আজঃ বৃহস্পতিবার ১৩ মে ২০২১
শিরোনাম

স্পীডবোট দুর্ঘটনায় ইজারাদারসহ তিন জনের বিরুদ্ধে মামলা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৪ মে ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৪ মে ২০২১ | ১২১জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বাংলাবাজার শিমুলিয়া নৌরুটে স্পিড বোট দুর্ঘটনায় ইজারাদারসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে নৌ-পুলিশ। সোমবার (৩ মে) দিনগত রাতে মাদারীপুরের চরজানাজাত নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির এসআই লোকমান হোসেন বাদী হয়ে মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাটের ইজারাদারসহ স্পিড বোটের মালিক ও চালকসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে শিবচর থানায় মামলা দায়ের করেন।

এ বিষয়ে শিবচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিরাজ হোসেন জানান, এই মামলার তদন্তভার নৌ-পুলিশের উপরেই থাকবে। আর গুরুতর আহত অবস্থায় স্পিড বোট চালক পুলিশের নজরদারিতে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।


আরও খবর



করোনায় বিশ্বে মৃত্যুর সংখ্যা ছাড়ালো ৩২ লাখ ৮৩

প্রকাশিত:শনিবার ০৮ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৮ মে ২০২১ | ৬৯জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশ যুক্তরাষ্ট্রে। তালিকায় শীর্ষে থাকা দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ৩ কোটি ৩৪ লাখ ১৮ হাজার ৮২৬ জন আর

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির সংখ্যা কোনোভাবেই কমছে না। সবশেষ করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৫ কোটি ৭৫ লাখ ৩০ হাজার ৭২৯ জন। আর এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩২ লাখ ৮৩ হাজার ৭০৮ জনে। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছে ১৩ কোটি ৪৯ লাখ ৫৪ হাজার ৯৪৭ জন।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটার থেকে শনিবার (৮ মে) সকালে এই তথ্য জানা গেছে।

ওয়ার্ল্ডওমিটারের সবশেষ তথ্য অনুযায়ী, করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশ যুক্তরাষ্ট্রে। তালিকায় শীর্ষে থাকা দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ৩ কোটি ৩৪ লাখ ১৮ হাজার ৮২৬ জন আর মারা গেছেন ৫ লাখ ৯৪ হাজার ৯১১ জন। করোনায় আক্রান্তের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে প্রতিবেশী দেশ ভারত। তবে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের তালিকায় দেশটির অবস্থান চতুর্থ। দেশটিতে মোট আক্রান্ত ২ কোটি ১৮ লাখ ৮৬ হাজার ৬১১ জন এবং মারা গেছেন ২ লাখ ৩৮ হাজার ২৬৫ জন।

লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল করোনায় আক্রান্তের দিক থেকে তৃতীয় ও মৃত্যুর সংখ্যায় তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে। দেশটিতে মোট শনাক্ত রোগী ১ কোটি ৫০ লাখ ৮৭ হাজার ৩৬০ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৪ লাখ ১৯ হাজার ৩৯৩ জনের। করোনাভাইরাস শনাক্তের তালিকায় চারে রয়েছে ইউরোপের দেশ ফ্রান্স। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৫৭ লাখ ৪৭ হাজার ২১৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। মারা গেছেন ১ লাখ ৬ হাজার ১০১ জন।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীন থেকে সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর বিশ্বব্যাপী ছড়িয়েছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। গত বছরের ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।


আরও খবর



যেসব ফল ওজন কমাতে সাহায্য করে

প্রকাশিত:শনিবার ০৮ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৮ মে ২০২১ | ৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ফল আমাদের স্বাস্থ্যের জন্যে খুবই উপকারী। প্রতিটি মানুষের প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় যে কোনো ধরনের একটি ফল অবশ্যই থাকা উচিৎ নিজের সুস্বাস্থ্যের জন্যেই। ফল খাওয়ার উপকারিতাগুলো যেকোন বয়সের যে কারোর জন্যে দারুণ। কিছু ফল ওজন কমাতেও সাহায্য করে। প্রতিদিন চার বার ফল খেলে অতিরিক্ত ক্যালোরি গ্রহণের মাত্রা কমে যায়। আর এভাবেই ওজন কমাতে সাহায্য করে ফল। আর নির্দিষ্ট কিছু ফল এক্ষেত্রে বেশি উপকারী। আসুন জেনে নেওয়া যাক সে বিষয়ে:-

তরমুজ: মিনারেল সমৃদ্ধ ফল হিসেবে পরিচিত। এর ক্যালরির পরিমাণও কম। এক কাপ অর্থাৎ ১৫০ থেকে ১৬০ গ্রাম তরমুজ থেকে মিলবে মাত্র ৪৬ থেকে ৬১ ক্যালরি। ক্যালরি কম হলেও এতে রয়েছে উচ্চ মাত্রায় আশ, পটাশিয়াম এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যেমন- ভিটামিন সি, বেটাক্যারোটিন এবং লাইকোপেন। আর এর শর্করা ধীরে রক্তে মিশে। ফলে অন্যান্য খাবার খাওয়ার চাহিদা কমায়।

আপেল: আপেল উচ্চ আঁশ এবং ফ্লাভানয়েড পলিমারস সমৃদ্ধ, যা ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। আঁশ ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট পেতে খোসাসহ আপেল খাওয়া উচিত। এটা রক্তের শর্করা নিয়ন্ত্রণে রাখে। রক্তের শর্করা নিয়ন্ত্রণে থাকলে তা ক্ষুধা নিয়ন্ত্রণে রেখে ডায়াবেটিস হওয়া থেকে রক্ষা করে।

কমলা: অন্যান্য টক ফলের মতো কমলা ভিটামিন সি সমৃদ্ধ এবং ক্যালরি কম। আর এটা অনেক্ষণ পেট ভরা রাখতে সাহায্য করে। তবে মনে রাখতে হবে রস করে খাওয়ার চাইতে আস্ত কমলা খাওয়া বেশি উপকারী।

কলা: উচ্চ মাত্রায় ক্যালরি ও শর্করা থাকার কারণে ওজন কমাতে গিয়ে অনেকেই কলা খাওয়া এড়িয়ে যান। তবে ক্যালরি বেশি হলেও এই ফলে আরও রয়েছে পটাশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ, আঁশ, বিভিন্ন অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং ভিটামিন এ, বি-সিক্স এবং সি। এই ফলের শর্করাও শরীরে ধীরে শোষিত হয়। তাই বিভিন্ন পুষ্টি উপাদনে ভরপুর কলা দেহের ওজন কম রাখতে সাহায্য করে।

নাশপাতি: বৃটিশ মেডিকেল জার্নালে প্রকাশিত এক গবেষণায় দেখা গেছে, নাশপাতি ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে সহায়তা করে কারণ এতে আছে ফ্লাভানয়েড পলিমারস। প্রতি ১৩৮ মি.গ্রা. বাড়তি ফ্লাভানয়েড পলিমারস ওজন কম হারে বাড়ায়। তাই, যারা ওজন কমাতে চায় তাদের ফ্লাভানয়েড সমৃদ্ধ ফল খাওয়া উচিত। খোসাসহ খাওয়া হলে এর আঁশ দীর্ঘক্ষণ পেট ভরা রাখে। ফলে এলোমেলো খাবার খাওয়া থেকে বিরত থাকা যায়।

স্ট্রবেরি: ব্লুবেরি বা স্ট্রবেরি এই ধরনের ফলে ক্যালরির মাত্রা কম কিন্তু অন্যান্য পুষ্টিগুণ অনেক। আমাদের দেশে ব্লুবেরি সহজলভ্য না হলেও স্ট্রবেরি পাওয়া যায়। এক কাপ বা ১৫২ গ্রাম স্ট্রবেরিতে ৫০-এর কম ক্যালরি থাকে।


আরও খবর



জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বের হলেই গুণতে হচ্ছে জরিমানা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৫ এপ্রিল ২০২১ | ১৪১জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
যারা আইন অমান্য করে বাইরে বেরিয়েছেন, তাদের অপরাধ বিবেচনায় ৫০০ টাকা থেকে তিন হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানা করা হচ্ছে। তবে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, জরিমানা করাই মূল উদ্দেশ্য নয়, তারা আইন মানতে জনগণকে উদ্বুদ্ধ

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে কঠোর লকডাউনের দ্বিতীয় দিনেও রাজধানীজুড়ে কঠোর অবস্থানে রয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাইরে বের হলেই গুণতে হচ্ছে জরিমানা। বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) সকাল থেকে রাজধানীর সড়কগুলোতে চেকপোস্ট বসিয়ে তৎপর থাকতে দেখা গেছে পুলিশ সদস্যদের। যে কেউ ঘর থেকে বেরিয়ে সড়কে নামলেই মুখোমুখি হতে হচ্ছে জিজ্ঞাসাবাদের।

লকডাউনের প্রথম দিনের তুলনায় এদিন সকাল থেকে সড়কে যানবাহন বেশি দেখা গেছে। তবে চেকপোস্টে প্রতিটি গাড়ি থামিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। এর ফলে কিছু কিছু চেকপোস্টের পেছনে ব্যক্তিগত গাড়ির দীর্ঘ জটলাও দেখা গেছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, রাজধানীর গাবতলী এলাকায় চেকপোস্ট বসিয়ে ঢাকার ভেতরে প্রবেশ করতে চাওয়া গাড়িগুলো থামিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছিলেন পুলিশ সদস্যরা। কেউ কেউ পুলিশের মুভমেন্ট পাস দেখালেও কোথায় এবং কেন যাচ্ছেন জিজ্ঞাসা করা হচ্ছিল। যুক্তিযুক্ত মনে হলে তাদের যেতে দেওয়া হচ্ছিল। অন্যথায় ফিরিয়ে দেওয়াসহ অপরাধ বিবেচনায় করা হচ্ছিল জরিমানাও।

চেকপোস্টে দায়িত্বরত পুলিশের এক সদস্য বলেন, ঢাকায় প্রবেশ করতে চাওয়া লোকজনের অনেক অজুহাত রয়েছে। তবে কেউ যথাযথ কারণ দেখালে আমরা যেতে দিচ্ছি। যেমন কেউ হাসপাতালে রোগী নিয়ে যাচ্ছেন, আবার কেউ কর্মস্থলে যাচ্ছেন। সেক্ষেত্রে যাচাই করে প্রয়োজন বুঝে যেতে দেওয়া হচ্ছে।

আবার এমনও কেউ আছেন মুভমেন্ট পাস নিয়ে সাভার থেকে পুরান ঢাকায় যাচ্ছেন। পাসে জরুরি প্রয়োজনের কথা উল্লেখ থাকলেও আসলে যাচ্ছিলেন আত্মীয়ের বাসায়। বিনা প্রয়োজনে ঢাকায় প্রবেশ করতে চাওয়া লোকদের ফিরিয়ে দেওয়া হচ্ছে আবার কাউকে জরিমানাও করা হচ্ছে।

জানা গেছে, যারা আইন অমান্য করে বাইরে বেরিয়েছেন, তাদের অপরাধ বিবেচনায় ৫০০ টাকা থেকে তিন হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানা করা হচ্ছে। তবে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, জরিমানা করাই মূল উদ্দেশ্য নয়, তারা আইন মানতে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করতে চান। করোনা মোকাবিলায় জরুরি প্রয়োজন ছাড়া যেন সবাই সরকারি নির্দেশনা মেনে ঘরে থাকেন।

রাজধানীর আগারগাঁও-তেজগাঁও এলাকায় কয়েকটি সড়কে ব্যারিকেড দিয়ে বন্ধ করে দিতে দেখা গেছে। আর বিকল্প সড়কগুলোতে বসানো হয়েছে পুলিশের চেকপোস্ট। যেসব চেকপোস্টে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি হতে হচ্ছে বাইরে বের হওয়া জনসাধারণের।

এদিকে লকডাউনে সাধারণ মানুষের বিনা প্রয়োজনে বাইরে বের হওয়া ঠেকাতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর শাহবাগ মোড়ে র‌্যাব-৩ এর সহযোগিতায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকারী র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ কুমার বসু জানান, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের নিদর্শনা অনুযায়ী যারা আদেশ অমান্য করবে তাদের বিরুদ্ধে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হবে। যারা বিনা কারণে বাইরে ঘোরাঘুরি করবেন, মুভমেন্ট পাস না নিয়ে বাইরে বের হবেন এবং স্বাস্থ্যবিধি মানবেন না তাদের জরিমানা করা হবে।

জরিমানার পাশাপাশি জনগণকে জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাইরে না আসার জন্য এবং স্বাস্থ্যবিধি মানতে উদ্বুদ্ধ করা হবে বলেও জানান পলাশ কুমার বসু।


আরও খবর



‘কোয়াডে’ যুক্ত হলে বাংলাদেশ-চীন সম্পর্ক নষ্ট হবে

প্রকাশিত:সোমবার ১০ মে ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১০ মে ২০২১ | ৫৭জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন কৌশলগত জোট কোয়াডে বাংলাদেশ যোগ দিলে ঢাকা-বেইজিং সম্পর্ক যথেষ্ট খারাপ হতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন চীনের রাষ্ট্রদূত লি ঝিমিং।

সোমবার কূটনৈতিক সাংবাদিকদের সংগঠন ডিপ্লোম্যাটিক করেসপন্ডেন্টস অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ-ডিকাব আয়োজিত ডিকাব টক-এ ভার্চুয়ালি অংশ নিয়ে তিনি এ কথা বলেন।

লি ঝিমিং বলেন, যুক্তরাষ্ট্র, জাপান, ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার কৌশলগত জোট কোয়াডকে চীনবিরোধী একটি গোষ্ঠী হিসেবে বিবেচনা করে বেইজিং। তাই চীন মনে করে, বাংলাদেশ যে কোনোভাবে এই জোটে যোগ দিলে ঢাকা-বেইজিং সম্পর্ক যথেষ্ট খারাপ হতে পারে।

এ সময় চীনের রাষ্ট্রদূত জানান, চীনা কোম্পানি সিনোফার্মের তৈরি করোনার টিকার ৫ লাখ ডোজ আগামী ১২ মে বাংলাদেশে আসবে। তিনি বলেন, উপহারের এই টিকা দিতে বাংলাদেশকে গত ৩ ফেব্রুয়ারি প্রস্তাব দিয়েছিল চীন। তবে অনুমোদনের জন্য দীর্ঘ তিন মাস অপেক্ষা করতে হয়েছে। আগে অনুমতি দিলে এই টিকা আরও আগেই পেত বাংলাদেশ।

রাষ্ট্রদূত আরও জানান, বাংলাদেশ শুধু সিনোফার্মের টিকার জরুরি ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে। তাই বাংলাদেশ বাণিজ্যিকভাবে যে টিকা পেতে চায়, তার জন্য সময় লাগবে।অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য দেন ডিকাব সভাপতি পান্থ রহমান ও সাধারণ সম্পাদক একেএম মঈনুদ্দিন।


আরও খবর



ঈদের দিনসহ ৬ দিন গ্যাস সম্পূর্ণ বন্ধ থাকবে যেসব এলাকায়

প্রকাশিত:সোমবার ১০ মে ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১০ মে ২০২১ | ২৯জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

জাতীয় গ্যাস গ্রিডের সক্ষমতা বৃদ্ধি ও জরুরি রক্ষণাবেক্ষণ কার্যক্রমের জন্য সোমবার (১০ মে) সকাল ৬টা থেকে শনিবার (১৫ মে) রাত ১০টা পর্যন্ত এবং ঈদুল ফিতরের দিন ও পরের দিন বিবিয়ানা ও বাঙ্গুরা গ্যাসক্ষেত্র আংশিক বা সম্পূর্ণ বন্ধ থাকবে।

জাতীয় গ্যাস গ্রিডের সক্ষমতা বৃদ্ধি ও জরুরি রক্ষণাবেক্ষণ কার্যক্রমের জন্য এই গ্যাসক্ষেত্র বন্ধ থাকবে। সোমবার (১০ মে) সংবাদমাধ্যমে পাঠানো এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে তিতাস কর্তৃপক্ষ এ তথ্য জানিয়েছে।

এতে এই সময়ে এলেঙ্গা, টাঙ্গাইল, নরসিংদী, জয়দেবপুর, ধনুয়া, আমিনবাজার, আশুলিয়া, সাভার, মানিকগঞ্জ, মাধবদী, ভুলতা, আড়াইহাজার, তারাবো ও আশপাশের এলাকায় গ্যাসের চাপ কম থাকবে। গ্রাহকদের এই সাময়িক অসুবিধার জন্য তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করেছে।  


আরও খবর