আজঃ বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১
শিরোনাম

প্রতারণা করে ৫০ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন গ্রেপ্তার মশিউর

প্রকাশিত:বুধবার ০২ জুন 2০২1 | হালনাগাদ:বুধবার ০২ জুন 2০২1 | ১৩৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

প্রতারণার ফাঁদে ফেলে ব্যবসায়ীদের কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে মশিউর রহমান খান ওরফে বাবু নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। তার বিরুদ্ধে ৯২টি মামলা আছে বলে জানতে পেরেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার রাজধানীর মহাখালী এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। বুধবার সংবাদ সম্মেলন করে সিআইডির পক্ষ থেকে বলা হয়, গ্রেপ্তার মশিউর সংঘবদ্ধ অপরাধী চক্রের অন্যতম হোতা। দীর্ঘদিন ধরে প্রতারণার মাধ্যমে প্রায় ৫০ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন তিনি। তার বাড়ি গোপালগঞ্জে।

প্রতারণার মাধ্যমে কীভাবে ব্যবসায়ীদের টাকা আত্মসাৎ করেছেন, সে ব্যাপারে সিআইডির উপমহাপরিদর্শক (ডিআইজি) শেখ ওমর ফারুক সাংবাদিকদের বলেন, গুগলসহ অনলাইনে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করে মশিউর রহমানের সহযোগীরা। পরে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য চাল, ডাল, তেল, লবণসহ বিবিধ পণ্য সরবরাহকারীদের সঙ্গে তার সহযোগীরা যোগাযোগ করে। সংঘবদ্ধ অপরাধী চক্রের সদস্যদের পেশাদারি আচরণে তাদের অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড ধরতে পারেন না ভুক্তভোগী ব্যবসায়ীরা। যেকোনো পণ্য কেনার পর তার ১০ থেকে ৩০ শতাংশ মূল্য পরিশোধ করতেন মশিউর রহমান। বাকি ৭০ শতাংশ মূল্য চেকের মাধ্যমে পরিশোধ করতেন।

পরে ব্যবসায়ীরা ব্যাংকে গিয়ে জানতে পারেন, মশিউর রহমান রহমান যে চেক দিয়েছেন, সেই হিসাবে পর্যাপ্ত অর্থ থাকে না। এরপর দিনের পর দিন টাকা না দিয়ে নানাভাবে প্রতারিত করেন মশিউর।


আরও খবর



চাকরির বয়স ৩২: আন্দোলনকারীদের ওপর পুলিশের লাঠিচার্জ

প্রকাশিত:শুক্রবার ১১ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১১ জুন ২০২১ | ৫৩জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা স্থায়ীভাবে ৩২ বছর করার দাবিতে রাজধানীর শাহবাগের কর্মসূচিতে পুলিশের লাঠিচার্জের অভিযোগ করেছেন আন্দোলনকারীরা। ঘটনাস্থল থেকে বাকি বিল্লাহ নামে এক আন্দোলনকারীকেও ধরে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ করেছেন তারা।

পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচি অংশ হিসাবে শুক্রবার বিকালে রাজধানীর জাতীয় জাদুঘরের সামনের কর্মসূচিতে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর ৩২ আন্দোলনের নেতা সাজিদ সেতু গণমাধ্যমকে এসব কথা জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, জাদুঘরের সামনে আমাদের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি চলছিল। আমরা পুলিশকে বলেছি, আমরা শাহবাগে বসবো না। শাহবাগ থানার সামনে দিয়ে আন্দোলনকারীরা রাজুতে চলে যাবে। এ সময় আমরা থানার সামনে তাদের ধন্যবাদ জানাতে কিছুক্ষণ অবস্থান নেই। এর মধ্যে থানার ভেতর থেকে একজন কর্মকর্তা এসে বাকি বিল্লাহ নামে আমাদের এক শিক্ষার্থীকে ধরে নিয়ে যায় এবং মারধর করে।

আন্দোলনকারী এ নেতা বলেন, আমাদের অহিংস আন্দোলনে পুলিশ হামলা চালিয়েছে। আমাদের একজনকে আটক করা হয়েছে।

পরবর্তী কর্মসূচি কী জানতে চাইলে তিনি বলেন, আপাতত রাজু ভাস্কর্যে অবস্থান করাই আমাদের কর্মসূচি।

এ বিষয়ে শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মামুন অর রশীদ গণমাধ্যমকে বলেন, গ্রেফতার বা আটক নয়, আন্দোলন থেকে দুইজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়েছে। কিসের বা কেন এই আন্দোলন এটা নিয়েই তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

মামুনুর রশীদ বলেন, আন্দোলনকারীদের রাজু ভাস্কর্যে যাওয়ার কথা ছিল। থানার সামনে দাঁড়ানোর কোনো অনুমতি তাদের ছিল না। তাই তাদের সরিয়ে দেওয়া হয়েছে।


আরও খবর



হাসপাতালে থেকে অ্যাম্বুলেন্স চুরি

প্রকাশিত:সোমবার ২১ জুন 20২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২১ জুন 20২১ | ৬৪জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

হাসপাতালের বাইরে থেকে একটি অ্যাম্বুলেন্স চুরির ঘটনা ঘটেছে। যুক্তরাষ্ট্রের ম্যানহাটনের একটি হাসপাতালের বাইরে এ ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ জানিয়েছে, চুরির পর সেই অ্যাম্বুলেন্সে করে ঘুরে বেড়ায় চোর!

সূত্রগুলো জানিয়েছে, স্থানীয় সময় বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে ওই প্রাইভেট ইমার্জেন্সি গাড়িটি চুরি হয়। হেলস কিচেনের মাউন্ট সিনাই ওয়েস্ট থেকে এটি চুরি হয়।

পরে ওই অ্যাম্বুলেন্সটি টাইমস স্কয়ারের কাছে পরিত্যক্ত অবস্থায় পাওয়া যায় বলে জানায় সূত্রগুলো। একজন পুরুষ ওই অ্যাম্বুলেন্সটি ‍চুরি করেছিল বলে ধারণা করা হয়। সূত্রগুলো জানিয়েছে, ওই ব্যক্তির বয়স ৩০ বছর বয়সের কোঠায়। তিনি গাড়ি রেখে পায়ে হেঁটে পালিয়ে যায়। এখনও ওই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।


আরও খবর
করোনার ডেল্টা প্লাসে প্রথম মৃত্যু

বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১




মিয়ানমারে সামরিক বিমান বিধ্বস্ত, নিহত ১২

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১০ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১০ জুন ২০২১ | ৮৮জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মিয়ানমারের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর মানডালার নিকটবর্তী এলাকায় একটি সামরিক বিমান বিধ্বস্ত হয়ে অন্তত ১২ জন নিহত হয়েছে। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার (১০ জুন) সকালে মানডালা সিটি ফায়ার সার্ভিস সামাজিকমাধ্যমে এক পোস্টের মাধ্যমে দুর্ঘটনাটির খবর দেয়। খবর রয়টার্সের।

মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর মালিকানাধীন মায়াওয়াদির প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, বিমানটি রাজধানী নাইপিদো থেকে পাইন ওও লুইন যাচ্ছিল। মানডালা শহরের পাশ্ববর্তী একটি স্টিল প্ল্যান্টের ৩০০ মিটার দূরে বিমানটি বিধ্বস্ত হয়। তবে এ ঘটনায় ওই এলাকার বেসামরিক কোনো বা স্থাপনা ক্ষতিগ্রস্থ হয়নি বলে জানা গেছে। 

বিমানটিতে ছয়জন সামরিক কর্মকর্তা ছিলেন বাকিরা ক্রু। এসব কর্মকর্তরা একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে পাইন ওও লুইনের প্রধান বৌদ্ধ মন্দিরে যাচ্ছিলেন।

বিমানটির ধ্বংসাবশেষ থেকে বেঁচে যাওয়া একজন পাইলট একজন যাত্রীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান স্থানীয়রা। পরে তাদেরকে সামরিক হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। 

প্রসঙ্গত, বিশ্বে দুর্বল বিমান নিরাপত্তার অন্যতম দেশ মিয়ানমার। দেশটিতে বিমান চলাচলে প্রায়ই ছোটখাট দুর্ঘটনা ঘটে।

চলতি বছরের ১ ফেব্রুয়ারি মাসে অং সান সু চির নেতৃত্বাধীন নির্বাচিত সরকারকে হটিয়ে ক্ষমতা দখল করেছে দেশটির সামরিক বাহিনী। সেই থেকে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে গণতন্ত্রপন্থিদের সংঘাত চলছে। এসব সংঘাতে এপ্রিল মাস পর্যন্ত অন্তত সাড়ে সাতশ মানুষের মৃত্যু হয়েছে। 



আরও খবর
করোনার ডেল্টা প্লাসে প্রথম মৃত্যু

বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১




‘সুশান্ত, আমি আর সারা একসঙ্গে নেশা করতাম’

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৮ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৮ জুন ২০২১ | ৭১জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বলিউডের উঠতি নায়ক সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে আছে মাদক। আর সেভাবেই চার্জশিট প্রস্তুত করেছে ভারতের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ ব্যুরো (এনসিবি)।

১২ হাজার পাতার চার্জশিটে সুশান্তের প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তী, তার ভাই শৌভিকসহ ৩৩ জনের নাম উল্লেখ আছে। এই চার্জশিটে রিয়াসহ ২০০ জনের বেশি সাক্ষীর বয়ান আছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের দাবি, সুশান্ত মাদক মামলায় বয়ান লেখানোর সময় সাইফ আলী খানের মেয়ে অভিনেত্রী সারা আলি খানের নাম উল্লেখ করেছেন রিয়া চক্রবর্তী।

রিয়ার দাবি, সারা নাকি তাকে গাঁজা এবং মদ্যপান করার কথা বলেছিলেন। রিয়া আরও বলেছেন, মাদক মামলায় বয়ান লেখানোর সময় তিনি সারার সঙ্গে তার ২০১৭-এর ৪-৬ জুনের কথোপকথন তুলে ধরেন।

সেই অনুযায়ী তার আরও দাবি, ওই সময় সারা নিজের হাতে গাঁজার ছিলিম বানাতেন। বলতেন, নেশা করলে শুটিংয়ের প্রাত্যহিক চাপ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। একই সঙ্গে সারা নাকি রিয়াকে টোটকা দিয়েছিলেন, আইসক্রিম আর গাঁজা এক সঙ্গে খেলে শরীরের ব্যথা কমে। অতিরিক্ত পরিশ্রমের ফলে তার গায়ে ব্যথা হলে সারা নাকি এ ভাবেই তা কমাতেন।

শুধু তাই নয়, একটা সময় নাকি সুশান্ত, সারা ও রিয়া এক সঙ্গে বসে এক কলকে থেকে গাঁজা টানতেন। মদ্যপানও করতেন একত্রে। সে কথারও উল্লেখ আছে রিয়ার রেকর্ড করা বয়ানে।

গত বছরের ১৪ জুন সুশান্তের বান্দ্রার বাসায় তাকে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায়। আগামী ১৪ জুন তার প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী। সেই দিনটি যত এগিয়ে আসছে, ততই আবার চর্চায় আসছে প্রয়াত অভিনেতার প্রসঙ্গ। 



আরও খবর



পাপুলের এমপি পদ বাতিলের বৈধতা চ্যালেঞ্জের রিট খারিজ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৮ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৮ জুন ২০২১ | ১০১জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সাজাপ্রাপ্ত হয়ে কুয়েতের কারাগারে বন্দি লক্ষ্মীপুর-২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য কাজী শহিদ ইসলাম পাপুলের সংসদ সদস্যপদ বাতিলের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে দাখিল করা রিট আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট।

বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মো. কামরুল হোসেন মোল্লার হাইকোর্ট বেঞ্চ আজ মঙ্গলবার (৮ জুন) এই আদেশ দেন।

আদালত বলেছেন, সংবিধান অনুযায়ী রিট আবেদনকারী সংক্ষুব্ধ কোনো ব্যক্তি নন। তাই তাঁর রিট আবেদন করার এখতিয়ার নেই। একারণে তাঁর রিট আবেদন সরাসরি খারিজ করা হলো।

পাপুলের সংসদ সদস্যপদ বাতিলের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে তাঁর বোন নুরুন্নাহার বেগম গত মার্চে রিট আবেদন দাখিল করেন। গতকাল সোমবার (৭ জুন) ওই রিট আবেদনের ওপর শুনানি করা হয়। রিট আবেনকারীর পক্ষে আইনজীবী ছিলেন ব্যারিস্টার রোকন উদ্দিন মাহমুদ ও ব্যারিস্টার মোস্তাফিজুর রহমান খান।

রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল নওরোজ মো. রাসেল চৌধুরী। এ অবস্থায় আজ রিট আবেদনটি খারিজ করে আদেশ দিলেন আদালত।

জাতীয় সংসদের লক্ষ্মীপুর-২ আসন থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য কাজী শহিদ ইসলাম পাপুলের সদস্যপদ বাতিল করে ওই আসন শূন্য ঘোষণা করে জাতীয় সংসদ সচিবালয় গত ২২ ফেব্রুয়ারি গেজেট জারি করে।

পরে নির্বাচন কমিশন ওই আসনে উপনির্বাচনের জন্য তফসিল ঘোষণা করে। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী আগামী ২১ জুন ওই আসনে ভোটগ্রহণের কথা।

গতবছর ৬ জুন কুয়েতের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি) পাপুলকে কুয়েতে গ্রেপ্তার করে। সেই থেকে পাপুল কুয়েতের কারাগারে বন্দি। এ অবস্থায় গত ২৮ জানুয়ারি পাপুলকে ৪ বছরের কারাদণ্ড দেন কুয়েতের আদালত। ওই রায়ের কপি হাতে পাওয়ার পর পাপুলের আসন শূন্য ঘোষণা করা হয়।

এদিকে, শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে জাতীয় সংসদের নির্বাচনী হলফনামায় মিথ্যা তথ্য দেওয়ার অভিযোগে পাপুলের সংসদীয় আসন কেন শূন্য ঘোষণা প্রশ্নে একটি রিট আবেদন হাইকোর্টে বিচারাধীন।


আরও খবর