আজঃ মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম

ধামরাইয়ে ৩০ লিটার চোলাই মদসহ আটক ৩

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
ধামরাই প্রতিনিধি

Image

ঢাকার ধামরাই উপজেলায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে ৩০ লিটার চোলাই মদসহ ৩ জন মাদক কারবারিকে আটক করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (২৮ সেপ্টেম্বর) রাতে ধামারাই পৌরসভার সৈয়দপুর এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন- হাসান (৩৫) পিতা রহিজ উদ্দিন, জনি(২৫) পিতা সালাউদ্দিন, পারভেজ(৩১) পিতা আউলাদ হোসেন।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ধামরাই থানার ওসি.(অপারেশন) নির্মল কুমার দাস এর নেতৃত্বে ও এস.আই.শাখাওয়াত হোসেন সঙ্গীয় অফিসার ফোর্সদের সহায়তায় পুলিশের একটি দল উপজেলার বিভিন্ন স্থানে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে।

ধামরাই পৌরসভার সৈয়দপুর এলাকা থেকে পেশাদার এ তিন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেন। পরে তাদের কাছ থেকে ৩০ লিটার দেশীয় চোলাই মদ উদ্ধার করে পুলিশ। আটক কৃতদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য আইনে নিয়মিত মামলা রুজু করা হয়েছে। মামলাটি তদন্তাধীন আছে।

ধামারাই থানার অফিসার ইনচার্জ হারুন অর রশিদ বলেন, মাদক বিরোধী আমাদের এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।


আরও খবর



বিপৎসীমা ছুঁইছুঁই তিস্তার পানি, ব্যারেজের সব জলকপাট খুলে দিলো কর্তৃপক্ষ

প্রকাশিত:রবিবার ৩০ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ৩০ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জেলা প্রতিনিধি

Image

উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে ও ভারী বৃষ্টিতে লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় তিস্তা নদীর পানি বাড়তে শুরু করেছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে দেশের বৃহত্তম সেচ প্রকল্প তিস্তা ব্যারেজের ৪৪টি জলকপাট খুলে দিয়েছে ব্যারেজ কর্তৃপক্ষ।

রোববার (৩০ জুন) সকাল ৮টায় তিস্তার পানিপ্রবাহ রেকর্ড করা হয়েছে ৫১ দশমিক ৮৪ সেন্টিমিটার। যা বিপৎসীমার ৩১ সেন্টিমিটার (স্বাভাবিক ৫২ দশমিক ১৫ সেন্টিমিটার) নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় তিস্তার চরাঞ্চলগুলোর ঘরবাড়ি ও ফসলি জমিতে পানি উঠতে শুরু করেছে। নদীর তীরবর্তী ও চরাঞ্চলে বসবাসরত মানুষ বন্যা ও নদীভাঙন আতঙ্কে পড়েছেন।

ডালিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের হাইড্রোলজিক বিভাগের পানি পরিমাপক নূরুল ইসলাম বলেন, রোববার সকাল থেকে পানি বাড়তে থাকে।

এদিকে তিস্তার পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় লালমনিরহাট জেলার হাতীবান্ধা উপজেলার ৬টি ইউনিয়নের ৮-১০টি চর ও পার্শ্ববর্তী কালীগঞ্জ, আদিতমারী উপজেলার ১০-১৫টি চর এলাকায় পানি উঠতে পারে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

হাতীবান্ধা উপজেলার গড্ডিমারি ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান আকবার আলী বলেন, রাতে নদীর পানি বেড়ে যাওয়ায় আমরা আতঙ্কিত হয়ে পড়েছি। কখন যে কী হয়।


আরও খবর



ঝালকাঠিতে স্কুলের ছাদ থেকে পলেস্তারা খসে ৫ শিক্ষার্থী আহত

প্রকাশিত:রবিবার ০৭ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ০৭ জুলাই ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ঝালকাঠি প্রতিনিধি

Image

ঝালকাঠি রাজাপুর উপজেলায় একটি বিদ্যালয় ভবনের পলেস্তারা খসে পড়ে পাঁচজন শিক্ষার্থী আহত হয়েছে। পাঁচজনই ওই বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থী।

রোববার (৭ জুলাই) দুপুর ১২ টার দিকে উপজেলার পূর্ব সাতুরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক সিদ্দিকুর রহমান।

তিনি জানান, ক্লাস চলাকালীন সময় হঠাৎ ছাদের পলেস্তারা খসে বেঞ্চের উপর পড়ে। এ সময় ৫ জন শিক্ষার্থী আহত হয়। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

তিনি আরও জানান, ২০০৪ সালে এই ভবনটি নির্মাণ করা হয়। এটি আগে থেকেই ঝুঁকিপূর্ণ ছিলো। আমরা বারবার কর্তৃপক্ষের কাছে চিঠি দিয়েছি। তারপরও তারা কোন পদক্ষেপ নেননি।

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আক্তার হোসেন বলেন, ভবনটিকে ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করে বিকল্প স্থানে পাঠদানের ব্যবস্থা করা হবে।


আরও খবর



জামালপুরে বানভাসী ৪২ ইউনিয়নের মানুষ, ডুবে আছে ১৭০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান

প্রকাশিত:রবিবার ০৭ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ০৭ জুলাই ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জামালপুর প্রতিনিধি

Image

জামালপুরে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হয়নি। গত ২৪ ঘণ্টায় যমুনা নদীর পানি বাহাদুরাবাদঘাট পয়েন্টে ৬ সেন্টিমিটার কমে বিপৎসীমার ৮৭ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। তবে এখনও পানিবন্দী অবস্থায় রয়েছেন জেলার ৭ উপজেলার ৪২টি ইউনিয়নের লক্ষাধিক মানুষ। ডুবে আছে দুর্গত এলাকার ১৭০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান।

পানির তোড়ে ভেঙে গেছে দেওয়ানগঞ্জ ও ইসলামপুর উপজেলার অনেক কাঁচা-পাকা রাস্তা। পানিতে তলিয়ে গেছে একাধিক ড্রাইভার্সন সড়ক। বন্যার পানি এখনও হু-হু করে ঢুকছে গ্রামগুলোতে। রাস্তা-ঘাট ডুবে যাওয়ায় ভেঙে পড়েছে দুর্গত এলাকার সঙ্গে উপজেলা ও জেলা সদরের যোগাযোগ ব্যবস্থা।

জেলা প্রশাসক শফিউর রহমান জানিয়েছেন, দুর্গত এলাকায় শতাধিক আশ্রয়কেন্দ্র খোলা হয়েছে। বানভাসী অনেক মানুষ সেখানে আশ্রয় নিয়েছে। দুর্গত এলাকায় ৩২০ মেট্রিকটন চাল ও ৪ হাজার প্যাকেট শুকনা খাবার ও নগদ ৫ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। শনিবার দেওয়ানগঞ্জে ভানবাসী মানুষের মধ্যে চাল-ডাল, শুকনা খাবার ও নগদ টাকা বিতরণ করা হয়েছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড জানিয়েছে, উজানে ভারী বৃষ্টি না হলে এবং যমুনার পানি কমতে থাকলে এ অঞ্চলের বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হতে পারে।


আরও খবর



‘ব্রেস্ট ক্যানসার নিয়ে দেরিতে এলে কিছুই করার থাকে না’

প্রকাশিত:বুধবার ২৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৬ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

ব্রেস্ট ক্যানসার নিয়ে গ্রামের মায়েরা অনেক দেরিতে আসেন। খুব বেশি দেরি হলে অপেক্ষা করা ছাড়া কিছুই করার থাকে না। ব্রেস্ট ক্যানসার শুরুর দিকে শনাক্ত করা গেলে যথাযথ চিকিৎসা করা যায়।

বুধবার (২৬ জুন) সকালে হাজারীবাগে শহীদ শামসুননেছা আরজু মনি মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্র ১০ শয্যা থেকে ৫০ শয্যায় উন্নীতকরণ উপলক্ষে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, একটা ব্যাপার আমাদের দেশে কমন যা সাধারণ মায়েরা অবহেলা করে। সেটা হচ্ছে ব্রেস্ট ক্যানসার। আপনাদের কাছে যখন রোগী আসবে তখন আপনারা খেয়াল করবেন ব্রেস্টে কোনো লাম্প আছে কি না। আপনারা যদি সে রকম কোনো রোগী পান তাহলে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে পাঠাবেন। সেখানে অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতিসহ ব্রেস্ট স্ক্রিনিংয়ের সেরা ফ্যাসিলিটি আছে। আপনারা যদি এই রকম দশজন, পনেরজন করে রোগী পাঠান আমরা বিনামূল্যে সবরকমের পরীক্ষা করে তাদের চিকিৎসা করব।

শহীদ শামসুননেছা আরজু মনি মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রকে আরও উন্নতমানের স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলার প্রত্যয় ব্যক্ত করে মন্ত্রী আরও বলেন, শেখ পরিবারের সঙ্গে আমার আত্মিক সম্পর্ক। মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, লেখক, সাংবাদিক ও যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শহীদ শেখ ফজলুল হক মণির সহধর্মিণী একজন মহীয়সী নারীর নামে প্রতিষ্ঠিত এই কল্যাণ কেন্দ্রের উন্নয়নে যা যা করা দরকার সবই আমি করব। দেশের স্বাস্থ্যসেবাকে আরও উন্নত পর্যায়ে নিয়ে যেতে মা ও শিশু স্বাস্থ্যের উন্নতির কোনো বিকল্প নেই।

স্বাস্থ্য শিক্ষা সচিব মো. আজিজুর রহমানের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ডা. রোকেয়া সুলতানা এবং ঢাকা- ১০ আসনের সংসদ সদস্য ফেরদৌস আহমেদ।


আরও খবর
বাড়ছে ডেঙ্গু, শতাধিক নতুন রোগী শনাক্ত

বৃহস্পতিবার ১১ জুলাই ২০২৪




দেশে ফিরলেন ১৯ হাজার ৪৩৯ হাজি, মৃত্যু বেড়ে ৪৮

প্রকাশিত:বুধবার ২৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৬ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পবিত্র হজ পালন শেষে ইতোমধ্যে দেশে ফিরেছেন ১৯ হাজার ৪৩৯ হাজি। হজ পালন করতে গিয়ে এখন পর্যন্ত ৪৮ জন বাংলাদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (২৫ জুন) দিবাগত রাতে হজ পোর্টালের সবশেষ বুলেটিনে এ তথ্য জানানো হয়।

হজ ব্যবস্থাপনা পোর্টালের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, ৫১টি ফ্লাইটে সৌদি থেকে এসব হাজি বাংলাদেশে এসেছেন। এর মধ্যে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের ১৩টি, সৌদি এয়ারলাইনসের ২০টি এবং ফ্লাইনাস এয়ারলাইনস ১৮টি ফ্লাইট পরিচালনা করে।

চলতি বছর হজ পালন করতে গিয়ে এখন পর্যন্ত ৪৮ জন বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে পুরুষ ৩৬ এবং মহিলা ১২ জন। তাদের মধ্যে মক্কায় ৩৭, মদিনায় ৪, মিনায় ৬ এবং জেদ্দায় একজনের মৃত্যু হয়েছে।

এদিকে আগামী বছর (২০২৫) বাংলাদেশের জন্য এক লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জনের কোটা দিয়েছে সৌদি আরব।

বিষয়টি নিশ্চিত করে হজ এজেন্সিস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (হাব) সভাপতি এম শাহাদাত হোসাইন তসলিম জানান, নির্ধারিত সংখ্যার মধ্যে কতজন সরকারি ব্যবস্থাপনায় আর কতজন বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজে যাবেন তা বাংলাদেশ সরকার পরে নির্ধারণ করে দেবে।

উল্লেখ্য, এ বছর সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় সর্বমোট ৮৫ হাজার ২৫৭ জন হজযাত্রী সৌদি আরব যান হজ করতে। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় ৪ হাজার ৫৬২ জন এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৮০ হাজার ৬৯৫ জন। আর বাংলাদেশ থেকে সর্বমোট ২১৮টি ফ্লাইটে সৌদি আরব পৌঁছেছিলেন তারা।

হজ পালনের উদ্দেশ্যে হজযাত্রীদের সৌদি আরবে যাত্রার প্রথম ফ্লাইট ছিল ৯ মে এবং সর্বশেষ ফ্লাইট ছিল ১২ জুন। এরপর ২০ জুন থেকে হজযাত্রীদের নিয়ে হজের ফিরতি ফ্লাইট দেশে আসা শুরু করে। আগামী ২২ জুলাই হজযাত্রীদের নিয়ে শেষ ফ্লাইটটি দেশে আসবে।


আরও খবর
দেশে ফিরলেন ৫৯ হাজার ৩৩০ হাজি

মঙ্গলবার ০৯ জুলাই ২০২৪