আজঃ সোমবার ০৮ মার্চ ২০২১
শিরোনাম

এইচএসসি পাসে নিয়োগ দেবে স্কয়ার ফুড অ্যান্ড বেভারেজ

প্রকাশিত:শনিবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০21 | হালনাগাদ:শনিবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০21 | ৯৫জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে স্কয়ার গ্রুপের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান স্কয়ার ফুড অ্যান্ড বেভারেজ লিমিটেড। প্রতিষ্ঠানটিতে সেলস অফিসার পদে নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহী যোগ্য প্রার্থীরা অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন।

পদের নাম: সেলস অফিসার।

শিক্ষাগত যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা

স্বীকৃত যেকোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে ন্যূনতম এইচএসসি পাস প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। প্রার্থীর দুই বছরের কাজের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। স্নাতক পাস প্রার্থীরাও আবেদন করতে পারবেন। অনূর্ধ্ব-২৭ বছর বয়স পর্যন্ত আবেদন করা যাবে।

কর্মস্থল : সারা দেশ (প্রতিষ্ঠান নির্ধারিত)।

বেতন: আলোচনা সাপেক্ষে।

আবেদনের প্রক্রিয়া: আগ্রহী প্রার্থীরা বিডিজবস অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন।

আবেদনের শেষ তারিখ: ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১।

সূত্র : বিডিজবস

Share

আরও খবর



চিরকুট লিখে সাত বারের এমপির ‘আত্মহত্যা’

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ১০২৬জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মুম্বাইয়ের একটি হোটেল থেকে দাদরা ও নগর হাভেলির ৭ বারের সংসদ সদস্য (এমপি) মোহন দেলকরের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। প্রাথমিক ভাবে পুলিশের সন্দেহ, আত্মহত্যা করেছেন ৫৮ বছর বয়সী এ স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য।

ভারতীয় গণমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমসের খবরে বলা হয়েছে, মুম্বাইয়ের অভিজাত মেরিন ড্রাইভে একটি সি ফেসিং হোটেলে উঠেছিলেন এ প্রভাবশালী এমপি। সেখান থেকেই সোমবার বিকেলে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। গুজরাতি ভাষায় লেখা একটি সুইসাইড নোটও পাওয়া গেছে সেখানে। তবে ময়নাতদন্তের পরই মৃত্যুর কারণ নিশ্চিতভাবে বলা যাবে বলে পুলিশের সূত্রে জানানো হয়েছে। দেলকরের স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে।

আদিবাসীদের অধিকারের জন্য আজীবন কাজ করেছেন তিনি। প্রথম দিকে ছিলেন ট্রেড ইউনিয়ন নেতা। ১৯৮৯ সালে প্রথমবার কংগ্রেসের টিকিটে লোকসভায় আসেন তিনি। ২০০৪ সাল পর্যন্ত টানা পেয়েছেন জনতার আশীর্বাদ। তবে এরপর হেরে যান ২০০৯ ও ২০১৪ সালে। কিন্তু গত ২০১৯ সালে ফের জয়ী হন মোহন দেলকর। নিজের প্রতিষ্ঠিত ভারতীয় নবশক্তি পার্টিক টিকিটে জয়যুক্ত হন তিনি। মাঝে তিনবার কংগ্রেস ও তিনবার বিজেপির টিকিটে জিতেছিলেন এ বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ।

নিউজ ট্যাগ: আত্মহত্যা
Share

আরও খবর



ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন প্রয়োগ স্থগিত চায় জাতিসংঘ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০২ মার্চ 2০২1 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০২ মার্চ 2০২1 | ১২৭জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বাংলাদেশি লেখক মুশতাক আহমেদের কারাগারে মৃত্যুর ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে জাতিসংঘ। দ্রুত এ ঘটনার স্বচ্ছ ও নিরপেক্ষ তদন্ত নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ সরকারের কাছে আহ্বান জানিয়েছেন সংস্থাটির মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনার মিশেল বাশেলেট। একই সঙ্গে তিনি বাংলাদেশের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন পুনর্বিবেচনার আহ্বানও জানান তিনি।

আইনটির অধীনে আটকদের দ্রুত মুক্তির দাবি করে জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক এই দূত সোমবার (১ মার্চ) এক বিবৃতিতে বলেন, আইনটির পুঙ্খানুপুঙ্খ বিশ্লেষণ জরুরি।

গত বছরের মে মাসে লেখক মুশতাককে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেপ্তার করার পর নয় মাস তিনি কারাবন্দী ছিলেন। বার বার জামিন আবেদন করা হলেও তা প্রত্যাখ্যান করা হয়। গত ২৫ ফেব্রুয়ারি কারাগারেই মারা যান তিনি। একই অভিযোগে এখন আটক রয়েছেন কার্টুনিস্ট আহমেদ কিশোর।

কার্টুনিস্ট কিশোরকে নির্যাতনের বিষয়ে মিশেল বাশেলেট উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, অভিযোগের তাৎক্ষণিক ও কার্যকর তদন্ত করতে হবে। একই সঙ্গে কিশোরের নিরাপত্তা এবং সুস্থতা নিশ্চিত করতে হবে।

এ সময় মানবাধিকারের প্রতি বাংলাদেশের বাধ্যবাধকতার বিষয়টি স্মরণ করিয়ে দিয়ে তিনি বলেন, বাংলাদেশ সরকারকেই মুশতাকের মৃত্যুর ঘটনা তদন্তের বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে। অপর আটককৃতদের সঙ্গে অসদাচরণের যে অভিযোগ এসেছে তারও দ্রুত তদন্ত হওয়া উচিত।

জাতিসংঘের ওই বিবৃতিতে আরও বলা হয়, মুশতাকের মৃত্যুর পর বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ চলাকালে পুলিশের হামলায় ৩৫ জন আহত এবং সাতজন আটকের খবর উদ্বেগজনক। মৃত্যুতে ফেসবুকে একটি পোস্ট দেয়ায় রুহুল আমিন নামে একজনকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এ নিয়ে বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে আলাপে তিনি এবং তার দপ্তর প্রস্তুত রয়েছে জানিয়ে বাশেলেট আরও বলেন, সরকারের সমালোচনার শাস্তি দিতে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের দুর্বলভাবে সংজ্ঞায়িত বিধানগুলোর বিষয়ে জাতিসংঘের বিভিন্ন মানবাধিকার সংস্থাগুলো দীর্ঘদিন ধরে উদ্বেগ জানিয়ে আসছে। জরুরি ভিত্তিতে আইনটির প্রয়োগ স্থগিত করা এবং আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইনের প্রয়োজনীয়তার সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ করতে এর বিধানগুলো পর্যালোচনা করা দরকার।

নিউজ ট্যাগ: জাতিসংঘ
Share

আরও খবর



মিলার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

প্রকাশিত:শুক্রবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ৮৬জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সঙ্গীত শিল্পী মিলার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছে আদালত। রাজধানীর পল্লবী থানা পুলিশকে এই গ্রেফতারি পবোয়ানা পাঠানো হয়েছে।

শুক্রবার (১২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে পল্লবী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. শরিফ বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, ২০১৯ সালের উত্তরা পশ্চিম থানায় সঙ্গীত শিল্পী মিলার বিরুদ্ধে একটি মামলা হয়েছিলো। ওই মামলার গ্রেফতারি পরোয়ানা আদালত থেকে পল্লবী থানায় পাঠানো হয়েছে।

তিনি বলেন, আদালতের নির্দেশে আমরা সঙ্গীত শিল্পী মিলাকে গ্রেফতার অভিযান শুরু করেছি। বৃহস্পতিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) পর্যন্ত তার বাসায় গিয়ে তাকে পাওয়া যায়নি। তবে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

Share

আরও খবর



দেশে করোনায় ৫ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:বুধবার ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ৯৫জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ৪২৮ জন। এদের নিয়ে সরকারি হিসাবে এখন পর্যন্ত করোনা শনাক্ত হলেন পাঁচ লাখ ৪৪ হাজার ৫৪৪ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যুবরণ করেছেন পাঁচ জন, তাদের নিয়ে দেশে এখন পর্যন্ত সরকারি হিসাবে মারা গেলেন আট হাজার ৩৭৯ জন। একই সময়ে করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ৯১১ জন। তাদের নিয়ে এখন পর্যন্ত করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন চার লাখ ৯৩ হাজার ৭৯৮ জন।

আজ বুধবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) স্বাস্থ্য অধিদফতর করোনা বিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানায়।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার নমুনা সংগৃহীত হয়েছে ১৬ হাজার ৪৩৫টি। নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১৬ হাজার ১৫২টি। দেশে এখন পর্যন্ত মোট করোনার নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৩৯ লাখ ৮৭ হাজার ৬৭৬টি। তার মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা হয়েছে ৩০ লাখ ৭৯ হাজার ৩৮৫টি, আর বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা হয়েছে ৯ লাখ আট হাজার ২৯১টি।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্তে শনাক্তের হার দুই দশমিক ৬৫ শতাংশ। আর এখন পর্যন্ত শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৬৬ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯০ দশমিক ৬৮ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৫৪ শতাংশ।

মারা যাওয়া পাঁচ জনের মধ্যে পুরুষ চার জন এবং নারী একজন। এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে পুরুষ মারা গেলেন ছয় হাজার ৩৩৯ জন। আর নারী মারা গেলেন দুই হাজার ৪০ জন, যা শতকরা হিসেবে পুরুষ ৭৫ দশমিক ৬৫ শতাংশ এবং নারী ২৪ দশমিক ৩৫ শতাংশ।

বয়সভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা যায়, তাদের মধ্যে ষাটোর্ধ্ব চার জন, আর ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে আছেন একজন।

Share

আরও খবর
গুলি করে ইউপি সদস্যকে হত্যা

সোমবার ০৮ মার্চ ২০২১




তালিকা মিললো আড়াই হাজার স্বাধীনতাবিরোধীর

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ৫৭জন দেখেছেন
Share
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

স্বাধীনতাবিরোধীদের পূর্ণাঙ্গ তালিকা চেয়ে চিঠি দেয়ার পর এখন পর্যন্ত দুই হাজার ৫০৪ জনের তালিকা পাওয়া গেছে। জেলা প্রশাসক, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও যুদ্ধকালীন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডাররা এ তথ্য দিয়েছেন। এর মধ্যে বিভিন্ন জেলা-উপজেলা থেকে ৮৯৭ জন এবং বৃহত্তর রংপুর জেলা থেকে ১৬০৭ জনের নাম পাওয়া গেছে।

মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির ১৮তম বৈঠকে এ তথ্য জানানো হয়।

বৈঠকের কার্যপত্র থেকে জানা যায়, এর আগে সংসদীয় কমিটি রাজাকার ও স্বাধীনতাবিরোধীদের তালিকা এখন পর্যন্ত যতটুকু পাওয়া গেছে, তা অবিলম্বে গেজেট আকারে প্রকাশের সুপারিশ করে। এর প্রেক্ষিতে এ তথ্য জানানো হয়।

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব (কাউন্সিল অফিসার) মো. জাহাঙ্গীর হোসেন স্বাক্ষরিত প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, স্বাধীনতাবিরোধী রাজাকার, আলবদর, আল-শামস ও শান্তি কমিটির সদস্যদের সঠিক ও পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রণয়নের লক্ষ্যে একটি উপকমিটি গঠন করা হয়েছে।উপ-কমিটির কাছ থেকে তালিকা পাওয়া গেলে প্রাপ্ত তালিকাসহ যাচাই-বাছাইপূর্বক গেজেট আকারে প্রকাশের অনুরোধ জানিয়ে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের কাছে পাঠানো হবে।

বৈঠকে শেষে সংসদীয় কমিটির সভাপতি ও সাবেক নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান জাগো নিউজকে বলেন, যাচাই-বাছাই অনির্দিষ্টকাল চলতে পারে না এবং এটাকে নিয়মিতকরণ বলে সংজ্ঞায়িত করে প্রক্রিয়াটি দ্রুত সম্পন্নের সুপারিশ করা হয়। এছাড়া বীর মুক্তিযোদ্ধাদের চিকিৎসা সেবা বৃদ্ধির লক্ষ্যে শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা এবং ঔষধ কেনার প্রয়োজনীয় অর্থ বৃদ্ধির ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য কমিটি সুপারিশ করে।

জানা গেছে, বীর মুক্তিযোদ্ধাদের পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রকাশের লক্ষ্যে জেলা ও উপজেলার সংশ্লিষ্ট সবার সমন্বয়ে শিগগিরই চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশের সুপারিশ করা হয়। পরবর্তী প্রজন্মকে অবহিত করার উদ্দেশ্যে বঙ্গবন্ধু কর্ণার ও পাঠাগার স্থাপনের পরমর্শ দেয়া হয়েছে।

কমিটির সভাপতি শাজাহান খানের সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, মেজর (অব.) রফিকুল ইসলাম, কাজী ফিরোজ রশীদ ও মোছলেম উদ্দিন আহমদ অংশ নেন। এছাড়া বৈঠকে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব, বিভিন্ন সংস্থা প্রধানসহ মন্ত্রণালয় এবং সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Share

আরও খবর