আজঃ শনিবার ২২ জুন ২০২৪
শিরোনাম

রাশিফলে দেখে নিন, কাটবে কেমন সারা দিন

প্রকাশিত:রবিবার ২৮ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ মে ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
জীবন ধারা ডেস্ক

Image

প্রতিটি রাশির নিজস্ব স্বভাব ও গুণ-ধর্ম থাকে। তাই প্রতিদিন গ্রহের স্থিতি অনুসারে তাদের সঙ্গে যুক্ত জাতকের জীবনে নানা ধরনের ঘটনা ঘটতে পারে। এ কারণেই প্রত্যেকের রাশিফল আলাদা হয়।

আজ ২৮ মে ২০২৩, রোববার। ভাগ্যরেখা অনুযায়ী আপনার আজকের দিনটি কেমন কাটতে পারে? ব্যক্তি, পারিবারিক ও কর্মক্ষেত্র সম্পর্কে কী বলছে জ্যোতিষশাস্ত্র? এই বিষয়গুলো সম্পর্কে যারা দিনের শুরুতে আগাম কিছুটা ধারণা নিয়ে রাখতে চান, তারা একবার পড়ে নিতে পারেন আজকের রাশিফল।

মেষ রাশি:

আজ আপনাকে খুব সতর্ক থাকার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। ঝগড়া, ঝামেলা থেকে দূরে থাকুন এবং আপনার কাজে মনোনিবেশ করুন। আপনি যদি ঝামেলায় জড়ান, তাহলে বড় সমস্যায় পড়বেন। কর্মক্ষেত্রে আজ আপনি খুব ব্যস্ত থাকবেন। মুলতবি কাজের বোঝা বাড়তে পারে।

বৃষ রাশি:

বন্ধুদের সঙ্গে আজকের দিনটি খুব আনন্দে কাটবে। আর্থিক অবস্থা ভালো থাকবে। ব্যবসায়ীদের আর্থিক অবস্থার উন্নতি হতে পারে। স্বাস্থ্য খুব ভালো থাকবে।

মিথুন রাশি:

কর্মক্ষেত্রে আজকের দিনটি মোটামুটি কাটবে। অফিসে নিজের কাজে মনোনিবেশ করুন। ব্যবসায়ীদের চুক্তি করার ক্ষেত্রে বাধা আসতে পারে। আর্থিক অবস্থার উন্নতি হতে পারে। বাড়ির কারো সঙ্গে আপনার বিবাদ হতে পারে। আপনাকে রাগ নিয়ন্ত্রণ করার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। স্বাস্থ্য মোটামুটি থাকবে।

কর্কট রাশি:

ঘরোয়া খরচ বাড়তে পারে। কর্মক্ষেত্রে আজকের দিনটি খুব ভালো কাটবে। ব্যবসায়ীরা আজ বড় অর্ডার পেতে পারেন। আপনার ব্যবসা নতুন দিকে এগিয়ে যাবে। স্বাস্থ্যের যত্ন নিন।

সিংহ রাশি:

ব্যবসায়ীদের আজকের দিনটি ভালো কাটবে না। চাকরিজীবীদের সময়ের দিকে খেয়াল রাখতে হবে। আজ আপনার ওপর কাজের চাপ বেশি হতে পারে। নতুন চাকরি খোঁজার জন্য সময়টি অনুকূল। পারিবারিক জীবনে সুখ, শান্তি থাকবে। পরিবারের সদস্যদের সহযোগিতা পাবেন।

কন্যা রাশি:

ব্যবসায়ীদের খুব সতর্ক থাকার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। বিনিয়োগ করার ক্ষেত্রে খুব সতর্ক থাকুন। যারা পার্টনারশিপে ব্যবসা করছেন তাদের বিতর্কে না জড়ানোর পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। পার্টনারের সঙ্গে ঝগড়া করবেন না, অন্যথায় ব্যবসায় বড় ক্ষতি হতে পারে। চাকরিজীবীদের দিনটি স্বাভাবিক কাটবে।

তুলা রাশি:

চাকরিজীবীরা যত বেশি পরিশ্রম করবেন, তত ভালো ফল পাবেন। আজকের দিনটি ব্যবসায়ীদের ভালো কাটবে না। কাজে বাধা আসতে পারে। আর্থিক ক্ষতিও হতে পারে। পারিবারিক পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকবে। আজ আপনি আপনার পরিবারের সঙ্গে সময় কাটানোর সুযোগ পাবেন।

বৃশ্চিক রাশি:

অফিসের পরিবেশ খুব ভালো থাকবে। আজ আপনি উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের মন জয় করতে সক্ষম হবেন। ব্যবসায়ীদের পরিকল্পনায় পরিবর্তন আনতে হবে। আপনার সব সিদ্ধান্ত খুব ভেবেচিন্তে নিন। শেয়ারবাজারে কর্মরত ব্যক্তিদের আজ তাড়াহুড়ো না করার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।

ধনু রাশি:

অফিসে নারী সহকর্মীদের সম্মান করে চলুন। ব্যবসায়ীদের আর্থিক অবস্থা শক্তিশালী হতে পারে। ব্যবসা সম্প্রসারণের পরিকল্পনা এগিয়ে যেতে পারে। পারিবারিক জীবনে সুখ, শান্তি থাকবে। বাবার সঙ্গে আপনার সম্পর্ক আরও দৃঢ় হবে। আর্থিক দিক দিয়ে দিনটি ভালো কাটবে।

মকর রাশি:

আর্থিক দিক দিয়ে আজকের দিনটি ভালো কাটবে না। ব্যয় নিয়ন্ত্রণ করুন, অন্যথায় আপনি আগামী দিনে বড় আর্থিক সংকটে পড়তে পারেন। চাকরিজীবীরা অফিসে একই ভুলের পুনরাবৃত্তি করবেন না, অন্যথায় আপনি চাকরি হারাতে পারেন। ব্যবসায়ীদের আজ ভালো লাভ হতে পারে।

কুম্ভ রাশি:

আজকের দিনের শুরুটা খুব ভালো কাটবে। আপনি আজ ভালো খবর পেতে পারেন। কর্মক্ষেত্রে আপনি আপনার সব দায়িত্ব খুব ভালোভাবে পালন করবেন। শিগগিরই আপনি এর সঠিক ফল পাবেন। জীবনসঙ্গীর সঙ্গে সম্পর্ক ভালো থাকবে। আর্থিক অবস্থা স্বাভাবিকের চেয়ে ভালো হবে।

মীন রাশি:

প্রতিকূল পরিস্থিতিতেও আপনাকে ধৈর্য ধরার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে, অন্যথায় আপনার সমস্যাগুলো কমার পরিবর্তে বাড়তে পারে। কর্মক্ষেত্রে আপনি কোনো সমস্যায় পড়তে পারেন। আপনাকে দেয়া দায়িত্ব আপনার কাছ থেকে ফিরিয়ে নেয়া হতে পারে। ব্যবসায়ীদের আজ কোনো নতুন কাজ শুরু না করার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।


আরও খবর



খোলা আকাশের নিচে দিন কাটাচ্ছে রেমাল ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলো

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৮ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৮ মে ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
উপজেলা প্রতিনিধি

Image

বরগুনার তালতলীতে পুরো শক্তি নিয়ে আঘাত হেনেছে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় রেমাল। সোমবার সন্ধ্যার পর ঘূর্ণিঝড়টি এ উপকূল অতিক্রম করেন। এ সময় উপজেলার ৭টি ইউনিয়নে তাণ্ডবলীলা চালায় ঘূর্ণিঝড়টি। প্রবল ঘূর্ণিঝড়টির প্রভাবে বৃষ্টির সঙ্গে ঝড়ে ঘর-বাড়ি, দোকান-পাট তছনছ করেছে। টানা বর্ষণে পনিবন্দী হয় গ্রামের পর গ্রাম। ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয় এখানকার বাসিন্দাদের। পানিতে তলিয়ে যায় বসতবাড়ি, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, উপসানালয়, মাছের ঘের। তবে হতাহতের কোনো ঘটনা ঘটেনি।

জানা যায়, রেমালের প্রভাবে বিধ্বস্ত হয়েছে উপজেলা ৩ হাজার ৭শ ঘরবাড়ি। এর মধ্যে আংশিক বিধ্বস্ত হয়েছে ৩১৩২ ও পুরোপুরি বিধ্বস্ত হয়েছে ৬৫০ বাড়িঘর। উপড়ে পড়েছে কয়েক হাজার গাছপালা। বিদ্যুতের খুঁটি উপড়ে পড়ায় বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে পুরো উপজেলা। এছাড়া প্রায় শতাধিক গ্রাম ৪ থেকে ৬ ফুট জলোচ্ছাসে প্লাবিত হয়েছে। টানা বর্ষণে পানিবন্দি হয়ে পড়েছে প্রায় ১০ হাজার পরিবার। ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে মৎস্য ঘেরে। ৮০ হেক্টর ফসলি জমি ও ৩৫০ হেক্টর সবজি বাগান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে প্রায় ২৭ লাখ গ্রাহক। ঘর-বাড়ি বিধ্বস্ত হওয়া পরিবারগুলো খোলা আকাশের নিচে বসবাস করছেন।

আজ সরেজমিন বিভিন্ন ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় গিয়ে দেখা যায় দেখা গেছে, ঝড়ের প্রভাবে রাস্তার পাশে গাছপালা উপজেলা প্রশাসন কেটে দিলে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক থাকলেও। ৭২ ঘন্টার বেশি বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন থাকায় এ উপজেলার মানুষের সাথে যোগাযোগ ব্যহত হচ্ছে। এছাড়াও রান্না বান্নার কাজে মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাত্রা ফিরড়ে পারতেছে না।

নিশানবাড়িয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ড. কামরুজ্জামান বাচ্চু বলেন, এই এলাকার প্রায় ৩শ এর বেশি ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। এখানকার জেলে পরিবারগুলো এখনও খোলা আকাশের নিচে রয়েছে। তাদের পরিস্থিতি এখন মানবেতর।

তালতলী উপজেলা নিবার্হী অফিসার সিফাত আনোয়ার তুমপা বলেন, ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে এ উপজেলা সব থেকে বেশি ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হওয়ার খবর পেয়েছি। পর্যায়ক্রমে এ সকল ক্ষতির তালিকা করে সহযোগিতা করা হবে। ৫৩টি আশ্রয় কেন্দ্রেসহ ব্যক্তিগত ভবণে প্রায় ৩০ হাজার মানুষ ও কয়েক হাজার গবাদি পশু আশ্রয় নিয়েছিলো। তাদের জন্য শুকনা খাবার ও সুপেয় পানির ব্যবস্থা করা হয়। তিনি আরও বলেন বিদ্যুত বিভাগের সাথে কথা হয়েছে তার বলছেন লাইনে কাজ চলছে। তবে রাতের মধ্যে বিদ্যুত সংযোগ দেওয়া হতে পারে।

হাফিজুর রহমান, তালতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি


আরও খবর



ছাত্রলীগ নামধারী খুনিদের সর্বোচ্চ শাস্তি হবে : মুক্তিযুদ্ধমন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ১০ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১০ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
উপজেলা প্রতিনিধি

Image

মুক্তিযুদ্ধমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু সরকারি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগ নেতা আল আমিনকে নামধারী কিছু ছাত্রলীগ নেতারা অত্যন্ত নির্মমভাবে হত্যা করেছে। কে বা কারা এটা করেছে তা খুঁজে বের করতে আমাদের আর কষ্ট করতে হবে না। তাদের পরিচয় প্রশাসন ও সব মহলের কাছে আছে। তারা যে দলেরই হোক তাদের পরিচয় খুনি। আর কোনো খুনির সঙ্গে আমাদের দলের কোনো রকম সম্পর্ক নেই।

সোমবার (১০ জুন) দুপুরে গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলা পরিষদে কার্যক্রম শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।

মন্ত্রী বলেন, খুনিরা দেশের অভ্যন্তরেই রয়েছে। প্রশাসনকে আহ্বান জানাচ্ছি, অতি দ্রুত তাদের খুঁজ বের করে গ্রেপ্তার করে সর্বোচ্চ শাস্তির ব্যবস্থা করা হোক। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট আমাদের দেশনেত্রী শেখ হাসিনার পরিবারের ১৮ জনকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছিল। তার চেয়ে আঘাত এ দেশের আর কেউ পায়নি। অর্থাৎ একটি পরিবারের কাউকে হত্যা করা হলে তাদের কেমন আঘাত লাগে তা প্রধানমন্ত্রী জানেন। তাই তিনি বিষয়টি আমলে নিয়ে পুলিশপ্রধানকে নির্দেশ দিয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, এ দেশের পুলিশের প্রধান, সেনাবাহিনীর প্রধানরা তাদের অপকর্মের দায় এড়াতে পারেনি। তাদের ওপর কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। সেখানে ছাত্রলীগ নামধারী এসব হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক বিচার হবে। যাতে তাদের মতো এমন কাজ আর কেউ করতে সাহস না পায়।

প্রসঙ্গত, গত বৃহস্পতিবার (৬ জুন) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে আধিপত্য বিস্তার করতে কালিয়াকৈর পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ঈমন হোসেনের নেতৃত্বে কলেজের অদূরে চন্দ্রা-ডাইনকিনি সড়কের নায়াগ্রার ঢাল এলাকায় একত্রিত হলে সেখানে একপক্ষ হঠাৎ ধারাল অস্ত্র নিয়ে এসে আল আমিন ও কামরুল নামে দুজনের ওপর হামলা চালায়। এ সময় অভিযুক্তদের এলোপাতাড়ি কোপে ঘটনাস্থলে প্রাণ হারায় আল আমিন। গুরুতর আহতাবস্থায় কামরুলকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়া হয়।


আরও খবর



মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে আনতে আরও ৬ মাস অপেক্ষা করতে হবে: অর্থমন্ত্রী

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৭ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
অর্থ ও বাণিজ্য ডেস্ক

Image

মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য আরও ৬ মাস অপেক্ষা করতে বলছেন অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী। তিনি বলেন, এই বছরের শেষের দিকে এটি কমতে শুরু করবে।

শুক্রবার (৭ জুন) রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে অর্থ মন্ত্রণালয় আয়োজিত বাজেটোত্তর সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেন, আপনারা নিশ্চয়ই লক্ষ্য করেছেন বাজেটের আকার আমরা কমিয়ে রেখেছি। যাতে করে মূল্যস্ফীতির ওপর কোনো চাপ না পড়ে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত আছেন অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম, শিল্প মন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন, পরিকল্পনা মন্ত্রী মেজর জেনারেল (অব) আব্দুস সালাম, গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী, প্রধানমন্ত্রীর অর্থ বিষয়ক উপদেষ্টা মসিউর রহমান, কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুস শহীদ, শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, বাণিজ্যমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটু, অর্থ প্রতিমন্ত্রী ওয়াসিকা আয়শা খান, মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আব্দুর রউফ তালুকদার, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম। সংবাদ সম্মেলনটি সঞ্চালনা করছেন অর্থ সচিব ড. মো. খায়রুজ্জামান মজুমদার।

এর আগে গতকাল জাতীয় সংসদে উত্থাপন করা ২০২৪-২৫ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটের আকার ধরা হয় ৭ লাখ ৯৭ হাজার কোটি টাকা। বিশাল অংকের এ বাজেটের ঘাটতি ধরা হচ্ছে ২ লাখ ৫১ হাজার ৬০০ কোটি টাকা। আর অনুদান ছাড়া ঘাটতির পরিমাণ দাঁড়াবে ২ লাখ ৫৬ হাজার কোটি টাকা। যা মোট জিডিপির ৪ দশমিক ৬ শতাংশ।

প্রস্তাবিত বাজেটে মোট রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৫ লাখ ৪১ হাজার কোটি টাকা। এর মধ্যে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) লক্ষ্যমাত্রা হচ্ছে ৪ লাখ ৮০ হাজার কোটি টাকা। করবহির্ভূত ও অন্যান্য আয়ের লক্ষ্যমাত্রা হচ্ছে ১৫ হাজার কোটি টাকা। কর ছাড়া প্রাপ্তি ধরা হয়েছে ৪৬ হাজার কোটি টাকা। আর বৈদেশিক অনুদান থেকে সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা রাখা হয়েছে ৪ হাজার ৪০০ কোটি টাকা।

২০২৪-২৫ অর্থবছরের জন্য প্রস্তাবিত বাজেটে মূল্যস্ফীতি ৬ দশমিক ৫ শতাংশে নামিয়ে আনার লক্ষ্য ঠিক করেছে। যদিও গত ১৪ মাস ধরে মূল্যস্ফীতি ৯ শতাংশের উপরে রয়েছে। আগামী অর্থবছরে মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) প্রবৃদ্ধি ঠিক করেছে ৬ দশমিক ৭৫ শতাংশ। যা চলতি অর্থবছরে ছিল ৭ দশমিক ৫ শতাংশ। পরে তা কমিয়ে সাড়ে ৬ শতাংশ করা হয়।

চলতি ২০২৩-২৪ অর্থবছরের বাজেটের আকার ছিল ৭ লাখ ৬১ হাজার ৭৮৫ কোটি টাকা। যদিও সংশোধিত বাজেটের এ আকার কমে বর্তমানে দাঁড়িয়েছে ৭ লাখ ১৪ হাজার ৭১৮ কোটি টাকা।


আরও খবর



কয়েক মিনিটের ঝড়ে ঠাকুরগাঁওয়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি, নিহত ১

প্রকাশিত:শনিবার ০১ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ০১ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
রেদওয়ানুল হক মিলন, ঠাকুরগাঁও

Image

ভারী বৃষ্টি ও তুমুল ঝড়ে ঠাকুরগাঁওয়ের দুইটি ইউনিয়নের বেশকয়েকটি গ্রাম লন্ডভন্ড হয়ে গেছে। উড়ে গেছে ঘরের টিনের চালা। গাছপালাসহ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে শতাধিক ঘরবাড়ি ও দোকানপাট। এসময় স্টোক করে এক নারীর মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

শনিবার (১ জুন) ভোর রাতে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায় এ ঘটনা ঘটে।

ক্ষতিগ্রস্তরা জানান, ভোর রাতে হঠাৎ তীব্র ঝড়ে পাড়িয়া ও আমজানখোর ইনিয়নের কয়েকটি গ্রামের ঘরবাড়ি, দোকানপাট ও গাছপালা ভেঙ্গে ক্ষতির শিকার হন স্থানীয়রা। এসময ঝড়ের কবলে ঘরের টিনের চালা পড়ে রহিমা খাতুন (৫৫) নামে এক নারীর মৃত্যু হয়।

নিহত ওই নারী পাড়িয়া ইউনিয়নের শালডাঙ্গা গ্রামের কহিনুর ইসলামের স্ত্রী। পরে খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন উপেজলা প্রশাসনের কর্মকতাগণ।

নিহতের স্বামী জানায়, ফজরের নামাজ পড়তে গিয়ে মসজিদে থাকা অবস্থায় ঝড় শুরু হয়। বাড়িতে এসে স্ত্রীকে খুজে না পেয়ে ডাকাডাকি করি। পরে বাতাসে উড়ে এসে বারান্দায় পড়ে টিন ও ছাউনি সরিয়ে দেখি নিচে চাপা পড়ে আছে স্ত্রী। উদ্ধার করে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তবে রহিমা খাতুন দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ ছিলেন। ঝড়ের সময় ভয়ে স্ট্রোক করেছেন বলে ধারণা পরিবারের।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, ঝড়ে পাড়িয়া ইউনিয়নের তিলকড়া, শালডাঙ্গা, বঙ্গভিটা, লোহাড়া, বামুনিয়া ও বড়বাড়ী ইউনিয়নের বেলহাড়া, বেলবাড়ী, বটের হাট, হরিপুরসহ বেশকয়েকটি গ্রাম ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বেশির ভাগ কাঁচা বাড়ির টিনের চালা উড়ে গেছে। গাছ ভেঙ্গে পড়েছে ঘরের উপর।

বড়বাড়ী ইউনিয়নের আধারদিঘী বাজারে ৫টি দোকান এবং ২টি হোটেল গাছ ভেঙ্গে পড়েছে। ঘরের টিন নষ্টসহ সার ও কীটনাশক ব্যবসায়ী এবং সিমেন্টের ব্যবসায়ীর কয়েক লাখ টাকা ক্ষতি হয়েছে।

ব্যবসায়ী হাসান আলী জানান, বাজারে শতবর্ষী কিছু আমগাছ ছিল দীর্ঘদিনের। ঝড়ের কারণে সেই গাছের বড় ডাল ভেঙ্গে পড়েছে দোকানগুলোর টিনের ছাউনির উপর। এতে দোকানগুলোর ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

এদিকে ঘটনার পর থেকে এলাকাগুলোতে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ হয়ে গেছে।

পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির বালিয়াডাঙ্গী জোনাল অফিসের সহকারী মহাব্যবস্থাপক কামরুল ইসলাম জানান, ঝড়ে ৪০টির বেশি বৈদ্যুতিক খুটি উপড়ে এবং ভেঙ্গে গেছে। এছাড়াও অনেক স্থানে বৈদ্যুতিক তারের উপর গাছ ভেঙ্গে পড়েছে। সকাল থেকে আমাদের লোকজন মাঠে কাজ করছে।

বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সাজ্জাদ হোসেন সোহেল বলেন, ঝড়ে মরিচ, বোরো ধান, পটলসহ বিভিন্ন ফসল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ক্ষতির পরিসংখ্যান সংগ্রহে মাঠ পর্যায়ে খোঁজ খবর নিচ্ছেন উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তারা।

বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আফছানা কাওছার বলেন, ইউপি চেয়ারম্যান এবং আমাদের লোকজন ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাগুলো ক্ষয়ক্ষতি নির্ধারণে কাজ করছে।

এবিষয়ে ঠাকুরগাঁও ২ আসনের সংসদ সদস্য মাজহারুল  ইসলাম সুজন জানান, ঝড়ে দুই ইউনিয়নের বেশকয়েকটি গ্রাম ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাগুলো পরিদর্শন করে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোতে সহায়তার আশ্বাস দিয়েছেন তিনি। তবে স্ট্রোক করে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে বলে জানান তিনি।


আরও খবর



লিটনের ব্যাটে জয়ের হাতছানি বাংলাদেশের

প্রকাশিত:শনিবার ০৮ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ০৮ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ক্রীড়া প্রতিবেদক

Image

শ্রীলঙ্কার ছোট লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে পাওয়ারপ্লেতে ৩ উইকেট হারিয়ে বিপর্যয়ে পড়ে বাংলাদেশ। সেই চাপ সামলে বাংলাদেশকে চালকের আসনে বসিয়েছেন লিটন দাস এবং তাওহীদ হৃদয়। ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গার পরপর ৩ বলে ৩ ছক্কা মেরে হৃদয় আউট হলেও লিটনের ব্যাটে জয়ের পথে এগিয়ে আছে টাইগাররা।

এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ ১২ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ৯২ রান। জয়ের জন্য ৪৮ বলে টাইগারদের প্রয়োজন ৩৩ রান, হাতে আছে ৬ উইকেট।

ছোট লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে প্রথম ওভারেই সৌম্য সরকারের উইকেট হারায় বাংলাদেশ। ধনঞ্জয়া ডি সিলভার বলে লেগ সাইডে শট খেলতে গিয়ে মিড অনে ক্যাচ তুলে দেন সৌম্য। দলীয় ১ রানে প্রথম উইকেট হারায় বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ওভারে নুয়ান থুসারা বোল্ড করেন তানজিম তামিমকে।

৬ রানে ২ উইকেট হারানোর পর দেখেশুনে খেলতে শুরু করেন অধিনায়ক নাজমুল শান্ত এবং লিটন দাস। দুজনে মিলে ২২ রানের জুটিও গড়েন। তবে ষষ্ঠ ওভারে থুসারার বলে ড্রাইভ করতে গিয়ে সহজ ক্যাচ তুলে দেন শান্ত। ১৩ বলে ৭ রান করে ফেরেন অধিনায়ক।

এর আগে ব্যাটিংয়ে নেমে পাথুম নিসাঙ্কার ব্যাটে ভালো শুরু পেয়েছিল শ্রীলঙ্কা। তবে মুস্তাফিজুর রহমান, তাসকিন আহমেদ এবং রিশাদ হোসেনের জাদুতে লঙ্কানদের অল্প রানেই আটকে দিয়েছে টাইগাররা।

২৮ বলে ৪৭ রান করেছেন নিসাঙ্কা। বাংলাদেশের হয়ে ৩টি করে উইকেট নিয়েছেন মুস্তাফিজুর রহমান এবং রিশাদ হোসেন। তাসকিন আহমেদ নিয়েছেন ২ উইকেট।


আরও খবর