আজঃ বৃহস্পতিবার ০৯ ডিসেম্বর ২০২১
শিরোনাম

‘খালেদার জন্য বিদেশ থেকে ডাক্তার আনার সুযোগ রয়েছে’

প্রকাশিত:শনিবার ২০ নভেম্বর ২০21 | হালনাগাদ:শনিবার ২০ নভেম্বর ২০21 | ৫৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় বিএনপি যদি বিদেশ থেকে বড় বড় ডাক্তার আনতে চায়, আনতে পারে। সে ক্ষেত্রে সরকার কোনো বাধা দেবে না বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

শনিবার (২০ নভেম্বর) সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া পৌরসভা মিলনায়তনে ইউপি নির্বাচন উপলক্ষে আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় ভিডিও কনফারেন্সে তিনি এ কথা বলেন।

আইনমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর মানবিকতার দৃষ্টান্ত হিসেবে আইনে যা করা সম্ভব খালেদা জিয়ার জন্য তা করা হয়েছে। ভুলে গেলে চলবে না দেশের আদালত দ্বারা তিনি সাজাপ্রাপ্ত। একজন সাজাপ্রাপ্ত ব্যক্তিকে আইন দ্বারা যে সুবিধা দেওয়া দরকার তা দেওয়া হয়েছে। বিএনপিকে এটাও মনে রাখতে হবে দেশের আইনে যা আছে, তার বাইরে গিয়ে সরকার কিছু করবে না।

বর্ধিত সভায় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে মন্ত্রী আরও বলেন, ইউপি নির্বাচনে আখাউড়ায় কাউকে দলীয় প্রতীক নৌকা দেওয়া হবে না। যার যে পদে ইচ্ছা নির্বাচন করতে পারবে। তবে জনসমর্থনের ভিত্তিতে নির্বাচন করবেন। মনে রাখবেন ব্যক্তির চেয়ে দল বড়, দল থেকে দেশ বড়। জনগণ যাতে তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পারে তাই দলীয় প্রতীক ছাড়া নির্বাচন দেওয়া হয়েছে। নির্বাচনে কারচুপির কোনো সুযোগ দেওয়া হবে না। নির্বাচনকে কেন্দ্র কোনো বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক অধ্যক্ষ (অব.) মো. জয়নাল আবেদীনের সভাপতিত্বে বর্ধিত সভায় উপস্থিত ছিলেন, পৌর মেয়র তাকজিল খলিজা কাজল, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মো. মনির হোসেন, সেলিম ভূইয়া, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল্লাহ ভূইয়া বাদল, যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুল মমিন বাবুল, ছাত্রলীগের সভাপতি শাহাবুদ্দিন বেগ শাপলু, সাধারণ সম্পাদ সাখাওয়াত হোসেন নয়ন প্রমুখ।


আরও খবর



টানা ১৫ দিন ইন্টারনেট না থাকলে বিল দিতে হবে না

প্রকাশিত:শুক্রবার ১২ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১২ নভেম্বর ২০২১ | ৯৪০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

টানা ১৫ দিন ইন্টারনেট সেবা বন্ধ থাকলে গ্রাহককে ওই মাসে সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানকে কোনো বিল দিতে হবে না। বৃহস্পতিবার আগের নিয়ম সংশোধন করে নতুন এ নির্দেশনা দেয় বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

এর আগে গত ৫ অক্টোবর বিটিআরসি জানিয়েছিল, টানা ৩ দিন অব্যাহতভাবে ইন্টারনেট সেবা বিচ্ছিন্ন থাকলে ওই মাসের কোনো মাসিক বিল গ্রাহকের কাছ থেকে নেওয়া যাবে না।

নতুন নির্দেশনায় বলা হয়েছে, টানা পাঁচ দিন অব্যাহতভাবে ইন্টারনেট সেবা বিচ্ছিন্ন থাকলে মোট বিলের ৫০ ভাগ নিতে পারবে সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান। আর টানা ১০ দিন ইন্টারনেট সেবা বিচ্ছিন্ন থাকলে মোট বিলের ২৫ ভাগ নেওয়া যাবে। আর ১৫ দিন ইন্টারনেট না থাকলে সে মাসে কোনো বিলই নেওয়া যাবে না।

ইন্টারনেট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর সংগঠন আইএসপিএবির সভাপতি আমিনুল হাকিম জানান, আমরা বৃহস্পতিবার বিটিআরসির চিঠি পেয়েছি। আমাদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিটিআরসি এই সিদ্ধান্ত দিয়েছে। এতে করে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটে এক দেশ এক রেট বাস্তবায়ন আরও সহজ হবে।

এর আগে বিটিআরসি গত পাঁচ অক্টোবর গণমাধ্যমগুলোতে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, এক দিন অব্যাহতভাবে ইন্টারনেট সেবা বিচ্ছিন্ন থাকলে মোট বিলের ৫০ ভাগ নিতে পারবে সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান। দুই দিন অব্যাহতভাবে ইন্টারনেট সেবা বিচ্ছিন্ন থাকলে মোট বিলের ২৫ ভাগ নেওয়া যাবে। আর টানা তিন দিন অব্যাহতভাবে ইন্টারনেট সেবা বিচ্ছিন্ন থাকলে ওই মাসের কোনো মাসিক বিল গ্রাহকের কাছ থেকে নেওয়া যাবে না।



আরও খবর
বিজয়ের মাসেই ফাইভ-জি

বুধবার ০১ ডিসেম্বর ২০২১




করোনায় আরও ৫ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২২১

প্রকাশিত:শুক্রবার ১২ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১২ নভেম্বর ২০২১ | ৫৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশে নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৭ হাজার ৯১২ জনে দাঁড়িয়েছে। এ ছাড়া দেশে নতুন করে ২২১ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট ১৫ লাখ ৭২ হাজার ১২৭ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা থেকে সুস্থ হয়েছে ২১৯ জন। এ নিয়ে দেশে মোট ১৫ লাখ ৩৬ হাজার ১১১ জন করোনা থেকে সুস্থ হলো।

আজ শুক্রবার বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ৮৩৬টি ল্যাবে ১৭ হাজার ২৩১টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। নমুনা সংগ্রহ করা হয় ১৭ হাজার ২৮২টি। করোনা শনাক্তের হার এক দশমিক ২৮ শতাংশ। এই পর্যন্ত গড় শনাক্তের হার ১৪ দশমিক ৮৮ শতাংশ।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুবরণকারী পাঁচজন পুরুষ। এর মধ্যে ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে একজন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে একজন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে একজন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে একজন ও ৯১ থেকে ১০০ বছরের মধ্যে একজন।

মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে দুজন, চট্টগ্রাম বিভাগে দুজন ও খুলনা বিভাগে একজন রয়েছেন। সবাই সরকারি হাসপাতালে মারা গেছেন।

দেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় গত বছরের ৮ মার্চ। ওই বছরের ১৮ জুন তিন হাজার ৮০৩ জন নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার মধ্য দিয়ে লাখ ছাড়িয়েছিল করোনার রোগী। সেদিন পর্যন্ত মোট শনাক্ত ছিল এক লাখ দুই হাজার ২৯২ জন। এ ছাড়া দেশে করোনাভাইরাসে প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে গত বছরের ১৮ মার্চ।


আরও খবর
করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত বেড়েছে

মঙ্গলবার ০৭ ডিসেম্বর ২০২১




চট্টগ্রামেও বাসে অর্ধেক ভাড়া কার্যকরের ঘোষণা

প্রকাশিত:রবিবার ০৫ ডিসেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ০৫ ডিসেম্বর ২০২১ | ২২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

শিক্ষার্থীদের দাবির মুখে ঢাকার পর চট্টগ্রাম মহানগরীতেও গণপরিবহণে ছাত্র-ছাত্রীদের কাছ থেকে অর্ধেক ভাড়া কার্যকর করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বাস মালিকরা। রোববার বেলা সোয়া ১১টায় চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্যাহ এ ঘোষণা দেন। 

নতুন এই সিদ্ধান্ত কার্যকরের ক্ষেত্রে কিছু শর্ত আরোপ করা হয়েছে। ১১ ডিসেম্বর থেকে নতুন এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন বাস মালিক সমিতির সভাপতি বেলায়েত হোসেন বেলাল। সংবাদ সম্মেলনে এনায়েত উল্যাহ জানান, দেশের অন্য শহরে যদি সিটি সার্ভিস থাকে সেখানেও হাফ ভাড়া নেওয়া হবে।  তবে আন্তঃজেলা পর্যায়ে হাফ ভাড়া কার্যকর হবে না।

রাজধানীর মতো চট্টগ্রাম মহানগরীতে বাসে অর্ধেক ভাড়া কার্যকরে চট্টগ্রামের বাস মালিক সমিতি কিছু শর্ত আরোপ করছে। এ শর্তগুলোও প্রায় একই রকম।

সেগুলো হচ্ছে- সকাল ৭ টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত অর্ধেক ভাড়া নেওয়া হবে।  ছাত্রছাত্রীদেরকে অবশ্যই নিজ নিজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বৈধ ছবিসহ পরিচয়পত্র সঙ্গে রাখতে হবে।  সরকারি ছুটির দিন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ছুটির দিনে হাফ ভাড়া কার্যকর হবে না।  হাফ ভাড়া শুধু চট্টগ্রাম মহানগরে কার্যকর থাকবে।

সরকারি জ্বালানির বাড়িয়ে দেওয়ায় পরিবহণ মালিকরা বাসভাড়া বাড়িয়ে দেয়। বাসে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অর্ধেক ভাড়া নেওয়াসহ ১১ দফা দাবিতে সারা দেশের মতো চট্টগ্রামেও গেত কয়েকদিন ধরে আন্দোলন করছেন শিক্ষার্থীরা। গত বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে একই দাবিতে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দেয় শিক্ষার্থীদের একটি প্রতিনিধিদল।



আরও খবর
চট্টগ্রামে পাট গুদামে ভয়াবহ আগুন

বৃহস্পতিবার ০৯ ডিসেম্বর ২০২১

আজ নেত্রকোনা ট্র্যাজেডি দিবস

বুধবার ০৮ ডিসেম্বর ২০২১




‘বক্তব্য পরীক্ষা করেই জাহাঙ্গীরকে বহিষ্কার করা হয়েছে’

প্রকাশিত:শনিবার ২০ নভেম্বর ২০21 | হালনাগাদ:শনিবার ২০ নভেম্বর ২০21 | ৭০৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গাজীপুর সিটি মেয়র জাহাঙ্গীর আলমকে দল থেকে বহিষ্কার ও শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, পার্টির সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজেও জাহাঙ্গীর আলমের বিষয়টি নিয়ে খোঁজ-খবর নিয়েছেন। তার বক্তব্য পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেই এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। শুক্রবার রাতে আওয়ামী লীগ কার্যনির্বাহী সংসদের সভা শেষে এক ব্রিফিংয়ে এ কথা জানান তিনি।

ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, বৈঠকে গোটা হাউস শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের পক্ষে মত দিয়েছে। সবাই একবাক্যে তার বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানিয়েছে। সে পরিপ্রেক্ষিতে জাহাঙ্গীর আলমকে গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক থেকে তো বটেই, প্রাথমিক সদস্যপদও কেড়ে নেওয়া হয়েছে।

এখন গাজীপুরের পুরো কমিটি থাকবে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, একজনের জন্য কি আর পুরো কমিটি ভেঙে দেওয়া যায়।

বৈঠকে বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদকরা নির্বাচন সম্পর্কে রিপোর্ট দিয়েছে জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ইউপিতে যারা বিদ্রোহী ছিল বা বিদ্রোহীদের মদত দিয়েছিল তাদের সম্পর্কে রিপোর্ট দিয়েছে। অনেক নাম এসেছে। বিদ্রোহীদের ব্যাপারে আগে যে সিদ্ধান্ত ছিল সেটাই থাকবে। যারা মদত দিয়েছেসেসব জেলার নেতা, উপজেলা নেতাদেরও শাস্তি পেতে হবে। এমনকি জনপ্রতিনিধি বা মন্ত্রী হলেও তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন প্রতীকবিহীন হবে কিনা জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, হয়তো কোনও বিশেষ এলাকায় হতে পারে। কিন্তু সামগ্রিকভাবে উন্মুক্ত করার ব্যাপারে কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি।


আরও খবর



আবারও পূর্ণ লকডাউনে যাচ্ছে অস্ট্রিয়া

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৯ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৯ নভেম্বর ২০২১ | ৪৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনার দৈনিক সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আবারও পূর্ণ লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে অস্ট্রিয়ায়। আগামী সোমবার (২২ নভেম্বর) থেকে এই লকডাউন কার্যকর হবে।

এর আগে, ২০২০ সালে ইউরোপে প্রথম করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরু হওয়ার সময় লকডাউন জারি করেছিল অস্ট্রিয়ার সরকার। কিন্তু দৈনিক সংক্রমণ বাড়তে থাকায় ফের লকডাউন জারি করতে হচ্ছে বলে শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন অস্ট্রিয়ার চ্যান্সেলর আলেক্সান্ডার শ্যালেনবার্গ।

তিনি আরও জানান, আগামী বছর ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারি মাস শেষ হওয়ার আগেই দেশের সব প্রাপ্তবয়স্ক নাগরিককে করোনা টিকার দুই ডোজ দেওয়ার লক্ষ্য নিয়েছে সরকার।

শিল্পোন্নত পশ্চিম ইউরোপের দেশগুলোর মধ্যে অস্ট্রিয়া এই প্রথম পূর্ণ লকডাউন লকডাউন জারি করতে যাচ্ছে। দেশটির সরকারি তথ্য অনুযায়ী, প্রায় ৯১ লাখ মানুষের দেশ অস্ট্রিয়ায় টিকার দুই ডোজ সম্পূর্ণ করেছেন মোট প্রাপ্তবয়স্ক জনসংখ্যার তিন ভাগের দুই অংশ।

পশ্চিম ইউরোপে যে কয়েকটি দেশ বর্তমানে টিকাদান কর্মসূচিতে পিছিয়ে আছে, সেসবের মধ্যে অস্ট্রিয়া অন্যতম বলে শুক্রবার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

এদিকে পাল্লা দিয়ে দেশটিতে বাড়ছে করোনার দৈনিক সংক্রমণও। গত সাত দিনের প্রতিদিন দেশের প্রতি ১ লাখ মানুষের মধ্যে ৯৯১ জনই আক্রান্ত হয়েছেন প্রাণঘাতী এই রোগে।

সংবাদ সম্মেলনে শ্যালেনবার্গ বলেন, দেশের সব প্রাপ্তবয়স্ক এখনও টিকার দুই ডোজ সম্পূর্ণ করেননি। এটি অবশ্যই আমাদের ব্যর্থতা। আমরা তাদের টিকার গুরুত্ব বোঝাতে পারিনি। এ কারণে বাধ্য হয়েই আমাদের এ পথে (লকডাউন জারি) যেতে হয়েছে।


আরও খবর