আজঃ মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম

এবার প্রকাশ্যে ডেনমার্কের প্রধানমন্ত্রীর ওপর হামলা

প্রকাশিত:শনিবার ০৮ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ০৮ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

ডেনমার্কের প্রধানমন্ত্রী মেটে ফ্রেডেরিকসেন রাজধানীর ব্যস্ত স্থানে প্রকাশ্যে হামলার শিকার হয়েছেন। স্থানীয় সময় শুক্রবার (৭ জুন) কোপেনহেগেনে এক ব্যক্তি এই হামলা চালায় বলে তার কার্যালয় জানিয়েছে।

জানা গেছে, সন্ধ্যায় কোপেনহেগেনের কুলতোরভেটে (পাবলিক স্কয়ার) প্রধানমন্ত্রী মেটে ফ্রেডেরিকসেনকে এক ব্যক্তি সজোরে ধাক্কা মারেন। পরে ওই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়।

মেটে ফ্রেডেরিকসেন হামলার ঘটনায় হতবাক’ হয়ে পড়েছেন। শহরের কেন্দ্রস্থলে একটি চত্বরে এমন হামলা ভীতিকর পরিবেশ সৃষ্টি করে। ইউরোপীয় কমিশনের প্রধান উরসুলা ভন ডার লেইন এটিকে ঘৃণ্য কাজ’ বলে অভিহিত করেছেন।

দেশটির পুলিশ জানিয়েছে, তারা একজনকে গ্রেপ্তার করেছে এবং ঘটনাটি তদন্ত করছে। তবে এর বেশি কিছু বলতে রাজি হয়নি। হামলার কারণ সম্পর্কে এখনও কিছু জানা যায়নি।

দুই প্রত্যক্ষদর্শী ম্যারি আদ্রিয়ান ও আনা রাভন স্থানীয় সংবাদপত্র বিটিকে বলেছেন, তারা হামলাটি প্রত্যক্ষ করেছেন। বিপরীত দিক থেকে এক ব্যক্তি এসে প্রধানমন্ত্রীর কাঁধে জোরে একটা ধাক্কা দেয়। যার ফলে সে পাশে পড়ে যায়। এটি একটি শক্তিশালী ধাক্কা’ হলেও প্রধানমন্ত্রী মাটিতে পড়ে যাননি।

হামলার পর দেশটির পরিবেশমন্ত্রী ম্যাগনাস হিউনিক বলেন, রাজনৈতিক মতবিরোধ, নির্বাচনী প্রচারণা যাই হোক না কেন, একে অপরের দেখাশোনা করা প্রত্যেকের দায়িত্ব। আমাদের সুন্দর, নিরাপদ এবং মুক্ত দেশে এ ধরনের কিছু ঘটতে পারে না। এটি কুৎসিত এবং অগ্রহণযোগ্য। আসুন আমরা দেখাই যে, ডেনমার্ক অনেক ভালো।

ডেনমার্কের মধ্য-বামপন্থী সোশ্যালিস্ট ডেমোক্রেটিক পার্টির নেতা ফ্রেডেরিকসেন ২০১৯ সাল থেকে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন।


আরও খবর
আজ নেলসন ম্যান্ডেলার জন্মদিন!

বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪




সায়েন্সল্যাব মোড় অবরোধ করে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ, যান চলাচল বন্ধ

প্রকাশিত:রবিবার ০৭ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ০৭ জুলাই ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

সরকারি চাকরিতে কোটা পদ্ধতি বাতিল ও মেধাভিত্তিক নিয়োগের পরিপত্র বহাল রাখার দাবিতে রাজধানীর সায়েন্স ল্যাবরেটরি মোড়ে সড়ক অবরোধ করেছেন ঢাকা কলেজ ও এর আশেপাশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা।

রোববার (৭ জুলাই) দুপুর ১টা ৪০ মিনিটের দিকে নীলক্ষেত থেকে মিছিল নিয়ে সায়েন্স ল্যাবরেটরি মোড়ে অবস্থান নেন তারা। এর ফলে সড়কে যানচলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এতে দুর্ভোগে পড়েন যাত্রীরা।

ধানমন্ডি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পারভেজ ইসলাম বলেন, আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ করেছেন। ওই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এর আগে শনিবার কোটা পদ্ধতি বাতিল ও ২০১৮ সালের মেধাভিত্তিক নিয়োগের সরকারি পরিপত্র বহালের দাবিতে রাজধানীর শাহবাগ মোড় অবরোধকালে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা রোববার বিকাল ৩টায় সারাদেশে বাংলা ব্লকেড কর্মসূচি ঘোষণা করেন।


আরও খবর
মেট্রোরেল চলাচল পুরোপুরি বন্ধ

বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪




হজ শেষে দেশে ফিরেছেন ২৭ হাজার হাজি

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৮ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৮ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

সৌদি আরবে পবিত্র হজ পালন শেষে ২৬ হাজার ৯০৯ হাজি দেশে ফিরেছেন। তারা ৬১টি ফ্লাইটে দেশে এসেছেন। হজ করতে গিয়ে সৌদিতে এখন পর্যন্ত ৫৩ জন বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। 

শুক্রবার (২৮ জুন) ধর্ম মন্ত্রণালয়ের হজবিষয়ক প্রতিদিনের বুলেটিন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা যায়, এ বছর হজ পালন করতে গিয়ে যে ৫৩ জন মারা গেছেন, তাদের মধ্যে ৪০ জন পুরুষ ও ১৩ জন নারী। এর মধ্যে মক্কায় ৪২ জন, মদিনায় চারজন, মিনায় ছয়জন এবং জেদ্দায় একজন মারা গেছেন। সর্বশেষ গত বৃহস্পতিবারও (২৭ জুন) মো. হারুনুর রশীদ নামে একজন মারা যান। তিনি নরসিংদীর মনোহরদী উপজেলার বাসিন্দা। 

এ বছর হজ করতে বাংলাদেশ থেকে ২১৮ ফ্লাইটে ৮৫ হাজার ২৫৭ জন সৌদি আরব গেছেন। প্রথম হজ ফ্লাইট ছিল ৯ মে এবং সর্বশেষ ফ্লাইট ছিল ১২ জুন।

গত ১৫ জুলাই পবিত্র হজের প্রধান কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়। হজ শেষে ২০ জুন থেকে দেশে ফেরার ফ্লাইট শুরু হয়। ফেরার ফ্লাইট চলবে আগামী ২২ জুলাই পর্যন্ত।


আরও খবর
মেট্রোরেল চলাচল পুরোপুরি বন্ধ

বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪




নিঃসন্তান দম্পতিরা অসহায়, সেবা নিতে নিঃস্ব হচ্ছেন অনেকে

প্রকাশিত:সোমবার ০৮ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ০৮ জুলাই ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
স্বাস্থ্য ডেস্ক

Image

বন্ধ্যত্বের সমস্যার সম্মুখীন নিঃসন্তান দম্পতিদের জন্য সর্বাধুনিক চিকিৎসা হলো-ইন ভিট্রো ফার্টিলাইজেশন বা আইভিএফ পদ্ধতি। দেশে দুই যুগের বেশি আগে এই চিকিৎসা চালু হলেও সরকারি ব্যবস্থাপনায় পরিধি বাড়ানোর কোনো উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। এর দায়িত্বে থাকা স্বাস্থ্য বিভাগ একরকম হাতগুটিয়েই বসে আছে। সরকারি হাসপাতালগুলোতে এর উপযুক্ত চিকিৎসাব্যবস্থা না থাকায় সেবাবঞ্চিত হচ্ছেন দেশের অসংখ্য অসহায় নিঃসন্তান দম্পতি। কোনো উপায় না পেয়ে বাধ্য হয়ে তারা বেসরকারি হাসপাতাল ও বিদেশের হাসপাতালের শরণাপন্ন হচ্ছেন। এভাবে ব্যয়বহুল এই সেবা নিতে গিয়ে নিঃস্ব হচ্ছেন অনেকে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্য অনুযায়ী, সন্তান ধারণের চেষ্টার পর টানা এক বছর কেউ সফল হতে না পারলে তাকে ইনফার্টাইল বা সন্তান ধারণে অক্ষম হিসাবে গণ্য করা হয়। নিঃসন্তান দম্পতিদের মধ্যে ৪০ শতাংশ ক্ষেত্রে স্ত্রী ও একই সংখ্যক স্বামীদের শারীরিক নানা সমস্যা থাকে। ১০ শতাংশ ক্ষেত্রে দুজনেরই সমস্যা থাকে। বাকি ১০ শতাংশ ক্ষেত্রে সমস্যা অজানাই রয়ে যায়।

বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) আর্থসামাজিক ও জনমিতি জরিপ ২০২৩ অনুযায়ী দেশের ৬৫ শতাংশ জনগোষ্ঠী বিবাহিত। বিশেষজ্ঞদের অনুমিত হিসাব অনুযায়ী বিবাহিতদের মধ্যে বর্তমানে বন্ধ্যত্বের হার ২০ শতাংশের উপরে। যদিও নিঃসন্তান দম্পতিদের সঠিক পরিসংখ্যান নেই। দিন যত যাচ্ছে এই সংখ্যা ক্রমেই বাড়ছে। ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, দেশে ৩৭টি সরকারি ও ৬৭টি বেসরকারি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল রয়েছে। এছাড়াও প্রায় ছয় হাজার বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিক রয়েছে। যেখানে প্রজনন স্বাস্থ্যসংক্রান্ত চিকিৎসাব্যবস্থা কমবেশি থাকলেও নিঃসন্তান দম্পতিদের জন্য আইভিএফ চিকিৎসাসেবা একেবারেই অপ্রতুল। শুধুমাত্র রাজধানীর কয়েকটি বড় বেসরকারি হাসপাতাল-ক্লিনিকে ইনফার্টিলিটি বিভাগ রয়েছে। সব মিলিয়ে দেশে ৪০ জনের মতো বিশেষজ্ঞ আছেন। এশিয়া ইনিশিয়েটিভ প্যাসিফিক অন রিপ্রোডাকশনের তথ্য বলছে, চাহিদার তুলনায় অপ্রতুল চিকিৎসাব্যবস্থা, সীমাহীন ভোগান্তি আর আস্থার সংকটে ভুক্তভোগীরা বিদেশে ছুটছেন। সেখানে ৪ থেকে ৫ গুণ বেশি টাকা খরচ করছেন। এতে সহজেই চলে যাচ্ছে দেশের অর্থ। জানা গেছে, দেশে বেসরকারি সেন্টারভেদে আইভিএফ চিকিৎসা নিতে খরচ হয় গড়ে সাড়ে ছয় লাখ টাকা। কিন্তু এ পদ্ধতিতে যাওয়ার আগেই ভুল পথে হেঁটে নানাভাবে হয়রানির শিকার হয়ে একেক দম্পতির দুই লাখ থেকে ৫০ লাখ টাকা পর্যন্ত ব্যয় হয়ে যায়। সরকারি হাসপাতালে প্রয়োজনীয় জনবল ও আনুষঙ্গিক সুযোগ সুবিধা না থাকায় ব্যয় অপেক্ষাকৃত কম হলেও সফলতার হার কম। দেশে বন্ধ্যাত্বের চিকিৎসা সাধারণত তিন ধাপে দেওয়া হয়। প্রথমত; মেডিকেশন বা প্রাইমারি, এ ধাপে হরমোনাল ইনজেকশন ও ওষুধ প্রয়োগের মাধ্যমে গর্ভধারণের চেষ্টা করা হয়। দ্বিতীয় ধাপ হলো-ইন্ট্রা ইউটেরাইন ইনসেমিনেশন (আইইউআই), এ প্রক্রিয়ায় ল্যাপরোস্কোপিক সার্জারির মাধ্যমে ওভারিয়ান ব্রিডিং করানো হয়। আইইউআই পদ্ধতিতে স্বামীর বীর্যে শুক্রাণুর পরিমাণ কম বা নিষ্ক্রিয় থাকলে শুক্রাণু সংগ্রহ করে বিশেষ প্রক্রিয়ায় সক্রিয় করে স্ত্রীর গর্ভে স্থাপন করা হয়।

টারশিয়ারি বা তৃতীয় ধাপ হলো-বন্ধ্যাত্বের সর্বাধুনিক চিকিৎসা আইভিএফ। বন্ধ্যাত্ব নিয়েও নারীর মাতৃত্বের বাসনা পূর্ণ করার সুযোগ রয়েছে আইভিএফের মাধ্যমে। এটি অপেক্ষাকৃত নিরাপদ ও সহজ পদ্ধতি। অনেকে আইভিএফকে টেস্টটিউব পদ্ধতি বলে থাকেন। আইভিএফ মাধ্যমে স্বামী থেকে নেওয়া শুক্রাণুর সঙ্গে ল্যাবরেটরিতে ডিম্বাণুর ফার্টিলাইজেশন করা হয় ও উপযুক্ত সময়ে সেটি স্ত্রীর গর্ভে স্থাপন করা হয়।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, দেশে ১৯৯৮ সাল থেকে আইভিএফ সেবা শুরু হয়েছে। কিন্তু সরকারের স্বাস্থ্য বিভাগ এ সেবার কলেবর বাড়াতে পারছে না। আইভিএফ চিকিৎসায় ২০টি সেন্টার স্থাপিত হলেও সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত সেন্টার মাত্র তিনটি। সরকারিভাবে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল স্থাপিত আইভিএফ সেন্টারের মাধ্যমে মাত্র একটি শিশু আলোর মুখ দেখতে সক্ষম হয়েছে। এ বিষয়ে কথা বলতে ঢামেকের আইভিএফ সেন্টারের তত্ত্বাবধায়ক অধ্যাপক ডা. ফাতেমা পারভিনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও তিনি ব্যস্ততার অজুহাতে কথা বলতে অস্বীকৃতি জানান। স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে আইভিএফ সেন্টার চালু হলেও মাত্র একজন নারীর গর্ভধারণের খবর নিশ্চিত করেছে। তবে সফলতার ক্ষেত্রে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতাল এক্ষেত্রে শীর্ষে রয়েছে। বন্ধ্যা দম্পতিদের চিকিৎসায় সরকারের পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের অধীনে রাজধানীতে পাঁচটি বিশেষায়িত হাসপাতাল রয়েছে। এগুলো হলো-মোহাম্মদপুর ইনফার্টিলিটি সার্ভিসেস অ্যান্ড ট্রেনিং সেন্টার, আজিমপুর মাতৃসদন ও শিশু স্বাস্থ্য প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান, মিরপুরে (লালকুঠি) মাতৃ ও শিশু স্বাস্থ্য প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান, শিশু-মাতৃ স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট (মাতুয়াইল) এবং শামসুননেছা আরজু মনি মা ও শিশু স্বাস্থ্যকেন্দ্র (হাজারীবাগ)। তবে এগুলোর কোনোটিতেই আইভিএফ চিকিৎসাসেবা নেই। বিশেষজ্ঞরা যুগান্তরকে বলছেন, দেশে ২০২২ সালে ২০টি সেন্টারে প্রায় চার হাজার দম্পতি এ পদ্ধতি গ্রহণ করায় প্রায় এক হাজার ৩০০ জন বাবা-মা হয়েছেন। যাদের স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় সন্তান লাভের সুযোগ ছিল না।

ভ্রুণতত্ত্ববিদ ও বাংলাদেশ ফার্টিলিটি হাসপাতালের চেয়ারম্যান ডা. এসএম খালিদুজ্জামান বলেন, দেশে অন্তত ১০ লাখ দম্পতি তথা ২০ লাখ নারী পুরুষের আইভিএফ পদ্ধতির প্রয়োজন। বর্তমানে দেশে ১০০ জনকে আইভিএফ চিকিৎসা দেওয়া হলে ৩৫ থেকে ৪০ শতাংশ সফল গর্ভধারণ হচ্ছে। গত দুই বছরে আমাদের হাসপাতালে আইভিএফ চিকিৎসা নিয়ে ৫০০ বেশি নারী গর্ভধারণ করেছেন, যেটা বাংলাদেশে একটি উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। তিনি আরও বলেন, সরকারি ল্যাবের সংখ্যা ও সেন্টার বাড়ানো গেলে সহজেই চিকিৎসা নিয়ে সন্তানের মুখ দেখার সুযোগ পেত। এজন্য স্বাস্থ্য বিভাগের আরও বেশি হস্তক্ষেপ দরকার।


আরও খবর
বাড়ছে ডেঙ্গু, শতাধিক নতুন রোগী শনাক্ত

বৃহস্পতিবার ১১ জুলাই ২০২৪




বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের দখলে প্রগতি সরণি

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

কমপ্লিট শাটডাউনের অংশ হিসেবে রাজধানীর প্রগতি সরণি বসুন্ধরা গেটের সামনে থেকে নদ্দা, নতুন বাজার পর্যন্ত কোটাবিরোধী আন্দোলন করছেন বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। নদ্দা বাস স্টেশনের সামনে কয়েকশ শিক্ষার্থী আন্দোলনে অংশ নিচ্ছেন। পুরো প্রগতি সরণি সড়ক দখলে নিয়েছেন তারা।

বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) বেলা ১১টার পর রাস্তা অবরোধ করে আন্দোলন করছেন শিক্ষার্থীরা।

সরেজমিনে দেখা যায়, নর্থ সাউথসহ কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা রাস্তা অবরোধ করে রেখেছেন। এ সময় যাতায়াতকারী সব যানবাহনের চলাচল বন্ধ রয়েছে। শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধের কারণে রাস্তায় অনেক যানবাহন আটকে আছে। আন্দোলন থেকে শিক্ষার্থীরা নানা স্লোগান দিয়ে যাচ্ছেন।

গতকাল রাজধানীর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও শনির আখড়ায় পুলিশের সাথে আন্দোলনকারীদের দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়। সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এতে তিনি বলেন, উচ্চ আদালত থেকে ছাত্রসমাজ ন্যায়বিচার পাবে এবং তাদের হতাশ হতে হবে না।

এরপর দেশে কমপ্লিট শাটডাউন কর্মসূচির ঘোষণা করে বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলন। কর্মসূচি অনুযায়ী, হাসপাতাল ও জরুরি সেবা প্রতিষ্ঠান ছাড়া সবকিছু বন্ধ থাকবে এবং রাস্তায় অ্যাম্বুলেন্স ছাড়া কোনো যানবাহন চলবে না বলে জানানো হয়।


আরও খবর



মাঝ আকাশে বিমানের উইন্ডশিল্ডে ফাটল, ঢাকায় জরুরি অবতরণ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

উড্ডয়নের পর বিমানের সামনের কাঁচে (উইন্ড শিল্ড) ফাটল দেখা দেওয়ায় ঢাকায় জরুরি অবতরণ করেছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইট। গতকাল সোমবার রাত ১০টার পর চট্টগ্রামের শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে আবুধাবির উদ্দেশ্যে রওনা করেছিল বিমানের বিজি-১২৭ ফ্লাইটটি।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গতকাল রাতে বিমানটি চট্টগ্রাম থেকে উড্ডয়নের পর এর উইন্ড শিল্ডে ফাটল দেখা দেয়। এ সময় পাইলট আবুধাবি না গিয়ে জরুরি অবতরণের সিদ্ধান্ত নেন। তবে অবতরণের আগে ফ্লাইটটি জ্বালানি কমাতে তিন ঘণ্টা নরসিংদীর আকাশে চক্কর দেয়। মূলত ঢাকা বিমানবন্দরের এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোল (এটিসি) টাওয়ার থেকে ফ্লাইটটিকে নরসিংদীর আকাশে চক্কর দেওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়।

বিমান চলাচল পর্যবেক্ষণকারী ওয়েবসাইট ফ্লাইট রাডারের তথ্য বলছে, ফ্লাইটটি রাত ১০টা চার মিনিটে চট্টগ্রাম থেকে আবুধাবির জন্য উড়াল দেয়। তবে ত্রুটির কারণে নরসিংদীর বেলাবো এলাকার আকাশে প্রায় ২৬-২৭ বার চক্কর দেয়।

বিমানের জেনারেল ম্যানেজার (জনসংযোগ) বুশরা ইসলাম গণমাধ্যমকে জানান, বিষয়টি তেমন সিরিয়াস নয়। জ্বালানি নিঃশেষ করতে উড়োজাহাজটিকে কয়েকবার চক্কর দিতে হয়েছে। যে উচ্চতায় প্লেনটি উড়েছে তা নিরাপদ ছিল।


আরও খবর