আজঃ বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১
শিরোনাম

পিরোজপুরে দুপক্ষের সংঘর্ষে ওসিসহ আহত ২০

প্রকাশিত:রবিবার ১৬ মে ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৬ মে ২০২১ | ১২৪৯জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পিরোজপুরে দুই ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এ সময় ওসি ও দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

শনিবার রাতে সদর উপজেলার কদমতলা বাজারে এ ঘটনা ঘটে। আহতদের মধ্যে ১০ জনকে নাজিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

আহতরা হলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী (আনারস প্রতীক) মো. সিহাব হোসেন, তার কর্মী হাসান শেখ, হাফিজ শেখ, সাঈদ শেখ, ইয়াসিন মোল্লা, মো. আজমীর খান, মো. রিয়াজুল শিকদার, মো. ইমাম শেখ, শেখ মো. ফারুক মো. শহিদুল ইসলাম, মুনান শেখ আহত হয়েছেন।

এ ছাড়া অপর পক্ষের নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান মো. হানিফ খান, তার সমর্থক মিজান শেখ, মামুন খান, লিটন খান তন্ময় গাজী, তাজুল ইসলাম গাজীসহ নয়জন আহত হয়েছেন।

জানা গেছে, উপজেলার কদমতলা ইউনিয়নের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো. হানিফ খান এবং একই ইউনিয়নের স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. সিহাব হোসেনের সমর্থকদের মধ্যে এ সংঘর্ষ হয়।

এতে থানার ওসি মো. সোবাহান হোসেন ও এক পুলিশ সদস্যসহ ২০ জন আহত হয়েছেন।

পিরোজপুর সদর থানার ওসি আ জ ম মাসুদুজ্জামান মিলু জানান, সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

তবে সংঘর্ষ চলাকালে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গেলে ইটপাটকেল নিক্ষেপে  থানার ওসি মো. সোবাহান হোসেন ও এক পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।

স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মী আহত মো. আজমির খান বলেন, রাত সোয়া ৮টার দিকে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. সিহাব হোসেন কদমতলা বাজার জামে মসজিদে এশার নামাজ আদায় করতে যান।

সেখানে আমরা কিছু লোক তার জন্য অপেক্ষা করছিলাম। এ সময় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো. হানিফ খানের নেতৃত্বে ৩০ জন আগ্নেয়াস্ত্রসহ হাতে দা, লোহার রড নিয়ে হামলা করে। এ সময় কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করে তারা।

এ সময় আমরা চিকিৎসা নিতে জেলা হাসপাতালে যেতে চাইলে হামলাকারীরা আমাদের পথ আটকে বাধা দেয়। আহতদের তাই নাজিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। 

তবে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো. হানিফ খান এ হামলায় তার সম্পৃক্ততা অস্বীকার করে জানান, আমি ওই রাতে কদমতলা বাজারে থাকা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে কর্মীদের নিয়ে কথা বলছিলাম। এমন সময় স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. সিহাব হোসেনের নেতৃত্বে তার ২৫-৩০ কর্মী এসে আমার কর্মীদের ওপর হামলা চালায়। এতে আমার আট কর্মী আহত হয়েছেন। আহতদের জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।



আরও খবর



শেষকৃত্যে গিয়ে মদপান, ৮ নারীসহ ১০ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৪ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৪ জুন ২০২১ | ১১২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কম্বোডিয়ায় এক শেষকৃত্যানুষ্ঠানে স্থানীয়ভাবে তৈরি করা চোলাই মদপান করে ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃতদের মধ্যে অন্তত ৮ জনই নারী। বৃহস্পতিবার দেশটির উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশ পুরসাতের ক্রাকর জেলায় এ ঘটনা ঘটেছে বলে বার্তা সংস্থা সিনহুয়া নেট জানিয়েছে।

পুলিশ বলছে, ওই মদে উচ্চ মাত্রায় মিথানলের উপস্থিত ছিল বলে তারা সন্দেহ করছে।

ক্রাকর জেলার পুলিশ প্রধান কর্নেল এম রান বলেছেন, তাদের একজন প্রতিবেশীর শেষকৃত্যানুষ্ঠানে গিয়ে চোলাই মদপান করেন।

সিনহুয়াকে টেলিফোনে তিনি বলেন, এ ঘটনায় আট নারী ও দুই পুরুষসহ ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। আরও বেশ কয়েকজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ভুক্তভোগীদের চোখ জ্বালাপোড়া, বুক ব্যথা, শ্বাসকষ্ট, মাথা ঘোরানো, মাথা ব্যথা ও ক্লান্তির মতো লক্ষণ ছিল।

এম রান বলেন, ওই বিষাক্ত মদের নমুনা পরীক্ষার জন্য রাজধানী নমপেমের একটি ল্যাবে পাঠানো হয়েছে। রেজাল্ট এখনও আসেনি। এদিকে এই মদ তৈরির ঘটনায় এক দম্পতিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আপাতত জেলায় চোলাই মদ বিক্রি বন্ধের পরামর্শ দেয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি।

পুরসাত প্রদেশের স্বাস্থ্য বিভাগের পরিচালক খোয় দি মদপানে মৃত্যুর ঘটনা নিশ্চিত করেছেন। তবে তিনি বিস্তারিত কিছু জানাননি। দামে কম হওয়ায় কম্বোডিয়ার গ্রামাঞ্চলে চোলাই মদ খুব জনপ্রিয়।


আরও খবর
করোনার ডেল্টা প্লাসে প্রথম মৃত্যু

বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১




টিকার নামে সবাই মুলা দেখিয়ে যাচ্ছে : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২২ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২২ জুন ২০২১ | ৫২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিভিন্ন দেশ বাংলাদেশকে করোনাভাইরাসের টিকা দেবে বললেও এখন তা আশ্বাসের পর্যায়েই রয়েছে। কেউই দিচ্ছে না। এজন্য এটাকে মুলা দেখানোর সঙ্গে তুলনা করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. আবদুল মোমেন। তিনি বলেছেন, টিকার জন্য আমরা সর্বাত্মক চেষ্টা করছি। তবে টিকা নিয়ে সবাই মুলা দেখাচ্ছে। টিকা পেতে যুক্তরাষ্ট্রের সেক্রেটারি অব স্টেটকে চিঠি দিয়েছি। যুক্তরাষ্ট্র কোভ্যাক্সের আওতায় আমাদের টিকা দেবে। তবে কবে, কীভাবে দেবে সেটা এখনো জানা যায়নি।

মঙ্গলবার দুপুরে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

কবে নাগাদ টিকা পাওয়া যাবে এমন প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, টিকা নিয়ে সুখবর পাবো, কিন্তু কবে পাবো সেটি এখন বলতে পারছি না। পৃথিবীর ধনী সাতটি দেশ অর্থাৎ জি-৭ ১০০ কোটি টিকা দেবে বলে আমাদের জানিয়েছে। খালি শুনছি দেবে কিন্তু দেয়ার কথা কেউ বলছে না, শুধু আশ্বাস দিচ্ছে।

মন্ত্রী বলেন, অনেকে বলে যে দেব, কিন্তু কেউ দেয় না। আবার দেয়ার সময় জিজ্ঞাসা করে যে, অমুক জিনিসে আমাকে সমর্থন দেবেন কি না। এখন দেখা যাচ্ছে এটিকে একটি অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে।

আবদুল মোমেন বলেন, একটা মজার কাহিনি বলি। আমেরিকার অনেক ব্যক্তিবিশেষ আমাদের জানিয়েছেন যে, অমুক লোক অনেক টিকা দিতে পারবেন। সবচেয়ে মজার বিষয় হচ্ছে, আমেরিকার লোক আমাদের জানিয়েছে, তারা রাশিয়ান টিকার ডিলারশিপ পেয়েছে, কিন্তু রাশিয়া সরকার আমাদের জানিয়েছে তাদের কোনো ডিলারই নেই।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ভ্যাকসিন একটা মজার জিনিস। এখন সাংবাদিক, সাহিত্যিক, গায়ক, ব্যবসায়ী সবাই এখন ভ্যাকসিন ব্যবসায়ী।


আরও খবর



দেশে অনুমোদন পেল জনসনের টিকা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৫ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৫ জুন ২০২১ | ৭২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বেলজিয়ামে উৎপাদিত জানসেনের টিকা দেশে জরুরি ব্যবহারের জন্য অনুমোদন দিয়েছে ঔষধ প্রশাসন অধিদফতর। ষষ্ঠ টিকা হিসেবে ব্যবহারের অনুমোদন পেল আমেরিকান কোম্পানি জনসন অ্যান্ড জনসনের বেলজিয়ান অঙ্গ-প্রতিষ্ঠান জানসেন ফার্মাসিউটিক্যালসের উৎপাদিত এ প্রতিষেধক।

মঙ্গলবার (১৫ জুন) ঔষধ প্রশাসন অধিদফতরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. মাহবুবুর রহমান স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ টিকার অনুমোদনের কথা জানানো হয়।

এতে বলা হয়, জানসেন-ক্লিয়াগ ইন্টারন্যাশনাল এনবি, বেলজিয়াম উৎপাদিত কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন ইমার্জেন্সি ইউজ অথরাইজেশন (ইইউএ) প্রদানের জন্য স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য অধিদফতরের লাইন ডিরেক্টর এমএনসি অ্যান্ড এইচ-এর মাধ্যমে ঔষধ প্রশাসনে আবেদন করা হয়।

আবেদনের প্রেক্ষিতে ঔষধ প্রশাসন অধিদফতর ভ্যাকসিনটির ডোসিয়ার (ক্লিনিক্যাল পার্ট, সিএমসিপার্ট এবং রেগুলেটরি স্ট্যাটাস) মূল্যায়ন করে কোভিড-১৯ চিকিৎসার জন্য পাবলিক হেলথ ইমার্জেন্সির ক্ষেত্রে ওষুধ ইনভেস্টিগেশনাল ড্রাগ, ভ্যাকসিন এবং মেডিকেল ডিভাইস মূল্যায়নের জন্য গঠিত কমিটির সুপারিশের প্রেক্ষিতে ইইউএ প্রদান করে।

গত ১২ মার্চ ভ্যাকসিনটি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জরুরি ব্যবহারের জন্য অনুমোদন পায়। গত ২৭ ফেব্রুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের ঔষধ প্রশাসন অধিদফতর ও ১১ মার্চ ইউরোপীয় ইউনিয়ন জরুরি ব্যবহারে জানসেনের টিকার অনুমোদন দেয়।

ভ্যাকসিনটি ১৮ বছর এবং তার উপরের বয়সের ব্যক্তির জন্য ব্যবহারযোগ্য। বেলজিয়ামে তৈরি ভ্যাকসিনটি এক ডোজের, এটি সরকারের ডিপ্লয়মেন্ট প্ল্যান অনুযায়ী নির্ধারিত বয়সের ব্যক্তিদের মধ্যে প্রদান করা হবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়। এর সংরক্ষণ তাপমাত্রা ২-৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।


আরও খবর



মাত্র ৫০০ রুপির জন্য অভিনয় করেছিলেন বিদ্যা বালান

প্রকাশিত:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | ৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় নায়িকাদের একজন বিদ্যা বালান। দ্যা ডার্টি পিকচার তারকা একটা সময় মাত্র ৫০০ রুপির বিনিময়ে অভিনয় করেছিলেন। অবিশ্বাস্য শোনালেও এটিই সত্যি।

বিদ্যা বালান জানিয়েছেন, তার ক্যারিয়ারের শুরুর দিকের কথা। তিনি বলেছেন, প্রথমবার অভিনয় করে পেয়েছিলেন ৫০০ রুপি। গাছের পাশে দাঁড়িয়ে হাসির একটি দৃশ্যে অভিনয় করেছিলেন তিনি। সেই দৃশ্যে কোনো সংলাপ ছিল না। পশ্চিমবঙ্গ পর্যটন দপ্তরের জন্য ধারণ করা সেই ভিডিওর জন্য অর্জিত ৫০০ রুপিই ছিল বিদ্যার প্রথম রোজগার।

এছাড়া অভিনেত্রী নিজের প্রথম অডিশনের অভিজ্ঞতার প্রসঙ্গে জানান, প্রথম একটি টেলিভিশন শোর জন্য অডিশন দিতে গিয়ে সারাদিন অপেক্ষা করতে হয়েছিল তাকে। সেদিন ১৫০ জন অডিশন দিতে গিয়েছিলেন।

বলে রাখা ভালো, ২০০৩ সালে ভালো থেকো ছবি দিয়ে ছবির পথচলা শুরু বিদ্যার। আর বলিউডে ডেবিউ হয় ২০০৫ সালে। তার অভিনীত প্রথম ছবি পরিণীতা ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছিল। প্রথম ছবিতে তার বিপরীতে ছিলেন সাইফ আলী খান।

নিউজ ট্যাগ: বিদ্যা বালান

আরও খবর



ঝিনাইদহে ১৫ সেকেন্ডের ঝড়েই লণ্ডভণ্ড অর্ধশত ঘরবাড়ি

প্রকাশিত:বুধবার ২৬ মে ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৬ মে ২০২১ | ১৩৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ঝিনাইদহ সদর উপজেলার নলডাঙ্গা ইউনিয়নের আড়মুখী গ্রামে ঝড়ের তাণ্ডবে প্রায় অর্ধশত ঘরবাড়ি লণ্ডভণ্ড হয়েছে। এ সময় নারী-শিশুসহ অন্তত ৩ জন আহত হয়েছে। মঙ্গলবার (২৫ মে) সন্ধ্যায় সদর উপজেলার আড়মুখী গ্রামে এ ঝড় আঘাত হানে।

নলডাঙ্গা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কবীর হোসেন জানান, মঙ্গলবার বিকেলে থেকেই হালকা বাতাসের সঙ্গে বৃষ্টিপাত হয়। সন্ধ্যার পর হঠাৎ করেই আকাশ কালো মেঘে ঢেকে যায়। শুরু হয় ঝড়। ১৫ থেকে ২০ সেকেন্ড স্থায়ী এ ঝড়ে আড়মুখী গ্রামের কুটিপাড়া থেকে পশ্চিম পাড়া পর্যন্ত প্রায় ১শ মিটারের মতো ব্যাস ধারণ করে ২ কিলোমিটার লম্বা স্থান ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে। এতে অর্ধশত কাঁচা-পাকা বাড়িঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়। উপড়ে যায় শতশত গাছপালা। ঝড়ের কবলে পড়ে নারী ও শিশুসহ তিনজন আহত হয়েছে।

ক্ষতিগ্রস্ত ওই গ্রামের বাবলু শেখ বলেন, হঠাৎ করে ঝড় শুরু হলো। কিছু বোঝার আগেই ১৫ থেকে ২০ সেকেন্ডের মধ্যে গাছপালা উপড়ে গেল। বাড়িঘরে ভেঙে মাটির সঙ্গে মিশে গেছে।

এ ব্যাপারে ঝিনাইদহের জেলা প্রশাসক মজিবর রহমান বলেন, ক্ষতিগ্রস্তদের সহযোগিতার জন্য সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে পাঠানো হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। এছাড়াও তাদের শুকনা খাবার দেওয়া হচ্ছে।

নিউজ ট্যাগ: ঝড়ের তাণ্ডব

আরও খবর