আজঃ মঙ্গলবার ২৫ জানুয়ারী ২০২২
শিরোনাম

ট্রেন দুর্ঘটনায় ভারতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৯

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৪ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৪ জানুয়ারী ২০২২ | ৩৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ভারতের জলপাইগুড়িতে রেল দুর্ঘটনা নিহতের সংখ্যা বেড়ে নয়জনে দাঁড়িয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন অন্তত ৪৫ জন।

হতাহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় বিকেল ৫টার দিকে জলপাইগুড়ির ময়নাগুড়ি ও দোমোহনী এলাকার মাঝে যাত্রীবাহী গুয়াহাটি-বিকানের এক্সপ্রেস ট্রেনটি দুর্ঘটনায় পড়ে।

এ সময় ট্রেনের ১২টি কামরা লাইনচ্যুত হয় এবং চার থেকে পাঁচটি কামরা দুমড়েমুচড়ে যায়। ট্রেনের কামরা একটির ওপর আরেকটি উঠে পড়ে। এতে অনেকেই ভেতরে আটকা পড়েন।

দুর্ঘটনার সময় ট্রেনের গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ৪০ কিলোমিটার। আহতদের অধিকাংশ জলপাইগুড়ি জেলা হাসপাতাল ও ময়নাগুড়ি সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।


আরও খবর
সৌদি আরবে প্রতি ঘণ্টায় ৭ ডিভোর্স

সোমবার ২৪ জানুয়ারী ২০২২




চট্টগ্রামে হাইকোর্টের সার্কিট বেঞ্চ হবে: আইনমন্ত্রী

প্রকাশিত:শনিবার ১৫ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ১৫ জানুয়ারী ২০২২ | ৩৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

চলতি বছরের মধ্যে চট্টগ্রামে হাইকোর্টের একটি সার্কিট বেঞ্চ গঠনের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। শনিবার (১৫ জানুয়ারি) চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতি আয়োজিত আইনজীবী মিলন মেলা-২০২১ এর অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

আনিসুল হক বলেন, চট্টগ্রামে একটি হাইকোর্ট বেঞ্চের দাবি আপনাদের। আমি এ বিষয়টি নিয়ে প্রধান বিচারপতির সঙ্গে কথা বলেছি। তিনি আমাকে আশ্বস্ত করেছেন। আশা করি এ বছরে চট্টগ্রামে হাইকোর্টের একটি সার্কিট বেঞ্চ হবে। সরকার দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় বদ্ধ পরিকরই শুধু নয়, এক্ষেত্রে যা যা করার তাই করা হবে।

অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন বলেন, চট্টগ্রাম আইনজীবী সমিতি অনেক বর্ষীয়ান আইনজীবীর জন্ম দিয়েছেন, যারা আইন অঙ্গনের দিকপাল। তাদের ধারাবাহিকতায় এখানকার পরবর্তী প্রজন্ম এই পেশায় সফল হবেন বলে আশা করি। তাই তাদের যেকোনও প্রয়োজনে পাশে থাকার আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন তিনি।

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদক ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল বলেন, আইন পেশা চ্যালেঞ্জিং একটি পেশা। নবীন আইনজীবীদের এই পেশায় টিকে থাকতে হবে। তবে সিনিয়রদের কাছ থেকে জুনিয়রদের শেখার জায়গাটা কমে গেছে। তাই নবীন আইনজীবীদের পেশা পরিচালনার শুরুতে আর্থিক সহযোগিতা দেয়ার প্রস্তাব করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, আইন সচিব  গোলাম সারওয়ার, চট্টগ্রামের মহানগর দায়রা জজ শেখ আশফাকুর রহমান, চট্টগ্রামের চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রবিউল আলোম, চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি মুহাম্মদ এনামুল হক, সাধারণ সম্পাদক এএইচএম জিয়াউদ্দিন প্রমুখ।


আরও খবর



করোনা: বিশ্বজুড়ে সংক্রমণ ছাড়াল ৩৩ কোটি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৮ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৮ জানুয়ারী ২০২২ | ২৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

চলমান করোনা মহামারিতে বিশ্বজুড়ে দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েছে। তবে আগের দিনের কিছুটা কমেছে নতুন শনাক্ত রোগীর সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন প্রায় ৫ হাজার মানুষ। একই সময়ে ভাইরাসটিতে নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা রয়েছে ১৯ লাখ ২৯ হাজারের ঘরে।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বজুড়ে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণের ঘটনা ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রে। অন্যদিকে দৈনিক প্রাণহানির তালিকায় শীর্ষে রয়েছে রাশিয়া। প্রাণহানির তালিকায় এরপরই রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্স, ইতালি, হাঙ্গেরি ও আর্জেন্টিনা। এতে বিশ্বব্যাপী করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৩৩ কোটি ১১ লাখের ঘর। অন্যদিকে মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৫৫ লাখ ৬৩ হাজার।

মঙ্গলবার (১৮ জানুয়ারি) সকালে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত, মৃত্যু ও সুস্থতার হিসাব রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারস থেকে পাওয়া সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৪ হাজার ৯৩২ জন। অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েছে প্রায় এক হাজার। এতে বিশ্বজুড়ে মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে ৫৫ লাখ ৬৩ হাজার ১০৭ জনে।

একই সময়ের মধ্যে ভাইরাসটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১৯ লাখ ২৯ হাজার ১২২ জন। অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় নতুন শনাক্ত রোগীর সংখ্যা কমেছে প্রায় ২ হাজার। এতে মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত ভাইরাসে আক্রান্ত মোট রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৩ কোটি ১১ লাখ ২৭ হাজার ১০৬ জনে।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে করোনায় সবচেয়ে বেশি সংক্রমণের ঘটনা ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রে। এই সময়ের মধ্যে দেশটিতে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লাখ ৩৯ হাজার ৫৫৮ জন এবং মারা গেছেন ৪২৪ জন। করোনাভাইরাসে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এই দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৬ কোটি ৭৪ লাখ ৯৪ হাজার ৯৬৯ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং ৮ লাখ ৭৪ হাজার ২১৩ জন মারা গেছেন।

অন্যদিকে দৈনিক প্রাণহানির তালিকায় শীর্ষে রয়েছে রাশিয়া। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৬৭০ জন এবং নতুন করে করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ৩০ হাজার ৭২৬ জন। এছাড়া মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত দেশটিতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ১ কোটি ৮ লাখ ৩৪ হাজার ২৬০ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৩ লাখ ২১ হাজার ৯৯০ জনের।

এছাড়া গত এক দিনে যুক্তরাজ্যে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৮৪ হাজার ৪২৯ জন এবং মারা গেছেন ৮৫ জন। মহামারির শুরু থেকে এই দেশটিতে এখন পর্যন্ত ১ কোটি ৫৩ লাখ ৫ হাজার ৪১০ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং ১ লাখ ৫২ হাজার ৭৫ জন মারা গেছেন। একই সময়ে ইতালিতে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৮৩ হাজার ৪০৩ জন এবং মারা গেছেন ২৮৭ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় ফ্রান্সে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ২ হাজার ১৪৪ জন এবং মারা গেছেন ২৯৬ জন। মহামারির শুরু থেকে এই দেশটিতে এখন পর্যন্ত ১ কোটি ৪২ লাখ ৭৪ হাজার ৫২৮ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং ১ লাখ ২৭ হাজার ২৬৩ জন মারা গেছেন। একই সময়ে কলম্বিয়ায় নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ২৪ হাজার ২৭২ জন এবং মারা গেছেন ১৩৪ জন।

এছাড়া জার্মানিতে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৫৩ হাজার ৯১৬ জন এবং মারা গেছেন ১৪৩ জন। করোনা মহামারির শুরু থেকে ইউরোপের এই দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৮০ লাখ ৪৫ হাজার ৩৪৮ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং ১ লাখ ১৬ হাজার ৪১১ জন মারা গেছেন। একই সময়ের মধ্যে ইউক্রেনে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৫ হাজার ৭২ জন এবং মারা গেছেন ৭৮ জন।

লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল করোনায় আক্রান্তের দিক থেকে তৃতীয় ও মৃত্যুর সংখ্যায় তালিকার দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১৬২ জন এবং নতুন করে করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ৭৬ হাজার ৩৪৫ জন। অপরদিকে মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত দেশটিতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ২ কোটি ৩০ লাখ ৮৩ হাজার ২৯৭ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৬ লাখ ২১ হাজার ২৬১ জনের।

এদিকে করোনায় আক্রান্তের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে প্রতিবেশী দেশ ভারত। তবে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যার তালিকায় দেশটির অবস্থান তৃতীয়। মহামারির শুরু থেকে দেশটিতে এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্ত ৩ কোটি ৭৬ লাখ ২ হাজার ৮৩২ জন এবং মারা গেছেন ৪ লাখ ৮৬ হাজার ৭৮৪ জন।

এছাড়া করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় তুরস্কে ১৬২ জন, হাঙ্গেরি ২৭০ জন, দক্ষিণ আফ্রিকায় ৮৭ জন, গ্রিসে ১০৩ জন, কানাডায় ১৪৯ জন এবং আর্জেন্টিনায় ১৯১ জন মারা গেছেন। অন্যদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় মেক্সিকোতে মারা গেছেন ৭৬ জন। মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত উত্তর আমেরিকার এই দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ৩ লাখ ১ হাজার ৪১০ জনের।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। এরপর ২০২০ সালের ১১ মার্চ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) করোনাকে বৈশ্বিক মহামারি হিসেবে ঘোষণা করে। এর আগে একই বছরের ২০ জানুয়ারি বিশ্বজুড়ে জরুরি পরিস্থিতি ঘোষণা করে সংস্থাটি।

নিউজ ট্যাগ: করোনাভাইরাস

আরও খবর
করোনায় ১৫ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৪৮২৮

সোমবার ২৪ জানুয়ারী ২০২২




নির্বাচনী সহিংসতায় সারাদেশে প্রাণ গেল ছয়জনের

প্রকাশিত:বুধবার ০৫ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ০৫ জানুয়ারী ২০২২ | ৫৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আগের চার ধাপের মতো পঞ্চম ধাপেও দেশের বিভিন্ন এলাকায় সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। বুধবার (৫ জানুয়ারি) সন্ধ্যা পর্যন্ত পাঁচ জেলায় সহিংসতায় ছয়জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

প্রতিনিধিদের দেওয়া তথ্যমতে, চাঁদপুরে দুইজন এবং মানিকগঞ্জ, চট্টগ্রাম, গাইবান্ধা ও বগুড়ায় ভোটগ্রহণ চলাকালে একজন করে প্রাণ হারিয়েছেন। এছাড়া বিভিন্ন এলাকায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে আহত হয়েছেন বেশ কয়েকজন।

বুধবার সকাল আটটা থেকে বিকাল চারটা পর্যন্ত দেশের ৭০৮টি ইউনিয়ন পরিষদে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এখন চলছে ভোট গণনা।

মানিকগঞ্জ: মানিকগঞ্জের দৌলতপুরের বাচামারা ভোটকেন্দ্রে নির্বাচনী সহিংসতায় ছলেমন খাতুন (৫০) নামে এক নারী নিহত হয়েছেন। দুপুরে উপজেলার বাঁচামারা ইউনিয়নের বাঁচামারা ২ নম্বর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।

শিবালয় সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তানিয়া সুলতানা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলার চাতরী ইউনিয়নের সিংহরা এলাকায় দুই প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের সংঘর্ষের মধ্যে পড়ে এক যুবক নিহত হয়েছেন। দুপুর ১টার দিকে চাতরি ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডে এ ঘটনা ঘটে।

আনোয়ারা থানার পরিদর্শক মাহবুবুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, ওই কেন্দ্রের এক কিলোমিটার দূরে দুই মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকরা মারামারিতে জড়ায়। এ সময় ইট ও লাঠি দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করা হয় অংকুরকে। তাকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে তার মৃত্যু হয়। নিহত ব্যক্তির নাম অংকুর দত্ত (৩৫)।

চাঁদপুর: চাঁদপুরের কচুয়া ও হাইমচরে প্রার্থীদের সমর্থকদের মধ্যে পৃথক সংঘর্ষে দুইজন নিহত হয়েছেন। এরমধ্যে একজন কচুয়ার ও আরেকজন হাইমচরের।

কচুয়া উপজেলার সাচার ইউনিয়নের হাতিরবন্ধ কেন্দ্রের বাইরে ইউপি সদস্যদের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় ছুরিকাঘাতে শরীফ নামে একজন নিহত হন। আরেকজনের মৃত্যু হয় হাইমচর উপজেলার নীলকমল ইউনিয়নের ইশানবালা ৬ নম্বর ওয়ার্ডে। তার নাম এখনো পর্যন্ত জানা যায়নি।

দুজনের মৃত্যুর বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন চাঁদপুরের পুলিশ সুপার মো. মিলন মাহমুদ।

গাইবান্ধা: গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলায় একটি ভোটকেন্দ্রে এক মেম্বর প্রার্থীর সমর্থককে গলা কেটে হত্যার খবর পাওয়া গেছে।  নিহত ব্যক্তির নাম আবু তাহের (৪০)।

বেলা ৩টার দিকে সাঘাটা উপজেলার জুম্মাবাড়ি ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের জুম্মাবাড়ি আদর্শ কলেজ কেন্দ্রের বাইরে এই ঘটনা ঘটে।

গাইবান্ধার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বি সার্কেল) ইলিয়াস জিকো এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বগুড়া: বগুড়ার গাবতলী‌র রা‌মেশ্বরপু‌রে দুই ইউপি সদস্য প্রার্থীর কর্মী-সমর্থক‌দের মধ্যে সংঘ‌র্ষে একজ‌ন নিহত হয়েছেন। নিহত জা‌কির হো‌সেন (৩৫) গাবতলী উপ‌জেলার রা‌মেশ্বরপুর ইউ‌নিয়‌নের জাইগুলি উত্তরপাড়া মৃত লয়া মিয়ার ছে‌লে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে গাবতলী থানার ওসি জিয়া লতিফুল ইসলাম বলেন, প্রতিপক্ষের হামলায় জাকির আহত হলে তাকে হাসপাতালে নেওয়ার পর বিকেল ৩টার দিকে মৃত্যু হয়।


আরও খবর



৪৩তম বিসিএস প্রিলিমিনারির ফল প্রকাশ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২০ জানুয়ারী ২০22 | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২০ জানুয়ারী ২০22 | ৩০৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

৪৩তম বিসিএসের প্রিলিমিনারির ফল প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)। এতে উত্তীর্ণ হয়েছেন ১৫ হাজার ২২৯ জন প্রার্থী। বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে তিনটায় সাড়ে তিনটায় পিএসসির চেয়ারম্যান জরুরি সভা ডাকেন। সভা শেষে ফলাফল প্রকাশ করা হয়।

এই বিসিএসে প্রায় চার লাখ প্রার্থী অংশ নেন। গত বছরের ২৯ অক্টোবর ৪৩তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা ঢাকা, চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল, সিলেট, রংপুর ও ময়মনসিংহ কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হয়।

৪৩তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, এ বিসিএসে বিভিন্ন ক্যাডারে ১ হাজার ৮১৪ জন কর্মকর্তা নেওয়া হবে। এর মধ্যে প্রশাসন ক্যাডারে ৩০০ জন, পুলিশ ক্যাডারে ১০০ জন, পররাষ্ট্র ক্যাডারে ২৫ জন, শিক্ষা ক্যাডারে ৮৪৩ জন, অডিটে ৩৫ জন, তথ্যে ২২ জন, ট্যাক্সে ১৯ জন, কাস্টমসে ১৪ জন ও সমবায়ে ১৯ জন নিয়োগ দেওয়া হবে।


আরও খবর



পার্বত্য শান্তিচুক্তি বাস্তবায়নের কাজ চলছে: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ১২ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১২ জানুয়ারী ২০২২ | ২৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পার্বত্য শান্তিচুক্তি বাস্তবায়নে আওয়ামী লীগ সরকারের যে প্রতিশ্রুতি ছিল সেটি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, ১৯৯৬ সালে আমরা ক্ষমতায় আসার পর শান্তিচুক্তি করেছিলাম। শান্তিচুক্তি বাস্তবায়নে আমাদের একটা প্রতিশ্রুতি ছিল, সেটি পূরণের কাজ চলছে। 

বুধবার সকাল ১০টায় রাজধানীর গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে রাঙ্গামাটির নানিয়ারচরে চেঙ্গী নদীর ওপর নির্মিত পার্বত্য চট্টগ্রামের দীর্ঘতম সেতুর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

একই সময় তিনি কক্সবাজারের বালুখালী থেকে বান্দরবানের ঘুমধুম সীমান্ত সংযোগ সড়কের উদ্বোধন করেন। এ সময় ভিডিও কনফারেন্সে গণভবন থেকে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, সেনাপ্রধান এসএম শফিউদ্দিন আহমেদসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, পার্বত্যাঞ্চলে যোগাযোগের বাধা দূর করা হচ্ছে। সেই সঙ্গে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে সড়ক যোগাযোগের ব্যবস্থা নিচ্ছি।  যেমন এশিয়ান হাইওয়ে ও এশিয়ান রেলওয়ের সঙ্গেও আমরা বাংলাদেশকে সংযুক্ত করার চেষ্টা করছি।  এসকাফ প্রকল্পটা এগিয়ে নিচ্ছি। দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার সঙ্গে বাণিজ্যিক ও অর্থনৈতিক সম্প্রসারণের লক্ষ্যে আমরা যে কাজ করে যাচ্ছি এরই অংশ হিসেবে কক্সবাজারের বালুখালী থেকে বান্দরবানের ঘুমধুম সীমান্ত সংযোগ সড়ক নির্মাণের সিদ্ধান্ত নিই।  সড়কটি এশিয়ান হাইওয়ের একটি অংশ।

তিনি বলেন, ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরে বাংলাদেশে রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ ঘটে। সে কারণে উন্নয়নকাজ কিছুটা ব্যাহত হয়। পরে আমরা সেই কাজ শুরু করি। আমি মনে করি যে নির্ধারিত সময়ে কাজটি সমাপ্ত করা হয়েছে।

তিনি বলেন, নানিয়ারচরে পার্বত্য চট্টগ্রামের সবচেয়ে দীর্ঘতম এই সেতু নির্মাণের ফলে শান্তিচুক্তির বাস্তবায়ন আরও একধাপ এগোলো। এতে করে স্থানীয়দের জীবনযাত্রার উন্নয়ন ও উৎপাদিত পণ্য বাজারজাতকরণে ভূমিকা রাখবে।


আরও খবর