আজঃ সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

রোববার প্রেস ক্লাবের সামনে বিএনপির মানববন্ধন

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৮ ডিসেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৮ ডিসেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবস উপলক্ষে আগামী রোববার বেলা ১১টায় ঢাকায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধনের ঘোষণা দিয়েছে বিএনপি। একইদিন ঢাকা ছাড়াও দেশের সব জেলা শহরে এ কর্মসূচি পালন করবে দলটি।

শুক্রবার বিকালে এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এ কথা জানান।

গত দুদিন বিএনপির অবরোধ সফল করায় দলের নেতাকর্মীদের ধন্যবাদ জানান রিজভী। তিনি বলেন, আমাদের পরবর্তী কর্মসূচি আগামী ১০ ডিসেম্বর আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবস উপলক্ষে। যারা গুম-খুন হয়েছেন, তাদের পরিবারের সমন্বয়ে এই মানববন্ধন কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বিএনপি। ঢাকা মহানগরসহ সব জেলা সদরে এ কর্মসূচি পালিত হবে।

রিজভী জানান, ঢাকায় মানববন্ধন হবে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বেলা ১১টায়। এ বিষয়ে ঢাকা মহানগর বিএনপি সার্বিক প্রস্তুতি নিয়েছে এবং ঢাকার বাইরে অন্যান্য জেলায় মানববন্ধন সফল করতে নেতাকর্মীরা প্রস্তুতি নিয়েছে।

বিএনপির এই নেতা আরও বলেন, সরকারের দিক থেকে সব বাধা-বিপত্তি যদি আসে সবকিছুকে প্রতিহত করে, অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদের প্রতীক হিসেবে এ কর্মসূচি সফল করতে হবে।

আরও পড়ুন>> রবিবার হরতাল-অবরোধ দিচ্ছে না বিএনপি

ঢাকাসহ সারা দেশের সব পর্যায়ের নেতাকর্মীদের আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, যেসব পরিবার নিপীড়ন-নির্যাতনের শিকার হয়েছেন, গুম-খুন হয়েছে, সেসব পরিবারের সদস্যদের আপনারা মানববন্ধনে নিয়ে আসবেন। এসব কর্মসূচি অনাচারের বিরুদ্ধে, অবিচারের বিরুদ্ধে, অত্যাচারের বিরুদ্ধে।

সরকারকে ইঙ্গিত করে রিজভী বলেন, তাদের কাছে নাশকতার সংজ্ঞা হলো, গণতন্ত্রের পক্ষে, অবাধ-সুষ্ঠু নির্বাচনের কথা বলা। এ ধরনের কথা বলা মানেই একজন নাশকতাকারী। নিজের হাতে ক্ষমতা ধরে রাখতে স্বৈরাচারে রূপান্তরিত হয়েছে আওয়ামী সরকার। তারা দেশ থেকে রাষ্ট্র থেকে সমাজ থেকে সত্য কথা ভুলিয়ে দিতে চাচ্ছে। এ রকম একটি পরিস্থিতি তৈরি করেছে যেখানে সত্য কথা, মানুষের অধিকারের পক্ষে কথা বলা সবচেয়ে বড় অপরাধ হিসেবে গণ্য করা হয়।

গত ২৪ ঘণ্টায় বিএনপির ২১৫ জনের বেশি নেতাকর্মীকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে দাবি করে তিনি বলেন, সাতটি মামলায় সাড়ে ৮০০ জনের বেশি নেতাকর্মীকে আসামি করা হয়েছে।


আরও খবর



বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সিভিল বিভাগে চাকরি সুযোগ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
চাকরির খবর

Image

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সিভিল বিভাগে অফিসার পদে চিকিৎসক নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। সেনাবাহিনীর ৮৩তম ডিএসএসসি (এএমসি) এবং ৬৯তম ডিএসএসসি (এডিসি) কোর্সে অফিসার পদে নারী ও পুরুষ নিয়োগ দেওয়া হবে।

আবেদনের শিক্ষাগত যোগ্যতা

আর্মি মেডিকেল কোর (নারী/পুরুষ): এমবিবিএস ডিগ্রিসহ ইন্টার্নশিপ সম্পন্নকারী হতে হবে। প্রার্থীকে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ প্রাপ্ত হতে হবে। ইংরেজি মাধ্যমের প্রার্থী হলে ও লেভেলে ছয়টি বিষয়ের মধ্যে তিনটিতে গ্রেড, তিনটিতে বি গ্রেড এবং এ লেভেলে দুটি বিষয়ের মধ্যে একটিতে গ্রেড ও একটিতে বি গ্রেড পেয়ে উত্তীর্ণ হতে হবে।

আর্মি ডেন্টাল কোর (নারী/পুরুষ): বিডিএস ডিগ্রিসহ ইন্টার্নশিপ সম্পন্নকারী হতে হবে। প্রার্থীকে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ প্রাপ্ত হতে হবে। ইংরেজি মাধ্যমের প্রার্থী হলে ও লেভেলে ছয়টি বিষয়ের মধ্যে তিনটিতে গ্রেড, তিনটিতে বি গ্রেড এবং এ লেভেলে দুটি বিষয়ের মধ্যে একটিতে গ্রেড ও একটিতে বি গ্রেড পেয়ে উত্তীর্ণ হতে হবে।

বয়সসীমা

২০২৪ সালের ১ জুলাই অনূর্ধ্ব ২৮ বছর (অ্যাফিডেভিট গ্রহণযোগ্য নয়)।

শারীরিক যোগ্যতা

পুরুষ প্রার্থীদের জন্য উচ্চতা ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি, বুকের মাপ স্বাভাবিক ৩০ ও প্রসারণে ৩২ ইঞ্চি, ওজন ৫৭ কেজি। নারী প্রার্থীদের জন্য উচ্চতা ৫ ফুট ১ ইঞ্চি, বুকের মাপ স্বাভাবিক ২৮ ও প্রসারণে ৩০ ইঞ্চি, ওজন ৪৯ কেজি।

যেভাবে আবেদন করবেন

আগ্রহী প্রার্থীরা অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন। এ ক্ষেত্রে ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে হোমপেজের ওপরে ডান কোনায় APPLY NOWতে ক্লিক করে বর্ণিত কোর্সে APPLY করতে হবে। আবেদনকারী প্রার্থীরা ট্রাস্ট ব্যাংক টি-ক্যাশ, ভিসা/মাস্টারকার্ড, বিকাশ, নগদ, রকেট ইত্যাদির মাধ্যমে এক হাজার টাকা আবেদন ফি ও এক হাজার টাকা রেজিস্ট্রেশন ফি বাবদ মোট দুই হাজার টাকা প্রদান করতে হবে। আবেদন প্রক্রিয়াতেই ওয়েবসাইটে বর্ণিত পদ্ধতি অনুসরণ করে আবেদন ফি প্রদান করা যাবে এবং তাৎক্ষণিকভাবে লিখিত পরীক্ষার জন্য কলআপ লেটার পাওয়া যাবে। অনলাইনে আবেদন করতে কোনো অসুবিধা হলে ওয়েবসাইটে দেখানো কাস্টমার সাপোর্ট নম্বরে (০১৭১৩১৬১৯৭৯) সরাসরি যোগাযোগ করা যাবে।

সুযোগ-সুবিধাসমূহ

সরকার কর্তৃক নির্ধারিত অন্যান্য সুবিধাসহ সশস্ত্র বাহিনীর বেতনক্রম অনুযায়ী প্রশিক্ষণার্থী অফিসাররা বেতন ও ভাতা পাবেন। কমিশনপ্রাপ্ত অফিসাররা ব্যক্তিগত যোগ্যতার ভিত্তিতে উচ্চতর শিক্ষা ও বিদেশে প্রশিক্ষণের সুযোগ পাবেন। নিরাপদ ও মনোরম পরিবেশে মানসম্পন্ন সুসজ্জিত বাসস্থান প্রাপ্তির সুযোগ পাবেন।

সামরিক হাসপাতালগুলোতে উন্নত মানের চিকিৎসা-সুবিধা ও দুরারোগ্য ব্যাধিতে উন্নত চিকিৎসার প্রয়োজন হলে বিধি মোতাবেক নগদ অর্থ প্রদানসহ বিদেশে সুচিকিৎসার সুযোগ পাবেন। নিজ সন্তানদের জন্য ক্যাডেট কলেজ, আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল কলেজ, মিলিটারি ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি, বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস (বিউইপি) এবং সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে পরিচালিত স্কুল বা কলেজে অধ্যয়নের সুযোগ রয়েছে।

আবেদনের শেষ সময় ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪।


আরও খবর
সিটি গ্রুপে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ

সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

৫৫১ পদে রেলওয়েতে বড় ধরনের নিয়োগ

শুক্রবার ১২ জানুয়ারী ২০২৪




ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নববধূকে হত্যা করে পালানোর সময় স্বামী আটক

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
মোঃ রাসেল আহমেদ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া

Image

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় বিয়ের ৪ দিন পর স্ত্রী হত্যাকান্ডের ঘটনায় ঘাতক স্বামী আব্দুল হামিদ (২৮) কে আটক করা হয়েছে। আজ বুধবার দুপুরে উপজেলার দক্ষিণ ইউনিয়নের হীরাপুর বড় মুড়া সীমান্ত দিয়ে ভারতে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টাকালে তাকে আটক করে ২৫ বিজিবির সদস্যরা।

পরে তাকে আখাউড়া থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়। মূলত মোবাইল দেখা নিয়ে মনোমালিন্যের জেরে সে তার স্ত্রী তাছলিমা আক্তারকে হত্যা করেছে বলে প্রাথমিকভাবে স্বীকার করেছে। এরআগে মঙ্গলবার দুপুরে তাছলিমা আক্তারকে গলা কেটে হত্যা করে পালিয়ে যায় স্বামী আব্দুল হামিদ।

জানা যায়, ৭/৮ মাস আগে হীরাপুর গ্রামের মৃত আব্দুল লতিফ মিয়ার প্রবাসী পুত্র আব্দুল হামিদের সাথে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সদর উপজেলার বাসুদেব ইউনিয়নের বাসুদেব গ্রামের মৃত আব্দুর রাজ্জামের মেয়ে তাছলিমা আক্তারের বিয়ে হয় মোবাইল ফোনে। সম্প্রতি হামিদ দেশে ফিরে এসে গত শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) অনুষ্ঠান করে স্ত্রী তাছলিমাকে বাড়িতে নিয়ে আসে। বিয়ের পর থেকেই স্বামী স্ত্রীর মধ্যে পরিবারিক কলহ দেখা দেয়। এরই জের ধরে মঙ্গলবার দুপুরে ধারালো ছুরি দিয়ে তাছলিমাকে গলা কেটে হত্যা করে হামিদুল। এ সময় হামিদুলের বড় ভাই হানিফ বাধা দিলে তাকেও হামিদুল ছুরিকাঘাত করে। পরে খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। এ ঘটনায় ওই রাতেই নিহতের বড় ভাই আব্দুল কুদ্দুছ বাদী হয়ে আব্দুল হামিদকে আসামী করে থানায় মামলা করেন। মামলায় কয়েকজনকে অজ্ঞাতনামা দেখানো হয়েছে।

এ বিষয়ে ২৫ বিজিবি (সরাইল) ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল আরমান আরিফ (পিএসসি) বলেন, সীমান্ত এলাকা অতিক্রম করার সময় টহলরত বিজিবি সদস্যরা আসামীকে আটক করেছে। পরে তাকে থানায় সোপর্দ করা হয়।

আখাউড়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ শফিকুল ইসলাম বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আব্দুল হামিদ স্ত্রীকে হত্যার কথা স্বীকার করেছে। সে জানিয়েছে তার স্ত্রী মোবাইলে টিকটক দেখতো ও ছেলের সাথে চ্যাটিং করতো বলে সন্দেহ ছিল। হামিদ তার স্ত্রীর মোবাইল দেখতে চাইলে তাকে তার স্ত্রী মোবাইল ধরতে বারণ করে। এনিয়ে তাদের মধ্যে মনোমালিন্য হয়। ঘটনার দিন সকালে তাছলিমা বাবার বাড়িতে যেতে চাইলে হামিদ যেতে দেয়নি। এরপর স্বামী আব্দুল হামিদ বাজার থেকে ৩০০ টাকা দিয়ে ছুরি কিনে বাড়ি ফিরে স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যা করে।

নিউজ ট্যাগ: ব্রাহ্মণবাড়িয়া

আরও খবর



স্বতন্ত্র প্রার্থীর কাছে হারলেন নওয়াজ শরিফ

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী প্রার্থী নওয়াজ শরিফ খাইবার পাখতুনখাওয়ার এনএ- ১৫ মানসেহরা আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী শাহজাদা গাস্তাসাপের কাছে পরাজিত হয়েছেন।

ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলির নির্বাচনী এলাকা এনএ-১৫ মানসেহরা থেকে পাওয়া অনানুষ্ঠানিক ফলাফলে নওয়াজ শরিফ এই আসনে ৬৩ হাজার ৫৪টি ভোট পেয়েছেন। অন্যদিকে, শাহজাদা গাস্তাসাপ পেয়েছেন ৭৪ হাজার ৭১৩ ভোট। অর্থাৎ ১১ হাজার ৬৫৯ ভোটে পরাজিত হয়েছে নওয়াজ।

অবশ্য নওয়াজ শরিফ লাহোরের এনএ-১৩০ আসনেও প্রার্থী হিসেবে রয়েছেন। সেখানে তার প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী ইয়াসমিন রশিদ।

দেশটির প্রভাবশালী ডন পত্রিকার অনলাইন ভার্সনে বলা হয়েছে, এই ১৩ আসনের ৫টিতে পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) সমর্থিত প্রার্থী, ৪টিতে পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজের (পিএমএল-এন), ৪টিতে পাকিস্তান পিপলস পার্টির (পিপিপি) প্রার্থী জয়ী হয়েছেন।


আরও খবর



বঙ্গবন্ধু টানেল সড়কে ট্রাকচাপায় নিরাপত্তাকর্মী নিহত

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩০ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ৩০ জানুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

Image

চট্টগ্রামের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান টানেল সড়কের আনোয়ারা প্রান্তে ট্রাকচাপায় আনোয়ার পারভেজ (৪৩) নামে এক নিরাপত্তাকর্মী নিহত হয়েছেন। এতে মোহাম্মদ বশর ও মোহাম্মদ আজিম নামে আরও দুই নিরাপত্তাকর্মী আহত হন। নিহত এবং আহতরা কোরিয়ান ইপিজেডে কর্মরত।

আজ মঙ্গলবার (৩০ জানুয়ারি) সকাল পৌনে সাতটার টানেল সড়কের আনোয়ারা প্রান্তে মোহাম্মদপুর এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত আনোয়ার পারভেজ আনোয়ারা উপজেলার পরৈকোড়া ইউনিয়নের মাহাতা গ্রামের মৃত মোহাম্মদ ছৈয়দের ছেলে। তার সংসারে দুই ছেলে ও এক কন্যা সন্তান রয়েছে। 

আরও পড়ুন>> তালাবদ্ধ ফ্ল্যাটে পড়ে ছিল মা-বাবা ও মেয়ের গলাকাটা লাশ 

আনোয়ারা থানার ওসি সোহেল আহমেদ জানান, নিহত এবং আহতরা কোরিয়ান ইপিজেডে নিরাপত্তাকর্মী হিসেবে কর্মরত। সকালে বাইসাইকেল চালিয়ে কর্মস্থলে যাচ্ছিলেন। এর মধ্যে সড়কে একটি দ্রুতগামী ট্রাক তিন বাইসাইকেল আরোহীকে পেছন থেকে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই আনোয়ার পারভেজ নামে একজনের মৃত্যু হয়।

তিনি আরও বলেন, বাকি দুই জন আহত হন। আহতদের উদ্ধার করে প্রথমে আনোয়ারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ট্রাকটি পালিয়ে গেছে। নিহতের লাশ উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে। সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ মর্গে পাঠানো হবে। এ ঘটনায় আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আরও খবর



স্কুলশিক্ষার্থীরা পাবে ৫ হাজার টাকা সহায়তা, অনলাইনে আবেদন

প্রকাশিত:রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণিতে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীরা সহায়তা বাবদ পাঁচ হাজার টাকা করে পাবে প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট। অসচ্ছল শিক্ষার্থীরা এ টাকা পেতে ২৯ ফেব্রুয়ারি মধ্যরাত পর্যন্ত অনলাইনে আবেদন করতে পারবে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ থেকে প্রকাশিত প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্টের এক বিজ্ঞপ্তিতে এসব কথা বলা হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট থেকে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর, কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর ও মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তরের অধীন বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ২০২৪ সালে মাধ্যমিক ও সমমান পর্যায়ে (ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণি) ভর্তিকৃত ও অধ্যয়নরত অসচ্ছল ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের ভর্তি নিশ্চিত করতে ভর্তিসহায়তা দেওয়া হবে। ভর্তিসহায়তা পেতে শিক্ষার্থীকে নির্ধারিত ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে অনলাইনে অবেদন করতে হবে।

এতে বলা হয়েছে, সরকারি, আধা সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ১৩ থেকে ২০তম গ্রেডের কর্মচারীর সন্তান আর্থিক অনুদান পাওয়ার জন্য বিবেচিত হবেন। অন্যান্য ক্ষেত্রে মাবাবা বা অভিভাবকের বার্ষিক আয় দুই লাখ টাকার কম হতে হবে।

এতে আরও বলা হয়েছে, শিক্ষার্থীদের ছবি, স্বাক্ষর, জন্মনিবন্ধন সনদ, অভিভাবকের জাতীয় পরিচয়পত্র, নির্ধারিত ফরমে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রধানের সুপারিশ প্রয়োজন হবে ভর্তি-সহায়তা পেতে। আর সরকারি, আধা সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানের কর্মচারীদের সন্তানদের ক্ষেত্রে মা-বাবা বা অভিভাবকদের কর্মরত প্রতিষ্ঠান প্রধানের প্রত্যয়ন বা সুপারিশ প্রয়োজন হবে।

শিক্ষার্থীদের জন্য ভর্তি সহায়তা নির্দেশিকা অনুসারে শিক্ষার্থীরা ভর্তিতে আর্থিক সহায়তা পাবেন। প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ভর্তি নিশ্চিতকরণে ভর্তি সহায়তা দিয়ে থাকে। বর্তমানে মাধ্যমিক পর্যায়ে ৫, উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ে ৮ এবং স্নাতক ও সমমান পর্যায়ে ১০ হাজার টাকা হারে ভর্তি সহায়তা দেওয়া হচ্ছে।


আরও খবর