আজঃ বৃহস্পতিবার ০৯ ডিসেম্বর ২০২১
শিরোনাম

চাকরির প্রলোভনে প্রতারণা

প্রকাশিত:বুধবার ১৭ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ নভেম্বর ২০২১ | ৫৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

চাকরির প্রলোভনে প্রতারণার মাধ্যমে বিপুল পরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে সালমা আক্তার নামের এক নারীকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশ ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-১)।

বুধবার (১৭ নভেম্বর) সকালে রাজধানীর খিলক্ষেত এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়।

র‌্যাব-১-এর অধিনায়ক লে. কর্নেল আব্দুল্লাহ আল মোমেন জানান, বিভিন্ন বাসা-বাড়িতে নিরাপত্তাকর্মী বা বডিগার্ড হিসেবে চাকরির প্রলোভনে বিপুল অর্থ হাতিয়ে নেওয়া অভিযোগে রাজধানীর খিলক্ষেত এলাকা থেকে একজনকে আটক করা হয়েছে। বুধবার বিকেলে রাজধানীর কারওয়ান বাজার র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হবে।


আরও খবর



ব্যাংকের প্রশ্ন ফাঁস আহছানউল্লাহ থেকে, গ্রেপ্তার ৫

প্রকাশিত:বুধবার ১০ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১০ নভেম্বর ২০২১ | ৮৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সম্প্রতি পাঁচটি ব্যাংকের অফিসার ক্যাশ পদে নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁসের ঘটনায় চক্রের মূলহোতা মো. মুক্তারুজ্জামান রয়েলসহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। রয়েল আহছানউল্লাহ ইউনির্ভাসিটি অব সাইন্স অ্যান্ড টেকনোলজিতে আইসিটি টেকনিশিয়ান হিসেবে কর্মরত। তার মাধ্যমেই বিশ্ববিদ্যায়টিতে কর্মরত অন্যদের সহায়তায় ওই পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁস হয়েছে বলে জানিয়েছেন ডিবির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার এ কে এম হাফিজ আক্তার।

আজ বুধবার বিকেলে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, বাংলাদেশ ব্যাংকের অধীনে পাঁচটি ব্যাংকের অফিসার ক্যাশ পদে ১৫১১টি শূন্য আসনে নিয়োগ পরীক্ষা হয় গত শনিবার। আহছানউল্লাহ ইউনির্ভাসিটির মাধ্যমে ব্যাংকার সিলেকশন কমিটি পরীক্ষাটি সম্পাদন করে।

হাফিজ আক্তার জানান, গোয়েন্দা তেজগাঁও বিভাগের জোনাল টিম তথ্য পায় পরীক্ষা শুরুর আগেরদিন রাতে প্রশ্ন ফাঁস হতে পারে। পরে ডিবির এক সদস্য ছদ্মবেশে পরীক্ষার্থী সেজে পরীক্ষার দিন সকালে প্রশ্ন ও উত্তরপত্র পেতে চক্রের সদস্যদের সঙ্গে যোগাযোগ করে।

চক্রের সদস্য রাইসুল ইসলাম স্বপনকে অগ্রিম টাকা দিলে পরীক্ষার্থীকে বুথে নিয়ে যান। এ সময় উত্তরপত্রসহ তাকে হাতেনাতে গ্রেপ্তার করা হয়। স্বপনের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে শনিবার সাভারের শ্রীনগর থেকে রূপালী ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার জানে আলম মিলনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এরপর জানে আলমের তথ্যের ভিত্তিতে রাজধানীর দক্ষিণ বাড্ডা থেকে মো. শামসুল হক শ্যামলকে গ্রেপ্তার করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে প্রশ্নপত্র ও উত্তরপত্র ফাঁস করার কথা স্বীকার করেন শ্যামল। পরে চক্রের মূল হোতা মো. মুক্তারুজ্জামান রয়েলকে বাড্ডার আলিফনগর থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। রয়েল প্রশ্ন ফাঁসের কথা স্বীকার করেছেন বলে জানিয়েছেন ডিবির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার হাফিজ আক্তার।

আসামিদের কাছ থেকে একটি ল্যাপটপ, পাঁচটি মোবাইল, চারটি প্রশ্নপত্র, চারটি উত্তরপত্র। হোয়াটসঅ্যাপে থাকা উত্তরপত্রের ছবি, একটি প্রবেশপত্রের ফটোকপি ও নগদ ছয় লাখ টাকা জব্দ করা হয়েছে।

আসামিরা জানিয়েছেন, রাজধানীর বাড্ডা, বসুন্ধরা, উত্তরা, মোহাম্মদপুর, কল্যানপুর, রূপনগর, মিরপুর, মাতুয়াইল, শেওড়াপাড়া, শেরেবাংলানগর, পল্লবী এলাকায় বুথ  স্থাপন করা হয়। এসব বুথে পরীক্ষার পাঁচ থেকে ছয় ঘণ্টা আগে পরীক্ষার্থীদের প্রশ্ন ও উত্তরপত্র মুখস্থ করানো হয়। চক্রের সদস্যদের তত্ত্বাবধানে প্রত্যেক বুথে ২০ থেকে ৩০ জন পরীক্ষার্থী উত্তর মুখস্থ করে পরীক্ষার কেন্দ্রে যান।

আসামি মুক্তারুজ্জামান ও শ্যামল কৌশলে তিনবার বিভিন্ন নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্ন ও উত্তর ফাঁস করেছে। তারা পরীক্ষার পাঁচ থেকে ছয় ঘণ্টা আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রায় দুই হাজার পরীক্ষার্থীদের কাছে উত্তরপত্র পৌঁছে দেন। এজন্য নিয়োগ পাওয়ার আগ পর্যন্ত বিভিন্ন ধাপে পাঁচ থেকে ১৫ লাখ টাকা পর্যন্ত আদায় করেন তারা। আসামিদের বিরুদ্ধে বাড্ডা থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।


আরও খবর



‘বিশ্বে যে কোনো স্থানে শান্তি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশ প্রস্তুত’

প্রকাশিত:শনিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২১ | ৩২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
শান্তি মানুষের সকল স্বাধীনতার মূলমন্ত্র। ৫০ বছর আগে স্বাধীনতার পর বঙ্গবন্ধু সংবিধানে শান্তির কথা বলতেই লেখা হয়েছে, ‘সকলের সঙ্গে বন্ধুত্ব কারো সঙ্গে বৈরিতা নয়’

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, বিশ্বে যে কোনো স্থানে শান্তি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশ প্রস্তুত রয়েছে। ডাক দিলেই হাজির হয়ে যাব।

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ শনিবার (৪ ডিসেম্বর) বিকেলে হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনের উদ্বোধন অনুষ্ঠান বিশ্ব শান্তি সম্মেলনে এসব কথা বলেন।

রাষ্ট্রপতি বলেন, শান্তি মানুষের সকল স্বাধীনতার মূলমন্ত্র। ৫০ বছর আগে স্বাধীনতার পর বঙ্গবন্ধু সংবিধানে শান্তির কথা বলতেই লেখা হয়েছে, সকলের সঙ্গে বন্ধুত্ব কারো সঙ্গে বৈরিতা নয়। এ কারণেই বঙ্গবন্ধু থেকে তিনি বিশ্ব নেতা হয়ে উঠেছিলেন।

নতুন বিশ্বে নানান চ্যালেঞ্জ লক্ষ্য করা যাচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, কোভিড-১৯ আমাদের দুর্বলতা বের করে দিয়েছে। জলবায়ু সংকট মানব জাতিকে বিপদে ফেলছে। সবার জন্য সমান অধিকার নিশ্চিত করা গেলেই বিশ্বে শান্তি নিশ্চিত হবে।

বিশ্ব শান্তি সম্মেলন উদ্বোধনের আগে বিভিন্ন ধর্মগ্রন্থ পাঠ করা হয়। থিম সঙ্গীত, বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার এবং রোহিঙ্গাসহ নির্যাতিত মানুষের ওপর ভিডিও ক্লিপ পরিদর্শন করা হয়।

সম্মেলনের সভাপতি জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, বিশ্ব এখন বিভিন্নভাবে বিভক্ত। টিকা পেতেও এখন বিশ্ব বিভক্ত হয়ে গেছে। সামাজিক ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে দরিদ্র মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠা করা দরকার। বিশ্বে মাত্র ১ শতাংশ মানুষ বিশ্বের অর্ধেক সম্পত্তির মালিক।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু সাধারণ মানুষের জন্য সামাজিক ন্যায় বিচার ও শোষণ থেকে রক্ষা করতে সংগ্রাম করে গেছেন। আমাদের সংবিধানের প্রতিটি ছত্রে ছত্রে মুজিবের এই দর্শন প্রতিফলিত হয়েছে। ১৯৭৪ সালে জাতিসংঘে বঙ্গবন্ধু তার ভাষণই বিশ্ব শান্তির কথা বলেছেন।

জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব বান কি-মুন রেকর্ডকৃত বক্তব্যে বলেন, শান্তির জন্য সকলকে একত্রে কাজ করতে হবে। কোভিড-১৯ মহামারি থেকে বাচঁতে ধনী-গরিব নির্বিশেষে টিকা নিশ্চিত করতে হবে। তিনি বলেন, কেউ একা বিশ্বে নিরাপদ নয় যতক্ষণ পর্যন্ত সকলে নিরাপদ হবে না।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন তার বক্তব্যে বলেন, বঙ্গবন্ধু তার সারাজীবন শান্তি অন্বেষণ করেছেন। মানুষের জন্য শান্তির খোঁজই তাকে ক্যারিশম্যাটিক নেতা হিসেবে উপস্থাপিত করেছে।

পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন অনুষ্ঠানের শুরুর বক্তব্যে সম্মেলনের উদ্দেশ্য বর্ণনা করেন।

সম্মেলনে শান্তি রক্ষায় কাজ করা বিশ্বের বিভিন্ন দেশের কবি, সাহিত্যিক, নোবেল বিজয়ী, শিক্ষাবিদ, বিজ্ঞানী, শিল্পী, সাংবাদিক, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, রাজনীতিক, মানবাধিকারকর্মী ও বুদ্ধিজীবীরা অংশ নিচ্ছেন। এতে বিশ্বের ৫০টি দেশের প্রতিনিধিরা অংশ নেবেন। তাদের মধ্যে ৬০ জন প্রতিনিধি সশরীরে আসবেন। বাকি ৪০ জন প্রতিনিধি ভার্চুয়ালি অংশ নেবেন।


আরও খবর



ফাঁদে ফেলে ১৩০ নারীকে বিক্রি, অভিযুক্ত আটক

প্রকাশিত:বুধবার ১৭ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ নভেম্বর ২০২১ | ৫১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আফগানিস্তানে সম্পদশালী ও ভালো স্বামী পাইয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতির ফাঁদে ১৩০ নারীকে দাস হিসেবে বিক্রি করার অভিযোগে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে দেশটির পুলিশ। মঙ্গলবার (১৬ নভেম্বর) আফগান কর্মকর্তাদের বরাতে এ তথ্য জানিয়েছে পাকিস্তান ভিত্তিক গণমাধ্যম ডন।

দেশটির জাওজান প্রদেশের তালেবানের পুলিশ প্রধান দামুল্লাহ সিরাজ জানান, সোমবার রাতে জাওজান প্রদেশ থেকে অভিযুক্তকে আটক করা হয়েছে। আমরা এখনও তদন্তের প্রাথমিক পর্যায়ে আছি। আরও কিছু সময় পার হলে আরও তথ্য বের করতে পারবো।

ডন জানায়, অভাবগ্রস্ত নারীদেরকেই টার্গেট করা হতো। সম্পদশালী স্বামী খুঁজে পাওয়ার প্রলোভনে নারীরা সহজেই অভিযুক্তের ফাঁদে পা দিতেন। এভাবে তিনি প্রায় ১৩০ জন নারীকে বিক্রি করেছেন।


আরও খবর



আজ পিরোজপুর মুক্ত দিবস

প্রকাশিত:বুধবার ০৮ ডিসেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৮ ডিসেম্বর ২০২১ | ১৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

১৯৭১ সালের ৮ ডিসেম্বর পিরোজপুর পাকহানাদার, রাজাকার, আলসামস ও আলবদর মুক্ত হয়। পিরোজপুর হানাদার শত্রু মুক্ত দিবস আজ বুধবার।

মুক্তিযুদ্ধের সময় পিরোজপুর ছিল মুক্তিযুদ্ধের নবম সেক্টরের অধীন। এ দিনে ঘরে ঘরে উড়েছিল লাল সবুজের বিজয় পতাকা। পিরোজপুরের ইতিহাসে এ দিনটি বিশেষ স্মরণীয়।

১৯৭১ সালের ৩ মে পিরোজপুরে প্রথম পশ্চিম পাকিস্তানী দখলদার বাহিনী প্রবেশ করে। বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতা ঘোষণার মূল মন্ত্র বুকে ধারণ করে মুক্তিযোদ্ধাদের সাহসীকতায় শেষে ৮ ডিসেম্বর পিরোজপুর ছেড়ে তারা পালিয়ে যেতে বাধ্য হয়। থেকে যায় ইতিহাসে নির্মম গণহত্যা মানবসভ্যতার।

পিরোজপুরে মুক্ত দিবস উদযাপন পরিষদ স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিভিন্ন কর্মসূচি বাস্তবায়নের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে।

কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে বুধবার সকাল সাড়ে ৯টায় শহীদ ভাগিরথী চত্বরে পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে গোপাল কৃষ্ণ টাউন ক্লাব মাঠে স্বাধীনতা মঞ্চে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

এ আলোচনা সভায় ভার্চ্যুয়ালী প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখবেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম এমপি। এছাড়া সন্ধ্যা ৬টা ১মিনিটে মোমবাতি প্রজ্জলনের আয়োজন করা হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: পিরোজপুর

আরও খবর
আজ চাঁদপুর মুক্ত দিবস

বুধবার ০৮ ডিসেম্বর ২০২১




গুলশানে গৃহকর্তার সঙ্গে সম্পর্কের বলি গৃহকর্মী! গৃহকর্ত্রী গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:রবিবার ০৫ ডিসেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ০৫ ডিসেম্বর ২০২১ | ৭১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বাসার গৃহকর্তা সৈয়দ জসীমুলের সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্ক রয়েছে- এমন সন্দেহে গৃহকর্মী পারভীনকে খুনের পরিকল্পনা করে গৃহকর্ত্রী সৈয়দা সামিনা হাসান। পরিকল্পনামাফিক গুলশানের নিকেতনের বাসায় পারভীনকে খুন করা হয়। এরপরই তার লাশ ঝাউবনে ফেলে দেওয়া হয় বলে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) তদন্তে বেরিয়ে এসেছে।

রোববার (৫ ডিসেম্বর) দুপুরে আগারগাঁও পিবিআই কার্যালয়ে বিশেষ পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ৩ দিন আগে তুরাগ থানার দিয়াবাড়ির ঝাউবন এলাকায় পারভীনের লাশ অজ্ঞাত হিসেবে পাওয়া যায়। এরপর প্রযুক্তির সহায়তায় ঘটনার আদ্যোপান্ত বেরিয়ে আসে।

পারভীনের স্বামীর নাম মোমিনুল হক। জীবিকার সন্ধানের ৬ বছর আগে স্বামীর সঙ্গে ঢাকায় আসে সে। স্বামী রিকশা চালালেও পারভীন করতেন গৃহকর্ত্রীর কাজ। গুলশানের নিকেতনে জসীমুলের বাসায় ৭ হাজার টাকা বেতনে চাকরি নেন। তবে তাকে বেতন দেওয়া হতো ১ হাজার টাকা করে।

এরমধ্যে গৃহকর্ত্রী সামিনার সন্দেহ হয় গৃহকর্তার সঙ্গে পারভীনের অনৈতিক সম্পর্ক আছে। যা তিনি অনেক দিন ধরে সন্দেহ করে আসছেন। এরপরই সামিনা পারভীনকে খুনের পরিকল্পনার করে।

এরপর ১ ডিসেম্বর নিকেতনের বাসায় সামিনা পারভীনকে প্রথমে লাঠি দিয়ে মারধর করেন। সে অজ্ঞান হয়ে লুটিয়ে পড়লে তার বুকে চাপ দেয় সামিনা। বুকের হাড় ভেঙে গেলে ঘটনাস্থলেই পারভীনের মৃত্যু হয়। পরে লাশ গুম করার জন্য ওই ঝাউবনে ফেলে দেওয়া হয়।

এ ঘটনায় স্বামী-স্ত্রী দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তারা ঘটনার সত‌্যতা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছে।

সাংবাদিকদের প্রশ্নে পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, পারভীনকে তার স্বামীর সঙ্গে দেখা করতে দিতো না বাসার লোকজন। এ কারণে তার স্বামী অক্টোবর মাসে গুলশান থানায় একটি জিডি করেন। তদন্তে জিডির সংশ্লিষ্টতা বেড়িয়ে আসে। আসামিদের আদালতে হাজির করে রিমান্ডে নেওয়া হবে।


আরও খবর