আজঃ বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১
শিরোনাম

‘বিলুপ্তপ্রায় দেশীয় মাছের চাষ প্রযুক্তি সম্প্রসারণ করছে সরকার’

প্রকাশিত:বুধবার ১৮ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৮ আগস্ট ২০২১ | ২৭৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
মাছ চাষ সম্প্রসারণের মাধ্যমে বেকারত্ব দূর হচ্ছে, উদ্যোক্তা তৈরি হচ্ছে, গ্রামীণ অর্থনীতির চাকা সচল হচ্ছে। করোনাকালে গ্রামাঞ্চলে অর্থনৈতিক বিপর্যয়ের হাত থেকে রক্ষা পেতে মৎস্য চাষের বিকল্প নেই। অপরদিকে করোনা থেকে রক্ষা পেতে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানো প্রয়োজন

বিলুপ্তপ্রায় দেশীয় প্রজাতির মাছের চাষ প্রযুক্তি সম্প্রসারণে সরকার কাজ করছে বলে জানিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম এমপি।

বুধবার (১৮ আগস্ট) বরিশালের কাশিপুরে বরিশাল বিভাগীয় মৎস্য দপ্তরের সম্মেলন কক্ষে ইউনিয়ন পর্যায়ে মৎস্য চাষ প্রযুক্তি সেবা সম্প্রসারণ প্রকল্পের বরিশাল বিভাগের ২০২০-২১ অর্থবছরের মূল্যায়ন ও অগ্রগতি পর্যালোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা জানান।

এ সময় মন্ত্রী আরো বলেন, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট ইতোমধ্যে গবেষণার মাধ্যমে বিলুপ্ত হতে যাওয়া দেশীয় ৩০ প্রজাতির মাছের প্রজনন কৌশল ও চাষ প্রযুক্তি উদ্ভাবন করেছে। মৎস্য অধিদপ্তরের মাধ্যমে বিলুপ্তপ্রায় মাছের চাষ প্রযুক্তি আমরা সারা দেশে ছড়িয়ে দিচ্ছি। ফলে দেশীয় মাছ আবার বাঙালির পাতে ফিরে আসছে। ইউনিয়ন পর্যায়ে মৎস্য চাষ প্রযুক্তি সেবা সম্প্রসারণ প্রকল্পের মাধ্যমে একেবারে মাঠ পর্যায়ে মাছ চাষের আধুনিক কৌশল ও পদ্ধতি সম্প্রসারণ করা হচ্ছে। এভাবে মাছ চাষে একটা বৈপ্লবিক পরিবর্তন সাধিত হচ্ছে। 

শ ম রেজাউল করিম আরো বলেন, মাছ চাষ সম্প্রসারণের মাধ্যমে বেকারত্ব দূর হচ্ছে, উদ্যোক্তা তৈরি হচ্ছে, গ্রামীণ অর্থনীতির চাকা সচল হচ্ছে। করোনাকালে গ্রামাঞ্চলে অর্থনৈতিক বিপর্যয়ের হাত থেকে রক্ষা পেতে মৎস্য চাষের বিকল্প নেই। অপরদিকে করোনা থেকে রক্ষা পেতে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানো প্রয়োজন। এক্ষেত্রে মাছ, মাংস, দুধ, ডিম পুষ্টি চাহিদা পূরণ ও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে ব্যাপক ভূমিকা রাখছে।

এ সময় মন্ত্রী আরো বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বিচারহীনতার সংস্কৃতি থেকে বাংলাদেশ বেরিয়ে এসেছে। তিনি বঙ্গবন্ধুর হত্যাকান্ড, জেল হত্যাকান্ডসহ আলোচিত বিভিন্ন হত্যাকান্ডের বিচার করেছেন, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করেছেন। শেখ হাসিনা সরকার প্রমাণ করেছে কেউ আইনের উর্ধ্বে নয়।

বরিশালের বিভাগীয় কমিশনার মোঃ সাইফুল হাসান বাদলের সভাপতিত্বে বরিশালের জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দার, বিভাগীয় মৎস্য দপ্তরের উপপরিচালক আনিছুর রহমান তালুকদার, জেলা মৎস্য কর্মকর্তা, বরিশাল মোঃ আসাদুজ্জামান, ইউনিয়ন পর্যায়ে মৎস্য চাষ প্রযুক্তি সেবা সম্প্রসারণ প্রকল্পের পরিচালক মোঃ হাবিবুর রহমানসহ মৎস্য অধিদপ্তরের বরিশাল বিভাগে কর্মরত কর্মকর্তাগণ সভায় উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর
কিশোর গ্যাং নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নতুনভাবে ভাবতে হবে

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




এবার পরীমণিকে নিয়ে মুখ খুললেন নচিকেতা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৮৮০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মাদকের মামলায় প্রায় এক মাস কারাগারে ছিলেন ঢাকাই সিনেমার আলোচিত চিত্রনায়িকা পরীমনি। গত ১ সেপ্টেম্বর সকালে জামিনে কারামুক্ত হয়ে বাসায় ফিরেন তিনি। কারামুক্তির পর পরীমনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে দুই বাংলার জনপ্রিয় শিল্পী নচিকেতা চক্রবর্তীর এত সাহস কার গানটি শেয়ার করে ক্যাপশনে লিখেন-নিজের উপর বিশ্বাস রাখুন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের কাছ থেকে বিষয়টি জানার পর নচিকেতা বলেন, ব্যক্তিগতভাবে পরীমনিকে আমার ভালো লাগে। ভীষণ সাহসী। যেটা বলা উচিত সেটা সবার সামনে বলার ক্ষমতা রাখেন। তার দেশের পুঁজিবাদের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন। যা খুব সহজ নয়। যা করছেন বেশ করছেন।

নচিকেতা আরো বলেছেন, আমি জানি পরীমনি আমার গান শোনেন। পছন্দও করেন। আমি ওর অনুপ্রেরণা জেনে ভালো লাগছে। সবার বোঝা উচিত, অভিনেত্রীরওনা বলার অধিকার আছে। সেইনা উচ্চারণ করেই তিনি আজ এত বিপাকে। এটা ওর দোষ নয়। সমাজের দোষ। একই সঙ্গে তিনি দুষেছেন গণমাধ্যমকেও।

নচিকেতার অভিযোগ, সমাজের মতোই এক চক্ষু সংবাদমাধ্যমও। কেচ্ছার গন্ধ পেয়ে নড়ে বসেছে। অভিনেত্রীর হয়ে কজন মুখ খুলছে? নচিকেতার আরও আক্ষেপ, সমাজের এই ধারা সব জায়গাতেই সমান। শুধু বাংলাদেশ নয়, ভারতের ছবিও এক।

পরীমনিকে নচিকেতা তার খোলা বার্তায় আরও জানান, আপনাকে পূর্ণ সমর্থন জানাই। সব সময় পাশে আছি।



আরও খবর
হাইকোর্টে জামিন পেলেন মডেল মৌ

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

আমার পছন্দের পুরুষকে একটু রাফ হতে হবে

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




পিরোজপুরে অস্ত্র মামলায় যুবকের ১৭ বছর সশ্রম কারাদন্ড

প্রকাশিত:বুধবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ২২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পিরোজপুরের ভান্ডারিয়ার একটি অস্ত্র মামলায় মো: মন্টু কবিরাজ (৩৮) নামের এক যুবকের ১৭ বছরের সশ্রম কারাদন্ড দিয়েছে পিরোজপুরের একটি আদালত।

বুধবার দুপুরে পিরোজপুর আদালতের স্পেশাল ট্রাইব্যুনাল নং-২ এর বিচারক এস,এম, নূরুল ইসলাম এ রায় প্রদান করেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০১৫ সালের ১৬ জুন  ঝালকাঠি জেলার কাঠালিয়া থানার একটি ডাকাতি মামলায়  আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সদস্য নিজ ভান্ডিারিয়া এলাকার আজাহার কবিরাজের ছেলে মো: মন্টু কবিরাজকে গ্রেফতার করেন ভান্ডারিয়া থানার এস আই মো: আ: হক। পরে তার দেয়া তথ্যে অভিযান চালিয়ে মন্টুর বসত ঘরের সামনে লাকড়ির ঘর থেকে একটি দেশী তৈরী পাইপগান ও ৩ রাউন্ড বন্দুকের গুলি উদ্ধার করা হয়।

পরবর্তীতে পিরোজপুর আদালতে এস.টি.সি -২১/২০১৫ নম্বরের একটি মামলা হয়। মামলায় মন্টু কবিরজের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সন্দেহাতীত ভাবে প্রমাণিত হওয়ায়  ১৮৭৮ সালের অস্ত্র আইনের ১৯(এফ) ধারায় ০৭ (সাত) বছর সশ্রম কারাদন্ড এবং  ১৯এ ধারার ১০ (দশ) বছর সশ্রম কারাদন্ডে দন্ডিত করা হয়। রায়ে আরোও বর্ণিত হয় উভয় ধারার দন্ড একের পর এক কার্যকর হবে। সাথে সাথে বিচারক আসামীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানাইস্যুর নির্দেশ দেন। আসামী মন্টু কবিরাজ ২০১৭ সালের ১২ অক্টোবর থেকে পলাতক আছে বলে কোর্ট সূত্রে জানা গেছে।

নিউজ ট্যাগ: পিরোজপুর

আরও খবর



১৮ মাস পর আজ খুলছে স্কুল-কলেজ

প্রকাশিত:রবিবার ১২ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১২ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৬২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনা পরিস্থিতিতে প্রায় ১৮ মাস বন্ধ থাকার পর আজ রবিবার থেকে বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়া দেশের অন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো খুলেছে। আর, মেডিকেল কলেজগুলো আগামীকাল খুলবে।

সম্ভাবনা ও শঙ্কার মধ্য দিয়ে আজ রবিবার থেকে প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শ্রেণিকক্ষে পাঠদান শুরু হয়েছে।

তবে, গতকাল শনিবার দুপুরে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি সাংবাদিকদের বলেছেন, করোনা সংক্রমণ কমে আসায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হয়েছে। তবে, সংক্রমণ বেড়ে গেলে আবারও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের সিদ্বান্ত নেওয়া হতে পারে। এর আগে একই ধরনের বার্তা দিয়েছিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রীও।

এদিকে, করোনার মধ্যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলায় শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ে বসে টিফিন খেতে পারবে না বলে জানিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি)। প্রতিষ্ঠানটির মহাপরিচালক ড. সৈয়দ মোহাম্মদ গোলাম ফারুক আরও বলেছেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের আবাসিক শিক্ষার্থীদের হোস্টেল চালানোর জন্যও ১৪টি নির্দেশনা জারি করা হয়েছে। সেগুলো মেনেই হোস্টেল পরিচালনা করতে হবে।

গত ৫ সেপ্টেম্বর শিক্ষামন্ত্রীর সভাপতিত্বে মন্ত্রিপরিষদের উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় দেশে করোনার সংক্রমণ দ্রুত কমে যাচ্ছে। জুলাই মাসের তুলনায় সংক্রমণ ৭০ শতাংশ কমেছে। এ অবস্থায় ১২ সেপ্টেম্বর থেকে প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শ্রেণিকক্ষে পাঠদান শুরু হবে। প্রথম দিন চার-পাঁচ ঘণ্টা ক্লাস হবে। পর্যায়ক্রমে এই ক্লাসের সংখ্যা বাড়বে। শ্রেণিকক্ষে পাঠদানকালে শিক্ষার্থী-শিক্ষকসহ সবাইকে মাস্ক পরিধান করতে হবে।

পরে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি) এবং প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর (ডিপিই) থেকে আলাদাভাবে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করে পাঠদান কার্যক্রম পরিচালনাসহ বেশ কিছু সতর্কতা ও সচেতনতামূলক নির্দেশনা জারি করা হয়েছে।


আরও খবর



বাল্যবিয়ের শিকার হয়েছে ৩০ শতাংশ মেয়েশিক্ষার্থী

প্রকাশিত:সোমবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০21 | হালনাগাদ:সোমবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০21 | ৩২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনা মহামারীর দীর্ঘ ৫৪৩ দিন পর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান চালু হলেও বহু শিক্ষার্থী আর বিদ্যালয়মুখী হবে না। দেড় বছর স্কুল বন্ধ থাকায় উপজেলার মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও মাদ্রাসার ৩০ শতাংশ মেয়েশিক্ষার্থী ঝরে পড়েছে। এদের একটি বড় অংশ বাল্যবিয়ের শিকার হয়েছে।

দৌলতখান উপজেলার শতবর্ষী সুকদেব মদন মোহন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অর্ধশতাধিক ছাত্রীর করোনাকালীন বাল্যবিয়ে হয়ে গেছে। সেই সঙ্গে ছেলেশিক্ষার্থীদের ঝরে পড়ার হারও কম নয়।

ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নাজমুল হোসেন হারুন বলেন, বর্তমানে স্কুলে ৭০ শতাংশ শিক্ষার্থী উপস্থিত রয়েছে। অনুপস্থিত ছাত্রীর সংখ্যা ৫০। অনুপস্থিত ছাত্রীদের এ সংখ্যা মোট মেয়েশিক্ষার্থীর ৩০ শতাংশ। শোনা যাচ্ছে, করোনাকালে এদের সবার বাল্যবিয়ে হয়ে গেছে। অনুপস্থিত ছাত্রদের অধিকাংশই দরিদ্র পরিবারের। পড়ালেখা ছেড়ে তারা উপার্জনমুখী বিভিন্ন কাজে যোগ দিয়েছে। ঝরে পড়া শিক্ষার্থীদের খোঁজখবর নিতে ইতোমধ্যে আমরা কাজ শুরু করেছি।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, করোনার কারণে টানা ১৮ মাস শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় এখানকার নিম্নআয়ের দরিদ্র অভিভাবকরা তাদের ছেলেদের নদীতে মাছ ধরা, দিনমজুর, ইটভাটার শ্রমিক, দোকান কর্মচারী ও হোটেল-রেস্তোরাঁয় কাজে দিয়েছেন। উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ঝরে পড়াদের মধ্যে জেলে পরিবারের সন্তানরাই বেশি।

উপজেলার বৃহত্তম শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আজহার আলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এমএ তাহের বলেন, গত দেড় বছরে তার বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণি থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত শতাধিক ছাত্রীর গোপনে বাল্যবিয়ে হয়ে গেছে।

করোনাকালে দীর্ঘদিন শ্রেণি কার্যক্রম বন্ধ থাকায় কিছু শিক্ষার্থী ছোটখাটো চাকরি ও ব্যবসায় যোগ দিয়েছে।

উপজেলার অন্যান্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মধ্যে হাজিপুর সিনিয়র মাদ্রাসা, জয়নগর মাধ্যমিক বিদ্যালয়, খাদিজা খানম মাধ্যমিক বিদ্যালয়, জয়নাল আবেদীন ল্যাবরেটরি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, চরপাতা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ক্ষেত্রেও ঝরে পড়া ও বাল্যবিয়ের একই তথ্য পাওয়া গেছে।

তবে উপজেলার দুটি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকগণ জানান, ওই দুই বিদ্যালয়ে ঝরে পড়ার কোনো তথ্য নেই। 


আরও খবর
কিশোর গ্যাং নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নতুনভাবে ভাবতে হবে

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




রামেকে কমছে মৃত্যু, করোনা ইউনিটে অর্ধেক শয্যা খালি

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৬ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৬ আগস্ট ২০২১ | ৫৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

এদিকে হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন ইউনিটের অর্ধেক শয্যা খালি পড়ে রয়েছে। ৪১৮ শয্যার এই ইউনিটে রোগী ভর্তি রয়েছেন ১৯০ জন। রোগী কমতে শুরু করায় গত ২৩ আগস্ট ৪৯ শয্যার ৪ নম্বর এবং ৪৬ শয্যার ১ নম্বর ওয়ার্ড বন্ধ করে দেয় কর্তৃপক্ষ। হাসপাতালের ১২টি ওয়ার্ডের অর্ধেক শয্যায় রোগী নেই। ২০ শয্যার নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে রোগী ভর্তি রয়েছেন ১৮ জন।

রাজশাহী মেজিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমণে রাজশাহী, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, নাটোর ও নওগাঁর একজন করে প্রাণ হারিয়েছেন।

এ ছাড়া করোনা সংক্রমণের উপসর্গ নিয়ে নাটোরের একজন এবং করোনা নেগেটিভ সত্ত্বেও অন্যান্য শারীরিক জটিলতায় চাঁপাইনবাবগঞ্জের একজন মারা গেছেন। স্বাস্থ্যবিধি মেনে মরদেহ দাফনের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ তিনজন মারা গেছেন হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে (আইসিইউ)। এ ছাড়া ২৯/৩০ নম্বর ওয়ার্ডে দুজন এবং ২২ নম্বর ওয়ার্ডে একজন মারা গেছেন।

পরিচালক আরও জানান, বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা পর্যন্ত ৪১৮ শয্যার রামেক করোনা আইসোলেশন ইউনিটে রোগী ভর্তি ছিলেন ১৯০ জন। এক দিন আগেও এই সংখ্যা ছিল ২০৯ জন।

বর্তমানে রাজশাহীর ৯৯ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের ২২ জন, নাটোরের ২২ জন, নওগাঁর ১৩ জন, পাবনার ১৭ জন, কুষ্টিয়ার ১১ জন, জয়পুরহাটের তিনজন, চুয়াডাঙ্গার একজন এবং মেহেরপুরের একজন হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।



আরও খবর
পায়রা সেতুর নাম পরিবর্তনের দাবিতে মানববন্ধন

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

বিস্কুটের কার্টন থেকে নবজাতক উদ্ধার

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১