আজঃ মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

দখলে-দূষণে অস্তিত্ব হারাচ্ছে সোনাই নদী

প্রকাশিত:শনিবার ০৯ ডিসেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শনিবার ০৯ ডিসেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
হবিগঞ্জ প্রতিনিধি

Image

সোনাই নদীর তীরে গড়ে উঠেছে হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলা শহর। এক সময় সোনাই নদী দিয়ে ব্যবসা বাণিজ্য করতেন স্থানীয় ব্যবসায়ীরা। জেলেদের মাছধরাসহ নদীর পানি দিয়ে জমি চাষ করতেন চাষীরা।

আজ অবৈধ দখল আর নদীতে ময়লা আবর্জনা ও বর্জ্য ফেলার কারণে প্রসস্থতা কমে গিয়ে খালে পরিণত হয়েছে এ নদী। ফলে বর্ষা মৌসুমে কিছু পানি থাকলেও শুকনো মৌসুমে তা বিরাণ ভূমিতে পরিণত হয়।

ভারতের পশ্চিম ত্রিপুরা রাজ্যে পাহাড়ে সোনাই নদীর উৎপত্তি স্থল। দীর্ঘ ৫০ কিলোমিটার বয়ে চলেছে এই সোনাই নদী। উপজেলার ধর্মঘর, চৌমুহনী, বহরা ইউনিয়ন ও পৌরসভা হয়ে খাষ্টি নদীতে পতিত হয়ে মিলিত হয়েছে মেঘনা নদীতে। সোনাই নদী এখন দখলে দূষণে মরতে বসেছে।

নদী পাড়ের মানুষ ও মাধবপুর বাজারের ব্যবসায়ীরা নদীর মধ্যে বিভিন্ন ময়লা আর্বজনা ও দূষিত পদার্থ ফেলে নদীর পরিবেশ নষ্ট করে ফেলেছে।

বিভিন্ন স্থানে নদী দখল করে ঘর বাড়ি ও ব্যবসা বাণিজ্য গড়ে তোলায় নদী এখন খালে পরিণত হয়েছে। নদী থেকে একটি প্রভাবশালী চক্র অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে যাচ্ছে, যার ফলে নদীর গতিপথও পরিবর্তন হয়ে যাচ্ছে। ফলে সোনাই নদীর উপর নির্ভর করা উপজেলার কৃষি অঞ্চলগুলো ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে।

নদীতে চলতো লঞ্চ, ট্রলার, ছোট-বড় অসখ্য নৌকা। বর্তমানে নদীতে পানি না থাকায় জীর্ণ শীর্ণ ও মরা নদীতে পরিণত হয়েছে। বর্ষা মৌসুমে নদীর দুকূল ছাপিয়ে বন্যার সৃষ্টি হলেও শুকনো মৌসুমে নদীতে পানি প্রবাহ নেই বললেই চলে।

এদিকে বাংলাদেশের সীমানা পেড়িয়ে ত্রিপুরার তেলিয়াপাড়া শহর ও তার আশপাশের শহরের পানি প্রত্যাহার করে নেয় ভারত। যার কারণে সোনাই নদী আগে যে পরিমান পানি ও পলি বহন করে নিয়ে আসতো এখন তা নেই বললেই চলে।

স্থানীয়রা জানান, দূরের মানুষ ব্যবসা বাণিজ্যের জন্য নৌযান দিয়ে মাধবপুরে মালামাল আনা নেওয়া করত। কিন্তু নদীর প্রতি মানুষের এখন আগের মতো ভালোবাসা নেই। যে যেভাবে পারে নদীকে ধ্বংস করে ফেলেছে। নদীপাড়ে দুর্গন্ধের কারণে যাওয়া যায় না।

স্থানীয়রা আরও জানান, মাধবপুরে গত কয়েকবছর ধরে অপরিকল্পিতভাবে শিল্প কারখানা গড়ে উঠায় শিল্প বর্জ্য নদীতে মিশে নদী নষ্ট হচ্ছে। নদীকে বাঁচাতে হলে পরিবেশবান্ধব শিল্প স্থাপন করতে হবে।

২নং চৌমুহনি ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান সুজন মিয়া বলেন, নদী পাড়ে বিভিন্ন স্থাপনা গড়ে উঠায় এখন সোনাই নদী দখল হয়ে গেছে। সোনাই নদীতে বাজার ও গৃহস্থালির বর্জ্য ফেলায় নদীর পানি কালো হয়ে গেছে। সোনাই নদীকে রক্ষা করতে সরকারের দায়িত্বশীল লোকদের যথাযথ ভূমিকা পালন করতে হবে।

বাংলাদেশ পরিবেশন আন্দোলন (বাপা) হবিগঞ্জশাখার সাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জল সোহেল জানান, নদীর উপর ময়লা আবর্জনা ফেলা, নদী দখল ও নদীর মাঝখানে স্থাপনাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা প্রয়োজন। নদীর তলদেশে বিষাক্ত ও দুর্গন্ধযুক্ত বর্জ্যরে স্তর পড়েছে। যদি এই সোনাই নদীরক্ষা করা না যায় তাহলে অপূরণীয় ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে।

সোনাই নদী দখল ও ময়লা ফেলার বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে সাবেক জেলা প্রশাসক ইশরাত জাহান আশ্বস্থ্য করলেও এখন পর্যন্ত সোনাই নদী রক্ষায় কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি।

মাধবপুরবাসীসহ ভাটি অঞ্চলের কৃষকের প্রাণ সোনাই নদী রক্ষায় অচিরেই সকল প্রকার অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের দাবি জানান তারা।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




ঠাকুরগাঁওয়ে টাঙ্গন নদী ভরাট করে রিসোর্ট নির্মাণের অভিযোগ

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
রেদওয়ানুল হক, ঠাকুরগাঁও

Image

ঠাকুরগাঁওয়ের টাঙ্গন নদীর গতিপথ বন্ধ করে রিসোর্ট নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে স্থানীয় এলাকাবাসী সংসদ সদস্য, বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা প্রশাসকসহ কয়েকটি দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

লিখিত অভিযোগের বিষয়ে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, সদর উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের ফেসরাডাঙ্গী ব্রীজের নিচের অনেকটা অংশে মাটি ভরাট করে ব্যাক্তি উদ্যোগে শ্বেতপদ্ম রিসোর্ট লিমিটেড নামে একটি প্রকল্পের কাজ চলছে। যা সম্পূর্ণ জমি রিসোর্ট কর্তৃপক্ষের বলে দাবি উদ্যোক্তাদের।

রিসোর্টটি রক্ষায় অনেকটা তড়িঘড়ি করে বাঁধ নির্মাণের জন্য নিজেরাই ব্লক ও বাঁধ তৈরি করছেন। এতে নদীর স্বাভাবিক প্রবাহ বাঁধাগ্রস্থ হওয়ার পাশাপাশি বর্ষা মৌসুমে পানির চাপ বাড়লে তা উপচে আশেপাশের কৃষি জমির ফসল নষ্টের আশঙ্কা করছেন কৃষকরা।

জানা গেছে, টাঙ্গন নদীর উপড় ফেসরাডাঙ্গী ব্রীজ সংলগ্ন ৯ একর জমির উপর ১০ কোটি টাকা ব্যয়ে ব্যক্তি মালিকানা উদ্যোগের এ রিসোর্টটি নির্মাণ করা হচ্ছে। আর সে কারণে এলাকার জমি, ফসল, বসতভিটা রক্ষার দাবি জানিয়ে স্থানীয়রা গত মঙ্গলবার (৬ ফেব্রুয়ারি) সংসদ সদস্য, জেলা প্রশাসক, পানি উন্নয়ণ বোর্ড, উপজেলা প্রশাসন ও এলজিইডিসহ কয়েকটি দপ্তরে লিখিত অভিযোগ প্রদান করেন।

অন্যদিকে, প্রকল্প শুরুর আগে নদীর সীমানা মাপ যোগে জেলা প্রশাসক বরাবরে একটি আবেদন করেছিলেন রিসোর্ট কর্তৃপক্ষ। ওই আবেদনের প্রেক্ষিতে জেলা প্রশাসক মাহবুবর রহমানের নির্দেশে একটি কমিটি গঠন করে পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষ। কয়েকদিন পর ওই কমিটি জেলা প্রশাসক বরাবরে একটি প্রতিবেদনও দাখিল করেন। কিন্তু কমিটির প্রতিবেদন জমা দেয়ার আগেই রিসোর্ট নির্মাণের কাজ শুরু করেন উদ্যোক্তারা।

গঠিত কমিটির প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, রিসোর্ট কর্তৃপক্ষ যেভাবে মাটি ভরাট করেছেন তাতে ফেসরাডাঙ্গী ব্রিজের বারোটি স্প্যানের মধ্যে উভয় পাশের সাতটি স্প্যানের মুখ বন্ধ হয়ে যাবে। সে ক্ষেত্রে নদীর গতিপথ পরিবর্তিত হয়ে নদীর তীরে ভাঙ্গন দেখা দেওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

স্থানীয় কৃষক গিয়াস উদ্দিন, হামিদুর রহমান, ফজির উদ্দিনসহ অনেকে জানান, নদীর উপর রিসোর্ট নির্মাণ হলে বন্যার সময় কৃষি জমি ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হবে। এলাকায় অবকাঠামোগত উন্নয়ন হবে তবে মানুষের ক্ষতি করে নয়। গরীব মানুষের ঘরবাড়ি ও কৃষি জমির কথাও ভাবতে হবে। অনেকেই নিজ জমিতে নদীর ধারেই পুর্ব-পুরুষের ভিটে মাটিতে বসবাস করছে। এমনিতেই বর্ষায় টাঙ্গন নদী ফুলে ফেপে উঠে। এমন অবস্থায় নদীর গতিপথে বাঁধা সৃষ্টি করা হলে গোটা গ্রাম নদীতে চলে যাবে। বেকার হয়ে পড়বে এলাকার কৃষক। ভিটে ছাড়া হবে কয়েক'শ পরিবার। এ অবস্থায় রিসোর্টটি নির্মাণের আগেই জেলা প্রশাসনসহ সরকারের হস্তক্ষেপ চান স্থানীয়রা।

তবে শ্বেতপদ্ম রিসোর্ট লিমিটেড'র ব্যবস্থাপনা পরিচালক মনোয়ার হোসেন কামাল এর দাবী নদী তাদের জমির উপর দিয়ে বয়ে গেছে। তারা নিজস্ব জমিতে রিসোর্ট নির্মাণ করছেন। নদীর জমি ভরাট করা হয়নি বরং তাদের জমি ভরাটের কারণে ব্রিজটি রক্ষা পাবে বলে জানান তিনি।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী গোলাম যাকারিয়া জানান, জেলা প্রশাসকের নির্দেশে একটি কমিটি গঠন করা হয়। সেই কমিটি ঘটনাস্থল খতিয়ে দেখে প্রতিবেদন দাখিল করা হয়েছে।

এ বিষয়ে ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক (ডিসি) মাহবুবর রহমান জানান, অভিযোগের বিষয়টি খতিয়ে দেখতে সংশ্লিষ্ট দপ্তরকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। দাখিলকৃত প্রতিবেদন দেখে দ্রুতই ব্যবস্থায় উদ্যোগ নেয়া হবে।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বাংলাদেশে রাজনৈতিক বন্দীদের মুক্তির আহ্বান জাতিসংঘের

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩০ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ৩০ জানুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

বাংলাদেশে রাজনৈতিকভাবে কারাগারে বন্দীদের ‍মুক্তির আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘের মুখপাত্র স্টিফেন ডোজারিক। গতকাল সোমবার (২৯ জানুয়ারি) নিয়মিত ব্রিফিংয়ে জাতিসংঘের মুখপাত্র স্টিফেন ডোজারিক এই আহ্বান জানান।

জাতিসংঘের নিয়মিত ব্রিফিংয়ে বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক বিশেষজ্ঞদের উদ্বেগ এবং কারাগারে আটক বিরোধীদলগুলোর হাজার হাজার নেতাকর্মীর প্রসঙ্গ উল্লেখ করে জানতে চাইলে সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে তিনি এই আহ্বান জানান। 

আরও পড়ুন>> নিউইয়র্কের সড়কে বাংলাদেশি কলেজছাত্রী নিহত

বাংলাদেশি সাংবাদিক প্রশ্ন করেন, বাংলাদেশে বিভিন্ন মামলায় কিংবা মামলা ব্যতীত আটক সব রাজনৈতিক দলের কর্মীদের আন্তর্জাতিক আইন মেনে অবিলম্বে এবং নিঃশর্তভাবে মুক্তি দিতে সরকারকে জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক বিশেষজ্ঞরা যে আহ্বান জানিয়েছেন সেই আহ্বানের সঙ্গে মহাসচিব কী একমত?

এ বিষয়ে জাতিসংঘের মুখপাত্র স্টিফেন ডোজারিক বলেন, আমরা অনতিবিলম্বে আটককৃতদের মুক্তির আহ্বান জানাচ্ছি।

তিনি বলেন, রাজনৈতিক মত প্রকাশের কারণে মানুষদের কারাগারে প্রেরণ, এটা হতে পারে না বলে আমরা নীতিগতভাবে বিশ্বাস করি।


আরও খবর
বিশ্ববাজারে আবারো কমেছে জ্বালানি তেলের দাম

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




পরমাণু বিজ্ঞানী ওয়াজেদ মিয়ার জন্মদিন আজ

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
রংপুর প্রতিনিধি

Image

দেশবরেণ্য পরমাণু বিজ্ঞানী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বামী প্রয়াত ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়ার ৮২তম জন্মবার্ষিকী আজ।

এ উপলক্ষে পীরগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন, পীরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ, এম এ ওয়াজেদ ফাউন্ডেশন এবং আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন, স্মৃতিচারণ, ফাতেহা পাঠ, মিলাদ মাহফিল, গরিব ও দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরণসহ নানা কর্মসূচি পালনের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে।

আজ শুক্রবার সকাল থেকে প্রয়াত বিজ্ঞানীর বাসভবন লালদীঘির ফতেহপুরের জয়সদন, উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয় ও উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে এসব কর্মসূচি পালিত হবে। সকালে বিজ্ঞানীর কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদনের মধ্যদিয়ে দিনের কর্মসূচির সূচনা হবে। সকালে জয় সদন প্রাঙ্গণে দোয়া মাহফিল, আলোচনা সভা, তবারক বিতরণ, বিকেলে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে স্মৃতিচারণ ও উপজেলা মসজিদে বিশেষ মোনাজাত, বিকেলে দলীয় কার্যালয়ে স্মৃতিচারণ দোয়া ও মিলাদ অনুষ্ঠিত হবে। এ ছাড়া জেলা প্রশাসকের উদ্যোগে গোপিনাথপুর হাফিজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানায় কোরআন খতম ও শিক্ষার্থীদের উন্নত মানের খাবার পরিবেশন করা হবে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইকবাল হাসান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও প্রয়াত বিজ্ঞানীর ভাতিজা পৌর মেয়র তাজিমুল ইসলাম শামীম এ কর্মসূচি নিশ্চিত করেন।

উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ওয়াজেদ মিয়ার জন্মদিন উদযাপন উপলক্ষে আলোচনা সভায় থাকবেন পীরগঞ্জ আসনের এমপি ও জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বেতাগীতে ব্যক্তি মালিকানাধীন বাশঁ কেটে নিল বন বিভাগ

প্রকাশিত:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
মোঃ খাইরুল ইসলাম মুন্না, বেতাগী (বরগুনা) প্রতিনিধি

Image

বরগুনার বেতাগীতে জনগণের ব্যক্তি মালিকানাধীন শতাধিক বাশঁ বিনা অনুমতিতে কেটে নিয়েছেন বন বিভাগের লোকজন। বন বিভাগের দাবি সরকারি নার্সারির কাজে ব্যবহার করা হবে এসব বাশঁ। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন উপজেলা প্রশাসন।

উপজেলার বেতাগী সদর ইউনিয়নের জিনবুনিয়া ও মোকামিয়া ইউনিয়নের ছোট মোকামিয়া গ্রামের বেরিবাধের পাশে রোপিত ব্যক্তি মালিকানাধীন বাশঁ ঝাড় থেকে কাউকে না বলে প্রায় দুই শতাধিক বাশঁ কেটে নিয়ে যায়। মোকামিয়া ইউনিয়নের ছোট মোকামিয়া গ্রামের মোহাম্মদ রাব্বির নিজস্ব জমির একটি বাঁশঝাড় থেকে প্রায় চল্লিশ থেকে পঞ্চাশটি বাশঁ তাকে না বলে কেটে নিয়ে যায় বন বিভাগের লোকজন।

এছাড়াও পানি উন্নয়ন বোর্ডের বেরিবাধ জমিতে রোপিত ব্যক্তি মালিকানাধীন বিভিন্ন বাঁশঝাড় থেকে এভাবে বাঁশ কেটে নেয়। বেতাগী সদর ইউনিয়নের জিনবুনিয়া গ্রামের নজরুল খান উপজেলা বন কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ জানালেও কোন প্রতিকার পাননি।

মোকামিয়া ইউনিয়নের ছোট মোকামিয়া গ্রামের মোহাম্মদ রাব্বি বলেন, আমার নিজের জমিতে রোপিত বাঁশঝাড় থেকে চল্লিশ থেকে পঞ্চাশটি বাশঁ আমাকে না বলে কেটে নিয়ে যায়।

উপজেলা বন কর্মকর্তা মোঃ বেলায়েত হোসেন বলেন, সরকারি নার্সারী করার জন্য এসব বাশঁব্যবহার করা হবে। নার্সারি করার জন্য সরকারিভাবে কোন অর্থ বরাদ্দ থাকে না তাই আমাদেরকে এই প্রক্রিয়ায় বাশঁ সংগ্রহ করতে হয়।

বরগুনার সরকারি বন সংরক্ষক মোঃ তরিকুল ইসলাম বলেন, আমি বিষয়টি জানিনা তবে জেনে  প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিচ্ছি।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফারুক আহমেদ বলেন, জনগণের বাশঁ এনে নার্সারি করার কোন সুযোগ নেই। যদি এ ধরনের ঘটনা ঘটে থাকে তাহলে আমি তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিব।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




আজকের দর্পণে সংবাদ প্রকাশের পর

কৈখাইন-চামুদরিয়া সড়ক সংস্কার কাজ শুরু, জনমনে স্বস্তি

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
মো.আমজাদ হোসেন, আনোয়ারা

Image

দীর্ঘদিনের ভোগান্তির অবসান ঘটিয়ে অবশেষে শুরু হয়েছে চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলায় পরৈকোড়া ইউনিয়নের কৈইখাইন চামুদরিয়া শাহ্ আলী রজা (রহঃ) সড়কের সংস্কার কাজ। ফলে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছে জনসাধারণ।

এর আগে দীর্ঘদিন ধরে সংস্কারের অভাবে খানাখন্দে ভরে ছিলো সড়কটি। সড়কে ছোট-বড় গর্তে পড়ে প্রায়ই বিকল হতো যানবাহন, ঘটতো নানা দুর্ঘটনা। তাছাড়া এই গুরুত্বপূর্ণ সড়ক দিয়ে প্রতিদিনই যাতায়াত করছেন হাজারো শিক্ষার্থী ও সাধারণ জনগণ।

এ নিয়ে ২০২৩ সালের ৩০শে জানুয়ারী জাতীয় দৈনিক "আজকের দর্পণ পত্রিকায়" পাঁচ কিলোমিটার সড়কে পাঁচ হাজার গর্ত! শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ হলে বিষয়টি কর্তৃপক্ষের নজরে আসে। অবশেষে গত বুধবার সকালে ইউনিয়ন পরিষদ হতে ওষখাইন দরবার শরীফ পর্যন্ত সড়ক সংস্কারের কাজ শুভ উদ্বোধন করেন পরৈকোড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুল হক চৌধুরী বাবুল। এসময় স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

জানা যায়, কৈখাইন-চামুদরিয়া শাহ্ আলী রজা (রহঃ) সড়কে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে কানুশাহ্ (রহঃ) মাজার পর্যন্ত মানুষের যাতায়াতের দুর্ভোগ লাঘব করতে ২ কোটি ৮২ লাখ টাকা ব্যায়ে শুরু হয়েছে সড়ক সংস্কারের কাজ। দীর্ঘদিন কাপেটিং হওয়া সড়কটির বেশিরভাগ অংশ জুড়েই ছিলো ছোট-বড় গর্ত। ফলে এই ইউনিউনের বেশির ভাগ মানুষই ওই সড়ক পথে যাতায়াত করতে দুর্ভোগ পোহাতে হতো। সড়ক সংস্কারের কাজ শুরু হওয়া এ ইউনিয়নের সাধারণ মানুষ উচ্ছ্বসিত হয়েছেন।

পরৈকোড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুল হক চৌধুরী বাবুল বলেন, সাবেক ভূমিমন্ত্রী আলহাজ্ব সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ মহোদয়ের আন্তরিক প্রচেষ্টায় কৈখাইন চামুদরিয়া শাহ্ আলী রজা (রহঃ)সড়কের সংস্কার কাজ শুরু হওয়ায় সকলের মাঝে স্বস্তি ফিরে এসেছে। আশা করি খুব দ্রুততার সাথে সড়কের কাজ শেষ হবে।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪