আজঃ শুক্রবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩
শিরোনাম

স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের নিয়ে সরব রাবি ছাত্রলীগের সম্মেলন

প্রকাশিত:সোমবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
আসিক আদনান, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

Image

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) ছাত্রলীগের ২৬তম বার্ষিক সম্মেলন আজ। সম্মেলনকে কেন্দ্র করে মহানগরীর বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের সরব উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে।

সোমবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টায় শাখা ছাত্রলীগের এই সম্মেলন শুরু হওয়ার কথা থাকলেও, বৃষ্টির কারণে তা বিলম্বিত হচ্ছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, শোডাউনের মাধ্যমে সম্মেলনে যোগ দিতে দেখা যায় পদপ্রত্যাশী নেতাকর্মীদের। শোডাউনে অধিকাংশই নগরীর স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীর উপস্থিতি। এছাড়াও সম্মেলন মঞ্চের সামনের সারিতে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা আসন দখল করে বসে আছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের কোন হল থেকে তারা এসেছেন এবং তাদের পরিচয় কি জানতে চাওয়া হলে তারা বলেন, "আমরা কোনো হলের না, মহানগর থেকে এসেছি।

এছাড়াও ক্যাম্পাসের বিভিন্ন স্থান ঘুরে দেখা গেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের হল ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের তুলনায় বহিরাগত কর্মীদের সংখ্যাই বেশি। জানা গেছে, এদের অধিকাংশই স্থানীয় পদ প্রত্যাশী নেতাদের নামে স্লোগান দিচ্ছেন, শোডাউন করছেন।

কেউ কেউ আবার পরিচয় দিয়েছেন, তারা নগরীর কলেজ শিক্ষার্থী। বহিরাগত এই শিক্ষার্থীরা নতুন কমিটির পদ প্রত্যাশী সাকিবুল হাসান বাকির নামে স্লোগান দিচ্ছেন। অন্যদিকে পদপ্রত্যাশী মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন স্বদেশের শোডাউনে ৪শতাধিক শিক্ষার্থীর মধ্যে ৩শ'র বেশি স্কুল কলেজের শিক্ষার্থী রয়েছে বলে লক্ষ করা গেছে। বহিরাগতরা যাদের নামে স্লোগান দিচ্ছেন তাদের বাসা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আশেপাশে।

নগরীর রাজপাড়া থেকে এসেছেন আরিফ নামের এক শিক্ষার্থী। তিনি নবম শ্রেণির ছাত্র। তিনি বলেন, আমার বাসা রাজপাড়া। আমার এক বড় ভাই পদপ্রার্থী। তাই আমিসহ আমার কয়েকজন বন্ধুবান্ধব এখানে এসেছি।

শোডাউনে সামনের সারিতে শাড়ী পড়ে থাকা এক নারী শিক্ষার্থী পরিচয় জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী না। আমাকে শাড়ী দেওয়া হয়েছে এবং দু'ঘন্টা থাকতে বলা হয়েছে। তবে কে বলেছেন নাম বলতে অনিচ্ছুক তিনি।

এসব বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনু বলেন, এটা বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মেলন যেখানে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাই থাকবে। কোনো পদ প্রত্যাশী নেতা যদি স্কুল-কলেজের নিয়ে সম্মেলনে আসে অবশ্যই বিষয়টি আমরা কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে অবহিত করবো।


আরও খবর
পেঁয়াজের দাম কেজিতে বাড়লো ১৩ টাকা

শুক্রবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩




৬ দিনের রাশিয়া সফর শেষে উত্তর কোরিয়ায় ফিরলেন কিম

প্রকাশিত:সোমবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জং উন ৬ দিনের রাশিয়া সফর শেষে নিজ দেশে ফিরেছেন। গার্ডিয়ান এই খবর দিয়েছে। খবর অনুসারে, রাশিয়ার সুদূর পূর্বের প্রাইমোরি অঞ্চল থেকে তার সাঁজোয়া ট্রেনে ফিরতি যাত্রা শুরু করেছেন কিম। এর আগে ট্রেন স্টেশনে তার বিদায় অনুষ্ঠান হয়।

দেশের পথে রওনা দেওয়ার আগে ভ্লাদিভস্তকে পড়তে যাওয়া উত্তর কোরিয়ার শিক্ষার্থীদের সঙ্গে দেখা করেন কিম। তার এই সফরকে সফল বলে আখ্যা দিচ্ছে উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা কেসিএনএ। বার্তা সংস্থাটি বলছে, কিমের এই সফরের মধ্য দিয়ে রাশিয়ার সঙ্গে বন্ধুত্ব, একাত্মতা এবং সহযোগিতার নতুন যুগের সূচনা হলো।

সফরের শুরু থেকেই আলোচনায় ছিলেন কিম জং-উন। গত মঙ্গলবার রাশিয়া সফরে যান তিনি। সেখানে বুধবার তিনি রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে বৈঠক করেন। এই বৈঠক মূলত গুরুত্ব পায় সামরিক বিষয়-আশয়। একই সঙ্গে উত্তর কোরিয়ার স্যাটেলাইট কর্মসূচিও আলাদা করে গুরুত্ব পায় পুতিন ও কিমের আলোচনায়। 

আরও পড়ুন>> লিবিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৭

শনিবার কিম রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগুর সঙ্গে বৈঠক করেন। এদিন রাশিয়ার হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র কিনঝাল দেখেন কিম। উত্তর কোরিয়া করোনাভাইরাসের মহামারি শুরুর পর তার সীমান্ত বন্ধ করে দিয়েছিল। এ ছাড়া কিমের দেশের বাইরে সফরের প্রবণতাও কম। গত ১২ বছরে তিনি মাত্র সাতবার দেশের বাইরে গেছেন। এর মধ্যে চীনেই গেছেন চারবার। এই মহামারি শুরুর পর এই প্রথম কিম দেশের বাইরে সফর করলেন।

পশ্চিমা বিশ্বের সঙ্গে কিমের সফরকে কেন্দ্র করে রাশিয়া ও উত্তর কোরিয়ার সম্পর্কে আবারও টানাপোড়েন দেখা দিল। ইতিমধ্যে দক্ষিণ কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্র কিমের সফর নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। মার্কিন সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, উত্তর কোরিয়ার কাছ থেকে অস্ত্র পেতে পারে রাশিয়া। এতে ইউক্রেন যুদ্ধে নতুন করে শক্তি সঞ্চয়ের সুযোগ পাবে দেশটি।

যদিও মস্কো এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছে। তারা বলছে, উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে তাদের কোনো চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়নি, হবেও না।


আরও খবর
নেদারল্যান্ডসে বন্দুক হামলায় নিহত ৩

শুক্রবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩




চট্টগ্রামে ডেঙ্গুতে শিশুসহ দুই জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:শনিবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শনিবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
রাহুল সরকার, চট্টগ্রাম ব্যুরো

Image

চট্টগ্রাম ডেঙ্গুতে শিশুসহ দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু আক্রান্ত আরও ১২৪ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। এ নিয়ে এ বছর ডেঙ্গুতে মৃত্যু হয়েছে ৬৫ জন।

শনিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) এ তথ্য জানিয়েছে জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়। ডেঙ্গু প্রতিরোধে সবাইকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন সিভিল সার্জন ডা. ইলিয়াছ চৌধুরী।

ডেঙ্গুতে মৃত্যু হওয়া ৪০ বছর বয়সী রোকেয়া বেগম চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। গত ১২ সেপ্টেম্বর তিনি ডেঙ্গু উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। আরেকজন ডেঙ্গুতে মৃত্যু হওয়া ২ বছর বয়সী শিশু ফাহিমা আক্তার গত ১৩ সেপ্টেম্বর হাসপাতালে ভর্তি হয়। তারা গত ১৫ সেপ্টেম্বর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। উভয়ই এক্সপান্ডেড ডেঙ্গু সিনড্রোম জটিলতায় ভুগছিলেন।

তাছাড়াও নতুন করে ডেঙ্গু আক্রান্ত ১২৪ জন চট্টগ্রামের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এর মধ্যে সরকারি হাসপাতালে ৬০ জন এবং বেসরকারি হাসপাতালে ৬৪ জন। এ নিয়ে চলতি বছর ডেঙ্গু আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে ৭ হাজার ৬৭৭ জন। এর মধ্যে চলতি সেপ্টেম্বরে শনাক্ত হয়েছে ১ হাজার ৮৯০ জন। 

নিউজ ট্যাগ: চট্টগ্রাম

আরও খবর
পেঁয়াজের দাম কেজিতে বাড়লো ১৩ টাকা

শুক্রবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩




হাজী দানেশ বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৫তম বছরে পদার্পণ

প্রকাশিত:সোমবার ১১ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ১১ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
দিনাজপুর প্রতিনিধি

Image

দিনাজপুর হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় দিনাজপুর জেলার বাঁশেরহাট নামক স্থানে অবস্থিত একটি সরকারি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। ২০২৩ সালের ১১ সেপ্টেম্বর হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (হাবিপ্রবি) এর ২৪ বছর পূর্তি এবং ২৫তম বছরে পদার্পণ করেছে।

দিনাজপুর হাবিপ্রবির গণসংযোগ বিভাগের পরিচালক অধ্যাপক শ্রীপতি শিকদার স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে সোমবার এই তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে। তিনি জানান, বাংলাদেশের দ্বিতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং এটি উত্তর বাংলার সেরা বিদ্যাপীঠ যা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মাঝে শীর্ষস্থানীয়। দেশের সবচেয়ে বেশি বিদেশি শিক্ষার্থী পড়াশোনা করেন এই বিদ্যাপীঠে।

সূত্রটি জানায়, তেভাগা আন্দোলনের নেতা দিনাজপুরের সন্তান হাজী মোহাম্মদ দানেশের নামে এর নামকরণ করা হয়। হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের যাত্রা শুরু ১৯৭৬ সালে এগ্রিকালচারাল এক্সটেনশন ট্রেনিং ইনিস্টিটিউট হিসেবে যা কৃষিতে ডিপ্লোমা ডিগ্রী প্রদান করতো।

গত ১৯৮৮ সালের ১১ নভেম্বর এটিকে স্নাতক পর্যায়ে কৃষি কলেজে উন্নীত করা হয়। এটি তখন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ময়মনসিংহ এর অধিভুক্ত কলেজ ছিল। গত ১১ সেপ্টেম্বর ১৯৯৯ এই কলেজকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয় করার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা করেন। এই থেকে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের যাত্রা শুরু এবং এই দিনটি প্রতিবছর বিশ্ববিদ্যালয় দিবস হিসেবে উদযাপন করা হয়। গত ২০০০ সালে কলেজটিকে বিশ্ববিদ্যালয়ে উন্নীত করার লক্ষে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন প্রকল্প গ্রহণ করা হয়।

গত ৮ জুলাই ২০০১ হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় আইন পাশ করা হয়। গত ২০০২ সালের ৮ এপ্রিল মহামান্য রাষ্ট্রপতি প্রজ্ঞাপন জারির মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপিত হয়। ১৬ই এপ্রিল আনুষ্ঠানিক শিক্ষা কার্যক্রম শুরু হয়। বিশিষ্ট মৃত্তিকা বিজ্ঞানী প্রফেসর ড: মো: মোশাররফ হোসাইন মিঞাঁ এ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম উপাচার্য। এটি উত্তরবঙ্গ তথা রংপুর বিভাগের প্রথম বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। এ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার মাধ্যম ইংরেজি। কোর্স-ক্রেডিট-সেমিস্টার পদ্ধতিতে পরিচালিত।

বর্তমানে ৯ টি অনুষদের অধীনে ২৩ টি বিষয়ে সনদ প্রদান করা হয়, এর মধ্যে স্নাতক পর্যায়ে ৮ টি অনুষদে ২২ টি বিষয় এবং স্নাতকোত্তর পর্যায়ে একটি অনুষদে ২৮ টি বিষয় রয়েছে। বর্তমানে ক্যাম্পাসের আয়তন ১৩৫ একর। ক্যাম্পাস এর পাশেই ঢাকা -দিনাজপুর মহাসড়ক অবস্থিত। দিনাজপুর শহর হতে ক্যাম্পাস এর দূরত্ব মাত্র ১০ কি.মি.। এ বিশ্ববিদ্যালয়ে রয়েছে সবুজ গাছপালার সমারোহ। আছে লাল-সাদা ইটের দৃষ্টিনন্দন সুবিশাল ভবন, আছে শহীদদের স্মরণে শহীদ মিনার, জিমন্যাশিয়াম, টিএসসি, ক্যান্টিন আছে।

অবকাঠামোর মধ্যে রয়েছে বৃহৎ কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ, কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার, ৫টি অ্যাকাডেমিক ভবন, একটি প্রশাসনিক ভবন, ৫টি ছাত্র হোস্টেল (একটি বিদেশী শিক্ষার্থীদের), ৩টি ছাত্রী হোস্টেল, আধুনিক সাজসজ্জা বিশিষ্ট ১০০ আসনের একটি ভিআইপি সেমিনার কক্ষ, ৬০০ ও ২৫০ আসন বিশিষ্ট আরও দুটি শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত অডিটরিয়াম। এছাড়াও একটি বিশ্ববিদ্যালয়কে পূর্ণাঙ্গ করতে রয়েছে শিক্ষক-কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের ক্লাব, ২টি মসজিদ, ১৩৬টি আবাসিক ইউনিট/ভবন, ১টি শিশুপার্ক, পোষ্ট অফিস, রূপালী ব্যাংক শাখা, মেঘনা ব্যাংক শাখা, শ্রমিক ব্যারাক, সার্বাক্ষণিক ইন্টারনেট সুবিধা, নিজস্ব বৈদ্যুতিক লাইন, বৃহৎ খেলার মাঠ, ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কশপ এবং ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব পরিবহন ব্যবস্থা। গবেষণা ও প্রশিক্ষণের সমন্বয় ও সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য ইনস্টিটিউট অব রিসার্চ এন্ড ট্রেনিং (আই.আর.টি)। আছে একটি ভি. আই. পি গেস্ট হাউস, হাবিপ্রবি স্কুল, ডাক্তার ও এ্যাম্বুলেন্সসহ ১২ শয্যার একটি মেডিক্যাল সেন্টারও। গবেষণালব্ধ থিসিস, রিপোর্ট, জার্নালের পাশাপাশি রয়েছে ২৫ হাজার বইয়ের সমৃদ্ধ লাইব্রেরি। দুষ্প্রাপ্য গাছ-গাছালির আকর্ষণীয় সংগ্রহ নিয়ে গড়ে উঠেছে একটি সমৃদ্ধ বোটানিক্যাল গার্ডেন এবং বিভিন্ন বিভাগের তত্ত্বাবধানে গবেষণার জন্য জামপর্স্নাজম সেন্টার।

উল্লেখ্য, গত ২০২১ সালে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হিসেবে নিযুক্ত হয়েছিলেন অধ্যাপক ড.এম কামরুজ্জামান। দায়িত্বে আসার পর বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাপক পরিবর্তন নিয়ে এসেছেন।


আরও খবর



ইউক্রেন যুদ্ধে ১০ হাজার কোটি ডলারের বেশি খরচ যুক্তরাষ্ট্রের

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

ইউক্রেন যুদ্ধের পেছনে এ পর্যন্ত ১০ হাজার কোটি মার্কিন ডলারের বেশি খরচ করেছে বাইডেন প্রশাসন। হোয়াইট হাউসের পক্ষ থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে বলে জানিয়েছে ফক্স নিউজ। এ সংক্রান্ত নথিপত্রও হাতে পাওয়ার দাবি করেছে মার্কিন সংবাদমাধ্যমটি।

গত জানুয়ারিতে হোয়াইট হাউসের কাছে ইউক্রেনকে দেওয়া নিরাপত্তা সহায়তার বিস্তারিত জানতে চেয়ে হোয়াইট হাউসের ব্যবস্থাপনা ও বাজেট অফিসে (ওএমবি) চিঠি দিয়েছিলেন ৩০ জনেরও বেশি রিপাবলিকান সিনেটর। এর জন্য ৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সময়সীমা বেঁধে দিয়েছিলেন তারা।

কিন্তু চিঠি দেওয়ার সাত মাসেরও বেশি সময় পর গত ১১ সেপ্টেম্বর জবাব দিয়েছে ওএমবি। তাদের পাঠানো চিঠি ও হিসাবের নথি হাতে পেয়েছে ফক্স নিউজ।

এতে দেখা যায়, ২০২২ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি যুদ্ধ শুরুর পর থেকে ইউক্রেনকে দেওয়া যুক্তরাষ্ট্রের নিরাপত্তা সহায়তার হিসাবসহ এগুলো দেওয়ার কারণ ব্যাখ্যা করেছেন ওএমবি পরিচালক শালানদা ইয়াং।

তিনি বলেছেন, রাশিয়ার নৃশংস আক্রমণের পরে নিজেদের সার্বভৌমত্ব রক্ষায় লড়াই করছে ইউক্রেন। এ কারণে তাদের নিরাপত্তা, অর্থনৈতিক এবং মানবিক সহায়তা প্রদান করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এই সমর্থন যুদ্ধক্ষেত্রে ইউক্রেনের সাফল্য ও কঠোর পরিস্থিতিতে এর জনগণের টিকে থাকার জন্য গুরুত্বপূর্ণ ছিল।

ইয়াং বলেছেন, রুশ আগ্রাসনের বিরুদ্ধে লড়তে ইউক্রেনীয়দের সহায়তার ব্যাপারে মার্কিন করদাতারা যেন আত্মবিশ্বাসী হতে পারেন, তার জন্য স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা জরুরি। এ বিষয়ে একমত বাইডেন প্রশাসনের কর্মকর্তারা।

চিঠির সঙ্গে সহায়তার বিবরণের একটি চার্টও যুক্ত করেছেন ওএমবি পরিচালক। এতে দেখা যায়, ইউক্রেন যুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্র এ পর্যন্ত সর্বমোট ১০ হাজার ১১৯ কোটি ৮০ লাখ ডলার খরচ করেছে এবং এর বাইরে আরও ৯৮০ কোটি ডলারের সহায়তা দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে।

তাছাড়া, ইউক্রেনের জন্য অতিরিক্ত ২ হাজার ৪০০ কোটি ডলার সহায়তা অনুমোদনের জন্য গত মাসে মার্কিন কংগ্রেসের কাছে অনুরোধ জানিয়েছিল হোয়াইট হাউস। এর মধ্যে ১ হাজার ৩০০ কোটি ডলার প্রতিরক্ষা সহায়তায় এবং বাকি ১ হাজার ১০০ কোটি ডলার অর্থনৈতিক ও মানবিক সহায়তায় খরচ হবে বলে উল্লেখ করেছে বাইডেন প্রশাসন।


আরও খবর
নেদারল্যান্ডসে বন্দুক হামলায় নিহত ৩

শুক্রবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩




যে চার কারণে রাজকে ডিভোর্স দিলেন পরীমনি

প্রকাশিত:বুধবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০23 | হালনাগাদ:বুধবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০23 | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

ঢাকাই সিনেমার আলোচিত দম্পতি পরীমণি ও শরিফুল রাজের সংসারে অনেকদিন ধরেই ঝামেলা চলছিল। এবার সব জল্পনা শেষে রাজকে ডিভোর্স নোটিশ পাঠিয়েছেন পরীমণি। জানা গেছে, চারটি কারণ দেখিয়ে রাজকে ডিভোর্স দিয়েছেন পরীমণি।

সেখানে তিনি কারণ হিসেবে জানান ১. মনের অমিল হওয়া, ২. বনিবনা না হওয়া, ৩. খোঁজ না নেয়া এবং ৪. মানসিক অশান্তি জন্য ১৮ নম্বর কলাম অনুযায়ী বিবাহ বন্ধন ছিন্ন করতে চান।

পরীমণি এবং শরিফুল রাজ গুণিন সিনেমায় একসঙ্গে অভিনয় করতে গিয়েই সম্পর্কে জড়ান। এরপর প্রেম পর্ব কাটিয়ে বসে যান বিয়ের পিঁড়িতে। ২০২১ সালের ১৭ অক্টোবর বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন পরীমণি ও শরীফুল রাজ। ২০২২ সালে এই দম্পতির সংসারজুড়ে আসে একটি পুত্রসন্তান।


আরও খবর
রণবীরের জন্মদিনে স্মৃতিকাতর আলিয়া

শুক্রবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩

জয়ের জন্মদিনে বীরের শুভেচ্ছা

শুক্রবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩