আজঃ মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম

শঙ্কা উড়িয়ে সাতকানিয়ায় শতভাগ আমন আবাদ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
জাহেদুল ইসলাম, সাতকানিয়া (চট্টগ্রাম)

Image

বর্ষায় অতি বৃষ্টিতে আকস্মিক বন্যায় চট্টগ্রামের সাতকানিয়ার কৃষি মাঠও প্লাবিত হয়। বন্যায় রোপা আমন এবং বীজতলা নষ্ট হয়ে যায়। এমন পরিস্থিতিতে আমন আবাদের লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে শঙ্কা তৈরি হয়েছিল। তবে সব শঙ্কা উড়িয়ে উপজেলায় লক্ষ্যমাত্রার শতভাগ আমন আবাদ সম্পন্ন হয়েছে। ভালো ফলনের মাধ্যমে ক্ষতি পুষিয়ে লাভের মুখ দেখতে পারবেন বলে আশাবাদী কৃষকরা।  

সাতকানিয়া উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, চলতি আমন মৌসুমে সাতকানিয়ার ১১ হাজার ৮৮৫ হেক্টর জমিতে আমন চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিলো। বন্যার কারণে রোপা আমন এবং বীজতলা ক্ষতিগ্রস্ত হলেও কৃষকদের উৎসাহিত করে নতুনভাবে বীজতলা তৈরি করা হয় এবং পানি নেমে যাওয়ার পর পুরোদমে কাজ করে ইতোমধ্যেই লক্ষ্যমাত্রার শতভাগ চাষাবাদ সম্পন্ন হয়েছে।

সরেজমিন উপজেলার কেঁওচিয়াসহ বিভিন্ন ইউনিয়ন ঘুরে দেখা যায়, বিলের বিস্তৃর্ণ কৃষি মাঠ সবুজ আকার ধারণ করেছে। যতদূর চোখ যায় শুধু সবুজ আর সবুজের সমারোহ। অথচ মাসখানেক আগেও এই কৃষি মাঠঘিরে শঙ্কা ছিলো, কৃষকদের মাঝে ছিলো কষ্টের আবাদ নষ্ট হওয়ার হাহাকার। বন্যার ক্ষতি কাটিয়ে শতভাগ চাষাবাদ সম্পন্ন হওয়ায় এখন কৃষকরা ভাল ফলনে আশার আলো দেখছেন।

কৃষকদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বন্যা পরবর্তী বিভিন্ন জায়গা থেকে চারা সংগ্রহ করে কৃষকরা নতুন করে আমন ধান লাগিয়েছেন। আবার অনেক কৃষক যখন বন্যায় আক্রান্ত হয় তখন নতুন করে বীজতলা শুরু করেছিলেন। বর্তমানে নতুন জমিতে এবং নষ্ট হওয়া জমিতে ওই চারা দিয়ে আমন আবাদ করেছেন। এক্ষেত্রে সাতকানিয়া উপজেলা কৃষি অফিস সার্বক্ষণিক সহযোগিতা করেছেন এবং কৃষকদেরকে বিভিন্নভাবে পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছেন।

কেঁওচিয়া এলাকার কৃষক আব্দুল মন্নান বলেন, এবার আমি ২ কানি জমিতে আমন আবাদের জন্য বীজতলা তৈরি করেছিলাম। বন্যায় পুরোটাই নষ্ট হয়ে গেছে। এখন ঋণ নিয়ে আবারও চারা লাগিয়েছি। যদি সরকারি কোনো আর্থিক সহযোগিতা পেতাম আমাদের জন্য অনেক উপকার হত।

কবির আহমদ নামে অন্য একজন কৃষক বলেন, টানা বৃষ্টিতে সৃষ্ট বন্যায় ভেসে যায় কৃষকের স্বপ্ন। বন্যার পানি নামার পর আবারও চাষাবাদ করা হয়। এখন ভাল ফলন হলে কৃষকরা অন্তত তার ক্ষতি পোষাতে পারবেন।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ মনিরুজ্জামান বলেন, বন্যার পানি নেমে যাওয়ার পর আমন আবাদের লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের জন্য কাজ শুরু করে কৃষি বিভাগ। অল্প সময়ে উপজেলায় লক্ষ্যমাত্রার শতভাগ আমন আবাদ সম্পন্ন হয়েছে। আমরা আশা করছি কৃষকরা ভাল ফলন পাবে এবং তাদের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে পারবেন।


আরও খবর



গাজীপুরে কারখানা বন্ধের প্রতিবাদে পোশাক শ্রমিকদের বিক্ষোভ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
গাজীপুর প্রতিনিধি

Image

ঈদের ছুটি শেষে কাজে যোগদান করার দিনে লে-অফ ঘোষণার নোটিশে গাজীপুরে একটি পোশাক কারখানার শ্রমিকরা বিক্ষোভ করেছেন।এ সময় শতাধিক শ্রমিক মহাসড়ক অবরোধের চেষ্টা করে।

মঙ্গলবার (২৫জুন) সকাল ৮টা থেকে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের রাজেন্দ্রপুর এলাকার বি কে বাড়ি এলাকায় অবস্থিত অলিম্পিক ফ্যাশন লিমিটেড কারখানার সামনে থেকে বিক্ষোভ শুরু হয়।

কারখানা শ্রমিকেরা জানান, ঈদের আগে ১৫ জুন কারখানা ছুটি হয়। আজকে খোলার দিনে এসে দেখি গেট বন্ধ। সামনে লে-অফ ঘোষণার নোটিশ। আমাদের না জানিয়ে হঠাৎ কারখানা বন্ধের প্রতিবাদে আমরা আন্দোলন করছি। আমরা কারখানা খোলার দাবিতে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করতে চাইলে পুলিশ বাধা দেয়। এসময় কমপক্ষে পাঁচজন শ্রমিক আহত হয় বলেও দাবি করেন তারা।

বাংলাদেশ টেক্সটাইল গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারশনের গাজীপুর জেলার সভাপতি মো. হারুন সরকার জানান, এভাবে লে-অফ ঘোষণা করা যায় না। আগে শ্রমিকদের জানাতে হয়। দেনা পাওনা পরিশোধ করতে হয়।

অলিম্পিক ফ্যাশন লিমিটেডের জিএম এস এম খোরশেদুর রহমান বলেন, ঈদের আগে একটি শিপমেন্ট বাতিল হয়েছে। এখন অর্ডারও নেই। তাই লে-অফ ঘোষণা করেছি। ৭ জুলাই দেনা- পাওনা পরিশোধ করব। আমরা কোনো শ্রমিকের ওপর হামলা করিনি।

গাজীপুর শিল্প পুলিশ-২ এর পরিদর্শক মঞ্জুরুল হক বলেন, শ্রমিকদের ওপর হামলা হয়নি। সাত জুলাই শ্রমিকদের সব পাওনা পরিশোধ করা হবে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। আমরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখার চেষ্টা করছি।

নিউজ ট্যাগ: গাজীপুর

আরও খবর



এক বন্ধুর দেওয়া তথ্যে মিলছে আরেক বন্ধুর কঙ্কাল

প্রকাশিত:শুক্রবার ১২ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১২ জুলাই ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বরিশাল প্রতিনিধি

Image

বরিশালে দুই মাস ধরে নিখোঁজ কিশোরের কঙ্কালের সন্ধান পেয়েছে পুলিশ। গত বৃহস্পতিবার বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন খয়রাবাদ সেতুর নিচে কঙ্কালটি পাওয়া যায়।

শুক্রবার সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করছেন বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রহমান মুকুল।

সন্ধান পাওয়া কঙ্কালটি নিখোঁজ কিশোর মো. সোহেল ফরাজীর (১৫) বলে জানিয়েছে আটক বন্ধু ইমরান খান। আর সোহেল ফরাজী বরিশাল নগরের দক্ষিণ আলেকান্দা রিফিউজি কলোনি এলাকার বাসিন্দা রিকশাচালক ফরিদ ফরাজীর ছেলে। আটক হওয়া ইমরান একই এলাকার বাসিন্দা নান্না খানের ছেলে।

সোহেল ফরাজীর ভাই সোহাগ ফরাজী জানান, দুই মাস আগে তার ভাইকে ডেকে নেয় বন্ধু ইমরান। তখন ভাই সোহেল বাবার ভাড়ায় চালিত ব্যাটারি রিকশাটি নিয়ে বের হয়। এরপর থেকে তার কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। এমনকি দুই মাস ধরে বন্ধু ইমরানও নিখোঁজ ছিল। 

স্থানীয়দের মাধ্যমে ইমরানের পরিবারের ওপর চাপ দিয়ে বৃহস্পতিবার বিকেলে ইমরানের সন্ধান পাওয়া যায়। তখন তার কাছে সোহেলের বিষয়ে জানতে চাইলে সন্দেহ হয়। একপর্যায়ে তাকে একটি কক্ষে আটকে রেখে পুলিশকে খবর দেওয়া হয়। 

পুলিশ তাকে কোতোয়ালি মডেল থানায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সোহেলকে হত্যার কথা স্বীকার করে। তখন বিষয়টি বন্দর থানায় জানানো হয়। বন্দর থানা পুলিশ ইমরানকে নিয়ে খয়রাবাদ সেতুর নিচে গিয়ে একটি কঙ্কাল পেয়েছে।

আটক ইমরান পুলিশকে বলেছে, সোহেলের ব্যাটারিচালিত রিকশা নেওয়ার জন্য পরিকল্পনা করে তার তিন বন্ধু হৃদয়, বাপ্পি ও রাকিব। পরিকল্পনা অনুযায়ী নগরের লাকুটিয়া সড়কের একটি দোকান থেকে ঘুমের ওষুধ কেনা হয়। পরে কীর্তনখোলা নদীর ওপর সেতুতে এনাজিং ড্রিংকসে গুঁড়ো করা ঘুমের ওষুধ মেশানো হয়। 

সেখান থেকে চারজন খয়রাবাদ সেতুর নিচে যায়। পরিকল্পনা অনুযায়ী ঘুমের ওষুধ মেশানো এনার্জি ড্রিংকস পান করানো হয় সোহেলকে। এতে সে অজ্ঞান হয়ে পড়ে। পরে তাকে নদীর মধ্যে ফেলে দেওয়া হয়। পরে রিকশা বিক্রি করে ইমরান পালিয়ে যায়।

বন্দর থানার ওসি আব্দুর রহমান মুকুল বলেন, আটক বন্ধুর দেওয়া তথ্যে কঙ্কালের সন্ধান পাওয়া গেছে। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আরও খবর



পুলিশ কর্মকর্তাদের সম্পদের তদন্ত চলছে: আইজিপি

প্রকাশিত:বুধবার ২৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৬ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
খুলনা প্রতিনিধি

Image

পুলিশ কর্মকর্তাদের সম্পদের বিষয়ে তদন্ত চলছে। তদন্তে আসল তথ্য বেরিয়ে আসবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন। বুধবার (২৬ জুন) দুপুরে খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ লাইনে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

এ সময় তিনি আরও বলেন, পুলিশ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের সঙ্গে সাংবাদিকদের বৈঠক হয়েছে, আশা করি বিষয়টি আলোচনার মধ্যদিয়েই নিরসন হবে।

পরিমণি কাণ্ডে সাংবাদিকদের প্রশ্নে আইজিপি বলেন, যে কোনো অনৈতিক কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ পুলিশ জিরোটলারেন্স নীতি অনুসরণ করে। যে অভিযোগ পাওয়া গেছে, অভিযোগটি প্রমাণ হওয়ায় কারণেই সাকলাইনকে বাধ্যতামূলক অবসর দেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ পুলিশ জনগণের কল্যাণে কাজ করে। পুলিশের ইউনিট প্রত্যন্ত অঞ্চলে ছিটিয়ে থাকে। পুলিশের থানা প্রতিষ্ঠার পর থেকে কখনও তালা লাগানো থাকে না। সব সময় থানার দরজা খোলা থাকে, মানুষ সেখানে আসে। মানুষের সমস্যা শোনার জন্য আমরা প্রস্তত থাকি। সব ধরনের অপরাধের বিরুদ্ধে আমরা প্রস্তুত আছি। বিল্ডিং এবং জনবল বাড়বে এটা আমাদের সৌন্দর্য্য বৃদ্ধির জন্য নয়, জনসেবার মধ্যদিয়েই ঋণ পরিশোধ করতে চাই।

এর আগে তিনি চারতলা অস্ত্রাগার ভবন, ছয়তলা মাল্টিপারপাস ভবন ও বৈদ্যুতিক উপকেন্দ্রের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। এছাড়া বড় বয়রা পুলিশ ফাঁড়ি ও মাল্টিপারপাস শেড উদ্বোধন করেন।

পরে তিনি পুলিশ কমিশনারের কার্যালয়ে পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে আইন শৃংখলা সংক্রান্ত মতবিনিময় সভায় যোগ দেন। এ সময় খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনারসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

নিউজ ট্যাগ: খুলনা

আরও খবর



রাবিতে হল বন্ধের ঘোষণার প্রতিবাদে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

প্রকাশিত:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আসিক আদনান, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

Image

কোটা সংস্কারের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন ঘিরে মঙ্গলবার সারাদেশে ব্যাপক সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ে। এতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করে আজ দুপুর ১২টার মধ্যে হল ত্যাগের ঘোষণা দেন বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

এদিকে হল বন্ধের ঘোষণার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে বিক্ষোভ সমাবেশ করেন সাধারণ শিক্ষার্থীরারা।

বুধবার (১৭ জুলাই) বেলা সাড়ে ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ হবিবুর রহমান মাঠে শিক্ষার্থীরা জড়ো হয়ে বিক্ষোভ সমাবেশ শুরু করেন। এসময় শহীদ হবিবুর রহমান হলের প্রথম ব্লকের দ্বিতীয় ও তৃতীয় তলায় গিয়ে ছাত্রলীগের বেশ কয়েকটি রুমে ভাংচুর চালান শিক্ষার্থীরা এবং সেখানে রুমে থাকা বিছানাপত্র বাহির ফেলে অগ্নিসংযোগ ঘটান তারা। পরে তারা বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে মেয়েদের হলগুলোর দিকে যান।

হল প্রহরীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, শহীদ হবিবুর রহমান হলে যেসব রুমগুলোতে ভাংচুর চালান শিক্ষার্থীরা এর আগে গতকাল সেসব রুমগুলোতে কোটা আন্দোলনকারী সাধারণ শিক্ষার্থীদেরকে তাদের রুমে মারধর করেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এরই প্রতিবাদে শিক্ষার্থীরা আজ ছাত্রলীগের এ রুমগুলোতে ভাংচুর চালান ও তাদের জিনিসপত্রে বাহিরে ফেলে অগ্নিসংযোগ করেন শিক্ষার্থীরা।

এর আগে, শিক্ষার্থীদের হল ত্যাগ না করতে বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা জুরে মাইকিং করেন শিক্ষার্থীরা। এসময় তারা সকল শিক্ষার্থীদেরকে একত্রিত হওয়ার জন্য আহবান জানান।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. আসাবুল হক বলেন, শিক্ষার্থীরা আবারও বিক্ষোভ সমাবেশ করছে। আমরা তাদেরকে অনুরোধ করবো তারা যেন শান্তিপূর্ণভাবে সমাবেশ করেন। রাষ্ট্র্রীয় সম্পদে যেন ক্ষয়ক্ষতি না করে। আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করেছি।


আরও খবর
আরও ৩ দিনের এইচএসসি পরীক্ষা স্থগিত

বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪




জনদুর্ভোগ তৈরি থেকে বিরত থাকুন: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ১০ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১০ জুলাই ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

সর্বোচ্চ আদালতের আদেশে ২০১৮ সালে কোটা বাতিল-সংক্রান্ত সরকারের পরিপত্র বলবৎ আছে উল্লেখ করে জনদুর্ভোগ তৈরি থেকে আন্দোলনকারীদের বিরত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ আলী আরাফাত।

আজ বুধবার দুপুরে নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে এ আহ্বান জানান প্রতিমন্ত্রী।

নিজ ফেসবুক পেজে প্রতিমন্ত্রী বলেন, সর্বোচ্চ আদালত শুধু স্থিতাবস্থার আদেশ দেননি। শুধু স্থিতাবস্থার আদেশ দিলে কোটা বিষয়ে সরকারের পরিপত্র বাতিল করে উচ্চ আদালত যে রায় দিয়েছিল সেটি বলবৎ থাকত।

তিনি বলেন, খেয়াল করতে হবে, সর্বোচ্চ আদালত কোটার বিষয়ে সংশ্লিষ্ট পক্ষগুলোকে স্থিতাবস্থা বজায় রাখতে আদেশ দিয়েছেন। অর্থাৎ কোটা বিষয়ে সরকারের জারি করা পরিপত্র এখন আবার বলবৎ হলো। ফলে এ মুহূর্তে জনদুর্ভোগ তৈরি হয়, এ ধরনের কার্যক্রম থেকে বিরত থাকা উচিত।


আরও খবর
মেট্রোরেল চলাচল পুরোপুরি বন্ধ

বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪