভাবেই ওই রাস্তায় সিএনজি প্রবেশ করান চালক। সেই সময়, তার সিএনজিতে কোনো যাত্রী ছিল না। পরবর্তীতে, সেই সিএনজিচালককে ধরতে চেষ্টা করা হলে তিনি সেখান থেকে পালিয়ে যান।

রোববার দুপুর ১টার দিকে প্রশাসনিক ভবনের তালা খুলে দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের সঙ্গে ওই শিক্ষার্থীরা আলোচনায় বসেন। এ সময় সাধারণ শিক্ষার্থীরা উপাচার্যের কাছে তাদের দাবি তুলে ধরেন। শিক্ষার্থীদের দাবিগুলো হলো, বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্দিষ্ট রাস্তা ব্যতীত সিএনজি, অটো চলাচল নিষিদ্ধ করা এবং রিকশার নির্দিষ্ট কোড ও চালকদের নির্দিষ্ট পোশাকের ব্যবস্থা করা, বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মের রাস্তাগুলিতে অবিলম্বে নিরাপত্তা জোরদার করা এবং গতদিনের ঘটে যাওয়া ঘটনার অবিলম্বে বিচার করা।

এ বিষয়ে উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমদাদুল হক চৌধুরী বলেন, শিক্ষার্থীদের দাবিগুলো যৌক্তিক। বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল প্রবেশপথগুলিতে নিরাপত্তাকর্মীর সঙ্গে সংযোগ জোরদার করার জন্যে সাধারণ নম্বর দেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মের রাস্তাগুলিতে কাল থেকেই নিরাপত্তা জোরদার করা হবে এবং শ্লীলতাহানির এই ঘটনার উপযুক্ত বিচারের জন্যে পুলিশ সুপারের সঙ্গে কথা বলা হয়েছে।

প্রক্টরিয়াল বডির পদত্যাগ বিষয়ে তিনি বলেন, প্রক্টর এবং ছাত্রদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। এটি সাময়িক বিষয়। বিষয়টির সমাধান করা হচ্ছে। দুই এক দিনের মধ্যে সবকিছু ঠিক হয়ে যাবে। প্রক্টররা আবার তাদের কর্মস্থলে যোগদান করবেন।


আরও খবর
জাবির ‘ডি’ ইউনিটের ফল প্রকাশ

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




আট বছর পর স্পাই ইউনিভার্সে শাহরুখের সঙ্গে আলিয়া

প্রকাশিত:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

প্রায় আট বছর আগে ডিয়ার জিন্দেগি সিনেমায় শাহরুখ খানের সঙ্গে তালে তাল মিলিয়ে অভিনয়ে আলো ছড়িয়েছিলেন আলিয়া ভাট। এরপর এই জুটিকে এক সিনেমায় আর দেখা যায়নি। এই সময়ের মধ্যে আলিয়া-শাহরুখ একসঙ্গে বিজ্ঞাপনের কাজ করলেও সিনেমায় আসেননি। অবশেষে তাদের এক সিনেমায় আনছেন নির্মাতা আদিত্য চোপড়া। টাইমস অব ইন্ডিয়া লিখেছে, স্পাই ইউনিভার্স তাদের আগামী সিনেমায় শাহরুখ-আলিয়ার যোগসূত্র তৈরি করতে চাইছে। সিনেমার চিত্রনাট্যও প্রাথমিকভাবে তৈরি হয়েছে, যেখানে আলিয়াকে দেখানো হয়েছে শাহরুখের বাড়ির একজন আশ্রিতা হিসেবে।

২০১৬ সালে ডিয়ার জিন্দেগি সিনেমায় শাহরুখের রোগীর চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন আলিয়া। মানসিক রোগ থেকে রক্ষা পেতে চিকিৎসক শাহরুখের পরামর্শ নিতে নিতে একপর্যায়ে তার প্রেমে পড়ে যান আলিয়া, যদিও শাহরুখের কাছ থেকে কোনো সাড়া মেলেনি। সিনেমায় আলিয়া সেই অর্থে শাহরুখের নায়িকার চরিত্রে অভিনয় করেননি। বরং শাহরুখ-আলিয়ার অন্য রসায়ন পেয়েছে দর্শক।

আলিয়া কিছুদিন হল জিগরার শুটিং শেষ করেছেন। এছাড়া তার হাতে আছে সঞ্জয় লীলা বানসালির লাভ অ্যান্ড ওয়ার সিনেমাটি। এ সিনেমায় রাণবীর কাপুর এবং ভিকি কৌশল অভিনয় করেছেন। এদিকে শাহরুখের নতুন কিছু কাজের খবর সংবাদমাধ্যমে এলেও, সেগুলোর মধ্যে কোনটি তিনি আগে শুরু করবেন, সে বিষয়ে জানা যায়নি।


আরও খবর
টেইলর সুইফট ইফেক্টে আক্রান্ত সিঙ্গাপুর

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




লোহিত সাগরে ইইউ’র অভিযান শুরুর ঘোষণা

প্রকাশিত:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

ইয়েমেনভিত্তিক সশস্ত্র গোষ্ঠী হুতিদের হামলা থেকে বাণিজ্যিক জাহাজ রক্ষা করতে লোহিত সাগরে অভিযানের ঘোষণা করেছে ইইউ। তবে ইয়েমেনের ভূখণ্ডে হামলা চালাবে না তারা। জার্মান সংবাদমাধ্যম ডয়চে ভ্যালের এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা যায়।

গত ৭ অক্টোবর গাজা থেকে ইসরায়েল অভিমুখে হাজার হাজার রকেট ছুড়ে মুক্তিকামী ফিলিস্তিনিদের সশস্ত্র সংগঠন হামাস। এতে ইসরায়েলে নিহত হয়েছেন এক হাজার ৪০০ জন। এরপরেই গাজায় পাল্টা আক্রমণ শুরু করে ইসরায়েলি বাহিনী। তাদের হামলায় এখন পর্যন্ত নিহত হয়েছে ২৮ হাজারের বেশি ফিলিস্তিনি। আহত হয়েছেন অন্তত ৫০ হাজার। এই সংঘাত ছড়িয়ে পড়তে শুরু করেছে মধ্যপ্রাচ্যের অন্যান্য অঞ্চলেও। অভিযান শুরুর পর থেকে একাধিকবার ইসরায়েলকে হুঁশিয়ারি দিয়েছে হুথি বিদ্রোহীরাও। এরপর থেকে নিয়মিত লোহিত সাগরে ইসরায়েলমুখী জাহাজ লক্ষ্য করে হামলা চালাচ্ছে ইরান সমর্থিত এই গোষ্ঠী।

ইইউ জানায়, আপাতত লোহিত সাগরে ইইউ চারটি সদস্যরাষ্ট্র জাহাজ পাঠাচ্ছে। ইইউ নেতারা বলছেন, ইয়েমেনে হুতি বিদ্রোহীদের দৌরাত্মের কারণে লোহিত সাগরে বাণিজ্যিক জাহাজ চলাচলে বিঘ্ন ঘটায় বিশ্ব বাণিজ্যের উপর প্রভাব পড়ছে। অনেক কোম্পানি বাধ্য হয়ে বিকল্প ও অনেক দীর্ঘ পথে জাহাজ চালাচ্ছে।

ইইউ অর্থনীতি বিষয়ক কমিশনর পাওলো জেন্কিলোনি বলেন, এর ফলে ১০ থেকে ১৫ দিনের এই বিলম্বের ফলে ইউরোপ ও এশিয়ার মধ্যে পণ্য পাঠানোর ব্যয় প্রায় ৪০০ শতাংশ বেড়ে যাচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেনসহ কিছু দেশ যুদ্ধজাহাজ পাঠিয়ে ও ইরান-সমর্থিত হুতিদের উপর পালটা হামলা চালিয়ে সেই পরিস্থিতি মোকাবিলার চেষ্টা করছে। এবার ইইউ সংঘবদ্ধভাবে সেখানে সক্রিয় হওয়ার সিদ্ধান্ত নিল।

সোমবার ইইউ আনুষ্ঠানিকভাবে লোহিত সাগরে নৌবাহিনীর মিশনের ঘোষণা করেছে। গ্রিক ভাষায় আসপিদেস বা ঢাল নামের সেই অভিযানের আওতায় চারটি জাহাজ কয়েক সপ্তাহের মধ্যে লোহিত সাগরে পৌঁছে যাবে। এখনো পর্যন্ত ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি ও বেলজিয়াম জাহাজ পাঠিয়ে সেই মিশনে অবদান রাখতে সম্মত হয়েছে।


আরও খবর



জেলেনস্কির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বৈঠক

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
কূটনৈতিক প্রতিবেদক

Image

মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলন (এমএসসি) ২০২৪-এর ফাঁকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির মধ্যে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে কনফারেন্স ভেন্যু হোটেল বেইরিশার অব-এ বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে উভয় নেতা দ্বিপাক্ষিক ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করেন।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মাসুদ বিন মোমেন উপস্থিত ছিলেন।

একই স্থানে জেলেনস্কির সঙ্গে বৈঠকের আগে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে জার্মানির অর্থনৈতিক সহযোগিতা ও উন্নয়ন বিষয়ক ফেডারেল মন্ত্রী সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন।

প্রধানমন্ত্রী এর আগে সকালে সম্মেলনস্থলে নেদারল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী মার্ক রুটের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করেন। তার আগে প্রধানমন্ত্রী শুক্রবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) কাতার ও ডেনমার্কের প্রধানমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠক করেন।

প্রধানমন্ত্রী মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলন ২০২৪-এ যোগ দিতে তিন দিনের সরকারি সফরে ১৫ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় মিউনিখে পৌঁছেন। সফর শেষে শেখ হাসিনা রোববার (১৮ ফেব্রুয়ারি) রাতে মিউনিখ ত্যাগ করবেন ও ১৯ ফেব্রুয়ারি প্রধানমন্ত্রীর ঢাকায় পৌঁছার কথা রয়েছে।


আরও খবর



পুনম পাণ্ডে ও তার স্বামীর বিরুদ্ধে ১০০ কোটির মামলা

প্রকাশিত:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

সার্ভিক্যাল ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর নাটক সাজিয়ে দেশজুড়ে আলোড়ন ফেলে দিয়েছিল ভারতীয় মডেল পুনম পাণ্ডে। এবার সেই ভুলের মাশুল গুনতে হচ্ছে তাকে। কানপুরে পুনম এবং তার স্বামী স্যাম বম্বের বিরুদ্ধে দায়ের হলো ১০০ কোটি রুপির মানহানি মামলা। নিজের জন্মভূমিতেই আইনি বিপাকে পড়লেন পুনম!

এর আগে ০২ ফেব্রুয়ারি সার্ভিক্যাল ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়ার খবর ছড়ায় পুনম পাণ্ডের ইনস্টাগ্রাম একাউন্ট থেকে।

এর একদিন পর অভিনেত্রী জানান, তিনি বেঁচে আছেন। মৃত্যুর ভুয়া খবরটি তিনিই ছড়িয়েছিলেন। ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, আমি বেঁচে আছি। সার্ভিক্যাল ক্যানসারে আমি মারা যাইনি।’

তিনি আরও জানান, আগের মৃত্যুর পোস্টটি তিনি নিজেই দিয়েছিলেন। পুনম পাণ্ডে চেয়েছিলেন সার্ভাইক্যাল ক্যানসার নিয়ে সচেতনতার বার্তা দিতে। কিন্তু হিতে বিপরীত হয়ে গেল! মৃত্যু নিয়ে তো বটেই, এমনকী ক্যানসারের মতো মরণব্যাধি নিয়ে তার এমন রসিকতায় খেপে উঠেছেন ভক্তরাও। দাবি উঠছিল, আইনের আওতায় আনার। এবার মানহানি মামলায় জড়ালেন মডেল অভিনেত্রী।

এবিপি নিউজের প্রতিবেদন অনুসারে, কানপুরের পুলিশ কমিশনারের কাছে পুনম পাণ্ডের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছেন ফয়জান আনসারি নামে এক ব্যক্তি। সেই অভিযোগনামায় বলা হয়েছে, ১০০ কোটি টাকার মানহানি মামলা দায়ের করা হয়েছে পুনম পাণ্ডে এবং তার স্বামীর বিরুদ্ধে। শুধু তাই নয়, তাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করার অনুরোধও জানিয়েছেন ওই ব্যক্তি।

এফআইআর-এ উল্লেখ রয়েছে, পুনম পাণ্ডে এবং স্যাম বম্বে ডেথ স্টান্টের ষড়যন্ত্র করেছেন।

এমনকী, ক্যানসারের মতো মারণ রোগ নিয়েও ছেলেখেলা করেছেন তারা। পুনম পাণ্ডে আসলে নিজের প্রচারের স্বার্থেই এমন প্রতারণা করে গোটা বলিউড এবং দেশবাসীর আবেগে আঘাত হেনেছেন।

২০১৩ সালে নাশা ছবিতে বলিউডে অভিষেক হয় পুনমের। অভিনয় করেছেন ভোজপুরি, কন্নড় ছবিতেও। সাহসী ও খোলামেলা পোশাকের কারণে সব সময়ই ছিলেন আলোচনায়।


আরও খবর
টেইলর সুইফট ইফেক্টে আক্রান্ত সিঙ্গাপুর

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




রাজধানীতে পরিত্যক্ত বাড়ির সংখ্যা জানালেন গৃহায়ণমন্ত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

রাজধানীতে ৬ হাজার ৩৭২টি পরিত্যক্ত বাড়ি রয়েছে। পরিত্যক্ত বাড়ি সবচেয়ে বেশি মিরপুর এলাকায়। বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় সংসদের প্রশ্নোত্তর পর্বে ঢাকা-১৯ আসনের মুহম্মদ সাইফুল ইসলামের প্রশ্নের জবাবে এ তথ্য জানান গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী র. আ. ম. ওবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রশ্নোত্তর টেবিলে উপস্থাপিত হয়।

মন্ত্রী জানান, পরিত্যক্ত বাড়ি সবচেয়ে বেশি মিরপুর এলাকায়। মিরপুরে ‍তিন হাজার ৫৮২টি পরিত্যক্ত বাড়ি রয়েছে। সংখ্যার দিক থেকে দ্বিতীয় অবস্থানে মোহাম্মপুর। এখানে রয়েছে এক হাজার ৫৪২টি পরিত্যক্ত বাড়ি। এ ছাড়া অন্য পরিত্যক্ত বাড়িগুলোর মধ্যে গুলশানে ১২৮টি, বনানীতে ৯টি, মগবাজারে ৬২টি, তেজগাঁওয়ে ৩৬, নাখালপাড়ায় ১৯টি, ক্যান্টনমেন্টে ২৬টি, বাসাবো ৩৮টি, শাহাজানপুরে ১০টি, খিলগাঁওয়ে ১২টি, জুরাইনে ২টি, মতিঝিলে ৭২টি, রমনায় ১৫৮টি, সূত্রাপুরে ৩২০টি, লালবাগে ১৭৪টি, কোতোয়ালীতে ৪৬টি, ধানমন্ডিতে ৮৮টি, লালমাটিয়ায় ২৫টি, যাত্রাবাড়ীতে ৪টি ও মানিকনগরে রয়েছে ১টি।

এদিকে পরিত্যক্ত বাড়ির মধ্যে নির্মাণ প্রতিষ্ঠান হিসেবে চারটি ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হিসেবে ২০টি ব্যবহৃত হচ্ছে জানিয়ে গৃহায়ণমন্ত্রী বলেন, সংরক্ষিত পরিত্যক্ত বাড়িতে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আবাসিক ফ্ল্যাট নির্মাণকাজে ব্যবহার হচ্ছে এবং কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য ভাড়াভিত্তিক বরাদ্দ করা হচ্ছে। বিক্রয়যোগ্য পরিত্যক্ত বাড়িগুলো প্রধানমন্ত্রীর অনুমতিতে বিভিন্ন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান, শহীদ পরিবার, যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা ও বরাদ্দপ্রাপ্তদের কাছে বিক্রি করা হচ্ছে।

তিনি আরও জানান, গত তিন অর্থবছরে ঢাকা শহরের পরিত্যক্ত বাড়ি হতে ১২ কোটি ৬৮ লাখ ১৬ হাজার ৪২৯ টাকা ভাড়া আদায় হয়েছে। এ সময় বিক্রি থেকে মূল্য আদায় হয়েছে ২ কোটি ৩১ লাখ ২ হাজার ৭৩৭ টাকা।


আরও খবর
শপথ নিলেন নতুন ৭ প্রতিমন্ত্রী

শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪